Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

কলেরা থেকে করোনা
বহু ভাইরাসকেই ‘অস্ত্র’ বানানোর অভিযোগ রয়েছে

 
মহামারীর আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ার সময়ই ষড়যন্ত্রের তত্ত্বটা তুলেছিলেন ইজরায়েলের সামরিক গোয়েন্দা বিভাগের প্রাক্তন কর্তা ও জীবাণু অস্ত্র বিশারদ ড্যানি শোহাম। বলেছিলেন,  দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের কারণ উহান ইনস্টিটিউটের ন্যাশনাল বায়োসেফটি ল্যাব। ড্যানিকে উদ্ধৃত করে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন টাইমস দাবি করেছিল, করোনা ভাইরাসগুলো নিয়ে গবেষণা করা হয় ওই গোপন পরীক্ষাগারে। সেখান থেকেই লিক হয়েছে এই ভাইরাস! চীন অবশ্য বিতর্কিত জৈব অস্ত্র কর্মসূচি পরিচালনার বিষয়টি অস্বীকার করে আসছে। জৈব রাসায়নিক অস্ত্র কর্মসূচি থেকে নতুন করোনা ভাইরাসটির উৎপত্তি কি না,  জানতে চেয়ে আমেরিকার চীনা দূতাবাসের কাছে ইমেল পাঠালেও কোনও উত্তর পায়নি ওয়াশিংটন টাইমস। চীনের দাবি,  তারা এই ভাইরাসের উৎস সম্পর্কে কিছুই জানে না।
সম্প্রতি আন্তর্জাতিক স্তরে আরও একটি তথ্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়। আর তা ৩৯ বছর আগে প্রকাশিত একটি ‘বেস্ট সেলার’ বইকে কেন্দ্র করে। ১৯৮১ সালে আমেরিকার থ্রিলার লেখক ডিন কুন্স একটি বই লেখেন। বইয়ের নাম ‘দ্য আইস অব ডার্কনেস’। ডিন কুন্সের পাঠকরা বলছেন, লেখক এই করোনা ভাইরাসের বিষয়টা সেই ৩৯ বছর আগে হুবহু বইতে লিখেছেন। তাঁর বইয়ে একটি জীবাণু-অস্ত্রের কথা লেখা আছে। উহান-৪০০। ডিন কুন্স লিখেছেন, চীনের উহানে ওই জীবাণু অস্ত্র কারখানা অবস্থিত এবং এই ভাইরাসটি মানুষের তৈরি অণুজীবের চারশোতম সংস্করণ হওয়ায় এমন নামকরণ। ফলে বায়োলজিক্যাল উইপন অর্থাৎ জীবাণু অস্ত্র বানাতেই যে করোনা ভাইরাসটি তৈরি করেছিল চীন— এমন জল্পনা আবার শুরু হয়ে গিয়েছে।
বিশ্বে বায়োলজিক্যাল যুদ্ধের শুরু হয়েছিল অনেক আগেই। ক্ষমতাশালী দেশগুলোতে এই অস্ত্র তৈরির ইতিহাসও বেশ পুরনো। যুদ্ধে অ্যানথ্রাক্স, ব্রুসেলোসিস, কলেরা, নিউমোনিক প্লেগ, টুলারেমিয়া, স্মলপক্স, গ্ল্যান্ডার্সের মতো নানা ধরনের প্রাণঘাতী ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়া একাধিকবার ব্যবহৃত হয়েছে। ১৯৭৮ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত কিউবাতে ডেঙ্গু জ্বরে কয়েক লাখ মানুষ মারা গিয়েছিল। কেউ কেউ বলেন, এর সংখ্যা ছিল পাঁচ লাখ। ওই সময় কিউবার নেতা ফিদেল কাস্ত্রো অভিযোগ করেছিলেন, ডেঙ্গুর প্রাদুর্ভাব ঘটেছিল আমেরিকার জীবাণু অস্ত্রের