Bartaman Patrika
বিজ্ঞান-প্রযুক্তি
 

আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স
দেবজ্যোতি রায়

গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, অ্যালেক্সা, সিরি...
না, রামু, বাদল, ভোলার মতো কোনও ধুতি পরা, গামছা কাঁধে সদা তটস্থ বেয়ারা নয়। আজকের তথ্যপ্রযুক্তির জমানায় আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স (কৃত্রিম বুদ্ধি) সম্পন্ন হেল্পার বা স্মার্ট সহায়ক। শারীরিক অস্তিত্বহীন এই অ্যাসিস্ট্যান্ট শুধু গ্রাহকের কমান্ড মেনে কাজই করে না, আগে থেকে বলে রাখা হুইপ যথাসময়ে সঠিকভাবে করে রাখে। আবার সেই কাজ সুসম্পন্ন হয়ে গেলে অতীতের করে আসা কাজ সম্পর্কিত কিছু করতে হবে না কি না তাও প্রভুকে জিজ্ঞাসা করে নেয়। অর্থাৎ, গ্রাহকের সেবায় নিবেদিত প্রাণ। আর এ সবই করে তার নিজের বুদ্ধি বা মেধা খাটিয়ে। নিউরোন বা স্নায়ু দ্বারা গঠিত কোনও রক্তমাংসের ব্রেন নয়, প্রযুক্তি বা মাইক্রো চিপ দিয়ে তৈরি আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের (এআই) সাহায্যে। বাংলায় কৃত্রিম মেধা। বাংলাদেশে যখন সোফিয়া রোবটের আগমন হয় তখন কমবেশি সবাই এআই-এর নাম শুনেছে।
লেখা শুরুর উপরের তিনটি নাম শুধুমাত্র গুগল, অ্যামাজন এবং অ্যাপলের তৈরি অ্যাসিস্ট্যান্টের। এআই নিয়ে বিজ্ঞানী, টেকনোক্র্যাটদের উন্নতর গবেষণা এবং সাফল্য সেই প্রযুক্তিকে আমাদের বর্তমান জীবনের সঙ্গে এক সারিতে জুড়ে দিয়েছে। বিশেষ করে আজকের ইন্টারনেট-টেলিফোনির যুগে। ইন্টারনেট প্রজন্মের (থ্রি-জি, ফোর-জি, ফাইভ-জি) উন্নতির সঙ্গে সঙ্গে সেই এআই নির্ভর প্রযুক্তির ব্যবহার ও কার্যকারিতা বেড়ে চলেছে। সে ইন্টারনেট সার্চ থেকে মোবাইলে অ্যালার্ম দেওয়াই হোক, বা টেক্সট ট্রান্সলেট (এক ভাষা থেকে আরেক ভাষায় অনুবাদ) থেকে সংবাদ পরিবেশন এবং সর্বোপরি রাস্তার সিগন্যালে ট্র্যাফিক পরিষেবা বা সীমান্তে পাহাড়া।
আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স কী: প্রোগ্রামিংয়ের মাধ্যমে মেশিনকে বুদ্ধিমান করে তোলাই হল আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম মেধা। এটি হল এক ধরনের সফটওয়্যার টেকনোলজি, যা রোবট বা কম্পিউটারকে মানুষের মতো কাজ করায় এবং ভাবায়। যেমন, কারও কথা বুঝতে পারা, সিদ্ধান্ত নেওয়া, দেখে চিনতে পারা ইত্যাদি ইত্যাদি। এককথায় মেশিন লার্নিং।
সৃষ্টির ইতিহাস: কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার পথচলা শুরু ১৯৪০ সালে। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য দ্রুত প্রযুক্তিগত অগ্রগতির প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এই সময় ব্রিটিশ গণিতবিদ অ্যালান টুরিং এবং নিউরোলজিস্ট গ্রে ওয়াল্টার বুদ্ধিমান মেশিন এবং তার বিভিন্ন সম্ভাবনা সম্পর্কে ধারণা দেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় নাৎসি কোড ভাঙাটা খুবই জরুরি ছিল। কিন্তু পারা যাচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত পারলেন অ্যালান টুরিং। ব্রিটিশ সরকার আইন করে তাদের নাৎসি কোড ভাঙার তথ্য সারা পৃথিবীর কাছে গোপন রাখতে চেয়েছিল।
কিংস কলেজ থেকে গণিতে ফার্স্ট ক্লাস পেয়ে অনার্সে উত্তীর্ণ হন টুরিং এবং ফেলোশিপ পান। তিনি মনে করতেন, যেকোনো গণনাযোগ্য গাণিতিক সমস্যাই সমাধানযোগ্য। যদি তা এলগরিদমে দেওয়া হয়। এই সমাধানের জন্য ‘ইউনিভার্সাল টুরিং মেশিন’ নামে একটি ‘হাইপোথেটিক্যাল’ যন্ত্র তৈরি করেন টুরিং। এই মেশিনের আধুনিক রূপই হচ্ছে আজকের কম্পিউটার। প্রিন্সটন থেকে পিএইচডি করার সময় টুরিং ‘ক্রিপ্টোলজি’ নিয়েও পড়াশোনা করেন।
টুরিং তখন ব্রিটিশ কোড ব্রেকিং সংস্থায় কাজ করছিলেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ সে সময় ধ্বংসাত্মক আকার নিয়েছে। আক্রান্ত পোল্যান্ড তখন বাধ্য হয়েই সাহায্যের আশায় উদ্ধার করা জার্মান এনিগমার তথ্যাবলি ব্রিটিশদের সরবরাহ করে। এনিগমা হলো একটি গোপন বার্তা প্রেরণকারী যন্ত্র। যার মাধ্যমে জার্মানরা রেডিও সঙ্কেত দিয়ে দুর্বোধ্য কোডে সৈন্যদের কাছে আক্রমণের নির্দেশিকা পাঠাত। কোডগুলি মিত্রবাহিনী পেলেও তা ভাঙতে পারছিল না ব্রিটিশরা।
