Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

 ময়নাগুড়িতে দেখা নেই নদীয়ালি মাছের

সোমনাথ চক্রবর্তী: ভরা বর্ষাতেও দেখা মিলছে না নদীয়ালি মাছের। বাজারে মনপসন্দ নদীয়ালি মাছ দেখতে না পেয়ে হতাশ বাঙালি মৎস্যপ্রেমীরা। আবার নদীয়ালি মাছ ধরতে না পেরে সমস্যায় পড়েছেন মৎস্যজীবীরাও। নদীয়ালি মাছের জোগান না থাকায় বাধ্য হয়ে নদী থেকে অন্য মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতে হচ্ছে মৎস্যজীবিদের। তবে নদীয়ালি মাছে লাভ বেশি। তাই এধরনের মাছের সঙ্কট দেখা দেওয়ায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছেন তাঁরা। এদিকে এই সংকটের জন্য মৎস্যচাষীদের একাংশের নানা কু-অভ্যাসকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা।
রামশাই কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্রের মৎস্যবিজ্ঞানী ইন্দ্রনীল ঘোষ বলেন, উত্তরের নদীগুলি থেকে নদীয়ালি মাছ হারিয়ে যেতে বসেছে। এর জন্য আমরা নিজেরাই অনেকটা দায়ী। মৎস্যচাষীদের মধ্যে অনেকেই নদী থেকে মাছ ধরতে বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যবহার করেন বা বিষ প্রয়োগ করেন। এর ফলে নদীতে বা জলাশয়ে মাছের প্রজনন হ্রাস পায়। বিষ প্রয়োগে অনেক সময় নদীতে মাছের মড়ক দেখা দিতে পারে। নদীতে বিষ প্রয়োগ করলে ছোট-বড় মাছ মরে যায়। আবার ডিমযুক্ত মাছগুলিরও মৃত্যু হয়। অপরদিকে, একটু লাভের আশায় নদী থেকে ডিমওয়ালা মাছ ধরে ফেলেন অনেক মৎস্যজীবী। এর ফলে মাছের ঘাটতি দেখা দেয় নদীতে। এছাড়া কৃষিজমিতে যে হারে রাসায়নিক সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করা হয়, সেসব কোনওভাবে নদীতে মিশে গেলে মাছের প্রজনন বাঁধা পায়। অনেক সময়ে জমিতে কীটনাশক দেওয়ার পরে সেই কীটনাশকের প্লাস্টিক বা পাত্র নদীতে ধোয়া হয়। এর ফলেও মাছের বংশবিস্তার ব্যাহত হয়। প্রায়ই থার্মোকল, প্লাস্টিক সহ নানারকমের আবর্জনা বিভিন্ন নদীতে ফেলা হয়। সেসব থেকেও দূষণ ছড়ায় এবং মাছের মৃত্যু ঘটে। এখন তাই নদীতে জেলেরা জাল ফেললেও মাছের দেখা মেলে না।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন দিন তিস্তা, জলঢাকা সহ ময়নাগুড়ির জর্দা, খুকশিয়া প্রভৃতি নদী থেকে নদীয়ালি মাছ হারিয়ে যেতে বসেছে। একসময় এই সমস্ত নদী থেকে মৎস্যচাষিরা মাছ ধরে সেই মাছ ময়নাগুড়ি, ধূপগুড়ি, জলপাইগুড়ি সহ বিভিন্ন পাইকারি ও খুচরো বাজারে বিক্রয় করতেন। কিন্তু সেই মৎস্যজীবীরাই বলছেন, আগের তুলনায় বর্তমানে নদীয়ালি মাছের দেখা মেলাই ভার।
ময়নাগুড়ি পুরাতন বাজারের মৎস্য বিক্রেতারা বলেন, আগে বর্ষাকালে নদী থেকে প্রচুর মাছ পাওয়া যেত। নদীয়ালি মাছের বাজার মূল্য একটু বেশি হলেও ক্রেতারা কিন্তু সেই মাছ কেনেন। কিন্তু দিন দিন নদীয়ালি মাছের জোগান কমে যাচ্ছে। এর ফলে নদী থেকে মাছ ধরে যাঁদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয়, তাঁরা আর্থিক সঙ্কটের সম্মুখীন হচ্ছেন। খাদ্যরসিক বাঙালিরও থালায় আর উঠছে না নদীয়ালি মাছ।
ময়নাগুড়ির একটি পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের সম্পাদক নন্দুকুমার রায় বলেন, এই নদীয়ালি মাছ যে নদী থেকে হারিয়ে যাচ্ছে, তার জন্য তো আমরাই দায়ী। সামান্য লাভের আশায় ছোট মাছ তুলে ফেলা হচ্ছে। ডিমযুক্ত মাছ ধরা হচ্ছে। চুপিসারে নদীতে মশারি জাল নামানো হচ্ছে। পাশাপাশি জলের মধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে মাছ ধরা এবং বিষপ্রয়োগের মতো ঘটনা তো আছেই। জলে বিষ দিয়ে মাছ মারলে সেই মাছের মধ্যেও বিষ ঢুকে যেতে পারে। সেই মাছ খাোয়া কিন্তু বিপজ্জনক। স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নদীগুলিতে নজরদারি চালানো উচিত। না হলে এমনটা চলতে থাকলে অচিরেই একেবারে লুপ্ত হয়ে যাবে নদীয়ালি মাছ।

