Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

শত্রুপোকার সঙ্গেই জমিতে ধ্বংস হচ্ছে মিত্রপোকা, উদ্বেগ 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: খেতের পোকা। এদের কেউ শত্রু। আবার কেউ মিত্র। অবশ্যই তা চাষিদের কাছে। শত্রু পোকাদের নিকেশ করতে গিয়ে মিত্ররাও হারিয়ে যাচ্ছে। ফলস্বরূপ উত্তরোত্তর শত্রু পোকার বৃদ্ধি ঘটছে। চাষিদের কাছে এরাই এখন প্রধান মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। এ নিয়ে চিন্তিত কৃষি বিশেষজ্ঞ ও গবেষণারত বিজ্ঞানীরা। সঠিক বাঁচার পথ খুঁজতে দিশাহারা চাষিরা। ফসল উৎপাদন মার খাচ্ছে। লাভের গুঁড় পিঁপড়েতে খাচ্ছে। দেনার দায় ঘাড়ে এসে চাপছে চাষিদের।
প্রসঙ্গত, চাষ করতে গিয়ে নিত্য-নতুন পোকামাকড়ের উপদ্রব বাড়ছে। শত্রুপোকার সংখ্যা বাড়ছে। সেখানে মিত্রপোকার সংখ্যা কমছে। তার জেরে ফসলের ক্ষতিকারক দিকটা বড় হয়ে উঠছে। প্রতিটি ফসলের উৎপাদনে পোকা তাড়াতে কীটনাশকের যথেচ্ছ ব্যবহার বাড়ছে। একদিকে বাড়ছে খরচ, অন্যদিকে মিত্রপোকা ধ্বংস হচ্ছে। তা নিয়ে চিন্তিত চাষিরা। কৃষি বিশেষজ্ঞরাও এনিয়ে মাঠে নেমেছেন। কীভাবে রক্ষা করা যায় মিত্রপোকার।
উল্লেখ করা যেতে পারে, শোষক পোকা, জাব পোকা, সাদা মাছি, ল্যাদা পোকা, বাদামি শোষক পোকা, মাজরা পোকা প্রভৃতি ক্ষতিকারক পোকার নিধন করতে গিয়ে মিত্রপোকা বা মিত্রজীব সবুজ ফড়িং, লেডিবার্ড বিটল, মাকড়সা, কেঁচো, হেলেসাপ, ব্যাঙ, শামুক প্রভৃতি মারা পড়ছে। ক্ষতি হচ্ছে ফসলের। এরা চাষিদের ফসল উৎপাদনে পরোক্ষভাবে উপকার করে থাকে। কৃষিবিজ্ঞানী গোপালচন্দ্র সেতুয়া বলেন, শত্রুপোকা নিধন করতে গিয়ে অসংখ্য মিত্রপোকা অকালে মারা পড়ছে। চাষিরা নিজেরাই নিজেদের মরণকূপ খুঁড়ছেন। বর্তমানে চাষের পদ্ধতির পরিবর্তন ঘটছে। মাটি পরীক্ষা না করে জমিতে যথেচ্ছ সার ওষুধ প্রয়োগ করা যাবে না। চাষিরা এটা না করে অবিবেচকের মতো কাজ করছেন। চাষিদের জানতে হবে জমিতে অসংখ্য পোকামাকড় আছে। এদের মধ্যে যেমন ফসলের শত্রু আছে, তেমনই মিত্রও আছে। মিত্র পোকাদের বাঁচিয়ে রাখতে হবে। কারণ, মিত্রপোকারাই মাটির উর্বরাশক্তি যেমন বজায় রাখে, আবার এরা শত্রুপোকাদের ডিম ও বাচ্চা খেয়ে নির্মূল করে। বংশবিস্তার করতে দেয় না। কিন্তু চাষিরা অত্যাধিক পরিমাণে নাইট্রোজেন ঘটিত সার ও কীটনাশক ওষুধ ব্যবহার করার ফলে মিত্রপোকারা নিশ্চিহ্ন হচ্ছে। কারা মিত্র এবং কারা শত্রুপোকা তা জানা দরকার চাষিদের। আরামবাগ মহকুমার কৃষি আধিকারিক (প্রশাসন) সজলকুমার ঘোষ বলেন, অধিকাংশ চাষি জানেন না কোনটা মিত্রপোকা, আবার কোনটা শত্রুপোকা। এটা আগে চিনতে হবে। সেইসঙ্গে জমিতে যথেচ্ছহারে সার এবং ওষুধ প্রয়োগ করা যাবে না। আর তা ব্যবহার হচ্ছে বলে মিত্রপোকারা হারিয়ে যাচ্ছে। এবিষয়ে চাষিদের সচেতন করা হচ্ছে। এটা অবশ্যই উদ্বেগের বিষয়। কৃষি বিশেষজ্ঞ হরষিত মজুমদার বলেন, আগে জলাজমিতে শামুক, হেলে সাপ, ব্যাঙ দেখা যেত। এছাড়া মাটিতে যে কেঁচো থাকে, তাতে উর্বরাশক্তি রক্ষা করে। এর পরিমাণও কমছে। এও দেখা যাচ্ছে সবুজ ফড়িং, লেডিবার্ড বিটল, মাকড়সা আর ফসলের রক্ষাকর্তা হয়ে এগিয়ে আসে না। মিত্রপোকাদের বাঁচাতে চাষিদেরই এগিয়ে আসতে হবে। 

