বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

৫ দিনে ২২৫ কিমি সাঁতরে ফরাক্কা থেকে বৈদ্যবাটি
গতিপথ জানাল আড়াইশো গ্রাম ইলিশের জিও ট্যাগিং

অলকাভ নিয়োগী, বারাকপুর: বাঙালির ইলিশ প্রীতি চিরকালের। রসনাতৃপ্তির প্রিয় পদ। গঙ্গার ইলিশ মানে স্বাদের ‘অমৃতভাণ্ডার’। কিন্তু, গঙ্গায় ক্রমশ কমে যাচ্ছে ইলিশের জোগান। তাই উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি, ওজন ও গতিপথ জানতে ইলিশের ট্যাগিং শুরু করেছিল বারাকপুরের আইসিএআর-সেন্ট্রাল ইনল্যান্ড ফিশারি রিসার্চ ইনস্টিটিউট তথা সিফরি। সেই ট্যাগিংয়ে এবার সাফল্য পেল এই কেন্দ্রীয় মৎস্য গবেষণা সংস্থা। ফরাক্কায় ট্যাগিং হওয়া একটি খোকা ইলিশ হুগলির বৈদ্যবাটিতে এক মৎস্যজীবীর জালে ধরা পড়েছে। সেই ট্যাগ দেখে গবেষকরা জানতে পেরেছেন, পাঁচদিনেরও কম সময়ে ২২৫ কিলোমিটার সাঁতরে ২৫০ গ্রাম ওজনের ওই ইলিশ ফরাক্কা থেকে বৈদ্যবাটিতে এসে পৌঁছেছে। এই দীর্ঘপথ অতিক্রম করতে গিয়ে তার ৩৪ গ্রাম ওজন হ্রাস পেয়েছে।
সিফরি সূত্রে জানা গিয়েছে, গত কয়েক বছরে গঙ্গায় ইলিশের জোগান কমেছে। আগে ফরাক্কা ব্যারাজের উপরের দিকে অর্থাৎ আপ-স্ট্রিমে বিহারের সাহেবগঞ্জ, উত্তরপ্রদেশের বারাণসী, এমনকী এলাহাবাদ পর্যন্ত ইলিশ পাওয়া যেত। এ রাজ্যে সবচেয়ে বেশি ইলিশ মিলত ডাউন-স্ট্রিমে। কিন্তু, বর্তমানে উভয়দিকেই ইলিশের জোগান কমেছে। বিহারে হাতে গোনা ইলিশ মিললেও এলাহাবাদে দেখা মেলা দূরঅস্ত। উৎপাদন বাড়াতে ২০২৩ সাল পর্যন্ত গঙ্গায় ইলিশের জোগান বৃদ্ধির প্রকল্প হাতে নিয়েছে সিফরি। বড় ইলিশ ব্রিডিং করে আপ ও ডাউন স্ট্রিমে ছাড়ছে তারা। পশ্চিমবঙ্গ, বিহার ও উত্তরপ্রদেশে সব মিলিয়ে দফায় দফায় ৩০ হাজার ইলিশের চারা ছাড়ার কথা। এর সঙ্গেই ইলিশের গায়ে ট্যাগিং করা হচ্ছে ফরাক্কায়। তিমি সহ বিভিন্ন প্রাণী ও সামুদ্রিক মাছেও রেডিও বা জিওলজিক্যাল ট্যাগিং করা হয়। ইলিশের পিঠের মাংসপেশিতে ম্যানুয়াল ট্যাগিং করা হচ্ছে। যা এক ধরনের প্লাস্টিক প্যাক।
ইতিমধ্যেই এই ট্যাগিংয়ের ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের গঙ্গাপাড়ের মৎস্যজীবীদের অবগত করা হয়েছে। তাঁদের জালে ট্যাগিং করা ইলিশ ধরা পড়লেই তাঁরা যেন সিফরি কর্তৃপক্ষকে খবর দেন। তাহলেই বোঝা যাবে, ট্যাগিং করার পর ইলিশ কতদিনে কতদূর পর্যন্ত সাঁতার কেটে গিয়েছে। যেহেতু ওজন করে ট্যাগিং করা হয়। তাই ধরা পড়ার পর ওজন করলে মাছের বৃদ্ধি ও হ্রাসের বিষয়টিও জানা যায়। ট্যাগিংয়ে একটি নম্বর থাকে। তা দিয়েই মাছটিকে চিহ্নিত করা হয়।
বারাকপুরের আইসিএআর-সেন্ট্রাল ইনল্যান্ড ফিশারি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের ডিরেক্টর ডঃ বসন্তকুমার দাস জানিয়েছেন, ২৫০ গ্রাম ওজনের ইলিশের গায়ে ট্যাগিং করা হচ্ছে। গত ১ অক্টোবর রাত ৮টা নাগাদ যে ইলিশের গায়ে ট্যাগ লাগিয়ে ফরাক্কায় ছাড়া হয়েছিল, সেই মাছটি গত ৬ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা নাগাদ হুগলির বৈদ্যবাটির নিমাইতীর্থ ঘাটে এক স্থানীয় মৎস্যজীবীর জালে উঠেছে। ট্যাগটি অক্ষত অবস্থায় ছিল। ২২৫ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করতে ৪ দিন ২১ ঘণ্টার সময় লেগেছে মাছটির। এটা গবেষণার ক্ষেত্রে খুবই গুরুত্বপূর্ণ তথ্য।

18th     October,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021