Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

 টিভির ভোলবদল

শৌণক সুর: বর্তমান যুগে টিভি ছাড়া বাড়িতে থাকাই দায়। সারাদিন পর বাড়িতে ফিরেই সুইচ অন করে বোকাবাক্সের সামনে বসে পড়া যেন নিত্যদিনের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। আশির দশকে টিভিতে খবর সম্প্রচার ছাড়া বিনোদনের তেমন কোনও অনুষ্ঠানই ছিল না। ১৯৮৭ সালে মালগুড়ি ডেজ এবং ৮৮ সালে মহাভারত সম্প্রচারের পর টিভির দেখার সংজ্ঞাই পালটে যায়। খবর পরিবেশনের স্টাইল পরিবর্তনের পাশাপাশি ছবি, গান দেখার জন্য আলাদা চ্যানেল, টক শো, গেম শো-র মত অনুষ্ঠান টিভির জনপ্রিয়তা বাড়িতে তোলে। সময়ের সাথে সাথে চাহিদার বৃদ্ধিতে লুক এবং ফিচারের পরিবর্তন ঘটিয়ে ক্রমেই স্মার্ট হতে থাকে পুরোনো দিনের অ্যান্টেনাওয়ালা বোকাবাক্স।
গ্রিক শব্দ 'টেলি' এবং ল্যাটিন শব্দ 'ভিশন' -এর যুগলবন্দীতে নামকরণ হয় টেলিভিশনের। ১৮৬২ সালে প্রথমবার তারের মাধ্যমে ছবি পাঠানো সম্ভব হয়। ১৮৭৩ সালে বিজ্ঞানী মে ও স্মিথ ইলেকট্রনিক সিগনালের মাধ্যমে ছবি পাঠানোর ভিন্ন পদ্ধতি আবিষ্কার করেন। এরপর বৈজ্ঞানিকমহলে টিভির আধুনিকীকরণের চেষ্টা নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চলছিল। ১৯২৬ সালে ব্রিটিশ বিজ্ঞানী জন লগি বেয়ার্ড যুগান্তকারী আবিষ্কার করে ফেলেন। তার আবিষ্কৃত টেলিভিশনের মাধ্যমে সাদা-কালো ছবি দূরে বৈদ্যুতিক সম্প্রচারের মাধ্যমে পাঠানো সম্ভবপর হয়। বিশ্বে বাণিজ্যিক ভাবে টেলিভিশনের ব্যবহার শুরু হয় ১৯৪০ সাল থেকে। অতঃপর ১৯৪৫ সালে যন্ত্রটি পূর্ণতা লাভ করে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় টিভির গুরুত্ব ক্রমেই বৃদ্ধি পায়। গত বেশ কয়েক দশকে টেলিভিশন, গণমাধ্যমের ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা গ্রহণ করেছে।
সিআরটি টিভি
কিছুদিন আগে পর্যন্ত বাড়িতে সিআরটি টিভির চল ছিল বেশি। এই টিভিগুলি ওজনে ছিল বেশ ভারী। যে কোনও অ্যাঙ্গেল থেকে এই টিভির দেখার সুবিধা থাকলেও সমস্যাও ছিল বিস্তর। আকারে-ওজনে ভারীর পাশাপাশি বিদ্যুৎ খরচে মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাস উঠে যেত। এই টিভির স্ক্রিনে দেখানে ছবি এখনকার মত ন্যাচারাল ছিল না। মূলত পিকচার টিউবের মাধ্যমে এই টিভি কাজ করত। ব্যবহার করা হত ভ্যাকুম টিউব, যার সাথে ছিল ইলেকট্রিক গান। একাধিক গান থেকে ইলেকট্রন বিম পর্দায় পড়ত। ফলে ফসফার কণাগুলি উজ্বল হয়ে পর্দায় ছবি ফুটে উঠত। এই কণাগুলির গঠিত হত লাল, নীল এবং সবুজ রংয়ের মাধ্যমে। ১৯৩০ থেকে প্রায় ২০০০ সাল পর্যন্ত চুটিয়ে ব্যবসা করেছিল সিআরটি টিভি। এরপর বাজার এলসিডির দখলে চলে যায়।
এলসিডি টিভি
