Bartaman Patrika
ভ্রমণ
 

গরমে বাঘের দেশে

উত্তরা গঙ্গোপাধ্যায়: বিকেলের জঙ্গল সাফারি সবে শুরু হয়েছে। মোহরলি থেকে পিচ রাস্তা সোজা চলে গিয়েছে জঙ্গলের মধ্যে দিয়ে। কপালে কী আছে ভাবছি, এমন সময় দেখি সামনে মহারাষ্ট্র রাজ্য পরিবহনের বাস দাঁড়িয়ে রাস্তা জুড়ে। যাত্রীদের অনেকেই চেঁচামেচি করছেন। সাফারির আরও দু’একটি গাড়িও দাঁড়িয়ে পড়েছে। দেখি, আমাদের ডান দিকে একটা ওয়াটার-হোল, সেখানে দিব্যি বসে বাঘমামা। মে মাস, প্রচণ্ড গরম। তাই দেহের অর্ধেক জলে ডুবিয়ে বসে আছে। এ তো কোলাহলেও কোনও হেলদোল নেই। দেখলাম বাঘটির একটি চোখ নষ্ট। পরে জেনেছিলাম এর নাম ‘ওয়াগদো মেল’, তাড়োবা -আন্ধারি টাইগার রিজার্ভের অন্যতম বড় বাঘ। ইতিমধ্যে আরও জিপসি এসে হাজির। টপাটপ ছবি উঠছে। বাসের গায়ে কেউ পেটাচ্ছে যাতে বাঘটি একটু ওঠে, চলে। ভাগ্য ভালো, কাছেই ছিলেন বন দপ্তরের দুই কর্মী। তারা এসে পরিস্থিতি সামাল দিলেন। বাসকে রওনা করিয়ে দিলেন। জিপসিগুলিও তাদের নির্দিষ্ট পথ ধরল। কিন্তু বাস এল কোথা থেকে? নাগপুর থেকে প্রায় ১৫০ কিলোমিটার দূরে মহারাষ্ট্রের অন্যতম বিখ্যাত ন্যাশনাল পার্ক, তাড়োবা -আন্ধারি। চন্দ্রপুর বা গণ্ডিয়া হয়ে পৌঁছতে হয়। পার্কের গা ঘেঁষে এখনও কয়েকটি গ্রাম আছে, যার মধ্যে অন্যতম হলো চিমুর। চন্দ্রপুর ও চিমুরের মধ্যে রোজ একটি বাস যাতায়াত করে। মাঝে যখন সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে পর্যটকদের কোর এরিয়াতে ভ্রমণ নিষিদ্ধ হয়, তখন নাকি অনেকেই এই বাসে চেপে জঙ্গল ভ্রমণ করছিলেন এবং বাঘ, লেপার্ডও দেখেছেন। বিগিনার্স লাক কি না জানি না, পরে আরও বেশ কয়েকবার তাড়োবা গিয়ে কিন্তু জঙ্গলে প্রবেশমাত্র বাঘ দেখার সৌভাগ্য আর হয়নি।
জঙ্গল ভ্রমণে বেরনোর সময় সবাই বেশ কাহিল ছিলাম, কারণ প্রায় ৪৫ ডিগ্রি তাপমাত্রা আর রোদের তাপ সাংঘাতিক। সানস্ক্রিন মেখে, চোখ ছাড়া বাকি মাথা, মুখ ঢেকে চড়ে বসেছি জিপসিতে। আমাদের অনলাইন পারমিট অনুযায়ী, মোহারলি গেট ধরে আমাদের এগতে হবে। গেটের বাইরে বন বিভাগের অফিস থেকে রুট নম্বর নিয়ে আমাদের গাড়িতে গাইড উঠলেন। চট জলদি ড্রাইভারের সঙ্গে রুট ছকে নিলেন তিনি। তবে বললেন যে পরিস্থিতি অনুযায়ী অদলবদল হতেও পারে। যদিও শীতকাল জঙ্গল দেখার ভালো সময়, অভিজ্ঞ প্রকৃতি-প্রেমিকরা বলেন গরমকালে গেলে বাঘের দেখা পাওয়ার সুযোগ বেশি। কারণ জলের সন্ধানে তারা বেরিয়ে পড়ে, খুঁজে নেয় ওয়াটার হোল। আর তাড়োবার মতো জঙ্গলে রাস্তার পাশে বা কাছেই আছে একাধিক ওয়াটার হোল। তাই বছর বছর ধরে বাড়ছে পর্যটকের সংখ্যা যাদের বেশির ভাগ আসছেন বাঘ দেখতে আর ছবি তুলতে। প্রকৃতি বা অন্যান্য পশু জগৎ গৌণ।
বাঘ দেখার আনন্দে গাড়ির ছয় সওয়ারি আমরা বেশ খুশি। মনে হচ্ছে যেন গরম বোধটাও আর হচ্ছে না। রাস্তা ধরে যেতে যেতে পিলার মতো দেখতে পেলাম। এক সময় নাকি গোণ্ড উপজাতি এখানে বাস করতেন। তারাই এই পিলারগুলো বসায়। কেউ বলে উপজাতি রাজার লোকলস্কর সহ যাতায়াতের সুবিধার জন্যে এর ওপর নাকি আলো জ্বালানো হতো, কেউ বলেন পিলারে বাঁধা ঘণ্টার সাহায্যে খবর পৌঁছনো ছিল উদ্দেশ্য। এখন বন দপ্তরের নানা বাণী নিয়ে দাঁড়িয়ে যাচ্ছে প্রাচীন পাথুরে পিলার। যেতে যেতে অবাক হয়ে দেখছি জঙ্গলের রূপ —কোথাও হলুদ, কোথাও ধূসর। এর মধ্যে প্রায়ই দেখা দিচ্ছিল ময়ূর আর চিতল হরিণের দল। জঙ্গলের সঙ্গে প্রায় মিশে থাকা এক সম্বর পরিবারের দেখাও পেলাম। সামনে দাঁড়ানো ডালপালার মতো শিংওলা পুরুষ, পেছনে একাধিক স্ত্রী-সম্বর।
ইতিমধ্যে গাইড জানালেন ৬০০ বর্গ কিলোমিটারের কিছু বেশি এলাকা জুড়ে তাড়োবা-আন্ধারি ব্যাঘ্র প্রকল্প, যার মধ্যে রয়েছে তাড়োবা ন্যাশনাল পার্ক এবং আন্ধারি ওয়াইল্ডলাইফ স্যাংচুয়ারি। শুষ্ক পর্ণমোচী জঙ্গলে সেগুন গাছের আধিক্য। তাছাড়াও আছে আইন, বিজা, তেন্দু, হলদু, বহেড়া, মহুয়া, বাঁশ ইত্যাদি। জন্তু-জানোয়ারের মধ্যে বাঘ ছাড়াও রয়েছে লেপার্ড, ভল্লুক, গাউর, নীলগাই, ঢোল বা জংলি কুকুর, সম্বর, চিতল, বার্কিং ডিয়ার, ইত্যাদি। পাখিও আছে বহু প্রজাতির। কোথাও কোথাও জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে জঙ্গলের প্রাণীদের জন্য। সিমেন্টের বাঁধানো চৌবাচ্চা - সেখানে হরিণ থেকে গাউর থেকে ক্রেস্টেড, সার্পেন্ট ঈগল থেকে হনুমান, অনেককেই দেখলাম গলা ভিজিয়ে নিচ্ছে। ইতিমধ্যে সাফারির সময় শেষ। ঘরমুখো পথ ধরল জিপসি। পরদিন ভোরবেলা বেরিয়ে ইতিউতি ঘুরে তেলিয়া লেকের পারে হাজির হলাম। পৌঁছে দেখি জিপসির মেলা। বিশাল লেকের এক ধারে আমরা, অন্য ধারে এক বাঘিনী তার দুই সন্তান নিয়ে। তিনজনেই আধশোয়া হয়ে বিশ্রামে। শাবকদুটি তখনও মানুষ দেখায় সড়গড় হয়নি বোধ হয়, মাঝে মধ্যেই মাথা তুলে দেখছে আমাদের দিকে। মা নির্বিকার। গাড়ি ভর্তি লোক দেখা তার কাছে নতুন নয়।
