Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

 ময়নাগুড়িতে দেখা নেই নদীয়ালি মাছের

সোমনাথ চক্রবর্তী: ভরা বর্ষাতেও দেখা মিলছে না নদীয়ালি মাছের। বাজারে মনপসন্দ নদীয়ালি মাছ দেখতে না পেয়ে হতাশ বাঙালি মৎস্যপ্রেমীরা। আবার নদীয়ালি মাছ ধরতে না পেরে সমস্যায় পড়েছেন মৎস্যজীবীরাও। নদীয়ালি মাছের জোগান না থাকায় বাধ্য হয়ে নদী থেকে অন্য মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করতে হচ্ছে মৎস্যজীবিদের। তবে নদীয়ালি মাছে লাভ বেশি। তাই এধরনের মাছের সঙ্কট দেখা দেওয়ায় আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ছেন তাঁরা। এদিকে এই সংকটের জন্য মৎস্যচাষীদের একাংশের নানা কু-অভ্যাসকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞরা।
রামশাই কৃষিবিজ্ঞান কেন্দ্রের মৎস্যবিজ্ঞানী ইন্দ্রনীল ঘোষ বলেন, উত্তরের নদীগুলি থেকে নদীয়ালি মাছ হারিয়ে যেতে বসেছে। এর জন্য আমরা নিজেরাই অনেকটা দায়ী। মৎস্যচাষীদের মধ্যে অনেকেই নদী থেকে মাছ ধরতে বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যবহার করেন বা বিষ প্রয়োগ করেন। এর ফলে নদীতে বা জলাশয়ে মাছের প্রজনন হ্রাস পায়। বিষ প্রয়োগে অনেক সময় নদীতে মাছের মড়ক দেখা দিতে পারে। নদীতে বিষ প্রয়োগ করলে ছোট-বড় মাছ মরে যায়। আবার ডিমযুক্ত মাছগুলিরও মৃত্যু হয়। অপরদিকে, একটু লাভের আশায় নদী থেকে ডিমওয়ালা মাছ ধরে ফেলেন অনেক মৎস্যজীবী। এর ফলে মাছের ঘাটতি দেখা দেয় নদীতে। এছাড়া কৃষিজমিতে যে হারে রাসায়নিক সার ও কীটনাশক প্রয়োগ করা হয়, সেসব কোনওভাবে নদীতে মিশে গেলে মাছের প্রজনন বাঁধা পায়। অনেক সময়ে জমিতে কীটনাশক দেওয়ার পরে সেই কীটনাশকের প্লাস্টিক বা পাত্র নদীতে ধোয়া হয়। এর ফলেও মাছের বংশবিস্তার ব্যাহত হয়। প্রায়ই থার্মোকল, প্লাস্টিক সহ নানারকমের আবর্জনা বিভিন্ন নদীতে ফেলা হয়। সেসব থেকেও দূষণ ছড়ায় এবং মাছের মৃত্যু ঘটে। এখন তাই নদীতে জেলেরা জাল ফেললেও মাছের দেখা মেলে না।
স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, দিন দিন তিস্তা, জলঢাকা সহ ময়নাগুড়ির জর্দা, খুকশিয়া প্রভৃতি নদী থেকে নদীয়ালি মাছ হারিয়ে যেতে বসেছে। একসময় এই সমস্ত নদী থেকে মৎস্যচাষিরা মাছ ধরে সেই মাছ ময়নাগুড়ি, ধূপগুড়ি, জলপাইগুড়ি সহ বিভিন্ন পাইকারি ও খুচরো বাজারে বিক্রয় করতেন। কিন্তু সেই মৎস্যজীবীরাই বলছেন, আগের তুলনায় বর্তমানে নদীয়ালি মাছের দেখা মেলাই ভার।
ময়নাগুড়ি পুরাতন বাজারের মৎস্য বিক্রেতারা বলেন, আগে বর্ষাকালে নদী থেকে প্রচুর মাছ পাওয়া যেত। নদীয়ালি মাছের বাজার মূল্য একটু বেশি হলেও ক্রেতারা কিন্তু সেই মাছ কেনেন। কিন্তু দিন দিন নদীয়ালি মাছের জোগান কমে যাচ্ছে। এর ফলে নদী থেকে মাছ ধরে যাঁদের জীবিকা নির্বাহ করতে হয়, তাঁরা আর্থিক সঙ্কটের সম্মুখীন হচ্ছেন। খাদ্যরসিক বাঙালিরও থালায় আর উঠছে না নদীয়ালি মাছ।
ময়নাগুড়ির একটি পরিবেশপ্রেমী সংগঠনের সম্পাদক নন্দুকুমার রায় বলেন, এই নদীয়ালি মাছ যে নদী থেকে হারিয়ে যাচ্ছে, তার জন্য তো আমরাই দায়ী। সামান্য লাভের আশায় ছোট মাছ তুলে ফেলা হচ্ছে। ডিমযুক্ত মাছ ধরা হচ্ছে। চুপিসারে নদীতে মশারি জাল নামানো হচ্ছে। পাশাপাশি জলের মধ্যে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে মাছ ধরা এবং বিষপ্রয়োগের মতো ঘটনা তো আছেই। জলে বিষ দিয়ে মাছ মারলে সেই মাছের মধ্যেও বিষ ঢুকে যেতে পারে। সেই মাছ খাোয়া কিন্তু বিপজ্জনক। স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে নদীগুলিতে নজরদারি চালানো উচিত। না হলে এমনটা চলতে থাকলে অচিরেই একেবারে লুপ্ত হয়ে যাবে নদীয়ালি মাছ।