সিআরটির আকার ছিল বেশ বড়। সেই টিভির তুলনায় এলসিডি বা লিক্যুইড ক্রিস্টাল ডিসপ্লে ছিল অনেক বেশি আকর্ষণীয়। দেওয়ালে মাউন্ট করার সুবিধার পাশাপাশি ছিল দুর্দান্ত লুক এবং বিদ্যুতের কম খরচ। প্রদর্শিত ছবির মান উন্নত এবং ন্যাচারাল হওয়ায় দ্রুত জনপ্রিয়তা পায় এই টিভি। সমস্যার মধ্যে ছিল, যে কোনও অ্যাঙ্গেল থেকে এই টিভির ছবি ক্লিয়ার দেখা যেত না। এলসিডি টিভিতে ছিল না কোনও পিকচার টিউব। ওয়াইড স্ক্রিন হওয়ায় রেজ্যুলেশন ছিল ১৪৪০*৯০০-এর কাছাকাছি। এর প্যানেলে ব্যবহার করা হত সিসিএফএল ল্যাম্প। রেসপন্স টাইম কম নেওয়ায় ডিসপ্লেতে পিক্সেলগুলি সিআরটির তুলনায় দ্রুতগতিতে রং পরিবর্তন করতে পারত। ফলে সামনে বলে থাকা ব্যক্তি ক্লিয়ার ছবি দেখতে পেতেন। ২০০০ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত বাজারে এলসিডির দাপট বজায় ছিল।
থ্রিডি টিভি
২০০৯ সালে থ্রিডি মুভি অ্যাভেটার রিলিজ করার পর থেকেই থ্রিডি সিনেমার রমরমা। তাই টিভিতেও ভোলবদলের প্রয়োজন দেখা দেয়। প্রেক্ষাগৃহের পাশাপাশি বাড়িতেও থ্রিডি সিনেমা দেখতে হবে। ব্যাস কোমর বেঁধে নেমে পড়ে একাধিক টিভি প্রস্তুতকারী সংস্থা। বাজারে চলে আসে থ্রিডি টিভি। চোখে বিশেষ চশমা পরলেই দেখতে পাওয়া যাবে টিভির পর্দা চিরে বের হয়ে আসছে জুরাসিক পার্কের ডাইনোসোরাস। এই প্রযুক্তি টেলিভিশন জগতে একটি যুগান্তকারী অধ্যায়। থ্রিডি টিভিতে মাতোয়ারা হয়েছিল গেমিং দুনিয়ার সঙ্গে যুক্ত একাংশরাও। অ্যাকশন গেমে বন্দুক বা তরোয়াল হাতে সামনাসামনি শত্রুপক্ষের সঙ্গে মোকাবিলা সত্যিই এক অন্য অনুভূতি। এছাড়া থ্রিডি চশমা চোখে খেলা দেখার সময় মনে হবে আপনি যেন মাঠেই বসে আছেন। কিন্তু এহেন টেকনোলজির টিভি পিছিয়ে পড়ল শুধুমাত্র ব্যয়সাপেক্ষ বলে। এছাড়া সারা বছরে থ্রিডি মুভি বা গেম কম রিলিজ করাও এই টিভির জনপ্রিয়তা হারানোর অন্যতম কারণ।
এলইডি টিভি
এলসিডি এবং এলইডি টিভির ডিসপ্লে নিয়ে বিভ্রান্তি রয়েছে। অনেকের ধারণা প্রযুক্তগত দিক থেকে এলইডি টিভি এলসিডির তুলনায় অনেকখানি এগিয়ে। তা কিন্তু একেবারেই নয়। বরং এলইডি টিভিকে এলসিডি টিভির আপগ্রেড ভার্সন বলা চলে। স্ক্রিনে আলোর উৎসের জন্য এটিতে সিসিএফএল লাইটের বদলে ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি লাইট প্যানেল। যার ফলে সামনে বসে থাকা ব্যক্তি ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ছবি উপভোগ করতে পারেন। প্যানেলে এলইডি ব্যবহারের ফলে দুর্দান্ত ছবির দেখার পাশাপাশি বিদ্যুৎ খরচ প্রায় ৪০ শতাংশ কমে যায়। ফলে মাসের শেষে বিদ্যুতের বিল মেটানোর সময় পকেট হালকা হয় না। নতুন এই টিভিতে কিছু অতিরিক্ত ফিচারও যোগ করা হয়েছে। অধিকাংশ এলসিডি টিভিতে পেন ড্রাইভের মাধ্যমে গান এবং ছবি দেখার সুবিধা ছিল। এলইডি টিভিতে এই দুই সুবিধার পাশাপাশি ব্লু-রে কোয়ালিটির মুভি দেখার ফিচারও যোগ করা হয়েছে। বর্তমানে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই টিভি।
স্মার্ট টিভি
