Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

 অসময়ে বাজার ধরতে শরতে তরমুজ চাষ, ৬০ দিনেই ফলন

ব্রতীন দাস: তরমুজ মূলত গরমের ফল। কিন্তু, শরতেও তরমুজ ফলিয়ে বাড়তি লাভ পেতে পারেন কৃষকরা। ছটপুজোর কথা মাথায় রেখে আগাম বাজার ধরতে অসময়ে তরমুজের ভালোই চাহিদা থাকে। হাইব্রিড বিভিন্ন প্রজাতির সুবাদে পলি-মালঞ্চিং করে শরৎকালে তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে। উদ্যানপালন আধিকারিকরা জানিয়েছেন, অসময়ের তরমুজ হিসেবে মূলত সুগার কিং, সুগার কুইন, কিরণ, সরস্বতী, বিশালা, ম্যাক্স, কৃষ্ণা, অর্জুন-এর মতো উন্নতমানের প্রজাতি রয়েছে। এসব প্রজাতির ফলন বেশি। নদীয়ার ঝিকরা, হুগলির ধনিয়াখালি, পশ্চিম মেদিনীপুরের গোপীবল্লভপুর এলাকায় প্রচুর জমিতে অসময়ের তরমুজ চাষ হচ্ছে। লাভের পরিমাণ বেশি থাকায় বহু কৃষক শরৎকালে তরমুজ ফলাতে উৎসাহী হচ্ছেন। সরাসরি জমিতে বীজ বোনা যেতে পারে। নতুবা প্লাস্টিক ট্রে, চায়ের প্লাস্টিক কাপে কিংবা পলি টানেলে চারা তৈরি করে নেওয়া যেতে পারে। পরে ওই চারা জমিতে লাগানো যায়। এতে বর্ষায় চারা নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে না।
উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অসময়ের তরমুজে শোষক পোকা, ফলছিদ্রকারী পোকা, ধসা বা পচন দেখা দিতে পারে। প্রতিরোধে আগাম ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। ফল ছিদ্রকারী পোকার আক্রমণ দেখা দিলে জমিতে ফেরোমোন ফাঁদ বসানো যেতে পারে। না হলে ঝোলা গুড় কিংবা রসগোল্লার গাদের সঙ্গে কীটনাশক মিশিয়ে বিষটোপ তৈরি করা যেতে পারে। তরমুজের আকার ও গুণমান বাড়াতে অনুখাদ্য প্রয়োগ করতে পারেন কৃষক।
তরমুজ মূলত বালি-পলি মাটিতে চাষ হয়। কিন্তু, পলি মালঞ্চিং পদ্ধতিতে এখন এঁটেল মাটিতেও তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে। বিঘায় অনায়াসেই চার টন ফলন পাওয়া যায়। প্রতি টন তরমুজ বিক্রি করে দাম পাওয়া যায় ২০ হাজার টাকা। ৫০ শতাংশ জৈব ও ৫০ শতাংশ রাসায়নিক সার দিয়ে জমি তৈরি করে নিতে হবে। বীজ লাগানোর ৬৫-৭০ দিনের মাথায় ফল দিতে শুরু করবে। জমিতে বেড তৈরি করে বীজ বুনতে হবে। মাঝে সেচের জল দেওয়ার জন্য নালা কেটে দিতে হবে। মালঞ্চিংয়ের পলিথিন দিয়ে বেড ঢেকে দেওয়ার পর নির্দিষ্ট দূরত্ব অন্তর বীজ বুনতে হবে। প্রতিটি মাদায় দু’টি করে বীজ বোনা যেতে পারে। যেখানে বীজ বোনা হবে, সেখানে পলিথিন ছিদ্র করে দিতে হবে। এক-একটি গাছ থেকে একাধিক শাখা বের হয়। সেখান থেকে তিনটি ভালো শাখা রেখে বাকিগুলি ভেঙে দিতে হবে। তাতে গাছ পুষ্ট হবে। তরমুজের সাইজ বড় হবে। আড়াই থেকে তিন কেজি করে ওজন হবে এক-একটি তরমুজের।
মালঞ্চিংয়ের পলিথিনের উপরের দিকটা স্টিল রঙের, নীচের দিক কালো রঙের হয়। স্টিল রং শোষক পোকাকে বিকর্ষণ করে। ফলে পলি-মালঞ্চিংয়ের মাধ্যমে চাষ করলে জমিতে শোষক পোকার আক্রমণ কম হয়। তাছাড়া সেচের জল, সার কম লাগে। স্বাভাবিকভাবে চাষের খরচ অনেকটাই কমে যায়। ফলনও বাড়ে। চারা যখন ছোট থাকে, তখন ছোট ছোট লাল পোকার আক্রমণ হয়।
ওই পোকা দমনে এক লিটার জলে দুই মিলিলিটার ডাইমিথোয়েট মিশিয়ে প্রয়োগ করা যেতে পারে। তরমুজের জমিতে জল দাঁড়িয়ে গেলে গাছ মরে যাবে। আবার জমিতে জলও থাকতে হবে। সেকারণে জমিতে যাতে জলনিকাশি ব্যবস্থা ঠিক থাকে, সেদিকে নজর রাখতে হবে বলে জানাচ্ছেন উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা।