04th  September, 2019
গড়বেতায় দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গড়বেতা ১ নম্বর ব্লকের তাপসকুমার তেওয়ারি ব্লকের ১০ নম্বর গরঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ধ্বনি গ্রামের চাষিদের নিয়ে কম খরচে, অল্প সময়ের মধ্যে দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ করে ভালো লাভ পেয়েছেন।  বিশদ

শিলিগুড়িতে রেশম গুটি উৎপাদনে লাভের মুখ 

সুব্রত ধর, শিলিগুড়ি: রেশম দপ্তরের উদ্যোগে ফাঁসিদেওয়া ও মাটিগাড়ায় অগ্রহায়ণী পি-১ সঞ্চ গুটির ভালো উৎপাদন হয়েছে। পরবর্তী বন্দগুলিতেও উৎপাদনে জোর দেওয়া হচ্ছে। পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও বিক্রির সুবন্দোবস্ত থাকায় এই গুটি উৎপাদনের ফলে কৃষকরা আর্থিকভাবে সহজেই লাভবান হতে পারবেন।  বিশদ

সাদা মাছি দমনে জৈব নির্যাসে ভরসা রাখছেন কৃষি বিজ্ঞানীরা 

নবজ্যোতি সরকার: ফসলে সাদা মাছি দমনে নিমতেল ও নিমের নির্যাসের পাশাপাশি জৈব ওষুধের উপর ভরসা রাখতে বলছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। বাজার চলতি যেকোনও কীটনাশক কিনে হঠাৎ করে প্রয়োগ করলে ফল উল্টো হতে পারে।   বিশদ

ডাল চাষ করে লাভের মুখ দেখতে পারেন চাষিরা 

সন্দীপ বর্মন, কোচবিহার: কোচবিহার জেলার আবহাওয়া ও জমির চরিত্র অনুযায়ী নভেম্বর মাস ডাল চাষের উপযুক্ত সময় বলে জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা জানান, একটু উঁচু, যেখানে বৃষ্টির জল দাঁড়ায় না, এ ধরনের ঢালু জমিতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই কলাইয়ের বীজ বোনা যেতে পারে।  বিশদ

বর্ষার পেঁয়াজ উঠতে শুরু করেছে, ভালো দাম মেলায় খুশি কৃষকরা 

ব্রতীন দাস: বর্ষার পেঁয়াজ উঠতেই বাজারে ভালো দাম পাচ্ছেন চাষিরা। ফলে হাসি ফুটেছে তাঁদের মুখে। এমন কৃষকও রয়েছেন, যিনি এক বিঘা জমি থেকে বর্ষার পেঁয়াজ বিক্রি করে এক লক্ষ টাকারও বেশি লাভ করেছেন।  বিশদ

