Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

সমাজে অপরাধ
বাড়াচ্ছে বায়ুদূষণ
বলছে বিজ্ঞানীদের গবেষণা

মৃণালকান্তি দাস: আগ্নেয়গিরির শিখরে যেন পিকনিক চলছে! অথচ হুঁশ নেই কারও। প্রতিদিনই একটু একটু করে ঘড়ির কাঁটার সঙ্গে বাড়ছে অসহিষ্ণুতা, বাড়ছে অপরাধের সংখ্যা। শুনলে অবাক হবেন, চলতি বছরের প্রথম ছ’মাসে আমাদের দেশে ২৪ হাজারের বেশি শিশু ধর্ষণের শিকার। সমাজে অস্থিরতা, রাজনীতিতে হিংসার বহিঃপ্রকাশ, অসামঞ্জস্যপূর্ণ সমাজ যখন তৈরি হয়, তখন এ ধরনের অবক্ষয়ের প্রবণতা বাড়ে। আমাদের মধ্যে বিচারহীনতা ও ভয়ের সংস্কৃতি বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতিতে ধর্ষণ সহ নানা অপরাধের সংখ্যা বেড়ে যায়। বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই অপরাধ বাড়ার পিছনেও রয়েছে ‘বায়ুদূষণ’-এর অদৃশ্য হাত! শুনতে আশ্চর্য লাগলেও এটাই ঘটনা।
২০১১ সাল। লন্ডন স্কুল অব ইকনমিক্সের সেফি রথ নামে এক শিক্ষক বায়ুদূষণের বিভিন্ন প্রভাব নিয়ে ঘাঁটাঘাঁটি করছিলেন। ভাবলেন, চিন্তাশক্তির উপর এর কোনও প্রভাব পড়ে কি না একটুখানি পরীক্ষা করে দেখা যাক। শিক্ষার্থীদের কয়েকটি পরীক্ষার দিন তিনি বেছে নিলেন। সেই সমস্ত দিনে বায়ুদূষণের মাত্রা কেমন থাকে, সেটা দেখা হল। বিশেষ করে বায়ু বাদে বাকি সব বিষয় যেন একই থাকে, সেটা খেয়াল রাখা হল। যেমন, ভিন্ন ভিন্ন দিন পরীক্ষা নেওয়া হলেও অংশগ্রহণকারী সব শিক্ষার্থী একই হতে হবে। পরীক্ষা হতে হবে একই জায়গায়। প্রশ্নের মান হতে হবে একইরকম। গবেষক দল আবিষ্কার করলেন, বায়ুদূষণের মাত্রা যেদিন বেশি ছিল, সেদিন শিক্ষার্থীদের পরীক্ষাও খারাপ হয়েছে। অর্থাৎ, বায়ুদূষণ আসলেই শিক্ষার্থীদের চিন্তাশক্তির উপর খারাপ প্রভাব ফেলছে। বাস্তব জীবনে যা হয়, গবেষক দল তারপর সেটাই দেখালেন। যারা সেদিন পরীক্ষা খারাপ করেছে, তারা স্বাভাবিকভাবেই অন্যদের চেয়ে পিছিয়ে গিয়েছে। ফলে, তুলনামূলক ভালো বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে তাদের পড়ার সুযোগ কমে গিয়েছে। যার প্রভাব পড়বে তাদের চাকরি জীবনেও। যেটা পরবর্তীকালে আবার তাদের পারিবারিক জীবনেও প্রভাব ফেলবে। মানে, শুধু পরীক্ষার দিনটায় যে এলাকার বায়ুদূষণের মাত্রা বেশি থাকবে, সারা জীবনের জন্য সেই এলাকার শিক্ষার্থীরা কোনও কারণ ছাড়াই অনেকটা পিছিয়ে যাবে।
