Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

ভারতের চন্দ্রাভিযান ২.০ 

ডঃ দেবীপ্রসাদ দুয়ারী: ২০ জুলাই ২০১৯। সারা পৃথিবীর মানুষ উদযাপন করবেন ৫০ বছর আগের সেই অবিস্মরণীয় মুহূর্তটিকে। ১৯৬৯ সালে মানুষ প্রথম পা রেখেছিল চাঁদে। মানব সভ্যতার ইতিহাসে অদম্য এক প্রয়াস, মহাশূন্যকে জয় করার এক প্রচেষ্টা এবং পৃথিবীর বাইরে অন্য এক জগৎকে নতুন করে আবিষ্কার করার সেই স্মৃতি এখনও যেন এক অবিশ্বাস্য কল্পনার জগৎকে উজ্জীবিত করে মানব মনে। চাঁদে মানুষের অবতরণের এই সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনের ঠিক পাঁচ দিন আগে ১৫ জুলাই ভারতীয় বিজ্ঞানীরা আর এক অবিস্মরণীয় মুহূর্তের সৃষ্টি করতে চলেছেন।
ভারতের পূর্ব উপকূলে বঙ্গোপসাগরের ধারে শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টার থেকে উৎক্ষেপিত হবে সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তি দ্বারা নির্মিত GLLV Mark 3 রকেট। ১৫ জুলাইয়ের প্রারম্ভ মুহূর্তে রাত্রি ২টো ৫১ মিনিটে এই GSLV রকেট পাড়ি দেবে — মহাশূন্যে। তার নাকের ডগায় থাকবে ভারতীয় বিজ্ঞানীদের গত সাত বছরের নিরলস সাধনার ফল — একটি মহাকাশ যান, যার নাম চন্দ্রযান-২।
২০০৮ সালের ২২ অক্টোবর একটি PSLV রকেটে চড়ে পাড়ি দিয়েছিল চন্দ্রযান-১। ১৪ নভেম্বর চাঁদের কক্ষপথে পৌঁছে চাঁদের বুকে নিক্ষেপ করেছিল Moon Impactor Probe (MIP)। সেই আঘাতে চাঁদের পৃষ্ঠদেশ থেকে ছিটকে উঠেছিল অনেক ধুলো। সেই ধুলোর বর্ণালী বিশ্লেষণ করে চন্দ্রযান-১ আমাদের জানিয়েছিল, চাঁদের পৃষ্টদেশ ও আবহাওয়ামণ্ডলে জলীয় বাষ্পের উপস্থিতি। চন্দ্রযান-১ হল এগারোটি যন্ত্র সম্বলিত এমন এক মহাকাশযান যা প্রাথমিকভাবে চন্দ্রপৃষ্ঠ থেকে ১০০ কিমি উচ্চতা বজায় রেখে প্রতি ১১৭ মিনিটে চাঁদকে প্রদক্ষিণ করেছিল। প্রদক্ষিণরত অবস্থায় তার যন্ত্রের দ্বারা সংগৃহীত যে সমস্ত তথ্য চন্দ্রযান-১ পাঠিয়েছিল ভারতের বিজ্ঞানীদের কাছে, তা অভূতপূর্ব। চাঁদের বুকে ম্যাগনেশিয়াম, অ্যালুমিনিয়াম এবং সিলিকনের মতো খনিজ পদার্থের উপস্থিতির কথা জানান দিয়েছিল সে।
নাসার সঙ্গে সহযোগিতায় তৈরি Moon Mineralogy Mapper (M3) এবং Synthetic Aperture Radar (SAR)-এর মাধ্যমে সারা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়ে চন্দ্রযান-১ খুঁজে পেয়েছিল জলীয় বরফ ও বাষ্পের সন্ধান। উত্তর মেরু অঞ্চলে আবিষ্কার করেছিল, প্রায় ৬০ হাজার কোটি লিটার জলীয় বরফের উপস্থিতির সম্ভাবনাকে। বিজ্ঞানীরা তার আগে আশা করেছিলেন, যে চাঁদে জল পাওয়া যেতে পারে। চন্দ্রযান-১ হল প্রথম উপগ্রহ, যা কিনা প্রমাণ করেছিল সেই বিশ্বাসের সত্যতাকে।
