Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম চাষে ঝোঁক বাড়ছে 

ব্রতীন দাস: পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম। বাজারে ভালো দাম মেলায় চাষে ঝোঁক বাড়ছে কৃষকদের। সেপ্টেম্বর থেকে চাষ শুরু করতে হয়। তিনমাসেই ফলন পাওয়া যায়। গাছ বাঁচিয়ে রাখতে পারলে মে মাস পর্যন্ত ফলন পাওয়া সম্ভব। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে গোটা মরশুমে প্রতিটি গাছ থেকে গড়ে ১৫ কেজি করে ফলন পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা। লাল, হলুদ, সবুজ, কমলা, সাদা, বেগুনি নানা রঙের হয়ে থাকে ক্যাপসিকাম। ভিটামিন ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ। সারাবছরই বাজারে চাহিদা থাকে। অনুষ্ঠানের মরশুমে এর দাম বাড়ে। এ রাজ্যে মূলত শীতকালীন ফসল হিসেবে ক্যাপসিকাম চাষ করা হয়ে থাকে। খোলা জমিতে চাষ করলে জানুয়ারি পর্যন্ত করা যায়। কিন্তু, পলিহাউসে তাপমাত্রা ও আর্দ্রতা নিয়ন্ত্রিত থাকে বলে আরও তিনমাস বেশি ফলন পাওয়া যায়। উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ৫০০ বর্গমিটার পলিহাউসে মাটির বেড তৈরি করে গড়ে এক হাজার চারা লাগানো যায়। প্লাস্টিকের ট্রে-তে মাটি ও জৈবসার মিশিয়ে তাতে বীজ বুনে চারা তৈরি করা যেতে পারে। প্রতি কেজি বীজে ৩ গ্রাম থাইরাম দিয়ে বীজ শোধন করতে হবে। গোবরসার ও ভার্মি কম্পোস্ট মিশিয়ে মাটি ভালো করে চেলে নিয়ে তার সঙ্গে ট্রাইকোডার্মা ভিরিডি যোগ করে মাটি শোধন করা যেতে পারে।
ক্যাপসিকামের বীজ মাটির ২ সেমি গভীরে পুঁতে উপরে ঝুরো মাটি দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। তার পর হাল্কা জল স্প্রে করে খড় দিয়ে ঢেকে দিতে পারলে ভালো। এক সপ্তাহ পর চারা বেরতে দেখা যাবে। চারা বেরনোর পর খড় সরিয়ে মশারি দিয়ে ঢেকে দিতে পারলে ভালো। চারার গোড়া যাতে পচে না যায়, সেজন্য ব্যাভিস্টিন বা ডাইথেন ব্যাভিস্টিন মিশ্রণ ১ গ্রাম প্রতি লিটার জলে মিশিয়ে গাছে স্প্রে করতে হবে। চারার বয়স ১৬ দিন হলে ইমিডাক্লোপ্রিড ১ মিলি প্রতি লিটার জলে মিশিয়ে আঠা সহযোগে স্প্রে করতে হবে। এতে সাদামাছির আক্রমণ ঠেকানো যায়। ফলে ভাইরাসঘটিত পাতা কোঁকড়ানো রোগের আশঙ্কা কমে। ক্যাপসিকামের এটিই অন্যতম রোগ। এই রোগে গাছের পাতা লঙ্কার মতো কুঁকড়ে যায়। সাদা মাছি ওই ভাইরাসের বাহক। একবার এই রোগের আক্রমণ হলে তখন আর কিছু করার থাকে না। ফলে আগে থেকে ব্যবস্থা নিতে হবে।
বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক দীপক ঘোষ জানিয়েছেন, তাঁরা ক্যাপসিকামের বিভিন্ন জাতের মধ্যে সংকরায়ণ ঘটাচ্ছেন। এতে ক্যাপসিকামের রং ও আকার আরও ভালো হচ্ছে। বাগান বিলাসিরা টবেও ক্যাপসিকাম ফলাতে পারেন। তবে সাদামাছির আক্রমণ রুখতে বিশেষ ব্যবস্থা নিতে হবে। ক্যাপসিকামের চারার বয়স ১৫ দিন হলে অ্যামোনিয়াম ফসফেট ৩ গ্রাম প্রতি লিটার জলে গুলে স্প্রে করতে পারলে শিকড় ও গাছের স্বাস্থ্য ভালো হয়। একমাস বয়সের চারা ৩-৪টি পাতা হলে তখন ওই চারা মূল জমিতে বসানো উচিত। হলুদ রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাতগুলি হল, অ্যাঞ্জেল, গোল্ডেন ইয়েলো, অর্কা গৌরব, ইয়েলো ওয়ান্ডার। লাল রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাত, অদিতি, আশা, ক্যালিফোর্নিয়া ওয়ান্ডার। কমলা রঙের ক্যাপসিকামের উন্নত জাত, কালার-৮, আইএসপি-৭। বেগুনি রঙের ক্যাপসিকামের জাত নিকিতা। কালো রঙের ক্যাপসিকামের জাত স্পিনাজ। সাদা রঙের ক্যাপসিকামের জাত কালার-৬, কালার-৭।
পলিহাউসে প্রথমে বেড তৈরি করতে হবে। বেডে মাটি ফরমালিন দিয়ে শোধন করে নেওয়া উচিত। ১ লিটার জলে ৪০ মিলি ফরমালিন মেশাতে হবে। মাটি শোধনের পর পলিথিন দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। মাটি থেকে ১৫ সেমি উঁচু হতে হবে বেড। চওড়া হবে ১০০ সেমি। প্রয়োজনমতো বেড লম্বা করা যেতে পারে। একটি বেড থেকে অন্য বেডের দূরত্ব হবে ৪৫ সেমি। একই বেডে দু’টি গাছের মধ্যে দূরত্ব হবে ৫০ সেমি। ড্রিপ ইরিগেশনের ব্যবস্থা থাকলে ভালো। চারা বসানোর সময় সামান্য ঠাণ্ডার প্রয়োজন। চারা লাগানোর সময় গাছ প্রতি ১০ গ্রাম ইউরিয়া, ২৫ গ্রাম সিঙ্গল সুপার ফসফেট ও ২০ গ্রাম মিউরিয়েট অফ পটাশ দিতে হবে।
একমাস পর একইমাত্রায় প্রথম চাপান দিতে হবে। ৮০ দিন পর গাছ প্রতি ১০ গ্রাম ইউরিয়া দিতে হবে দ্বিতীয় চাপান হিসেবে। চারার গোড়ার দিকের কিছু পাতা ফেলে দিতে হবে। প্লানোফিক্স প্রয়োগে গাছে প্রচুর ফুল আসে এবং ফল ধরতে সাহায্য করে। ফুল ঝরা ঠেকাতে দু’সপ্তাহ অন্তর দু’বার ২৫ পিপিএম জিএ বা ৫০ পিপিএম এনএএ হরমোন প্রয়োগ করা যেতে পারে। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে একটি ক্যাপসিকামের ওজন ৩৫০ গ্রাম হতে পারে। খোলা জমিতে বিঘা প্রতি ১০-১২ কুইন্টাল ফলন পাওয়া যায়।
কিন্তু, পলিহাউসে বিঘায় প্রায় ৩০ কুইন্টাল ফলন মিলতে পারে। চারা রোপণের পর ল্যাদাপোকার আক্রমণ হতে পারে। এই পোকা গাছের পাতা খেয়ে নেয়। কেরোসিন মেশানো ছাই গাছের গোড়ায় দিতে হবে। কার্বারিল ২ গ্রাম, প্রতি লিটার জলে গুলে স্প্রে করলে সুফল মিলবে। সাদামাছির আক্রমণ রুখতে চারা রোপণের তিন দিন আগে ইমিডাক্লোপ্রিড ১ মিলি, ৩ লিটার জলে গুলে স্প্রে করতে হবে। রোপণের ১০ দিন পর ১ মিলি ইমিডাক্লোপ্রিড, ১ লিটার জলে গুলে বা ১ মিলি ফিপ্রোনিল ১ লিটার জলে গুলে স্প্রে করা যেতে পারে। আঠা লাগানো রঙিন বোর্ড পলিহাউসে ঝুলিয়ে রাখলে জাবপোকা বা সাদামাছির আক্রমণ অনেকটা রোধ করা যায়।  