এনিগমার গোপন বার্তা উদ্ধারকাজে তখন ক্রিপ্টো বিশেষজ্ঞ টুরিংকে কোড ব্রেকিং কার্যালয়ে ডাকা হলো। এনিগমার কোড ভাঙার জন্য যে ইলেক্ট্রো-মেকানিক্যাল যন্ত্রের প্রয়োজন ছিল, সেটা ‘বোম্বা’ নামের যন্ত্রটি পোলিশদের কাছ থেকেই পাওয়া। টুরিং ভাবলেন, ‘মানুষের দ্বারা এনিগমাকে হারিয়ে দেওয়া সম্ভব নয়। বরং একটি যন্ত্রের পক্ষেই সেটি সম্ভব। টুরিং ও গর্ডন ওয়েলচের যৌথ চেষ্টায় ‘বোম্বা’কে ভিত্তি করে সম্পূর্ণ ভিন্ন এক যন্ত্র তৈরি হল। নাম ‘বোম্বে’। এনিগমার সব কোডের ভেতর পরিচিত শব্দ খোঁজার চেষ্টা করত ‘বোম্বে’। এভাবেই জার্মান এনিগমার গোপন তথ্য উদ্ধার করে ক্রিপ্টোগ্রাফি জগতের ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিলেন টুরিং। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের শেষের দিকে ‘বোম্বে’ একে একে জার্মান সেনাবাহিনীর সব এনক্রিপ্টেড তথ্য ভাঙতে শুরু করে। আটলান্টিকে নাৎসিদের হেরে যাওয়ার ঘটনাটিও ঘটে বোম্বের অভাবনীয় সাফল্যের কারণেই।
১৯৪৮ সালের দিকে ‘টুরিং টেস্ট ও যন্ত্রের কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা’ নিয়ে কাজ শুরু করেন টুরিং। এই টেস্টের মূল উদ্দেশ্য ছিল অনুলিপিকরণ পরীক্ষা। অর্থাৎ ‘ইমিটেশন গেম’। উদাহরণ হিসেবে বলা যায় পাশাপাশি দুটি রুমের কথা। একটিতে একজন মানুষ, আরেকটিতে রয়েছে একটি যন্ত্র। ঠিক করা হয়, বৌদ্ধিক বিভিন্ন প্রশ্ন লিখে পাঠালে এর জবাব ওই দুই রুম থেকেই লিখিতভাবে আসবে। কোনো শব্দ বা কণ্ঠের ব্যবহার করা যাবে না। যন্ত্রটির উত্তর মানুষের কাছাকাছি হলেই বুঝতে হবে তার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা আছে।
আমরা প্রতিনিয়তই এই টুরিং টেস্টের মুখোমুখি হচ্ছি। যেমন ক্যাপচা রিকগনিশন করার সময় আমরা রোবট না মানুষ, তার পরীক্ষা হয় এ টুরিং টেস্টের মাধ্যমেই। যন্ত্র বা রোবট ক্যাপচার অক্ষরের ক্যাপিটাল বা স্মল লেটার যাচাই করতে পারে না। একটি যন্ত্র বিভিন্ন ‘ট্রিকি’ প্রশ্নের, অর্থাৎ যেখানে বুদ্ধিমত্তার প্রয়োজন পড়ে, সেসব উত্তরগুলো দিতে পারে না। কোনও যন্ত্র কী চিন্তা করতে পারে? এই প্রশ্নের উত্তর খোঁজাই ছিল এ টেস্টের মূল উদ্দেশ্য। একটি যন্ত্র বা রোবট কখনোই তার সঠিক অনুভূতির উত্তর লিখতে পারবে না। এর মাধ্যমেই মানুষ থেকে যন্ত্রের পার্থক্য করা সম্ভব। টুরিং টেস্ট সে হিসেবে আজও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন কোনও যন্ত্র পায়নি।
এরপর সময়ের বিবর্তনের সঙ্গে মার্কিন কম্পিউটার ও কগনিটিভ বিজ্ঞানী জন ম্যাকার্থি আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা শব্দটি ব্যবহার করেন। এমনকী, এআই প্রযুক্তির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা তিনিই। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির দুনিয়ায় আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স আজ ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে। ইন্টারনেট নির্ভর স্মার্ট ডিভাইসগুলিতে এআইয়ের ব্যবহার রমরমা।
আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সকে মোটামুটি তিনটি ভাগে ভাগ করা হয়
১. উইক এআই (Narrow AI): এই ইন্টেলিজেন্স শুধুমাত্র নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর কাজ করতে পারে। বর্তমানে আমরা এই ইন্টেলিজেন্স ব্যবহার করছি।
২. স্ট্রং এআই (Artificial General Intelligence): মেশিন বা কম্পিউটার যখন মানুষের মতো কাজ করতে পারবে তখন তাকে বলা হবে স্ট্রং এআই।
৩. সিঙ্গুলারিটি (Super Intelligence): এটা হল এমন একটা ইন্টেলিজেন্স যা কিনা সবচেয়ে প্রতিভাধর মানুষের ক্ষমতাকেও অতিক্রম করবে।
বিশেষজ্ঞদের একাংশের দাবি, কৃত্রিম মেধার সুবাদে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই মানুষের থেকে ভাল পরিষেবা দিতে পারবে যন্ত্র। মানুষের অনেক কাজ করবে তারা। আজকের প্রজন্ম তাদের স্মার্ট ফোনে এআই প্রযুক্তি নির্ভর গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট বা সিরি-কে ব্যবহার করছে। চ্যাটিং করতে হলে আর কষ্ট করে টাইপ করতে হচেছ না। মুখে বলে দিলেই অ্যাসিস্ট্যান্ট তা লেখায় রূপ দিয়ে দিচ্ছে। তা ইংরেজি, হিন্দি বা বাংলা যে ভাষাতেই হোক না কেন। বন্ধুর নাম বলে ফোন করো বলতেই, তার সঙ্গে ফোন কানেক্ট করে দিচ্ছে। অ্যালেক্সা একটি গান শোনাও বললে সে জিজ্ঞাসা করছে কোন গান, কী গান, কার গাওয়া ইত্যাদি। তাই বলে শুধু স্মার্ট ফোনের মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই এআইয়ের দাপট।
