Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 
 

ব্রোকলি। নদীয়ার কোতোয়ালির দিগনগরে তোলা নিজস্ব চিত্র 

 দক্ষিণবঙ্গে আমন চাষে ভরসা জোগাচ্ছে নিম্নচাপের বৃষ্টি, প্রস্তুতি বিকল্প চাষেরও

ব্রতীন দাস: খেয়ালি আবহাওয়ায় ধান-চাষে উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গে দুই ভিন্ন চিত্র। ঘোর সমস্যায় কৃষকরা। দক্ষিণবঙ্গে ঠিকমতো বৃষ্টি না হওয়ায় বহু জমিতে এখনও আমনের চারা রোয়া করতে পারেননি কৃষকরা। আর উত্তরবঙ্গে জুলাইয়ের প্রথমদিকে ভালোই বৃষ্টির সুবাদে প্রায় সব জমিতেই ধান রোয়া করা হয়েছে। কিন্তু এখন বৃষ্টি না হওয়ায় জমিতে লাগানো সেই চারা বাঁচাতে পারছেন না কৃষকরা। জলের অভাবে উত্তরের কৃষিজমির মাটি ফেটে যাচ্ছে। কেউ কেউ সেচ দিয়ে ধান বাঁচানোর চেষ্টা করছেন। উঁচু জমিতে থাকা ধানের অবস্থা সবচেয়ে খারাপ। মাটি শুকিয়ে যাওয়ায় আগাছার উপদ্রব বাড়ছে। কোথাও কোথাও ধানের চেয়ে আগাছা বড় হয়ে গিয়েছে। ফলে রোগপোকা আক্রমণের আশঙ্কা করছেন চাষিরা। তবে দক্ষিণবঙ্গের ক্ষেত্রে আশার কথা এই যে, নিম্নচাপের হাত ধরে বিভিন্ন জেলায় কম-বেশি বৃষ্টি শুরু হয়েছে। এতে চাষের কাজ কিছুটা এগবে।
এ পর্যন্ত যা হিসেব, দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির ঘাটতি অনেকটাই। ফলে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশ পিছিয়ে রয়েছে আমন ধান চাষ। কৃষি দপ্তর সূত্রে খবর, আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত ৬৫ শতাংশ জমিতে ধানের চারা রোয়া করা গিয়েছে। কৃষকদের ক্ষতি সামাল দিতে শস্যবিমায় জোর দেওয়া হয়েছে কৃষি দপ্তরের তরফে। ৩১ আগস্টের মধ্যে আমন ধানের জন্য শস্যবিমায় নাম নথিভুক্ত করার সময়। ফলে এনিয়ে পঞ্চায়েত স্তর পর্যন্ত প্রচার চালানো হচ্ছে। এই শস্য বিমার জন্য কৃষককে কোনও প্রিমিয়াম দিতে হবে না। সবটাই দেবে রাজ্য সরকার।
মোটামুটি ১৫ আগস্টের মধ্যে আমন ধান রোয়ার কাজ শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। কিন্তু, কৃষি দপ্তরের আধিকারিকদের বক্তব্য, আগস্টের তৃতীয় কিংবা চতুর্থ সপ্তাহেও যদি বৃষ্টির ঘাটতি পূরণ হয়ে যায়, তা হলে চাষের কাজ অনেকটাই এগিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে। যতটা আশঙ্কা করা হয়েছিল, ততটা চিন্তা থাকবে না। চাষ মার খাওয়ার সম্ভাবনা অনেকটাই মেটানো যাবে। তবে শেষমেশ যদি বৃষ্টির ঘাটতি থেকেই যায়, তা হলে বিকল্প চাষের পথে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে চাষিদের। এনিয়ে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে বলা হয়েছে জেলার কৃষি আধিকারিকদের। জেলায় জেলায় ঘুরে চাষাবাদের খোঁজখবর নিচ্ছেন কৃষিমন্ত্রী আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়। যেসব এলাকায় জলের অভাবে আমন ধান চাষ করা সম্ভব হচ্ছে না, সেখানে ডালশস্য, তৈলবীজ, বাদাম কিংবা হাইব্রিড ভুট্টা চাষের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। সেক্ষেত্রে কৃষকদের বিকল্প চাষের বীজ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রাজীব নাথ জানিয়েছেন, যেখানে আমন ধান চাষ করা সম্ভব হবে না বলে মনে করছেন কৃষক, সেখানে একেবারে সময় নষ্ট না করে মুগ কিংবা কলাই চাষ করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে বিঘা প্রতি ৪ কেজি বীজ লাগবে। বীজ শোধন করে ছড়িয়ে দিতে হবে। শেষ চাষের সময় বিঘা প্রতি ৬ কেজি ইউরিয়া, ২৫ কেজি সিঙ্গল সুপার ফসফেট ও ৭ কেজি পটাশ একসঙ্গে মিশিয়ে জমিতে দিতে হবে। চাষের ২৫-৩০ দিনের মাথায় বিঘা প্রতি চার ব্যারেল জলে নির্দিষ্ট মাত্রায় বোরণ মিশিয়ে প্রয়োগ করতে পারলে ভালো। ১৫ লিটার ব্যারেলে ৩০ গ্রাম মাত্রায় বোরন গুলতে হবে। চাষের ৪০-৪৫ দিনের মাথায় আরএক বার বোরন প্রয়োগ করা দরকার। সঙ্গে যাতে দানা পুষ্ট হয়, ফুল ঝরে না যায় সেজন্য প্রতি লিটার জলে ১ গ্রাম মাত্রায় চিলেটেড জিঙ্ক প্রয়োগ করা যেতে পারে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, পশ্চিম মেদিনীপুরে কৃষকরা বিকল্প ফসল হিসেবে বাদাম চাষ করতে পারেন। বিঘায় বীজ লাগবে ১৩ কেজি। অবশ্যই বীজ শোধন করে নিতে হবে। সারা বছর ধরেই ভুট্টা চাষ করা যেতে পারে বলে জানিয়েছেন বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. শ্রাবণী দেবনাথ। তাঁর পরামর্শ, শুধু মাথায় রাখতে হবে জমিতে যেন জল দাঁড়িয়ে না যায়। তা হলে দু’দিনের মধ্যে সমস্ত ভুট্টা গাছ মারা যাবে। ফলে ভুট্টার জমিতে অবশ্যই জল নিকাশি ব্যবস্থা ভালো রাখতে হবে। লাইনে বুনতে হবে। জমিতে যেন বেশি গাছ না থাকে। বীজ শোধন করতে হবে। আগাছা দমন করা বিশেষ প্রয়োজন। ফল আর্মি ওয়ার্ম নিয়ে সজাগ থাকতে হবে।
কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, কোথায় কোথায় বিকল্প চাষে জোর দেওয়া হবে, বৃষ্টির পরিস্থিতি দেখে ১৫ আগস্টের পর তা ঠিক করা হবে। জুলাই মাসের শেষ সপ্তাহ পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে মাত্র ২০ শতাংশ জমিতে আমন ধান রোয়া করা গিয়েছিল। তার পর কিছুটা বৃষ্টি হওয়ায় পরিস্থিতি বদলায়। পুরুলিয়া, বাঁকুড়ার অবস্থা সবথেকে খারাপ।

