Bartaman Patrika
ভ্রমণ
 

শহরের মধ্যে দেশ ভ্যাটিকান

ভ্যাটিকান সিটি। ইতালিয়ানরা বলেন সিটা ডেল ভ্যাটিকানো। বিশ্বের ক্ষুদ্রতম এই দেশ খ্রিষ্ট ধর্মাবলম্বীদের মধ্যে বিশেষ করে রোমান ক্যাথলিকদের কাছে পবিত্র তীর্থভূমি। ইতালির রোম শহরের মধ্যে টিবের নদীর পশ্চিমপাড়ে অবস্থিত অতিক্ষুদ্র এই দেশটার আয়তন মাত্র ১১০ একর। আর জনসংখ্যার পরিমাণ শুনলে অবাক হবেন মাত্র ১০০০ জন। এই ভ্যাটিকান সিটিকে দেশ না বলে দেশ শহর বললে বোধহয় বোঝার কিছুটা সুবিধে হয়। রোমে টিবের নদীর ওপর পাথর কুঁদে অলংকৃত সেতু পেরিয়ে প্রবেশ করতে হবে দুর্গপ্রাচিরে ঘেরা ছোট্ট এই সার্বভৌম দেশের চৌহদ্দিতে। খ্রিষ্টান ধর্মগুরু পোপের শাসনাধীন এই দেশের দ্রষ্টব্যগুলি খুঁটিয়ে দেখতে পুরো দিন লেগে যাবে। ভাবলে বিস্ময় লাগে একটা শহরের মধ্যে কীভাবে একটা দেশ গড়ে উঠতে পারে। ভ্যাটিকান সিটির ক্ষেত্রে এমনটাই ঘটেছে। এই দেশে প্রবেশের তিনটি প্রবেশদ্বার— ব্রোঞ্জ ডোর, আর্চ অফ দি বেলস ডোর, সেন্ট অ্যানে গেট। ১৫০৬ সাল থেকে এই দেশকে পাহারা দিচ্ছে সুইসরক্ষী। বর্তমানে যার সংখ্যা মাত্র ১১৫ জন। প্রাচীন রেনেসাঁ যুগের ঐতিহ্যবাহী লাল-নীল-হলুদ ডোরাকাটা জোব্বা আকৃতির পোশাক পরা এই সৈন্যরা পোপের নিজস্ব সেনাবাহিনী।
অতীতে ইতালি সহ ইউরোপের অনেকাংশ ছিল খ্রিষ্টান ধর্মযাজক পোপের শাসনাধীন। ১৮ শতকে ইতালিতে পোপের আধিপত্য শেষ হলে ১৯২৯ সালে ইতালির রাজার পক্ষে প্রধানমন্ত্রী মুসোলিনি ও ভ্যাটিকান সিটির পোপের মধ্যে চুক্তির মাধ্যমে স্বাধীন এক সার্বভৌম রাষ্ট্রের মর্যাদা লাভ করে ভ্যাটিক্যান সিটি। এখানে ছড়িয়ে আছে একাধিক বারোক ও রেনেসাঁ শৈলীর কালজয়ী সব স্থাপত্য। চারপাশে চোখে পড়বে অপরূপ সব ভাস্কর্য। দেশের প্রায় অর্ধেক অংশ জুড়ে রয়েছে সবুজে মোড়া ভ্যাটিকান গার্ডেন। যার মধ্যে রয়েছে ছোট টিলা ভ্যাটিকান হিল। দৃষ্টিনন্দন এই বাগানটির আয়তন ৫৭ একর। এই দেশ শহরের মধ্যে পাথর বাঁধানো পথে হেঁটে হেঁটেই সব ঘুরে দেখতে হবে।
ভ্যাটিকান ভ্রমণ শুরু করুন চোখ ধাঁধানো শিল্পকলার নিদর্শন ভ্যাটিকান মিউজিয়াম থেকে। যেমন এর গঠনশৈলী, তেমন এর দেওয়াল, স্তম্ভ, সিলিং জুড়ে রয়েছে নিখুঁত শিল্পকর্ম। ১৬ শতকে পোপ দ্বিতীয় জুলিয়াস এটি নির্মাণ করেন। ভেতরে নানা মহলে থরে থরে সাজানো আছে চিত্রকলা, ভাস্কর্য, পোপেদের ব্যক্তিগত দুর্মুল্য সামগ্রী। মিউজিয়ামের লাগোয়া রাফায়েল চিত্রশালার চারটি ঘরের দেওয়ালে রয়েছে বিখ্যাত চিত্রশিল্পী রাফায়েল ও তাঁর সহশিল্পীদের আঁকা অনবদ্য ফ্রেস্কো। মিউজিয়ামের ইজিপশিয়ান গ্যালারি, ট্যাপেস্ট্রি গ্যালারি, গ্যালারি অফ ম্যাপস, ক্যারেজ প্যাভিলিয়ন সহ অন্যান্য দ্রষ্টব্য দেখে প্রবেশ করুন সিস্টিন চ্যাপেল-এ। আবছা আলোয় মোড়া এই প্রার্থনা কক্ষে পোপের অভিষেক হয়। ১৪৮৩ সালে তৈরি এই স্থাপত্যের সিলিং অলংকৃত করেছিলেন বিশ্ববরেণ্য চিত্রকর মাইকেল অ্যাঞ্জেলো। ১৫০৮ থেকে ১৫১২ সাল