11th  September, 2019
এবার অণ্ডালের রুক্ষ মাটিতে ফলবে নারকেল, কলা, আরবের খেজুরও
হবে বহুজাতিক সংস্থার সঙ্গে বাণিজ্যিক চুক্তি

নিজস্ব প্রতিনিধি, কাজোড়া (অণ্ডাল): অণ্ডাল ব্লকের কাজোড়ার সরকারি রুক্ষ জমিতেই ক্যাভেন্টার কলা, আরবের খেজুর, কেরলের নারকেল ফলানোর উদ্যোগ নিল প্রশাসন। মাটির সৃষ্টি প্রকল্পে প্রায় ২০ একর জমিতে ফলের গাছ, পুকুর খনন, ফসল ফলিয়ে এলাকাবাসীকে স্বনির্ভর করতে তৎপর প্রশাসনের কর্তারা।   বিশদ

02nd  June, 2020
খরিফে লাল-কাঁকুরে মাটিতে
চিনাবাদাম চাষে ভালোই লাভ

নিজস্ব প্রতিনিধি: রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলে লাল-কাঁকুরে মাটিতে চিনাবাদাম চাষ করে লাভের মুখ দেখতে পারেন কৃষকরা। এপ্রিলের শুরুতেই চিনাবাদাম চাষের প্রস্তুতি নিতে হবে। গত বছর পুরুলিয়ার নিতুড়িয়া ব্লকে চিনাবাদাম চাষ করে সাফল্য পেয়েছেন চাষিরা। ফলে এবছরও তাঁরা এই চাষে আগ্রহী। এপ্রিলের প্রথমে চিনাবাদাম বুনলে জুলাইয়ে ফসল উঠে যাবে। 
বিশদ

18th  March, 2020
এপ্রিলে বুনুন বেবিকর্নের বীজ
চাষে বাড়ছে ঝোঁক, মিলবে দাম  

নিজস্ব প্রতিনিধি: সারা বছর ধরেই বেবিকর্ন চাষ করা যায়। তবে চাষিরা জানুয়ারি থেকে অক্টোবর পর্যন্ত এই ফসলটি বুনে থাকেন। এপ্রিল-মে মাসে বেবিকর্ন বুনলে ভালো ফলন পাওয়া যায়। কৃষি বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, জল জমে না এমন জমিতে বেবিকর্ন চাষ করতে হবে। বেলে-দোঁয়াশ মাটি এই ফসলটি চাষের জন্য উপযুক্ত।
বিশদ