কোথায় কাজ করছে কৃত্রিম মেধা: এআই প্রযুক্তির ব্যবহার হওয়া ক্ষেত্রগুলি হল —
স্মার্ট গাড়ি ও ড্রোন: স্বয়ংক্রিয় তথা চালকহীন গাড়ির স্বপ্নকে বাস্তবের রূপ দিয়েছে এআই। সেক্ষেত্রে নজির তৈরি করেছে মার্কিন গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা টেসলা। এআই নির্ভর এই গাড়ি বুঝতে পারে কী করে, কখন ব্রেক মারতে হয়, কীভাবে বদলাতে হয় রাস্তার লেন এবং কীভাবে দুর্ঘটনা এড়াতে হয়। এছাড়া নিজের বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে এই গাড়ি ঘুরতে এবং ম্যাপ ব্যবহারও করতে পারে। বর্তমানে আমেরিকাতে ৫০ হাজারেরও বেশি টেসলার এই গাড়ি চলছে। আবার অ্যামাজন ও ওয়ালমার্টের মতো বহুজাতিক সংস্থা তাদের পণ্য গ্রাহকের কাছে দ্রুত পৌঁছে দেওয়ার কাজে ড্রোন ব্যবহার করছে। একইভাবে মাল পরিবহণের জন্য ব্রিটেনে স্বয়ংক্রিয় ট্রাক পরিষেবার কাজ শুরু করেছে ব্রিটেনের ডিপার্টমেন্ট ফর ট্রান্সপোর্ট (ডিএফটি)।
সোশ্যাল মিডিয়ায় আপডেট: আমরা ফেসবুক, ট্যুইটার, ইনস্টাগ্রাম বা শেয়ার চ্যাটের মতো সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করলেও বুঝতে পারি না কীভাবে একের পর এক আপডেট আমাদের কাছে আসছে! তা সে পরিচিত ব্যক্তিকে খোঁজাই হোক বা ফ্রেন্ডস সাজেশান। একটা কিছু লাইক, শেয়ার করলেই সেই সম্পর্কিত আরেকটা নিমেষে হাজির হয়ে যায়। সবকিছুই গ্রাহকের অচিরে হচ্ছে কৃত্রিম মেধার দৌলতে। আমাদের পছন্দ-অপছন্দ, চাহিদা, মেলামেশা ইত্যাদি বুঝে ‘কাস্টমাইজড’ (ব্যক্তি বিশেষের জন্য নির্দিষ্ট) আপডেট পাঠাতে থাকে এআই প্রযুক্তি।
মিউজিক ও মিডিয়া: কেউ যখন স্পটিফাই, নেটফ্লিক্স বা ইউ টিউব ব্যবহার করে, গ্রাহকের জন্য পুরো সিদ্ধান্তই নেয় এআই। একজন যদি মনে করে সে বিষয়টিকে নিয়ন্ত্রণ করছে বা তার নিয়ন্ত্রণে পুরো মিডিয়া চলছে, তা একেবারে ভুল। কারণ, একটি গান শুনতে শুনতে বা একজন শিল্পীকে খোঁজার সময় ‘রিলেটেড’ বা ‘সাজেস্টেড’ গান বা শিল্পী চলে আসে। একইভাবে আজকের জনপ্রিয় পাবজি, সিএস গো বা ফোর্টনাইট-এর মতো উন্নত ভিডিও গেমে এআই ব্যবহার সফল।
অনলাইন বিজ্ঞাপন: এআই প্রযুক্তির একটা বড় গ্রাহক হল অনলাইন বিজ্ঞাপন সেক্টর। এ ক্ষেত্রে এআই শুধু ইন্টারনেট সার্চকারী ব্যক্তিদের উপর নজর রেখে তথ্য তল্লাশি করে তাই নয়, গ্রাহকদের পছন্দ-অপছন্দ বিচার করে সেইমতো তাঁদের সামনে বিজ্ঞাপন হাজির করে। ফলে বিশ্বব্যাপী অনলাইন বিজ্ঞাপনের ব্যবসা ২৫ হাজার কোটি ডলার ছাড়িয়ে গিয়েছে।
নেভিগেশন এবং ট্রাভেল: ম্যাপের পুরোটাই এআই প্রযুক্তিচালিত। যখন গুগল, অ্যাপেল বা অন্য সংস্থার ম্যাপ ব্যবহার করে আমরা ক্যাব বুকিং করি, তখন এআই বিভিন্ন জায়গা থেকে তথ্য সংগ্রহ করে রাস্তার সেই সময়ের যানজট বা ভাড়া সম্পর্কে আমাদের জানায়।
ব্যাঙ্ক পরিষেবা: বর্তমানে ব্যাঙ্কিং পরিষেবার একটা বড় অংশ কৃত্রিম মেধা। কোনও একটা লেনদেন করলে আমরা তৎক্ষণাৎ যে এসএমএস বা ইমেল অ্যালার্ট পাই, তা চালনা কার এই এআই প্রযুক্তি। এইভাবে প্রতিটি গ্রাহকের লেনদেন, লগ্নি, প্রতারণা রোধে নীরবে কাজ করছে এআই।
স্মার্ট হোম ডিভাইস: নিত্যদিনের ব্যবহার্য স্মার্ট হোম ডিভাইস বা যন্ত্রগুলিতে ব্যাপকভবে ব্যবহার হচ্ছে এআই। আমাদের ব্যবহার, পছন্দ-অপছন্দ বুঝে সেই প্রযুক্তি নিজেই সংশ্লিষ্ট যন্ত্রের সেটিংস পরিবর্তন করছে এবং গ্রাহকদের নিরবিচ্ছিন্ন সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে। এ প্রসঙ্গে আগেই গুগলের ভয়েস অ্যাসিস্ট্যান্ট, স্মার্ট টিভি, স্মার্ট রেফ্রিজেরাটর, স্মার্ট এসি, স্মার্ট মাইক্রোওয়েভের কথা উল্লেখ করা যায়।
নিরাপত্তা ও নজরদারি: এই মুহূর্তে সবথেকে বেশি কৃত্রিম মেধা ব্যবহার হচ্ছে এক্ষেত্রে। ড্রোন তো ছেড়েই দেওয়া যাক। নজরদারির কাজে বিভিন্ন পয়েন্টে লাগানো হাজার হাজার ক্যামেরা থেকে লক্ষ লক্ষ তথ্য একটা নির্দিষ্ট সময়ে বিশ্লেষণ করা এআই ছাড়া মানুষের পক্ষে সম্ভব নয়। এআই নির্ভর অবজেক্ট রিকগনিশন বা ফেস রিকগনিশনের মতো প্রযুক্তি প্রতিদিন উন্নত হচ্ছে।
বিজনেস ম্যানেজমেন্ট: আজকের জনপ্রিয় অনলাইনে কেনাকাটা বা ই-কমার্সে ব্যবহার হচ্ছে এআই। যার জেরে গ্রাহক ঠিক কী চইছে সেই পণ্য দ্রুত খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে। একঝাঁক পণ্য বা পরিষেবার মধ্যে থেকে বেছে বেছে গ্রাহকের সামনে তুলে ধরা। আমাদের পছন্দ-অপছন্দ, চাহিদা, মেলামেশা ইত্যাদি বুঝে ‘কাস্টমাইজড’ (ব্যক্তি বিশেষের জন্য নির্দিষ্ট) আপডেট পাঠাতে থাকে এআই প্রযুক্তি।