অল্প জমিতে ‘আপেল’ কুল চাষ করে আয়ের নয়া দিশা দেখাচ্ছে কৃষিদপ্তর 

অনিমেষ মণ্ডল, কাটোয়া: অল্প জমিতে আপেল কুল চাষ করে আয়ের নয়া দিশা দেখাচ্ছে কৃষিদপ্তর। গতানুগতিক চাষ থেকে বেরিয়ে অল্প পতিত জমিতেই আপেল কুল চাষ করে বছরে মোটা টাকা আয় করতে পারবেন চাষিরা।   বিশদ

বোরো মরশুমে ১ লক্ষ ১০ হাজার একর জমিতে নিঃশুল্ক জল দেবে সেচদপ্তর 

বিএনএ, শিলিগুড়ি: এবার বিনা মাশুলে জলপাইগুড়ি জেলায় একলক্ষ একরেরও বেশি বোরো চাষের জমিতে দেওয়া হবে সেচের জল। বুধবার সেচের জল বণ্টন নিয়ে প্রস্তুতি বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেচদপ্তরের তিস্তা ব্যারেজ প্রজেক্ট কর্তৃপক্ষ। তবে তিস্তা সেচ প্রকল্পের বহু শাখা ক্যানেল ও ফিল্ড চ্যানেলের অবস্থা বেহাল। 
বিশদ

05th  December, 2019
উদ্যানপালন দপ্তরের সহযোগিতায় বাণিজ্যিকভাবে গাঁদা ফুল চাষে সাফল্য এসেছে, আগ্রহ বেড়েছে চাষিদের 

সংবাদদাতা, গঙ্গারামপুর: দক্ষিণ দিনাজপুর জেলায় উদ্যানপালন দপ্তরের উদ্যোগে সরকারি সহায়তায় বাণিজ্যিকভাবে গাঁদা ফুল চাষ করে লাভের মুখ দেখছেন বাগিচা চাষিরা। খুব অল্প খরচে, কম সময়ে গাঁদাফুল চাষ করা যাচ্ছে। জেলাজুড়ে ফুলের ভালো বাজার থাকায় গাঁদাফুল চাষিরা লাভও করছেন। 
বিশদ

05th  December, 2019
নদীয়ায় নয়া মাছির আক্রমণ, সাদা হয়ে যাচ্ছে নারকেল গাছের পাতা 

শীর্ষেন্দু দেবনাথ, কৃষ্ণনগর: এক ধরনের সাদা মাছির আক্রমণে নারকেল গাছের পাতা সাদা হয়ে যাচ্ছে। এমনকী নারকেল বা ডাবের রং-ও সাদা হয়ে যাচ্ছে। পরে যদিও তা হয়ে যাচ্ছে কালো। নদীয়া জেলায় গত দু’ থেকে তিন দিন ধরে বিভিন্ন ব্লক থেকে এরকম খবর পেয়েছেন জেলা কৃষি দপ্তরের কর্তারা।
বিশদ

04th  December, 2019
গড়বেতায় দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষে লাভ বেশি 

সংবাদদাতা: পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার গড়বেতা ১ নম্বর ব্লকের তাপসকুমার তেওয়ারি ব্লকের ১০ নম্বর গরঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত ধ্বনি গ্রামের চাষিদের নিয়ে কম খরচে, অল্প সময়ের মধ্যে দেশি মাগুরের সঙ্গে গলদা চিংড়ির চাষ করে ভালো লাভ পেয়েছেন। এতে ওই অঞ্চলের চাষিদের মধ্যে মাছ চাষে প্রবল উৎসাহ দেখা দিয়েছে।  
বিশদ

04th  December, 2019
ডাল চাষ করে লাভের মুখ দেখতে পারেন চাষিরা 

সন্দীপ বর্মন, কোচবিহার: কোচবিহার জেলার আবহাওয়া ও জমির চরিত্র অনুযায়ী নভেম্বর মাস ডাল চাষের উপযুক্ত সময় বলে জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁরা জানান, একটু উঁচু, যেখানে বৃষ্টির জল দাঁড়ায় না, এ ধরনের ঢালু জমিতে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহ থেকেই কলাইয়ের বীজ বোনা যেতে পারে। 
বিশদ

04th  December, 2019
দুধের উৎপাদন বাড়ানোয় জোর, গোপালকদের প্রশিক্ষণ দেবে প্রাণিসম্পদ দপ্তর 

