বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

সব ঘাটে ক্রেন না থাকায় বাড়ছে দূষণ
কোন্নগরে এবারও পরিবেশবান্ধব বিসর্জনের ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিনিধি, চুঁচুড়া: পরিবেশ বান্ধব প্রতিমা বিসর্জনের ব্যবস্থা এবারও করেছে কোন্নগর পুরসভা। প্রতিমা বিসর্জন থেকে গঙ্গার দূষণ আটকানোর জন্য গত ছয় বছর ধরে বিশেষ ব্যবস্থা চলছে কোন্নগরের লোকনাথ ঘাটে। গঙ্গার জলে না ফেলে প্রতিমা বিসর্জন করার বিকল্প ব্যবস্থা থাকে এখানে। প্রতিমা ঘাট সংলগ্ন একটি নির্দিষ্ট জায়গায় রাখা হয়। গঙ্গার জল পাম্প করে এনে পাইপের সাহায্যে প্রতিমার উপর ফেলা হয়। কলকাতা পুরসভা এবার দইঘাটে প্রতিমা নিরঞ্জনের এই ব্যবস্থা রেখেছিল। 
কোন্নগর পুরসভার চেয়ারম্যান থাকার সময় বাপ্পাদিত্য চট্টোপাধ্যায় সেখানে এই ব্যবস্থাটি চালু করেছিলেন। প্রশাসকমণ্ডলীর প্রধানের পদ সরে গেলেও এবারও বিজয়া দশমী ও একাদশীর দিন নিজে থেকে প্রতিমা বিসর্জনের দেখভাল করেছেন তিনি। বিকল্প পদ্ধতিতে প্রতিমা বিসর্জন করা অবশ্য বাধ্যতামূলক নয়। বাপ্পাদিত্যবাবু জানালেন, এভাবে প্রতিমা বিসর্জন করার সংখ্যা বাড়ছে। প্রথম যেবার চালু হয়েছিল, সেবার মাত্র একটি প্রতিমার বিসর্জন হয়েছিল এই পদ্ধতিতে। গত বার ৫৩টি হয়েছিল। এবার দু’দিনে সংখ্যাটি ৫৪ ছুঁয়েছে। সংখ্যা আরও বাড়বে, এমন সম্ভাবনা রয়েছে। তবে বেশিরভাগ প্রতিমা এখনও এখানে প্রথা মাফিক গঙ্গার জলে ফেলেই বিসর্জন দেওয়া হয়। সেই সংখ্যা এবার প্রথম দু’দিনে প্রায় দেড়শ বলে তিনি জানিয়েছেন। পরিবেশ বান্ধব ব্যবস্থায় প্রতিমা বিসর্জন দেওয়া হলে কোন্নগর পুরসভা তার স্বীকৃতি হিসেবে সার্টিফিকেট দেয়। 
নদী ও পরিবেশ বিশেষজ্ঞদের মতে, প্রতিমা বিসর্জন করা থেকে জলে দূষণের আশঙ্কা থাকে। প্রতিমার রং ও তার বস্ত্র এবং বিভিন্ন সরঞ্জামে রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়। ওই রাসায়নিক মিশে জল দূষিত হয়। তাই ঘাটে প্রতিমা রেখে তার উপর জল ঢেলে বিসর্জনের ব্যবস্থা করতে পারলে সেটি পরিবেশবান্ধব হয়। বাপ্পাদিত্যবাবু মনে করেন, সরকারের এব্যাপারে আরও কড়া হওয়া উচিত। বিকল্প ব্যবস্থায় প্রতিমা বিসর্জন করতে বাধ্য করাও যায়। বিশেষ করে যে সর্বজনীন পুজো কমিটিগুলি সরকারের কাছ থেকে অনুদান পাচ্ছে, তাদের ক্ষেত্রে এটা আবশ্যিক শর্ত করাই যায়। প্রতিমা জলে ফেলে বিসর্জন দিলে তার জন্য বিশেষ চার্জ আদায় করা হলেও এটা কমতে শুরু করবে বলে তিনি মনে করেন। কোন্নগরের গঙ্গার ঘাটে প্রতিমা বিসর্জন ব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত এক আধিকারিকের কথায়, দেবী দুর্গাও মা, আবার গঙ্গাও আমাদের কাছে মা। তাহলে আমার এক মা-র জন্য কেন অন্য মায়ের ক্ষতি করব? 
এদিকে, জেলার অন্য পুরসভা এলাকাগুলিতেও গঙ্গার ঘাটে প্রতিমা বিসর্জনের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা করা হয়েছে। চুঁচুড়া-হুগলি-ব্যান্ডেলের বেশিরভাগ প্রতিমার বিসর্জন হয় অন্নপূর্ণা ঘাটে। সেখানে পুরসভার তরফে একটি বড় ক্রেন রাখা হয়েছে। প্রতিমা জলে ফেলার প্রায় সঙ্গে সঙ্গে ক্রেনের সাহায্যে তুলে এনে রাখা হচ্ছে। কিন্তু চুঁচুড়া সহ হুগলি পুর এলাকার অন্যান্য অনেক বিসর্জনের জন্য নির্ধারিত গঙ্গার ঘাটে ক্রেনের এরকম ব্যবস্থা নেই। হাত লাগিয়ে প্রতিমার কাঠামো তোলা হচ্ছে। এতে সময় বেশি লাগছে। অনেক সময় রাতের মধ্যে সব কাঠামো জল থেকে তোলা সম্ভবও হচ্ছে না। বেশি সময় কাঠামো জলে পড়ে থাকায় দূষণের মাত্রাও বাড়ছে।

18th     October,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021