Bartaman Patrika
চাষ আবাদ
 
 

ভুট্টার জমি পরিদর্শনে কৃষক। নদীয়ার ধুবুলিয়ায় তোলা নিজস্ব চিত্র 

উত্তর ২৪ পরগনায় চিতল ও তেলাপিয়ার যৌথ চাষ চলছে

নবজ্যোতি সরকার: চিতল মাছের সঙ্গে তেলাপিয়ার যৌথ চাষ করলে আশাতীত উৎপাদন মিলবে। এতে লাভও বাড়বে অনেকটাই। উত্তর ২৪ পরগনার কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রের মৎস্য বিভাগের বিষয়বস্তু বিশেষজ্ঞ অনিন্দ নায়েক জানিয়েছেন, চিতল খুবই দামি মাছ। এই মাছের সঙ্গে তেলাপিয়ার যৌথ চাষ করলে এক বছরের মধ্যে সাড়ে তিন থেকে চার কিলো ওজনের চিতল মাছ পুকুর বা ছোট ভেড়িতে পাওয়া সম্ভব। ভেড়ি থেকেই দাম পাওয়া যাবে কেজি প্রতি সাতশো থেকে আটশো টাকা। এছাড়া প্রায় তিন মাস বাদে ওই পুকুর বা ভেড়ি থেকে প্রতি মাসে পাওয়া যাবে আড়াই কুইন্টাল তেলাপিয়া মাছ। বড় সাইজের তেলাপিয়াগুলি ভেড়ি বা পুকুর থেকেই বিক্রি হবে ৭০ থেকে ৮০ টাকা প্রতি কেজি। এই যৌথ মাছ চাষের প্রযুক্তি কী ? অনিন্দবাবু বলেন, চার বিঘা তার বেশি বড় আকারের মিষ্টি জলের পুকুর বা ভেড়ি থেকে প্রাথমিকভাবে সমস্ত জলজ গাছ তুলে ফেলতে হবে। পুকুরে কোনও পাঁক রাখা চলবে না। পুকুরে মহুয়ার খোল প্রয়োগ করে সমস্ত আগাছা মেরে ফেলতে হবে। মহুয়ার খোল প্রয়োগের ঠিক একমাস বাদে বিঘা প্রতি ৫-৭ কেজি চুন প্রয়োগ করে পুকুর পরিষ্কার করে নিতে হবে। পুকুরে পিএইচ ৭.৫ থেকে ৮.৫ রাখতেই হবে। পুকুরে ৫ ফুট উঁচু জল রাখতে হবে। গ্রীষ্মকালে এই জল রোজই কমবে।
সেক্ষেত্রে স্যালো ব্যবহার করে পুকুর বা ভেড়িতে ভূগর্ভস্থ জল দিতে হবে। পুকুরের চারদিকে কোনওরকম গাছ লাগানো চলবে না। রোদে মোড়া পুকুর বা ভেড়ি তৈরি করতে হবে। এই ধরনের পুকুরে প্রথমে ২১ দিনের বাচ্চা কালো তেলাপিয়া মাছ বিঘা প্রতি জলাশয়ে ১৫ কেজি ছাড়তে হবে। এর পর ২১ দিন বাদে ওই পুকুরে ৭ থেকে ৮ ইঞ্চি সাইজের বিঘা প্রতি ১৫০ পিস চিতল মাছ ছাড়তে হবে। প্রাথমিকভাবে ছোট চিতলের পোনাগুলি তেলাপিয়া মাছের বাচ্চা খেয়ে বড় হবে। এটাই প্রযুক্তি। তেলাপিয়া মাছ ছাড়ার পর দিন থেকেই সর্ষের খোল ও চালের গুঁড়ো সমপরিমাণে মিশিয়ে মাছের সংখ্যা ও সাইজ অনুযায়ী প্রতিদিন খাবার হিসেবে দিতে হবে। পরবর্তী সময়ে এই খাবার দুই ধরনের মাছই খাবে। খাবারের পরিমাণ প্রতিদিন একটু একটু করে বাড়বে। অনিন্দবাবু বলেন, উত্তর ২৪ পরগনার হাবড়া ১ ও ২ ব্লকে বহু মাছচাষি তাঁদের কৃষি বিজ্ঞান কেন্দ্রে এসে ট্রেনিং নিয়ে এই যৌথ চিতল ও তেলাপিয়া মাছ চাষ করছেন। তাঁরা জানিয়েছেন, তাঁরা ৪ কেজি সাইজের সব চিতল মাছ বিক্রি করবেন না। কিছু চিতল মাছ অন্য পুকুরে নিয়ে গিয়ে তা থেকে বাচ্চা তৈরি করবেন। এতে চিতলের পোনা কিনতে তাঁদের গঙ্গার পাড়ে ঘুরে বেড়াতে হবে না।

