Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 

মৌমাছিকে অ্যান্টিবায়োটিক দাওয়াই
বিপদ ঘনাচ্ছে মধুতে, উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা

ব্রতীন দাস: মৌমাছিকে ঢালাও অ্যান্টিবায়োটিক দাওয়াই। আর তাতেই চরম বিপদ ঘনাচ্ছে মধুতে। বিষয়টি নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন বিজ্ঞানীরা। অভিযোগ, প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ ও সচেতনতার অভাবে বাংলার মৌপালকদের একাংশ মধুর পরিমাণ বাড়াতে মৌমাছির শরীরে নানারকম হরমোনের প্রয়োগ ঘটাচ্ছে। সঙ্গে দেওয়া হচ্ছে অহেতুক কড়া ডোজের অ্যান্টিবায়োটিক। এতেই প্রমাদ গুণছেন বিশেষজ্ঞরা। এমনিতেই ফসলে পোকামাকড় দমনে ব্যবহার করা হচ্ছে মাত্রাতিরিক্ত কীটনাশক। যার জেরে বিপন্ন হয়ে পড়ছে মৌমাছি। উদ্বেগজনকভাবে সংখ্যা কমছে তাদের। তার উপর মৌমাছিকে যদি লাগাতার হরমোন ও অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া হয়, তা হলে মধুতে বিপদের মাত্রা আরও বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা করছেন বিজ্ঞানীরা। তাঁদের বক্তব্য, এ ব্যাপারে মৌপালকদের অবশ্যই সচেতন হতে হবে। নতুবা জনস্বাস্থ্যের উপর খারাপ প্রভাব পড়বে। মৌমাছিকে মাত্রাছাড়া অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়ার জেরে মধুতে তার প্রভাব পড়ায় এ রাজ্য থেকে বিদেশে মধু রপ্তানি আটকে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে ইতিপূর্বে। ফলে বিষয়টিকে মোটেই হাল্কাভাবে নিচ্ছেন না বিজ্ঞানীরা।
মৌমাছি পালনের মাধ্যমে মিষ্টি বিপ্লবের ডাক দেওয়া হয়েছে দেশে। অথচ মৌমাছির সংখ্যা দিন দিন কমতে থাকায় বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছেন পরিবেশবিদরা। এ ব্যাপারে সরকারি পদক্ষেপ ও নজরদারির দাবি তুলেছেন তাঁরা। বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কীটতত্ত্ব বিভাগের প্রধান ড. শান্তনু ঝাঁ বলেছেন, মৌমাছিকে অহেতুক অ্যান্টিবায়োটিক দেওয়া নিয়ে গোটা দেশেই শোরগোল পড়েছে। মৌমাছির শরীরে যদি কড়া মাত্রায় অ্যান্টিবায়োটিক প্রয়োগ করা হয়, তা হলে সেই মৌমাছি যে মধু উৎপাদন করবে, তাতে অ্যান্টিবায়োটিকের প্রভাব থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। সেক্ষেত্রে এমনও হতে পারে ওই মধু টানা খেলে মানবদেহে রোগ নিরাময়ে প্রয়োজনীয় অ্যান্টিবায়োটিক ঠিকমতো কাজ করবে না। এটা ভয়ঙ্কর বিষয়। মৌমাছিকে অ্যান্টিবায়োটিক না দিয়েই উপযুক্ত পরিচর্যার মাধ্যমে যথেষ্ট পরিমাণে মধু পাওয়া সম্ভব বলে দাবি শান্তনুবাবুর।
বাণিজ্যিক চাষের লক্ষ্যে ইউরোপ ও ইতালির মৌমাছি পালন শুরু হয়েছে রাজ্যে। এপিস মেলিফেরা নামে ওই মৌমাছির বাক্স থেকে বছরে অন্তত ৪০ কেজি মধু পাওয়া যাচ্ছে। তুলনায় দেশীয় মৌমাছি এপিস সেরেনা ইন্ডিকা অনেক কম পরিমাণে মধু উৎপাদন করে। তারা বছরে বাক্স প্রতি গড়ে ৫ কেজি মধু উৎপাদন করতে পারে। ফলে দেশীয় মৌমাছি পালন কমছে। বাংলার মৌপালকদের পাশে দাঁড়াতে এবং খাঁটি মধু উৎপাদনে এগিয়ে এসেছে বিধানচন্দ্র কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়। চলতি বছর তারা সাড়ে ১০ টন মধু উৎপাদন করেছে।
বিজ্ঞানীদের বক্তব্য, ফসলের উৎপাদন বাড়াতে জল, সার, কীটনাশক নিয়ে নানা কথা বলা হয়ে থাকে। কিন্তু মৌমাছি নিয়ে সেভাবে আলোচনা হয় না। হানি মিশন তৈরি হয়েছে। কিন্তু সেভাবে তার কার্যকরী পদক্ষেপ চোখে পড়ছে না বলে অনেকের অভিযোগ। মধু উৎপাদনে গোটা দেশে অগ্রণী রাজ্য বাংলা। কিন্তু বাস্তবে সেই স্বীকৃতি নেই। কাঁচামাল সংগ্রহ করে নিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন কোম্পানি। মৌপালন নিয়ে প্রশিক্ষণ দিতে আসছে ঝাড়খণ্ড থেকে। বাজারে মধুর যা দাম সেই তুলনায় মৌপালকরা খুবই কম পেয়ে থাকেন। ফড়েরা মধুর বাজার নিয়ন্ত্রণ করে। ব্যাঙ্কঋণ পেতে মৌপালকদের সমস্যা হয়। শুধু মৌমাছির বাক্স দিলেই হবে না। মৌপালকদের বিজ্ঞানভিত্তিক মধু উৎপাদনে প্রশিক্ষণ দিতে হবে। মনিটরিংয়ে ঘাটতি রয়েছে। তা পূরণ করতে হবে।
বিশেষজ্ঞরা বলছেন, শুধু মধু উৎপাদনের জন্য নয়, মৌমাছি পালনের মাধ্যমে ফসলে পরাগ সংযোগ বাড়ানো যায়। মৌমাছির সংখ্যা কমে যাওয়ায় কাঙ্খিত পরাগ সংযোগের অভাবে ফলন কমছে। দেশে ফি বছর ৬৫ হাজার মেট্রিক টন মধু উৎপাদন হয়। তার মধ্যে অনেকটাই এ রাজ্যে উৎপাদিত হয়ে থাকে। কিন্তু বাংলায় যা প্রাকৃতিক বৈচিত্র্য রয়েছে, তার অন্তত ২৫ শতাংশকেও কাজে লাগিয়ে মধু উৎপাদন করা সম্ভব হচ্ছে না বলে আক্ষেপ অনেকের। তাঁদের বক্তব্য, উন্নত মৌপালনে সরকারি তরফে প্রশিক্ষণ ও নজরদারি বাড়ানো হোক।

