বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

টাকা দিতে হবে, নগরপালের
ছবি লাগিয়ে হুমকি

শুভ্র চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা: ভুয়ো আইএএস, আইপিএসের পর এবার হোয়াটসঅ্যাপের ডিপিতে কলকাতার পুলিস কমিশনারের ছবি লাগিয়ে ডেটিং সাইটের মাধ্যমে হুমকি ফোন করে তোলাবাজির অভিযোগ উঠেছে। পাশাপাশি কলকাতা পুলিসের এক ইনসপেক্টরের নাম ব্যবহার করে ডেটিং সাইটে ঢুকে বিভিন্ন ব্যক্তিকে ভয় দেখানো হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত শুরু করেছে লালবাজার। হোয়াটসঅ্যাপের ডিপিতে পুলিস কমিশনারের ছবি ব্যবহার করে এই ঘটনা ঘটায় উদ্বেগ বেড়েছে পুলিস মহলে। 
কীভাবে জানা গেল বিষয়টি? পুলিস সূত্রে খবর, গরফার এক তরুণ গত ১৯ জুলাই প্লে-স্টোর থেকে একটি ডেটিং সাইটের অ্যাপ ডাউনলোড করেন। এরপর তাঁকে ডেটিংয়ের জন্য বেশ কয়েকজন তরুণীর ছবি ও ফোন নম্বর পাঠানো হয়। তা দেখে ওই তরুণ এক তরুণীকে ফোন করে বসেন। তাঁকে হোয়াটসঅ্যাপের ভিডিও কলে আসতে বলা হয়। উৎসাহিত হয়ে তিনি ভিডিও কল করেন। দু’-এক কথার পর শুরু হয় সেক্স চ্যাট। তরুণীর উত্তেজক কিছু ছবি দেখতে চান অভিযোগকারী। সেই চ্যাটের স্ক্রিন শট তুলে রাখেন ওই তরুণী। কিছুক্ষণ পর ওই তরুণের ধারণা হয় তিনি ফাঁদে পা দিয়েছেন। বন্ধুদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বললে, তাঁরা বলেন, সেক্স চ্যাটের আড়ালে কোনও চক্র তাঁকে ব্ল্যাকমেল করতে পারে। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ওই অ্যাপটি ডিলিট করে দেন। যাতে কোনওভাবে কেউ তাঁর সঙ্গে আর যোগাযোগ করতে না পারে।
জুলাই মাসের শেষ দিকে আচমকাই একটি অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন আসে ওই তরুণের মোবাইলে। বলা হয়, তিনি ভিডিও কলে নগ্নতার পাশাপাশি সেক্স চ্যাট করেছেন। তাই তাঁকে গ্রেপ্তার করা হবে। ওই অপরিচিত নম্বরের হোয়াটসঅ্যাপের ডিপিতে দেখা যায় পুলিস কমিশনার সৌমেন মিত্রের ছবি রয়েছে। যা দেখে ঘাবড়ে যান ওই তরুণ। ওই ফোন যে পুলিসের তরফেই করা হয়েছে, সেই ধারণা বদ্ধমূল হয় তাঁর। কিছুক্ষণ পরেই আবার ফোন পান তিনি। যিনি ফোন করেছিলেন, তিনি নিজেকে কলকাতা পুলিসের ইনসপেক্টর বলে পরিচয় দেন। ধমকের সুরে বলেন, যে ভিডিও আপলোড করা হয়েছে, তা ডিলিট করতে হবে। ওই ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। এখানেই খটকা লাগে অভিযোগকারীর। কারণ, তিনি কোনও ভিডিও আপলোড করেননি। তিনি ওই ‘ইনসপেক্টর’কে তা বোঝানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে সন্তুষ্ট না হয়ে উল্টোদিক থেকে বলা হয়, এখনই আপনাকে গ্রেপ্তার করা হবে। একথা শুনে অভিযোগকারী রফায় আসেন তাঁর সঙ্গে। বলা হয়, টাকা দিলে গ্রেপ্তারি এড়ানো যাবে। এরপর তাঁর আধার কার্ডের নম্বর চাওয়া হয়। হুমকি ফোনে টাকা চাওয়ায় সন্দেহ দৃঢ় হয় তরুণের। এরপর স্থানীয় থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করলে একাধিক ধারায় মামলা রুজু হয়। কলকাতা পুলিসের কমিশনার ও ইনসপেক্টরের নাম করে টাকা চাওয়া, জালিয়াতির ঘটনা সামনে আসায় নড়েচড়ে বসেছে লালবাজার। তদন্তে নেমে অফিসারদের অনুমান, বাইরের কোনও গ্যাং ডেটিং সাইট খুলে পুলিস অফিসারদের ছবিকে কাজে লাগিয়ে তোলাবাজি চালাচ্ছে।

4th     August,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021