04th  September, 2019
গড়বেতায় দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গড়বেতা ১ নম্বর ব্লকের তাপসকুমার তেওয়ারি ব্লকের ১০ নম্বর গরঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ধ্বনি গ্রামের চাষিদের নিয়ে কম খরচে, অল্প সময়ের মধ্যে দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ করে ভালো লাভ পেয়েছেন।  বিশদ

11th  December, 2019
শিলিগুড়িতে রেশম গুটি উৎপাদনে লাভের মুখ 

সুব্রত ধর, শিলিগুড়ি: রেশম দপ্তরের উদ্যোগে ফাঁসিদেওয়া ও মাটিগাড়ায় অগ্রহায়ণী পি-১ সঞ্চ গুটির ভালো উৎপাদন হয়েছে। পরবর্তী বন্দগুলিতেও উৎপাদনে জোর দেওয়া হচ্ছে। পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও বিক্রির সুবন্দোবস্ত থাকায় এই গুটি উৎপাদনের ফলে কৃষকরা আর্থিকভাবে সহজেই লাভবান হতে পারবেন।  বিশদ

11th  December, 2019
সাদা মাছি দমনে জৈব নির্যাসে ভরসা রাখছেন কৃষি বিজ্ঞানীরা 

নবজ্যোতি সরকার: ফসলে সাদা মাছি দমনে নিমতেল ও নিমের নির্যাসের পাশাপাশি জৈব ওষুধের উপর ভরসা রাখতে বলছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। বাজার চলতি যেকোনও কীটনাশক কিনে হঠাৎ করে প্রয়োগ করলে ফল উল্টো হতে পারে।   বিশদ

11th  December, 2019
ডাল চাষ করে লাভের মুখ দেখতে পারেন চাষিরা 

সন্দীপ বর্মন, কোচবিহার: কোচবিহার জেলার আবহাওয়া ও জমির চরিত্র অনুযায়ী নভেম্বর মাস ডাল চাষের উপযুক্ত সময় বলে জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা জানান, একটু উঁচু, যেখানে বৃষ্টির জল দাঁড়ায় না, এ ধরনের ঢালু জমিতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই কলাইয়ের বীজ বোনা যেতে পারে।  বিশদ

11th  December, 2019
বর্ষার পেঁয়াজ উঠতে শুরু করেছে, ভালো দাম মেলায় খুশি কৃষকরা 

ব্রতীন দাস: বর্ষার পেঁয়াজ উঠতেই বাজারে ভালো দাম পাচ্ছেন চাষিরা। ফলে হাসি ফুটেছে তাঁদের মুখে। এমন কৃষকও রয়েছেন, যিনি এক বিঘা জমি থেকে বর্ষার পেঁয়াজ বিক্রি করে এক লক্ষ টাকারও বেশি লাভ করেছেন।  বিশদ

