Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

 টিভির ভোলবদল

শৌণক সুর: বর্তমান যুগে টিভি ছাড়া বাড়িতে থাকাই দায়। সারাদিন পর বাড়িতে ফিরেই সুইচ অন করে বোকাবাক্সের সামনে বসে পড়া যেন নিত্যদিনের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। আশির দশকে টিভিতে খবর সম্প্রচার ছাড়া বিনোদনের তেমন কোনও অনুষ্ঠানই ছিল না। ১৯৮৭ সালে মালগুড়ি ডেজ এবং ৮৮ সালে মহাভারত সম্প্রচারের পর টিভির দেখার সংজ্ঞাই পালটে যায়। খবর পরিবেশনের স্টাইল পরিবর্তনের পাশাপাশি ছবি, গান দেখার জন্য আলাদা চ্যানেল, টক শো, গেম শো-র মত অনুষ্ঠান টিভির জনপ্রিয়তা বাড়িতে তোলে। সময়ের সাথে সাথে চাহিদার বৃদ্ধিতে লুক এবং ফিচারের পরিবর্তন ঘটিয়ে ক্রমেই স্মার্ট হতে থাকে পুরোনো দিনের অ্যান্টেনাওয়ালা বোকাবাক্স।
গ্রিক শব্দ 'টেলি' এবং ল্যাটিন শব্দ 'ভিশন' -এর যুগলবন্দীতে নামকরণ হয় টেলিভিশনের। ১৮৬২ সালে প্রথমবার তারের মাধ্যমে ছবি পাঠানো সম্ভব হয়। ১৮৭৩ সালে বিজ্ঞানী মে ও স্মিথ ইলেকট্রনিক সিগনালের মাধ্যমে ছবি পাঠানোর ভিন্ন পদ্ধতি আবিষ্কার করেন। এরপর বৈজ্ঞানিকমহলে টিভির আধুনিকীকরণের চেষ্টা নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চলছিল। ১৯২৬ সালে ব্রিটিশ বিজ্ঞানী জন লগি বেয়ার্ড যুগান্তকারী আবিষ্কার করে ফেলেন। তার আবিষ্কৃত টেলিভিশনের মাধ্যমে সাদা-কালো ছবি দূরে বৈদ্যুতিক সম্প্রচারের মাধ্যমে পাঠানো সম্ভবপর হয়। বিশ্বে বাণিজ্যিক ভাবে টেলিভিশনের ব্যবহার শুরু হয় ১৯৪০ সাল থেকে। অতঃপর ১৯৪৫ সালে যন্ত্রটি পূর্ণতা লাভ করে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় টিভির গুরুত্ব ক্রমেই বৃদ্ধি পায়। গত বেশ কয়েক দশকে টেলিভিশন, গণমাধ্যমের ক্ষেত্রে অন্যতম ভূমিকা গ্রহণ করেছে।
সিআরটি টিভি
কিছুদিন আগে পর্যন্ত বাড়িতে সিআরটি টিভির চল ছিল বেশি। এই টিভিগুলি ওজনে ছিল বেশ ভারী। যে কোনও অ্যাঙ্গেল থেকে এই টিভির দেখার সুবিধা থাকলেও সমস্যাও ছিল বিস্তর। আকারে-ওজনে ভারীর পাশাপাশি বিদ্যুৎ খরচে মধ্যবিত্তের নাভিশ্বাস উঠে যেত। এই টিভির স্ক্রিনে দেখানে ছবি এখনকার মত ন্যাচারাল ছিল না। মূলত পিকচার টিউবের মাধ্যমে এই টিভি কাজ করত। ব্যবহার করা হত ভ্যাকুম টিউব, যার সাথে ছিল ইলেকট্রিক গান। একাধিক গান থেকে ইলেকট্রন বিম পর্দায় পড়ত। ফলে ফসফার কণাগুলি উজ্বল হয়ে পর্দায় ছবি ফুটে উঠত। এই কণাগুলির গঠিত হত লাল, নীল এবং সবুজ রংয়ের মাধ্যমে। ১৯৩০ থেকে প্রায় ২০০০ সাল পর্যন্ত চুটিয়ে ব্যবসা করেছিল সিআরটি টিভি। এরপর বাজার এলসিডির দখলে চলে যায়।
এলসিডি টিভি