পরবর্তী প্রমাণ পাওয়া গেল ২০১৬ সালে। আরও একদল গবেষক এ নিয়ে পরীক্ষা করে একই ফলাফল পেলেন। রথ এবং তাঁর দল তাঁদের গবেষণা আরও এক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যান। দু’বছরে লন্ডনের ৬০০ ইলেক্টোরাল ওয়ার্ডে (ভোটের হিসেবে ভাগ করা এলাকা) যেসব অপরাধ সংগঠিত হয়েছে, সেসব তথ্য নিয়ে কাজ করলেন। দেখা গেল, যে এলাকাই হোক না কেন, ভয়ঙ্কর সব অপরাধ যেসব দিনে ঘটেছে, সেসব দিনের বায়ুদূষণের মাত্রা অন্যান্য দিনের তুলনায় বেশি ছিল।
হ্যাঁ, এর মধ্যে অন্য অনেক ব্যাপারই থাকতে পারে। শুধু এটুকু যুক্তি দিয়ে গবেষণার ফলাফল টেনে ফেলা যায় না। তাহলে, এই বিষয়টা সঠিক কিনা, সেটা পুরোপুরি বোঝার উপায় কী? এরপর গবেষকরা কিছু এলাকা বেছে নিলেন। সেখানকার দূষিত বায়ু শনাক্ত করে তার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করতে লাগলেন। বাতাস যেদিকে বইবে, দূষিত বায়ু ধীরে ধীরে সেদিকেই সরে যাবে। সেই হিসেবে, একটা শহরে সময়ে সময়ে বায়ুদূষণের পরিমাণ কম-বেশি হবে। রথের ভাষায়, ‘আমরা শুধু সেই দূষিত বায়ু-মেঘটাকে অনুসরণ করে গিয়েছি। সেইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট এলাকার অপরাধ প্রবণতার দিকেও লক্ষ্য রেখেছি। দেখা গেল, দূষিত বায়ু যে এলাকা দিকে যাচ্ছে, অপরাধের হার তুলনামূলকভাবে বেড়ে যাচ্ছে। তবে, এই গবেষণা থেকে অপরাধ প্রবণতা বেড়ে যাওয়ার প্রমাণ পাওয়া গেলেও, ভয়াবহ অপরাধগুলোর
উপর এর প্রভাব সেভাবে বোঝা যায়নি।’
২০১৮ সালের আরও এক গবেষণা থেকে খুন, ধর্ষণের মতো অপরাধের উপরেও বায়ুদূষণের সম্ভাব্য প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। এই গবেষণাটির নেতৃত্বে ছিলেন আমেরিকার ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি)-র গবেষক জ্যাকসন লু। দীর্ঘ ন’বছর ধরে আমেরিকার ৯ হাজারের মতো এলাকা নিয়ে কাজ করেছেন তাঁরা। দেখা গেল, ছ’টি ভয়াবহ অপরাধ, যেমন — খুন, ধর্ষণ, ডাকাতি ইত্যাদির উপরেও বায়ুদূষণের প্রভাব পড়ছে এবং যেসব শহরে দূষণের মাত্রা বাড়ছে, সেখানে অপরাধের মাত্রাও বেড়ে যাচ্ছে। এরকম একাধিক গবেষণা বলছে, বায়ুদূষণ মস্তিষ্কের উপর যে প্রভাব ফেলে, তার ফলে মানুষের বিবেচনা বোধ এলোমেলো হয়ে যেতে পারে। বেড়ে যেতে পারে মানসিক সমস্যা এবং অপরাধ প্রবণতা।