18th  September, 2019
তুফানগঞ্জে কৃষকদের পেঁয়াজ চাষে উৎসাহিত করছেন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ 

সংবাদদাতা, কুমারগ্রাম: উত্তরবঙ্গ উন্নয়নমন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ তুফানগঞ্জের কৃষকদের পেঁয়াজ চাষ শুরু করতে উৎসাহিত করছেন। তুফানগঞ্জ মহকুমার বিভিন্ন ব্লকে গিয়ে কৃষক বন্ধু চেক বিলি করার সময় মন্ত্রী কৃষকদের পেঁয়াজ চাষ করার কথা বলছেন।  
বিশদ

24th  January, 2020
নিয়ম মেনে আখ চাষে লাভ মিলবে ভালোই 

আখ বসানোর দু’সপ্তাহ পর গোড়ার মাটি আলগা করে দিতে হবে। আখ গাছ বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জমিতে আগাছার পরিমাণ বাড়ে। ২-৩ বার নিড়ানি দিয়ে জমি আগাছামুক্ত করতে হবে। জমি থেকে অতিরিক্ত জল বের করে দেওয়া দরকার।
বিশদ

22nd  January, 2020
গড়বেতায় বিঘার পর বিঘা আলুর জমি নাবিধসায় আক্রান্ত, ক্ষতির মুখে চাষিরা 

হরিহর ঘোষাল, চন্দ্রকোণা রোড: পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা-৩ ব্লকে বিঘার পর বিঘা আলু জমি নাবিধসায় আক্রান্ত হয়েছে। ব্যাঙ্ক, সমবায় থেকে লোন নিয়ে চাষ করে চাষিদের এখন সর্বস্বান্ত অবস্থা। কারণ, ধসা আক্রান্ত জমি থেকে কতটা ফলন হবে, তা নিয়ে চাষিরা আশঙ্কায় রয়েছেন। অনেক চাষি আবার মহাজনের সাহায্য নিয়ে চাষ করছেন।  
বিশদ

22nd  January, 2020
হরিশ্চন্দ্রপুরের চাষিদের ড্রাগন ফ্রুট চাষে উৎসাহ দিচ্ছে কৃষিদপ্তর 

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে ড্রাগন ফ্রুট চাষ করতে উৎসাহিত হয়েছেন চাষিরা। দক্ষিণ আমেরিকার জনপ্রিয় ও পুষ্টিকর এই ফলের চাষ শুরু হয়েছে জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ব্লকে। পুষ্টিগুণে ভরপুর এই ড্রাগন ফ্রুট দেখতেও ভারি চমৎকার ।  
বিশদ

22nd  January, 2020
বোরো ধানে সেচের জল নিয়ে চিন্তায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বহু চাষি 

সংবাদদাতা: বোরো ধান চাষে সেচের জল মিলবে কোথা থেকে? সেই চিন্তা শুরু হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকার চাষিদের। জেলার ডায়মন্ডহারবার ১ ও ২, মগরাহাট ১ও ২, ফলতা, জয়নগর ১ ও ২, বারুইপুর, মন্দিরবাজার ও কুলপি ব্লকে ভূগর্ভের অনেকটা নীচে রয়েছে জলস্তর। 
বিশদ

22nd  January, 2020
আর্সেনিক প্রতিরোধী ‘মুক্তশ্রী’ ধান আশা জাগাচ্ছে কৃষকদের 

নবজ্যোতি সরকার : মুক্তশ্রী হল আর্সেনিক সহনশীল, উচ্চ ফলনশীল, সরু, সুগন্ধী ধান। এই ধান খরা, অতি বৃষ্টি সহ্য করতে পারে। যেভাবে রাজ্যজুড়ে ধান চাষে ভূগর্ভস্থ জলের ব্যবহার বেড়েছে তাতে বাংলার যেকোনও ব্লক যেকোনও দিন আর্সেনিক প্রবণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। 
বিশদ

22nd  January, 2020
রামপুরহাটে আলুচাষে ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা 

বলরাম দত্তবণিক  রামপুরহাট: সাম্প্রতিক বৃষ্টি ও কুয়াশার জন্য আলুতে দেখা দিয়েছে নাবিধসা রোগ। মাঝে কয়েকদিন আবহাওয়ার উন্নতি হলেও গত রবিবার সকালে রামপুরহাট মহকুমায় ফের বৃষ্টি হয়। যার জেরে আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 
বিশদ

