Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

সমাজে অপরাধ
বাড়াচ্ছে বায়ুদূষণ
বলছে বিজ্ঞানীদের গবেষণা

মৃণালকান্তি দাস: আগ্নেয়গিরির শিখরে যেন পিকনিক চলছে! অথচ হুঁশ নেই কারও। প্রতিদিনই একটু একটু করে ঘড়ির কাঁটার সঙ্গে বাড়ছে অসহিষ্ণুতা, বাড়ছে অপরাধের সংখ্যা। শুনলে অবাক হবেন, চলতি বছরের প্রথম ছ’মাসে আমাদের দেশে ২৪ হাজারের বেশি শিশু ধর্ষণের শিকার। সমাজে অস্থিরতা, রাজনীতিতে হিংসার বহিঃপ্রকাশ, অসামঞ্জস্যপূর্ণ সমাজ যখন তৈরি হয়, তখন এ ধরনের অবক্ষয়ের প্রবণতা বাড়ে। আমাদের মধ্যে বিচারহীনতা ও ভয়ের সংস্কৃতি বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতিতে ধর্ষণ সহ নানা অপরাধের সংখ্যা বেড়ে যায়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই অপরাধ বাড়ার পিছনেও রয়েছে ‘বায়ুদূষণ’-এর অদৃশ্য হাত! শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এটাই ঘটনা।
২০১১ সাল। লন্ডন স্কুল অব ইকনমিক্সের সেফি রথ নামে এক শিক্ষক বায়ুদূষণের বিভিন্ন প্রভাব নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করছিলেন। ভাবলেন, চিন্তাশক্তির উপর এর কোনও প্রভাব পড়ে কি না একটুখানি পরীক্ষা করে দেখা যাক। শিক্ষার্থীদের কয়েকটি পরীক্ষার দিন তিনি বেছে নিলেন। সেই সমস্ত দিনে বায়ুদূষণের মাত্রা কেমন থাকে, সেটা দেখা হল। বিশেষ করে বায়ু বাদে বাকি সব বিষয় যেন একই থাকে, সেটা খেয়াল রাখা হল। যেমন, ভিন্ন ভিন্ন দিন পরীক্ষা নেওয়া হলেও অংশগ্রহণকারী সব শিক্ষার্থী একই হতে হবে। পরীক্ষা হতে হবে একই জায়গায়। প্রশ্নের মান হতে হবে একইরকম। গবেষক দল আবিষ্কার করলেন, বায়ুদূষণের মাত্রা যেদিন বেশি ছিল, সেদিন শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাও খারাপ হয়েছে। অর্থাৎ, বায়ুদূষণ আসলেই শিক্ষার্থীদের চিন্তাশক্তির উপর খারাপ প্রভাব ফেলছে। বাস্তব জীবনে যা হয়, গবেষক দল তারপর সেটাই দেখালেন। যারা সেদিন পরীক্ষা খারাপ করেছে, তারা স্বাভাবিকভাবেই অন্যদের চেয়ে পিছিয়ে গিয়েছে। ফলে, তুলনামূলক ভালো বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে তাদের পড়ার সুযোগ কমে গিয়েছে। যার প্রভাব পড়বে তাদের চাকরি জীবনেও। যেটা পরবর্তীকালে আবার তাদের পারিবারিক জীবনেও প্রভাব ফেলবে। মানে, শুধু পরীক্ষার দিনটায় যে এলাকার বায়ুদূষণের মাত্রা বেশি থাকবে, সারা জীবনের জন্য সেই এলাকার শিক্ষার্থীরা কোনও কারণ ছাড়াই অনেকটা পিছিয়ে যাবে।