শুধু তাই নয়, মানুষের মস্তিষ্ক স্বাভাবিকভাবেই আত্মরক্ষার চেষ্টা করে। জ্যাকসন লু এবং তাঁর সহকর্মীরা পরীক্ষা করে দেখিয়েছেন, বায়ুদূষণের প্রভাব মস্তিষ্কের স্বাভাবিক চিন্তা-ভাবনায় ব্যাঘাত ঘটায়। পরীক্ষা করতে তাঁরা বিভিন্ন দেশের মানুষকে আলাদাভাবে বসান। খুব দূষিত এলাকার ছবি দেখিয়ে জানতে চান, তাঁরা সেসব এলাকায় বসবাস করতে রাজি আছেন কিনা। এর মধ্যে আমেরিকান যেমন ছিলেন, তেমনই ভারতীয়ও ছিলেন। এই সময় তাদের মস্তিষ্কের ব্রেনওয়েভ, পালস ইত্যাদি পর্যবেক্ষণ করা হয়।
লু’র কথায়, ‘আমরা তাঁদেরকে মানসিকভাবে বায়ুদূষণের অনুভূতি দিই। জিজ্ঞাসা করি, এমন পরিবেশে থাকতে তাঁদের কেমন লাগবে? একইসঙ্গে পরিষ্কার কোনও এলাকায় থাকতে কেমন লাগবে, সেটাও তাঁদের কাছে জানতে চাওয়া হয়।’ দেখা যায়, শুধু মানসিকভাবে দূষিত এলাকায় থাকার অনুভূতিও মানুষের মধ্যে দুশ্চিন্তা, উদ্বেগ এবং স্বার্থপর ভাবনা জাগিয়ে তোলে। শান্ত মাথায় অপরাধ করা বা কাউকে ঘুসি মেরে বসার চেয়ে উদ্বিগ্ন অবস্থায় মেরে বসার সম্ভাবনা বেশি। তার মানে, বায়ুদূষণ আপনার ব্যবহারের উপর খারাপ প্রভাব ফেলছে।
গবেষকদের মতে, শুধু উদ্বেগ বা স্বার্থপর ভাবনাই নয়, জৈবিক কারণও রয়েছে এর পিছনে। দূষিত বায়ুতে শ্বাস নিলে আপনার মস্তিষ্ক প্রয়োজনের তুলনায় কম মাত্রায় অক্সিজেন পৌঁছয়। এমন অবস্থায় ওই ব্যক্তি যে স্বাভাবিকভাবে কাজ করতে পারবেন না, সেটাই স্বাভাবিক। তাছাড়া, দূষিত বায়ু নাক, কান, গলা, ফুসফুসের উপরেও প্রভাব ফেলে। এসবের ফলে মস্তিষ্কে স্নায়বিক সংযোগের ক্ষতি হতে পারে। এই ক্ষতিটা মস্তিষ্কের প্রি-ফ্রন্টাল লোবে হয়। আর, মস্তিষ্কের এই অংশটিই মূলত আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ, বিবেচনাবোধ ইত্যাদিকে নিয়ন্ত্রণ করে।
বর্তমান পৃথিবীর অর্ধেকের বেশি মানুষ শহরে বসবাস করে। ফলে বাসে বা গাড়িতে যাতায়াতের সময় নিয়মিত ভীষণরকম দূষিত বাতাস টেনে নিচ্ছে মানুষ। ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (‘হু’) বলছে, বিশ্বের প্রতি ১০ জনের মধ্যে ৯ জনই ভয়াবহ দূষিত বায়ুতে শ্বাস নিচ্ছে। বর্তমান হিসেবে প্রতিবছর প্রায় ৭০ লক্ষ মানুষ শুধু বায়ুদূষণের প্রভাবে মারা যাচ্ছে। তাহলে ভাবুন আমাদের ভবিষ্যৎ সমাজের চিত্রটা কেমন হতে চলেছে?
