Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 
 

ব্রোকলি। নদীয়ার কোতোয়ালির দিগনগরে তোলা নিজস্ব চিত্র 

শীতকালীন রকমারি সব্জিচাষের প্রস্তুতি নিতে হবে এখন থেকেই
আমনে ভালো ফলন পেতে জরুরি অনুখাদ্য

ব্রতীন দাস: যে সব কৃষক এখনও মূলজমিতে আমন ধান রোয়া করেননি, তাঁদের দ্রুততার সঙ্গে ধান রোয়ার কাজ শেষ করে ফেলার পরামর্শ দিচ্ছেন কৃষি আধিকারিকরা। তাঁদের বক্তব্য, মূলসার হিসেবে একর প্রতি ৯০ কেজি হারে সিঙ্গল সুপার ফসফেট, ৩০ কেজি মিউরিয়েট অফ পটাশ, ২৪ কেজি ইউরিয়া ও ১৫০ কেজি হারে জৈবখোল প্রয়োগ করতে হবে। এই সময় আউশ ধানের জমিতে মাজরা, পাতামোড়া সহ বিভিন্ন পোকার আক্রমণের আশঙ্কা থাকে। এ ধরনের পোকা দমন করার জন্য কার্টাপ হাইড্রোক্লোরাইড ৫০ শতাংশ এসপি প্রতি লিটার জলে ১ গ্রাম হারে ব্যবহার করা যেতে পারে বলে সুপারিশ করছেন কৃষি আধিকারিকরা। বাদামি শোষক পোকা দমনে প্রয়োগ করা যেতে পারে ফিপ্রোনিল ৫ শতাংশ এসপি। প্রতি লিটার জলে প্রয়োগ করতে হবে দেড় মিলি হারে। খোলাপচা, গোড়াপচা ও ডাঁটাপচা রোগ প্রতিরোধে ব্যবহার করতে হবে ভ্যালিডামাইসিন ৩ শতাংশ এল। মাত্রা প্রতি লিটার জলে ২ মিলি। ধানের ঝলসা রোগ প্রতিরোধে কাসুগামাইসিন ৩ শতাংশ এসএল প্রতি লিটার জলে ২ মিলি হারে ও পাতায় বাদামি ছিটে দাগ রোগ প্রতিরোধে কপার হাইড্রক্সাইড ৭৭ শতাংশ ডব্লুপি প্রতি লিটার জলে ২ গ্রাম হারে প্রয়োগ করতে হবে।
শীতকালীন সব্জি চাষের জন্য এইসময় বীজতলা তৈরির কাজ শুরু করা যেতে পারে। এক মিটার চওড়া, ১৫ সেন্টিমিটার উঁচু এবং উপযুক্ত দৈর্ঘ্যের বীজতলা তৈরি করতে হবে। শোধন করে তবেই বুনতে হবে বীজ। পুষ্ট ও নিরোগ চারা রোপণ করতে হবে মূল জমিতে। ভাদ্রমাসে পেঁয়াজ, মাঝ-মরশুমি ফুলকপি, জলদি সাধারণ বাঁধাকপি, জলদি মটরশুঁটি, ফরাস-বিন এবং গাজরের বীজ বোনারও সঠিক সময়। বড় কন্দের পেঁয়াজ ১৫ বাই ১০ সেমি, ছাঁচি পেঁয়াজ ৩০ বাই ১৫ সেমি, জলদি ও মাঝারি ফুলকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, মাঝারি ও নাবি জাতের ফুলকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, জলদি বাঁধাকপি ৬০ বাই ৪৫ সেমি, জলদি মটরশুঁটি ৩০ বাই ১০ সেমি, লতানে ফরাস-বিন ৯০ বাই ২০ সেমি, বেঁটে ফরাস বিন ৪৫ বাই ১৫ সেমি দূরত্বে চারা বা বীজ বসাতে হবে। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. কল্যাণ চক্রবর্তী জানিয়েছেন, শীতকালিন সব্জির জমি তৈরির জন্য উপযুক্ত মাত্রায় কেঁচোসার বা গোবরসার প্রয়োগ করতে হবে। হেক্টর প্রতি জৈবসার প্রয়োগের মাত্রা পেঁয়াজের ক্ষেত্রে ৫-৬ টন কেঁচোসার, ফুলকপি ও বাঁধাকপি, ফরাস বিন, গাজরের ক্ষেত্রে ১৫-২০ টন গোবরসার প্রয়োগ করতে হবে। প্রতি হেক্টর জমির জন্য পেঁয়াজে ১২০: ৬০: ১০০, ফুলকপিতে ১২৫: ৮০: ৬০, বাঁধাকপিতে ১৫০: ৮০: ৮০, মটরশুঁটিতে ২৫: ৬০: ৬০, ফরাস বিনে ৮০: ৬০: ৪০ এবং গাজরে ৫০: ৪০:৫০ কেজি নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করা উচিত।
অনুখাদ্যের অভাবজনিত কারণে সুপারিশকৃত অনুখাদ্য প্রয়োগ করা জরুরি। নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সারকে ইউরিয়া, সিঙ্গল সুপার ফসফেট ও মিউরিয়েট অফ পটাশে হিসেব করতে হলে ২.২, ৬.১ এ ১.৬ দিয়ে গুণ করে নিতে হবে। জলদি ও মাঝারি জাতের ফুলকপির জন্য বিঘা প্রতি ৬০-৭০ গ্রাম, জলদি বাঁধাকপির জন্য ৮০-৯০ গ্রাম, জলদি মটরশুঁটির জন্য ১০-১২ কেজি, ফরাস বিনের ১৩-১৪ কেজি এবং গাজরের জন্য দেড় কেজি থেকে দুই কেজি বীজ দরকার। মাঝারি ফুলকপির জাতগুলি হল পন্থ শুভ্র, হিসার-১, ইম্প্রুভ জাপানিজ, পুসা শরদ, পন্থ গোবি-৪, পাঞ্জাব জায়েন্ট-৩৫ অথবা ডি-৯৬, পুসা আর্লি সিন্থেটিক, পুসা হিমজ্যোতি, পুসা শুভ্র। বাঁধাকপির জাতগুলির মধ্যে গ্রিন এক্সপ্রেস, রেয়ার বল, মাস্টার এক্সপ্রেস, কৃষ্ণা, হরিরানি, ট্রপিকাল ইত্যাদি উন্নত জাত। মটরশুঁটির জলদি জাতের মধ্যে আর্কেল, হিসার হরিত, জওহর মটর-৪, হরভজন, আলাস্কা, আর্লি বাজার, মেটিওর, আসওজি, অলডারম্যান, আজাদ পি-১ প্রভৃতি উন্নত জাত। গাজরের উন্নত জাত ন্যানটিস, পুসা কেশর, পুসা মেঘালি প্রভৃতি। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শ্রাবণ মাসের মধ্যে রোয়ার কাজ শেষ না হলে ভাদ্র মাসের মধ্যে আমন ধান রোয়া শেষ করে ফেলতে হবে। যাঁরা শ্রাবণ কিংবা আষাঢ় মাসের শেষে ধান রোয়া করে ফেলেছেন তাঁরা সময় বুঝে রোয়ার তিন সপ্তাহ পর বা দ্বিতীয় রোয়ার ছয় সপ্তাহ পর নিড়ানির পরে চাপান সার দেবেন। জমি তৈরি পর্বে শেষ চাষের সময় সুপারিশকৃত নাইট্রোজেন সারের এক চতুর্থাংশ, সম্পূর্ণ ফসফেট ও অর্ধেক পরিমাণ পটাশ সার দেওয়া হয়। এখন প্রথম চাপান সার হিসেবে অর্ধেক নাইট্রোজেন ও অর্ধেক পটাশ সার দিতে হবে। দ্বিতীয় চাপানের সময় বাকি এক চতুর্থাংশ নাইট্রোজেন সার প্রয়োগ করতে হবে। আগাছা দমনের জন্য