বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

 
জল-ছবি ​​​​

ভারী বর্ষণের পর দু’দিন কেটে গেলেও জল নামেনি বহু এলাকায়। ১) সন্তোষপুরের লেক ইস্ট রোডে এখনও জলমগ্ন। ২) টিকিয়াপাড়া কারশেডের কাছে ডুবে গিয়েছে লাইন। তার উপর দিয়েই চলছে রেল ইঞ্জিন। ৩) জল থই থই গল্ফগ্রিনের রাস্তা। ৪) বেহালার সত্যজিৎ পার্কে চলছে নৌকা। শুক্রবার তোলা নিজস্ব চিত্র।

লকডাউনের আতঙ্কে ভুগছে বনগাঁ 
ও বাগদার পরিযায়ী শ্রমিক পরিবার

সংবাদদাতা, বনগাঁ: বাড়ির উঠোনে বেড়া দিয়ে ঘেরা ছোট্ট ঘর। সেখানে রান্না করছিলেন গৃহবধূ দীপালি সর্দার। পাশের মাটির ঘরের নিকনো বারান্দায় রাখা ফোন হঠাৎই বেজে উঠল। রান্না ফেলে দৌড়ে গিয়ে ফোনটি ধরলেন। মুহূর্তে গৃহবধূর মুখে আতঙ্কের ছাপ ফুটে উঠল। জানালেন, মাস চারেক হল কেরলে রাজমিস্ত্রির সেন্টারিংয়ের কাজে গিয়েছেন স্বামী। করোনার কারণে কাজ বন্ধ হয়ে গিয়েছে। বাড়ি ফিরতে হবে। এখন তো ট্রেনও বন্ধ ফিরবেই বা কী করে? কপালে চিন্তার ভাঁজ গৃহবধূর। কাজে গিয়ে স্বামী টাকাপয়সা যা পাঠাচ্ছিলেন তাতে একমাত্র মেয়েকে নিয়ে সংসারটা চলছিল কোনওমতে। কাজ বন্ধ হওয়ায় এখন চলবে কী করে! শুধু দীপালি সর্দার নন। করোনাকালে একই চিন্তা বনগাঁ-বাগদার বহু পরিযায়ী শ্রমিক পরিবারের। শুধু সংসার চালানোর চিন্তা নয়। হঠাৎ যদি লকডাউন হয়ে যায় ঘরের ছেলে ঘরে ফিরবেন কী করে?
বনগাঁ ও বাগদার বহু বাসিন্দা কাজের খোঁজে ভিন রাজ্য বা ভিন রাষ্ট্রে পাড়ি দেন। গতবছর করোনার প্রথম ঢেউতে লকডাউন থাকায় কাজ হারিয়ে বাড়ি ফিরতে হয় তাঁদের। সমস্ত পরিবহণ বন্ধ থাকায় সরকারের উদ্যোগে বাড়ি ফেরেন তাঁরা। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলে আবারও ভিন রাজ্যে চলে যান কাজের খোঁজে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ ভয়ঙ্কর আকার ধারণ করায় আবারও লকডাউনের সিঁদুরে মেঘের আশঙ্কা করছেন ভিন রাজ্যে কাজে যাওয়া শ্রমিকরা ও তাঁদের পরিবারের লোকেরা। দেশজুড়ে লকডাউন হলে কাজ হারাতে হবে শ্রমিকদের। কী করে সংসার চলবে সেটাই একমাত্ৰ চিন্তার তাঁদের। বাগদার আইসমালির বাসিন্দা মিন্টু মণ্ডল দুবাইতে কাজে গিয়েছেন। এরাজ্যে আংশিক লকডাউন ঘোষণা হওয়ায় উদ্বিগ্ন তাঁর আত্মীয়রা। তাঁর আত্মীয় কবীর মণ্ডল বলেন, এরাজ্যে করোনা পরিস্থিতির কারণে শ্যালকের সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করি। তবে, ওখানকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক বলে জানায় সে। বাগদার সাগরপুর, বৈকলা, মালিপোতা প্রভৃতি এলাকার বহু মানুষ কাজের কারণে ভিন রাজ্যে রয়েছেন। বনগাঁর এরোপোতা গ্রামের আলপিন মণ্ডল, আলাউদ্দিন মণ্ডল, বাপি মণ্ডলরা কাজের জন্য পাড়ি দিয়েছেন ভিন রাজ্যে। গতবারের লোকডাউনে ঘরের ছেলেদের বাড়ি ফেরার লড়াইয়ের কথা ভেবেই আতঙ্কিত পরিবারের লোকেরা। বাগদা পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি গোপা রায় বলেন, গতবার মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগে সকলেই বাড়ি ফিরে এসেছিলেন। অনেকেই নিজ নিজ এলাকায় ব্যবসাপত্তর শুরু করেছেন। তাঁর আশ্বাস, আবারও তেমন পরিস্থিতি হলে সরকার শ্রমিকদের পাশে অবশ্যই থাকবে। 

13th     May,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
31st     May,   2021
30th     May,   2021