বিজ্ঞান গবেষণার একটা বড় বৈশিষ্ট্য হল, সে শুধু তথ্য বিশ্লেষণই করে না, বরং বিশ্লেষিত তথ্য ব্যবহার করে অনুমান করতে পারে, কী ধরনের ঘটনা ঘটার সম্ভাবনা রয়েছে। দেখা গেল, এমআইটির গবেষক জ্যাকসন লু’র গবেষণা শুধু তথ্য বিশ্লেষণই করছে না, বরং বায়ুদূষণের মাত্রা হিসেব করে বলে দিতে পারছে, কোন শহরে কোন দিন অপরাধের হার কেমন হবে। সবচেয়ে বড় কথা, এই গবেষণায় বয়স, লিঙ্গ, চাকরিজীবীদের পেশাগত পদ এবং সেই হিসেবে তাদের আয়-ব্যয়, জনসংখ্যা ইত্যাদি বিষয়গুলিও হিসেবে রাখা হয়।
সাউথ ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটির ডায়ানা ইউনান এবং তাঁর সহকর্মীরা গবেষণা করে দেখেছেন, প্রতারণা কিংবা স্কুল পালানো থেকে শুরু করে ছোটখাটো চুরি, ভাঙচুর ইত্যাদির উপরেও বায়ুদূষণের প্রভাব রয়েছে। ওই গবেষণায় ৬২৮ জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের তথ্য ব্যবহার করা হয়েছে। তাঁরা বাতাসে পিএম ২.৫ কণার দূষণের দিকে বিশেষ নজর রেখেছিলেন। মানুষের চুল যতটা সরু তার থেকে প্রায় ৩০ গুণ ছোট যেসব কণা বাতাসের সঙ্গে মিশে গিয়ে বায়ুদূষণ ঘটায়, এরাই পিএম ২.৫ নামে পরিচিত। কল-কারখানা, মোটর গাড়ি বা পোড়ানো কাঠ থেকে এই ধরনের কণা উৎপন্ন হতে পারে এবং বাতাসের সঙ্গে মিশে যেতে পারে। ভারত কি এই মারণ-ঘাতক থেকে সতর্ক?
বায়ুদূষণের বিরুদ্ধে লড়াই জোরদার করতে পরিবেশ মন্ত্রক সম্প্রতি একটি নির্দিষ্ট রূপরেখা প্রকাশ করেছে। যার পোশাকি নাম, ‘ন্যাশনাল ক্লিন এয়ার প্রোগ্রাম’ (এনসিএপি)। ওই কর্মসূচির প্রধান উদ্দেশ্যই হল, যেভাবে দেশে বায়ুদূষণ বিপজ্জনক মাত্রায় বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাকে নিয়ন্ত্রণ করা। পাশাপাশি, ২০২৪ সালের মধ্যে প্রাথমিক ভাবে বাতাসে ভাসমান ধূলিকণা (পিএম ১০) এবং অতি সূক্ষ্ম ধূলিকণার (পিএম ২.৫) পরিমাণ জাতীয় স্তরে ২০-৩০ শতাংশ কমানো। সেই রিপোর্টেই দেখা যাচ্ছে, গত পাঁচ বছর ধরে ধারাবাহিক ভাবে বায়ূসূচকের স্বাভাবিক মাত্রা লঙ্ঘিত হয়েছে এমন ১০২টি শহরের (মন্ত্রকের তরফে যেগুলিকে ‘নন অ্যাটেনমেন্ট সিটিজ’ বলা হচ্ছে) মধ্যে অন্যতম হল কলকাতা! অর্থাৎ, পরিবেশ, আক্ষরিক অর্থেই, অনাথ। এইসব তথ্য জানার পর প্রশ্ন ওঠাই স্বাভাবিক — ওরা পারে, আমরা পারি না কেন?
আসলে কোনও জাদুকাঠির বলে কলকাতা সহ গোটা দেশের বড় বড় শহরে বায়ুদূষণ রোধ করা যাবে না। এর জন্য চাই সরকারের সুষ্ঠু পরিকল্পনা ও নীতি। যার বড় উদাহরণ হতে পারে আমেরিকার অঙ্গরাজ্য ক্যালিফোর্নিয়া। কলকাতায় এসে বলে গিয়েছিলেন মার্কিন পরিবেশ প্রযুক্তি বিজ্ঞানের অধ্যাপক ডঃ জেমস স্যার।
11th  August, 2019
ট্রুকলারকে টেক্কা দিতে
আসছে গুগল কল?