18th  March, 2020
কাঁথিতে সূর্যমুখী চাষে উৎসাহ বাড়ছে কৃষকদের 

রঞ্জন পাল, কাঁথি: কাঁথি মহকুমা এলাকায় সূর্যমুখী চাষে চাষিদের মধ্যে উৎসাহ বাড়ছে। মহকুমায় ১৫০ একরের কিছু বেশি জায়গা জুড়ে সূর্যমুখী চাষ হয়। কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, মহকুমার কাঁথি-৩, খেজুরি-১ ও ২ ব্লক, রামনগর-১ ও ২ ব্লকে বেশি সূর্যমুখী চাষ হয়। এছাড়া কাঁথির দেশপ্রাণ ব্লক ও কাঁথি-১ ব্লকেও কিছু কিছু জায়গায় সূর্যমুখী চাষ হয়। 
বিশদ

18th  March, 2020
রানাঘাটে গোলাপের পাতা, কুঁড়ি ও ফুল শুকিয়ে যাচ্ছে 

নবজ্যোতি সরকার: রানাঘাট ২ নম্বর ব্লকের নোকাড়ি, কামালপুর, মাঝেরগ্রাম, দেবগ্রাম গ্রাম পঞ্চায়েতের গোলাপ ফুল চাষিরা ব্যাপক সমস্যায় পড়েছেন। গোলাপ চারার পাতা কুঁকড়ে যাচ্ছে। কুঁড়ি ও ফুলের সাইজ ছোট হয়ে যাচ্ছে। ফুলের সুগন্ধও নষ্ট হচ্ছে।  বিশদ

18th  March, 2020
বোরো ধানে জোর দিতে হবে রোগপোকা দমনে 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: বোরো ধানে ভালো ফলন পেতে সুসংহত উপায়ে ধানের রোগপোকা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। বোরো মরশুমে ধান গাছ নানা রোগ দ্বারা আক্রান্ত হয়। এতে ফলন খুবই কমে যায়। বোরো ধানের রোগগুলির মধ্যে ঝলসা, খোলাপচা, ধসা, বাদামি চিটে, ব্যাকটেরিয়া জনিত ধসা এবং টুংরো রোগ অত্যন্ত ক্ষতিকারক। 
বিশদ

18th  March, 2020
রাত হলেই নারকেল গাছের পাতায় সাদা দাগ
জেলায় জেলায় সাদা মাছির আক্রমণ, বলছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা

ব্রতীন দাস: করোনা আতঙ্কের মধ্যেই রাতেরবেলা নারকেল গাছের পাতায় সাদা দাগ দেখা যাওয়া নিয়ে গ্রাম-বাংলায় উদ্বেগ ছড়িয়েছে। দেখা যাচ্ছে, গাছের সবুজ পাতা পুরো সাদা হয়ে যাচ্ছে। অনেক জায়গায় আবার নারকেল গাছের গোড়ায় সাদা গুড়ো জমে থাকতেও দেখা যাচ্ছে। 
বিশদ

18th  March, 2020
নয়াগ্রামের ব্রাউন রাইস মিলবে বিশ্ব বাংলার স্টলে 

রঞ্জন পাল, ঝাড়গ্রাম: ঝাড়গ্রাম জেলার প্রত্যন্ত নয়াগ্রাম ব্লকের স্বনির্ভর দলের মহিলাদের উৎপাদন করা ব্রাউন রাইস এবার মিলবে বিশ্ব বাংলার স্টলে। দিল্লি, কলকাতা, দার্জিলিং, বাগডোগরা এয়ারপোর্ট, কলকাতার পার্ক স্ট্রিট, ঢাকুরিয়া, নিউটাউন, রাজারহাটে বিশ্ব বাংলার স্টলে ওই চাল পাওয়া যাবে। সম্পূর্ণ জৈব উপায়ে ওই চাল তৈরি হচ্ছে। রাসায়নিক সারমুক্ত এই ব্রাউন রাইস।  বিশদ

11th  March, 2020
জামালপুরে সরকারি উদ্যোগেই নেদারল্যান্ডের গ্লাডিওলাস চাষ 

মণীন্দ্রনারায়ণ সিংহ, বর্ধমান: পূর্ব বর্ধমান জেলা উদ্যানপালন দপ্তরের সহযোগিতায় জামালপুর ব্লকের জোতশ্রীরাম গ্রাম পঞ্চায়েতের অমরপুর গ্রামে এবার প্রথম বাণিজ্যিক ভিত্তিতে নেদারল্যান্ডের গ্লাডিওলাস ফুলের চাষ হয়েছে।  বিশদ