17th  July, 2019
বুলবুলের তাণ্ডব: জেলায় পিছতে পারে রবি চাষ 

বিএনএ, কৃষ্ণনগর: বুলবুলের তাণ্ডবে রবি শস্য চাষ পিছিয়ে যেতে পারে। কৃষি দপ্তরের কর্তারা বলেন, বুলবুলের প্রভাবে যে বৃষ্টিপাত হয়েছে তাতে মাটির রস বেড়ে যাবে। রবি শস্য চাষে মাটির রস বা ‘জো’টা খুবই গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করা হয়। ফলে শীতকালীন চাষে প্রভাব পড়তে পারে। কারণ, এখনই চাষ শুরু করা যাবে না। 
বিশদ

15th  November, 2019
কালীপুজোর আগে নিম্নচাপের বৃষ্টিতে ক্ষতি সামলে
তড়িঘড়ি আলু বসাচ্ছেন জেলার চাষিরা 

সংবাদদাতা, বহরমপুর: দুর্গাপুজোর পর আলু বসানো হলেও নিম্নচাপের জেরে বহু চাষির আলু জমিতেই নষ্ট হয়ে গিয়েছে। সেই ক্ষতি পোষাতে ফের চাষিরা ঝুঁকি নিয়েই মাঠে নেমেছেন। ক্ষতি পুষিয়ে নিতে মাঠে আলু বসাচ্ছেন বড়ঞা ব্লকের চাষিরা। এদিকে বাড়িতে বীজ মজুত করে এখনও জমিতে নামতে না পারায় বহু চাষি বিপাকে পড়েছেন। 
বিশদ

15th  November, 2019
বুলবুল কাড়ল খেতের ফসল
জমি থেকে দ্রুত জল বের করে প্রয়োগ করতে হবে বহুমুখী ছত্রাকনাশক

ব্রতীন দাস: বুলবুলের দাপটে মাথায় হাত চাষিদের। আমন ধান তো বটেই, সব্জি, ফুল সহ বিভিন্ন শস্যের মারাত্মক ক্ষতি হয়েছে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায়। সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনায়। এর পর রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলি, বর্ধমান ও নদীয়া। 
বিশদ