চারা রোয়ার চার দিনের মাথায় প্রতি বিঘা জমির জন্য ৬০ লিটার জলে ২৫০ মিলি বুটাক্লোর ৫০ ইসি গুলে স্প্রে করা যেতে পারে। নতুবা নিড়ানির সাহায্যে বা হাত দিয়ে আগাছা তুলে ফেলতে হবে চাপান সার প্রয়োগ করার ঠিক আগে। আমন ধানে প্রথম চাপান হিসেবে বিঘা প্রতি ৬ কেজি নাইট্রোজেন এবং ৩ কেজি পটাশ এবং দ্বিতীয় চাপান হিসেবে ৩ কেজি নাইট্রোজেন প্রয়োগ করা দরকার। শ্রাবণ মাসে আখে সুপারিশকৃত চাপান সার দিয়ে ভেলি তুলে দেওয়ার কাজ শেষ হয়ে থাকলে ভাদ্রমাসে শুকনো পাতা দিয়ে কয়েক বাণ্ডিল আখ একসঙ্গে বেঁধে দেওয়ার কাজ শেষ করতে হবে, যাতে ঝড়বৃষ্টিতে আখ মাটিতে পড়ে না যায়। এইসময় আখের মাজরা পোকা ও ধসা রোগের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। জলদি আলু আশ্বিনমাস থেকে লাগানো শুরু হলেও ভাদ্রমাস থেকেও লাগানো যায়। কুফরি অশোকা, কুফরি জ্যোতি, কুফরি চন্দ্রমুখী, কুফরি জওহর জাতের আলু বীজ পরিমাণ মতো সংগ্রহ করে ফেলতে হবে। বিঘা প্রতি আড়াই থেকে তিন কুইন্টাল বীজ আলুর দরকার। বীজ আলু শোধন করে বসাতে হবে। ম্যানকোজেব ০.২৫ শতাংশ দ্রবণে ১০ মিনিট ভিজিয়ে শোধন করা যেতে পারে। বিঘা প্রতি মোট ১০ কুইন্টাল জৈবসার ও যথাক্রমে ৩০, ২০ এবং ২০ কেজি হারে নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার ব্যবহার করতে হবে। শেষ চাষের সময় জৈবসার ছাড়াও বিঘা প্রতি ১০ কেজি নাইট্রোজেন এবং পুরো ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করতে হবে। এছাড়া প্রয়োজন অনুসারে বিঘা প্রতি ৩ কেজি হারে জিঙ্ক সালফেট মূল সার হিসেবে জমিতে দিতে হবে। মনে রাখতে হবে, আলু বসানোর ২০ ও ৪০ দিনের মাথায় বাকি নাইট্রোজেন সারের অর্ধেক করে প্রয়োগ করতে হবে। আলু বসানোর সময় সারি থেকে সারির দূরত্ব হবে ৬০ সেন্টিমিটার এবং সারিতে গাছের দূরত্ব রাখতে হবে ২০ সেন্টিমিটার। ভাদ্রমাসে খরিফ ফসল হিসেবে কলাই বোনা যাবে। শ্রাবণের তৃতীয় সপ্তাহ থেকেই এই কাজ শুরু করা যেতে পারে। বিঘা প্রতি তিন থেকে সাড়ে তিন কেজি বীজ লাগবে। বীজ শোধন করতে প্রতি কেজিতে ২ গ্রাম কার্বেন্ডাজিম মিশিয়ে নিতে হবে। বীজের সঙ্গে নির্দিষ্ট রাইজোবিয়াম জীবাণু সার ব্যবহার করা উচিত। কলাইয়ের উন্নত জাত সারদা, গৌতম, উত্তরা, কালিন্দী প্রভৃতি। জমি তৈরি করতে জৈবসার ছাড়াও বিঘাপ্রতি যথাক্রমে ৩, ৫ ও ৫ কেজি নাইট্রোজেন, ফসফেট ও পটাশ সার প্রয়োগ করতে হবে।

