শরীর ও স্বাস্থ্য

ব্যাকটেরিয়া 
যখন  উপকারী

জানালেন সুরক্ষা ডায়াগনস্টিক সেন্টার গোষ্ঠীর ল্যাবরেটরি ডিরেক্টর ডাঃ অভিরূপ সরকার।

মানব শরীরের মোটামুটি তিনটি জায়গায় বাস করে উপকারী ব্যাকটেরিয়া। এই জায়গাগুলি হল ত্বক, অন্ত্র এবং মুখগহ্বর। তবে সবচাইতে বেশি কথা বলা দরকার অন্ত্রের ব্যাকটেরিয়া নিয়ে। কারণ অন্ত্রে ভালো ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বাড়লে তার প্রভাব সমগ্র শরীরেই পড়ে।
অন্ত্রের উপকারী ব্যাকটেরিয়া: পাচকতন্ত্রে একাধিক ধরনের উপকারী ব্যাকটেরিয়া থাকে। তবে অতিপরিচিত উপকারী ব্যাকটেরিয়া হল ল্যাকটোব্যাসিলাস। দই, চিজ-এর মতো খাদ্যে থাকে এই ধরনের ব্যাকটেরিয়া। ল্যাকটোব্যাসিলাস ছাড়াও অন্ত্রে বাস করা উপকারী ব্যাকটেরিয়ার মধ্যে রয়েছে বিফিডোব্যাকটেরিয়াম। ইয়োগার্ট, ছাঁচ, কিছু ভিনিগারেও বিফিডোব্যাকটেরিয়াম থাকে। এই ধরনের ব্যাকটেরিয়াগুলি খাদ্য হজমে সাহায্য করে। কনস্টিপেশন রোধ করে। পেট খারাপ হওয়ার প্রতিরোধ করে। তাই প্রাথমিকভাবে পেট খারাপ হলে বুঝতে হয় অন্ত্রে খারাপ ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যার বৃদ্ধি ঘটেছে। এক্ষেত্রে দই, ইয়োগার্ট ইত্যাদি খাদ্য তালিকায় রাখলে উপকার মিলবে। আবার অ্যান্টিবায়োটিক খেলে অনেকের পেট গণ্ডগোল হয়। কারণ অ্যান্টিবায়োটিক দেহের খারাপ ব্যাকটেরিয়ার সঙ্গে ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলিকেও মেরে ফেলে। ফলে খাদ্য হজম হতে চায় না। এই কারণে চিকিৎসকরা এখন রোগীকে অ্যান্টিবায়োটিক দিলে তার সঙ্গে প্রোবায়োটিক সেবনেরও পরামর্শ দিচ্ছেন।
ফিরে আসি ভালো ব্যাকটেরিয়ার অন্যান্য কাজে। উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি কিছু ভিটামিন তৈরি করতেও সাহায্য করে। উদাহরণ হিসেবে ভিটামিন কে-এর কথা বলা যায়। এমনকী কিছু নির্দিষ্ট পুষ্টি উপাদানের শোষণেও সাহায্য করে ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলি। আবার রোগ প্রতিরোধে সাহায্যকারী বিভিন্ন ধরনের রাসায়নিক প্রস্তুতিতে এবং অ্যান্টিবডির গঠনে সাহায্য করে উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি। নতুন আরও কিছু গবেষণায় প্রকাশ পেয়েছে, হার্ট ডিজিজ, লিভারের অসুখ, মানসিক অসুখ প্রতিরোধেও গাট ব্যাকটেরিয়ার ভূমিকা আছে। এমনকী নানা সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, কোলন ক্যান্সার, রেকটাম ক্যান্সার প্রতিরোধ করতেও সাহায্য করছে উপকারী ব্যাকটেরিয়া।
ত্বকের ব্যাকটেরিয়া: ত্বকের ব্যাকটেরিয়াগুলিকে আগে অপকারী ভাবা হতো। কারণ, ত্বকের ব্যাকটেরিয়া কোনওভাবে রক্তে প্রবেশ করলে তা শরীরের পক্ষে ক্ষতিকারক হয়ে যায়। তবে ত্বকে বাস করা কিছু ব্যাকটেরিয়া চামড়ার পিএইচ লেভেল বা ক্ষার ও অ্যাসিডের ভারসাম্য বজায় রাখে। উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি ত্বকের পিএইচ -এর মাত্রা খানিকটা কমিয়ে রাখে যা ত্বকের জন্য উপকারী। এমনকী ক্ষত সারাতেও ব্যাকটেরিয়াগুলির ভূমিকা রয়েছে। মনে রাখবেন, বেশি ক্ষারজাতীয় সাবান ব্যবহার করলে ত্বকের ভালো ব্যাকটেরিয়াগুলির কলোনি নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক জাতীয় সাবান ব্যবহার করলেও  ত্বকের উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি মারা পড়ার আশঙ্কা থেকে যায়। একইরকম বিপদ হতে পারে ত্বকে অ্যালকোহল নির্ভর কোনও লোশন ব্যবহার করলে। স্ট্যাফাইলোকক্কাস এপিডারমাইডিস, প্রোপিওনিব্যাকটেরিয়াম হল ত্বকে বাস করা এমনই উপকারী ব্যাকেটেরিয়া।
মুখগহ্বরের ব্যাকটেরিয়া: মুখগহ্বরেও বাস করে উপকারী ব্যাকটেরিয়া। এই ধরনের উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি ডেন্টাল কেরিজ বা দাঁতের ক্ষয় রোধ করতে সাহায্য করে। এই কারণে মুখে উপকারী ব্যাকটেরিয়া না থাকলে মুখগহ্বরের স্বাস্থ্য খারাপ হতে থাকে। উপকারী ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বাড়াতে নিয়মিত ব্রাশ করুন। এড়িয়ে চলুন মিষ্টিজাতীয় খাদ্য। ধূমপান বন্ধ করুন। পর্যাপ্ত জল পান করুন। খাবার খাওয়ার পর মুখ ধুয়ে নিন।
লিখেছেন সুপ্রিয় নায়েক
15Months ago
কলকাতা
রাজ্য
দেশ
বিদেশ
খেলা
বিনোদন
ব্ল্যাকবোর্ড
বিশেষ নিবন্ধ
সিনেমা
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
আজকের দিনে
রাশিফল ও প্রতিকার
ভাস্কর বন্দ্যোপাধ্যায়
mesh

পড়ে গিয়ে দেহে আঘাত লাগতে পারে। নিকট আত্মীয়ের সঙ্গে সম্পর্কের উন্নতি। আয় যোগ শুভ।...

বিশদ...

এখনকার দর
ক্রয়মূল্যবিক্রয়মূল্য
ডলার৮২.৭২ টাকা৮৪.৪৬ টাকা
পাউন্ড১০৬.৬৭ টাকা১১০.১৯ টাকা
ইউরো৮৯.৪৯ টাকা৯২.৬৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
*১০ লক্ষ টাকা কম লেনদেনের ক্ষেত্রে
দিন পঞ্জিকা