পরবর্তী প্রমাণ পাওয়া গেল ২০১৬ সালে। আরও একদল গবেষক এ নিয়ে পরীক্ষা করে একই ফলাফল পেলেন। রথ এবং তাঁর দল তাঁদের গবেষণা আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যান। দু’বছরে লন্ডনের ৬০০ ইলেক্টোরাল ওয়ার্ডে (ভোটের হিসেবে ভাগ করা এলাকা) যেসব অপরাধ সংগঠিত হয়েছে, সেসব তথ্য নিয়ে কাজ করলেন। দেখা গেল, যে এলাকাই হোক না কেন, ভয়ঙ্কর সব অপরাধ যেসব দিনে ঘটেছে, সেসব দিনের বায়ুদূষণের মাত্রা অন্যান্য দিনের তুলনায় বেশি ছিল।
হ্যাঁ, এর মধ্যে অন্য অনেক ব্যাপারই থাকতে পারে। শুধু এটুকু যুক্তি দিয়ে গবেষণার ফলাফল টেনে ফেলা যায় না। তাহলে, এই বিষয়টা সঠিক কিনা, সেটা পুরোপুরি বোঝার উপায় কী? এরপর গবেষকরা কিছু এলাকা বেছে নিলেন। সেখানকার দূষিত বায়ু শনাক্ত করে তার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে লাগলেন। বাতাস যেদিকে বইবে, দূষিত বায়ু ধীরে ধীরে সেদিকেই সরে যাবে। সেই হিসেবে, একটা শহরে সময়ে সময়ে বায়ুদূষণের পরিমাণ কম-বেশি হবে। রথের ভাষায়, ‘আমরা শুধু সেই দূষিত বায়ু-মেঘটাকে অনুসরণ করে গিয়েছি। সেইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার অপরাধ প্রবণতার দিকেও লক্ষ্য রেখেছি। দেখা গেল, দূষিত বায়ু যে এলাকা দিকে যাচ্ছে, অপরাধের হার তুলনামূলকভাবে বেড়ে যাচ্ছে। তবে, এই গবেষণা থেকে অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলেও, ভয়াবহ অপরাধগুলোর
উপর এর প্রভাব সেভাবে বোঝা যায়নি।’
২০১৮ সালের আরও এক গবেষণা থেকে খুন, ধর্ষণের মতো অপরাধের উপরেও বায়ুদূষণের সম্ভাব্য প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। এই গবেষণাটির নেতৃত্বে ছিলেন আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি)-র গবেষক জ্যাকসন লু। দীর্ঘ ন’বছর ধরে আমেরিকার ৯ হাজারের মতো এলাকা নিয়ে কাজ করেছেন তাঁরা। দেখা গেল, ছ’টি ভয়াবহ অপরাধ, যেমন — খুন, ধর্ষণ, ডাকাতি ইত্যাদির উপরেও বায়ুদূষণের প্রভাব পড়ছে এবং যেসব শহরে দূষণের মাত্রা বাড়ছে, সেখানে অপরাধের মাত্রাও বেড়ে যাচ্ছে। এরকম একাধিক গবেষণা বলছে, বায়ুদূষণ মস্তিষ্কের উপর যে প্রভাব ফেলে, তার ফলে মানুষের বিবেচনা বোধ এলোমেলো হয়ে যেতে পারে। বেড়ে যেতে পারে মানসিক সমস্যা এবং অপরাধ প্রবণতা।