সিআরটির আকার ছিল বেশ বড়। সেই টিভির তুলনায় এলসিডি বা লিক্যুইড ক্রিস্টাল ডিসপ্লে ছিল অনেক বেশি আকর্ষণীয়। দেওয়ালে মাউন্ট করার সুবিধার পাশাপাশি ছিল দুর্দান্ত লুক এবং বিদ্যুতের কম খরচ। প্রদর্শিত ছবির মান উন্নত এবং ন্যাচারাল হওয়ায় দ্রুত জনপ্রিয়তা পায় এই টিভি। সমস্যার মধ্যে ছিল, যে কোনও অ্যাঙ্গেল থেকে এই টিভির ছবি ক্লিয়ার দেখা যেত না। এলসিডি টিভিতে ছিল না কোনও পিকচার টিউব। ওয়াইড স্ক্রিন হওয়ায় রেজ্যুলেশন ছিল ১৪৪০*৯০০-এর কাছাকাছি। এর প্যানেলে ব্যবহার করা হত সিসিএফএল ল্যাম্প। রেসপন্স টাইম কম নেওয়ায় ডিসপ্লেতে পিক্সেলগুলি সিআরটির তুলনায় দ্রুতগতিতে রং পরিবর্তন করতে পারত। ফলে সামনে বলে থাকা ব্যক্তি ক্লিয়ার ছবি দেখতে পেতেন। ২০০০ সালের মাঝামাঝি পর্যন্ত বাজারে এলসিডির দাপট বজায় ছিল।
থ্রিডি টিভি
২০০৯ সালে থ্রিডি মুভি অ্যাভেটার রিলিজ করার পর থেকেই থ্রিডি সিনেমার রমরমা। তাই টিভিতেও ভোলবদলের প্রয়োজন দেখা দেয়। প্রেক্ষাগৃহের পাশাপাশি বাড়িতেও থ্রিডি সিনেমা দেখতে হবে। ব্যাস কোমর বেঁধে নেমে পড়ে একাধিক টিভি প্রস্তুতকারী সংস্থা। বাজারে চলে আসে থ্রিডি টিভি। চোখে বিশেষ চশমা পরলেই দেখতে পাওয়া যাবে টিভির পর্দা চিরে বের হয়ে আসছে জুরাসিক পার্কের ডাইনোসোরাস। এই প্রযুক্তি টেলিভিশন জগতে একটি যুগান্তকারী অধ্যায়। থ্রিডি টিভিতে মাতোয়ারা হয়েছিল গেমিং দুনিয়ার সঙ্গে যুক্ত একাংশরাও। অ্যাকশন গেমে বন্দুক বা তরোয়াল হাতে সামনাসামনি শত্রুপক্ষের সঙ্গে মোকাবিলা সত্যিই এক অন্য অনুভূতি। এছাড়া থ্রিডি চশমা চোখে খেলা দেখার সময় মনে হবে আপনি যেন মাঠেই বসে আছেন। কিন্তু এহেন টেকনোলজির টিভি পিছিয়ে পড়ল শুধুমাত্র ব্যয়সাপেক্ষ বলে। এছাড়া সারা বছরে থ্রিডি মুভি বা গেম কম রিলিজ করাও এই টিভির জনপ্রিয়তা হারানোর অন্যতম কারণ।
এলইডি টিভি
এলসিডি এবং এলইডি টিভির ডিসপ্লে নিয়ে বিভ্রান্তি রয়েছে। অনেকের ধারণা প্রযুক্তগত দিক থেকে এলইডি টিভি এলসিডির তুলনায় অনেকখানি এগিয়ে। তা কিন্তু একেবারেই নয়। বরং এলইডি টিভিকে এলসিডি টিভির আপগ্রেড ভার্সন বলা চলে। স্ক্রিনে আলোর উৎসের জন্য এটিতে সিসিএফএল লাইটের বদলে ব্যবহার করা হয়েছে এলইডি লাইট প্যানেল। যার ফলে সামনে বসে থাকা ব্যক্তি ক্রিস্টাল ক্লিয়ার ছবি উপভোগ করতে পারেন। প্যানেলে এলইডি ব্যবহারের ফলে দুর্দান্ত ছবির দেখার পাশাপাশি বিদ্যুৎ খরচ প্রায় ৪০ শতাংশ কমে যায়। ফলে মাসের শেষে বিদ্যুতের বিল মেটানোর সময় পকেট হালকা হয় না। নতুন এই টিভিতে কিছু অতিরিক্ত ফিচারও যোগ করা হয়েছে। অধিকাংশ এলসিডি টিভিতে পেন ড্রাইভের মাধ্যমে গান এবং ছবি দেখার সুবিধা ছিল। এলইডি টিভিতে এই দুই সুবিধার পাশাপাশি ব্লু-রে কোয়ালিটির মুভি দেখার ফিচারও যোগ করা হয়েছে। বর্তমানে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেয়েছে এই টিভি।
স্মার্ট টিভি