মহাকাশ বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে বিশেষ করে চন্দ্রাভিযানের নিরিখে, ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীদের এ এক অভূতপূর্ব সাফল্য। চাঁদে জলের এই উপস্থিতিই একদিন মহাশূন্যে মানব সভ্যতার প্রথম উপনিবেশ গড়ার কাজ সম্ভব করবে। প্রায় সাড়ে দশমাস ধরে প্রদক্ষিণরত চন্দ্রযান-১ চন্দ্রপৃষ্ঠের বহু ছবি, পৃষ্ঠদেশের খুঁটিনাটি এবং রাসায়নিক গঠন নিয়ে প্রভূত পরিমাণে তথ্য সংগ্রহ করেছে। তাই চন্দ্রযান-১-কে ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানের এক স্বর্ণময় অধ্যায়ের পথিকৃৎ হিসাবে ভাবা যেতে পারে।
চন্দ্রযান-১ এর উৎক্ষেপণের সময়ে ভারতীয় বিজ্ঞানীরা কিন্তু পরিকল্পনা করে ফেলেছিলেন আরও এক দৃঢ় পদক্ষেপের। তারা ভাবতে শুরু করেছিলেন চন্দ্রযান-২ এর কথা, যেখানে এই কৃত্রিম উপগ্রহটি যে শুধুমাত্র চাঁদকে প্রদক্ষিণ করবে তা নয়, এই Orbitor থেকে চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণকারী একটি মহাকাশযানের (Lander) পরিকল্পনা করেছিলেন বিজ্ঞানীরা। তাঁরা আরও আশা করেছিলেন যে, এই Lander-এর মধ্যে থেকে একটি স্বয়ংক্রিয় যান (Rover) সফলভাবে তৈরি করতে সক্ষম হবেন।
২০০৮ সাল থেকে তার কাজও শুরু হয়েছিল। ঠিক হয়েছিল, ভারতের ইসরোর বিজ্ঞানীরা তৈরি করবেন প্রদক্ষিণকারী Orbitor এবং স্বয়ংক্রিয় যান (Rover)। অবতরণকারী Module (Lander) তৈরি করার দায়িত্ব নিয়েছিলেন রাশিয়ার মহাকাশ গবেষণা সংস্থা Roscosmos। ঠিক হয়েছিল, ২০১২ সাল নাগাদ চন্দ্রযান-২ কে উৎক্ষেপণ করা হবে। কিন্তু, রাশিয়ার মহাকাশ বিজ্ঞানীরা মঙ্গলের উদ্দেশ্য পাঠানো Phobos Grant Mission-এর জন্য তৈরি অবতরণকারী যানটিকে বানাতে গিয়ে সম্পূর্ণভাবে অসফল হন। তারা ভারতের সঙ্গে সহযোগিতা থেকে সরে আসেন। এই ঘটনাটিতে ইসরোর বিজ্ঞানীদের প্রচেষ্টা আরও সুদৃঢ় হয়। তাঁরা ঠিক করেন, সম্পূর্ণ ভারতীয় প্রযুক্তি দ্বারাই চন্দ্রযান-২ এর Orbitor, Lander এবং Rover-কে তৈরি করবেন। এমনকী, চন্দ্রযান-২ কে পাঠানোর জন্য GSLV Mark-3 রকেটিকেও সম্পূর্ণ নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করার প্রতিজ্ঞা নিলেন তাঁরা।
ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা ইসরোর বিভিন্ন কেন্দ্রের বিজ্ঞানীরা নিরলস প্রচেষ্টার মধ্যে দিয়ে গত ছ’বছরে সৃষ্টি করেছেন চন্দ্রযান-২। ১৫ জুলাই এই চন্দ্রযান-২ কে নিয়ে পাড়ি দেবে GSLV Mark-3 রকেট। উৎক্ষেপণের কিছুক্ষণের মধ্যেই চন্দ্রযান-২-কে স্থাপন করার চেষ্টা করা হবে পৃথিবীর চারদিকে একটি অতি উপবৃত্তাকার কক্ষপথে। কক্ষপথের আয়তন ধীরে ধীরে বাড়িয়ে একসময় চাঁদের কক্ষপথে প্রবেশ করানো হবে এই মহাকাশযানটিকে। তারপর উৎক্ষেপণের প্রায় বাহান্ন দিন পরে যখন চন্দ্রযান-২ চাঁদের পৃষ্ঠদেশ থেকে ১০০ কিলোমিটার দূরত্ব বজায় রেখে চাঁদকে প্রদক্ষিণ করতে শুরু করবে, তখন তার থেকে বিচ্ছিন্ন হবে একটি অবতরণকারী যান। ভারতীয় বিজ্ঞানীরা এই যানটির নাম রেখেছেন ‘বিক্রম’।