শুধু তাই নয়, মানুষের মস্তিষ্ক স্বাভাবিকভাবেই আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। জ্যাকসন লু এবং তাঁর সহকর্মীরা পরীক্ষা করে দেখিয়েছেন, বায়ুদূষণের প্রভাব মস্তিষ্কের স্বাভাবিক চিন্তা-ভাবনায় ব্যাঘাত ঘটায়। পরীক্ষা করতে তাঁরা বিভিন্ন দেশের মানুষকে আলাদাভাবে বসান। খুব দূষিত এলাকার ছবি দেখিয়ে জানতে চান, তাঁরা সেসব এলাকায় বসবাস করতে রাজি আছেন কিনা। এর মধ্যে আমেরিকান যেমন ছিলেন, তেমনই ভারতীয়ও ছিলেন। এই সময় তাদের মস্তিষ্কের ব্রেনওয়েভ, পালস ইত্যাদি পর্যবেক্ষণ করা হয়।
লু’র কথায়, ‘আমরা তাঁদেরকে মানসিকভাবে বায়ুদূষণের অনুভূতি দিই। জিজ্ঞাসা করি, এমন পরিবেশে থাকতে তাঁদের কেমন লাগবে? একইসঙ্গে পরিষ্কার কোনও এলাকায় থাকতে কেমন লাগবে, সেটাও তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হয়।’ দেখা যায়, শুধু মানসিকভাবে দূষিত এলাকায় থাকার অনুভূতিও মানুষের মধ্যে দুশ্চিন্তা, উদ্বেগ এবং স্বার্থপর ভাবনা জাগিয়ে তোলে। শান্ত মাথায় অপরাধ করা বা কাউকে ঘুসি মেরে বসার চেয়ে উদ্বিগ্ন অবস্থায় মেরে বসার সম্ভাবনা বেশি। তার মানে, বায়ুদূষণ আপনার ব্যবহারের উপর খারাপ প্রভাব ফেলছে।
গবেষকদের মতে, শুধু উদ্বেগ বা স্বার্থপর ভাবনাই নয়, জৈবিক কারণও রয়েছে এর পিছনে। দূষিত বায়ুতে শ্বাস নিলে আপনার মস্তিষ্ক প্রয়োজনের তুলনায় কম মাত্রায় অক্সিজেন পৌঁছয়। এমন অবস্থায় ওই ব্যক্তি যে স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারবেন না, সেটাই স্বাভাবিক। তাছাড়া, দূষিত বায়ু নাক, কান, গলা, ফুসফুসের উপরেও প্রভাব ফেলে। এসবের ফলে মস্তিষ্কে স্নায়বিক সংযোগের ক্ষতি হতে পারে। এই ক্ষতিটা মস্তিষ্কের প্রি-ফ্রন্টাল লোবে হয়। আর, মস্তিষ্কের এই অংশটিই মূলত আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ, বিবেচনাবোধ ইত্যাদিকে নিয়ন্ত্রণ করে।
বর্তমান পৃথিবীর অর্ধেকের বেশি মানুষ শহরে বসবাস করে। ফলে বাসে বা গাড়িতে যাতায়াতের সময় নিয়মিত ভীষণরকম দূষিত বাতাস টেনে নিচ্ছে মানুষ। ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (‘হু’) বলছে, বিশ্বের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৯ জনই ভয়াবহ দূষিত বায়ুতে শ্বাস নিচ্ছে। বর্তমান হিসেবে প্রতিবছর প্রায় ৭০ লক্ষ মানুষ শুধু বায়ুদূষণের প্রভাবে মারা যাচ্ছে। তাহলে ভাবুন আমাদের ভবিষ্যৎ সমাজের চিত্রটা কেমন হতে চলেছে?