বিতর্ক যেখানে: এত সুবিধার পরেও এআই নিয়ে বিশ্বজোড়া বিতর্ক একটাই — আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ফলে বিভিন্ন সংস্থায় মানুষের কর্মসংস্থান কমে যাবে না তো? একটি সমীক্ষা অনুযায়ী আইটি বা তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থার ২০ থেকে ৩৫ শতাংশ চাকরি সঙ্কটে। ম্যাককিন্সলে গ্লোবাল ইন্সস্টিটিউট তার সমীক্ষায় জানিয়েছে, অটোমেশন (আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স+মেশিন) বা স্বয়ংক্রিয়তার ফলে ২০৩০ সালের মধ্যে বিশ্বব্যাপী ৪০-৮০ কোটি মানুষ চাকরি হারাবে। এবং প্রায় ৩০ কোটি ৭৫ লক্ষ মানুষকে বেছে নিতে হবে অন্যকাজ। একইভাবে ন’য়ের দশকের গোড়ার দিকে কম্পিউটার আগমনের সময় কাজ হারানোর ভয়ে মানুষের মধ্যে তৈরি হয়েছিল ‘কম্পিউটারফোবিয়া’। যদিও, এই ভয় ও উদ্বেগের মধ্যে সব ক্ষেত্র্রেই দেখা গিয়েছে, প্রযুক্তির বদল যত না কর্মসংস্থান নষ্ট করেছে, তার থেকে বেশি চাকরি সৃষ্টি করেছে। কারণ, স্বয়ংক্রিয়তার ফলে যখন একটি নির্দিষ্ট কাজ দ্রুত, সহজ ও সস্তা হয়ে যায়, তখন সেই কাজের বাকি দিকগুলি সম্পন্ন করতে প্রয়োজন হয়ে পড়ে আরও বেশি মানবসম্পদের।
এ বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সৈকত মৈত্র বলেন, ‘এতে যোগ্যতার মানন্নোয়ন হবে। ফলে সৃজনশীলতা তথা উৎপাদন বাড়বে। কমবে পণ্য উৎপাদনের খরচ। যার জেরে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বাড়বে। দূর হবে বৈষম্য। উন্নত হবে জীবনযাত্রার মান। স্বচ্ছতা বাড়বে। উন্নতি হবে দেশের অর্থনীতির।’ কর্মহীন হওয়ার উৎকণ্ঠা দূর করতে কম্পিউটার আসার কথা তুলে ধরেন তিনিও। সৈকতবাবুর কথায়, ‘কৃত্রিম মেধার ফলে নতুন ধরনের কাজ সৃষ্টি হবে। মানুষ কল্পনা, বুদ্ধিমত্তা ও সৃজশীলতার উপর কাজ করবে। কায়িক পরিশ্রমের কাজ অবলুপ্তি হবে। মাথার কাজ বাড়বে। এতে কাজের পরিধি বাড়বে। সময় বেঁচে যাওয়ার ফলে সেই মূল্যবান সময় অন্য কাজে লাগানো যাবে।’
সে কারণেই আরেক অংশের মতে, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্সের ফলে তৈরি হবে ১৫ থেকে ২০ শতাংশ নতুন নতুন চাকরি। নিম্ন বা মধ্য দক্ষতার মতো ‘ব্লু বা হোয়াইট কলার জব’ শেষ হয়ে যাবে। তৈরি হবে উচ্চ দক্ষতার চাকরি। যার জন্য দরকার হবে উন্নততর প্রশিক্ষণ। ফলে, প্রোগ্রামিং, রোবোটিং, ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের মতো চাকরির ক্ষেত্র তৈরি হবে। সবাই যে চাকরি হারাবে তা নয়, বর্তমান কর্মীদের জন্য উন্নত প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা তৈরি হচ্ছে। ঠিক যেভাবে দক্ষতা উন্নয়ন বলে একটি আলাদা মন্ত্রক তৈরি করেছে ভারত সরকার। আসলে এই বদল হবে অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক।
পাঠ্যক্রমে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স: দেশের আইআইটিগুলির মধ্যে আইআইটি খড়্গপুর এই প্রথম ‘আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স’ বা কৃত্রিম মেধা ও মেশিন লার্নিংয়ের উপরে সার্টিফিকেট কোর্স চালু করেছে। কলকাতা, বেঙ্গালুরু, খড়্গপুর এবং হায়দরাবাদে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার উপর ছ’মাসের পাঠ্যক্রম চালু করেছে আইআইটি খড়্গপুরের ‘সেন্টার ফর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স’ বিভাগ। এ বছর থেকেই আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের উপর বিএসসি, এম টেক প্রোগ্রাম চালু করেছে পশ্চিমবঙ্গ প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ভর্তিতে পড়ুয়াদের থেকে ভালো সাড়া মিলেছে বলে জানিয়েছেন উপাচার্য সৈকত মৈত্র। একইভাবে এ বছর থেকে অষ্টম ও নবম শ্রেণীর পড়ুয়াদের জন্য ঐচ্ছিক বিষয় হিসেবে আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স চালু করেছে সেন্ট্রাল বোর্ড অব সেকেন্ডারি এডুকেশন বা সিবিএসই। এক সার্কুলার জারি করে সিবিএসই জানিয়েছে, নতুন প্রজন্মকে বিভিন্ন বিষয়ে পারদর্শী করে তুলতেই স্কুলে এআই চালু করার সিদ্ধান্ত।
30th  June, 2019
ক্যাম স্ক্যানারে ভাইরাস
প্লে-স্টোর থেকে সরাল গুগল