02nd  October, 2019
পানিফল চাষে লাভ মেলায় খুশি আরামবাগের কৃষকরা 

সুদেব দাস, আরামবাগ: আরামবাগে পানিফল চাষে তিনগুণ লাভ হওয়ায় খুশি চাষিরা। শীতের আগে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় যাচ্ছে ওই পানিফল। কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, এ রাজ্যে নদীয়া ও মুর্শিদাবাদ জেলায় পানিফলের চাষ শুরু হয়েছিল। পরবর্তী সময়ে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বর্তমানে কমবেশি এই ফলের চাষ হচ্ছে।  
বিশদ

16th  October, 2019
আমনে ভালো ফলন পেতে শোষক পোকা ও ঝলসা ঠেকানো জরুরি 

নিজস্ব প্রতিনিধি: আমন ধান কাটার সময় চলে এসেছে। যেসব জমিতে সময়ে ধান লাগানো হয়েছে, সেখানে ধানগাছে শিষ চলে এসেছে। যেখানে একটু দেরিতে রোয়া করা হয়েছে, সেখানে ধানগাছে থোড় এসেছে। এইসময় ধানখেতে পরিচর্যা জরুরি। কয়েকটি রোগপোকা দমনের দিকেও বিশেষ নজর রাখতে হবে চাষিদের। নতুবা ফলন মার খেতে পারে।  
বিশদ

16th  October, 2019
লাভ বাড়বে ৯ গুণ, মালদহে মিশ্র চাষে ঝুঁকছেন কৃষকরা 

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে অধিক মুনাফা লাভের আশায় মিশ্র চাষের দিকে ঝুঁকছেন চাষিরা। ব্লক কৃষি দপ্তরের আতমা প্রকল্পের মাধ্যমে ধানের জমিতে মাছ ও সব্জি চাষ করা হয়। ব্লক কৃষি দপ্তরের উদ্যোগে ধানের সঙ্গে মাছ চাষের একটি প্রদর্শনী ক্ষেত্র করা হয় ব্লকের সুলতাননগর গ্রাম পঞ্চায়েতের সাহাপুর গ্রামে। 
বিশদ

16th  October, 2019
উৎপাদন বৃদ্ধিতে নয়া দিশা খাঁচায় মাছচাষে
অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে ঝাড়খণ্ড, ওড়িশা ও ছত্তিশগড়

ব্রতীন দাস: প্রযুক্তির হাত ধরে দারুণ সম্ভাবনার ক্ষেত্র তৈরি করেছে খাঁচায় মাছচাষ। এই পদ্ধতিতে খাঁচার চারদিকে জাল দিয়ে ঘেরা থাকে। কিন্তু তাতে জল ঢুকতে কোনওরকম অসুবিধা হয় না। খাঁচার আকার নানারকম হতে পারে। বাঁশ, দস্তা কিংবা প্রলেপিত লোহা দিয়ে তৈরি হয় খাঁচার কাঠামো। 
বিশদ