সবাই চায় স্মার্ট হতে। তাই টিভিই বা পিছিয়ে থাকে কেন। লেগে পড়েছে নিজেকে আপগ্রেড করতে। ২০১৭ সালের পর অধিকাংশ ব্যক্তিদের বাড়িতেই স্মার্ট টিভির রমরমা। ইন্টারনেটের দুনিয়ায় ক্রমেই অভ্যস্ত হয়ে পড়ছে সকলে। সারাক্ষণ মোবাইলে ইউটিউব, গুগল খুলে খুটখাট। তাই টিভিতেও নেট সংযোগের ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করে একাধিক টেলিভিশন প্রস্তুতকারী সংস্থা। এলইডি টিভির তুলনায় ফিচারে খুব বেশি আপগ্রেড না হলেও গ্রহণযোগ্যতায় বেশ কয়েক কদম এগিয়ে গিয়েছে স্মার্ট টিভি। এলইডিতে যে সকল ফিচার রয়েছে তার পাশাপাশি ওয়াইফাইয়ের ফিচার যোগ করা হয়েছে স্মার্ট টিভিতে। ফলে টিভি খুলে ইউটিউবে সিনেমা দেখার পাশপাশি মোবাইলের একাধিক কাজ করাও সম্ভবপর হয়েছে। জেনারেশন ওয়াইয়ের কাছে অতিমাত্রায় সমাদৃত হয়েছে এই টিভি।
ওএলইডি
বিশ্বে টিভি তৈরির প্রযুক্তিকে বেশ খানিকটা এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে ওএলইডি। অরগানিক লাইট এমিটিং ডায়োড ডিসপ্লে বা ওএলইডিতে রয়েছে অত্যাধুনিক ফিচার। এলসিডি বা এলইডির মত এই টিভিতে প্যানেলের পিছনে কোনও ব্যাকলাইট নেই। বরং স্ক্রিনের পিছনে থাকা প্রতিটি পিক্সেল থেকে স্বংয়ক্রিয় ভাবে আলো নির্গত হয়। এর ফলে ছবির প্রতিটি কালার হয় নিঁখুত এবং দুর্দান্ত। পাশাপাশি অত্যন্ত স্লিম হওয়ার ফলেই লুকেও বাজিমাত করেছে এই টিভি। বিদ্যুতের খরচ এলইডির তুলনা বেশ খানিকটা কম। বাজারে রয়েছে কার্ভ শেপেও ওএলইডি টিভিও। ফলে ঘরের যে কোনও স্থান থেকেই ক্লিয়ার ছবি দেখা সম্ভব। তবে দাম বেশ চড়া হওয়ায় আপাতত মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরেই রয়েছে এই টিভি।
ফোরকে টিভি
প্রযুক্তি কখনও থেমে থাকে না সময়েই সঙ্গে সঙ্গে তা আপগ্রেড হতে থাকে। এখন চর্চায় রয়েছে ফোরকে টিভি। যদিও ফোরকে টেকনোলজির ক্যামেরা বাজারে বেশ কিছুদিন আগেই এসেছে। ইউটিউবও বেশ কয়েক বছর আগেই ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে ফোরকে টেকনোলজির ব্যবহার শুরু করেছিল। এবার ফোরকে টেকনোলজিতে নাম লেখাল টিভিও। এই টিভির প্যানেলে আড়াআড়ি ভাবে রয়েছে ৩৮২০টি পিক্সেল এবং উপরনীচে রয়েছে ২১৬০ পিক্সেল। প্রায় চার হাজার পিক্সেল থাকার জন্যই এই টিভির নাম ফোরকে। রেজ্যুলেশন ক্ষেত্রে ফুল এইচডি এলটিভির তুলনায় প্রায় চারগুন এগিয়ে রয়েছে এই টিভি। কিন্তু বাজারে ফোরকে চ্যানেল নেই, রয়েছে এইচডি চ্যানেল। যা ফোরকে টিভির জন্য অনুপযুক্ত। সেজন্য এই টিভিতে রয়েছে ইউএইচডি আপস্কেলিং ফিচার। এর সাহায্যে এইচডি চ্যানেলের পিক্সেলকে ডবল করে ফেলা যায়। ফলে টিভির সামনে বসে থাকা ব্যক্তি ফোরকে টেকনোলজিতেই দুর্দান্ত পিকচার দেখতে পাবেন। বর্তমানে এই টিভির দাম প্রায় ৪০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার বেশি।
এই বোস সেই বোস নয়