গত পঞ্চাশ বছরের চন্দ্রাভিযানের ইতিহাসে ভারত প্রথমবার চেষ্টা করবে চাঁদের দক্ষিণ মেরু অঞ্চলে অবতরণ করার। এর আগে কোনও মহাকাশযান যেখানে অবতরণ করতে সক্ষম হয়নি। অবতরণ করার কিছু পরেই বিক্রমের থেকে বেরিয়ে আসবে একটি স্বয়ংক্রিয় যান। ২৭ কিলোগ্রাম ওজনের ছটি চাকা সম্বলিত এই যানটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘প্রজ্ঞান’। এর উপরে থাকবে দুটি যন্ত্র, যা চাঁদের পৃষ্ঠদেশের রসায়ন এবং আবহাওয়ামণ্ডলের অবস্থা সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করবে। এটি অবতরণক্ষেত্র থেকে ধীরে ধীরে প্রায় পাঁচশো মিটার পর্যন্ত ভ্রমণ করতে সক্ষম হবে। সেই তথ্য এই স্বয়ংক্রিয় যান সংগ্রহ করবে এবং তা বেতার সংকেতের মাধ্যমে পাঠিয়ে দেবে অবতরণকারী বিক্রমের কাছে।
অবতরণকারী Lander বিক্রমের ওজন ১৪৭১ কেজি। মূলত চারটি যন্ত্র থাকবে এতে। চাঁদের পৃষ্ঠদেশের কিছুটা গভীর পর্যন্ত তাপমাত্রা, চন্দ্রপৃষ্ঠের কম্পন, জলীয় বরফের উপস্থিতি এবং আবহাওয়া মণ্ডলের সূর্য রশ্মির প্রভাব খুটিয়ে দেখার চেষ্টা করবে এই যান। এছাড়াও এতে থাকবে Laser Retroreflector Array (LRA), যার মাধ্যমে প্রতিনিয়ত পৃথিবী থেকে চাঁদের দূরত্ব মাপা সম্ভব হবে। বিজ্ঞানীরা এর কার্যাবলী সময়কাল ধার্য করেছেন ১ চান্দ্র দিন। পৃথিবীর হিসাবে যা কিনা প্রায় ১৪ দিনের মতো।
২৩৭৯ কেজি ওজনের চন্দ্রযান-২ প্রদক্ষিণকারী মহাকাশ যানটিতে থাকবে আটটি যন্ত্র। এক বছর সময় ধরে চাঁদকে প্রদক্ষিণ করতে করতে চন্দ্রযান-২ চাঁদের গঠন, আকার, রসায়ন ও জলীয় বরফের উপস্থিতির কথা জানার চেষ্টা করবে। তার সংগৃহীত তথ্য সে প্রেরণ করবে দক্ষিণ ভারতে বায়ালুলুতে Indian Deep Space Network (IDSN)-এর Command ও Communication Centre-এ।
বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন, চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে কিছু অঞ্চল আছে যেখানে কোনওদিন সূর্য-রশ্মি পৌঁছয় না। তার ফলে এই অতীব শীতল অঞ্চলে গহ্বরগুলির তলদেশে প্রচুর পরিমাণে জলীয় বরফ আছে। তাই তাঁদের বিশ্বাস, চন্দ্রযান-২ হবে প্রথম মহাকাশ যান, যা আবিষ্কার করতে পারবে সেই জলীয় বরফের উপস্থিতি। মানবসভ্যতার ইতিহাসে প্রথমবার চন্দ্রযান-২ হবে এমন একটি প্রয়াস, যা চাঁদ সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্যের মাধ্যমে আরও উস্কে দেবে চাঁদের বুকে মানুষের উপনিবেশ গড়ে তোলার সম্ভাবনাকে।
আগামী ১৫ জুলাই প্রত্যেক ভারতবাসী উদগ্রীব হয়ে অপেক্ষা করবে চন্দ্রযান-২ এর সফল উৎক্ষেপণের জন্য। দেশবাসীর আশা, ৬ সেপ্টেম্বর সফলভাবে অবতরণ করবে বিক্রম। সফল হবে প্রজ্ঞানের চন্দ্রপৃষ্ঠ সফরও। সেদিন প্রতিটি নাগরিক ভারতীয় মহাকাশ বিজ্ঞানীদের সেই অভূতপূর্ব সাফল্য নিয়ে গর্ব বোধ করবেন। আমরা সবাই অধীর আগ্রহে সেই দিনটির জন্য অপেক্ষা করছি।
(লেখক এম পি বিড়লা তারামণ্ডলের অধিকর্তা, গবেষণা ও শিক্ষণ) 
14th  July, 2019
মোবাইলে গেম ডাউনলোড করার কয়েকটি জনপ্রিয় ওয়েবসাইট 

