Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম চাষে ঝোঁক বাড়ছে 

ব্রতীন দাস: পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম। বাজারে ভালো দাম মেলায় চাষে ঝোঁক বাড়ছে কৃষকদের। সেপ্টেম্বর থেকে চাষ শুরু করতে হয়। তিনমাসেই ফলন পাওয়া যায়। গাছ বাঁচিয়ে রাখতে পারলে মে মাস পর্যন্ত ফলন পাওয়া সম্ভব। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে গোটা মরশুমে প্রতিটি গাছ থেকে গড়ে ১৫ কেজি করে ফলন পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা। লাল, হলুদ, সবুজ, কমলা, সাদা, বেগুনি নানা রঙের হয়ে থাকে ক্যাপসিকাম। ভিটামিন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। সারাবছরই বাজারে চাহিদা থাকে। অনুষ্ঠানের মরশুমে এর দাম বাড়ে। এ রাজ্যে মূলত শীতকালীন ফসল হিসেবে ক্যাপসিকাম চাষ করা হয়ে থাকে। খোলা জমিতে চাষ করলে জানুয়ারি পর্যন্ত করা যায়। কিন্তু, পলিহাউসে তাপমাত্রা ও আর্দ্রতা নিয়ন্ত্রিত থাকে বলে আরও তিনমাস বেশি ফলন পাওয়া যায়। উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ৫০০ বর্গমিটার পলিহাউসে মাটির বেড তৈরি করে গড়ে এক হাজার চারা লাগানো যায়। প্লাস্টিকের ট্রে-তে মাটি ও জৈবসার মিশিয়ে তাতে বীজ বুনে চারা তৈরি করা যেতে পারে। প্রতি কেজি বীজে ৩ গ্রাম থাইরাম দিয়ে বীজ শোধন করতে হবে। গোবরসার ও ভার্মি কম্পোস্ট মিশিয়ে মাটি ভালো করে চেলে নিয়ে তার সঙ্গে ট্রাইকোডার্মা ভিরিডি যোগ করে মাটি শোধন করা যেতে পারে।
ক্যাপসিকামের বীজ মাটির ২ সেমি গভীরে পুঁতে উপরে ঝুরো মাটি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। তার পর হাল্কা জল স্প্রে করে খড় দিয়ে ঢেকে দিতে পারলে ভালো। এক সপ্তাহ পর চারা বেরতে দেখা যাবে। চারা বেরনোর পর খড় সরিয়ে মশারি দিয়ে ঢেকে দিতে পারলে ভালো। চারার গোড়া যাতে পচে না যায়, সেজন্য ব্যাভিস্টিন বা ডাইথেন ব্যাভিস্টিন মিশ্রণ ১ গ্রাম প্রতি লিটার জলে মিশিয়ে গাছে স্প্রে করতে হবে। চারার বয়স ১৬ দিন হলে ইমিডাক্লোপ্রিড ১ মিলি প্রতি লিটার জলে মিশিয়ে আঠা সহযোগে স্প্রে করতে হবে। এতে সাদামাছির আক্রমণ ঠেকানো যায়। ফলে ভাইরাসঘটিত পাতা কোঁকড়ানো রোগের আশঙ্কা কমে। ক্যাপসিকামের এটিই অন্যতম রোগ। এই রোগে গাছের পাতা লঙ্কার মতো কুঁকড়ে যায়। সাদা মাছি ওই ভাইরাসের বাহক। একবার এই রোগের আক্রমণ হলে তখন আর কিছু করার থাকে না। ফলে আগে থেকে ব্যবস্থা নিতে হবে।
বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দীপক ঘোষ জানিয়েছেন, তাঁরা ক্যাপসিকামের বিভিন্ন জাতের মধ্যে সংকরায়ণ ঘটাচ্ছেন। এতে ক্যাপসিকামের রং ও আকার আরও ভালো হচ্ছে। বাগান বিলাসিরা টবেও ক্যাপসিকাম ফলাতে পারেন। তবে সাদামাছির আক্রমণ রুখতে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে হবে। ক্যাপসিকামের চারার বয়স ১৫ দিন হলে অ্যামোনিয়াম ফসফেট ৩ গ্রাম প্রতি লিটার জলে গুলে স্প্রে করতে পারলে শিকড় ও গাছের স্বাস্থ্য ভালো হয়। একমাস বয়সের চারা ৩-৪টি পাতা হলে তখন ওই চারা মূল জমিতে বসানো উচিত। হলুদ রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাতগুলি হল, অ্যাঞ্জেল, গোল্ডেন ইয়েলো, অর্কা গৌরব, ইয়েলো ওয়ান্ডার। লাল রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাত, অদিতি, আশা, ক্যালিফোর্নিয়া ওয়ান্ডার। কমলা রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাত, কালার-৮, আইএসপি-৭। বেগুনি রঙের ক্যাপসিকামের জাত নিকিতা। কালো রঙের ক্যাপসিকামের জাত স্পিনাজ। সাদা রঙের ক্যাপসিকামের জাত কালার-৬, কালার-৭।
পলিহাউসে প্রথমে বেড তৈরি করতে হবে। বেডে মাটি ফরমালিন দিয়ে শোধন করে নেওয়া উচিত। ১ লিটার জলে ৪০ মিলি ফরমালিন মেশাতে হবে। মাটি শোধনের পর পলিথিন দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মাটি থেকে ১৫ সেমি উঁচু হতে হবে বেড। চওড়া হবে ১০০ সেমি। প্রয়োজনমতো বেড লম্বা করা যেতে পারে। একটি বেড থেকে অন্য বেডের দূরত্ব হবে ৪৫ সেমি। একই বেডে দু’টি গাছের মধ্যে দূরত্ব হবে ৫০ সেমি। ড্রিপ ইরিগেশনের ব্যবস্থা থাকলে ভালো। চারা বসানোর সময় সামান্য ঠাণ্ডার প্রয়োজন। চারা লাগানোর সময় গাছ প্রতি ১০ গ্রাম ইউরিয়া, ২৫ গ্রাম সিঙ্গল সুপার ফসফেট ও ২০ গ্রাম মিউরিয়েট অফ পটাশ দিতে হবে।
একমাস পর একইমাত্রায় প্রথম চাপান দিতে হবে। ৮০ দিন পর গাছ প্রতি ১০ গ্রাম ইউরিয়া দিতে হবে দ্বিতীয় চাপান হিসেবে। চারার গোড়ার দিকের কিছু পাতা ফেলে দিতে হবে। প্লানোফিক্স প্রয়োগে গাছে প্রচুর ফুল আসে এবং ফল ধরতে সাহায্য করে। ফুল ঝরা ঠেকাতে দু’সপ্তাহ অন্তর দু’বার ২৫ পিপিএম জিএ বা ৫০ পিপিএম এনএএ হরমোন প্রয়োগ করা যেতে পারে। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে একটি ক্যাপসিকামের ওজন ৩৫০ গ্রাম হতে পারে। খোলা জমিতে বিঘা প্রতি ১০-১২ কুইন্টাল ফলন পাওয়া যায়।
কিন্তু, পলিহাউসে বিঘায় প্রায় ৩০ কুইন্টাল ফলন মিলতে পারে। চারা রোপণের পর ল্যাদাপোকার আক্রমণ হতে পারে। এই পোকা গাছের পাতা খেয়ে নেয়। কেরোসিন মেশানো ছাই গাছের গোড়ায় দিতে হবে। কার্বারিল ২ গ্রাম, প্রতি লিটার জলে গুলে স্প্রে করলে সুফল মিলবে। সাদামাছির আক্রমণ রুখতে চারা রোপণের তিন দিন আগে ইমিডাক্লোপ্রিড ১ মিলি, ৩ লিটার জলে গুলে স্প্রে করতে হবে। রোপণের ১০ দিন পর ১ মিলি ইমিডাক্লোপ্রিড, ১ লিটার জলে গুলে বা ১ মিলি ফিপ্রোনিল ১ লিটার জলে গুলে স্প্রে করা যেতে পারে। আঠা লাগানো রঙিন বোর্ড পলিহাউসে ঝুলিয়ে রাখলে জাবপোকা বা সাদামাছির আক্রমণ অনেকটা রোধ করা যায়।  