11th  December, 2019
অল্প জমিতে ‘আপেল’ কুল চাষ করে আয়ের নয়া দিশা দেখাচ্ছে কৃষিদপ্তর 

অনিমেষ মণ্ডল, কাটোয়া: অল্প জমিতে আপেল কুল চাষ করে আয়ের নয়া দিশা দেখাচ্ছে কৃষিদপ্তর। গতানুগতিক চাষ থেকে বেরিয়ে অল্প পতিত জমিতেই আপেল কুল চাষ করে বছরে মোটা টাকা আয় করতে পারবেন চাষিরা।   বিশদ

11th  December, 2019
বোরো মরশুমে ১ লক্ষ ১০ হাজার একর জমিতে নিঃশুল্ক জল দেবে সেচদপ্তর 

বিএনএ, শিলিগুড়ি: এবার বিনা মাশুলে জলপাইগুড়ি জেলায় একলক্ষ একরেরও বেশি বোরো চাষের জমিতে দেওয়া হবে সেচের জল। বুধবার সেচের জল বণ্টন নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেচদপ্তরের তিস্তা ব্যারেজ প্রজেক্ট কর্তৃপক্ষ। তবে তিস্তা সেচ প্রকল্পের বহু শাখা ক্যানেল ও ফিল্ড চ্যানেলের অবস্থা বেহাল। 
বিশদ

05th  December, 2019
উদ্যানপালন দপ্তরের সহযোগিতায় বাণিজ্যিকভাবে গাঁদা ফুল চাষে সাফল্য এসেছে, আগ্রহ বেড়েছে চাষিদের 

সংবাদদাতা, গঙ্গারামপুর: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় উদ্যানপালন দপ্তরের উদ্যোগে সরকারি সহায়তায় বাণিজ্যিকভাবে গাঁদা ফুল চাষ করে লাভের মুখ দেখছেন বাগিচা চাষিরা। খুব অল্প খরচে, কম সময়ে গাঁদাফুল চাষ করা যাচ্ছে। জেলাজুড়ে ফুলের ভালো বাজার থাকায় গাঁদাফুল চাষিরা লাভও করছেন। 
বিশদ

05th  December, 2019
নদীয়ায় নয়া মাছির আক্রমণ, সাদা হয়ে যাচ্ছে নারকেল গাছের পাতা 

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর: এক ধরনের সাদা মাছির আক্রমণে নারকেল গাছের পাতা সাদা হয়ে যাচ্ছে। এমনকী নারকেল বা ডাবের রং-ও সাদা হয়ে যাচ্ছে। পরে যদিও তা হয়ে যাচ্ছে কালো। নদীয়া জেলায় গত দু’ থেকে তিন দিন ধরে বিভিন্ন ব্লক থেকে এরকম খবর পেয়েছেন জেলা কৃষি দপ্তরের কর্তারা।
বিশদ

04th  December, 2019
গড়বেতায় দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষে লাভ বেশি 

সংবাদদাতা: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গড়বেতা ১ নম্বর ব্লকের তাপসকুমার তেওয়ারি ব্লকের ১০ নম্বর গরঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ধ্বনি গ্রামের চাষিদের নিয়ে কম খরচে, অল্প সময়ের মধ্যে দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ করে ভালো লাভ পেয়েছেন। এতে ওই অঞ্চলের চাষিদের মধ্যে মাছ চাষে প্রবল উৎসাহ দেখা দিয়েছে।  
বিশদ