জেন ওয়াই প্রজন্ম ভীষণ গেম খেলতে ভালোবাসেন। বাসে-ট্রেনে-ট্রামে প্রায় সব জায়গাতেই মোবাইল হাতে গেম খেলতে দেখা যায় তাঁদের। অ্যান্ড্রোয়েড প্লে-স্টোর বা আইফোনের অ্যাপ স্টোর থেকে তাঁরা বেশিরভাগ গেম ডাউনলোড করে থাকেন। কিন্তু, এমন কিছু গেম রয়েছে, যা প্লে-স্টোরে পাওয়া যায় না।  
বিশদ

09th  February, 2020
চলতি বছরেই বাজারে আসছে ১১৭টি ইমোজি 

ইমোজি। ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপের যুগে যা ছাড়া আমরা চলতেই পারি না। শব্দের বদলে ইমোজি দিয়ে মনের ভাব প্রকাশ করাতেই স্বচ্ছন্দ নতুন প্রজন্ম। সেই চাহিদার কথা মাথায় রেখেই প্রতিবছর নতুন নতুন ইমোজি বাজারে নিয়ে আসে ‘ইউনিকোড কনসর্টিয়াম’। এই সংস্থাটি নতুন ইমোজি বাজারে আনার ছাড়পত্র দেয়।
বিশদ

09th  February, 2020
এবার থেকে মোবাইল ফোনের আইএমইআই নম্বর দেবে সরকার 

আরও বেশি গ্রাহক সুরক্ষা, না কি তার আড়ালে নজরদারি? এবার থেকে মোবাইলে আইএমইআই নম্বর দেবে ভারত সরকারই। এতদিন ১৫ সংখ্যার এই নম্বর সরবরাহ করতো আন্তর্জাতিক সংস্থা ‘জিএসএমএ’। ভারতে এই সংস্থার হয়ে মোবাইল স্ট্যান্ডার্ড অ্যালায়েন্স অব ইন্ডিয়া (এমএসএআই) আইএমইআই সংক্রান্ত সমস্ত কাজকর্ম চালাত। 
বিশদ