‘ট্রুকলার’-এর দিন কি তবে ঘনিয়ে এল? একটি ইউটিউব বিজ্ঞাপনের জেরে এমনই আলোচনা শুরু হয়েছে গ্যাজেট গুরুদের মধ্যে। বিষয়টি ঠিক কী? শোনা যাচ্ছে, কলিং অ্যাপটিকে ঢেলে সাজিয়েছে গুগল। নাম বদলে হয়েছে ‘গুগল কল’। শুধুমাত্র ফোন করা বা রিসিভ করাই নয়, নতুন এই অ্যাপটি কলারের নাম, কোন এলাকার নম্বর তাও জানিয়ে দিতে পারবে বলে দাবি করছে বিশ্বের একাধিক গ্যাজেট সংক্রান্ত তথ্যপ্রদানকারী সংস্থাগুলি।
বিশদ

24th  November, 2020
চন্দ্রপৃষ্ঠে সূর্যের আলো পড়া
অংশে মিলল জলের অস্তিত্ব

প্রথমবার ২০০৮ সালে ইসরো জানিয়েছিল, চাঁদের যে অংশে সূর্যালোক পড়ে, সেখানে জলের উপাদান রয়েছে। কিন্তু, সেই উপাদান কী অবস্থায় রয়েছে, তা নিশ্চিত করা যায়নি সেই সময়। পরবর্তী সময়ে নাসার শক্তিশালী টেলিস্কোপের সাহায্যে লাগাতার পর্যবেক্ষণ চালিয়েও এবিষয়ে কোনও নিশ্চিত সিদ্ধান্তে পৌঁছতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।
বিশদ

05th  November, 2020
 টিকটকের জায়গা নিতে ভারতে
নতুন ফিচার আনল ইনস্টাগ্রাম

নয়াদিল্লি: ভারত-চীন সংঘাতের মধ্যে টিকটক ব্যান করে দিয়েছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। এবার ওই চীনা অ্যাপের জায়গা নিতে বাজারে এল ইনস্টাগ্রামের নতুন ফিচার ‘রিলস’। এটিতে টিকটকের সমস্ত বৈশিষ্ট্যগুলি রয়েছে। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট জানিয়েছে, ইনস্টাগ্রাম স্টোরিজের মধ্যে এই ফিচারটি পাওয়া যাবে। বিশদ

09th  July, 2020
সংসারের ঝামেলার সঙ্গেই উপরি নেটওয়ার্ক সমস্যা, বাড়ি থেকে কাজে নাজেহাল সকলে

  নয়াদিল্লি, ২২ মে: বাড়িতে কাজের অনিবার্য পরিবেশ অধরা। ফলে লকডাউনের ভারতে দিনদিন কাহিল অবস্থা হচ্ছে ‘কর্পোরেট ভারত’-এর। টানা প্রায় তিনমাস ঘরবন্দি গোটা দেশ। বাড়িতে বসে কাজ করতে গিয়ে প্রতি মুহূর্তে কঠিন পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছেন ওয়ার্ক ফ্রম হোম করা সাধারণ মানুষ। বিশদ

24th  May, 2020
৩২ বিটের কম্পিউটারের
দিন কি ঘনিয়ে এল?

ওয়াশিংটন, ১৫ মে: ভবিষ্যতের কথা ভেবে একটি বড়সড় সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলল মাইক্রোসফট। তারা ৩২ বিটের কম্পিউটারের জন্য উইন্ডোজ ১০-এর আর কোনও ভার্সন তৈরি করবে না বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছে। সম্প্রতি উইন্ডোজ ১০-এর একটি নয়া ভার্সন বাজারে এনেছে মাইক্রোসফট।
বিশদ

16th  May, 2020
নতুন লুকে ফেসবুক,
রয়েছে ডার্ক মোডও

সান ফ্রান্সিসকো, ১২ মে: করোনা ভাইরাসের দাপটে বিশ্বজুড়ে ঘরবন্দি মানুষ। কয়েকটি দেশে লকডাউন শিথিল করা হলেও জনজীবন স্বাভাবিক হয়নি। করোনায় ত্রস্ত মানুষ বাড়ি ছেড়ে এখনই বের হতে সাহস পাচ্ছে না। ঘরবন্দি অবস্থায় এরমধ্যে একটি বিরাট অংশই নির্ভরশীল ইন্টারনেটের উপর। প্রায় অধিকাংশ নেটিজেনেরই বর্তমানে সর্বক্ষণের সঙ্গী হয়ে উঠেছে ফেসবুক।
বিশদ