গ্রাহক সুরক্ষা ও নিরাপত্তার স্বার্থে জনপ্রিয় মোবাইল অ্যাপ ‘ক্যাম স্ক্যানার’কে নিজেদের অ্যান্ড্রয়েড প্লে-স্টোর থেকে সরিয়ে দিল তথ্যপ্রযুক্তি জায়ান্ট গুগল। অ্যাপটিতে ভয়ঙ্কর ‘ট্রোজান’ ভাইরাস মিলতেই এই পদক্ষেপ বলে জানা গিয়েছে। ‘ক্যাম স্ক্যানার’-এর লেটেস্ট ভার্সানে এই ভাইরাস মিলেছে।
বিশদ

08th  September, 2019
ভুয়ো অ্যাপ চেনার উপায়

 প্লে-স্টোর থেকে ক্যাম স্ক্যানারের মতো জনপ্রিয় অ্যাপ গুগল সরিয়ে ফেলতেই অ্যাপ ব্যবহারকারী তথা টেকপ্রেমীদের মধ্যে নতুন করে সংশয় জেগেছে। প্রশ্ন উঠতে শুরু করছে, কোন অ্যাপ আসল? কোন অ্যাপ ব্যবহার করলে সুরক্ষিত থাকবে ব্যক্তিগত গোপন নথি? কেন না, বর্তমান প্রযুক্তি-যুদ্ধে যে দেশের কাছে যত বেশি তথ্য রয়েছে, সেই দেশ তত বেশি শক্তিশালী।
বিশদ