আমার প্রথম তাড়োবা ভ্রমণ ছিল দেড় দিনের। তারপর আরও বেশ কয়েকবার গিয়েছি সেখানে। কখনওই নিরাশ করেনি এই জঙ্গল। বাঘ দেখার পাশাপাশি দেখেছি ভল্লুক, গাউর, এমনকি জলপানে ব্যস্ত লেপার্ডেরও দেখা মিলেছে। প্রচণ্ড গরমে জঙ্গল ঢুঁড়ে ফেলেছি কিন্তু ময়ূর আর হরিণের বেশি কিছু দেখছি না। এমন সময় একটি গাড়ি জানিয়ে গেল সামনে এক দল ঢোল অর্থাৎ জংলি কুকুর হরিণ তাড়া করেছে। বলা হয়, বাঘের চেয়েও সাংঘাতিক এই ঢোল। এমনকি বাঘও সতর্ক থাকে এদের থেকে। দলবদ্ধ ভাবে থাকে ঢোল, শিকারকে তাড়া করে ধরতে ওস্তাদ এরা, কিছুতেই ভয় পায় না। যতক্ষনে আমরা পৌঁছলাম সেখানে, ততক্ষণে তারা একটি চিতল হরিণ শিকার করে সবাই মিলে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তার ওপর। হৃদয়বিদারক সেই দৃশ্য। হরিণটি তখন মারা যায়নি- ছটফট করছে, চেষ্টা করছে যদি ছাড়ানো যায় নিজেকে, কিন্তু ঢোলদের ভ্রূক্ষেপ নেই। ওই অর্ধমৃত শিকারকে তারা কামড়ে খেতে ব্যস্ত, তারা মরা পর্যন্ত অপেক্ষা করার সময় নেই। কষ্ট লাগলেও উপায় নেই। জঙ্গলের নিয়মের ওপর আমাদের নিয়ম খাটে না।
প্রয়োজনীয় তথ্য: তাড়োবা খোলা থাকে প্রতি বছর ১ অক্টোবর থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত। এই সময় মঙ্গলবার ও বিশেষ কিছু ছুটির দিন বন্ধ থাকে জঙ্গলের দরজা। মার্চ থেকে জুন - সকালের সাফারির সময় সকাল ৬টা থেকে ১০টা আর বিকেলের সাফারির সময় দুপুর আড়াইটে থেকে সন্ধ্যে সাড়ে ৬টা। তবে এই টাইমের অদলবদলও হয়, যেমন এখন সকালের সময় আধঘণ্টা করে এগিয়ে গিয়েছে আর বিকেলের সময় আধ ঘণ্টা করে পিছিয়ে গিয়েছে। বুকিংয়ের সময় সর্বশেষ সময় ও পার্কে প্রবেশের মূল্য যাচাই করে নেবেন। পার্কে প্রবেশের জন্য এখন ৬টি গেট নির্দিষ্ট করা আছে। এবং নির্দিষ্ট সংখ্যক গাড়িই প্রবেশ করতে পারবে প্রতি বেলা। অবশ্যই অনলাইন বুকিং করে যাবেন। আগাম বুকিংয়ের পাশাপাশি অনলাইনে তৎকালে বুকিং ও করা যায়। বিশদ জানতে দেখুন www.mahaecotourism.gov.in
ছবি: সঞ্জয় গঙ্গোপাধ্যায়
19th  May, 2019
কালকা স্টেশনে ছোট রেলের মিউজিয়াম  