22nd  January, 2020
ধান খেতে নাড়া পোড়ানোয় মাটির ক্ষতি 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: ধান খেতে খড় বা নাড়া না পুড়িয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে পরবর্তী ফসল লাভজনক হিসেবে ঘরে তোলা যায়। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের বক্তব্য, অনেক চাষি জমিতে ধানের অবশিষ্টাংশ বা নাড়া পু঩ড়িয়ে দিয়ে থাকেন। এতে একদিকে যেমন মাটির ক্ষতি হয়, তেমনই বাতাসে দূষণ ছড়ায়।  
বিশদ

22nd  January, 2020
পুরুলিয়ার নিতুড়িয়ায় জিরে চাষ 

সজল মণ্ডল  রঘুনাথপুর, পুরুলিয়ার নিতুড়িয়া ব্লকে কৃষি দপ্তরের বিশেষ তত্ত্বাবধানে দীঘা গ্রাম পঞ্চায়েতের লালপুর মৌজায় জিরে চাষ হচ্ছে। সাধারণত এবছর রবি মরশুমের ঠান্ডাকে কাজে লাগিয়ে জিরে চাষের বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।  
বিশদ

22nd  January, 2020
খামখেয়ালি আবহাওয়ায় বীজতলা তৈরিতে দেরি
বোরো চাষে জল দেওয়ার সময় পিছচ্ছে প্রশাসন

বিএনএ, সিউড়ি: বীজতলা তৈরিতে দেরি হয়েছে। তাই বীরভূমে বোরো চাষে জল দেওয়ার সময় পিছচ্ছে প্রশাসন। খামখেয়ালি আবহাওয়ার জন্যই বীজতলা তৈরি হয়নি বলে মত কৃষিদপ্তরের। তাই জেলায় আগামী ২৫ জানুয়ারি বোরো চাষের জন্য জল দেওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে দিচ্ছে প্রশাসন। 
বিশদ

20th  January, 2020
রামপুরহাট মহকুমাজুড়ে বৃষ্টি, আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা চাষিদের 

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: সাম্প্রতিক বৃষ্টি ও কুয়াশার জন্য আলুতে দেখা দিয়েছে নাবিধসা রোগ। মাঝে কয়েকদিন আবহাওয়ার উন্নতি হলেও রবিবার সকালে রামপুরহাট মহকুমায় ফের বৃষ্টি হয়। যার জেরে আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 
বিশদ

20th  January, 2020
দেশি রুই, কাতলা, মৃগেল মিলবে বাজারে, ময়না মডেলে মাছ চাষের উদ্যোগ হুগলিতে 

অভিজিৎ চৌধুরী, চুঁচুড়া, বিএনএ: ময়না মডেলে মাছ চাষের জন্য উদ্যোগ নিল হুগলি জেলা মৎস্য দপ্তর। ২০১৯-’২০ অর্থবর্ষে এখানে ছ’টি পুকুরে দেশি রুই, কাতলা ও মৃগেল চাষ করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই মাছগুলি বেশে খানিকটা বড় হয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে এই মাছ বাজারে আসতে পারে বলে মৎস্য দপ্তরের কর্তারা মনে করছেন। 
বিশদ

16th  January, 2020
ধান খেতে নাড়া পোড়ানোয় মাটির ক্ষতি 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: ধান খেতে খড় বা নাড়া না পুড়িয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে পরবর্তী ফসল লাভজনক হিসেবে ঘরে তোলা যায়। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের বক্তব্য, অনেক চাষি জমিতে ধানের অবশিষ্টাংশ বা নাড়া পুড়িয়ে দিয়ে থাকেন।  বিশদ

15th  January, 2020
বোরো ধানে সেচের জল নিয়ে
চিন্তায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বহু চাষি 

সংবাদদাতা: বোরো ধান চাষে সেচের জল মিলবে কোথা থেকে? সেই চিন্তা শুরু হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকার চাষিদের। জেলার ডায়মন্ডহারবার ১ ও ২, মগরাহাট ১ও ২, ফলতা, জয়নগর ১ ও ২, বারুইপুর, মন্দিরবাজার ও কুলপি ব্লকে ভূগর্ভের অনেকটা নীচে রয়েছে জলস্তর।  বিশদ