18th  September, 2019
কাটোয়ায় ১৪০ হেক্টর আলু জমি নাবি ধসা রোগে আক্রান্ত 

সংবাদদাতা, কাটোয়া: আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনার জন্য কাটোয়ায় এবার ১৪০ হেক্টর আলু চাষের জমি নাবি ধসা রোগে আক্রান্ত হয়েছে। সম্প্রতি মহকুমা কৃষি দপ্তর এনিয়ে জেলা প্রশাসনের কাছে রিপোর্ট পাঠিয়েছে। মহকুমাজুড়ে ধসা রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় চাষিদের মাথায় হাত পড়েছে।  বিশদ

20th  February, 2020
বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথ 

নবজ্যোতি সরকার: বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথের আক্রমণে ফলন কমতে পারে। বাঁধাকপি ছাড়াও ফুলকপি, ব্রোকলি, চিনা বাঁধাকপি, লাল বাঁধাকপিতে এর আক্রমণ হতে পারে। এরা বাঁধাকপির পাতার উল্টো দিকে সাদা ও হলদে রঙের ডিম পাড়ে। ওই সব ডিম থেকে কয়েকদিনেই ল্যাদা পোকা বেরিয়ে আসে। 
বিশদ

19th  February, 2020
ফসল রক্ষায় ঠেকাতে হবে ইঁদুরের আক্রমণ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: ফসল উৎপাদনের পর চাষিরা উৎপাদিত ফসল বস্তায়, বড় ড্রাম অথবা খড়ের বেড়িতে গুদামজাত করেন। কিন্তু ইঁদুরের আক্রমণে প্রায় ১০-১৫ শতাংশ ফসল নষ্ট হয়ে যায়। ফলে চাষিদের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়।
বিশদ

19th  February, 2020
পুরনো আম-কাঁঠাল গাছে ফল ঝরে পড়া রুখতে পরিচর্যা জরুরি 

সংবাদদাতা: ঠাণ্ডা প্রায় যেতে বসেছে। আম ও কাঁঠাল গাছে মুকুল আসছে। এমনিতেই কুয়াশা ও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে এবার মুকুল ধরতে দেরি হয়েছে। ফলে ভালো ফলন পেতে এই দুটি গাছে এখন পরিচর্যা জরুরি। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলা ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বাণিজ্যিকভাবে আমচাষ হয়। 
বিশদ

19th  February, 2020
খেয়ালি আবহাওয়ায় আলুতে ধসা রুখতে মাঠে কৃষি কর্তারা 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: হুগলি জেলায় আলু চাষে ধসা রোগের হাত থেকে চাষিদের রক্ষা করতে সরাসরি মাঠে নামলেন কৃষি আধিকারিকরা। খামখেয়ালি আবহাওয়ার জন্য আলুচাষিরা চিন্তিত। গত তিনমাসে একাধিকবার অকাল বৃষ্টিতে রবি মরশুমের প্রধান অর্থকরী ফসল আলু চাষে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়েছে। 
বিশদ

19th  February, 2020
পুরনো আম-কাঁঠাল গাছে ফল ঝরে পড়া রুখতে পরিচর্যা জরুরি 

সংবাদদাতা: ঠাণ্ডা প্রায় যেতে বসেছে। আম ও কাঁঠাল গাছে মুকুল আসছে। এমনিতেই কুয়াশা ও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে এবার মুকুল ধরতে দেরি হয়েছে। ফলে ভালো ফলন পেতে এই দুটি গাছে এখন পরিচর্যা জরুরি। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলা ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বাণিজ্যিকভাবে আমচাষ হয়। 
বিশদ

19th  February, 2020
কম খরচে মুড়ি আখ চাষে লাভ বেশি 

সংবাদদাতা : কম খরচে বেশি লাভ পেতে চাষিরা মুড়ি আখ চাষে আগ্রহী হলে ভালো লাভ পাবেন। মুড়ি আখ লাগানোর উপযুক্ত সময় মাঘ-ফাল্গুন মাসের মাঝামাঝি। মুড়ি আখ চাষ হল, আগের বছরের আখ কেটে ফেলার পর, সেই আখের গোড়া বা মুড়ি থেকে নতুন ফসল নেওয়া। 
বিশদ

19th  February, 2020
মিষ্টি জল খরচ করে বোরো ধান চাষ বিলাসিতা: কৃষি অধিকর্তা 

নিজস্ব প্রতিনিধি: মিষ্টি জল খরচ করে বোরো ধান চাষ করা বিলাসিতা। সেকারণেই রাজ্য কৃষি দপ্তর চাইছে না, মিষ্টি জল নষ্ট করে বেশি এলাকায় বোরো ধান চাষ হোক। এমনই মন্তব্য রাজ্য কৃষি অধিকর্তা সম্পদরঞ্জন পাত্রর। 
বিশদ

19th  February, 2020
লম্বা শীতের কারণে এবার আমের মুকুল দেরিতে, পরিচর্যা জরুরি 

নিজস্ব প্রতিনিধি: লম্বা শীতের কারণে এবার আমের মুকুল দেরিতে। তার উপর অকাল বৃষ্টির জন্য মুকুলের পরিবর্তে অনেক আমগাছে কচিপাতা বেরিয়ে গিয়েছে। উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কড়া শীতের পর গরম পড়ার সময়েই আম গাছে মুকুল আসে। সেই হিসেবে এখন যে আবহাওয়া চলছে, আমে মুকুল আসার জন্য একেবারে আদর্শ।  
বিশদ