09th  February, 2020
মারণ করোনা 

ভাইরাসটির গায়ে থাকা স্পাইক মানুষের শরীরের অবস্থিত রিসেপটরের সঙ্গে খাপে খাপ আটকে যায়। যার জেরেই এই মৃত্যুমিছিল বলে মনে করছেন বিজ্ঞানী-গবেষকেরা। লিখছেন কল্যাণকুমার দে... 
বিশদ

09th  February, 2020
 টিভির ভোলবদল

 শৌণক সুর: বর্তমান যুগে টিভি ছাড়া বাড়িতে থাকাই দায়। সারাদিন পর বাড়িতে ফিরেই সুইচ অন করে বোকাবাক্সের সামনে বসে পড়া যেন নিত্যদিনের অভ্যাসে পরিণত হয়েছে। আশির দশকে টিভিতে খবর সম্প্রচার ছাড়া বিনোদনের তেমন কোনও অনুষ্ঠানই ছিল না। বিশদ

27th  January, 2020
এই বোস সেই বোস নয়

মৃণাল শীল: আমরা দেশনায়ক সুভাষচন্দ্র বসুর ছাত্রাবস্থার একটি ঘটনার সঙ্গে সকলেই পরিচিত। সেটি হল, প্রেসিডেন্সি কলেজের ইতিহাসের এক ইংরেজ অধ্যাপক ওটেন সাহেব এক বাঙালি ছাত্রকে বিনা কারণে অপমান করেন। এই ঘটনার প্রতিবাদে সরব হয় গোটা প্রেসিডেন্সি কলেজ।  
বিশদ

12th  January, 2020
অদৃশ্য ক্যামেরার ফোন!

রোটেটর, পপ আপ, আন্ডার ডিসপ্লে ক্যামেরার স্মার্টফোনের দুনিয়ায় নতুন সংযোজন। ছবি তোলার পরই অদৃশ্য হয়ে যাবে ক্যামেরা। এমনই অভিনব প্রযুক্তির স্মার্টফোনের আত্মপ্রকাশ করল ওয়ান প্লাস। সম্প্রতি লাস ভেগাসে আয়োজিত ‘কনজিউমার ইলেক্ট্রনিক্স শো’-তে (সিইএস ২০২০) মডেলটি প্রকাশ্যে এনেছে ওয়ান প্লাস।
বিশদ

12th  January, 2020
রোদ্দুর ছুঁতে সূর্যের দেশে পাড়ি দিচ্ছে ভারত 

বিনয় মালাকার: চাঁদের পর এবার সূর্য। পরপর দু’বার চন্দ্র অভিযানের সাফল্যের পর ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বা ইসরোর এখন লক্ষ্য সূর্য। সূর্যের অগ্নি বলয়ে হয়তো পৌঁছনো সম্ভব হবে না, তবে সূর্যের অনেকটাই কাছে পৌঁছনোর চেষ্টা চালানো হবে।  
বিশদ

12th  January, 2020
সেরা কিছু প্রযুক্তিগত উন্নতি 

১০৮, ৪৮ ও ৬৪ মেগা পিক্সেল ক্যামেরা: মোবাইল ক্যামেরার অগ্রগতি ডিএসএলআর জগৎকে কঠিন চ্যালেঞ্জের মুখে ঠেলে দিয়েছে। বিশ্বে প্রথমবার ১০৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সেন্সর বাজারে নিয়ে এসেছে স্যামসাং।  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের সেরা ব্যক্তিত্ব 

২০১৯ সালে বিজ্ঞানের অগ্রগতিতে অবদান রাখা ব্যক্তিদের মধ্যে এক ঝলকে খুঁজে নেওয়া কয়েকজন...  বিশদ