14th  August, 2019
লম্বা শীতের কারণে এবার আমের মুকুল দেরিতে, পরিচর্যা জরুরি 

নিজস্ব প্রতিনিধি: লম্বা শীতের কারণে এবার আমের মুকুল দেরিতে। তার উপর অকাল বৃষ্টির জন্য মুকুলের পরিবর্তে অনেক আমগাছে কচিপাতা বেরিয়ে গিয়েছে। উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, কড়া শীতের পর গরম পড়ার সময়েই আম গাছে মুকুল আসে। সেই হিসেবে এখন যে আবহাওয়া চলছে, আমে মুকুল আসার জন্য একেবারে আদর্শ।  
বিশদ

19th  February, 2020
কম পুঁজিতে মাশরুম উৎপাদন 

নিজস্ব প্রতিনিধি: কম পুঁজিতে মাশরুম চাষ করে অল্প সময়ে বেশি লাভ ঘরে তোলা সম্ভব। বাড়িতে পরিত্যক্ত একটি ঘর থাকলে সেখানেই মাশরুম উৎপাদন করা যেতে পারে। মাশরুম চাষের প্রসার ঘটাতে জেলায় জেলায় কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রগুলি এগিয়ে এসেছে। উন্নতমানের স্পন উৎপাদন করে আগ্রহীদের হাতে তুলে দিচ্ছে তারা। 
বিশদ