08th  September, 2019
 কৃষ্ণগহ্বরের ছবি তুলে বিজ্ঞানে অস্কার

  ইতিহাস গড়ে ৫ কোটি ৫০ লক্ষ আলোকবর্ষ দূরে (ম্যাসিয়ার ৮৭-গ্যালাক্সির কেন্দ্রে) অবস্থিত কৃষ্ণগহ্বর (ব্ল্যাকহোল)-এর ছবি তুলেছিলেন একদল বিজ্ঞানী। সেই বেনজির কৃতিত্বের জন্য ফান্ডামেন্টাল ফিজিক্সে ব্রেকথ্রু পুরস্কারে সম্মানিত হতে চলেছেন তাঁরা। পোশাকি নাম ‘অস্কার অব সায়েন্স’ বা বিজ্ঞানের অস্কার।
বিশদ

08th  September, 2019
 ইসরোর আরও
১০টি সা ফ ল্য

  ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা বা ইসরো বিগত কয়েক দশকে প্রচুর সাফল্য পেয়েছে, যা দেশবাসীকে গর্বিত করেছে। আজ থেকে পাঁচ দশক আগে ১৯৬৯ সালে যাত্রা শুরু করে মহাকাশ গবেষণায় তাবৎ দেশের সঙ্গে টেক্কা দিচ্ছে ভারত। যে কারণে গোটা বিশ্ব এখন ভারতের সাফল্যকে কুর্ণিশ জানাচ্ছে। একনজরে ইসরো সাফল্য: বিশদ

08th  September, 2019
বাজারে আসছে ৬৪
মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা

 এবার ৬৪ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার মোবাইল বাজারে নিয়ে আসতে চলেছে স্যামসাং। মডেলের নাম গ্যালাক্সি এ৭০এস। মোবাইলটির অপারেন্টিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড পাই। ফোনটিতে রয়েছে অক্টাকোর স্ম্যাপড্রাগন ৬৭৫ চিপসেট। ৬ জিবির এই ফোনটিতে রয়েছে ৬৪ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরা।
বিশদ

16th  August, 2019
নতুন অপারেটিং সিস্টেম
লঞ্চ করল হুওয়াই

 নতুন অপারেটিং সিস্টেম লঞ্চ করল চীনের মোবাইল প্রস্তুতকারী সংস্থা হুওয়াই। সম্প্রতি মার্কিন প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই সংস্থার সবরকম সাপোর্ট বন্ধ করে দিয়েছিল গুগল। ফলে স্মার্টফোনের ব্যবসা প্রায় ডুবতে বসেছিল। কিন্তু চীনা কোম্পানি বলে কথা। 
বিশদ

16th  August, 2019
সমাজে অপরাধ
বাড়াচ্ছে বায়ুদূষণ
বলছে বিজ্ঞানীদের গবেষণা

মৃণালকান্তি দাস: আগ্নেয়গিরির শিখরে যেন পিকনিক চলছে! অথচ হুঁশ নেই কারও। প্রতিদিনই একটু একটু করে ঘড়ির কাঁটার সঙ্গে বাড়ছে অসহিষ্ণুতা, বাড়ছে অপরাধের সংখ্যা। শুনলে অবাক হবেন, চলতি বছরের প্রথম ছ’মাসে আমাদের দেশে ২৪ হাজারের বেশি শিশু ধর্ষণের শিকার।
বিশদ

11th  August, 2019
শাওমি ফোনে বিজ্ঞাপন
বন্ধ করবেন কীভাবে?

কম দামে দুর্দান্ত ফিচার উপহার দিয়ে ইতিমধ্যেই ভারতবাসীর মন জয় নিয়েছে চীনা মোবাইল প্রস্তুতকারক সংস্থা শাওমি (Xiaomi)। কিন্তু, শাওমির নিজস্ব অ্যান্ড্রয়েড স্কিন MIUI-তে বিজ্ঞাপন দেখানোর অভিযোগ উঠছে। গাঁটের পয়সা খরচ করে স্মার্টফোন কেনার পরে অপারেটিং সিস্টেমের মধ্যে বিজ্ঞাপন দেখানোয় তিতিবিরক্ত গ্রাহককূল।
বিশদ

11th  August, 2019
 ‘মৃত্যুর ব্যবসায়ী’ অ্যালফ্রেড নোবেল!