13th  November, 2019
শীতে ডালিয়া ফোটাতে প্রস্তুতি নিতে হবে এখনই 

নবজ্যোতি সরকার : শীতকালীন রঙিন সুন্দরী চন্দ্রমল্লিকা এবং ডালিয়া ফুলগুলি যাঁরা বাণিজ্যিকভাবে চাষ করতে চান, তাঁরা এখন নিজেদের বাগান তৈরি করুন। এমনটাই বলছেন বিশেষজ্ঞরা। এই দুই ফুলের চাহিদা প্রচুর। এগুলি ভালোই অর্থকরী। উৎপাদন চন্দ্রমল্লিকায় বিঘা প্রতি দেড় থেকে দুই টন। 
বিশদ

13th  November, 2019
উন্নত জাত ও নিয়ম মেনে গম চাষে মিলবে লাভ

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: সঠিক নিয়ম মেনে চাষ করলে গমে ভালো উৎপাদন পাওয়া যাবে। কার্তিক মাসের শেষ থেকে অগ্রহায়ণ মাসের মাঝামাঝি পর্যন্ত আমন ধান কাটা শেষ হলেই ওই জমিতে রস থাকা অবস্থায় গমের বীজ বুনে ফেলতে হবে। ফলে গম চাষের জন্য দ্রুত প্রস্তুতি শেষ করতে হবে। 
বিশদ

13th  November, 2019
বাঁকুড়ায় পতিত জমিতে ডাল ও সর্ষে চাষে জোর 

বিএনএ, বাঁকুড়া: অনাবৃষ্টির কারণে বাঁকুড়া জেলায় এবার প্রায় ৩০ শতাংশ জমিতে আমন চাষ করতে পারেননি কৃষকরা। তাই আমনের ক্ষতি পোষাতে জেলায় সরকারি সাহায্যে প্রায় ৩৯ হাজার হেক্টর জমিতে ডাল ও তৈল চাষের উদ্যোগ নিয়েছে কৃষি দপ্তর। 
বিশদ

08th  November, 2019
নিষেধাজ্ঞা উঠলেও গম চাষে সতর্ক কৃষি দপ্তর  

ব্রতীন দাস: ছত্রাক ঘটিত ঝলসা বা ‘হুইট ব্লাস্ট’-এর আতঙ্ক কাটিয়ে রাজ্যে বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী জেলাগুলিতে গম চাষের নিষেধাজ্ঞা উঠলেও বিশেষ সতর্ক থাকছে কৃষি দপ্তর। ২০১৫-১৬ সালে রাজ্যে ঝলসার আক্রমণ দেখা দেয় গমের জমিতে। চাষিরা মারাত্মক ক্ষতির মুখে পড়েন। 
বিশদ

06th  November, 2019
আয় বাড়াতেই শালবনীতে কাজুবাগান তৈরির উদ্যোগ 

হরিহর ঘোষাল, মেদিনীপুর: আয় বাড়াতে শালবনীর কাশীজোড়া পঞ্চায়েত এলাকায় কাজুর বাগান তৈরির উদ্যোগ নিতে চলেছে ব্লক কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই জায়গা চিহ্নিতকরণের কাজ হয়ে গিয়েছে। এমনকী, জল সরবরাহ করার জন্য সেখানে পাম্প মেশিনও বসানো হয়েছে। 
বিশদ

06th  November, 2019
মুর্শিদাবাদে একাঙ্গী চাষে উৎসাহ বাড়ছে কৃষকদের 

সুখেন্দু পাল, বহরমপুর: মুর্শিদাবাদে চাষ হওয়া একাঙ্গীর চাহিদা তুঙ্গে। অনেক চাষি চাহিদামতো তা সরবরাহ করতে পারছেন না। জেলা কৃষি দপ্তর সূত্রে জানা গিয়েছে, একাঙ্গী দেখতে অনেকটা আদার মতো। মাটির তলাতেই তা হয়। গাছও দেখতে আদার মতোই। স্থানীয়ভাবে তা একআনি নামেই পরিচিত।  
বিশদ

06th  November, 2019
ভাতারে ধানগাছে পোকার আক্রমণ, দুশ্চিন্তায় চাষিরা 

গণেন্দ্র বন্দ্যোপাধ্যায়, বর্ধমান: ভাতারের বেলেণ্ডা, বালশিডাঙা, বলগোনা গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রায় সর্বত্র ও মাহাচান্দার পঞ্চায়েতের খুরুল গ্রাম সহ একাধিক এলাকায় জমিতে লাগানো ধান গাছে পোকার সংক্রমণে মাথায় হাত পড়েছে চাষিদের। জমির মধ্যে বেশ কিছুটা অংশ বাদামি রঙের হয়ে যাচ্ছে। ক্রমে তা গোটা জমিতে ছড়িয়ে পড়ছে। 
বিশদ