04th  December, 2019
ডাল চাষ করে লাভের মুখ দেখতে পারেন চাষিরা 

সন্দীপ বর্মন, কোচবিহার: কোচবিহার জেলার আবহাওয়া ও জমির চরিত্র অনুযায়ী নভেম্বর মাস ডাল চাষের উপযুক্ত সময় বলে জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা জানান, একটু উঁচু, যেখানে বৃষ্টির জল দাঁড়ায় না, এ ধরনের ঢালু জমিতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই কলাইয়ের বীজ বোনা যেতে পারে। 
বিশদ

04th  December, 2019
দুধের উৎপাদন বাড়ানোয় জোর, গোপালকদের প্রশিক্ষণ দেবে প্রাণিসম্পদ দপ্তর 

বিএনএ, বহরমপুর: রাজ্যে দুধের উৎপাদন আরও বাড়াতে একাধিক পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রাণিসম্পদ দপ্তর। এখন রাজ্যে মোট দুধ উৎপাদন হয় ৫৬লক্ষ ৬ হাজার ৮৯৯ টন। তারমধ্যে গ্রীষ্মকালে দুধ উৎপাদন হয় ১৮লক্ষ ৫৬ হাজার ৪৫৫ টন। বর্ষার সময় দুধ পাওয়া যায় ১৮ লক্ষ ৯৫ হাজার ৪২ টন। শীতকালে দুধের পরিমাণ কিছুটা কমে যায়। 
বিশদ

04th  December, 2019
বীজ আলুর জন্য সময়ে চাষ শুরু করা জরুরি, সার দিতে হবে মেপে 

ব্রতীন দাস: বীজ আলু তৈরির জন্য সময়ে চাষ জরুরি। সারও দিতে হবে মেপে। সেইসঙ্গে পরিচর্যাও গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক পদ্ধতি না মানলে মার খেতে পারে ফলন। এমনটাই বলছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সঞ্জীব দাস জানিয়েছেন, বীজ আলুর লক্ষ্যে চাষ করতে হলে অবশ্যই ব্রিডার সিড লাগবে। 
বিশদ

04th  December, 2019
শিলিগুড়িতে রেশম গুটি উৎপাদনে লাভের মুখ 

সুব্রত ধর, শিলিগুড়ি, রেশম দপ্তরের উদ্যোগে ফাঁসিদেওয়া ও মাটিগাড়ায় অগ্রহায়ণী পি-১ সঞ্চ গুটির ভালো উৎপাদন হয়েছে। পরবর্তী বন্দগুলিতেও উৎপাদনে জোর দেওয়া হচ্ছে। পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও বিক্রির সুবন্দোবস্ত থাকায় এই গুটি উৎপাদনের ফলে কৃষকরা আর্থিকভাবে সহজেই লাভবান হতে পারবেন। 
বিশদ

04th  December, 2019

Pages: 12345

একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর: বজবজের ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আজ দিল্লিতে জাতীয় নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল বঙ্গ বিজেপি। এদিন দলের রাজ্য সভাপতি তথা মেদিনীপুরের সংসদ সদস্য দিলীপ ঘোষের নেতৃত্বে তিন সদস্যের এক প্রতিনিধি দল জাতীয় নির্বাচন কমিশনে যায়। ...

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর, বিএনএ: গত পাঁচ বছরে কৃষ্ণনগরের পকসো আদালতে প্রায় ৫০০ মামলা নথিভুক্ত হয়েছে। ২০১২ সালে ‘প্রিভেনশন অব চিলড্রেন ফ্রম সেক্সুয়াল অফেন্সসেস’ বা পকসো আইন চালু হয়েছে। কৃষ্ণনগরে এই বিশেষ আদালত চালু হয়েছে ২০১৪ সালে। ...

পাটনা, ১২ ডিসেম্বর (পিটিআই): নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) সমর্থন না করায় ইতিমধ্যেই দলের অন্দরে কোণঠাসা হয়ে গিয়েছেন জেডিইউয়ের সহ সভাপতি প্রশান্ত কিশোর। তবে তা সত্ত্বেও তিনি নিজের অবস্থানে অনড়ই থাকলেন। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, ওই বিলের মাধ্যমে সরকার ধর্মের ভিত্তিতে মানুষকে ...