04th  September, 2019
মিষ্টি জল নষ্ট করে বোরো ধান চাষ করা বিলাসিতা, মত রাজ্যের কৃষি অধিকর্তার 

নিজস্ব প্রতিনিধি: মিষ্টি জল খরচ করে বোরো ধান চাষ করা বিলাসিতা। সেকারণেই রাজ্য কৃষি দপ্তর চাইছে না, মিষ্টি জল নষ্ট করে বেশি এলাকায় বোরো ধান চাষ হোক। এমনই মন্তব্য রাজ্য কৃষি অধিকর্তা সম্পদরঞ্জন পাত্রর।   বিশদ

খেয়ালি আবহাওয়ায় আলুতে ধসা রুখতে মাঠে কৃষি কর্তারা 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: হুগলি জেলায় আলু চাষে ধসা রোগের হাত থেকে চাষিদের রক্ষা করতে সরাসরি মাঠে নামলেন কৃষি আধিকারিকরা। খামখেয়ালি আবহাওয়ার জন্য আলুচাষিরা চিন্তিত। গত তিনমাসে একাধিকবার অকাল বৃষ্টিতে রবি মরশুমের প্রধান অর্থকরী ফসল আলু চাষে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়েছে।
বিশদ

পুরনো আম-কাঁঠাল গাছে ফল ঝরে পড়া রুখতে পরিচর্যা জরুরি 

সংবাদদাতা: ঠাণ্ডা প্রায় যেতে বসেছে। আম ও কাঁঠাল গাছে মুকুল আসছে। এমনিতেই কুয়াশা ও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে এবার মুকুল ধরতে দেরি হয়েছে। ফলে ভালো ফলন পেতে এই দুটি গাছে এখন পরিচর্যা জরুরি। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা।  
বিশদ

ফসল রক্ষায় ঠেকাতে হবে ইঁদুরের আক্রমণ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: ফসল উৎপাদনের পর চাষিরা উৎপাদিত ফসল বস্তায়, বড় ড্রাম অথবা খড়ের বেড়িতে গুদামজাত করেন। কিন্তু ইঁদুরের আক্রমণে প্রায় ১০-১৫ শতাংশ ফসল নষ্ট হয়ে যায়। ফলে চাষিদের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়।   বিশদ

কম খরচে মুড়ি আখ চাষে লাভ বেশি 

সংবাদদাতা : কম খরচে বেশি লাভ পেতে চাষিরা মুড়ি আখ চাষে আগ্রহী হলে ভালো লাভ পাবেন। মুড়ি আখ লাগানোর উপযুক্ত সময় মাঘ-ফাল্গুন মাসের মাঝামাঝি। মুড়ি আখ চাষ হল, আগের বছরের আখ কেটে ফেলার পর, সেই আখের গোড়া বা মুড়ি থেকে নতুন ফসল নেওয়া। 
বিশদ

কম পুঁজিতে মাশরুম উৎপাদন 

নিজস্ব প্রতিনিধি: কম পুঁজিতে মাশরুম চাষ করে অল্প সময়ে বেশি লাভ ঘরে তোলা সম্ভব। বাড়িতে পরিত্যক্ত একটি ঘর থাকলে সেখানেই মাশরুম উৎপাদন করা যেতে পারে। মাশরুম চাষের প্রসার ঘটাতে জেলায় জেলায় কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রগুলি এগিয়ে এসেছে। 
বিশদ

বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথ 

নবজ্যোতি সরকার: বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথের আক্রমণে ফলন কমতে পারে। বাঁধাকপি ছাড়াও ফুলকপি, ব্রোকলি, চিনা বাঁধাকপি, লাল বাঁধাকপিতে এর আক্রমণ হতে পারে। এরা বাঁধাকপির পাতার উল্টো দিকে সাদা ও হলদে রঙের ডিম পাড়ে। 
বিশদ

কাটোয়ায় ১৪০ হেক্টর আলু জমি নাবি ধসা রোগে আক্রান্ত 

সংবাদদাতা, কাটোয়া: আবহাওয়ার খামখেয়ালিপনার জন্য কাটোয়ায় এবার ১৪০ হেক্টর আলু চাষের জমি নাবি ধসা রোগে আক্রান্ত হয়েছে। সম্প্রতি মহকুমা কৃষি দপ্তর এনিয়ে জেলা প্রশাসনের কাছে রিপোর্ট পাঠিয়েছে। মহকুমাজুড়ে ধসা রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দেওয়ায় চাষিদের মাথায় হাত পড়েছে।  বিশদ