26th  June, 2019
নিয়ম মেনে আখ চাষে লাভ মিলবে ভালোই 

আখ বসানোর দু’সপ্তাহ পর গোড়ার মাটি আলগা করে দিতে হবে। আখ গাছ বৃদ্ধি পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জমিতে আগাছার পরিমাণ বাড়ে। ২-৩ বার নিড়ানি দিয়ে জমি আগাছামুক্ত করতে হবে। জমি থেকে অতিরিক্ত জল বের করে দেওয়া দরকার।
বিশদ

গড়বেতায় বিঘার পর বিঘা আলুর জমি নাবিধসায় আক্রান্ত, ক্ষতির মুখে চাষিরা 

হরিহর ঘোষাল, চন্দ্রকোণা রোড: পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা-৩ ব্লকে বিঘার পর বিঘা আলু জমি নাবিধসায় আক্রান্ত হয়েছে। ব্যাঙ্ক, সমবায় থেকে লোন নিয়ে চাষ করে চাষিদের এখন সর্বস্বান্ত অবস্থা। কারণ, ধসা আক্রান্ত জমি থেকে কতটা ফলন হবে, তা নিয়ে চাষিরা আশঙ্কায় রয়েছেন। অনেক চাষি আবার মহাজনের সাহায্য নিয়ে চাষ করছেন।  
বিশদ

হরিশ্চন্দ্রপুরের চাষিদের ড্রাগন ফ্রুট চাষে উৎসাহ দিচ্ছে কৃষিদপ্তর 

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: মালদহ জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ ব্লকে ড্রাগন ফ্রুট চাষ করতে উৎসাহিত হয়েছেন চাষিরা। দক্ষিণ আমেরিকার জনপ্রিয় ও পুষ্টিকর এই ফলের চাষ শুরু হয়েছে জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর-২ব্লকে। পুষ্টিগুণে ভরপুর এই ড্রাগন ফ্রুট দেখতেও ভারি চমৎকার ।  
বিশদ

বোরো ধানে সেচের জল নিয়ে চিন্তায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বহু চাষি 

সংবাদদাতা: বোরো ধান চাষে সেচের জল মিলবে কোথা থেকে? সেই চিন্তা শুরু হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকার চাষিদের। জেলার ডায়মন্ডহারবার ১ ও ২, মগরাহাট ১ও ২, ফলতা, জয়নগর ১ ও ২, বারুইপুর, মন্দিরবাজার ও কুলপি ব্লকে ভূগর্ভের অনেকটা নীচে রয়েছে জলস্তর। 
বিশদ

আর্সেনিক প্রতিরোধী ‘মুক্তশ্রী’ ধান আশা জাগাচ্ছে কৃষকদের 

নবজ্যোতি সরকার : মুক্তশ্রী হল আর্সেনিক সহনশীল, উচ্চ ফলনশীল, সরু, সুগন্ধী ধান। এই ধান খরা, অতি বৃষ্টি সহ্য করতে পারে। যেভাবে রাজ্যজুড়ে ধান চাষে ভূগর্ভস্থ জলের ব্যবহার বেড়েছে তাতে বাংলার যেকোনও ব্লক যেকোনও দিন আর্সেনিক প্রবণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। 
বিশদ

রামপুরহাটে আলুচাষে ব্যাপক ক্ষতির শঙ্কা 

বলরাম দত্তবণিক  রামপুরহাট: সাম্প্রতিক বৃষ্টি ও কুয়াশার জন্য আলুতে দেখা দিয়েছে নাবিধসা রোগ। মাঝে কয়েকদিন আবহাওয়ার উন্নতি হলেও গত রবিবার সকালে রামপুরহাট মহকুমায় ফের বৃষ্টি হয়। যার জেরে আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 
বিশদ

ধান খেতে নাড়া পোড়ানোয় মাটির ক্ষতি 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: ধান খেতে খড় বা নাড়া না পুড়িয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে পরবর্তী ফসল লাভজনক হিসেবে ঘরে তোলা যায়। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের বক্তব্য, অনেক চাষি জমিতে ধানের অবশিষ্টাংশ বা নাড়া পু঩ড়িয়ে দিয়ে থাকেন। এতে একদিকে যেমন মাটির ক্ষতি হয়, তেমনই বাতাসে দূষণ ছড়ায়।  
বিশদ

পুরুলিয়ার নিতুড়িয়ায় জিরে চাষ 

সজল মণ্ডল  রঘুনাথপুর, পুরুলিয়ার নিতুড়িয়া ব্লকে কৃষি দপ্তরের বিশেষ তত্ত্বাবধানে দীঘা গ্রাম পঞ্চায়েতের লালপুর মৌজায় জিরে চাষ হচ্ছে। সাধারণত এবছর রবি মরশুমের ঠান্ডাকে কাজে লাগিয়ে জিরে চাষের বিশেষ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।  
বিশদ

খামখেয়ালি আবহাওয়ায় বীজতলা তৈরিতে দেরি
বোরো চাষে জল দেওয়ার সময় পিছচ্ছে প্রশাসন

বিএনএ, সিউড়ি: বীজতলা তৈরিতে দেরি হয়েছে। তাই বীরভূমে বোরো চাষে জল দেওয়ার সময় পিছচ্ছে প্রশাসন। খামখেয়ালি আবহাওয়ার জন্যই বীজতলা তৈরি হয়নি বলে মত কৃষিদপ্তরের। তাই জেলায় আগামী ২৫ জানুয়ারি বোরো চাষের জন্য জল দেওয়ার কথা থাকলেও তা পিছিয়ে দিচ্ছে প্রশাসন। 
বিশদ

20th  January, 2020
রামপুরহাট মহকুমাজুড়ে বৃষ্টি, আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা চাষিদের 

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: সাম্প্রতিক বৃষ্টি ও কুয়াশার জন্য আলুতে দেখা দিয়েছে নাবিধসা রোগ। মাঝে কয়েকদিন আবহাওয়ার উন্নতি হলেও রবিবার সকালে রামপুরহাট মহকুমায় ফের বৃষ্টি হয়। যার জেরে আলুচাষে ক্ষতির আশঙ্কা করছেন চাষিরা। 
বিশদ

20th  January, 2020
দেশি রুই, কাতলা, মৃগেল মিলবে বাজারে, ময়না মডেলে মাছ চাষের উদ্যোগ হুগলিতে 

অভিজিৎ চৌধুরী, চুঁচুড়া, বিএনএ: ময়না মডেলে মাছ চাষের জন্য উদ্যোগ নিল হুগলি জেলা মৎস্য দপ্তর। ২০১৯-’২০ অর্থবর্ষে এখানে ছ’টি পুকুরে দেশি রুই, কাতলা ও মৃগেল চাষ করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই মাছগুলি বেশে খানিকটা বড় হয়েছে। ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে এই মাছ বাজারে আসতে পারে বলে মৎস্য দপ্তরের কর্তারা মনে করছেন। 
বিশদ

16th  January, 2020
ধান খেতে নাড়া পোড়ানোয় মাটির ক্ষতি 

মোহন গঙ্গোপাধ্যায়: ধান খেতে খড় বা নাড়া না পুড়িয়ে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দিয়ে পরবর্তী ফসল লাভজনক হিসেবে ঘরে তোলা যায়। এমনটাই জানাচ্ছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা। তাঁদের বক্তব্য, অনেক চাষি জমিতে ধানের অবশিষ্টাংশ বা নাড়া পুড়িয়ে দিয়ে থাকেন।  বিশদ

15th  January, 2020
বোরো ধানে সেচের জল নিয়ে
চিন্তায় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বহু চাষি 

সংবাদদাতা: বোরো ধান চাষে সেচের জল মিলবে কোথা থেকে? সেই চিন্তা শুরু হয়ে গিয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনার বিস্তীর্ণ এলাকার চাষিদের। জেলার ডায়মন্ডহারবার ১ ও ২, মগরাহাট ১ও ২, ফলতা, জয়নগর ১ ও ২, বারুইপুর, মন্দিরবাজার ও কুলপি ব্লকে ভূগর্ভের অনেকটা নীচে রয়েছে জলস্তর।  বিশদ

15th  January, 2020
আর্সেনিক প্রতিরোধী ‘মুক্তশ্রী’ ধান আশা জাগাচ্ছে কৃষকদের 

নবজ্যোতি সরকার: মুক্তশ্রী হল আর্সেনিক সহনশীল, উচ্চ ফলনশীল, সরু, সুগন্ধী ধান। এই ধান খরা, অতি বৃষ্টি সহ্য করতে পারে। যেভাবে রাজ্যজুড়ে ধান চাষে ভূগর্ভস্থ জলের ব্যবহার বেড়েছে তাতে বাংলার যেকোনও ব্লক যেকোনও দিন আর্সেনিক প্রবণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করছেন কৃষি বিশেষজ্ঞরা।  বিশদ

15th  January, 2020

Pages: 12345

একনজরে
 সংবাদদাতা, উলুবেড়িয়া: ‘দলের লোকেরা দাদাকে মেরেছে, শিবু ফোন করে দাদাকে ডেকে নিয়ে গিয়ে পরিকল্পনা করে খুন করেছে।’ মঙ্গলবার সকালে এই দাবি করলেন বাগনানের বাইনানের তৃণমূলের ...