19th  February, 2020
মালদহে আমে মুকুল আসছে,
এখন জোর দিতে হবে পরিচর্যায় 

সিদ্ধার্থশঙ্কর সরকার, পুরাতন মালদহ: মালদহে গরমের অন্যতম ফল আম। মালদহ জেলার আম শুধু জেলাই নয়, গোটা বিশ্বে তার কদর রয়েছে। জেলার আম বিশ্বের দরবারে যে খ্যাতি লাভ করেছে, তা চাষির আগ্রহ বাড়িয়েছে।  বিশদ

12th  February, 2020
লাভ ৯ গুণ, হরিশ্চন্দ্রপুরের কৃষকরা ঝুঁকছেন মিশ্র চাষে 

উমার ফারুক, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে বেশি মুনাফা লাভের আশায় মিশ্র চাষের দিকে ঝুঁকছেন চাষিরা। ব্লক কৃষি দপ্তরের আতমা প্রকল্পের মাধ্যমে ধানের জমিতে মাছ ও সব্জি চাষ করা হচ্ছে।  বিশদ

12th  February, 2020
শিলিগুড়ি ও জলপাইগুড়িতে তৈরি হচ্ছে আলুর বীজ 

প্রসেনজিৎ সরকার, শিলিগুড়ি: এবছরও জলপাইগুড়ি ও শিলিগুড়ি মহকুমায় ফার্মার্স ক্লাবের মাধ্যমে বেশকিছু নতুন ধরনের উন্নত জাতের আলুর বীজ চাষ হচ্ছে। এবারে কুফরি সিন্দুরি, কুফরি চন্দ্রমুখী, কুফরি হিমালিনী ও কুফরি জ্যোতি জাতের আলুর বীজ তৈরি হচ্ছে।  বিশদ

12th  February, 2020
ময়নাগুড়ি, ধূপগুড়িতে এবার
ভালো লাভের আশায় আলু চাষিরা 

সোমনাথ চক্রবর্তী, ময়নাগুড়ি: চলতি মরশুমে আলুচাষে লাভের আশায় জলপাইগুড়ি জেলার ধূপগুড়ি ও ময়নাগুড়ি ব্লকের আলুচাষিরা। এবছর এই দুই ব্লকেই আলুর ফলন ভালো হয়েছে।  বিশদ

12th  February, 2020
উত্তর দিনাজপুরে বাড়ছে ভুট্টা চাষের এলাকা 

বিপুলশঙ্কর বসু, ইটাহার: উত্তর দিনাজপুর জেলার চাষিদের মধ্যে ভুট্টা চাষ নিয়ে আগ্রহ দিনদিন বেড়েই চলেছে। গতবছর জেলায় ৮০ হাজার হেক্টর জমিতে ভুট্টা চাষ হয়েছিল। এবছর যার পরিমাণ অনেকটাই বেড়েছে।   বিশদ

12th  February, 2020
রাজ্যে ডানা মেলছে থাইল্যান্ডের কালো
হাঁস, সফল হলে সর্বত্র চাষের পরিকল্পনা 

সুখেন্দু পাল, বহরমপুর: দেখতে কালো। কিন্তু গুণ অনেক বেশি। এ ধরনের কালো রঙের করকনাথ বা কালোমাসি মুরগি রাজ্যে ইতিমধ্যেই পরিচিত হয়ে উঠেছে। আসানসোল, নদীয়া, দক্ষিণ ২৪ পরগনা সহ বিভিন্ন জেলায় এই প্রজাতির মুরগি চাষ হচ্ছে।  বিশদ

12th  February, 2020
পলিহাউসে ক্যাপসিকাম 

নিজস্ব প্রতিনিধি: পলিহাউসে বাহারি ক্যাপসিকাম। বাজারে ভালো দাম মেলায় চাষে ঝোঁক বাড়ছে কৃষকদের। তিনমাসেই ফলন পাওয়া যায়। ঠিকমতো পরিচর্যা করতে পারলে গোটা মরশুমে প্রতিটি গাছ থেকে গড়ে ১৫ কেজি করে ফলন পাওয়া যায় বলে জানিয়েছেন উদ্যানপালন বিশেষজ্ঞরা। 
বিশদ