আক্রমণে। পেন্টাগন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে অনুদান দিয়ে থাকে জীবাণু অস্ত্র নিয়ে গবেষণা করার জন্য। এমন অভিযোগ প্রায়ই শোনা যায়। অভিযোগ রয়েছে, অনুদানপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন দেশে দ্বিপক্ষীয় সহযোগিতার নামে জীবাণু অস্ত্রের গবেষণাগার গড়ে তোলে। ১৯৮১ সালে প্রকাশিত মার্কিন সামরিক বাহিনীর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, পোকামাকড়ের মাধ্যমে জীবাণু অস্ত্র ছড়িয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা আমেরিকারই ছিল। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এ আ্যালগিপ্টি মশার মাধ্যমে আফ্রিকায় ইয়েলো ফিভার ছড়ানো হয়। ১৯৭৯ সালে তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়নে সামরিক বায়ো-ল্যাব থেকে অ্যানথ্রাক্স রোগের জীবাণু প্রবলভাবে ছড়িয়ে পরে সর্বত্র। বহু মানুষ মারা যায়। তদন্তের পর প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন এর দায় স্বীকার করে নেন। করোনার ক্ষেত্রে জীবাণু অস্ত্রের ধারণাও একেবারেই বাতিল করে দেওয়া যায় না। অস্ত্র ছাড়াই প্রাণঘাতী কোনও ভাইরাসের মাধ্যমে শত্রুপক্ষকে তিলে তিলে খতম করে দেওয়ার জন্যই মূলত এসব ভাইরাস তৈরি করা হয়। জৈবিক বিষাক্ত পদার্থ কিংবা ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাস এবং ছত্রাকের মতো সংক্রামক অণুজীবের মাধ্যমে বায়োলজিক্যাল এসব অস্ত্র নাকি পারমাণবিক অস্ত্রের থেকেও ভয়ঙ্কর! আসলে মানুষই মানুষের শত্রু সৃষ্টি করে। তারপর তা যখন ফ্রাঙ্কেনস্টাইন হয়ে ওঠে, তখন তাকে ধ্বংস করার জন্য হিমশিম খায়।
২০১৮ সালে জেনেভায় বিশ্ব স্বাস্থ্যসংস্থার এক সভায় আর অ্যান্ড ডি ব্লুপ্রিন্টের বিশেষজ্ঞ দল প্রথম ‘ডিজিজ এক্স’ নাম দিয়ে পরবর্তী মহামারী সম্পর্কে সতর্ক করেছিল। সেখানে বলা হয়েছিল, পরবর্তী মহামারী কী থেকে উদ্ভূত হবে, তা জানা নেই। কিন্তু এর আশঙ্কা প্রবল। অজানা সেই জীবাণুর নাম তাঁরা দিয়েছিলেন, ‘ডিজিজ এক্স’। তাঁরা বলেছিলেন, চেনা কোনও জীবাণু থেকে পরবর্তী মহামারী হওয়ার আশঙ্কা কম। আর তেমন হলেও চেনা শত্রুর বিষয়ে মানুষের মোটামুটি প্রস্তুতি থাকে। মুশকিল হচ্ছে অজানা জীবাণু নিয়ে। সেই সময় গবেষকরা এও বলেছিলেন যে, এই ডিজিজ এক্স কোনও প্রাণীদেহ থেকে আসা ভাইরাস থেকেই ছড়িয়ে পড়তে পারে। মানুষ এখন এক নতুন মহামারীর যুগের সামনে দাঁড়িয়ে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অন্য সব মহামারীর মতোই, করোনা ভাইরাসের মহামারী এবং আতঙ্ক একদিন শেষ হবে। এর