06th  November, 2019
শিলিগুড়িতে রেশম গুটি উৎপাদনে লাভের মুখ 

সুব্রত ধর, শিলিগুড়ি: রেশম দপ্তরের উদ্যোগে ফাঁসিদেওয়া ও মাটিগাড়ায় অগ্রহায়ণী পি-১ সঞ্চ গুটির ভালো উৎপাদন হয়েছে। পরবর্তী বন্দগুলিতেও উৎপাদনে জোর দেওয়া হচ্ছে। পরিচর্যা, প্রশিক্ষণ ও বিক্রির সুবন্দোবস্ত থাকায় এই গুটি উৎপাদনের ফলে কৃষকরা আর্থিকভাবে সহজেই লাভবান হতে পারবেন। 
বিশদ

06th  November, 2019
আমনের ফলন মার খাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত বীরভূমের কৃষকরা 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায় : বীরভূম জেলার মুরারই ২ নম্বর ব্লকের জাজিগ্রাম, আমডোল, পাইকোর ১ ও ২, নন্দীগ্রাম ও রুদ্রনগর গ্রাম পঞ্চায়েতের অন্তর্গত বিভিন্ন অঞ্চলে আমন ধানের ফলন নষ্ট হয়ে যাওয়ায় চাষিরা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছেন। এমনিতেই এবছর এই অঞ্চলে আমন ধান চাষে জলের অভাব ছিল।  
বিশদ

06th  November, 2019
বনগাঁয় হাইব্রিড বেগুনে জোর 

নবজ্যোতি সরকার: বেগুনের বাজারদর বর্তমানে ভালোই। বেগুনচাষে সমৃদ্ধ উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ মহকুমার চাষিরা উৎপাদন বাড়াতে শীতকালীন হাইব্রিড বেগুনচাষে মন দিয়েছেন। বনগাঁ, বাগদা, গাইঘাটার চাষিরা জানান, এবছর তাঁরা পুসা হাইব্রিড ৫, পুসা হাইব্রিড ৬ এবং গ্রীন হাইব্রিড, এই তিন প্রজাতির বেগুন চাষ করছেন। 
বিশদ

06th  November, 2019
নিয়ম মেনে সাদা ও টোরি সর্ষে চাষে মিলবে লাভ 

অলোক বন্দ্যোপাধ্যায়: বিভিন্ন তৈলবীজ চাষের মধ্যে সাদা সর্ষের চাষ বেশ লাভজনক। এই চাষ একটু কম হয় বলে বাজারে ভালোই চাহিদা আছে। সাদা সর্ষের উন্নত জাতগুলির মধ্যে সবচেয়ে ভালো ফলন দেয় বিনয় (বি-৯), সুবিনয় এবং ঝুমকা।  বিশদ

30th  October, 2019

Pages: 12345

একনজরে
ইন্দোর, ১৬ নভেম্বর: ইনিংস জয়ের হ্যাটট্রিক করে ফেলল ‘টিম ইন্ডিয়া’। গত সিরিজে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে দ্বিতীয় ও তৃতীয় টেস্ট ইনিংসের ব্যবধানে জিতেছিল কোহলি বাহিনী। সাফল্য ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা মেট্রোপলিটন এলাকায় লজিস্টিকস বা পণ্য পরিবহণ ও মজুত রাখা সংক্রান্ত পরিকাঠামো গড়তে উৎসাহী বিশ্ব ব্যাঙ্ক। এই বিষয়ে ইতিমধ্যেই রাজ্যের সঙ্গে প্রাথমিক কথাবার্তা হয়েছে তাদের। ওই প্রকল্পের মাস্টার প্ল্যান আগামী সপ্তাহে চূড়ান্ত হতে পারে বলে শনিবার দাবি ...

 দীপ্তিমান মুখোপাধ্যায়। হাওড়া: এবার আর ব্লক অফিসে নয়, গ্রাম পঞ্চায়েতস্তরে জেলা প্রশাসনের সমস্ত বিভাগকে নিয়ে গিয়ে বৈঠক করতে হবে জেলাশাসকদের। বছরে প্রতিটি গ্রাম পঞ্চায়েতে অন্তত তিন থেকে চারবার যাতে এই বৈঠক করা হয়, তা নিশ্চিত করতে হবে। ...

