Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

 অসময়ে বাজার ধরতে শরতে তরমুজ চাষ, ৬০ দিনেই ফলন

ব্রতীন দাস: তরমুজ মূলত গরমের ফল। কিন্তু, শরতেও তরমুজ ফলিয়ে বাড়তি লাভ পেতে পারেন কৃষকরা। ছটপুজোর কথা মাথায় রেখে আগাম বাজার ধরতে অসময়ে তরমুজের ভালোই চাহিদা থাকে। হাইব্রিড বিভিন্ন প্রজাতির সুবাদে পলি-মালঞ্চিং করে শরৎকালে তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে। উদ্যানপালন আধিকারিকরা জানিয়েছেন, অসময়ের তরমুজ হিসেবে মূলত সুগার কিং, সুগার কুইন, কিরণ, সরস্বতী, বিশালা, ম্যাক্স, কৃষ্ণা, অর্জুন-এর মতো উন্নতমানের প্রজাতি রয়েছে। এসব প্রজাতির ফলন বেশি। নদীয়ার ঝিকরা, হুগলির ধনিয়াখালি, পশ্চিম মেদিনীপুরের গোপীবল্লভপুর এলাকায় প্রচুর জমিতে অসময়ের তরমুজ চাষ হচ্ছে। লাভের পরিমাণ বেশি থাকায় বহু কৃষক শরৎকালে তরমুজ ফলাতে উৎসাহী হচ্ছেন। সরাসরি জমিতে বীজ বোনা যেতে পারে। নতুবা প্লাস্টিক ট্রে, চায়ের প্লাস্টিক কাপে কিংবা পলি টানেলে চারা তৈরি করে নেওয়া যেতে পারে। পরে ওই চারা জমিতে লাগানো যায়। এতে বর্ষায় চারা নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে না।
উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অসময়ের তরমুজে শোষক পোকা, ফলছিদ্রকারী পোকা, ধসা বা পচন দেখা দিতে পারে। প্রতিরোধে আগাম ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। ফল ছিদ্রকারী পোকার আক্রমণ দেখা দিলে জমিতে ফেরোমোন ফাঁদ বসানো যেতে পারে। না হলে ঝোলা গুড় কিংবা রসগোল্লার গাদের সঙ্গে কীটনাশক মিশিয়ে বিষটোপ তৈরি করা যেতে পারে। তরমুজের আকার ও গুণমান বাড়াতে অনুখাদ্য প্রয়োগ করতে পারেন কৃষক।
তরমুজ মূলত বালি-পলি মাটিতে চাষ হয়। কিন্তু, পলি মালঞ্চিং পদ্ধতিতে এখন এঁটেল মাটিতেও তরমুজ ফলানো সম্ভব হচ্ছে। বিঘায় অনায়াসেই চার টন ফলন পাওয়া যায়। প্রতি টন তরমুজ বিক্রি করে দাম পাওয়া যায় ২০ হাজার টাকা। ৫০ শতাংশ জৈব ও ৫০ শতাংশ রাসায়নিক সার দিয়ে জমি তৈরি করে নিতে হবে। বীজ লাগানোর ৬৫-৭০ দিনের মাথায় ফল দিতে শুরু করবে। জমিতে বেড তৈরি করে বীজ বুনতে হবে। মাঝে সেচের জল দেওয়ার জন্য নালা কেটে দিতে হবে। মালঞ্চিংয়ের পলিথিন দিয়ে বেড ঢেকে দেওয়ার পর নির্দিষ্ট দূরত্ব অন্তর বীজ বুনতে হবে। প্রতিটি মাদায় দু’টি করে বীজ বোনা যেতে পারে। যেখানে বীজ বোনা হবে, সেখানে পলিথিন ছিদ্র করে দিতে হবে। এক-একটি গাছ থেকে একাধিক শাখা বের হয়। সেখান থেকে তিনটি ভালো শাখা রেখে বাকিগুলি ভেঙে দিতে হবে। তাতে গাছ পুষ্ট হবে। তরমুজের সাইজ বড় হবে। আড়াই থেকে তিন কেজি করে ওজন হবে এক-একটি তরমুজের।
মালঞ্চিংয়ের পলিথিনের উপরের দিকটা স্টিল রঙের, নীচের দিক কালো রঙের হয়। স্টিল রং শোষক পোকাকে বিকর্ষণ করে। ফলে পলি-মালঞ্চিংয়ের মাধ্যমে চাষ করলে জমিতে শোষক পোকার আক্রমণ কম হয়। তাছাড়া সেচের জল, সার কম লাগে। স্বাভাবিকভাবে চাষের খরচ অনেকটাই কমে যায়। ফলনও বাড়ে। চারা যখন ছোট থাকে, তখন ছোট ছোট লাল পোকার আক্রমণ হয়।
ওই পোকা দমনে এক লিটার জলে দুই মিলিলিটার ডাইমিথোয়েট মিশিয়ে প্রয়োগ করা যেতে পারে। তরমুজের জমিতে জল দাঁড়িয়ে গেলে গাছ মরে যাবে। আবার জমিতে জলও থাকতে হবে। সেকারণে জমিতে যাতে জলনিকাশি ব্যবস্থা ঠিক থাকে, সেদিকে নজর রাখতে হবে বলে জানাচ্ছেন উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা।