ধরে এর সিলিংয়ে তিনি এঁকেছিলেন ৯টি প্যানেল পেইন্টিং সেগুলি আজও অমর হয়ে রয়েছে। এই চিত্রমালার মধ্যে জেনেসিস, আদম-ইভ, ওল্ড আর নিউ টেস্টামেন্ট, দ্য লাস্ট জাজমেন্ট প্রভৃতি মন্ত্রমুগ্ধ করে দেবে। দেওয়ালেও রয়েছে চিত্রমালা। সিস্টিন চ্যাপেলের মধ্যে কথা বলা ও ছবি তোলা নিষেধ। এখান থেকে বেরিয়ে ঘোরানো সিঁড়ি বেয়ে ওপরে উঠে দেখে নিন মিউজিয়ামের বাকী অংশ। কাছেই মহামান্য পোপের বাড়ি অ্যাপোসটলিক প্রাসাদ।
এরপর প্রবেশ করুন পিনাকোটেকা মিউজিয়ামে। মহাকাব্যিক গল্পগাথার শতাধিক মহাচিত্রে সাজানো বিস্ময়কর এই পেইন্টিং গ্যালারি। এখানে দেখবেন লিওনার্দো দা ভিঞ্চি, রাফায়েল, পেরুজিনো, ক্যারাভাগ্গি-ও, জিয়োত্তো প্রভৃতি বিখ্যাত চিত্র শিল্পীদের আঁকা অসাধারণ সব ছবি। সবশেষে দ্রষ্টব্য বিশ্বের বৃহত্তম চার্চ ১৬২৬ সালে তৈরি সেন্ট পিটার্স ব্যাসিলিকা। আকাশছোঁয়া এই বিশাল স্থাপত্য মাইকেল অ্যাঞ্জেলো, বার্নিনি, ব্রামান্তে, ম্যাডারনো এই সমস্ত দিকপাল শিল্পীদের পরিকল্পনায় গড়ে উঠেছে। ভেতরের মহলে পা দিলে চমকে যাবেন এর ভাস্কর্য, চিত্রকলা, পোপেদের শিল্পমণ্ডিত মূর্তি, রঙিন পাথরের নিখুঁত কারুকার্য, মোজাইক আর রঙিন কাঁচের রংবাহারি শিল্পকর্ম, পাথরের অজস্র ভাস্কর্য দেখে। এটি ক্যাথলিকদের প্রধান চার্চ। এই চার্চের জায়গায় অতীতে সম্রাট নিরোর সার্কাস ভূমি ছিল। এখানে সমাহিত রয়েছেন ধর্মযাজক সেন্ট পিটার। এখানের ব্রোঞ্জের ‘হোলি ডোর’ খোলা হয় ২৫ বছর অন্তর। এখানে রয়েছে পোপদের সমাধিভূমি ভ্যাটিকান গ্রোটে। রয়েছে ট্রেজারি অফ সেন্ট পিটার্স মিউজিয়াম। ব্যাসিলিকার মাঝখানে বার্নিনিকৃত ব্রোঞ্জের স্তম্ভে ঘেরা পোপের সিংহাসন। মাথায় বিরাট নকশা করা চাঁদোয়া। পোপ এখানে বসে প্রার্থনায় অংশ নেন। এর গা দিয়ে সিঁড়ি নেমেছে মাটির নীচে। সেখানে আছে প্রাচীন চার্চের ধ্বংসাবশেষ ও সমাধিস্থল। ব্যাসিলিকার প্রধান গম্বুজটির নকশা করেছিলেন মাইকেল অ্যাঞ্জেলো। ৫৫১টি সিঁড়ি বেয়ে সেখানে ওঠা যায়। কষ্ট কমাতে অর্ধেক সিঁড়ি পথ এড়িয়ে লিফটেও ওঠা যায় খানিকটা। ওপর থেকে ভ্যাটিকান সিটি আর রোম শহরের দৃশ্য দু’চোখ ভরে দেখুন। সেন্ট পিটার্স ব্যাসিলিকার মধ্যে দেখবেন মাইকেল অ্যাঞ্জেলোর বিখ্যাত ভাস্কর্য ‘পিয়েতা’। মাতা মেরির কোলে শুয়ে রয়েছে ক্রুশবিদ্ধ যিশু। ব্যাসিলিকা থেকে বেরোলেই সামনে অশ্বক্ষুরাকৃতির পাথর বাঁধানো প্রশান্ত চত্বর। এটাই সেন্ট পিটার্স স্কোয়্যার। দু’পাশে অর্ধবৃত্তাকারে রয়েছে ২৮৪টি স্তম্ভ যার মাথায় দাঁড়িয়ে আছে ১৪০ জন ধর্মযাজকের মূর্তি। চত্বরের মাঝে রয়েছে দুটি ফোয়ারা আর মিশর থেকে আনা সুউচ্চ ওবেলিক্স পাথর খণ্ড। এই চত্বরটিকে বার্নিনি শিল্পমণ্ডিত করে তুলেছিলেন। এই চত্বরে প্রতি বুধবার সকালে ও বিশেষ ধর্মীয় অনুষ্ঠানের দিনে পোপ দর্শনার্থীদের সামনে এসে উপস্থিত হন ও প্রার্থনা করেন।
ছবি: সুবীর কাঞ্জিলাল
07th  July, 2019
মানালিতে ইগলু  