16th  October, 2019
বিকল্প হিসেবে আগ্রহ বাড়ছে কুমড়ো চাষে 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায় : আলু, বেগুন, পটলের মতো গৃহস্থের বাড়িতে কদর পাচ্ছে কুমড়োও। বাজারে এই সব্জিটির ভালোই চাহিদা। পাল্লা দিয়ে দামও ঊর্ধ্বমুখী। কৃষিবিদরাও এই চাষে যাতে কৃষকরা লাভবান হন, এজন্য কৃষি ব্লকগুলিতে পরামর্শ দিচ্ছেন। বিকল্প চাষ হিসেবে চাষিরা যাতে এগিয়ে আসেন এজন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া শুরু হয়েছে। 
বিশদ

16th  October, 2019
প্রাকৃতিক উপায়ে ফসলের পোকা দমনে জোর দিচ্ছে কৃষিদপ্তর 

প্রসেনজিৎ সরকার: মাটি পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে চাষ করে উন্নতমানের ফসল উৎপাদন ও অধিক মাত্রায় কীটনাশকের ব্যবহারের পরিবর্তে কম খরচে ও সহজ পদ্ধতিতে রোগপোকা দমনের পরামর্শ দিচ্ছে কৃষিদপ্তর। জলপাইগুড়ি কৃষি আধিকারিক মেহফুজ আহমেদ বলেন, সচেতনতা শিবিরগুলিতে মাটি পরীক্ষার ভিত্তিতে চাষের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।  
বিশদ

16th  October, 2019
কদর বাড়ছে মিল্ক ফিশ, পেংবা, মুক্তগাছা মাছের 

ব্রতীন দাস : ‘মৎস্য মারিব খাইব সুখে’। মাছে-ভাতে বাঙালির পাতে পড়তেই রুই-কাতলা-মৃগেলের একঘেয়ে স্বাদ বদলাতে কদর বাড়ছে মণিপুরের পেংবা কিংবা কেরলের মুক্তগাছা মাছের। স্বাদের গুণে জায়গা করে নিয়েছে রাজ্যে নতুন মাছ হিসেবে পরিচিত মিল্ক ফিশ।  
বিশদ

02nd  October, 2019
মালদহে সব্জির উৎপাদন বাড়াতেই উন্নত জাতের বীজ দেওয়ার উদ্যোগ 

মঙ্গলচন্দ্র ঘোষ, গাজোল: মালদহ জেলায় সব্জির উৎপাদন আরও বাড়াতে চাষিদের শঙ্কর জাতীয় উন্নতমানের টম্যাটো, বেগুন ও লঙ্কার বীজ দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। মূলত জেলার সব্জিচাষিদের আর্থিক দিক দিয়ে লাভবান করবার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে প্রশাসন।  
বিশদ

25th  September, 2019
খরিফে পেঁয়াজের ভালো দাম পাওয়ার আশা ফলন বৃদ্ধিতে পরিচর্যায় জোর দেওয়ার পরামর্শ 

ব্রতীন দাস: চাহিদার তুলনায় জোগান নিতান্তই কম। ফলে প্রতিদিনই দর চড়ছে পেঁয়াজের। ইতিমধ্যেই ৭০ টাকা কেজি ছাড়িয়েছে। পুজোয় ১০০ টাকা ছুঁয়ে ফেলার আশঙ্কা। পেঁয়াজের দামের ঝাঁঝে মধ্যবিত্তর চোখে জল আসার জোগাড়। এই পরিস্থিতিতে খরিফের পেঁয়াজ বাজারে এলে ভালোই দাম পেতে পারেন চাষিরা। 
বিশদ