সংবাদদাতা, আরামবাগ: বিভিন্ন দাবিতে শনিবার আরামবাগে মিছিল করে সিপিএম। সিপিএমের-১ ও ২ নম্বর এরিয়া কমিটির উদ্যোগে এদিন একটি পথসভাও হয়। আরামবাগের ধামসা বাসস্ট্যান্ডে প্রথমে পথসভা ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চতর বিদ্যায় আগ্রহ বাড়বে। মনোমতো বিষয় নিয়ে পঠন-পাঠন হবে। ব্যবসা স্থান শুভ। পৈতৃক ব্যবসায় যুক্ত ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক সহনশীলতা দিবস
১৮১২ - ‘দ্য টাইমস’ পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা জন ওয়ালটারের মৃত্যু ।
১৮৯০ -অবিভক্ত ভারতে প্রথম সিরাম ভ্যাকসিন ও পেনিসিলিন প্রস্তুতকারক বিশিষ্ট ভেষজ বিজ্ঞানী ও চিকিৎসক হেমেন্দ্রনাথ ঘোষের জন্ম।
১৯৪৬ - বিশ্বে প্রথমবারের মত কৃত্রিমভাবে বৃষ্টিপাত সৃষ্টি করা হয়।
১৯৬৩: ঝাড়খণ্ডে জন্মগ্রহণ করেন অভিনেত্রী মীনাক্ষি শেষাদ্রি
১৯৭১: পাকিস্তানের ক্রিকেটার ওয়াকার ইউনিসের জন্ম
১৯৮৮: এক দশকেরও বেশি সময় পর পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হল অবাধ নির্বাচন। সেই নির্বাচনে দেশের প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হলেন বেনজির ভুট্টো

16th  November, 2019




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.০২ টাকা ৭৩.৫৬ টাকা
পাউন্ড ৯০.০৫ টাকা ৯৪.৯০ টাকা
ইউরো ৭৭.১৩ টাকা ৮১.২৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
16th  November, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৭৪০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৭৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৩০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৭০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৮০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩০ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, পঞ্চমী ৩১/১৫ রাত্রি ৬/২৩। পুনর্বসু ৪২/৪৪ রাত্রি ১০/৫৯। সূ উ ৫/৫৪/৩, অ ৪/৪৮/৫৭, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৭ গতে ৮/৪৮ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৩ গতে ২/৩৮। রাত্রি ৭/২৬ গতে ৯/১১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৮ গতে ১/৩৩ মধ্যে পুনঃ ২/২৪ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ১০/০ গতে ১২/৪৩ মধ্যে, কালরাত্রি ১২/৫৯ গতে ২/৩৯ মধ্যে।
৩০ কার্তিক ১৪২৬, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, রবিবার, পঞ্চমী ২৮/২৫/৫০ সন্ধ্যা ৫/১৭/৫৯। পুনর্বসু ৪১/৫৬/২২ রাত্রি ১০/৪২/১২, সূ উ ৫/৫৫/৩৯, অ ৪/৪৯/১৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫০ গতে ৮/৫৭ মধ্যে ও ১১/৪৮ গতে ২/৩৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৭ গতে ৯/১৪ মধ্যে ১১/৫৩ গতে ১/৪০ মধ্যে ও ২/৩৩ গতে ৫/৫৭ মধ্যে, বারবেলা ১০/০/৪৫ গতে ১১/২২/২৬ মধ্যে, কালবেলা ১১/২২/২৬ গতে ১২/৪৪/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ১/০/৪৫ গতে ২/৩৯/৩ মধ্যে।
১৯ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
পঃ বর্ধমানে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর মূর্তি ভাঙার অভিযোগ
শনিবার রাতে পশ্চিম বর্ধমানের মানকর স্টেশন রোড এলাকায় প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ...বিশদ

01:23:59 PM

ফের সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন, জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চ সীমান্তে পাক সেনার গোলাগুলি 

12:07:51 PM

হিমাচলের মাণ্ডিতে গাড়ি দুর্ঘটনায় ৩ জনের মৃত্যু 

11:25:00 AM

কসবায় বাইক দুর্ঘটনায় আরোহীর মৃত্যু, জখম আরও ১ 

10:27:59 AM

বিশাখাপত্তনমে গাড়ি দুর্ঘটনা, মৃত ১, জখম ৪ 

10:27:00 AM

শহরে ট্রাফিকের হাল

আজ, রবিবার সকালে শহরের রাস্তাঘাটে যান চলাচল মোটের উপর স্বাভাবিক। ...বিশদ

10:23:00 AM