মৃণাল শীল: আমরা দেশনায়ক সুভাষচন্দ্র বসুর ছাত্রাবস্থার একটি ঘটনার সঙ্গে সকলেই পরিচিত। সেটি হল, প্রেসিডেন্সি কলেজের ইতিহাসের এক ইংরেজ অধ্যাপক ওটেন সাহেব এক বাঙালি ছাত্রকে বিনা কারণে অপমান করেন। এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয় গোটা প্রেসিডেন্সি কলেজ।  
বিশদ

12th  January, 2020
অদৃশ্য ক্যামেরার ফোন!

রোটেটর, পপ আপ, আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার স্মার্টফোনের দুনিয়ায় নতুন সংযোজন। ছবি তোলার পরই অদৃশ্য হয়ে যাবে ক্যামেরা। এমনই অভিনব প্রযুক্তির স্মার্টফোনের আত্মপ্রকাশ করল ওয়ান প্লাস। সম্প্রতি লাস ভেগাসে আয়োজিত ‘কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক্স শো’-তে (সিইএস ২০২০) মডেলটি প্রকাশ্যে এনেছে ওয়ান প্লাস।
বিশদ

12th  January, 2020
রোদ্দুর ছুঁতে সূর্যের দেশে পাড়ি দিচ্ছে ভারত 

বিনয় মালাকার: চাঁদের পর এবার সূর্য। পরপর দু’বার চন্দ্র অভিযানের সাফল্যের পর ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বা ইসরোর এখন লক্ষ্য সূর্য। সূর্যের অগ্নি বলয়ে হয়তো পৌঁছনো সম্ভব হবে না, তবে সূর্যের অনেকটাই কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা চালানো হবে।  
বিশদ

12th  January, 2020
সেরা কিছু প্রযুক্তিগত উন্নতি 

১০৮, ৪৮ ও ৬৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা: মোবাইল ক্যামেরার অগ্রগতি ডিএসএলআর জগৎকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে। বিশ্বে প্রথমবার ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর বাজারে নিয়ে এসেছে স্যামসাং।  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের সেরা ব্যক্তিত্ব 

২০১৯ সালে বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে অবদান রাখা ব্যক্তিদের মধ্যে এক ঝলকে খুঁজে নেওয়া কয়েকজন...  বিশদ

29th  December, 2019
জীবজন্তু 

প্রতিবছরই কিছু না কিছু নতুন প্রজাতির জীবজন্তু আবিষ্কার হয়। ২০১৯ সালও তার ব্যতিক্রম ছিল না। সেরকমই কয়েকটি প্রাণী হল  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের উল্লেখযোগ্য ঘটনা 

 ১ জানুয়ারি: মানববিহীন মহাকাশযান নিউ হরাইজন্‌স সৌর জগতের দূরতম প্রান্তে অবস্থিত কাইপার বেল্টের মহাজাগতিক বস্তু ২০১৪ এমইউ৬৯-এর কাছে পৌঁছয়।
 ৩ জানুয়ারি: মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে প্রথমবার চাঁদের অন্ধকার পৃষ্ঠে অবতরণ করে চীনা মহাকাশযান চ্যাং ই-৪।  বিশদ

29th  December, 2019
ইলেকট্রনিক্সের ইতি!
আলোয় চলবে নতুন
যুগের কম্পিউটার

রক্তিম হালদার: বর্তমানে ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’র মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে তামাম বিশ্ব। এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন একটাই — তাহলে কি আজকের যুগের সাধারণ ইলেকট্রনিক কম্পিউটারের বদলে খুব শীঘ্রই বাজারে আসতে চলেছে ‘কোয়ান্টাম কম্পিউটার’? 
বিশদ