25th  September, 2019
আমন চাষে সুধা পদ্ধতিতে জোর 

প্রসেনজিৎ সরকার: সুধা পদ্ধতি বা সুনিশ্চিত ধান চাষ পদ্ধতির মাধ্যমে আমন চাষে উৎপাদন বৃদ্ধিতে জোর দিয়েছে কৃষিদপ্তর। কৃষিদপ্তর জানিয়েছে, প্রচলিত পদ্ধতির থেকে নতুন এই পদ্ধতিতে খরচও কিছুটা কম হয়। বীজতলায় বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে সুস্থ সবল ও শক্তিশালী চারা তৈরি করে ফলন বৃদ্ধি করা যায়।  
বিশদ

25th  September, 2019
চাহিদা বাড়ছে অর্কিডের, রপ্তানি হচ্ছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর থেকে 

অতিরিক্ত আলোয় অর্কিড রাখা যাবে না। এতে পাতা সাদা হয়ে যাবে। ঘরের টিউবের আলোই যথেষ্ট। বেডরুমে রাখলে জানলা খুলে রাখতে হবে। ফ্যালেনপসিস অর্কিডের বাইরে বেরনো শিকড়ের রং সবুজ হলে বুঝতে হবে গাছের সার, জল ও আলো সবই পর্যাপ্ত পরিমাণে আছে।
বিশদ

25th  September, 2019
সামান্য খরচে পেঁপে চাষে ভালো লাভ 

সংবাদদাতা: সামান্য খরচে পেঁপে চাষ করে ভালো লাভ করা সম্ভব। চাষিরা জমিতে এই চাষ করতে পারেন। আবার বাড়িতে সামান্য জায়গা থাকলেও পেঁপে গাছ লাগানো যেতে পারে। বাড়ির চাহিদা মিটিয়ে বাড়তি পেঁপে বাজারে বিক্রি করে আয় করা যাবে। চারা লাগানোর তিন-চার মাস পর থেকেই পেঁপে পাওয়া যায়। 
বিশদ

25th  September, 2019
বর্ষা কম, হাইব্রিড চাষে ভরসা রাখছে বারুইপুর  

সংবাদদাতা: এ বছর বর্ষা কম। তাই দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুর ব্লকের চাষিদের ভরসা বাড়ছে হাইব্রিড চাষের উপর। সম্প্রতি ব্লকের শঙ্করপুর ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতে হয়ে গেল চাষিদের নিয়ে কৃষি-প্রশাসনের মিটিং।  
বিশদ

25th  September, 2019
অর্কিড রপ্তানি করছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর 

নবজ্যোতি সরকার: অর্কিডের প্রতি মানুষের চাহিদা বেড়েই চলেছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিষ্ণুপুর ২ নম্বর ব্লকের বাখরাহাট, চক এনায়েতপুর এবং পারবেড়িয়া-জয়চণ্ডীপুরের প্রায় ১০০টি নার্সারিতে বিক্রি হচ্ছে লাকি বাম্বু, ক্যাটেলিয়া ও ফ্যালেনপসিস প্রজাতির অর্কিড। গোটা দেশে এইসব অর্কিড রপ্তানি হচ্ছে। বিদেশেও যাচ্ছে। লাকি বাম্বু ১৫০ টাকা। 
বিশদ

18th  September, 2019

Pages: 12345

একনজরে
 ইস্তানবুল, ৭ নভেম্বর (এএফপি): ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিগোষ্ঠীর অনেক ‘হাঁড়ির খবর’ ফাঁস করে দিয়েছে নিহত জঙ্গিনেতা আবু বকর আল বাগদাদির স্ত্রী রানিয়া মাহমুদ। এমনটাই দাবি ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল। ...

 বিএনএ, বারাকপুর: বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের গড় ভাটপাড়া পুরসভার আরও পাঁচ বিজেপি কাউন্সিলার তৃণমূলের দিকে পা বাড়িয়ে রাখলেন। তাঁরা যে কোনও দিন ঘরে ফিরতে পারেন ...