05th  February, 2020
নারকেল চাষ বদলাতে পারে গ্রামীণ অর্থনীতি 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: একশো কলাঝাড় রুয়ে থাকল চাষি ঘরে শুয়ে। একইভাবে বলা যেতে পারে একশো নারকেল গাছ বসিয়ে থাকল চাষি পা দুলিয়ে। গ্রামে গঞ্জে নারকেল চাষ বদলে দিতে পারে গ্রামীণ অর্থনীতি। রাজ্যে তথা দেশে যেভাবে নারকেলের চাহিদা বাড়ছে, তাতে যেকোনও চাষি লাভবান হতে পারেন।  
বিশদ

05th  February, 2020
লোকসান ঠেকাতে শস্য সংরক্ষণে জোর 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: ফসল উৎপাদনের পর ঠিকমতো সংরক্ষণ করতে না পারলে মজুত খাদ্যশস্যের প্রায় ১০-১৫ ভাগ নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এছাড়াও বিভিন্ন খাদ্যশস্যে বর্জ্য পদার্থ মিশে শস্যের গুণমান ও বাজারদর কমতে পারে। 
বিশদ

05th  February, 2020
জলের ব্যবহার কমিয়ে চাষ করতে হবে : কৃষিমন্ত্রী 

চাষির হাতে রয়েছে মাটির স্বাস্থ্যকার্ড। সেই কার্ডের সুপারিশ মেনে রাসায়নিক সারের ব্যবহার কমিয়ে মাটিকে জৈব মাটিতে রূপান্তরিত করতে হবে। সেই সঙ্গে তাঁদের কমাতে হবে চাষে জলের ব্যবহার। কম জলেই ভালো চাষ হবে। বিন্দু সেচ ও বারি সেচের প্রযুক্তি।
বিশদ

05th  February, 2020
শীতের দাপটে আমগাছে মুকুলের দেখা নেই, মাথায় হাত বিষ্ণুপুরের কৃষকদের 

ফেব্রুয়ারি মাসের ১৫ তারিখের পরেও যদি মুকুল না আসে, তখন ভাবতে হবে। এখনও শীত রয়েছে। সেই কারণে গাছে মুকুল আসতে দেরি হচ্ছে। শীত কমার সঙ্গে সঙ্গে মুকুল বেরবে। কিছুদিন আগে যে পরিমাণ বৃষ্টি হয়েছে তাতে চিন্তার কারণ নেই। কিন্তু, ভালো ফলন পেতে এখন আমগাছের গোড়ায় জল ও নাইট্রোজেন জাতীয় সার প্রয়োগ থেকে বিরত থাকতে হবে।
বিশদ

05th  February, 2020
স্বনির্ভরতার লক্ষ্যে বাঁকুড়ায় মাশরুম চাষে মহিলারা 

দয়াময় বন্দ্যোপাধ্যায়, খাতড়া: সারেঙ্গায় মাশরুম চাষ করে মহিলারা স্বনির্ভরতার পথ দেখাচ্ছেন। বাঁকুড়ার জঙ্গলমহলের ওই ব্লকের সারেঙ্গা গ্রাম পঞ্চায়েতের সারেঙ্গা, ছোট সারেঙ্গা, নেকড়াপাহাড়ি গ্রামের বহু মহিলা বর্তমানে ওই কাজের সঙ্গে যুক্ত। শীতের মরশুমে মাশরুম চাষ করে যে বিকল্প আয় করা যায়, তাঁরা সেই পাঠ দিচ্ছেন।  
বিশদ

05th  February, 2020

Pages: 12345

একনজরে
বিএনএ, বারাসত: সংস্কার কাজের জন্য আগামী শুক্রবার থেকে বনগাঁ ও বাগদার সংযোগকারী আষাড়ু ব্রিজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল প্রশাসন। সোমবার বিকেলে বনগাঁ মহকুমাশাসকের অফিসে ব্রিজ বন্ধ করার বিষয়ে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক হয়।   ...

তেহরান ও বেজিং, ২৫ ফেব্রুয়ারি: করোনার হানায় নতুন করে ৭১ জনের মৃত্যুর পর চীনজুড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ২ হাজার ৬৬৩। এর মধ্যে উবেইতে মারা গিয়েছেন ৬৮ জন। যদিও দেশের স্বাস্থ্য কমিশন সূত্রে জানা গিয়েছে, নতুন করে এই ভাইরাসে আক্রান্তের ...