আগে সার্স, তারপর সোয়াইন ফ্লু মহামারীও দমন হয়েছে। আরও আগে, অনেক ভয়াবহ মহামারী ছিল। ১৯১৮ সালের স্প্যানিশ ফ্লু। স্প্যানিশ ফ্লু মহামারীতে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় পাঁচ থেকে দশ কোটি মানুষ মারা যায়। সেনাশিবিরে এই ভাইরাস ছড়ায় বেশি। কিন্তু যুদ্ধ শেষ হয়ে গেলে যখন এক জায়গায় গাদাগাদি করে সেনাদের থাকার প্রয়োজন পড়ল না, তখন সেই স্প্যানিশ ফ্লু’র সংক্রমণও আপনা-আপনি কমে গেল।
প্লেগ হয়তো মানুষের সংস্কৃতির অংশ ছিল না। কিন্তু মানুষের অর্থনৈতিক ও সাংস্কৃতিক বিস্তারই প্লেগের জন্মভূমি। একই কথা প্রযোজ্য মধ্যযুগে ইউরোপে ছড়িয়ে পড়া ‘ব্ল্যাক ডেথের’ ক্ষেত্রেও। প্রাচীন সিল্ক রোড ধরে বাণিজ্য বিস্তারের সঙ্গে সঙ্গে বিস্তার পেয়েছিল অসংখ্য রোগও। এক মহাদেশ থেকে অন্য মহাদেশে ছড়িয়ে পড়েছিল জীবাণু। ইনফ্লুয়েঞ্জার নতুন ধরনটি এসেছিল গবাদিপশুর খামার থেকে। হালের করোনা ভাইরাস থেকে শুরু করে ইবোলা, সার্স, মার্স, জিকা— এই সবেরই সংযোগ রয়েছে কোনও না কোনও বন্যপ্রাণীর সঙ্গে। তার উপর রয়েছে জলবায়ু পরিবর্তন। যার কারণে গলে যাচ্ছে বড় বড় বরফের চাঁই। ফলে নিদ্রা ভাঙছে অচেনা-অজানা অনেক অণুজীবের।
করোনা ভাইরাস যে রোগটি ঘটাচ্ছে, তার নাম কোভিড-১৯। এটি আসলে একধরনের ইনফ্লুয়েঞ্জা বা ফ্লু। একই লক্ষণ। সাধারণ ফ্লু’র সঙ্গে এর অনেক মিল এবং বেশ কিছু তফাৎও রয়েছে। এটা সহজে একজনের থেকে আরেকজনের কাছে চলে যাচ্ছে। ওষুধ নেই। এই ভাইরাস সম্পর্কে অনেক কিছু এখনও অজানা। লক্ষণ শুরুর আগেই আক্রান্ত মানুষটি ভাইরাস ছড়াচ্ছে। এই ব্যাপারটা সাধারণ ফ্লু’র বেলায় ঘটে না। করোনা ভাইরাস অন্য মানুষের কাছে যাচ্ছে মুখ থেকে বের হওয়া হাঁচি-কাশির সঙ্গে। জানা-বোঝা বলতে ওইটুকুই। ভয় হল, একে এখনই থামানো না গেলে কিংবা সে যদি নিজেই বসন্তে বা গ্রীষ্মে থেমে না যায়, তাহলে বিপদ হবে। ভাইরাস বারবার ফিরে আসবে। যার একবার হয়েছে, তার অ্যান্টিবডি সৃষ্টি হওয়ার কারণে আরেকবার হবে না, সেটাও বলা যাচ্ছে না। এটা মিউটেট অর্থাৎ অভিযোজনের মাধ্যমে আরও ভয়ঙ্কর হতে পারে। সবচেয়ে বড় ভয়ের কারণ, করোনা ভাইরাস সম্পর্কে অনেক কিছুই এখনও বিজ্ঞানীদের অজানা রয়ে গিয়েছে।
অনেকেই বলছেন, করোনা ভাইরাস একটি জীবাণু অস্ত্রই। অস্ত্রের কার্যকারিতা পরীক্ষার জন্য সাধারণের মধ্যে জীবাণু ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। পরীক্ষা–নিরীক্ষা শেষে যথাসময়ে প্রতিষেধকও চীনের ওষুধ কোম্পানিগুলো বাজারে ছাড়বে। কাড়ি কাড়ি মুনাফা ঘরে তুলবে। অপেক্ষা করুন!
লিখেছেন মৃণালকান্তি দাস
 