নিজস্ব প্রতিনিধি,কলকাতা: আগামী ২২ থেকে ২৬ নভেম্বর কলকাতায় হবে টাটা স্টিল র‌্যাপিড - ব্লিৎজ টুর্নামেন্ট। এই প্রতিযোগিতায় বিশ্বের প্রথম ১৫ জন গ্র্যান্ডমাস্টারের মধ্যে দশজন যোগ ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসা সূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। বিদ্যায় মানসিক চঞ্চলতা বাধার কারণ হতে পারে। গুরুজনদের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৬২- সঙ্গীত জগতের কিংবদন্তি পুরুষ ওস্তাদ আলাউদিন খাঁর জন্ম।
১৮৯৫- জার্মান পর্দাথবিদ উইলিয়াম কনরাড রঞ্জন এক্স রে আবিষ্কার করেন।
১৯১০ - ওয়াশিংটনের নির্বাচনে প্রথম কোনও মহিলা ভোট দেন।
১৯২৭- রাজনীতিক লালকৃষ্ণ আদবানির জন্ম
১৯৩৬ - প্রখ্যাত হিন্দী কথাসাহিত্যিক মুনশি প্রেমচাঁদের মৃত্যু
১৯৪৭ – সঙ্গীতশিল্পী ঊষা উত্থুপের জন্ম
১৯৭৬ - ক্রিকেটার ব্রেট লি’র জন্ম
২০১৭ – ভারতে ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিল হয়





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৪৮ টাকা ৭২.৬৪ টাকা
পাউন্ড ৮৯.১২ টাকা ৯৩.৪৫ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৪ টাকা ৮০.৪৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৮২৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৮৩৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৩৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৭৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,৮৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২১ কার্তিক ১৪২৬, ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ১৬/৩০ দিবা ১২/২৫। পূর্বভাদ্রপদ ১৫/৫৯ দিবা ১২/১২। সূ উ ৫/৪৮/২৭, অ ৪/৫২/২১, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে পুনঃ ৭/১৭ গতে ৯/৩০ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ২/৩৯ মধ্যে পুনঃ ৩/২৩ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৪৪ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৬ গতে ৩/১৩ মধ্যে পুনঃ ৪/৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৩৫ গতে ১১/২১ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৬ গতে ৯/৪৩ মধ্যে। 
২১ কার্তিক ১৪২৬, ৮ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ১৫/৫৮/১৯ দিবা ১২/১২/৪৩। পূর্বভাদ্রপদ ১৭/৫৮/২৫ দিবা ১/০/৪৫, সূ উ ৫/৪৯/২৩, অ ৪/৫৩/১৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৪ মধ্যে ও ৭/২৭ গতে ৯/৩৬ মধ্যে ও ১১/৪৫ গতে ২/৩৭ মধ্যে ও ৩/২০ গতে ৪/৫৩ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৩৯ গতে ৯/১১ মধ্যে ও ১১/৫০ গতে ৩/২২ মধ্যে ও ৪/১৫ গতে ৫/৫০ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩৫/২১ গতে ৯/৫৮/২০ মধ্যে, কালবেলা ৯/৫৮/২০ গতে ১১/২১/১৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৭/১৬ গতে ৯/৪৪/১৭ মধ্যে। 
১০ রবিয়ল আউয়ল 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আগামীকাল অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণা করবে সুপ্রিম কোর্ট

09:17:50 PM

এবার হকি বিশ্বকাপ ভারতে
২০২৩ সালে পুরুষদের এফআইএইচ হকি বিশ্বকাপ আয়োজন করবে ভারত। ...বিশদ

05:08:38 PM

পদত্যাগ করলেন মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী
 মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে ইস্তফা দিলেন দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। সরকার গড়ার ...বিশদ

05:01:39 PM

আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন হল এবছরের আন্তর্জাতিক কলকাতা ফিল্ম উৎসবের

05:01:00 PM

বর্ধমান স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে জখম বহু
বর্ধমান স্টেশনে ৪ ও ৫ নম্বর প্লাটফর্মের মাঝে ফুটওভারব্রিজে ওঠানামা ...বিশদ

04:54:00 PM

গান্ধী পরিবারের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন্দ্রের: সূত্র 

03:53:10 PM