সংবাদদাতা, কালীগঞ্জ: দৌড় প্রতিযোগিতায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক স্তরে অংশ নিয়ে কালীগঞ্জের মুখ উজ্জ্বল করতে চায় সুতপা মণ্ডল। পরিবারে অভাবকে হার মানিয়ে ইচ্ছা শক্তির জোরে আগামী দিনে দৌড় প্রতিযোগিতার বিভিন্ন খেলায় সফল হতে চায় লাখুরিয়া হাইস্কুলের একাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্রী। বাবা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

শারীরিক দিক থেকে খুব ভালো যাবে না। মনে একটা অজানা আশঙ্কার ভাব থাকবে। আর্থিক দিকটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩০: রাইটার্সে অলিন্দ যুদ্ধের সেনানী বিনয় বসুর মৃত্যু
১৯৮৬: অভিনেত্রী স্মিতা পাতিলের মূত্যু
২০০১: ভারতের সংসদে জঙ্গি হামলা
২০০৩: তিকরিত থেকে গ্রেপ্তার হলেন সাদ্দাম হুসেন





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮৫ টাকা ৭১.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৮৫ টাকা ৯৫.১৫ টাকা
ইউরো ৭৭.২৯ টাকা ৮০.২৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৩৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৪১৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৯৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ৯/২৪ দিবা ৯/৫৭। মৃগশিরা ০/১৮ দিবা ৬/১৮ পরে আর্দ্রা ৫৯/৯ শেষরাত্রি ৫/৫১। সূ উ ৬/১১/২, অ ৪/৪৯/৩৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৬ গতে ৯/৪৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫২ গতে ২/৪২ মধ্যে পুনঃ ৩/২৫ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৯/১৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৮ গতে ৩/৩২ মধ্যে পুনঃ ৪/২৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৫০ গতে ১১/৩০ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৯ গতে ৯/৪৯ মধ্যে। 
২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, শুক্রবার, প্রতিপদ ১০/৫৮/৫৭ দিবা ১০/৩৬/৩৮। মৃগশিরা ৩/১৮/৩৯ দিবা ৭/৩২/৩১, সূ উ ৬/১৩/৩, অ ৪/৪৯/৫৫, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪ মধ্যে ও ৭/৪৬ গতে ৯/৫৩ মধ্যে ও ১২/০ গতে ২/৪৯ মধ্যে ও ৩/৩২ গতে ৪/৫০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৫০ গতে ৯/২৫ মধ্যে ও ১২/৬ গতে ৩/৪০ মধ্যে ও ৪/৩৪ গতে ৬/১৪ মধ্যে, কালবেলা ১০/১১/৫৩ গতে ১১/৩১/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/১০/৪২ গতে ৯/৫১/৫ মধ্যে। 
১৫ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বাগুইআটিতে বেসরকারি স্কুলে বিক্ষোভ 
ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে বাগুইআটির দেশবন্ধু নগরের একটি বেসরকারি ইংরেজি মাধ্যম ...বিশদ

02:21:00 PM

ক্যাবের বিরুদ্ধে সোমবার রাজপথে মমতা 
এনআরসির পর এবার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন। ফের পথে নামতে চলেছেন ...বিশদ

02:15:00 PM

অনুপ্রবেশের অভিযোগে মহারাষ্ট্রের পালঘরে গ্রেপ্তার বাংলাদেশের ৭জন নাগরিক

02:03:41 PM

প্রবল বৃষ্টির জেরে জলমগ্ন দিল্লির একাধিক এলাকা 

01:55:00 PM

শালবনিতে গাড়ি দুর্ঘটনা, মৃত ২
 

পশ্চিম মেদিনীপুরের শালবনিতে বিয়ে বাড়ি থেকে ফেরার পথে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ...বিশদ

01:53:31 PM

আমতায় বাস-গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ১ 
আমতায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে গাড়ির মুখোমুখি সংঘর্ষ। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হল ...বিশদ

01:48:25 PM