29th  December, 2019
জীবজন্তু 

প্রতিবছরই কিছু না কিছু নতুন প্রজাতির জীবজন্তু আবিষ্কার হয়। ২০১৯ সালও তার ব্যতিক্রম ছিল না। সেরকমই কয়েকটি প্রাণী হল  বিশদ

29th  December, 2019
এ বছরের উল্লেখযোগ্য ঘটনা 

 ১ জানুয়ারি: মানববিহীন মহাকাশযান নিউ হরাইজন্‌স সৌর জগতের দূরতম প্রান্তে অবস্থিত কাইপার বেল্টের মহাজাগতিক বস্তু ২০১৪ এমইউ৬৯-এর কাছে পৌঁছয়।
 ৩ জানুয়ারি: মহাকাশ গবেষণার ইতিহাসে প্রথমবার চাঁদের অন্ধকার পৃষ্ঠে অবতরণ করে চীনা মহাকাশযান চ্যাং ই-৪।  বিশদ

29th  December, 2019
ইলেকট্রনিক্সের ইতি!
আলোয় চলবে নতুন
যুগের কম্পিউটার

রক্তিম হালদার: বর্তমানে ‘কোয়ান্টাম সুপ্রিমেসি’র মাহেন্দ্রক্ষণে দাঁড়িয়ে তামাম বিশ্ব। এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন একটাই — তাহলে কি আজকের যুগের সাধারণ ইলেকট্রনিক কম্পিউটারের বদলে খুব শীঘ্রই বাজারে আসতে চলেছে ‘কোয়ান্টাম কম্পিউটার’? 
বিশদ

08th  December, 2019
 কৃত্রিম ত্বক নিয়ে মানুষ
হয়ে উঠবে রোবট

 সৌম্য নিয়োগী: রোবটরাও এবার হয়ে উঠবে মানুষের মতো! কৃত্রিম নয়, যন্ত্রমানবের শরীরেও থাকবে ব্যথা-বেদনা-ভালোবাসার মতো অনুভূতি। রোবটকে জড়িয়ে ধরলে সে লজ্জা পাবে। ভালোবেসে জড়িয়েও ধরবে। হাতে হাত রেখে মনও পড়তে পারবে সে। ঠান্ডা-গরম, হাসি-কান্না, আশঙ্কা — সব‌মিলিয়ে ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ই কাজ করবে যন্ত্র শরীরে।
বিশদ

08th  December, 2019
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রায়গঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সংগঠনকে স্বীকৃতি দিতে নারাজ উপাচার্য। তাঁর এই ভূমিকার প্রতিবাদ জানিয়েছে অধ্যাপক সংগঠন অ্যাবুটা। এই মর্মে তারা উপাচার্যকে প্রতিবাদপত্রও পাঠিয়েছে। ...

সংবাদদাতা, শিলিগুড়ি: উত্তরবঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয়ে কিরণচন্দ্র মেমোরিয়াল আন্তঃকলেজ টি-২০ ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় মঙ্গলবার প্রথম খেলায় বাগডোগরার কালীপদ ঘোষ তরাই মহাবিদ্যালয় ৬ উইকেটে পরাজিত করে বানারহাট কার্তিক ওঁরাও হিন্দি কলেজকে। এদিন টসে জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় কালীপদ ঘোষ তরাই মহাবিদ্যালয়।  ...

সৌম্যজিৎ সাহা, কলকাতা: শিক্ষাকর্মী নিয়োগ করতে চলেছে রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়। তার মধ্যে দীর্ঘ এক দশকেরও বেশি সময় পর ক্লারিকাল পদ এবং প্রায় সাত বছর পর গ্রুপ ডি পদে নিয়োগ হবে। তার লিখিত পরীক্ষার জন্য এই প্রথম একটি বাইরের এজেন্সিকে দায়িত্ব দিল ...