পাহাড়ি পথে শুয়োঁপোকার মতো চলা ছোট রেলের অতীত দেখতে পাবেন কালকা স্টেশনে। দেশ বিদেশের পর্যটকরা ছোট রেলে চড়ে পৌঁছে যান সিমলা। সাহেবদের তৈরি শতাব্দী প্রাচীন এই রেলকে এবার ফ্ল্যাশব্যাকে দেখে নেওয়ার সু্যোগ পাবেন সবাই। 
বিশদ

16th  June, 2019
ভ্যালি অফ ফ্লাওয়ারস  

ফুলের উপত্যকা ‘ভ্যালি অফ ফ্লাওয়ারস।’ উত্তরাখণ্ডের এই বর্ণময় উপত্যকায় রঙের রামধনু খেলে বর্ষার আগে। বিশ্ব ঐতিহ্যের তকমাপ্রাপ্ত এই ফুলের উপত্যকায় প্রায় তিনশো প্রজাতির ফুল মেলে ধরে তাদের সৌন্দর্যকে।  
বিশদ

16th  June, 2019
গঙ্গায় হাউস বোট 

নামে হাউস বোট হলেও হাউস নেই। তাতে কী? এই বোটে চেপে ঘোরা তো যাবে গঙ্গার বুকে। সম্প্রতি কেরলের হাউস বোটের মতো গঙ্গায় ভাসল ‘গঙ্গাশ্রী ’ ও ‘জলশ্রী ’ নামে দুটি হাউস বোট।  
বিশদ

16th  June, 2019
এবার দার্জিলিংয়ের চিড়িয়াখানায় টাকিন 

ভুটানের জাতীয় পশু টাকিন। পাহাড়ি ছাগল ও অ্যান্টিলোপের মাঝামাঝি গোত্রের এক প্রাণী টাকিন। প্রাণীটি সংকটাপন্ন তালিকাভুক্ত।  
বিশদ

16th  June, 2019
অন্ধ্রপ্রদেশ বেড়াতে গেলে 

বিজয়ওয়াড়া শহর ছাড়িয়ে এসেছি প্রায় আধঘণ্টা আগে, এবার গাড়ি হাইওয়ে ছেড়ে মোড় নিয়ে ঢুকল গ্রামের মধ্যে। পূর্বঘাট পর্বতমালার পায়ের নীচে ছোট্ট গ্রাম কোণ্ডাপল্লি। কিন্তু গ্রামে ঢুকে প্রথমেই মনে হল অন্ধ্রপ্রদেশের এই স্বল্পপরিচিত গ্রামের সঙ্গে পূর্ব বর্ধমানের নতুনগ্রামের কী আশ্চর্য মিল!  
বিশদ

16th  June, 2019
গাঁয়ের নাম পাবুং

অজন্তা সিনহা: ঘুম ভাঙে ‘ওম মণিপদ্মে হুম’ সুরে। আহা, কি শান্তি! এমন সকাল রোজ রোজ কেন হয় না? যাঁরা শুনেছেন, তাঁরা জানেন, এই সুরের এক অতুলনীয় ও অপ্রতিরোধ্য শক্তি রয়েছে, যা খুব সহজেই মনকে অপার শান্তির দেশে নিয়ে যায়—উত্তরবঙ্গের চারকোলের অন্তর্গত পাবুং গ্রামে (নামভেদে পাবং)।  
বিশদ

16th  June, 2019
 যা যা ব র চাঙপাদের ঘর গেরস্থালি

 উৎপল দাস: জুন, জুলাই, আগস্ট আর সেপ্টেম্বর— এই চার মাস হল লাদাখ ভ্রমণের শ্রেষ্ঠ সময়। আর এই ভ্রমণসূচির মধ্যে যদি থাকে সোমোরিরি লেক আর তার সংলগ্ন কোরজোক গ্রাম তাহলে সেখানে আরও একটা দিন বাড়তি থাকুন। দেখে আসুন যাযাবর চাঙপাদের ঘর গেরস্থালি।
বিশদ

02nd  June, 2019
ভাটোয়ারি পাওয়ালি কাঁটা ত্রিযুগীনারায়ণ

 রতনলাল বিশ্বাস: অতীতে উত্তরাখণ্ডের চারধাম অর্থাৎ যমুনোত্রী, গঙ্গোত্রী, কেদারনাথ ও বদ্রীনাথ যাত্রা একসঙ্গে সম্পন্ন করার জন্য একটা পায়ে চলা পথ ছিল। বহু ধর্মপ্রাণ মানুষেরা এই পথেই চারধাম যাত্রা করতেন। বর্তমানে হিমালয়ের অন্তঃপুরে অনেক স্থানেই গাড়িপথ পৌঁছে গিয়েছে। এই চারধাম যাত্রায় এখন সামান্যই হাঁটতে হয়।
বিশদ

02nd  June, 2019
উদ্ধার ৪০ মমি

 মিশর ভ্রমণের আকর্ষণ পর্যটকদের কাছে ইতিহাসের সন্ধানে। প্রাচীন এক সভ্যতার কাছে পৌঁছে মুগ্ধ হয়ে যাওয়া। এবার পর্যটকদের কাছে আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে মিশর ভ্রমণ। সম্প্রতি মিশরের মিনইয়ার সমাধি ক্ষেত্র থেকে আবিষ্কার হয়েছে ৪০টি মমি।
বিশদ