19th  March, 2020
প্রাণায়াম, ব্রেকফাস্ট, বিছানা গোছানোর
কাজ করুক বাচ্চারা, দিন পুষ্টিকর খাবার
একঘেয়েমি কাটাতে রুটিন কমিশনের

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনে বাচ্চা সামলানোর উপায় জানাতে চিকিৎসক ও মনোবিদদের নিয়ে হেল্পলাইন চালু করেছে রাজ্য শিশু কমিশন। একটানা বাড়িতে থাকার একঘেয়েমি কাটাতে এবং শিশুদের সক্রিয় রাখার জন্য এবার বিস্তারিত রুটিন প্রকাশ করল তারা। পাশাপাশি লকডাউনের সময় বাচ্চাদের কী রকমের খাবার দিতে হবে, বিশেষজ্ঞের সাহায্যে তারও একটা তালিকা তৈরি করে দেওয়া হয়েছে।
বিশদ

হাত ধোওয়ার অভ্যাস ছোটদের
করোনা থেকে দূরে রাখতে পারে
জানালেন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: দেশে নোভেল করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যেই দুই হাজার পেরিয়েছে। শুক্রবার দুপুর পর্যন্ত রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যা সরকারিভাবে ৫৩। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, ৫৩ জনের মধ্যে এক কিশোর, কয়েকটি ছোট বাচ্চা, এমনকী ন’মাসের এক শিশুও রয়েছে। এই খবর সামনে আসার পরই গোটা রাজ্যের অভিভাবকদের কপালে চিন্তার ভাঁজ আরও দৃঢ় হয়েছে।
বিশদ

04th  April, 2020
কী কী করলে জব্দ করা
যেতে পারে করোনাকে
জানালেন ডাঃ সুকুমার মুখোপাধ্যায়

সুকুমার মুখোপাধ্যায়। রা‌জ্য সরকারের নোভেল করোনা মোকাবিলায় তৈরি টাস্ক ফোর্সের প্রধান মুখ। নামজাদা অশীতিপর চিকিৎসক ডাঃ সুকুমার মুখোপাধ্যায় জানালেন কী কী পরিকল্পনা করলে তবেই জব্দ হতে পারে করোনা। সাক্ষাৎকার নিলেন বিশ্বজিৎ দাস। বিশদ

04th  April, 2020
গৃহবন্দিত্বে দাম্পত্য বিবাদে না গিয়ে মানসিক
শান্তির খোঁজ করুন বিকল্প উপায়ে 

ডাঃ দেবাঞ্জন পান, বিশিষ্ট মনোরোগ বিশেষজ্ঞ: চীনে লকডাউনের পর বিবাহ বিচ্ছেদের আবেদন জমা পড়ছে আগের তুলনায় অনেক বেশি— এমনটাই দাবি করা হচ্ছে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে। আরও দাবি করা হচ্ছে, এই বিচ্ছেদের কারণ হল লকডাউনের সময় স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে বেশি সময় কাটিয়ে ফেলা! বিশদ

02nd  April, 2020
বাড়িতে বসে তৈরি করে
ফেলুন হ্যান্ড স্যানিটাইজার 

করোনা আতঙ্ক ছড়াতেই বাজারে আকাল অ্যালকোহলযুক্ত হ্যান্ড স্যানিটাইজারের। তবে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। কয়েকটি সহজলভ্য উপাদান দিয়ে তৈরি করে ফেলা যায় হ্যান্ড স্যানিটাইজার। মনে রাখবেন, অ্যালকোহলের মাত্রা ৭০ শতাংশ বা তার উপরে থাকতে হবে।   বিশদ