11th  September, 2019
পুরুলিয়ায় ৫০ হাজার হেক্টর জমিতে বিকল্প চাষে উদ্যোগী জেলা কৃষিদপ্তর

রুখাশুখা জেলা পুরুলিয়া। জলের অভাবে এই জেলায় সব জমিতে ধান চাষ হয় না। তাই জেলায় ব্যাপক হারে বিকল্প চাষ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। বিশদ

30th  November, 2020
শীতের কামড় থেকে ফসল
বাঁচাতে শেডনেটে পানচাষ 

প্রথাগত পদ্ধতি ছেড়ে এবার শেডনেটে পানচাষে জোর দিচ্ছে উদ্যানপালন দপ্তর। আধুনিক এই প্রযুক্তির ব্যবহারে একদিকে যেমন পানের গুনগত মান ভালো হবে, সংখ্যায় বেশি মিলবে পাতা, তেমনই রোগপোকার হাত থেকে রক্ষা পাবে বরজ। এমনটাই বলছেন উদ্যানপালন আধিকারিকরা। কৃষিভিত্তিক ক্লাস্টারের মাধ্যমে ক্ষুদ্র ব্যবসায় গুরুত্ব দিচ্ছে রাজ্য। 
বিশদ

25th  November, 2020
শীত পড়লেও চাহিদা নেই
মরশুমি ফুলের চারার 

সংবাদদাতা: শীত পড়লেও এখনও পর্যন্ত মরশুমি ফুলের চারার চাহিদা নেই। এতেই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে পূর্বস্থলীর চাষিদের। এছাড়া ট্রেনের কামরায় ফুল বিক্রেতাদের উঠতে না দেওয়ায় ভিন রাজ্যেও যেতে পারছেন না বিক্রেতারা। ফলে নার্সারি থেকেও তাঁরা চারা কিনছেন না। চাষিদের দাবি, এই মরশুমেও প্রচুর টাকা খরচ করে ফুলের চারা তৈরি হয়েছিল। এখন শীতের শুরুতেই মাঠে ফুলের চারা ভালো বাড়ে। 
বিশদ

25th  November, 2020
এবার বাড়তি সতর্কতার
সঙ্গে গম চাষের পরামর্শ 

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর: নিষেধাজ্ঞা উঠলেও এবারও বাড়তি সতর্কতার সঙ্গে গম চাষ করার পরামর্শ দিচ্ছে নদীয়া জেলার কৃষিদপ্তর। জেলা কৃষিদপ্তর সূত্রের খবর, নির্দিষ্ট কিছু জাতের বীজ সংগ্রহ করার ব্যাপারে চাষিদের ইতিমধ্যেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি বলা হয়েছে, শোধন করেই বীজ বুনতে হবে। 
বিশদ

