বর্তমান পত্রিকা : Bartaman Patrika | West Bengal's frontliner Newspaper | Latest Bengali News, এই মুহূর্তে বাংলা খবর
কলকাতা
 

শিল্পাঞ্চল ও গ্রামীণে একঝাঁক নতুন মুখ,
প্রার্থী তালিকায় চমক তৃণমূলের 

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারাকপুর ও বারাসত: খড়দহ থেকে বারাকপুর, বারাসত থেকে বনগাঁ, সঙ্গে বসিরহাট। আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার শিল্পাঞ্চল ও গ্রামীণ এলাকায় একঝাঁক নতুন মুখকে প্রার্থী করে বিরোধীদের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিল তৃণমূল কংগ্রেস। এই তালিকায় চিত্র পরিচালক, সঙ্গীত শিল্পী, চিকিৎসক যেমন রয়েছেন, তেমনই দলের পুরনো মুখের সঙ্গে একাধিক নতুন মুখের লড়াকু নেতাদের এবার প্রার্থী করা হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই শুক্রবার তৃণমূল সুপ্রিমো প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর জেলার একাধিক জায়গায় উচ্ছ্বাসের ছবি ধরা পড়েছে। রং-তুলি হাতে বিকেল থেকেই শুরু হয়েছে দেওয়াল লিখনের কাজ। একাধিক প্রার্থীও দেওয়ালে এঁকেছেন জোড়াফুলের চিহ্ন।
উত্তর ২৪ পরগনা জেলায় মোট ৩৩টি আসন রয়েছে। তার মধ্যে প্রায় ১১টি আসনে এবার নতুন মুখ এনেছে তৃণমূল। তৃণমূলের দু’বারের বিধায়ক তথা রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্রকে সরিয়ে এবার খড়দহ আসনে প্রার্থী করা হয়েছে পুর প্রশাসক তথা লড়াকু নেতা কাজল সিনহাকে। বারাকপুরের দু’বারের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। সেই জায়গায় এবার চিত্র পরিচালক রাজ চক্রবর্তীকে প্রার্থী করেছে তৃণমূল। অর্জুনের গড়ে ঘাসফুল ফোটাতে বীজপুর ও জগদ্দল আসনেও নতুন মুখ এনেছে শাসকদল। বীজপুরে সুবোধ অধিকারী এবং জগদ্দলে সোমনাথ শ্যামকে প্রার্থী করা হয়েছে। সুবোধবাবু দলের বীজপুর বিধানসভার এবং সোমনাথবাবু ভাটপাড়া বিধানসভার চেয়ারম্যান পদে রয়েছেন। জগদ্দলের বিধায়ক পরশ দত্তকে এবার আর টিকিট দেয়নি দল।
ভাটপাড়া আসনে প্রার্থী হয়েছেন জিতেন্দ্র সাউ। তিনি গতবার নির্দল প্রার্থী ছিলেন। নোয়াপাড়া আসনে তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক মঞ্জু বসুকেই পুনরায় প্রার্থী করা হয়েছে। একইভাবে কামারহাটিতেও প্রাক্তন মন্ত্রী মদন মিত্রের উপরেই ভরসা রেখেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি এবারও কামারহাটির প্রার্থী। নৈহাটিতে পার্থ ভৌমিক, পানিহাটিতে নির্মল ঘোষ ও বরানগরে তাপস রায়কে পুনরায় প্রার্থী করা হয়েছে। রাজারহাট-গোপালপুরে জনপ্রিয় সঙ্গীত শিল্পী অদিতি মুন্সিকে প্রার্থী করে চমক দিয়েছে দল।
বারাসত, বনগাঁ ও বসিরহাট মহকুমার মোট ১৮টি আসনের মধ্যে ছ’টি আসনে নতুন মুখ নিয়ে আসা হয়েছে। আমডাঙায় দু’বারের তৃণমূল বিধায়ক রফিকুর রহমানকে এবার টিকিট দেওয়া হয়নি। ওই আসনে ফরওয়ার্ড ব্লকের প্রাক্তন বিধায়ক তথা প্রাক্তন মন্ত্রী ডাঃ মোর্তাজা হোসেনকে প্রার্থী করেছে ঘাসফুল শিবির। তবে প্রার্থী নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করে আমডাঙায় তৃণমূলের কয়েকজন পথ অবরোধ করেন। বনগাঁ দক্ষিণের দু’বারের বিধায়ক সুরজিৎ বিশ্বাসের বয়স ৮০ পেরিয়ে যাওয়ায় তাঁর পরিবর্তে তৃণমূলের এসসি সেলের নেত্রী আলোরানি সরকারকে প্রার্থী করা হয়েছে। একইভাবে গাইঘাটার বিধায়ক পুলিনবিহারী রায়ও ৮০ ঊর্ধ্ব হওয়ায় তাঁর জায়গায় মতুয়া সমাজের প্রতিনিধি নরোত্তম বিশ্বাসকে প্রার্থী করা হয়েছে। বাগদায় জেলা পরিষদ সদস্য পরিতোষকুমার সাহাকে প্রার্থী করা হয়েছে। বনগাঁ উত্তরের তৃণমূল বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাস বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় জেলা পরিষদ সদস্য শ্যামল রায়কে প্রার্থী করা হয়েছে।
তৃণমূলের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার সভাপতি তথা মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এবারও হাবড়া থেকেই লড়ছেন। অভিনেতা তথা বারাসতের দু’বারের বিধায়ক চিরঞ্জিতের উপরেই ভরসা রেখেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। বসিরহাট মহকুমায় শুধুমাত্র বসিরহাট দক্ষিণের বিধায়ক তথা প্রাক্তন ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসকে এবার প্রার্থী করা হয়নি। ওই জায়গায় বিশিষ্ট চিকিৎসক সপ্তর্ষী বন্দ্যোপাধ্যায়কে প্রার্থী করা হয়েছে। সিপিএম থেকে আসা রফিকুল ইসলাম মণ্ডলকে বসিরহাট উত্তরে প্রার্থী করা হয়েছে। একইভাবে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেওয়া বাদুড়িয়ার বিধায়ক আব্দুল রহিম কাজিকে ওই কেন্দ্রে প্রার্থী করা হয়েছে। 

6th     March,   2021
 
 
রাজ্য
 
দেশ
 
বিদেশ
 
খেলা
 
বিনোদন
 
আজকের দিনে
 
রাশিফল ও প্রতিকার
কিংবদন্তী গৌতম
এখনকার দর
দিন পঞ্জিকা
 
শরীর ও স্বাস্থ্য
 
বিশেষ নিবন্ধ
 
সিনেমা
 
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 
হরিপদ
 
13th     April,   2021