27th  March, 2020
করোনা: ডায়ালিসিস রোগীদের ক্ষেত্রে সতর্কতা জরুরি
ডাঃ পিনাকী মুখোপাধ্যায়
বিভাগীয় প্রধান (নেফ্রোলজি), এনআরএস মেডিক্যাল কলেজিস রোগীদের ক্ষেত্রে সতর্কতা জরুরি

কোভিড ১৯-এ জর্জরিত ভারত সহ গোটা বিশ্ব। নিস্তার নেই বয়স নির্বিশেষে কোনও মানুষের। এই সময়ে বিশেষত ডায়ালিসিস রোগীদের জন্য বিশেষ সতর্কতার প্রয়োজন রয়েছে।
বিশদ

26th  March, 2020
আইসোলেশন কী?
কখন আইসোলেশন?

 করোনা আক্রান্ত দেশ বা এলাকা থেকে আসা মানুষদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম প্রযোজ্য হবে।
 করোনা রোগীদের সংস্পর্শে আসা মানুষদের ক্ষেত্রে এই নিয়ম মানা হবে। বিশদ

25th  March, 2020
 কোয়ারেন্টাইন কী?
কখন কোয়ারেন্টাইন?

গ্রেড ১: প্রধানত আক্রান্ত দেশগুলি থেকে রোগীদের আসা শুরু হওয়া
গ্রেড ২: পজিটিভ কেস থেকে স্থানীয় মানুষদের মধ্যে সংক্রমণ শুরু হওয়া (ভারত এখন এই জায়গায়)।
গ্রেড ৩: জনসাধারণের মধ্যে এবং বড় বড় এলাকায় সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া।
গ্রেড ৪: স্থানীয়ভাবে মহামারী ছড়িয়ে পড়া। কোথায় শেষ বুঝতে না পারা। ইতালি এবং চীনের ক্ষেত্রে যা হয়েছে। বিশদ

25th  March, 2020
প্লাস্টিক ও স্টিলে করোনা বাঁচে ৭২ ঘন্টা,
খবরের কাগজের মাধ্যমে ছড়ায় না  

ডাঃ প্রীতম রায়, কো-অর্ডিনেটর, পশ্চিমবঙ্গ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা: কোভিড ১৯ বা নোভেল করোনা ভাইরাসের প্রভাব এখন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। সাধারণ মানুষের মধ্যেও নানাবিধ প্রশ্ন। কোনও জিনিস স্পর্শ করলে কি করোনা সংক্রামিত হতে পারে? এমনও সব চিন্তা ঘুরপাক খাচ্ছে সাধারণ মানুষের মধ্যে।  
বিশদ

25th  March, 2020
ন্যূনতম এক মিটারের দূরত্ব অপরিহার্য
করোনা আক্রান্তের এক হাঁচিতেই ছড়ায়
৪০ লাখ ভাইরাস, বলছেন বিশেষজ্ঞরা

বিশ্বজিৎ দাস, কলকাতা: করোনা আক্রান্তের এক হাঁচিতে ছড়ায় ৩০ থেকে ৪০ লক্ষ ভাইরাস। তখন তার গতি থাকে প্রতি ঘন্টায় ৫০ মাইল। তাই দরকার সামাজিক দূরত্ব বা ‘সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং’ মেনে চলা। দরকার লকডাউন এবং স্বাস্থ্যবিধি বজায় রাখা। নির্দেশ মেনে বাড়িতে থাকা।  
বিশদ

25th  March, 2020
নোভেল করোনা ভাইরাস কি জীবাণু অস্ত্র?
মহামারীর সঙ্গে লড়াই করতে গবেষণাও জরুরি

 • নোভেল করোনা কি জীবাণু অস্ত্র?
•• বিশ্বজুড়ে কোভিড ১৯ ছড়িয়ে পড়তেই বিভিন্ন মহলে ছড়াতে শুরু করেছে আতঙ্ক। কেউ কেউ হয়তো মনে করছেন সাম্প্রতিক নোভেল করোনা ভাইরাস আসলে একধরনের জীবাণু অস্ত্র এবং তা ছড়িয়ে দেওয়া হয়েছে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে! বিশদ