11th  March, 2020
অজানা রোগে বিঘার পর বিঘা জমির গোলাপ চাষ ক্ষতিগ্রস্ত 

হরিহর ঘোষাল, মেদিনীপুর: অজানা রোগের প্রকোপে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় বিঘার পর বিঘা জমিতে গোলাপ চাষ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। রোগ প্রতিরোধে চাষিদের পক্ষ থেকে গোলাপ গাছে নানা ধরনের ওষুধ দেওয়া হচ্ছে।  বিশদ

11th  March, 2020
বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথ 

সংবাদদাতা: বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথের আক্রমণে ফলন কমতে পারে। বাঁধাকপি ছাড়াও ফুলকপি, ব্রোকলি, চিনা বাঁধাকপি, লাল বাঁধাকপিতে এর আক্রমণ হতে পারে।  বিশদ

11th  March, 2020
ফসল রক্ষায় ঠেকাতে
হবে ইঁদুরের আক্রমণ 

সংবাদদাতা: ফসল উৎপাদনের পর চাষিরা উৎপাদিত ফসল বস্তায়, বড় ড্রাম অথবা খড়ের বেড়িতে গুদামজাত করেন। কিন্তু ইঁদুরের আক্রমণে প্রায় ১০-১৫ শতাংশ ফসল নষ্ট হয়ে যায়। ফলে চাষিদের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়।   বিশদ

11th  March, 2020
লিচুতে ভালো ফলন পেতে বিজ্ঞান সম্মত পরিচর্যার প্রয়োজন 

নবজ্যোতি সরকার: এ বছর প্রাকৃতিক কারণেই বারুইপুরের বিভিন্ন লিচু বাগানে প্রচুর ফুল এসেছে। চাষিরা জানিয়েছেন, ফুলের সংখ্যা বাড়াতে এন ট্রায়াকন্টানল ০.৫ মিলি প্রতি লিটার জলে এবং আলফা ন্যাপথাইল অ্যাসেটিক অ্যাসিড ১ মিলি প্রতি লিটার জলে গুলে স্প্রে করেছেন।  বিশদ

11th  March, 2020
রঙিন ফুলকপি ফলিয়ে তাক লাগিয়েছেন
ময়নাগুড়ির কৃষক, দেখতে জমিতে ভিড় 

সোমনাথ চক্রবর্তী: রঙিন ফুলকপি চাষ করে তাক লাগালেন ময়নাগুড়ির ব্যাঙকান্দির কৃষক অজিত সরকার। হলুদ, আভা রং এবং হাল্কা কমলা রঙের ফুলকপি তিনি তাঁর জমিতে চাষ করেছেন।  বিশদ

11th  March, 2020

Pages: 12345

একনজরে
দেরাদুন, ৫ জুন (পিটিআই): স্বস্তি পেলেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত। তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। গত ১ জুন মন্ত্রিসভার বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী সৎপাল মহারাজ।  ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার রামপুরহাট মহকুমার প্রতিটি ব্লক অফিস ঘুরে বিডিওদের সঙ্গে কথা বললেন সংসদ সদস্য শতাব্দী রায়। হঠাৎ লকডাউনের ফলে পরিযায়ীরা চরম দুর্দশার শিকার হয়েছেন ও জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বলে দাবি করেন তিনি।   ...

সংবাদদাতা, পতিরাম, ইংলিশবাজার ও কর্ণজোড়া: বিশ্ব পরিবেশ দিবসে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিসের উদ্যোগে জেলার আটটি থানা এবং তিনটি ট্রাফিক বিভাগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হল। মোট ৩০৮টি গাছ লাগানো হয়েছে।   ...