নয়াদিল্লি, ২১ জানুয়ারি: আগামী শুক্রবার নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরু করছে ভারত। গ্লেন টার্নার-রিচার্ড হ্যাডলিদের দেশে পাঁচটি টি-২০, তিনটি একদিনের ম্যাচ এবং দু’টি টেস্ট খেলবে বিরাট ...

 রাষ্ট্রসঙ্ঘ, ২১ জানুয়ারি (পিটিআই): শুধু ভারত নয়, বেকারত্ব বাড়ছে গোটা বিশ্বেই। এদেশে বেকারত্বের হার বৃদ্ধির অভিযোগকে মান্যতা দেয়নি কেন্দ্রীয় সরকার। কিন্তু বিশ্বে বেকারদের সংখ্যা যে ...

বিএনএ, বহরমপুর: কান্দিতে তৃণমূলের দক্ষ এবং গ্রহণযোগ্য নেতার অভাবে নতুন করে ঘর গোছাচ্ছে কংগ্রেস। মঙ্গলবার ফের কান্দি এলাকার ৩০ জন তৃণমূলের স্থানীয় নেতা এবং কর্মী কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন। তাঁদের মধ্যে কয়েকজন ২০১০ সাল থেকে রাজ্যের শাসকদলের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন বলে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মরতদের সহকর্মীদের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে। ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা ও ব্যবহারে সংযত থাকা দরকার। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৬৬৬: মুঘল সম্রাট শাহজাহানের মৃত্যু
১৯০০ - টেলিপ্রিন্টার ও মাইক্রোফেনের উদ্ভাবক ডেভিট এ্যাডওয়ার্ড হিউজ।
১৯০১: রানি ভিক্টোরিয়ার মৃত্যু
১৯২৭ - প্রথমবারের মতো বেতারে ফুটবল খেলার ধারাবিবরণী প্রচার।
১৯৭২: অভিনেত্রী নম্রতা শিরোদকরের জন্ম





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৩৬ টাকা ৭২.০৬ টাকা
পাউন্ড ৯০.৯৮ টাকা ৯৪.২৫ টাকা
ইউরো ৭৭.৫৪ টাকা ৮০.৪৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৫৩০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৪৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,০৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৬৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৭৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ মাঘ ১৪২৬, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ত্রয়োদশী ৪৮/৩৬ রাত্রি ১/৪৯। মূলা ৪৪/৫৩ রাত্রি ১২/২০। সূ উ ৬/২২/৩৮, অ ৫/১৩/২৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১০/০ গতে ১১/২৬ মধ্যে পুনঃ ৩/২ গতে ৪/২৮ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫ গতে ৮/৪৩ মধ্যে পুনঃ ২/০ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৯/৫ গতে ১০/২৬ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৭ গতে ১/৯ মধ্যে। কালরাত্রি ৩/৬ গতে ৪/৪৪ মধ্যে।
৭ মাঘ ১৪২৬, ২২ জানুয়ারি ২০২০, বুধবার, ত্রয়োদশী ৮৯/২৭/৪৪ রাত্রী ২/১৩/৯। মূলা ৪৬/৪২/৪৪ রাত্রি ১/৭/৯। সূ উ ৬/২৬/৩, অ ৫/১১/৩৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৭ মধ্যে ও ১০/০ গতে ৪/৩৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/১৫ গতে ৮/৫০ মধ্যে ও ২/০ গতে ৬/২৬ মধ্যে। কালবেলা ৯/৭/২৭ গতে ১০/২৮/৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৩/৭/২৭ গতে ৪/৪৬/৪৫ মধ্যে।
 ২৬ জমাদিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য জবরদখল উচ্ছেদ, গায়ে আগুন লাগালেন মহিলা 
রাস্তা সম্প্রসারণের জন্য জবর দখল উচ্ছেদের চেষ্টা পুলিস ও প্রশাসনের। ...বিশদ

04:27:00 PM

কলকাতা বইমেলার জন্য শুরু হল অ্যাপ, রয়েছে স্টল খুঁজে পাওয়ার সুবিধাও 

04:13:45 PM

কৃষ্ণনগরে এনআরসি বিরোধিতায় শুরু হল মিছিল, রয়েছেন রাজীব বন্দ্যেপাধ্যায় এবং মহুয়া মৈত্র 

04:02:00 PM

২০৮ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

03:58:42 PM

ইটাহারে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক অবরোধ 
ইটাহারের জয়হাট চেকপোষ্টে আদিবাসীদের জমি দখলের প্রতিবাদে পথ অবরোধ চলছে ...বিশদ

03:48:00 PM

বাংলায় ডিটেনশন ক্যাম্প করতে দেব না: মমতা 

03:43:31 PM