19th  March, 2020
কোভিড ১৯ প্রতিরোধের টিপ্‌স

঩ বারবার হাত ধুয়ে ফেলাই নোভেল করোনা প্রতিরোধের অন্যতম কার্যকরী উপায়। হাঁচি-কাশির পর, এই রোগে আক্রান্তের পরিচর্যা করার পর, রান্নার আগে-পরে, খাওয়ার আগে, টয়লেট ব্যবহারের পর, পশুর সংস্পর্শে আসলে বা পশুর বর্জ্য পরিষ্কারের পর অবশ্যই হাত জীবাণু মুক্ত করতে হবে।
বিশদ

19th  March, 2020
শিশুদের কখন অপারেশন
প্রয়োজন, আলোচনা সম্মেলনে 

ইন্ডিয়ান সোসাইটি অব পেডিয়াট্রিক নিউরোসার্জারির বার্ষিক সম্মেলন সম্প্রতি অনুষ্ঠিত হল। পার্ক ক্লিনিক ও সংগঠনটির যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন সম্মেলনের চেয়ারম্যান ডাঃ সন্দীপ চট্টোপাধ্যায়, সংগঠনের সর্বভারতীয় সভাপতি ডাঃ সুরেশ শঙ্খলা, বিশিষ্ট পেডিয়াট্রিক নিউরোসার্জেন ডাঃ কৌশিক শীল, বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়, বিশিষ্ট চিত্র পরিচালক অপর্ণা সেন সহ বহু বিশিষ্টজন। 
বিশদ

12th  March, 2020
পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম ডেকে আনতে পারে বন্ধ্যাত্ব 

পলিসিস্টিক ওভারিয়ান সিনড্রোম (পিসিওএস) কী?
পিসিওএস এমন এক অবস্থা যা মেনস্ট্রুয়েশন, সন্তান ধারণের সক্ষমতা, শারীরিক গঠন এমনকী দীর্ঘমেয়াদি স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে। ১৫-৪৫ বছর বয়সি মহিলাদের প্রায় ১০ থেকে ২৬ শতাংশ মহিলা পিসিওএস-এর সমস্যায় ভোগেন।  বিশদ

12th  March, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনা বিপর্যয়ের জেরে এ রাজ্যের বাসিন্দা প্রায় দু’লক্ষ মানুষ আটকে রয়েছেন দেশের বিভিন্ন প্রান্তে। এদের মধ্যে পরিযায়ী শ্রমিকের সংখ্যা দেড় লাখের কাছাকাছি। ...

  লন্ডন, ৪ এপ্রিল: অবশেষে বরফ গললো। বেতন কাটা নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে ইয়ন মরগ্যান, বেন স্টোকসদের লড়াই চলছিল। ইসিবি চাইছিল, করোনা মোকাবিলায় ক্রিকেটারদের বেতনের কুড়ি শতাংশ অর্থ কমিয়ে দিয়ে। ...

সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: করোনায় মৃতদের দেহ দাহ করা হবে স্থানীয় শ্মশানে, এই আশঙ্কায় শ্মশানঘাটের চারদিকের রাস্তা আটকে ঘণ্টা দুয়েক বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয় বাসিন্দারা। শনিবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জে। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের হস্তক্ষেপে অবরোধ উঠে যায়।   ...