  ঊনবিংশ শতাব্দীর শেষ ভাগ। এক ভদ্রলোক ইতালির স্যানরিজো শহরে নিজের বাড়িতে বসে খবরের কাগজ পড়ছেন। ভদ্রলোকের নিজস্ব ব্যবসা আছে। তাঁর আর্থিক অবস্থা যে ভীষণ ভালো তা বলাই বাহুল্য। সেইসঙ্গে ইতালি, সুইডেন ইউরোপের বিভিন্ন দেশে তাঁর প্রভাব প্রতিপত্তিও যথেষ্ট।
বিশদ

11th  August, 2019
সাধ্যের মধ্যে সেরা
পাওয়ার ব্যাঙ্ক

 রাস্তায় হাঁটছেন হঠাৎই দেখলেন আপনার স্মার্টফোনের ব্যাটারির চার্জ প্রায় শেষ। এদিকে আবহাওয়ার অবস্থাও ভালো নয়। ক্যাব বুক করার আশায় জল ঢেলে আপনার ফোন কাজে সাময়িকভাবে ইস্তফা দিল। বাড়ির সঙ্গে যোগাযোগও বিচ্ছিন্ন। এরকম অপ্রীতিকর অবস্থায় কমবেশি আমাদের সকলকেই কখনও না কখনও পড়তে হয়েছে। কিন্তু আর চিন্তা নেই। কারণ বাজারে কম দামের মধ্যে এসে গিয়েছে বেশ কিছু পাওয়ার ব্যাঙ্ক। যার সাহায্যে নিমেষের মধ্যেই মোবাইলের ব্যাটারিতে চার্জ দিয়ে নিতে পারবেন। সে আপনি যেখানেই থাকুন না কেন। আজ আপনাদের পকেট ফ্রেন্ডলি তেমনই কিছু পাওয়ার ব্যাঙ্কের সুলুক সন্ধান দেব আমরা।
বিশদ

11th  August, 2019
ভারতের চন্দ্রাভিযান ২.০ 

ডঃ দেবীপ্রসাদ দুয়ারী: ২০ জুলাই ২০১৯। সারা পৃথিবীর মানুষ উদযাপন করবেন ৫০ বছর আগের সেই অবিস্মরণীয় মুহূর্তটিকে। ১৯৬৯ সালে মানুষ প্রথম পা রেখেছিল চাঁদে। মানব সভ্যতার ইতিহাসে অদম্য এক প্রয়াস, মহাশূন্যকে জয় করার এক প্রচেষ্টা এবং পৃথিবীর বাইরে অন্য এক জগৎকে নতুন করে আবিষ্কার করার সেই স্মৃতি এখনও যেন এক অবিশ্বাস্য কল্পনার জগৎকে উজ্জীবিত করে মানব মনে।   বিশদ

14th  July, 2019
চন্দ্রাভিযানে বিরাট ভূমিকা রয়েছে বিক্রম, প্রজ্ঞানের 

‘চন্দ্রযান-২’ নিয়ে দ্বিতীয়বার চাঁদে পাড়ি দিচ্ছে ভারত। আধুনিক প্রযুক্তির নিরিখে চন্দ্রযান-২ নিয়ে চরম আশাবাদী ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরো। পৃথিবীর মাটি থেকে পৃথক পৃথক কাজের জন্য একাধিক পে-লোড বা যন্ত্র নিয়ে মহাকাশে পাড়ি দেবে চন্দ্রযান-২।  বিশদ

14th  July, 2019
 বেলুন দিয়ে বিজ্ঞান শিক্ষা

 একটি ফোলানো বেলুনকে এঁফোর-ওঁফোর করে চলে গেল ফিতে লাগানো একটা লম্বা সূঁচ। কিন্তু বেলুনটি ফেটে বা চুপসে গেল না। কিংবা বেলুন দিয়ে একটা গ্লাস বা দুটি কাপকে অনায়াসে উপরে তোলা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, পাশাপাশি দুটি বেলুন ফুলিয়ে রাখা হয়েছে। একটি বাতাসে ভাসছে, অন্যটি মাটিতে গড়াগড়ি দিচ্ছে।
বিশদ

30th  June, 2019
 নয়া সেফটি ফিচার আনল গুগল ম্যাপ

ভারতে যাত্রী সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে গুগল ম্যাপ নিয়ে এল নয়া একটি ‘সেফটি ফিচার’। এবার কোনও ক্যাব চালক নির্দিষ্ট রুট ছেড়ে অন্য পথ ধরলেই যাত্রীকে নোটিফিকেশন পাঠিয়ে তা জানিয়ে দেবে গুগল। এ ব্যাপারে গুগল ম্যাপস-এর প্রোডাক্ট ম্যানেজার অ্যামান্ডা বিশপ বলেছেন, ‘শুধুমাত্র ভারতের জন্যই আমরা গুগল ম্যাপে নয়া ফিচার এনেছি।
বিশদ

30th  June, 2019
একনজরে
বিএনএ, সিউড়ি ও সংবাদদাতা, শান্তিনিকেতন: নানুরে নিহত বিজেপি কর্মী স্বরূপ গড়াইয়ের মৃতদেহ নেওয়া নিয়ে মঙ্গলবার দিনভর টানাপোড়েন চলল। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বোলপুর মহকুমা হাসপাতালের মর্গ থেকে ...

