বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

বৃষ্টিমুখর...। মঙ্গলবার গিরিশ পার্কের কাছে তোলা নিজস্ব চিত্র।

আরামবাগে গাড়ির জ্বালানি সাশ্রয়ে সাড়া
ফেলেছে শিক্ষকের আবিষ্কৃত নয়া প্রযুক্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি, আরামবাগ: কম তেল খরচে যাওয়া যাবে দীর্ঘ রাস্তা। শুধু করতে হবে কিছু বদল। বিশেষ প্রযুক্তির সংযোগে একই জ্বালানিতে যাওয়া যাবে অনেক বেশি রাস্তা। শুধু জ্বালানি নয়, ব্যাটারি চালিত গাড়িতেও ব্যবহার করা যাবে এই প্রযুক্তি। বাইক ছাড়াও ব্যবহার করা যাবে চারচাকা, ছ’চাকা ও দশ চাকা গাড়িতেও। এমনই বিশেষ প্রযুক্তি আবিষ্কার করে সাড়া ফেলেছেন আরামবাগের স্কুল শিক্ষক পরিমলকুমার কুণ্ডু। গবেষণার স্বীকৃতিস্বরূপ ২০২১ সালের ডিসেম্বরে পেয়েছেন পেটেন্ট। অঙ্কের শিক্ষক পরিমলবাবুর সাফল্যে উচ্ছ্বসিত তাঁর স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা থেকে সকলেই।
বর্তমানে পেট্রল ১০০ ছাড়িয়েছে। ডিজেলও ১০০ ছুঁইছুঁই। এই পরিস্থিতিতে গাড়ির তেল বাঁচানোর চেষ্টা করছেন কম-বেশি সকলেই। পরিমলবাবুর বিশেষ প্রযুক্তির আবিষ্কারে তাঁদের মুখে হাসি ফুটতে বাধ্য। গাড়ির গিয়ারে বদল ও চেসিসে সামান্য পরিবর্তন ঘটিয়েই অসাধ্য সাধন করেছেন পরিমলবাবু। প্রথাগত গবেষণায় যুক্ত না থেকেও অঙ্কে স্নাতক একজন শিক্ষকের এই উদ্ভাবন যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করা হচ্ছে।
আরামবাগের ছান্দ্রা উচ্চ বিদ্যালয়ের অঙ্কের শিক্ষক পরিমলবাবু। তাঁর বাড়ি খানাকুল-১ ব্লকের গাংপুরে। ১৯৮৪ সালে গৌরহাটি হরদাস ইনসটিটিউশন থেকে তিনি মাধ্যমিক পাশ করেন। আরামবাগ নেতাজি মহাবিদ্যালয় থেকে ১৯৯১ সালে অঙ্কে স্নাতক হন। ছাত্রজীবন থেকে তাঁর আগ্ৰহ ছিল বিশুদ্ধ অঙ্ক ও পদার্থবিদ্যার উপর। সেই বিদ্যাকে অবলম্বন করেই দীর্ঘ গবেষণার পর এই বিশেষ প্রযুক্তির উদ্ভাবন করেন। তার সাফল্য মিললে ২০১৪ সালের মে মাসে তিনি তাঁর গবেষণার পেপার ভারত সরকারের পেটেন্ট অফিসে জমা দেন। ২০২১ সালের ডিসেম্বর মাসে তিনি পেটেন্ট পান। সোমবার পরিমলবাবু বলেন, আমি যেটা করেছি সেটা গাড়ির বিশেষ প্রযুক্তিগত প্রকৌশল নির্মাণ। যা ব্যবহার করে প্রচলিত কোনও গাড়ি চালালে পেট্রল ও ডিজেলের সাশ্রয় হবে। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন, ধরুন কোনও গাড়ি যদি দু’ থেকে তিন লিটার তেলে নির্দিষ্ট লোড নিয়ে ১০ কিলোমিটার দূরত্ব যায়, আমার এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে এক লিটার তেলে ওই একই নির্দিষ্ট লোড নিয়ে ১০ কিমি যাওয়া যাবে। আমার তৈরি বিশেষ প্রযুক্তি ব্যবহার করলে পেট্রল ও ডিজেল ছাড়াও যেকোনও ফুয়েলের সাশ্রয় হবে। ব্যাটারি চালিত গাড়িতেও এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা যাবে। চার চাকা, ছ’চাকা, এমনকী দশচাকা গাড়িতেও অনায়াসে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে তেলের সাশ্রয় হবে। আমার গবেষণামূলক এই আবিষ্কার ভারত সরকারের পেটেন্ট অফিস কর্তৃক ২০২১ সালের ১৭ ডিসেম্বর স্বীকৃতি লাভ করে। আমার আবিষ্কৃত এই পদ্ধতি আগামী ২০বছর পর্যন্ত আমার আইনসম্মত অনুমতি ছাড়া কেউ ব্যবহার করতে পারবেন না। বিষয়টি নিয়ে ভারত সরকারের পেটেন্ট নিয়ন্ত্রক অফিসার অজিত কুমার বলেন, পরিমলকুমার কুণ্ডুকে তাঁর কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ পেটেন্ট দেওয়া হয়েছে। দীর্ঘ পরীক্ষা নিরীক্ষার পরই বিষয়টির ছাড়পত্র দেওয়া হয়েছে।ছান্দ্রা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক প্রসেনজিৎ পাল বলেন, আমাদের সহকর্মী ও ছাত্রছাত্রীদের প্রিয় শিক্ষক পরিমলবাবুর এই স্বীকৃতিতে আমরা আনন্দিত। তাঁর গবেষণা স্বীকৃতি পাওয়ায় আমরা গর্বিত বোধ করছি।
পরিমলকুমার কুণ্ডু। -নিজস্ব চিত্র

18th     January,   2022
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