বিএনএ, তমলুক: লকডাউনের মধ্যেই শুক্রবার রাতে চণ্ডীপুর থানার হাঁসচড়ায় একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ভল্ট খুলে ৩৪লক্ষ টাকা চুরি করে দুষ্কৃতীরা চম্পট দেয়। চাবি ব্যাঙ্কে থাকায় দুষ্কৃতীদের ভল্ট ভাঙতে হয়নি।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীরা পড়াশোনার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা পাবে। নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বাড়বে। অতিরিক্ত চিন্তার জন্য উচ্চ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯০৮- রাজনীতিক জগজীবন রামের জন্ম
১৯১৬- মার্কিন অভিনেতা গ্রেগরি পেকের জন্ম
১৯৩২ - বিশিষ্ট বাঙালী সাহিত্যিক প্রভাতকুমার মুখাপাধ্যায়ের মত্যু
১৯৫৭- কেরলে প্রথম ক্ষমতায় এলেন কমিউনিস্টরা
১৯৯৩- বলিউডের অভিনেত্রী দিব্যা ভারতীর মৃত্যু
২০০০- রবীন্দ্রসঙ্গীত শিল্পী কণিকা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মৃত্যু
২০০৭- সাহিত্যিক লীলা মজুমদারের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৫.২৪ টাকা ৭৬.৯৬ টাকা
পাউন্ড ৯২.৫১ টাকা ৯৫.৮২ টাকা
ইউরো ৮১.০৩ টাকা ৮৪.০৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
04th  April, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২২ চৈত্র ১৪২৬, ৫ এপ্রিল ২০২০, রবিবার, (চৈত্র শুক্লপক্ষ) দ্বাদশী ৩৪/৫০ রাত্রি ৭/২৫। মঘা ২৩/৪০ দিবা ২/৫৭। সূ উ ৫/২৯/১৫, অ ৫/৪৯/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/১৮ গতে ৯/৩৬ মধ্যে। রাত্রি ৭/২২ গতে ৮/৫৬ মধ্যে। বারবেলা ১০/৭ গতে ১/১২ মধ্যে। কালরাত্রি ১/৬ গতে ২/৩৪ মধ্যে।
২২ চৈত্র ১৪২৬, ৫ এপ্রিল ২০২০, রবিবার, দ্বাদশী ২৫/৩১/০ দিবা ৩/৪৩/১২। মঘা ১৪/৫০/৩৮ দিবা ১১/২৭/৩। সূ উ ৫/৩০/৪৮, অ ৫/৫০/৫। অমৃতযোগ দিবা ৬/১৫ মধ্যে ও ১২/৫২ গতে ১/৪১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২২ গতে ৮/৫৬ মধ্যে। বারবেলা ১০/৮/২ গতে ১১/৪০/২৭ মধ্যে, কালবেলা ১১/৪০/২৭ গতে ১/১২/৫১ মধ্যে।
 ১১ শাবান

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
১৫ এপ্রিল থেকে উঠে যাচ্ছে লকডাউন, দাবি উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর 
১৫ এপ্রিল থেকে দেশজুড়ে চলা লকডাউন উঠে যাবে বলে দাবি ...বিশদ

01:53:10 PM

করোনা: আরও এক মৃত্যু পুনেতে
পুনেতে মৃত্যু হল আরও এক করোনা আক্রান্তের। ৫২ ...বিশদ

12:48:46 PM

মহারাষ্ট্রে আরও ২৬ জনের শরীরে মিলল করোনা ভাইরাস

12:01:08 PM

 ১৫জি-এইচ ফর্মের বৈধতা বাড়ল
লকডাউনের জের। ক্ষুদ্র করদাতাদের সুবিধা দিল সিবিডিটি। শনিবার এক বিজ্ঞপ্তিতে ...বিশদ

11:27:07 AM

করোনা: এবার আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল অন্ধ্রে
নতুন করে ৩৪ জনের শরীরে কোভিড-১৯ ভাইরাসের অস্তিত্ব টের পাওয়া ...বিশদ

11:16:41 AM

কানাডায় নতুন করে আক্রান্ত ১০৬
কানাডায় নতুন করে আক্রান্ত হলেন ১০৬ জন। এই নিয়ে এদেশে ...বিশদ

11:13:29 AM