বিজ্ঞান গবেষণার একটা বড় বৈশিষ্ট্য হল, সে শুধু তথ্য বিশ্লেষণই করে না, বরং বিশ্লেষিত তথ্য ব্যবহার করে অনুমান করতে পারে, কী ধরনের ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। দেখা গেল, এমআইটির গবেষক জ্যাকসন লু’র গবেষণা শুধু তথ্য বিশ্লেষণই করছে না, বরং বায়ুদূষণের মাত্রা হিসেব করে বলে দিতে পারছে, কোন শহরে কোন দিন অপরাধের হার কেমন হবে। সবচেয়ে বড় কথা, এই গবেষণায় বয়স, লিঙ্গ, চাকরিজীবীদের পেশাগত পদ এবং সেই হিসেবে তাদের আয়-ব্যয়, জনসংখ্যা ইত্যাদি বিষয়গুলিও হিসেবে রাখা হয়।
সাউথ ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটির ডায়ানা ইউনান এবং তাঁর সহকর্মীরা গবেষণা করে দেখেছেন, প্রতারণা কিংবা স্কুল পালানো থেকে শুরু করে ছোটখাটো চুরি, ভাঙচুর ইত্যাদির উপরেও বায়ুদূষণের প্রভাব রয়েছে। ওই গবেষণায় ৬২৮ জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের তথ্য ব্যবহার করা হয়েছে। তাঁরা বাতাসে পিএম ২.৫ কণার দূষণের দিকে বিশেষ নজর রেখেছিলেন। মানুষের চুল যতটা সরু তার থেকে প্রায় ৩০ গুণ ছোট যেসব কণা বাতাসের সঙ্গে মিশে গিয়ে বায়ুদূষণ ঘটায়, এরাই পিএম ২.৫ নামে পরিচিত। কল-কারখানা, মোটর গাড়ি বা পোড়ানো কাঠ থেকে এই ধরনের কণা উৎপন্ন হতে পারে এবং বাতাসের সঙ্গে মিশে যেতে পারে। ভারত কি এই মারণ-ঘাতক থেকে সতর্ক?
বায়ুদূষণের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করতে পরিবেশ মন্ত্রক সম্প্রতি একটি নির্দিষ্ট রূপরেখা প্রকাশ করেছে। যার পোশাকি নাম, ‘ন্যাশনাল ক্লিন এয়ার প্রোগ্রাম’ (এনসিএপি)। ওই কর্মসূচির প্রধান উদ্দেশ্যই হল, যেভাবে দেশে বায়ুদূষণ বিপজ্জনক মাত্রায় বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাকে নিয়ন্ত্রণ করা। পাশাপাশি, ২০২৪ সালের মধ্যে প্রাথমিক ভাবে বাতাসে ভাসমান ধূলিকণা (পিএম ১০) এবং অতি সূক্ষ্ম ধূলিকণার (পিএম ২.৫) পরিমাণ জাতীয় স্তরে ২০-৩০ শতাংশ কমানো। সেই রিপোর্টেই দেখা যাচ্ছে, গত পাঁচ বছর ধরে ধারাবাহিক ভাবে বায়ূসূচকের স্বাভাবিক মাত্রা লঙ্ঘিত হয়েছে এমন ১০২টি শহরের (মন্ত্রকের তরফে যেগুলিকে ‘নন অ্যাটেনমেন্ট সিটিজ’ বলা হচ্ছে) মধ্যে অন্যতম হল কলকাতা! অর্থাৎ, পরিবেশ, আক্ষরিক অর্থেই, অনাথ। এইসব তথ্য জানার পর প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক — ওরা পারে, আমরা পারি না কেন?
আসলে কোনও জাদুকাঠির বলে কলকাতা সহ গোটা দেশের বড় বড় শহরে বায়ুদূষণ রোধ করা যাবে না। এর জন্য চাই সরকারের সুষ্ঠু পরিকল্পনা ও নীতি। যার বড় উদাহরণ হতে পারে আমেরিকার অঙ্গরাজ্য ক্যালিফোর্নিয়া। কলকাতায় এসে বলে গিয়েছিলেন মার্কিন পরিবেশ প্রযুক্তি বিজ্ঞানের অধ্যাপক ডঃ জেমস স্যার।
11th  August, 2019
এই বোস সেই বোস নয়