08th  December, 2019
 কৃত্রিম ত্বক নিয়ে মানুষ
হয়ে উঠবে রোবট

 সৌম্য নিয়োগী: রোবটরাও এবার হয়ে উঠবে মানুষের মতো! কৃত্রিম নয়, যন্ত্রমানবের শরীরেও থাকবে ব্যথা-বেদনা-ভালোবাসার মতো অনুভূতি। রোবটকে জড়িয়ে ধরলে সে লজ্জা পাবে। ভালোবেসে জড়িয়েও ধরবে। হাতে হাত রেখে মনও পড়তে পারবে সে। ঠান্ডা-গরম, হাসি-কান্না, আশঙ্কা — সব‌মিলিয়ে ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ই কাজ করবে যন্ত্র শরীরে।
বিশদ

08th  December, 2019
যন্ত্র কখনই চেতনা সম্পন্ন হবে না
বেদান্ত দর্শন তুলে ধরে বসু বিজ্ঞান
মন্দিরে বলে গেলেন সুভাষ কাক

 দেবজ্যোতি রায়: আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উন্নতিতে অনেক কাজই আর মানুষকে করতে হচ্ছে না। করে দিচ্ছে যন্ত্র। কর্মচ্যুত হচ্ছেন বহু চাকুরিজীবী। এআইয়ের অগ্রগতির ফলে বর্তমান গোটা বিশ্বজুড়ে একটা অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। আশঙ্কা, সংশয়ের প্রহর গুনছে তামাম দুনিয়া।
বিশদ

08th  December, 2019
 গুগল ইন্ডিয়ার শীর্ষ পদে সঞ্জয় গুপ্ত

ডিজনি ভারত শাখার প্রাক্তন শীর্ষ আধিকারিক সঞ্জয় গুপ্তকে কান্ট্রি ম্যানেজার এবং সেলস ও অপারেশনসের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিয়োগ করল মার্কিন তথ্যপ্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। আগামী বছরের শুরুতে তিনি নতুন পদে কাজ শুরু করবেন। এই পদে ছিলেন রঞ্জন আনন্দন।
বিশদ

08th  December, 2019
কী করে বুঝবেন ফোন
ট্যাপ হচ্ছে কি না?

 একটি উপায় হচ্ছে অ্যান্টি-ভাইরাস বা অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার অ্যাপ বা মোবাইল এন্ড টু এন্ড সিকিউরিটির উপর অনেক অ্যাপ প্লে স্টোরে রয়েছে। সেরকম অ্যাপ যদি ডাউনলোড করা হয়, তারা কিন্তু একটা সঙ্কেত দেবে যে কিছু একটা হতে চলেছে বা কোনও প্রিভিলেজ অ্যাক্সেস দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

10th  November, 2019
বিজ্ঞানের টুকিটাকি 

চন্দ্র অভিযানের জন্য নাসার নতুন স্পেসস্যুট, পরতে পারবেন যে কেউ
নতুন অভিযানের জন্য চাই নতুন পোশাক। আগামী আর্টেমিস চন্দ্র অভিযানের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে নাসা। তার জন্য বিশেষ স্পেসস্যুট বা মহাকাশ অভিযানের উপযুক্ত পোশাক প্রস্তুত করে ফেললেন বিজ্ঞানীরা। সাংবাদিক সম্মেলন করে তা প্রকাশ্যে নাসার প্রধান জিম ব্রিডেনস্টাইন।   বিশদ

10th  November, 2019
নজরদারির নয়া ফাঁদ হোয়াটসঅ্যাপ 

সন্দীপ সেনগুপ্ত (ফাউন্ডার ডিরেক্টর, ইন্ডিয়ান স্কুল অব অ্যান্টি হ্যাকিং): আপনার তথ্য কি সুরক্ষিত? বা আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই কেউ আপনার উপর নজরদারি চালাচ্ছে না তো? ফেসবুকে তথ্য চুরির বিষয়টি এখন আর কারও অজানা নয়। কিন্তু, অনেকেই হোয়াটসঅ্যাপের সুরক্ষা ব্যবস্থার উপর ভরসা রেখেছিল।  
বিশদ

10th  November, 2019
একনজরে
 ওয়াশিংটন: আরও একবার রেকর্ড ছাড়িয়েছে পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে কার্বন ডাই অক্সাইড ও অন্য গ্রিনহাউস গ্যাসের উপস্থিতি। বিশ্ব আবহাওয়া সংস্থার (ডব্লিউএমও) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এসব ...