25th  November, 2020
আমন উঠছে, বিক্রির চিন্তায় চাষিরা 

সংবাদদাতা, লালবাগ: ফলন আশানুরূপ হয়েছে। যেদিকে তাকানো যায় চোখে পড়ে মাঠ ভর্তি সোনালি ধান। তা সত্ত্বেও দুশ্চিন্তায় রয়েছেন নবগ্রাম ব্লকের ধান চাষিরা। করোনা মহামারীর জেরে ব্লকের অধিকাংশ চাষির বোরো ধান এখনও বিক্রি হয়নি। ঘরে বস্তাবন্দি হয়ে পড়ে রয়েছে। 
বিশদ

25th  November, 2020
গ্ল্যাডিওলাস ফুল চাষে আগ্রহ
বাড়ছে দক্ষিণ দিনাজপুরের চাষিদের

শীতকালে রজনীগন্ধা ফুলের চাষ তো দক্ষিণ দিনাজপুরে আগে থেকেই জনপ্রিয়। সেইসঙ্গে এখন পাল্লা দিয়ে জনপ্রিয়তা বাড়ছে গ্ল্যাডিওলাস ফুলের চাষেরও। জেলার অনেক জায়গাতেই অন্যান্য সব্জির সঙ্গেই এই ফুল চাষ করছেন অনেকে। ধান, গম, পাট সহ অন্যান্য অর্থকরী ফসলের মতোই গ্ল্যাডিওলাস ফুল চাষেও লাভের মুখ দেখছেন এখানকার চাষিরা। বিশদ

11th  November, 2020
সারাবছরই চাহিদা থাকে বাজারে,
লাভজনক ফ্রেঞ্চ বিন চাষ 

ফ্রেঞ্চ বিন অত্যন্ত লাভজনক একটি চাষ। এই বিনের চাষ করলে কৃষকরা অন্যান্য ফসলের থেকে অনেকটাই বেশি লাভ পাবেন, এমনটাই জানিয়েছেন কৃষি আধিকারিকরা। তাঁরা বলেছেন, বাজারে বিনের চাহিদা সারা বছর ধরেই থাকে এবং দামও ভালোই পাওয়া যায়। বিশদ

11th  November, 2020
চাষে আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে উৎসাহ পূর্ব মেদিনীপুরে
কীটনাশকের প্রয়োগ বন্ধ করতে 
বিনামূল্যে মিলছে সোলার ট্র্যাপ 

ফসলে শত্রুপোকা দমনে এবং পরিবেশবান্ধব আধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহারে উৎসাহিত করতে পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় চাষিদের বিনামূল্যে ‘সোলার ট্র্যাপ’ যন্ত্র দিচ্ছে রাজ্য সরকার। ধান, সব্জি ও ফুলচাষে ব্যাপকহারে কীটনাশকের ব্যবহার রুখতে এই প্রথম আতমা প্রকল্পের মাধ্যমে চাষিদের হাতে পোকামাকড় ধরার নয়া যন্ত্র তুলে দিল কৃষিদপ্তর। বিশদ

11th  November, 2020
জীবাণুসার প্রয়োগে বাড়বে ফলন
কৃষকদের ঘরে উঠবে বাড়তি লাভ

ভালো ফলন পেতে জমিতে জীবাণুসার প্রয়োগ জরুরি। বলছেন কৃষি আধিকারিকরা। তাঁরা জানাচ্ছেন, সঠিক সময়ে ও সুপারিশকৃত মাত্রায় জীবাণুসার প্রয়োগে ১০-১৫ শতাংশ ফলন বৃদ্ধি করা সম্ভব।  বিশদ