বরফে ঢাকা মানালিতে এবার অন্যতম আকর্ষণ ইগলু হোটেল। এই শীতে যাঁরা মানালি যাবেন, তাঁরা নতুন অভিজ্ঞতার স্বাদ নিতে পারেন। নিজেদের এস্কিমো ভেবে থাকতে পারেন ইগলুতে। স্কি ড্রাইভাররা নিজেদের থাকার জন্য এই ইগলুগুলি তৈরি করেন বরফ দিয়ে। পর্যটকদের যদি ইগলুতে থাকার সুযোগ করে দেওয়া যায়, সেই ভাবনাতেই এই ইগলু হোটেলের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।  
বিশদ

16th  February, 2020
হীরক রাজার দেশে 

পুরুলিয়া জেলার রঘুনাথপুর সাব-ডিভিশনের অন্তর্গত নান্দুয়াড়া গ্রামের জয়চণ্ডী পাহাড়। আদ্রা জংশন স্টেশন থেকে প্রায় পাঁচ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই অপূর্ব সুন্দর পাহাড়। প্রায় ৪৫০টি সিঁড়ি কষ্ট করে বেয়ে পাহাড়ের উপর উঠতে হয়। উপরে রয়েছে জয়চণ্ডী মাতার মন্দির ও বজরঙ্গবলীজির মন্দির। 
বিশদ

16th  February, 2020
গ্যারান্টেড ডিপারচার পরিষেবা আসছে 

শুভজিৎ ঘোষ: বিগত কয়েক বছরে অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক পর্যটন শিল্পে ভারত খুবই উন্নতি করেছে। আর এই উন্নত বাজারকে মাথায় রেখেই পর্যটন সংস্থা ‘এসওটিসি’ ভারতে আরও বেশি করে বিনিয়োগ করতে চাইছে। প্রসঙ্গত, এই বছর সংস্থার ৭১তম বর্ষও বটে।  
বিশদ