সবাই চায় স্মার্ট হতে। তাই টিভিই বা পিছিয়ে থাকে কেন। লেগে পড়েছে নিজেকে আপগ্রেড করতে। ২০১৭ সালের পর অধিকাংশ ব্যক্তিদের বাড়িতেই স্মার্ট টিভির রমরমা। ইন্টারনেটের দুনিয়ায় ক্রমেই অভ্যস্ত হয়ে পড়ছে সকলে। সারাক্ষণ মোবাইলে ইউটিউব, গুগল খুলে খুটখাট। তাই টিভিতেও নেট সংযোগের ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করে একাধিক টেলিভিশন প্রস্তুতকারী সংস্থা। এলইডি টিভির তুলনায় ফিচারে খুব বেশি আপগ্রেড না হলেও গ্রহণযোগ্যতায় বেশ কয়েক কদম এগিয়ে গিয়েছে স্মার্ট টিভি। এলইডিতে যে সকল ফিচার রয়েছে তার পাশাপাশি ওয়াইফাইয়ের ফিচার যোগ করা হয়েছে স্মার্ট টিভিতে। ফলে টিভি খুলে ইউটিউবে সিনেমা দেখার পাশপাশি মোবাইলের একাধিক কাজ করাও সম্ভবপর হয়েছে। জেনারেশন ওয়াইয়ের কাছে অতিমাত্রায় সমাদৃত হয়েছে এই টিভি।
ওএলইডি
বিশ্বে টিভি তৈরির প্রযুক্তিকে বেশ খানিকটা এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে ওএলইডি। অরগানিক লাইট এমিটিং ডায়োড ডিসপ্লে বা ওএলইডিতে রয়েছে অত্যাধুনিক ফিচার। এলসিডি বা এলইডির মত এই টিভিতে প্যানেলের পিছনে কোনও ব্যাকলাইট নেই। বরং স্ক্রিনের পিছনে থাকা প্রতিটি পিক্সেল থেকে স্বংয়ক্রিয় ভাবে আলো নির্গত হয়। এর ফলে ছবির প্রতিটি কালার হয় নিঁখুত এবং দুর্দান্ত। পাশাপাশি অত্যন্ত স্লিম হওয়ার ফলেই লুকেও বাজিমাত করেছে এই টিভি। বিদ্যুতের খরচ এলইডির তুলনা বেশ খানিকটা কম। বাজারে রয়েছে কার্ভ শেপেও ওএলইডি টিভিও। ফলে ঘরের যে কোনও স্থান থেকেই ক্লিয়ার ছবি দেখা সম্ভব। তবে দাম বেশ চড়া হওয়ায় আপাতত মধ্যবিত্তের নাগালের বাইরেই রয়েছে এই টিভি।
ফোরকে টিভি
প্রযুক্তি কখনও থেমে থাকে না সময়েই সঙ্গে সঙ্গে তা আপগ্রেড হতে থাকে। এখন চর্চায় রয়েছে ফোরকে টিভি। যদিও ফোরকে টেকনোলজির ক্যামেরা বাজারে বেশ কিছুদিন আগেই এসেছে। ইউটিউবও বেশ কয়েক বছর আগেই ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে ফোরকে টেকনোলজির ব্যবহার শুরু করেছিল। এবার ফোরকে টেকনোলজিতে নাম লেখাল টিভিও। এই টিভির প্যানেলে আড়াআড়ি ভাবে রয়েছে ৩৮২০টি পিক্সেল এবং উপরনীচে রয়েছে ২১৬০ পিক্সেল। প্রায় চার হাজার পিক্সেল থাকার জন্যই এই টিভির নাম ফোরকে। রেজ্যুলেশন ক্ষেত্রে ফুল এইচডি এলটিভির তুলনায় প্রায় চারগুন এগিয়ে রয়েছে এই টিভি। কিন্তু বাজারে ফোরকে চ্যানেল নেই, রয়েছে এইচডি চ্যানেল। যা ফোরকে টিভির জন্য অনুপযুক্ত। সেজন্য এই টিভিতে রয়েছে ইউএইচডি আপস্কেলিং ফিচার। এর সাহায্যে এইচডি চ্যানেলের পিক্সেলকে ডবল করে ফেলা যায়। ফলে টিভির সামনে বসে থাকা ব্যক্তি ফোরকে টেকনোলজিতেই দুর্দান্ত পিকচার দেখতে পাবেন। বর্তমানে এই টিভির দাম প্রায় ৪০ হাজার থেকে ১ লক্ষ টাকার বেশি।
27th  January, 2020
হোয়াটস অ্যাপে চালু হয়ে গেল ডার্ক মোড 