13th  May, 2020
জুম অ্যাপ নিরাপদ নয়,
সতর্ক করল কেন্দ্র 

নয়াদিল্লি, ১৬ এপ্রিল: করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ছয় সপ্তাহের লকডাউন চলছে দেশে। গৃহবন্দি সাধারণ মানুষ। তবে কাজ কিন্তু থেমে নেই। চলছে পড়াশোনাও। তবে সামনাসামনি নয়, পুরোটাই হচ্ছে ভিডিও কনফারেন্সিং অ্যাপের মাধ্যমে। অধিকাংশ নেটিজেনই ভিডিও কনফারেন্সের জন্য ব্যবহার করছেন ‘জুম অ্যাপ’। কিন্তু, আদৌ কি সেই অ্যাপ নিরাপদ? জুমের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর মোবাইলে হ্যাকার সিঁধ কাটছে না তো? এরকমই হাজারও প্রশ্ন ঘুরছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। অবশেষে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে এবিষয়ে স্পষ্ট বক্তব্য মিলল। বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক একটি অ্যাডভাইসরি জারি করে বলেছে, জুম অ্যাপ নিরাপদ নয়। এমনকী সরকারি কর্মীদের বৈঠক বা অন্য কোনও কাজের ক্ষেত্রে এই ধরনের অ্যাপের ব্যবহার বন্ধ করতে বলা হয়েছে। তবে ব্যক্তিগতভাবে যাঁরা জুম অ্যাপ ব্যবহার করছেন তাঁদের উদ্দেশ্যে বলা হয়েছে, নির্দিষ্ট সতর্কতা মেনে তা ব্যবহার করুন। 
বিশদ

16th  April, 2020
হোয়াটস অ্যাপে চালু হয়ে গেল ডার্ক মোড 

অবশেষে দীর্ঘ অপেক্ষার পর ডার্ক মোড লঞ্চ করল হোয়াটসঅ্যাপ। সমস্ত অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস ব্যবহারকারীদের হোয়াটসঅ্যাপেই পাওয়া যাবে নতুন এই অপশন। মার্চ মাসের প্রথম সপ্তাহেই ডার্ক মোড লঞ্চ করে সংস্থা।   বিশদ

10th  March, 2020
পৃথিবীর দ্বিতীয় চাঁদ 

উপগ্রহের সংখ্যায় মঙ্গল গ্রহের সমকক্ষ হয়ে উঠল পৃথিবী। আমাদের গ্রহের উপগ্রহের সংখ্যা আর এক নয়। নীল গ্রহকে ঘিরে পাক খাচ্ছে আরও একটি চাঁদ। সম্প্রতি বিষয়টি নজরে আসায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের মধ্যে। যদিও, আকারে ও ঔজ্জ্বল্যে চাঁদের ধারেকাছেও আসতে পারবে না উপগ্রহটি। আসলে এটি একটি গ্রহাণু।  
বিশদ

08th  March, 2020
অক্সিজেন ছাড়াই জীবনধারণ,
সন্ধান মিলল নতুন প্রাণীর 

অক্সিজেন ছাড়া কোনও প্রাণী বাঁচতে পারে না। কিন্তু, বর্তমানে কয়েকজন বিজ্ঞানী এমন এক প্রাণী খুঁজে পেয়েছেন, যা অক্সিজেন ছাড়াও বহাল তবিয়তে থাকতে পারে। এই আবিষ্কার প্রাণীজগৎ সম্পর্কে ধারণা তা আমূল বদলে দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। 
বিশদ

08th  March, 2020
সূর্যের রহস্যভেদে সোলার অরবিটর 

সূর্যের মেরু অঞ্চলের ছবি তুলতে মহাকাশে পাড়ি দিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির (ইএসএ) তৈরি নতুন মহাকাশযান। গত ১৭ ফেব্রুয়ারি ফ্লোরিডার উৎক্ষেপণ কেন্দ্র থেকে অ্যাটলাস-৫ রকেটে চেপে সূর্যের উদ্দেশে পাড়ি দেয় নাসার এই সোলার অরবিটর। 
বিশদ