11th  November, 2020
চাহিদা তুঙ্গে, জোগান বাড়াতে
আরামবাগে বাদাম বীজ চাষ 

সুদেব দাস, আরামবাগ: অতিবৃষ্টির কারণে গত বছর বাদাম চাষে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল। বাদামের রঙের উজ্জ্বলতা হারিয়ে কালো হয়ে গিয়েছিল। তাই খোলাবাজারে চাহিদা থাকলেও, ভালো মানের বাদামের জোগান দিতে পারেননি চাষিরা। পুজোর পরে আরামবাগ মহকুমাজুড়ে শুরু হবে বাদাম চাষ। তবে এবার ভালো ফলন পেতে এখন থেকেই বাদাম চাষে বাড়তি জোর দিচ্ছেন চাষিরা।   বিশদ

23rd  September, 2020
টবেই ১৮ মাসে
ড্রাগন ফল 

নিজস্ব প্রতিনিধি: টবেই ফলানো যাবে ড্রাগন ফ্রুট। ১৮ মাসের গাছেই মিলবে ফল। এমনটাই জানাচ্ছেন উদ্যানপালন আধিকারিকরা।
ক্যাকটাস গোত্রের এই ফল চাষে ঝক্কি নেই বললেই চলে।   বিশদ

23rd  September, 2020
নাকাশিপাড়ায় ফ্রেঞ্চ বিন চাষ
করে স্বনির্ভর হচ্ছেন যুবকরা 

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর: বেকার যুবকদের জীবন বদলে দিচ্ছে ফ্রেঞ্চ বিন চাষ। নদীয়ার নাকাশিপাড়ার পাটিকাবাড়ির তাঞ্জির মণ্ডল, চিচুড়িয়ার সাজিদুর রহমান এখন আত্মবিশ্বাসী। একবছর আগে প্রথম এই চাষ শুরু করেছিলেন তাঁরা। বেশ ভালো লাভ হয়েছিল।   বিশদ

23rd  September, 2020
ইংল্যান্ডের হারানো বাজার ধরতে
সবংয়ে জৈব পদ্ধতিতে পান চাষ 

হরিহর ঘোষাল, মেদিনীপুর: একটা সময় সবং থেকে বিপুল পরিমাণ পান রপ্তানি হতো ইংল্যান্ডে। বছর চারেক আগে তাতে ছেদ পড়ে। সালমোনেলা নামে এক ধরনের ব্যাক্টেরিয়ার প্রকোপ দেখা দেয় পানে। তার জেরে সবংয়ের পান তো বটেই, এ রাজ্যের পান নেওয়া বন্ধ করে দেয় ইংল্যান্ড। সেই হারানো বাজার ফিরে পেতে এবার সবংয়েরই একদল চাষি সম্পূর্ণ জৈব পদ্ধতিতে পান চাষের উদ্যোগ নিয়েছেন।   বিশদ

23rd  September, 2020
ছাদের ট্যাঙ্কে অনায়াসেই পছন্দের মাছ চাষ 

ব্রতীন দাস: মাছ চাষের জন্য এখন আর পুকুরের দরকার নেই। বাড়ির ছাদে ট্যাঙ্কেই পছন্দমতো মাছ চাষ করা সম্ভব। মৎস্য বিজ্ঞানীরা বলছেন, যেভাবে দ্রুত নগরায়ণ হচ্ছে, তাতে কমছে জলাশয়। আবার প্রোটিন সমৃদ্ধ খাদ্য হিসেবে বাড়ছে মাছের চাহিদা।   বিশদ

23rd  September, 2020

Pages: 12345

একনজরে
বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশ মেনে কলেজগুলি স্নাতক স্তরের সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষা নিচ্ছে। তবে পুরনো ছাত্রছাত্রীদের ডেকে পাঠাতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে তারা। ...

ম্যাচ শেষে দেখা গেল দুই শিবিরেই বইছে খুশির হাওয়া। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটাররা সিরিজ জিতে হাসছেন। আর ভারতীয় ক্রিকেটারদের মুখে চওড়া হাসি হোয়াইটওয়াশের লজ্জা এড়াতে পেরে। পার্থক্য ...