02nd  June, 2019
আন্দামান, লাক্ষাদ্বীপে সি প্লেন

 এক দ্বীপ থেকে আর এক দ্বীপে যেতে জাহাজই ভরসা।এবার সে পথে যুক্ত হতে চলেছে সি প্লেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের আইল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট এজেন্সির বৈঠকে আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপের স্বরাজ দ্বীপ, শহীদ দ্বীপ, হাটবে ও লং আ ইল্যান্ডকে সি প্লেনের পরিষেবার জন্য নির্বাচন করা হয়।
বিশদ

02nd  June, 2019
জোড়াসাঁকো ঠাকুর বাড়ির আলোকধ্বনি

 রবীন্দ্রনাথ ও ঠাকুর বাড়ি। বাংলা শুধু নয়, সমগ্র দেশে স্বাধীনতা আন্দোলনে রবীন্দ্রনাথ ও তাদের বাড়ির ভূমিকা অনস্বীকার্য। সেই ইতিহাসকে দেশের তরুণ প্রজন্মকে তথা দেশ বিদেশের পর্যটকদের সামনে তুলে ধরতে জোড়াসাঁকোয় শুরু হয়েছে আলোকধ্বনি প্রদর্শনী।
বিশদ

19th  May, 2019
দার্জিলিংয়ের টয় ট্রেনে ভিস্তাডোম কামরা

 পর্যটকদের কাছে টয় ট্রেনের আকর্ষণ দুর্নিবার। কু ঝিক ঝিক করে পাহাড়ের আঁকা বাঁকা পথ ধরে হুইসল তুলে ছুটে যায় খেলনা রেল। রেলপথের দু’পাশে সরে সরে যায় সবুজের রহস্য ঘেরা জঙ্গল, রংবাহারি ফুলের বাড়ি, বারান্দা। লাল টুকটুকে পাহাড়ি শিশুর মুখ। 
বিশদ

19th  May, 2019
গরমের ছুটিতে ঠিকানা হোক মধ্যপ্রদেশের কাশ্মীর

ভোট মিটলেই গরমের ছুটি। কাশ্মীর যাওয়া এখন প্রায় অসম্ভব। তাহলে কোথায় যাওয়া যেতে পারে। মধ্যপ্রদেশের কাশ্মীর গেলে কেমন হয়? ভাবছেন তো মধ্যপ্রদেশের কাশ্মীর? সেটা আবার কোথায়? তাহলে বলেই ফেলি।
বিশদ

19th  May, 2019
একশৃঙ্গদের নতুন আবাস হচ্ছে রসমতী 

এক সময় কোচরাজাদের মৃগয়া ক্ষেত্র ছিল রসমতী বনাঞ্চল। তাঁরা নিজেদের শক্তির প্রমাণ দিয়েছেন বাঘ, হাতি, গণ্ডার শিকার করে। কালে কালে এই বনাঞ্চল চোড়াশিকারীদের হাতযশে শুধুই জঙ্গলে পরিণত হয়।  
বিশদ

05th  May, 2019
একনজরে
 সৌম্যজিৎ সাহা  কলকাতা: রাজ্যে ক্রমশ কমছে ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের আসন। গতবার যেখানে ৩১ হাজারের বেশি আসন ছিল, এবার তা আরও কমে হয়েছে ২৯ হাজার ৬৫৯টি আসন। প্রাথমিক হিসেবে এই তথ্য মিলেছে। যদিও এখনও দু’টি কলেজ এবং কয়েকটি বিষয়ের আসন যুক্ত হওয়ার ...

  ফিলাডেলফিয়া ও লোয়া, ১৭ জুন (এপি): মার্কিন মুলুকে ফের বন্দুকবাজের হামলা। পার্টি চলাকালীন ফিলাডেলফিয়ায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মৃত্যু হল এক পড়ুয়ার। জখম হয়েছে আরও ৮ জন। রবিবার রাত সাড়ে ১০টার কিছুটা আগে সাউথ সেভেনটি স্ট্রিট এবং রিড বার্ড স্ট্রিটের কাছে ...