08th  March, 2020
বোস থেকে বোসন: কোয়ান্টাম
ইন্ডিয়ান সত্যেন্দ্রনাথ বসু 

গত মাসেই গিয়েছে তাঁর মৃত্যুবার্ষিকী। তিনি বাংলায় বিজ্ঞানচর্চার পথিকৃৎ সত্যেন্দ্রনাথ বসু। এই বিশ্বের অর্ধেক কণাই তাঁর নামাঙ্কিত — বোসন কণা। বাকি ফের্মিয়ন। যতদিন এই পৃথিবীতে আলো থাকবে, ততদিনই ফোটন থাকবে। ততদিনই থাকবে বোসন। আর ততদিনই বোসন স্রষ্টা আলো হয়ে থাকবেন। তাঁর ৪৬তম মৃত্যুবার্ষিকীতে সত্যেন্দ্রনাথ বসুর প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ্য। লিখছেন বিনয় মালাকার... 
বিশদ

08th  March, 2020
মোবাইলে গেম ডাউনলোড করার কয়েকটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট 

জেন ওয়াই প্রজন্ম ভীষণ গেম খেলতে ভালোবাসেন। বাসে-ট্রেনে-ট্রামে প্রায় সব জায়গাতেই মোবাইল হাতে গেম খেলতে দেখা যায় তাঁদের। অ্যান্ড্রোয়েড প্লে-স্টোর বা আইফোনের অ্যাপ স্টোর থেকে তাঁরা বেশিরভাগ গেম ডাউনলোড করে থাকেন। কিন্তু, এমন কিছু গেম রয়েছে, যা প্লে-স্টোরে পাওয়া যায় না।  
বিশদ

09th  February, 2020
চলতি বছরেই বাজারে আসছে ১১৭টি ইমোজি 

ইমোজি। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের যুগে যা ছাড়া আমরা চলতেই পারি না। শব্দের বদলে ইমোজি দিয়ে মনের ভাব প্রকাশ করাতেই স্বচ্ছন্দ নতুন প্রজন্ম। সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখেই প্রতিবছর নতুন নতুন ইমোজি বাজারে নিয়ে আসে ‘ইউনিকোড কনসর্টিয়াম’। এই সংস্থাটি নতুন ইমোজি বাজারে আনার ছাড়পত্র দেয়।
বিশদ

09th  February, 2020
একনজরে
জাতীয় দলের প্রাক্তন গোলরক্ষক প্রশান্ত ডোরার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হয়েছে। শুক্রবার তিনি ভেন্টিলেশনে রয়েছেন। তাঁর প্লেটলেটের সংখ্যা নেমে এসেছে তিন হাজারে। কমেছে হিমোগ্লোবিনের মাত্রাও।   ...

ভোটের মুখে সুখবর। রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত দৈনিক মজুরি ভিত্তিক কর্মচারীদের ভাতা বৃদ্ধি করল সরকার। মোট তিনটি ক্যাটিগরিতে সমানহারে দৈনিক ১৭ টাকা করে মজুরি বৃদ্ধি করা হয়েছে। রাজ্য সরকার এই মর্মে নির্দেশিকা জারি করেছে। ...

ভাতার থানার বড়বেলুনে এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে মাঠের ধারে বাবলা গাছে মাফলার দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় তাঁকে ঝুলতে দেখেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খবর পেয়ে পুলিস দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠায়। মৃতের নাম বাপন দাস (৩৭)।   ...

২০১৫ সালের জুলাই মাসে যখন বালি পুরসভাকে হাওড়ার সঙ্গে মিশিয়ে দেওয়া হয়, তখন ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করেছিল বামফ্রন্ট ও কংগ্রেস। কিন্তু রাজ্য সরকার তাদের সিদ্ধান্তে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসায় বাড়তি বিনিয়োগ প্রত্যাশিত সাফল্য নাও দিতে পারে। কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতি। শ্বাসকষ্ট ও বক্ষপীড়ায় শারীরিক ক্লেশ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