 আগ্রা, ২৫ জানুয়ারি: কথায় বলে প্রেমের কোনও বয়স হয়না। এই প্রবাদবাক্যটি ফের একবার বাস্তবে ধরা পড়ল। আর তার ঘটল খোদ তাজমহলেরই শহর আগ্রায়। যার রূপকার ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতির সূচনা। ব্যবসায়ীদের উন্নতির আশা রয়েছে। বিদ্যার্থীদের সাফল্যযোগ আছে। আত্মীয়দের সঙ্গে মনোমালিন্য দেখা দেবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২৬: জন লগি বেয়ার্ড লন্ডনে প্রথম টেলিভিশন সিস্টেমকে জনসমক্ষে নিয়ে আসেন
১৯৩৬: জনগণের জন্য লন্ডনে শুরু হল বিবিসি-র সম্প্রচার
১৯৩৯: আমেরিকায় নিয়মিতভাবে টেলিভিশন সম্প্রচার শুরু
১৭৮২ – বাঁশের কেল্লা খ্যাত বিপ্লবী তিতুমীর তথা সৈয়দ মীর নিসার আলীর জন্ম
১৮৮০ - টমাস আলভা এডিসন বৈদ্যুতিক বাতির বাণিজ্যিক পেটেন্ট করেন।
১৯৬৯: অভিনেতা ববি দেওলের জন্ম
১৯৬৯: চিত্রপরিচালক বিক্রম ভাটের জন্ম
১৯৮৬: বিশিষ্ট সেতারবাদক নিখিল বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু
২০০৯: ভারতের অষ্টম রাষ্ট্রপতি আর ভেঙ্কটরামনের মৃত্যু
২০০২ - নাইজেরিয়ার লেগোস শহরে এক বিস্ফোরণে এক হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত এবং প্রায় ২০ হাজারেরও বেশি মানুন গৃহহীন হন।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৬৪ টাকা ৭২.৩৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৭৩ টাকা ৯৫.০২ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৫ টাকা ৮০.৩৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৯৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৮৮৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,৪৭০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,১০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,২০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
26th  January, 2020

দিন পঞ্জিকা

১১ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার, (মাঘ শুক্লপক্ষ) দ্বিতীয়া ৫৯/৪৫ শেষ রাত্রি ৬/১৬। ধনিষ্ঠা অহোরাত্র। সূ উ ৬/২১/৫৩, অ ৫/১৬/১৩, অমৃতযোগ দিবা ৭/৫ গতে ১০/০ মধ্যে। রাত্রি ৭/১ গতে ৮/৪৬ মধ্যে। বারবেলা ১০/২৭ গতে ১/১০ মধ্যে। কালরাত্রি ১/২৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। 
১১ মাঘ ১৪২৬, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, রবিবার, দ্বিতীয়া ৫৬/১৭/৫২ শেষরাত্রি ৪/৫৬/৫। ধনিষ্ঠা ৫৮/৫৪/২৯ শেষরাত্রি ৫/৫৮/৪৪। সূ উ ৬/২৪/৫৬, অ ৫/১৪/৫৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/১ গতে ৯/৫৯ মধ্যে ও রাত্রি ৭/৮ গতে ৮/৫১ মধ্যে। কালবেলা ১১/৪৯/৫৬ গতে ১/১১/১১ মধ্যে। কালরাত্রি ১/২৮/৪১ গতে ৩/৭/২৬ মধ্যে।
৩০ জমাদিয়ল আউয়ল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
গিরিশ পার্ক এলাকায় ১১ মাসের শিশুকে অপহরণের অভিযোগ

04:55:03 PM

আনন্দপুরে একটি বাড়িতে ঢুকে মহিলাকে বেঁধে লুটতরাজ দুষ্কৃতীদের, তদন্তে পুলিস 

04:18:31 PM

৮৩ যাত্রী নিয়ে আফগানিস্তানের গজনিতে ভেঙে পড়ল বিমান

04:15:59 PM

৪৫৮ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

04:11:36 PM

আলিপুরদুয়ারে খুনের ঘটনায় থানায় আত্মসমর্পণ অভিযুক্তের
আলিপুরদুয়ার শহরের অরবিন্দ নগর এলাকায় বাপি পন্ডিত (২৩) নামের যুবক ...বিশদ

04:11:00 PM

৪৮৩ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

03:27:26 PM