প্রসেনজিৎ কোলে, কলকাতা: বাণিজ্যিক গাড়ির বকেয়া দীর্ঘদিনের সিএফ (সার্টিফিকেট অব ফিটনেস)-এর পুনর্নবীকরণে জরিমানা বাবদ অতিরিক্ত ফি মেটাতে ‘ধামাকা অফার’ ঘোষণা করেছিল রাজ্য। গত ১৫ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই স্কিমের সুবিধা নেওয়া যাবে ২৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।  ...

লখিমপুর খেরি, ২৫ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): উত্তরপ্রদেশের নওগাঁ গ্রামের কাছে এক পথ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন তিন বাইক আরোহী। সোমবার গভীর রাতে তাঁরা আলিয়াপুর গ্রামে একটি বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে ফিরছিলেন।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মলাভের যোগ আছে। ব্যবসায় যুক্ত হওয়া যেতে পারে। কর্মক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। বুদ্ধিমত্তার জন্য প্রশংসা জুটবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০২: ফরাসি লেখক ভিক্টর হুগোর জন্ম
১৯০৮: লেখিকা লীলা মজুমদারের জন্ম
১৯৩৬: চিত্র পরিচালক মনমোহন দেশাইয়ের জন্ম  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭১.০৩ টাকা ৭২.৭৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.৩৮ টাকা ৯৪.৬৭ টাকা
ইউরো ৭৬.৬৪ টাকা ৭৯.৬১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,৩৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪১,১৪০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৭৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৮,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৮,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) তৃতীয়া ৫৫/১৮ রাত্রি ৪/১২। উত্তরভাদ্রপদ ৪০/৮ রাত্রি ১০/৮। সূ উ ৬/৫/৪, অ ৫/৩৪/৩২, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৭ মধ্যে পুনঃ ৯/৫৬ গতে ১১/২৮ মধ্যে পুনঃ ৩/১৫ গতে ৪/৪৭ মধ্যে। রাত্রি ৫/২৩ গতে ৮/৫৪ মধ্যে পুনঃ ১/৫৫ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/৫৮ গতে ১০/২৪ মধ্যে পুনঃ ১১/৫০ গতে ১/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৫৭ গতে ৪/৩২ মধ্যে। 
১৩ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বুধবার, তৃতীয়া ৪৯/৪২/৮ রাত্রি ২/০/৫৫। উত্তরভাদ্রপদ ৩৫/৫৬/৩২ রাত্রি ৮/৩০/৪১। সূ উ ৬/৮/৪, অ ৫/৩৩/৩৭। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩১ মধ্যে ও ৯/৫১ গতে ১১/২৪ মধ্যে ও ৩/১৮ গতে ৪/৫৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫৫ মধ্যে ও ১/৫১ গতে ৬/৭ মধ্যে। কালবেলা ৮/৫৯/২৭ গতে ১০/২৫/৯ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৫৯/২৭ গতে ৪/৩৩/৪৫ মধ্যে। 
১ রজব  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
৫০০ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স  

03:18:18 PM

শান্তি ও সৌভ্রাতৃত্ব বজায় রাখুন, দিল্লিবাসীর কাছে আবেদন প্রধানমন্ত্রীর 
উত্তর-পূর্ব দিল্লিজুড়ে হিংসা ছড়িয়ে পড়ার চার দিনের মাথায় এবিষয়ে প্রথম ...বিশদ

02:56:50 PM

মহিষবাথানে অগ্নিদগ্ধ প্রৌঢ়া
রান্না করতে গিয়ে গায়ে আগুন লেগে গুরুতর জখম হলেন এক ...বিশদ

02:46:00 PM

উত্তর-পূর্ব দিল্লির চাঁদবাগে মিলল আইবি অফিসারের মৃতদেহ 

02:16:00 PM

খড়্গপুর শহরের নিমপুরায় একটি পানশালায় হানা পুলিসের, গ্রেপ্তার ৬ 

01:47:00 PM

মেচেদায় লোকাল ট্রেনে ব্যাগের মধ্যে মিলল যুবকের দেহ, চাঞ্চল্য
মেচেদায় লোকাল ট্রেনে ব্যাগের মধ্যে মিলল যুবকের দেহ। আজ, বুধবার ...বিশদ

01:28:17 PM