বিএনএ, বহরমপুর: রাজ্যে দুধের উৎপাদন আরও বাড়াতে একাধিক পদক্ষেপ নিচ্ছে প্রাণিসম্পদ দপ্তর। এখন রাজ্যে মোট দুধ উৎপাদন হয় ৫৬লক্ষ ৬ হাজার ৮৯৯ টন। তারমধ্যে গ্রীষ্মকালে দুধ উৎপাদন হয় ১৮লক্ষ ৫৬ হাজার ৪৫৫ টন। বর্ষার সময় দুধ পাওয়া যায় ১৮ লক্ষ ৯৫ হাজার ৪২ টন। শীতকালে দুধের পরিমাণ কিছুটা কমে যায়। 
বিশদ

04th  December, 2019
বীজ আলুর জন্য সময়ে চাষ শুরু করা জরুরি, সার দিতে হবে মেপে 

ব্রতীন দাস: বীজ আলু তৈরির জন্য সময়ে চাষ জরুরি। সারও দিতে হবে মেপে। সেইসঙ্গে পরিচর্যাও গুরুত্বপূর্ণ। সঠিক পদ্ধতি না মানলে মার খেতে পারে ফলন। এমনটাই বলছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক সঞ্জীব দাস জানিয়েছেন, বীজ আলুর লক্ষ্যে চাষ করতে হলে অবশ্যই ব্রিডার সিড লাগবে। 
বিশদ

04th  December, 2019
শিলিগুড়িতে রেশম গুটি উৎপাদনে লাভের মুখ 

সুব্রত ধর, শিলিগুড়ি, রেশম দপ্তরের উদ্যোগে ফাঁসিদেওয়া ও মাটিগাড়ায় অগ্রহায়ণী পি-১ সঞ্চ গুটির ভালো উৎপাদন হয়েছে। পরবর্তী বন্দগুলিতেও উৎপাদনে জোর দেওয়া হচ্ছে। পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও বিক্রির সুবন্দোবস্ত থাকায় এই গুটি উৎপাদনের ফলে কৃষকরা আর্থিকভাবে সহজেই লাভবান হতে পারবেন। 
বিশদ

04th  December, 2019

Pages: 12345

একনজরে
 বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: ছ’ঘণ্টার জায়গায় চারদিন! হ্যাঁ, শুনতে অবাক লাগলেও এমনই অবস্থা হচ্ছে ডেঙ্গু কবলিত কলকাতা লাগোয়া দুই ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষের ডেঙ্গু পরীক্ষার রিপোর্ট পেতে। কিছুদিন আগেই রাজ্য সরকার নির্দেশ দিয়েছিল, ডেঙ্গু পরীক্ষার রিপোর্ট দিতে সরকারি হাসপাতালগুলির ঢিলেমি ...

মাদ্রিদ ১০ ডিসেম্বর (পিটিআই): গ্রিন হাউস গ্যাসের নির্গমণের মাত্রা কমিয়ে এনে আন্তর্জাতিক মঞ্চে উচ্চ প্রশংসিত হল ভারত। মঙ্গলবার মাদ্রিদে জলবায়ু সংক্রান্ত শীর্ষ সম্মেলন সিওপি-২৫’-এ ‘ক্লাইমেক্স চেঞ্জ পারফরমেন্স ইনডেক্স (সিসিপিআই) প্রকাশিত হয়। ...

সংবাদদাতা, খড়্গপুর: মঙ্গলবার সকালে চীনা মাঞ্জায় গলা কেটে খড়্গপুর শহরে এক স্কুলছাত্রের মর্মান্তিক মৃত্যু হল। তার নাম মহম্মদ সাদেক(১৫)। বাড়ি পাঁচবেড়িয়া কাজি মহল্লায়। সে সাউথ সাইড হাই স্কুলে অষ্টম শ্রেণীতে পড়ত।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্য নার্সিং কাউন্সিলের রেজিস্ট্রারের সই ও লেটারহেড জাল করে ভুয়ো নার্সিং স্কুল খুলে প্রতারণা ব্যবসা চালানো হচ্ছে বলে কিছুদিন আগেই অভিযোগ করা হয়েছিল বিধাননগর উত্তর থানায়। এবার রানিগঞ্জ থানায়ও একই অভিযোগ জানিয়ে অবিলম্বে লোক ঠকানোর এই ব্যবসা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