 করাচি, ১৮ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): পাকিস্তানের করাচিতে রহস্যময় বিষাক্ত গ্যাসে মৃত্যু হল কমপক্ষে ১৪ জনের। গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বহু মানুষ। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করছে করাচির প্রশাসন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

মানসিক অস্থিরতার জন্য পঠন-পাঠনে আগ্রহ কমবে। কর্মপ্রার্থীদের যোগাযোগ থেকে উপকৃত হবেন। ব্যবসায় যুক্ত হলে শুভ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৪৭৩: জ্যোতির্বিজ্ঞানী কোপারনিকাসের জন্ম
১৬৩০: মারাঠারাজ ছত্রপতি শিবাজির জন্ম
১৮৬১: দক্ষিণেশ্বরে কালীমন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা রানি রাসমণির মৃত্যু
১৮৯১: দৈনিক হিসেবে প্রকাশিত হল অমৃতবাজার পত্রিকা
১৯১৫ : ভারতীয় রাজনীতিবিদ গোপালকৃষ্ণ গোখলের মৃত্যু
১৯৭৮: রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী পঙ্কজকুমার মল্লিকের মৃত্যু
১৯৮৬: কম্পিউটার রিজার্ভেশন ব্যবস্থা চালু করল রেল





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৫৯ টাকা ৭২.২৯ টাকা
পাউন্ড ৯১.২৪ টাকা ৯৪.৫৬ টাকা
ইউরো ৭৫.৯২ টাকা ৭৮.৮৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৬৪৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৫১০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,১০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, (মাঘ কৃষ্ণপক্ষ) একাদশী ২২/১১ দিবা ৩/৩। পূর্বাষাঢ়া অহোরাত্র। সূ উ ৬/১০/১৮, অ ৫/৩১/৪, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪০ মধ্যে পুনঃ ৯/৫৭ গতে ১১/২৮ মধ্যে পুনঃ ৩/১৫ গতে ৪/৪৬ মধ্যে। রাত্রি ৬/২২ গতে ৮/৫৪ মধ্যে পুনঃ ১/৫৭ গতে উদায়াবধী। বারবেলা ৯/০ গতে ১০/২৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৫০ গতে ১/১৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৩/০ গতে ৪/৩৫ মধ্যে।
৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, একাদশী ২৭/৪২/৫৮ সন্ধ্যা ৫/১৮/৩৯। মূলা ৬/২৭/৫৬ দিবা ৮/৪৮/৩৮। সূ উ ৬/১৩/২৮, অ ৫/২৯/৫৬। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩১ মধ্যে ও ৯/৫১ গতে ১১/২৪ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫১ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১/৫১ গতে ৬/১৩ মধ্যে। কালবেলা ৯/২/৩৫ গতে ১০/২৭/৮ মধ্যে। কালরাত্রি ৩/২/৩৫ গতে ৪/৩৮/২ মধ্যে।
২৪ জমাদিয়স সানি

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপিতে দোকানে আগুন 
গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন লাগল দক্ষিণ ২৪ পরগনার কুলপির শ্যামবসুর ...বিশদ

10:39:35 AM

সেভকে বাস দুর্ঘটনা, জখম বেশ কয়েকজন 
শিলিগুড়ি থেকে জয়গাঁ যাওয়ার পথে সেভকের কাছে দুর্ঘটনার কবলে যাত্রীবাহী ...বিশদ

10:33:22 AM

বোলপুরে পঞ্চায়েত অফিসের সামনে বোমা উদ্ধার 
বোলপুর থানার অন্তর্গত সিয়ান মুলুক পঞ্চায়েত অফিসের গেটের সামনের রাস্তায় ...বিশদ

10:19:20 AM

শহরে ট্রাফিকের হাল 
আজ, বুধবার সকালে শহরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে অফিস টাইম। ...বিশদ

10:04:38 AM

বন্দর এলাকায় বাইক দুর্ঘটনায় জখম ২ 

09:41:00 AM

কালীঘাটে গাছ ভেঙে পড়ে জখম যুবক 

09:40:00 AM