মৃণাল শীল: আমরা দেশনায়ক সুভাষচন্দ্র বসুর ছাত্রাবস্থার একটি ঘটনার সঙ্গে সকলেই পরিচিত। সেটি হল, প্রেসিডেন্সি কলেজের ইতিহাসের এক ইংরেজ অধ্যাপক ওটেন সাহেব এক বাঙালি ছাত্রকে বিনা কারণে অপমান করেন। এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয় গোটা প্রেসিডেন্সি কলেজ।  
বিশদ

12th  January, 2020
অদৃশ্য ক্যামেরার ফোন!

রোটেটর, পপ আপ, আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার স্মার্টফোনের দুনিয়ায় নতুন সংযোজন। ছবি তোলার পরই অদৃশ্য হয়ে যাবে ক্যামেরা। এমনই অভিনব প্রযুক্তির স্মার্টফোনের আত্মপ্রকাশ করল ওয়ান প্লাস। সম্প্রতি লাস ভেগাসে আয়োজিত ‘কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক্স শো’-তে (সিইএস ২০২০) মডেলটি প্রকাশ্যে এনেছে ওয়ান প্লাস।
বিশদ

12th  January, 2020
রোদ্দুর ছুঁতে সূর্যের দেশে পাড়ি দিচ্ছে ভারত 

বিনয় মালাকার: চাঁদের পর এবার সূর্য। পরপর দু’বার চন্দ্র অভিযানের সাফল্যের পর ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বা ইসরোর এখন লক্ষ্য সূর্য। সূর্যের অগ্নি বলয়ে হয়তো পৌঁছনো সম্ভব হবে না, তবে সূর্যের অনেকটাই কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা চালানো হবে।  
বিশদ

12th  January, 2020
সেরা কিছু প্রযুক্তিগত উন্নতি 

১০৮, ৪৮ ও ৬৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা: মোবাইল ক্যামেরার অগ্রগতি ডিএসএলআর জগৎকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে। বিশ্বে প্রথমবার ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর বাজারে নিয়ে এসেছে স্যামসাং।  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের সেরা ব্যক্তিত্ব 

২০১৯ সালে বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে অবদান রাখা ব্যক্তিদের মধ্যে এক ঝলকে খুঁজে নেওয়া কয়েকজন...  বিশদ

29th  December, 2019
জীবজন্তু 

প্রতিবছরই কিছু না কিছু নতুন প্রজাতির জীবজন্তু আবিষ্কার হয়। ২০১৯ সালও তার ব্যতিক্রম ছিল না। সেরকমই কয়েকটি প্রাণী হল  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের উল্লেখযোগ্য ঘটনা 

 ১ জানুয়ারি: মানববিহীন মহাকাশযান নিউ হরাইজন্‌স সৌর জগতের দূরতম প্রান্তে অবস্থিত কাইপার বেল্টের মহাজাগতিক বস্তু ২০১৪ এমইউ৬৯-এর কাছে পৌঁছয়।
 ৩ জানুয়ারি: মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে প্রথমবার চাঁদের অন্ধকার পৃষ্ঠে অবতরণ করে চীনা মহাকাশযান চ্যাং ই-৪।  বিশদ

29th  December, 2019
ইলেকট্রনিক্সের ইতি!
আলোয় চলবে নতুন
যুগের কম্পিউটার

রক্তিম হালদার: বর্তমানে ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’র মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে তামাম বিশ্ব। এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন একটাই — তাহলে কি আজকের যুগের সাধারণ ইলেকট্রনিক কম্পিউটারের বদলে খুব শীঘ্রই বাজারে আসতে চলেছে ‘কোয়ান্টাম কম্পিউটার’? 
বিশদ

08th  December, 2019
 কৃত্রিম ত্বক নিয়ে মানুষ
হয়ে উঠবে রোবট

 সৌম্য নিয়োগী: রোবটরাও এবার হয়ে উঠবে মানুষের মতো! কৃত্রিম নয়, যন্ত্রমানবের শরীরেও থাকবে ব্যথা-বেদনা-ভালোবাসার মতো অনুভূতি। রোবটকে জড়িয়ে ধরলে সে লজ্জা পাবে। ভালোবেসে জড়িয়েও ধরবে। হাতে হাত রেখে মনও পড়তে পারবে সে। ঠান্ডা-গরম, হাসি-কান্না, আশঙ্কা — সব‌মিলিয়ে ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ই কাজ করবে যন্ত্র শরীরে।
বিশদ

08th  December, 2019
যন্ত্র কখনই চেতনা সম্পন্ন হবে না
বেদান্ত দর্শন তুলে ধরে বসু বিজ্ঞান
মন্দিরে বলে গেলেন সুভাষ কাক

 দেবজ্যোতি রায়: আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (এআই) বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উন্নতিতে অনেক কাজই আর মানুষকে করতে হচ্ছে না। করে দিচ্ছে যন্ত্র। কর্মচ্যুত হচ্ছেন বহু চাকুরিজীবী। এআইয়ের অগ্রগতির ফলে বর্তমান গোটা বিশ্বজুড়ে একটা অস্থিরতা তৈরি হয়েছে। আশঙ্কা, সংশয়ের প্রহর গুনছে তামাম দুনিয়া।
বিশদ