16th  February, 2020
ভালো থেকো চুইখিম 

অজন্তা সিনহা: সদ্য চাকরি থেকে অবসর নিয়েছি। ভিলেজ ট্যুরিজম নিয়ে কাজ করছেন এমন একজনের কাছে খবর পেলাম চুইখিমের। এবারের ট্রিপে আমার সঙ্গী আরও তিন কর্মব্যস্ত তরুণী। তাঁরা থাকেন কলকাতা, দিল্লি ও মুম্বই। তিন শহরের মহিলা ব্রিগেড নিয়ে ফেব্রুয়ারিতে চললাম চুইখিম।  
বিশদ

16th  February, 2020
ইন্দোনেশিয়ার লুয়াক কফি 

প্রতিমা ঘোষ: ইন্দিনেশিয়া থেকে ফিরেছি ১৫-১৬ দিন হল । মনে পড়ে গেল জোক জাকার্তার নামী-দামি, সুস্বাদু ‘লুয়াক কফি’র কথা। জোক-জার্কাতার বিশ্ববিখ্যাত বৌদ্ধমন্দির ‘বরোবুদুর’ দেখানোর পর গাইড জানালেন, বিকেলে এখানের প্রসিদ্ধ কফি গার্ডেন দেখবেন। সেখানে ‘লুয়াক কফি’ টেস্ট করবেন। কিনেও নিয়ে যাবেন বন্ধুদের জন্য। 
বিশদ

02nd  February, 2020
পিকনিকে বা ছোট্ট ছুটিতে ঘুরে আসার ঠিকানা
বেলুড় রাসবাড়ি 

উত্তরা গঙ্গোপাধ্যায়: জানেন কি কলকাতা থেকে হুগলি নদী পার করে গঙ্গার পাড়ে রয়েছে এমন এক জায়গা যেখানে বেড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে পরিচিত হতে পারেন বাংলার মন্দির স্থাপত্যের সঙ্গে, জানতে পারেন ইতিহাসের টুকরো গল্প?  
বিশদ

02nd  February, 2020
টিকটক 

হাওড়া ব্রিজে লাইট অ্যান্ড সাউন্ড
কলকাতা পোর্ট ট্রাস্টের ১৫০ বছর পূর্তিতে দেশবাসীকে উপহার আলোক ধ্বনিতে সাজানো হাওড়া ব্রিজ।  
বিশদ

19th  January, 2020
পাকদণ্ডী পথ বেয়ে উটি 

সুপ্রিয় নায়েক: পিছনে ধূসর আকাশ। আর সামনে প্রাগৈতিহাসিক প্রাণীর মতো আধশোয়া অলস নীলগিরি। তারই পিঠ আষ্টেপৃষ্ঠে পেঁচিয়ে সাপের মতো উঁচুতে গিয়েছে পাকদণ্ডী পথ। সেই সাপের প্রান্ত পড়ে থাকে বুরলিয়রে। তামিলনাড়ুর নীলগিরি জেলার ছোট্ট গ্রাম। সেখান থেকেই শুরু চড়াই।  
বিশদ

19th  January, 2020
জেমস বন্ড আইল্যান্ড 

অয়ন গঙ্গোপাধ্যায়: দ্বীপের নাম ‘জেমস বন্ড’। নামটা শুনেই মনে হবে এখনই চলে যাই প্রকৃতির অসামান্য সৌন্দর্যে মোড়া অতুলনীয় সেই দ্বীপে। থাইল্যান্ডের দক্ষিণপ্রান্তে আন্দামান সাগরে ভাসমান বিখ্যাত দ্বীপ ফুকেত। 
বিশদ

19th  January, 2020
মোহিনী হিমালয় 

সাতের দশকের শেষের দিকের কথা। সবে মাত্র যৌবনে পা রাখা কিশোরের যেমন সব বাধা অতিক্রম করার স্বপ্ন দু’চোখে থাকে, ঠিক তেমনই কোনও দুঃসাহসের ওপর ভর করে বয়সে কিছুটা বড় বন্ধুদের সঙ্গে বাড়ি থেকে এক জামাকাপড়ে পালিয়েছিলাম সান্দাকফু থেকে কাঞ্চনজঙ্ঘা দেখার লোভ নিয়ে। 
বিশদ