অবশেষে দীর্ঘ অপেক্ষার পর ডার্ক মোড লঞ্চ করল হোয়াটসঅ্যাপ। সমস্ত অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ব্যবহারকারীদের হোয়াটসঅ্যাপেই পাওয়া যাবে নতুন এই অপশন। মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহেই ডার্ক মোড লঞ্চ করে সংস্থা।   বিশদ

10th  March, 2020
পৃথিবীর দ্বিতীয় চাঁদ 

উপগ্রহের সংখ্যায় মঙ্গল গ্রহের সমকক্ষ হয়ে উঠল পৃথিবী। আমাদের গ্রহের উপগ্রহের সংখ্যা আর এক নয়। নীল গ্রহকে ঘিরে পাক খাচ্ছে আরও একটি চাঁদ। সম্প্রতি বিষয়টি নজরে আসায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মধ্যে। যদিও, আকারে ও ঔজ্জ্বল্যে চাঁদের ধারেকাছেও আসতে পারবে না উপগ্রহটি। আসলে এটি একটি গ্রহাণু।  
বিশদ

08th  March, 2020
অক্সিজেন ছাড়াই জীবনধারণ,
সন্ধান মিলল নতুন প্রাণীর 

অক্সিজেন ছাড়া কোনও প্রাণী বাঁচতে পারে না। কিন্তু, বর্তমানে কয়েকজন বিজ্ঞানী এমন এক প্রাণী খুঁজে পেয়েছেন, যা অক্সিজেন ছাড়াও বহাল তবিয়তে থাকতে পারে। এই আবিষ্কার প্রাণীজগৎ সম্পর্কে ধারণা তা আমূল বদলে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। 
বিশদ

08th  March, 2020
সূর্যের রহস্যভেদে সোলার অরবিটর 

সূর্যের মেরু অঞ্চলের ছবি তুলতে মহাকাশে পাড়ি দিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির (ইএসএ) তৈরি নতুন মহাকাশযান। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ফ্লোরিডার উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে অ্যাটলাস-৫ রকেটে চেপে সূর্যের উদ্দেশে পাড়ি দেয় নাসার এই সোলার অরবিটর। 
বিশদ

08th  March, 2020
বোস থেকে বোসন: কোয়ান্টাম
ইন্ডিয়ান সত্যেন্দ্রনাথ বসু 

গত মাসেই গিয়েছে তাঁর মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি বাংলায় বিজ্ঞানচর্চার পথিকৃৎ সত্যেন্দ্রনাথ বসু। এই বিশ্বের অর্ধেক কণাই তাঁর নামাঙ্কিত — বোসন কণা। বাকি ফের্মিয়ন। যতদিন এই পৃথিবীতে আলো থাকবে, ততদিনই ফোটন থাকবে। ততদিনই থাকবে বোসন। আর ততদিনই বোসন স্রষ্টা আলো হয়ে থাকবেন। তাঁর ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে সত্যেন্দ্রনাথ বসুর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য। লিখছেন বিনয় মালাকার... 
বিশদ

08th  March, 2020
মোবাইলে গেম ডাউনলোড করার কয়েকটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট 

জেন ওয়াই প্রজন্ম ভীষণ গেম খেলতে ভালোবাসেন। বাসে-ট্রেনে-ট্রামে প্রায় সব জায়গাতেই মোবাইল হাতে গেম খেলতে দেখা যায় তাঁদের। অ্যান্ড্রোয়েড প্লে-স্টোর বা আইফোনের অ্যাপ স্টোর থেকে তাঁরা বেশিরভাগ গেম ডাউনলোড করে থাকেন। কিন্তু, এমন কিছু গেম রয়েছে, যা প্লে-স্টোরে পাওয়া যায় না।  
বিশদ

