বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

সাধারণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে জাতীয় পতাকার রঙের আলোয় সেজেছে জিপিও। ছবি: সায়ন চক্রবর্তী

দু’বছর হাসপাতালে বৃদ্ধা
করোনামুক্ত হলেও
নেয়নি পরিবার

সংবাদদাতা, উলুবেড়িয়া: বাড়ি যাননি কেন? প্রশ্ন শুনে উদাস দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকলেন বছর সত্তরের বৃদ্ধা। কোনও উত্তর দিতে পারেননি। আসলে লজ্জা আর গ্লানি তখন তাঁকে অবশ করে ফেলেছে। করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করে জয়ী হলেও নিজের পরিবারের সদস্যদের মানসিকতার কাছে যে হেরে গিয়েছেন তিনি। বৃদ্ধা কানন রায়। হাসপাতালে ভর্তি হয়ে করোনাকে জয় করলেও পরিবারের সদস্যরা তাঁকে আর বাড়িতে ফিরিয়ে নেয়নি। তাই দুই বছর ধরে তাঁর ঠাঁই উলুবেড়িয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতাল। বর্তমানে বৃদ্ধা হাসপাতালের সামনে তাঁর সংসার পেতেছেন। সোমবার সকালে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পরেই প্রশাসনের উদ্যোগে বৃদ্ধাকে বাড়ি ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।
জানা গিয়েছে, গত বছর করোনা সংক্রমণের শুরুতে করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধা কানন রায়কে ফুলেশ্বরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তী সময়ে বৃদ্ধা করোনা মুক্ত হলেও আত্মীয়রা তাঁকে বাড়ি না নিয়ে যাওয়ায় বেসরকারি হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে উলুবেড়িয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে পাঠানো হয়। এরপর থেকেই বৃদ্ধার ঠাঁই হয়েছিল এই হাসপাতালের একটি ওয়ার্ডে। যদিও দিন ১৫ আগে থেকে তাঁকে দেখা যাচ্ছে হাসপাতালের বাইরে। সেখানে থাকা হকারদের বক্তব্য, হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে খাবার দেয়। এছাড়া আমরাও মাঝেমধ্যে তাঁকে খাবার কিনে দিতাম। আগে সেভাবে কোনও সমস্যা না হলেও ঠান্ডায় বৃদ্ধা ক্রমশঃ কাবু হতে থাকেন। সোমবার সকালে উলুবেড়িয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেল, বাইরের বারান্দায় বসে আছেন তিনি। জিজ্ঞেস করাতে জানান, তাঁর নাম কানন রায়। বাড়ি আন্দুলের চুনাভাটি এলাকায়। বৃদ্ধা প্রসঙ্গে উলুবেড়িয়া সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালের সুপার ডাঃ সন্দীপরঞ্জন কাঁড়ার জানান, বেসরকারি হাসপাতাল থেকে বৃদ্ধাকে এখানে পাঠানোর পর তিনি সুস্থ হয়ে গিয়েছিলেন। কিন্তু বাড়ির লোক তাঁকে না নিয়ে যাওয়ায় তিনি এখানেই থেকে গিয়েছেন। আমরাই হাসপাতাল থেকে তাঁর খাবারের পাশাপাশি ওষুধপত্রের ব্যবস্থাও করছি। তিনি জানান, মানবিক কারণেই বৃদ্ধাকে আমরা হাসপাতালে আশ্রয় দিয়েছি। আমরা চাই পরিবারের লোকজন যেন তাঁকে বাড়ি নিয়ে যায়। এদিকে, হাসপাতালের বাইরে বৃদ্ধার থাকার খবর পেয়ে সোমবার সকালে হাসপাতালে পৌঁছন উলুবেড়িয়া ১ নং ব্লকের বিডিও নীলাদ্রিশেখর দে এবং উলুবেড়িয়া পুরসভার মুখ্য প্রশাসক অভয় দাস। অভয়বাবু জানান, আমরা হাসপাতালের সুপার এবং পুলিসের সঙ্গে কথা বলেছি। অবিলম্বে বৃদ্ধার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁকে বাড়ি পাঠানোর ব্যবস্থা করার কথা বলা হয়েছে।       

30th     November,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021