08th  December, 2019
 গুগল ইন্ডিয়ার শীর্ষ পদে সঞ্জয় গুপ্ত

ডিজনি ভারত শাখার প্রাক্তন শীর্ষ আধিকারিক সঞ্জয় গুপ্তকে কান্ট্রি ম্যানেজার এবং সেলস ও অপারেশনসের ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে নিয়োগ করল মার্কিন তথ্যপ্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। আগামী বছরের শুরুতে তিনি নতুন পদে কাজ শুরু করবেন। এই পদে ছিলেন রঞ্জন আনন্দন।
বিশদ

08th  December, 2019
কী করে বুঝবেন ফোন
ট্যাপ হচ্ছে কি না?

 একটি উপায় হচ্ছে অ্যান্টি-ভাইরাস বা অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার অ্যাপ বা মোবাইল এন্ড টু এন্ড সিকিউরিটির উপর অনেক অ্যাপ প্লে স্টোরে রয়েছে। সেরকম অ্যাপ যদি ডাউনলোড করা হয়, তারা কিন্তু একটা সঙ্কেত দেবে যে কিছু একটা হতে চলেছে বা কোনও প্রিভিলেজ অ্যাক্সেস দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

10th  November, 2019
বিজ্ঞানের টুকিটাকি 

চন্দ্র অভিযানের জন্য নাসার নতুন স্পেসস্যুট, পরতে পারবেন যে কেউ
নতুন অভিযানের জন্য চাই নতুন পোশাক। আগামী আর্টেমিস চন্দ্র অভিযানের জন্য প্রস্তুত হচ্ছে নাসা। তার জন্য বিশেষ স্পেসস্যুট বা মহাকাশ অভিযানের উপযুক্ত পোশাক প্রস্তুত করে ফেললেন বিজ্ঞানীরা। সাংবাদিক সম্মেলন করে তা প্রকাশ্যে নাসার প্রধান জিম ব্রিডেনস্টাইন।   বিশদ

10th  November, 2019
নজরদারির নয়া ফাঁদ হোয়াটসঅ্যাপ 

সন্দীপ সেনগুপ্ত (ফাউন্ডার ডিরেক্টর, ইন্ডিয়ান স্কুল অব অ্যান্টি হ্যাকিং): আপনার তথ্য কি সুরক্ষিত? বা আপনার হাতে থাকা মোবাইল ফোনের মাধ্যমেই কেউ আপনার উপর নজরদারি চালাচ্ছে না তো? ফেসবুকে তথ্য চুরির বিষয়টি এখন আর কারও অজানা নয়। কিন্তু, অনেকেই হোয়াটসঅ্যাপের সুরক্ষা ব্যবস্থার উপর ভরসা রেখেছিল।  
বিশদ

10th  November, 2019
একনজরে
  বালিয়া (উত্তরপ্রদেশ), ১৯ জানুয়ারি (পিটিআই): নজিরবিহীনভাবে দাদা মুলায়ম সিং যাদবকে নিশানা করে তোপ দাগলেন ভাই শিবপাল। ইদানীং ছেলে অখিলেশের সঙ্গেই বেশি দেখা যাচ্ছে সপার প্রতিষ্ঠাতাকে। ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: চাকা ফেটে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে চায়ের দোকানে লরি ঢুকে তিনজনের মৃত্যুর জেরে এবার অতিরিক্ত বালিবোঝাই গাড়ি আটকে আন্দোলনে নামলেন ময়ূরেশ্বরের বাসিন্দারা। এই আন্দোলনে কোনও ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কোথাও নিত্য যানজট আবার কোথাও ফুটপাত দখল করে সার দিয়ে দোকান আর হকারদের পসরা। সেসব এড়িয়ে শিয়ালদহ স্টেশনে ঢুকতে প্রতিদিন ভোগান্তিতে পড়তে ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কেন্দ্রীয় সরকারের জাহাজ মন্ত্রকের সাগরমালা প্রকল্পের আওতায় আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে পণ্য পরিবহণ বছরে ৩৩ কোটি ৭০ লক্ষ টনে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যমাত্রা নেওয়া হয়েছে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