09th  February, 2020
চলতি বছরেই বাজারে আসছে ১১৭টি ইমোজি 

ইমোজি। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের যুগে যা ছাড়া আমরা চলতেই পারি না। শব্দের বদলে ইমোজি দিয়ে মনের ভাব প্রকাশ করাতেই স্বচ্ছন্দ নতুন প্রজন্ম। সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখেই প্রতিবছর নতুন নতুন ইমোজি বাজারে নিয়ে আসে ‘ইউনিকোড কনসর্টিয়াম’। এই সংস্থাটি নতুন ইমোজি বাজারে আনার ছাড়পত্র দেয়।
বিশদ

09th  February, 2020
এবার থেকে মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর দেবে সরকার 

আরও বেশি গ্রাহক সুরক্ষা, না কি তার আড়ালে নজরদারি? এবার থেকে মোবাইলে আইএমইআই নম্বর দেবে ভারত সরকারই। এতদিন ১৫ সংখ্যার এই নম্বর সরবরাহ করতো আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘জিএসএমএ’। ভারতে এই সংস্থার হয়ে মোবাইল স্ট্যান্ডার্ড অ্যালায়েন্স অব ইন্ডিয়া (এমএসএআই) আইএমইআই সংক্রান্ত সমস্ত কাজকর্ম চালাত। 
বিশদ

09th  February, 2020
মারণ করোনা 

ভাইরাসটির গায়ে থাকা স্পাইক মানুষের শরীরের অবস্থিত রিসেপটরের সঙ্গে খাপে খাপ আটকে যায়। যার জেরেই এই মৃত্যুমিছিল বলে মনে করছেন বিজ্ঞানী-গবেষকেরা। লিখছেন কল্যাণকুমার দে... 
বিশদ

09th  February, 2020
এই বোস সেই বোস নয়

মৃণাল শীল: আমরা দেশনায়ক সুভাষচন্দ্র বসুর ছাত্রাবস্থার একটি ঘটনার সঙ্গে সকলেই পরিচিত। সেটি হল, প্রেসিডেন্সি কলেজের ইতিহাসের এক ইংরেজ অধ্যাপক ওটেন সাহেব এক বাঙালি ছাত্রকে বিনা কারণে অপমান করেন। এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয় গোটা প্রেসিডেন্সি কলেজ।  
বিশদ

12th  January, 2020
অদৃশ্য ক্যামেরার ফোন!

রোটেটর, পপ আপ, আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার স্মার্টফোনের দুনিয়ায় নতুন সংযোজন। ছবি তোলার পরই অদৃশ্য হয়ে যাবে ক্যামেরা। এমনই অভিনব প্রযুক্তির স্মার্টফোনের আত্মপ্রকাশ করল ওয়ান প্লাস। সম্প্রতি লাস ভেগাসে আয়োজিত ‘কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক্স শো’-তে (সিইএস ২০২০) মডেলটি প্রকাশ্যে এনেছে ওয়ান প্লাস।
বিশদ

12th  January, 2020
রোদ্দুর ছুঁতে সূর্যের দেশে পাড়ি দিচ্ছে ভারত 

বিনয় মালাকার: চাঁদের পর এবার সূর্য। পরপর দু’বার চন্দ্র অভিযানের সাফল্যের পর ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বা ইসরোর এখন লক্ষ্য সূর্য। সূর্যের অগ্নি বলয়ে হয়তো পৌঁছনো সম্ভব হবে না, তবে সূর্যের অনেকটাই কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা চালানো হবে।  
বিশদ

12th  January, 2020
সেরা কিছু প্রযুক্তিগত উন্নতি 

১০৮, ৪৮ ও ৬৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা: মোবাইল ক্যামেরার অগ্রগতি ডিএসএলআর জগৎকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে। বিশ্বে প্রথমবার ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর বাজারে নিয়ে এসেছে স্যামসাং।  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের সেরা ব্যক্তিত্ব 

২০১৯ সালে বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে অবদান রাখা ব্যক্তিদের মধ্যে এক ঝলকে খুঁজে নেওয়া কয়েকজন...  বিশদ

29th  December, 2019
একনজরে
 নয়াদিল্লি, ৮ এপ্রিল: ক্রিকেট জীবনে অনেক সাফল্যই রয়েছে তাঁর ঝুলিতে। কিন্তু ভারতের মাটিতে লাল বলের ক্রিকেটে আজ পর্যন্ত সিরিজ জিততে না পারার আক্ষেপ কুরে কুরে ...

