বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

মেলা শেষে সাগরে শুরু হল স্যানিটাইজেশন 

নিজস্ব প্রতিনিধি, দক্ষিণ ২৪ পরগনা: মেলা শেষ হতেই মন্দির চত্বর সহ অন্যান্য জায়গা জীবাণুমুক্ত করতে নেমে পড়ল জেলা প্রশাসন। সোমবার সকাল থেকেই মন্দির, বাজার, বাসস্ট্যান্ড সহ পুণ্যার্থীদের আশ্রয় নেওয়া বিভিন্ন জায়গা স্যানিটাইজ করা হয়। রবিবার রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে মেলা শেষের ঘোষণা করা হয়েছে। তারপর আর সময় নষ্ট না করে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সাফাই কাজ শুরু করে দেওয়া হয়। জীবাণুমুক্ত করা হয়েছে জেটিঘাট, পর্যটকদের থাকার লজ, হোটেল ইত্যাদিও। করোনা সংক্রমণের কথা মাথায় রেখেই এই অভিযান, জানিয়েছেন আধিকারিকরা। এদিনও সকালে মেলা প্রাঙ্গণে স্থানীয়দের অল্প বিস্তর ভিড় দেখা যায়। মেলা চলাকালে বৃষ্টির কারণে হরেকরকমের সামগ্রী নিয়ে বসা হকারদের ব্যবসা এবার বেশ মার খেয়েছে। তাই বাড়তি কয়েকটা দিন থেকে লোকসানের পরিমাণ কমানোর মরিয়া চেষ্টা করছেন তাঁরা।

ট্রেনের ধাক্কা থেকে বাঁচতে নদীতে ঝাঁপ
যুবকের, ডুবুরি নামিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার
মর্মান্তিক ঘটনা গোবরডাঙায়

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাসত: রেল ব্রিজে বসেই বন্ধুর সঙ্গে আড্ডা মারছিলেন। হঠাৎই একটি ফোন আসায় সিগারেট ধরিয়ে লাইন ধরে হনহন করে হাঁটা দিলেন। কখন যে পিছনে ট্রেন এসে গিয়েছে, টের পাননি। যখন বুঝতে পারেন, তখন ট্রেন কয়েক হাত দূরে। প্রাণে বাঁচতে ব্রিজ থেকেই সটান ঝাঁপ নদীতে। নীচে কুলকুল করে বইছে যমুনা নদী। ট্রেনের চাকা থেকে বাঁচলেও জলের হাত থেকে রেহাই মেলেনি। তলিয়ে যান বছর চব্বিশের যুবক বিশ্বজিৎ সরকার। রবিবার রাতের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোবরডাঙায়। সোমবার শেষ অবধি ডুবুরি নামিয়ে নদী থেকে উদ্ধার করা হয়েছে বিশ্বজিতের নিথর দেহ। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের বাড়ি গোবরডাঙার অখিলপল্লি এলাকায়। এই ঘটনা বাসিন্দাদের সচেতনতাকেই প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়েছে। কারণ, চলতি মাসেই অ঩শোকনগরে রেললাইনে বসে ভিডিও গেম খেলার সময় দুই ছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছিল।
পুলিস ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, রবিবার রাতে দুই বন্ধু বিশ্বজিৎ ও শুভজিৎ আড্ডা মারতে গোবরডাঙা রেল ব্রিজে যান। তাঁরা ওই ব্রিজের উপর বসেই গল্প করছিলেন। এমন সময় মোবাইলে ফোন আসে বিশ্বজিতের। কথা বলতে বলতে লাইন ধরেই এগিয়ে যান তিনি। শুনতে পাননি ট্রেনের আওয়াজও। শেষে ট্রেন দেখে পড়িমড়ি যমুনা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে বাঁচার চেষ্টা করেন। অনেকক্ষণ নদী থেকে না ওঠায় স্থানীয় লোকজনই খবর দেন গোবরডাঙা থানায়। রাতেই নদীর পাড়ে চলে আসেন পুলিস, সিভিল ডিফেন্স ও দমকল বিভাগের কর্মীরা। অন্ধকারের মধ্যেই চলে তল্লাশি। কিন্তু রাতে হদিশ মেলেনি বিশ্বজিতের। সোমবার সকালে পুলিসই নিয়ে আসে ডুবুরিদের। তাঁরাই কচুরিপানার ভিতরে আটকে থাকা দেহটি উদ্ধার করেন। বন্ধু শুভজিৎ বলেন, আমরা রোজই রেল ব্রিজের উপর বসে গল্প করি। সেইদিনও তাই হয়েছিল। বিশ্বজিৎ ফোনে কথা বলতে বলতে রেল ব্রিজের মাঝে চলে যায়। তখন বেশ কিছুটা দূরেই বসেছিলাম আমি। ট্রেন আসছে দেখে চিৎকার করেছিলাম, কিন্তু কানে ফোন থাকায় শুনতে পায়নি। এমনকী, ট্রেনের আওয়াজও কানে যায়নি তাঁর। ট্রেন কাছাকাছি চলে এলে নদীতে ঝাঁপ দেয় বিশ্বজিৎ।
স্থানীয়দের অভিযোগ, সন্ধ্যা নামলেই রেল ব্রিজের উপর কিছু যুবক নেশার আসর বসায়। দীর্ঘদিন ধরেই তা চলছে। প্রশাসন দ্রুত ব্যবস্থা না নিলে ফের বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। প্রসঙ্গত, গত ৯ নভেম্বর অশোকনগরের মানিকনগরের কাঞ্চনপল্লি এলাকায় রেল লাইনের উপর বসে ভিডিও গেম খেলছিল দুই ছাত্র। ট্রেন চলে এলেও গেমের নেশায় বুঁদ সৌভিক দাস (১৬) ও শ্রীপণ দে (১৮) তা লক্ষ্য করেনি। শেষে ডাউন ঠাকুরনগর লোকালের ধাক্কায় মর্মান্তিক মৃত্যু হয় তাদের। ওই ঘটনার পরেও মানুষের হুঁশ ফেরেনি। এখনও হাবড়া থেকে বনগাঁ— রেল লাইনের উপর বিভিন্ন জায়গায় সন্ধ্যা নামলেই ঢল নামে যুবকদের। তারা কেউ নিছক আড্ডা মারে, কেউ বা গান শোনে, কেউ আবার ফোনে কথা বলে। রেল পুলিস জানিয়েছে, মানুষের সচেতনতা বাড়াতে লাগাতার প্রচার চালানো হচ্ছে। 

30th     November,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021