বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

আশীর্বাদ নিতে প্রয়াত তৃণমূল বিধায়কের
বাড়িতে বিজেপি প্রার্থী, সৌজন্য বিনিময়

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর: বিধানসভা নির্বাচনে জিতেও নিজের জয় দেখে যেতে পারেননি খড়দহের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা কাজল সিনহা। তাঁর অকাল মৃত্যুর জেরে কৃষিমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়কে খড়দহের উপনির্বাচনে প্রার্থী করা হয়েছে। প্রচার জমিয়েই শুরু করে দিয়েছেন শোভনদেববাবু। তারই মধ্যে রবিবার প্রচারে বেরিয়ে আচমকা কাজলবাবুর বাড়িতে হাজির হন বিজেপি প্রার্থী জয় সাহা। তিনি কাজলবাবুর ছবিতে মালা দিয়ে তাঁর স্ত্রী নন্দিতা সিনহাকে প্রণামও করেন। তাঁর কাছে ‘স্বপ্নপূরণে’র আশীর্বাদও চান। নন্দিতাদেবীও সৌজন্য দেখিয়ে তাঁকে আশীর্বাদ করেন।
প্রসঙ্গত, ২২ এপ্রিল ষষ্ঠ দফায় খড়দহ কেন্দ্রের ভোট ছিল। কিন্তু, করোনায় আক্রান্ত হয়ে তার আগের দিনই বেলেঘাটা আইডিতে ভর্তি হন তৃণমূল প্রার্থী কাজল সিনহা। ২৫ এপ্রিল ওই হাসপাতালেই তাঁর মৃত্যু হয়। এই কেন্দ্রে কাজলবাবু বিজেপি প্রার্থীকে পরাজিত করেন। তাঁদের জয়ের ব্যবধান ছিল ২৮,১৪০ ভোটের। মুখ্যমন্ত্রী ভবানীপুরে প্রার্থী হওয়ার পরই শোভনদেববাবুকে এই কেন্দ্রে প্রার্থী করার পরিকল্পনা করেন দলনেত্রী। এদিন সকালে শোভনদেববাবু খড়দহের কয়েকটি জায়গায় পথসভা এবং জনসংযোগ করেন। ছিলেন কাজলবাবুর স্ত্রী নন্দিতা সিনহা, দমদমের সাংসদ সৌগত রায় প্রমুখ। কাজলবাবুর মৃত্যুর পর নন্দিতাদেবীকে খড়দহ বিধানসভা মহিলা তৃণমূলের সভানেত্রী করা হয়। এদিনই শান্তিনগরে বাড়ি বাড়ি প্রচারে যান বিজেপি প্রার্থী। তখনই তিনি যান কাজল সিনহার বাড়িতে। নন্দিতাদেবীকে প্রণাম করে জয় সাহা বলেন, ‘আমি ডোর টু ডোর প্রচারে বেরিয়েছিলাম। ইচ্ছে ছিল, কাজলবাবুর ছবিতে মালা দেব।’ মালা দিয়ে জয় সাহা করজোড়ে তাঁকে বলেন, ‘আশীর্বাদ করবেন, ওঁর অনেক স্বপ্ন আমি যেন পূরণ করতে পারি’। তখন নন্দিতাদেবী বলেন, ‘অবশ্যই, আশীর্বাদ করছি, তুমি যেন ওঁর স্বপ্নগুলো পূরণ করতে পারো।’ পরে নন্দিতা সিনহা সাংবাদিকদের বলেন, আমরা কাউকে বলতে পারি না— আমাদের বাড়িতে আপনি আসবেন না। আমার স্বামীর ছবিতে মালা দিও না। যেকোনও দলের কেউ এলে তাঁকে আপ্যায়ন করা আমাদের কর্তব্য। এটা আমাদের দিদির শিক্ষা। শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ও এদিন বলেন, প্রার্থী নিজের দায়িত্ব পালন করেছেন। আমি মে মাসে খড়দহ এসেই নন্দিতার কাছে গিয়েছিলাম। ওঁর পাশে আমরা রয়েছি। তিনি ইতিমধ্যে একটা দায়িত্বও পেয়েছেন। কাজলের বাড়িতে জয় সাহা গিয়ে কোনও অন্যায় করেননি। বিজেপি প্রার্থীকে আশীর্বাদ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নন্দিতা আমাদের দলের নেত্রী। তিনি তাঁর সুস্থতার আশীর্বাদ করতেই পারেন। কিন্তু, জয়ী হওয়ার কথা নিশ্চয় বলবেন না।

18th     October,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021