19th  February, 2020
কম পুঁজিতে মাশরুম উৎপাদন 

নিজস্ব প্রতিনিধি: কম পুঁজিতে মাশরুম চাষ করে অল্প সময়ে বেশি লাভ ঘরে তোলা সম্ভব। বাড়িতে পরিত্যক্ত একটি ঘর থাকলে সেখানেই মাশরুম উৎপাদন করা যেতে পারে। মাশরুম চাষের প্রসার ঘটাতে জেলায় জেলায় কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রগুলি এগিয়ে এসেছে। উন্নতমানের স্পন উৎপাদন করে আগ্রহীদের হাতে তুলে দিচ্ছে তারা। 
বিশদ

19th  February, 2020
মালদহে আমে মুকুল আসছে,
এখন জোর দিতে হবে পরিচর্যায় 

সিদ্ধার্থশঙ্কর সরকার, পুরাতন মালদহ: মালদহে গরমের অন্যতম ফল আম। মালদহ জেলার আম শুধু জেলাই নয়, গোটা বিশ্বে তার কদর রয়েছে। জেলার আম বিশ্বের দরবারে যে খ্যাতি লাভ করেছে, তা চাষির আগ্রহ বাড়িয়েছে।  বিশদ

12th  February, 2020
লাভ ৯ গুণ, হরিশ্চন্দ্রপুরের কৃষকরা ঝুঁকছেন মিশ্র চাষে 

উমার ফারুক, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে বেশি মুনাফা লাভের আশায় মিশ্র চাষের দিকে ঝুঁকছেন চাষিরা। ব্লক কৃষি দপ্তরের আতমা প্রকল্পের মাধ্যমে ধানের জমিতে মাছ ও সব্জি চাষ করা হচ্ছে।  বিশদ

12th  February, 2020
শিলিগুড়ি ও জলপাইগুড়িতে তৈরি হচ্ছে আলুর বীজ 

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: এবছরও জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়ি মহকুমায় ফার্মার্স ক্লাবের মাধ্যমে বেশকিছু নতুন ধরনের উন্নত জাতের আলুর বীজ চাষ হচ্ছে। এবারে কুফরি সিন্দুরি, কুফরি চন্দ্রমুখী, কুফরি হিমালিনী ও কুফরি জ্যোতি জাতের আলুর বীজ তৈরি হচ্ছে।  বিশদ

12th  February, 2020
ময়নাগুড়ি, ধূপগুড়িতে এবার
ভালো লাভের আশায় আলু চাষিরা 

সোমনাথ চক্রবর্তী, ময়নাগুড়ি: চলতি মরশুমে আলুচাষে লাভের আশায় জলপাইগুড়ি জেলার ধূপগুড়ি ও ময়নাগুড়ি ব্লকের আলুচাষিরা। এবছর এই দুই ব্লকেই আলুর ফলন ভালো হয়েছে।  বিশদ

12th  February, 2020

Pages: 12345

একনজরে
ওয়েলিংটন, ২৩ ফেব্রুয়ারি: বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে প্রথমবার পরাজয়ের রক্তচক্ষু দেখছে ভারত। বড় কোনও অঘটন না ঘটলে বেসিন রিজার্ভে প্রথম টেস্ট জিতে সিরিজে ১-০ ব্যবধানে কিউয়িদের ...

সংবাদদাতা, ঘাটাল: দাসপুর থানার ভগবতীপুরে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এক যুবককে খুন করার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়। পুলিস জানিয়েছে, মৃতের নাম সঞ্জয় বর(২৫)।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশে ‘স্বাস্থ্যসাথী’ নিয়ে বিশেষ অভিযানে নামছে কলকাতা পুরসভা। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী মঙ্গলবার থেকেই বরোভিত্তিক ক্যাম্প করে শহরের গরিব, দুঃস্থ, অসংগঠিত ক্ষেত্রের শ্রমিকদের এই প্রকল্পের আওতায় নিয়ে আসার কাজ শুরু হবে।  ...