উচ্চতর ও গবেষণামূলক বিদ্যার ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। ব্যবসায় যুক্ত হলে শুভ যোগাযোগ ঘটবে। ভ্রমণযোগ রয়েছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮১৭: হিন্দু কলেজের (বর্তমান প্রেসিডেন্সি কলেজ) যাত্রা শুরু
১৯৩৪ - আলোকচিত্র এবং ইলেকট্রনিকস্ কোম্পানী হিসেবে ফুজিফিল্ম কোম্পানীর যাত্রা শুরু
১৯৭২: নতুন রাজ্য হল অরুণাচল প্রদেশ ও মেঘালয়
১৯৯৩: মার্কিন অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্নের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.১৭ টাকা ৭১.৮৭ টাকা
পাউন্ড ৯১.২২ টাকা ৯৪.৫১ টাকা
ইউরো ৭৭.৬১ টাকা ৮০.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
18th  January, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৫৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৫০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,০৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
19th  January, 2020

দিন পঞ্জিকা

৫ মাঘ ১৪২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, একাদশী ৪৯/১৮ রাত্রি ২/৬। অনুরাধা ৪২/৪৯ রাত্রি ১১/৩০। সূ উ ৬/২২/৫৪, অ ৫/১২/০, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১০/৪৩ গতে ১২/৫২ মধ্যে. রাত্রি ৬/৫ গতে ৮/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ২/৫২ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৪ গতে ৯/৫ মধ্যে পুনঃ ২/২৯ গতে ৩/৫০ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/৯ গতে ১১/৪৮ মধ্যে। 
৫ মাঘ ১৪২৬, ২০ জানুয়ারি ২০২০, সোমবার, একাদশী ৫৩/২৯/৩৫ রাত্রি ৩/৪৯/৪৭। অনুরাধা ৪৯/৪৭/৫৬ রাত্রি ১/৩৩/৭। সূ উ ৬/২৫/৫৭, অ ৫/১০/৩৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৮ মধ্যে ও ১০/৪৪ গতে ১২/৫২ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/১৪ গতে ৮/৫০ মধ্যে ও ১১/২৪ গতে ২/৫১ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৬/৩২ গতে ৯/৭/৭ মধ্যে, কালরাত্রি ১০/৮/৫১ গতে ১১/৪৮/১৭ মধ্যে। 
২৪ জমাদিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ফের বনদপ্তরের খাঁচায় চিতা, এবার আলিপুরদুয়ার
জলপাইগলড়ির পর এবার আলিপুরদুয়ার। বনদপ্তরের পাতা ফাঁদে খাঁচাবন্দি চিতা। ঘটনাটি ...বিশদ

11:23:14 AM

 ২৫০ কেজি ওজনের আইএস মৌলবি গ্রেপ্তার, আনা হল ট্রাকে
ইরাকের বিশেষ বাহিনী (সোয়াট)’র হাতে সম্প্রতি ধরা পড়েছে আইএসের মৌলবি ...বিশদ

11:11:26 AM

অবশেষে ময়নাগুড়িতে ধরা পড়ল ঘাতক বানরটি
অবশেষে ধরা পড়ল ময়নাগুড়ির সেই ঘাতক বানরটি। সোমবার সকালে জলপাইগুড়ির ...বিশদ

10:54:00 AM

কলেজের অস্থায়ী শিক্ষাকর্মীরা এবার আন্দোলনে নামছেন
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বেতন বৃদ্ধি সহ একাধিক দাবিতে কলেজের অস্থায়ী ...বিশদ

10:33:29 AM

আব্দুল গফফর খানের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধাঞ্জলি মমতার
‘সীমান্ত গান্ধী’ আব্দুল গফফর খানের প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী ...বিশদ

10:27:00 AM

কর্ণাটকে ক্রিকেট বেটিং চক্রের হদিশ, আটক ১১ 
কর্ণাটকে হদিশ মিলল ক্রিকেট বেটিং চক্রের। আটক করা হয়েছে ১১জনকে। ...বিশদ

10:27:00 AM