15th  January, 2020

Pages: 12345

একনজরে
মুম্বই, ২৪ জানুয়ারি (পিটিআই): বিধানসভা নির্বাচনের সময় মহারাষ্ট্রের অবিজেপি নেতাদের ফোন ট্যাপ করা হয়েছিল। সরকারি পরিকাঠামোর অপব্যবহার করে এই কাজ করেছিল তৎকালীন বিজেপি সরকার। বৃহস্পতিবার এমনই অভিযোগ করেছেন মহারাষ্ট্রের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। এই কাণ্ডে তদন্তের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যে।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বছরের শুরুতেই ফের বাস ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে সুর চড়াচ্ছেন মালিক সংগঠনের নেতারা। একাধিক সংগঠন এ নিয়ে ইতিমধ্যেই নিজেদের মধ্যে বৈঠক করেছে। কয়েকটি সংগঠন আবার আরও এগিয়ে পরিবহণ দপ্তরে চিঠিও দিয়েছে ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানিয়ে।   ...

অকল্যান্ড, ২৪ জানুয়ারি: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়ে একদিনের সিরিজ জেতার পর ভারতের আত্মবিশ্বাস যে অনেকটাই বেড়েছে তার প্রমাণ মিলল শুক্রবার। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজের প্রথম ...

সংবাদদাতা, কান্দি: বৃহস্পতিবার রাতে খবর পেয়ে বড়ঞা থানার শ্রীরামপুর গ্রাম থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। ধৃতের নাম সাদ্দাম শেখ। ওই গ্রামেই তার বাড়ি।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসাসূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। বিদ্যায় মানসিক চঞ্চলতা বাধার কারণ হতে পারে। গুরুজনদের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন থাকা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

জাতীয় ভোটদাতা দিবস
১৮৫০: অভিনেতা অর্ধেন্দু শেখর মুস্তাফির জন্ম
১৮৫৬: সমাজসেবক ও লেখক অশ্বিনীকুমার দত্তের জন্ম
১৮৭৪: ইংরেজ লেখক সামারসেট মমের জন্ম  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৫১ টাকা ৭২.২১ টাকা
পাউন্ড ৯১.৯৮ টাকা ৯৫.৩২ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৮ টাকা ৮০.৩৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৭১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৬২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,২০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫৫/২৪ রাত্রি ৪/৩২। শ্রবণা ৫৫/৩৩ রাত্রি ৪/৩৬। সূ উ ৬/২২/৭, অ ৫/১৫/৩১, অমৃতযোগ দিবা ১০/০ গতে ১২/৫৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫২ গতে ১০/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/১৪ গতে ২/০ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩৭ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১/১০ গতে ২/৩২ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৪ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৪ গতে উদয়াবধি। 
১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫২/৪৫/৪২ রাত্রি ৩/৩১/৩১। শ্রবণা ৫৪/৮/১ শেষরাত্রি ৪/৪/২৬। সূ উ ৬/২৫/১৪, অ ৫/১৪/৮, অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৮ গতে ১২/৫৭ মধ্যে ও রাত্রি ৭/৫৮ গতে ১০/৩৩ মধ্যে ও ১২/১৬ গতে ১/৫৮ মধ্যে ও ২/৫০ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৬/২১ মধ্যে ও ৩/৫৪/২ গতে ৫/১৪/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৫৪/১ মধ্যে ও ৪/৪৬/২০ গতে ৬/২৪/৫৫ মধ্যে। 
২৯ জমাদিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আগামী ৫ ফেব্রুয়ারি ব্লকগুলিতে মানববন্ধন কর্মসূচি, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী 
আজ সিএএ, এনআরসি ইস্যু নিয়ে দলীয় বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ...বিশদ

24-01-2020 - 06:32:00 PM

২২৬ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

24-01-2020 - 04:16:17 PM

প্রথম টি-২০: নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে ৬ উইকেটে ম্যাচ জিতল ভারত 

24-01-2020 - 03:48:28 PM

বিধাননগর পুরসভায় অভিযান বিজেপির
 

ডেঙ্গু রোধে খাল পরিষ্কার, বেআইনি পার্কিং বন্ধ সহ একাধিক দাবিতে ...বিশদ

24-01-2020 - 03:39:00 PM

প্রথম টি-২০: ভারত ১৫১/৪ (১৫ ওভার) 

24-01-2020 - 03:31:02 PM

প্রথম টি-২০: ভারত ১৪২/৩ (১৩ ওভার)
 

24-01-2020 - 03:20:26 PM