নয়াদিল্লি ও গোয়া, ২৩ ফেব্রুয়ারি: ফের দুর্ঘটনায় পড়ল মিগ যুদ্ধবিমান। গোয়ায় রবিবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ প্রশিক্ষণ চলাকালীন ভেঙে পড়ল ভারতীয় নৌসেনার একটি মিগ-২৯ কে বিমান। তবে দুর্ঘটনাগ্রস্ত বিমানের চালক নিরাপদে বেরিয়ে আসতে পেরেছেন। ঘটনা নিয়ে তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসায় বাড়তি বিনিয়োগ প্রত্যাশিত সাফল্য নাও দিতে পারে। কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতি। শ্বাসকষ্ট ও বক্ষপীড়ায় শারীরিক ক্লেশ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৪৮ তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার জন্মদিন
১৯৫২ - ভাষা আন্দোলনের স্মরণে ঢাকায় প্রথম শহীদ মিনার নির্মিত হয়। কয়েক দিন পরেই এটি পুলিস ধ্বংস করে দেয়।
১৯৫৫ – অ্যাপল সংস্থার অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবসের জন্ম
১৯৫৯ কংগ্রেস নেতা অভিষেক মনু সিংভির জন্মদিন
১৯৬৩ চিত্র পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালির জন্মদিন
১৯৭২ অভিনেত্রী পূজা ভাটের জন্মদিন
১৯৮২ - আর্জেন্টাইন ফুটবলার ইমানুয়েল ভিলার জন্ম
১৯৮৩ দাবারু সূর্যশেখর গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্মদিন
১৯৯৩ - ইংরেজ ফুটবলার ববি মুরের মৃত্যু
১৯৯৮ অভিনেত্রী ললিতা পাওয়ারের মৃত্যুদিন
২০১১ কমিক্স বইয়ের জনক অনন্ত পাইয়ের মৃত্যুদিন
২০১৮-দুবাইয়ের হোটেলে মৃত্যু অভিনেত্রী শ্রীদেবীর





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৯৪ টাকা ৭২.৬৫ টাকা
পাউন্ড ৯০.৯৮ টাকা ৯৪.৩০ টাকা
ইউরো ৭৬.০৫ টাকা ৭৯.০১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
21st  February, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,১৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪০,৯৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৫৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৮,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৮,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
23rd  February, 2020

দিন পঞ্জিকা

১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) প্রতিপদ ৪২/৫২ রাত্রি ১১/১৫। শতভিষা ২৫/৩৫ অপঃ ৪/২১। সূ উ ৬/৬/৩৯, অ ৫/৩৩/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৮ মধ্যে পুনঃ১০/৪২ গতে ১২/৫৮ মধ্যে। রাত্রি ৬/২৩ গতে ৮/৫৪ মধ্যে পুনঃ ১১/২৫ গতে ২/৪৬ মধ্যে। বারবেলা ৭/৩২ গতে ৮/৫৮ মধ্যে পুনঃ ২/৪২ গতে ৪/৭ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১৫ গতে ১১/৫০ মধ্যে। 
১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার, প্রতিপদ ৩৯/১১/১ রাত্রি ৯/৫০/৮। শতভিষা ২৩/১০/৫০ দিবা ৩/২৬/৪। সূ উ ৬/৯/৪৪, অ ৫/৩২/৩২। অমৃতযোগ দিবা ৭/২৬ মধ্যে ও ১০/৩৫ গতে ১২/৫৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৮ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১১/২১ গতে ২/৩৬ মধ্যে। কালবেলা ৭/৩৫/৫ গতে ৯/০/২৬ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১৬/২৯ গতে ১১/৫১/৮ মধ্যে। 
 ২৯ জমাদিয়স সানি

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
তাজমহলে পৌঁছলেন সস্ত্রীক ডোনাল্ড ট্রাম্প 

05:10:56 PM

সিএএ নিয়ে বিক্ষোভের জেরে রণক্ষেত্র দিল্লির জাফরাবাদ, গোলাগুলিতে নিহত এক পুলিস কর্মী 

04:43:21 PM

আগ্রার বায়ুসেনা ঘাঁটিতে পৌঁছলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প 

04:29:00 PM

আমেদাবাদ থেকে আগ্রার উদ্দেশে রওনা দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প

03:32:00 PM

৮২৪ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

03:29:18 PM

মাধ্যমিক পরীক্ষা চলাকালীন অসুস্থ পরীক্ষার্থী, ভর্তি হাসপাতালে
মাধ্যমিক পরীক্ষা চলছে জলপাইগুড়ির বেলাকোবা গার্লস হাইস্কুলে অসুস্থ হয়ে পড়ল ...বিশদ

03:19:58 PM