20th  February, 2020
বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথ 

নবজ্যোতি সরকার: বাঁধাকপিতে হীরক পীঠ মথের আক্রমণে ফলন কমতে পারে। বাঁধাকপি ছাড়াও ফুলকপি, ব্রোকলি, চিনা বাঁধাকপি, লাল বাঁধাকপিতে এর আক্রমণ হতে পারে। এরা বাঁধাকপির পাতার উল্টো দিকে সাদা ও হলদে রঙের ডিম পাড়ে। ওই সব ডিম থেকে কয়েকদিনেই ল্যাদা পোকা বেরিয়ে আসে। 
বিশদ

19th  February, 2020
ফসল রক্ষায় ঠেকাতে হবে ইঁদুরের আক্রমণ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: ফসল উৎপাদনের পর চাষিরা উৎপাদিত ফসল বস্তায়, বড় ড্রাম অথবা খড়ের বেড়িতে গুদামজাত করেন। কিন্তু ইঁদুরের আক্রমণে প্রায় ১০-১৫ শতাংশ ফসল নষ্ট হয়ে যায়। ফলে চাষিদের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়।
বিশদ

19th  February, 2020
পুরনো আম-কাঁঠাল গাছে ফল ঝরে পড়া রুখতে পরিচর্যা জরুরি 

সংবাদদাতা: ঠাণ্ডা প্রায় যেতে বসেছে। আম ও কাঁঠাল গাছে মুকুল আসছে। এমনিতেই কুয়াশা ও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে এবার মুকুল ধরতে দেরি হয়েছে। ফলে ভালো ফলন পেতে এই দুটি গাছে এখন পরিচর্যা জরুরি। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলা ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বাণিজ্যিকভাবে আমচাষ হয়। 
বিশদ

19th  February, 2020
খেয়ালি আবহাওয়ায় আলুতে ধসা রুখতে মাঠে কৃষি কর্তারা 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: হুগলি জেলায় আলু চাষে ধসা রোগের হাত থেকে চাষিদের রক্ষা করতে সরাসরি মাঠে নামলেন কৃষি আধিকারিকরা। খামখেয়ালি আবহাওয়ার জন্য আলুচাষিরা চিন্তিত। গত তিনমাসে একাধিকবার অকাল বৃষ্টিতে রবি মরশুমের প্রধান অর্থকরী ফসল আলু চাষে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হয়েছে। 
বিশদ

19th  February, 2020
পুরনো আম-কাঁঠাল গাছে ফল ঝরে পড়া রুখতে পরিচর্যা জরুরি 

সংবাদদাতা: ঠাণ্ডা প্রায় যেতে বসেছে। আম ও কাঁঠাল গাছে মুকুল আসছে। এমনিতেই কুয়াশা ও পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে এবার মুকুল ধরতে দেরি হয়েছে। ফলে ভালো ফলন পেতে এই দুটি গাছে এখন পরিচর্যা জরুরি। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। মালদহ ও মুর্শিদাবাদ জেলা ছাড়াও রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বাণিজ্যিকভাবে আমচাষ হয়। 
বিশদ

19th  February, 2020
কম খরচে মুড়ি আখ চাষে লাভ বেশি 

সংবাদদাতা : কম খরচে বেশি লাভ পেতে চাষিরা মুড়ি আখ চাষে আগ্রহী হলে ভালো লাভ পাবেন। মুড়ি আখ লাগানোর উপযুক্ত সময় মাঘ-ফাল্গুন মাসের মাঝামাঝি। মুড়ি আখ চাষ হল, আগের বছরের আখ কেটে ফেলার পর, সেই আখের গোড়া বা মুড়ি থেকে নতুন ফসল নেওয়া। 
বিশদ

19th  February, 2020

Pages: 12345

একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: অর্থ দপ্তরের অনুমোদন ছাড়া খরচের ব্যাপারে দপ্তরগুলির উপর আরও বিধিনিষেধ চাপানো হল। সম্প্রতি অর্থ দপ্তরের বৈঠকের পর এই সংক্রান্ত বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে।  ...

বিএনএ, বারাসত: সংস্কার কাজের জন্য আগামী শুক্রবার থেকে বনগাঁ ও বাগদার সংযোগকারী আষাড়ু ব্রিজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন। সোমবার বিকেলে বনগাঁ মহকুমাশাসকের অফিসে ব্রিজ বন্ধ করার বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়।   ...