মানসিক অস্থিরতার জন্য পঠন-পাঠনে আগ্রহ কমবে। কর্মপ্রার্থীদের যোগাযোগ থেকে উপকৃত হবেন। ব্যবসায় যুক্ত হলে শুভ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯২২: অভিনেতা দিলীপকুমারের জন্ম
১৯২৪: সাহিত্যিক সমরেশ বসুর জন্ম
১৯৩৫: প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯৪২: সঙ্গীত পরিচালক আনন্দ শংকরের জন্ম
১৯৬১: অভিনেতা তুলসী চক্রবর্তীর মৃত্যু
১৯৬৯: ভারতীয় দাবাড়ু বিশ্বনাথন আনন্দের জন্ম
২০০৪: সঙ্গীতশিল্পী এম এস শুভলক্ষ্মীর মৃত্যু
২০১২: সেতারশিল্পী রবিশঙ্করের মৃত্যু  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৪২ টাকা ৭২.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.১৯ টাকা ৯৫.৫৯ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৫ টাকা ৮০.৪৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,২৩৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,২৭৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬,৮২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩,৫০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩,৬০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার, চতুর্দশী ১২/৩ দিবা ১০/৫৯। রোহিণী অহোরাত্র। সূ উ ৬/১০/১৮, অ ৪/৪৯/০, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫২ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৫ গতে ৮/১৮ মধ্যে পুনঃ ১০/২৫ গতে ১২/৩৩ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪২ গতে ৬/৩৫ মধ্যে পুনঃ ৮/২২ গতে ৩/৩০ মধ্যে, বারবেলা ৮/৫০ গতে ১০/১০ মধ্যে পুনঃ ১১/৩০ গতে ১২/৫০ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৪৯ গতে ৪/৩০ মধ্যে।
২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, বুধবার, চতুর্দশী ১১/৩৯/৪১ দিবা ১০/৫১/২৭। কৃত্তিকা ০/৪১/৪৪ প্রাতঃ ৬/২৮/১৭, সূ উ ৬/১১/৩৫, অ ৪/১/১৭, অমৃতযোগ দিবা ৭/২ মধ্যে ও ৭/৪৪ গতে ৮/৩২ মধ্যে ও ১০/৩৩ গতে ১২/৪০ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৮ গতে ৬/৪১ মধ্যে ও ৮/২৯ গতে ৩/৩৯ মধ্যে, কালবেলা ৮/৫১/২ গতে ১০/১০/৪৫ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৫১/২ গতে ৪/৩১/১৯ মধ্যে।
১৩ রবিয়স সানি

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কোচবিহারে পুলিস সুপারের অফিস অভিযান মহিলা মোর্চার 

02:40:00 PM

দীঘায় শুরু হল বেঙ্গল বিজনেস কনক্লেভ 

02:07:00 PM

আজ পার্শ্বশিক্ষকদের সঙ্গে বৈঠক শিক্ষামন্ত্রীর, বিকাশ ভবনে আঁটসাট নিরাপত্তা 
পার্শ্বশিক্ষকদের ৩১ দিনের অবস্থান ও ২৭ দিনের অনশনের মাথায় তাঁদের ...বিশদ

01:51:00 PM

ট্রেড ইউনিয়নগুলির ডাকে ১২ দিনের লং মার্চের সমাপ্তি সমাবেশে বক্তব্য রাখছেন সীতারাম ইয়েচুরি 

01:49:00 PM

নিট: সংশোধিত প্রসপেক্টাসে যোগ হল বাংলা 
ডাক্তারিতে ভর্তির সর্বভারতীয় নিট পরীক্ষার প্রসপেক্টাসে বাংলা বাদ পড়ায় শুরু ...বিশদ

01:47:50 PM

রতুয়ায় ব্যবসায়ী খুনে ধৃত বিহারের ৩ দুষ্কৃতী 
মালদহের রতুয়ায় ব্যবসায়ীকে খুনের ঘটনায় ভিন রাজ্যের তিন দুষ্কৃতীকে গ্রেপ্তার ...বিশদ

01:23:00 PM