লন্ডন, ৫ জুন: প্রথম ফুটবলার হিসেবে বিলিয়নিয়ারদের তালিকায় নাম লেখাতে চলেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো। ফোর্বসের প্রকাশিত বিশ্বের ধনী ক্রীড়াবিদদের তালিকায় লায়োনেল মেসিকে আগেই টেক্কা দিয়েছেন সিআর ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চপদস্থ ব্যক্তির সহায়তায় কর্মস্থলে জটিলতার সমাধান। বাতজবেদনায় কষ্ট পাবার সম্ভাবনা। প্রেম-প্রণয়ে সাফল্য। পরশ্রীকাতর ব্যক্তির দ্বারা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১০৯৯: প্রথম ধর্মযুদ্ধের শুরু, অবরোধের সূচনা জেরুজালেমে
১৬৫৪: ফ্রান্সের সিংহাসনে বসলেন রাজা চতুর্দশ লুই
১৮২৯: ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেসের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা অ্যালান অক্টাভিয়ান হিউমের জন্ম
১৮৬৭: কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম ভারতীয় বিচারপতি শম্ভুনাথ পণ্ডিতের মৃত্যু
১৯১১: লেখক নীহাররঞ্জন গুপ্তের জন্ম
১৯২৮: অভিনেতা ও রাজনীতিক সুনীল দত্তের জন্ম
১৯৪২: লিবিয়ার প্রাক্তন স্বৈরাচারী শাসক মুয়াম্মার গদ্দাফির জন্ম
১৯৬৭: ছ’দিনের যুদ্ধে জেরুজালেমে প্রবেশ করল ইজরায়েলি সেনা
১৯৭০: ইংরাজি সাহিত্যিক ই এম ফস্টারের মৃত্যু
১৯৭২: কবি হুমায়ুন কবিরের মৃত্যু
১৯৭৫: ইংল্যান্ডে প্রথম বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধন 



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৫৯ টাকা ৭৬.৩০ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪২ টাকা ৯৬.৭১ টাকা
ইউরো ৮৩.৯৯ টাকা ৮৭.১০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ জুন ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৪৪/৬ রাত্রি ১০/৩৩। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র ২৫/৪৩ দিবা ৩/১২। সূর্যোদয় ৪/৫৫/৯, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৫৫। অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৪ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৬/৫৭ গতে ৭/৩৯ মধ্যে পুনঃ ১১/১৩ গতে ১/২১ মধ্যে পুনঃ ২/৪৭ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৬/৩৫ মধ্যে পুনঃ ১/১৪ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৩ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৭/৩৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৬ গতে উদয়াবধি।  
২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ জুন ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ রাত্রি ১১/২৯। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/২০। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ ৩/৩৮ গতে ৬/১৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২ গতে ৭/৪৪ মধ্যে ও ১১/১৬ গতে ১/২৩ মধ্যে ও ২/৪৭ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ৬/৩৬ মধ্যে ও ১/১৬ গতে ২/৫৬ মধ্যে ও ৪/৩৬ গতে ৬/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৩৬ মধ্যে ও ৩/৩৬ গতে ৪/৫৬ মধ্যে।
১৩ শওয়াল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯৪ 
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৭২ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

05-06-2020 - 07:03:39 PM

করোনা: ইরানে একদিনে আক্রান্ত ২৮৮৬ জন
 

ইরানে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২৮৮৬ জন। মৃত্যু ...বিশদ

05-06-2020 - 05:40:15 PM

উত্তরপাড়ায় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক থেকে লুট ১৮ লক্ষ টাকা 
উত্তরপাড়ায় একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক থেকে লুট হল ১৮ লক্ষ টাকা। ...বিশদ

05-06-2020 - 04:29:00 PM

দুর্যোগ নিয়েও রাজনীতি করা হচ্ছে: মমতা 

05-06-2020 - 04:20:00 PM

উমপুনে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ নষ্ট হয়েছে: মমতা 

05-06-2020 - 04:15:00 PM

পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেন-বাসের ভাড়া দিয়েছি: মমতা

05-06-2020 - 04:13:00 PM