মাদ্রিদ, ২৫ ফেব্রুয়ারি: সের্গিও র‌্যামোস, করিম বেনজেমা, সের্গিও আগুয়েরো, কেভিন ডি ব্রুইনের মতো তারকা ফুটবলাররা রয়েছেন।   ...

প্রসেনজিৎ কোলে, কলকাতা: বাণিজ্যিক গাড়ির বকেয়া দীর্ঘদিনের সিএফ (সার্টিফিকেট অব ফিটনেস)-এর পুনর্নবীকরণে জরিমানা বাবদ অতিরিক্ত ফি মেটাতে ‘ধামাকা অফার’ ঘোষণা করেছিল রাজ্য। গত ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই স্কিমের সুবিধা নেওয়া যাবে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মলাভের যোগ আছে। ব্যবসায় যুক্ত হওয়া যেতে পারে। কর্মক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। বুদ্ধিমত্তার জন্য প্রশংসা জুটবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০২: ফরাসি লেখক ভিক্টর হুগোর জন্ম
১৯০৮: লেখিকা লীলা মজুমদারের জন্ম
১৯৩৬: চিত্র পরিচালক মনমোহন দেশাইয়ের জন্ম  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭১.০৩ টাকা ৭২.৭৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৩৮ টাকা ৯৪.৬৭ টাকা
ইউরো ৭৬.৬৪ টাকা ৭৯.৬১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,৩৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪১,১৪০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৭৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৮,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৮,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) তৃতীয়া ৫৫/১৮ রাত্রি ৪/১২। উত্তরভাদ্রপদ ৪০/৮ রাত্রি ১০/৮। সূ উ ৬/৫/৪, অ ৫/৩৪/৩২, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৭ মধ্যে পুনঃ ৯/৫৬ গতে ১১/২৮ মধ্যে পুনঃ ৩/১৫ গতে ৪/৪৭ মধ্যে। রাত্রি ৫/২৩ গতে ৮/৫৪ মধ্যে পুনঃ ১/৫৫ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/৫৮ গতে ১০/২৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫০ গতে ১/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৫৭ গতে ৪/৩২ মধ্যে। 
১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, তৃতীয়া ৪৯/৪২/৮ রাত্রি ২/০/৫৫। উত্তরভাদ্রপদ ৩৫/৫৬/৩২ রাত্রি ৮/৩০/৪১। সূ উ ৬/৮/৪, অ ৫/৩৩/৩৭। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩১ মধ্যে ও ৯/৫১ গতে ১১/২৪ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১/৫১ গতে ৬/৭ মধ্যে। কালবেলা ৮/৫৯/২৭ গতে ১০/২৫/৯ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৫৯/২৭ গতে ৪/৩৩/৪৫ মধ্যে। 
১ রজব  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
৫০০ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স  

03:18:18 PM

শান্তি ও সৌভ্রাতৃত্ব বজায় রাখুন, দিল্লিবাসীর কাছে আবেদন প্রধানমন্ত্রীর 
উত্তর-পূর্ব দিল্লিজুড়ে হিংসা ছড়িয়ে পড়ার চার দিনের মাথায় এবিষয়ে প্রথম ...বিশদ

02:56:50 PM

মহিষবাথানে অগ্নিদগ্ধ প্রৌঢ়া
রান্না করতে গিয়ে গায়ে আগুন লেগে গুরুতর জখম হলেন এক ...বিশদ

02:46:00 PM

উত্তর-পূর্ব দিল্লির চাঁদবাগে মিলল আইবি অফিসারের মৃতদেহ 

02:16:00 PM

খড়্গপুর শহরের নিমপুরায় একটি পানশালায় হানা পুলিসের, গ্রেপ্তার ৬ 

01:47:00 PM

মেচেদায় লোকাল ট্রেনে ব্যাগের মধ্যে মিলল যুবকের দেহ, চাঞ্চল্য
মেচেদায় লোকাল ট্রেনে ব্যাগের মধ্যে মিলল যুবকের দেহ। আজ, বুধবার ...বিশদ

01:28:17 PM