05th  January, 2020
টিকটক 

দীর্ঘতম পাহাড়ি সুরঙ্গ অটল টানেল
প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর ৯৫ তম জন্মদিনে ঘোষণা করা হয় রোটাং টানেলের নাম হবে অটল টানেল। ৩ হাজার মিটার উচ্চতায় মানালি থেকে লে পর্যন্ত ‘অল ওয়েদার রুট’ খুলে যাবে এবছর। ৮.৮ কিমি দীর্ঘ এই সুরঙ্গ পথ বিশ্বের দীর্ঘতম পাহাড়ি সুরঙ্গের তকমাও পেতে চলেছে। সুরঙ্গের মাধ্যমে মোট পথের দৈর্ঘ্য কমছে ৪৬ কিমি।
বিশদ

05th  January, 2020
অন্য গোয়া

উৎপল দাস: গোয়া বললেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে কিছু অসাধারণ সমুদ্রসৈকত, ধ্যানগম্ভীর পর্তুগিজ স্থাপত্য, মিশনারি চার্চ। বড়জোর অ্যাডভেঞ্চারপ্রিয় পর্যটকের জন্য বন্যপ্রাণী অধ্যুষিত অভয়ারণ্য।  
বিশদ

05th  January, 2020
এ রাজ্যের প্রথম ইয়ুথ হস্টেলের মহিলা শাখা কাদম্বিনী 

১৯০৯ সালে জার্মানিতে প্রথম হস্টেলিং বিষয়টি নিয়ে ভাবনা চিন্তা শুরু হয়। জার্মান শিক্ষক রিচার্ড স্কিরম্যান স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের গ্রামের দিকে বেড়াতে গিয়ে থাকা খাওয়ার প্রয়োজনের কথা নিয়ে ভাবেন। এই ভাবনা থেকেই আটলান্টাতে নিজের স্কুলে প্রথম তৈরি করেন ছাত্রছাত্রীদের জন্য হস্টেল। 
বিশদ

05th  January, 2020
টিকটক 

চলবে টাকা 
ভারতীয়দের জন্য সুখবর। দুবাই বিমানবন্দরে ডিউটি ফ্রি শপে কেনাকাটার জন্য ইউরো, ডলারের প্রয়োজন হবে না। টাকাতেই করা যাবে পছন্দের কেনাকাটা। সম্প্রতি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।  
বিশদ

15th  December, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, দিনহাটা: দিনহাটার পুরসভা এলাকায় লোকসভা ভোটে ভালো ফল করেছিল বিজেপি। পুরসভার ১৬টি ওয়ার্ডের মধ্যে একটি বাদ দিয়ে বাকি সমস্ত ওয়ার্ডেই শাসক দল তৃণমূলের থেকে এগিয়ে ছিল বিজেপি।  ...

সংবাদদাতা, কাটোয়া: কাটোয়া শহরের স্টেডিয়াম মাঠ সংস্কারের কাজ শুরু করছে পুরসভা। বেহাল স্টেডিয়াম মাঠ সংস্কারের নির্দেশ দিয়েছেন পুরসভার চেয়ারম্যান। ঐতিহ্যবাহী মাঠের চেহারা ফেরানোর উদ্যোগ নেওয়ায় খুশি ক্রীড়ামহল। দীর্ঘদিন ধরে পড়ে থাকায় মাঠটি ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়েছে।   ...

মুম্বই, ২৭ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): ২০০৮ সালে মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলায় বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ে বিশেষ এনআইএ আদালতে হাজিরা দিলেন বিজেপি এমপি প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর। এদিন দুপুর ১টা নাগাদ ...