আগামী সপ্তাহ থেকেই ব্রিটেনে শুরু হবে গণ টিকাকরণ কর্মসূচি। প্রথম দেশ হিসেবেই ফাইজার ও বায়োএনটেকের কোভিড ভ্যাকসিনকে ছাড়পত্র দিয়েছে বরিস জনসন সরকার। ইতিমধ্যে বিশ্বজুড়ে মারণ ভাইরাসের বলি হয়েছেন ১৪ লক্ষ ৯০ হাজার মানুষ। প্রতিদিন এই তালিকা বেড়েই চলেছে। এই পরিস্থিতিতে ...

এবার কল্পতরু উৎসবে কাশীপুর উদ্যানবাটিতে সাধারণ ভক্তদের প্রবেশ নিষেধ। ১ থেকে ৩ জানুয়ারি সর্বসাধারণের জন্য বন্ধ রাখা হবে উদ্যানবাটির দরজা। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসায় বাড়তি বিনিয়োগ প্রত্যাশিত সাফল্য নাও দিতে পারে। কর্মক্ষেত্রে পদোন্নতি। শ্বাসকষ্ট ও বক্ষপীড়ায় শারীরিক ক্লেশ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব প্রতিবন্ধী দিবস
১৮৮২: চিত্রশিল্পী নন্দলাল বসুর জন্ম
১৮৮৯: বিপ্লবী ক্ষুদিরাম বসুর জন্ম
১৯৫৬: সাহিত্যিক মানিক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু
১৯৭৯: হকির জাদুকর ধ্যানচাঁদের মৃত্যু
১৯৮২: কবি বিষ্ণু দে’র মৃত্যু
২০১১: অভিনেতা দেব আনন্দের মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৯২ টাকা ৭৪.৬৩ টাকা
পাউন্ড ৯৬.৯১ টাকা ১০০.৩৪ টাকা
ইউরো ৮৭.৩৯ টাকা ৯০.৫৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯,৭৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭,৯৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৩,৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৩,৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২০, তৃতীয়া ৩৩/২৫ রাত্রি ৭/২৭। আদ্রা নক্ষত্র ১৫/৪০ দিবা ১২/২১। সূর্যোদয় ৬/৫/২১, সূর্যাস্ত ৪/৪৭/৩০। অমৃতযোগ দিবা ৭/২৯ মধ্যে পুনঃ ১/১৩ গতে ২/৩৯ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪০ গতে ৯/১৩ মধ্যে পুনঃ ১১/৫২ গতে ৩/২৫ মধ্যে পুনঃ ৪/১৮ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ২/৭ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/২৬ গতে ১/৬ মধ্যে।  
 ১৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭, বৃহস্পতিবার, ৩ ডিসেম্বর ২০২০, তৃতীয়া রাত্রি ৫/৪০। আদ্রা নক্ষত্র দিবা ১১/৪১। সূর্যোদয় ৬/৭, সূর্যাস্ত ৪/৪৮। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ মধ্যে ও ১/২১ গতে ২/৪৫ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৭ গতে ৯/২১ মধ্যে ও ১২/২ গতে ৩/৩৭ মধ্যে ও ৪/৩১ গতে ৬/৭ মধ্যে। কালবেলা ২/৮ গতে ৪/৪৮ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/২৭ গতে ১/৭ মধ্যে। 
১৭ রবিয়ল সানি।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
আইএসএল: ওড়িশা এফসির বিরুদ্ধে ১-০ গোলে জয়ী এটিকে মোহন বাগান

09:29:31 PM

আইএসএল: এটিকে মোহন বাগান ০- ওড়িশা এফসি ০ (প্রথমার্ধ)

08:23:48 PM

করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু কামারহাটি মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষার
রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল তিনজন চিকিৎসকের। আজ, বৃহস্পতিবার ...বিশদ

05:38:00 PM

রেলের কাছে ৩৪ কোটি টাকা ফেরত চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী 

04:53:00 PM

মাঝেরহাট সেতুর উদ্বোধন করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

04:53:00 PM

নতুন ব্রিজের বহন ক্ষমতা ৩৫০ টন 

04:52:00 PM