  নিজস্ব, প্রতিনিধি কলকাতা: আগামীকাল শুক্রবার থেকে কুপনের মাধ্যমেও রেশন দোকান থেকে খাদ্য সামগ্রী দেওয়া হবে। খাদ্য দপ্তর সিদ্ধান্ত নিয়েছে, রেশন কার্ডের মতো ফুড কুপনের নম্বরও ইলেকট্রনিক পয়েন্ট অব সেলস (ই-পস) যন্ত্রে যাচাই করা হবে। ...

সংবাদদাতা, কুমারগ্রাম: লকডাউন ভেঙে বিনাকারণে রাস্তায় ঘুরে বেড়ানোর অপরাধে কুমারগ্রাম ব্লকের কামাখ্যাগুড়ি ফাঁড়ির পুলিস গত তিনদিনে ৪৫ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। বুধবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণা হওয়ার পরে সিংহভাগ মানুষই নিজেদের ঘরবন্দি করে ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের জেরে অন্যান্য শিল্পের পাশাপাশি নাভিশ্বাস উঠেছে আবাসন শিল্পেও। প্রবল আর্থিক চাপের মধ্যে পড়েছে তারা। এই অবস্থায় সুরাহা পেতে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আর্থিক ত্রাণের আর্জি জানাল আবাসন নির্মাতাদের সংগঠন ক্রেডাই।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের পঠন পাঠনে আগ্রহ বাড়বে। কর্মপ্রার্থীদের কর্মপ্রাপ্তিদের যোগ। বিশেষত সরকারি বা আধা সরকারি ক্ষেত্রে যোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৭৫৬: বাংলার নবাব হলেন সিরাজউদ্দৌলা
১৮৯৩: লেখক রাহুল সাংকৃত্যায়নের জন্ম
১৮৯৮: গায়ক পল রবসনের জন্ম
১৯৪৮: অভিনেত্রী ও রাজনীতিক জয়া বচ্চনের জন্ম
২০০৯: পরিচালক শক্তি সামন্তের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৫.২৯ টাকা ৭৭.০১ টাকা
পাউন্ড ৯২.০৮ টাকা ৯৫.৩৪ টাকা
ইউরো ৮১.১২ টাকা ৮৪.১৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৫ চৈত্র ১৪২৬, ৯ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, (চৈত্র কৃষ্ণপক্ষ) দ্বিতীয়া ৪৮/৪ রাত্রি ১২/৩৯। স্বাতী ৪৭/৩ রাত্রি ১২/১৫। সূ উ ৫/২৫/৩৫, অ ৫/৫০/৫৯, অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৬ গতে ৩/৬ মধ্যে। বারবেলা ২/৪৬ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৩৮ গতে ১/৫ মধ্যে।
২৬ চৈত্র ১৪২৬, ৯ এপ্রিল ২০২০, বৃহস্পতিবার, প্রতিপদ ১/৫৮/২৮ প্রাতঃ ৬/১৪/১৮ পরে দ্বিতীয়া ৫৬/২১/৪০ রাত্রি ৩/৫৯/৩৫। স্বাতী ৫৫/৯/৩৯ রাত্রি ৩/৩০/৪৭। সূ উ ৫/২৬/৫৫, অ ৫/৫১/৪৩। অমৃতযোগ রাত্রি ১২/৪৬ গতে ৩/৫ মধ্যে। বারবেলা ৪/১৮/৩৭ গতে ৫/৫১/৪৩ মধ্যে, কালবেলা ১১/৩৯/১৯ গতে ১/৬/১৩ মধ্যে।
১৫ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
২৪ ঘণ্টায় দেশে আক্রান্ত ৫৯১, মৃত ২০
ভারতে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৫৯১ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। ...বিশদ

05:43:09 PM

করোনায় আক্রান্ত হাওড়া হাসপাতালের সুপার সহ ২
 

হাওড়া হাসপাতালের সুপার নারায়ণ চট্টোপাধ্যায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি ...বিশদ

05:20:09 PM

করোনা: অস্ট্রিয়ায় নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৮৬ জন 

04:32:55 PM

করোনা: রাজ্যে আক্রান্ত আরও ১২ জন
রাজ্যে আজ আরও ১২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সেইমত ...বিশদ

04:24:00 PM

কাপড়ের মাস্ক তৈরি করুক ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প: মমতা 

04:21:00 PM

করোনা: গত ২৪ ঘণ্টায় স্পেনে নতুন করে আক্রান্ত হলেন ৪২২৬ জন 

04:10:08 PM