সংবাদদাতা, কালনা: কালনা ফেরিঘাটের এবার নিলাম হতে অনলাইনে। ইতিমধ্যে কালনা পুরসভার তরফে অনলাইনে নিলামের বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। ১১ জুলাই নিলামের দিন ধার্য করা হয়েছে। পুরসভার পক্ষ থেকে নিলাম দর রাখা হয়েছে বাৎসরিক ৫০ লক্ষ টাকা।  ...

 দীপ্তিমান মুখোপাধ্যায়, হাওড়া: জেলার সেচবাঁধ ও শর্ট কাট চ্যানেলগুলির অবস্থা খতিয়ে দেখে পঞ্চায়েত সমিতিগুলিকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিল জেলা প্রশাসন। আগামী কয়েকদিনের মধ্যেই রাজ্যে বর্ষা ঢুকবে বলে জেলা প্রশাসনের কর্তারা মনে করছেন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চতর বিদ্যায় সাফল্য আসবে। প্রেম-ভালোবাসায় আগ্রহ বাড়বে। পুরনো বন্ধুর সঙ্গে সাক্ষাতে আনন্দলাভ হবে। সম্ভাব্য ক্ষেত্রে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩৬- রুশ সাহিত্যিক ম্যাক্সিম গোর্কির মৃত্যু
১৯৮৭- পরিচালক হীরেন বসুর মৃত্যু
২০০৫- ক্রিকেটার মুস্তাক আলির মৃত্যু
২০০৯- প্রখ্যাত সরোদ শিল্পী আলি আকবর খানের মৃত্যু  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৯৯ টাকা ৭০.৬৮ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৩৪ টাকা ৮৯.৫৫ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৯ টাকা ৭৯.৭৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৩,৩২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩১,৬১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩২,০৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৭,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৭,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩ আষা‌ঢ় ১৪২৬, ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, প্রতিপদ ২৩/৫৮ দিবা ২/৩১। মূলা ১৭/১৬ দিবা ১১/৫০। সূ উ ৪/৫৬/০, অ ৬/১৮/৫৪, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৬ মধ্যে পুনঃ ৯/২৩ গতে ১২/৩ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে ৪/৩১ মধ্যে। রাত্রি ৭/১ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৮ গতে ২/৬ মধ্যে, বারবেলা ৬/৩৭ গতে ৮/১৭ মধ্যে পুনঃ ১/১৮ গতে ২/৫৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/৩৯ গতে ৮/৫৮ মধ্যে। 
২ আষাঢ় ১৪২৬, ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার, প্রতিপদ ২২/২২/৩৮ দিবা ১/৫২/৩৩। মূলানক্ষত্র ১৭/২৭/২৯ দিবা ১১/৫৪/৩০, সূ উ ৪/৫৫/৩০, অ ৬/২১/২৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪০ মধ্যে ও ৯/২৭ গতে ১২/৮ মধ্যে ও ৩/৪২ গতে ৪/৩৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৫ মধ্যে ও ১২/২ গতে ২/৯ মধ্যে, বারবেলা ৬/৩৬/১৫ গতে ৮/১৬/৫৯ মধ্যে, কালবেলা ১/১৯/১৩ গতে ২/৫৯/৫৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৭/৪০/৪৩ গতে ২/৫৯/৫৯ মধ্যে। 
মোসলেম: ১৪ শওয়াল 
এই মুহূর্তে
বিশ্বকাপ: আফগানিস্তানকে ১৫০ রানে হারাল ইংল্যান্ড

10:48:34 PM

স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে নিরাপত্তা, চালু কলকাতা পুলিসের হেল্প লাইন 
গতকাল মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ পাওয়ার পর স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে নিরাপত্তা জনিত সমস্যার ...বিশদ

09:48:24 PM

বিশ্বকাপ: আফগানিস্তান ৮৬/২ (২০ ওভার) 

08:17:00 PM

দার্জিলিং পুরসভায় প্রশাসক নিয়োগ করল রাজ্য সরকার 

08:08:39 PM

জাপানে বড়সড় ভূমিকম্প, মাত্রা ৬.৫, জারি সুনামি সতর্কতা 

07:34:58 PM

বিশ্বকাপ: আফগানিস্তান ৪৮/১ (১০ ওভার) 

07:05:00 PM