স্বার্ণিক দাস  কলকাতা: ‘ভাই তোকে আমি বিয়ের কার্ডটা হোয়াটসঅ্যাপ করে দিয়েছি। খরচ করে আর কার্ড বানাইনি। ঠিক সময়ে চলে আসিস।’- এইভাবেই নিজের বিয়ের নিমন্ত্রণ ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কর্মযোগে বিলম্ব ঘটবে। বেসরকারি ক্ষেত্রে কর্মযোগ আছে। ব্যবসায় যোগ দেওয়া যেতে পারে। কোনও বন্ধুর ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

জাতীয় বিজ্ঞান দিবস
১৮২৭: আমেরিকায় প্রথম বাণিজ্যিক রেলপথ চালু হয়
১৮৪৪: বিখ্যাত নাট্যব্যক্তিত্ব গিরিশচন্দ্র ঘোষের জন্ম
১৮৮৩: ভারতে প্রথম টেলিগ্রাফ চালু হয়
১৯২৮: ভারতীয় পদার্থ বিজ্ঞানী চন্দ্রশেখর ভেঙ্কট রামন-এর ‘রামন এফেক্ট’ আবিষ্কার
১৯৩৬: জওহরলাল-পত্নী কমলা নেহরুর মৃত্যু
১৯৪৪: সঙ্গীতকার রবীন্দ্র জৈনের জন্ম
১৯৪৮ - ব্রিটিশ সৈন্যদের শেষ দল ভারত ত্যাগ করে
১৯৫১: ক্রিকেটার কারসন ঘাউড়ির জন্ম
১৯৬৩: ভারতের প্রথম রাষ্ট্রপতি ডঃ রাজেন্দ্রপ্রসাদের মৃত্যু  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮১ টাকা ৭২.৫১ টাকা
পাউন্ড ৯০.৯৬ টাকা ৯৪.২৩ টাকা
ইউরো ৭৬.৬৯ টাকা ৭৯.৬২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,১৪০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪০,৯৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৫৪০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) চতুর্থী। অশ্বিনী ৫৪/৫৮ রাত্রি ৪/৩। সূ উ ৬/৩/২৭, অ ৫/৩৫/১৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৭ মধ্যে পুনঃ ৮/২২ গতে ১০/৪২ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৮ গতে ২/২৯ মধ্যে পুনঃ ৪/১ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৭/১৩ গতে ৮/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৫ গতে ৪/২৪ মধ্যে পুনঃ ৪/১ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৭/১৩ গতে ৮/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৫ গতে ৪/২৪ মধ্যে বারবেলা ৮/৫৬ গতে ১১/৪৯ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৪২ গতে ১০/১৫ মধ্যে। 
১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী, অশ্বিনী ৪৮/১৯/৪৪ রাত্রি ১/২৬/১৫। সূ উ ৬/৬/২১, অ ৫/৩৪/৪০। অমৃতযোগ দিবা ৭/২৯ মধ্যে ও ৮/১৬ গতে ১০/৩৭ মধ্যে ও ১২/৫৮ গতে ২/৩১ মধ্যে ৪/৫ গতে ৫/৩৫ মধ্যে
এবং রাত্রি ৭/১৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ৩/২৮ গতে ৪/১৭ মধ্যে। কালবেলা ১০/২৪/২৮ গতে ১১/৫০/৩০
মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৪২/৩৫ গতে ১০/১৬/৩৩ মধ্যে। 
মোসলেম: ৩ রজব 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
এসএসকেএম থেকে ছাড়া পেল পোলবা দুর্ঘটনায় জখম দিব্যাংশ ভকত 

27-02-2020 - 07:08:00 PM

দিল্লি হিংসার ঘটনায় দুটি সিট গঠন করল ক্রাইম ব্রাঞ্চ 

27-02-2020 - 06:49:02 PM

১৪৩ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

27-02-2020 - 04:08:26 PM

জলপাইগুড়িতে ২১০ কেজি গাঁজা সহ ধৃত ৩ 

27-02-2020 - 03:39:45 PM

পুরভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে হবে, রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে নির্দেশ রাজ্যপাল 
পুরভোটের দিনক্ষণ চূড়ান্ত না হলেও প্রশাসনিক তৎপরতা তুঙ্গে। এরমধ্যেই রাজ্য ...বিশদ

27-02-2020 - 01:25:00 PM

লেকটাউনে নির্মীয়মাণ বিল্ডিং থেকে পড়ে মৃত শ্রমিক 

27-02-2020 - 01:10:00 PM