পরাক্রম দিবস
১৮৫৯ - কবি ঈশ্বরচন্দ্র গুপ্তর মৃত্যু
১৮৯৪- সাহিত্যিক জ্যোতির্ময়ীদেবীর জন্ম
১৮৯৭- মহাবিপ্লবী নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর জন্ম
১৯০৯ - কবি নবীনচন্দ্র সেনের মৃত্যু
১৯২০ - ভারতীয় উপমহাদেশের বিমানে মাল পরিবহণ ও ডাক যোগাযোগ শুরু
১৯২৬- শিবসেনার প্রতিষ্ঠাতা বাল থ্যাকারের জন্ম
১৯৩৪- সাংবাদিক তথা ‘বর্তমান’-এর প্রাণপুরুষ বরুণ সেনগুপ্তর জন্ম
১৯৭৬- গায়ক পল রোবসনের মৃত্যু
১৯৮৪ – নেদারল্যান্ডের ফুটবল খেলোয়াড় আর্ইয়েন রবেনের জন্ম
১৯৮৯ - স্পেনীয় চিত্রকর সালভাদর দালির মৃত্যু
২০০২ - পাকিস্তানের করাচীতে সাংবাদিক ড্যানিয়েল পার্ল অপহৃত হন এবং পরবর্তীকালে নিহত



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.২২ টাকা ৭৩.৯৩ টাকা
পাউন্ড ৯৮.৫১ টাকা ১০১.৯৯ টাকা
ইউরো ৮৭.৩৯ টাকা ৯০.৫৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯,৯৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৪০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,১০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৬,৪৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৬,৫৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৯ মাঘ ১৪২৭, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, দশমী ৩৬/২৬ রাত্রি ৮/৫৭। কৃত্তিকা নক্ষত্র ৩৭/৫৫ রাত্রি ৯/৩৩। সূর্যোদয় ৬/২২/২৩, সূর্যাস্ত ৫/১৪/৩৭। অমৃতযোগ দিবা ১০/০ গতে ১২/৫৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫২ গতে ১০/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/১৪ গতে ২/০ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩৭ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১/৯ গতে ২/৩১ মধ্যে পুনঃ ৩/৫২ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৬/৫২ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৪ গতে উদয়াবধি। 
৯ মাঘ ১৪২৭, শনিবার, ২৩ জানুয়ারি ২০২১, দশমী রাত্রি ৭/৫৯। কৃত্তিকা নক্ষত্র রাত্রি ৯/১১। সূর্যোদয় ৬/২৬, সূর্যাস্ত ৫/১৩। অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৮ গতে ১২/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৫৮ গতে ১০/৩৩ মধ্যে ও ১২/১৬ গতে ১/৫৮ মধ্যে ও ২/৫০ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৭ মধ্যে ও ১/১০ গতে ২/৩১ মধ্যে ও ৩/৫২ গতে ৫/১৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৫২ মধ্যে ও ৪/৪৭ গতে ৬/২৫ মধ্যে। 
৯ জমাদিয়স সানি।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিহারের বারসোইতে বেলাইন মালগাড়ি, আটকে একাধিক দুরপাল্লার ট্রেন 

22-01-2021 - 09:38:49 PM

আইএসএল: ইস্ট বেঙ্গলকে ১-০ গোলে হারাল মুম্বই 

22-01-2021 - 09:30:54 PM

বৈশালী ডালমিয়াকে বহিষ্কার করল তৃণমূল
শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগে বহিষ্কৃত বৈশালি ডালমিয়া। আজ, শুক্রবার সন্ধ্যায় তৃণমূলের ...বিশদ

22-01-2021 - 06:55:00 PM

ময়নাগুড়ির যুব কল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তরে চুরি, চাঞ্চল্য
গতকাল রাতে ময়নাগুড়ির যুব কল্যাণ ও ক্রীড়া দপ্তরে চুরির ঘটনায় ...বিশদ

22-01-2021 - 04:55:05 PM

এক মিনিটের ব্যবধানে হাসপাতালে হাত ধরাধরি করেই মারা গেলেন করোনায় আক্রান্ত স্বামী-স্ত্রী
ভালোবাসার কাছে হার মানল করোনাও। প্রেমের গল্পে হাত ধরাধরি ...বিশদ

22-01-2021 - 04:53:03 PM

সম্বর্ধিত ভারতীয় ক্রিকেট টিমের সদস্য কোলাঘাটের দয়ানন্দ
শুক্রবার সম্বর্ধনা দেওয়া হল ভারতীয় ক্রিকেট টিমের ম্যাসাজ থেরাপিস্ট কাম  ...বিশদ

22-01-2021 - 04:41:00 PM