সংবাদদাতা, মালবাজার: মাত্র দেড় মাসের মধ্যে একটি অপহরণের ঘটনায় বড়সড় সাফল্য পেল মাল থানার পুলিস। গোপন সূত্রে পাওয়া খবরের ওপর ভিত্তি করে মাল পুলিসের একটি দল সুদূর পাঞ্জাব থেকে উদ্ধার করল অপহৃত নাবালিকাকে।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: জেএমবির অন্যতম বড় মাথা আসাদুল্লাহকে গ্রেপ্তার করল কলকাতা পুলিসের স্পেশাল টাস্ক ফোর্স (এসটিএফ)। মঙ্গলবার ভোররাতে চেন্নাইয়ের একটি বাড়ি থেকে ধরা হয়েছে তাকে। ভুয়ো পরিচয় দিয়ে সে এখানে বাড়ি ভাড়া নিয়েছিল। তার কাছ থেকে মিলেছে একটি মোবাইল ফোন, ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মঙ্গলবার ছিল মহরম। তাই সোমবার সন্ধ্যাতেই রেফারি দীপু রায়ের রিপোর্ট চেয়ে পাঠান আইএফএ সচিব। তিনি সাড়ে দশটা পর্যন্ত ছিল দপ্তরে। পুলিসের গাড়িতে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ঝগড়া এড়িয়ে চলার প্রয়োজন। শরীর স্বাস্থ্য বিষয়ে অহেতুক চিন্তা করা নিষ্প্রয়োজন। আজ আশাহত হবেন না ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬২- মার্কিন ছোট গল্পকার ও হেনরির জন্ম
১৮৯৩- শিকাগোর ধর্ম সম্মেলনে স্বামী বিবেকানন্দ ঐতিহাসিক বক্তৃতা করেন
১৯০৮- বিপ্লবী বিনয় বসুর জন্ম
১৯১১- ক্রিকেটার লালা অমরনাথের জন্ম
২০০১- নিউ ইয়র্কের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে এবং পেন্টাগনে বিমান হানায় অন্তত ৩ হাজার মানুষের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮৪ টাকা ৭২.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৮৬.৪২ টাকা ৮৯.৫৯ টাকা
ইউরো ৭৭.৫৭ টাকা ৮০.৫২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
10th  September, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৭০০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৭১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,২৬৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,০০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,১০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৫ ভাদ্র ১৪২৬, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার, ত্রয়োদশী ৫৯/১৩ শেষ রাত্রি ৫/৭। শ্রবণা ২১/২৫ দিবা ১/৫৯। সূ উ ৫/২৫/৩১, অ ৫/৪১/৩৮, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে পুনঃ ৯/৩০ গতে ১১/৮ মধ্যে পুনঃ ৩/১৩ গতে ৪/৫১ মধ্যে। রাত্রি ৬/২৮ মধ্যে পুনঃ ৮/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১/৩১ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/২৯ গতে ১০/১ মধ্যে পুনঃ ১১/৩৩ গতে ১/৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩০ গতে ৩/৫৮ মধ্যে।
২৪ ভাদ্র ১৪২৬, ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৯, বুধবার, ত্রয়োদশী ৫৮/৩৭/১১শেষরাত্রি ৪/৫১/৫৭। শ্রবণা নক্ষত্র ২৪/৫৬/২৬ দিবা ৩/২৩/৩৯, সূ উ ৫/২৫/৫, অ ৫/৪৩/৪৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/২ মধ্যে ও ৯/৩১ গতে ১১/১০ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৩৩ গতে ৮/৫৩ মধ্যে ও ১/৩১ গতে ৫/২৫ মধ্যে, বারবেলা ১১/৩৪/২৫ গতে ১/৬/৪৫ মধ্যে, কালবেলা ৮/২৯/৪৫ গতে ১০/২/৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/২৯/৪৫ গতে ৩/৫৭/২৫ মধ্যে। 
 ১১ মহরম

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে এখনই চালু হচ্ছে না নয়া মোটর ভেইকেলস আইন 
রাজ্যে এখনই চালু হচ্ছে না নয়া মোটর ভেইকেলস আইন। আজ ...বিশদ

06:41:55 PM

এবার রেল স্টেশনেও নিষিদ্ধ হচ্ছে প্লাস্টিক
এবার একবার ব্যবহারযোগ্য প্লাস্টিক নিয়ে আর প্রবেশ করা যাবে না ...বিশদ

04:56:20 PM

কৈখালিতে গাড়ির ধাক্কায় মৃত যুবক 

04:17:00 PM

কলেজে ভর্তিতে দুর্নীতি রুখতে জেলায় সাহায্য কেন্দ্র খুলবে সরকার 
ভর্তি প্রক্রিয়া বেশ কিছু বছর ধরে অনলাইনেই চলছে। তবুও দুর্নীতি ...বিশদ

03:56:24 PM

দিদিকে বলো কর্মসূচিতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে ইংলিশবাজার পুরসভার ভাইস চেয়ারম্যান 

03:32:00 PM

তমলুকে মহিলা আইনজীবীর অস্বাভাবিক মৃত্যু, আটক স্বামী
তমলুকে মহিলা আইনজীবীর অস্বাভাবিক মৃত্যু। মৃতার নাম প্রিয়াঙ্কা কাণ্ডার সরকার(২৪)। ...বিশদ

03:05:44 PM