Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

বাজি পোড়ানোর সময়
কী কী সাবধানতা নেবেন?

 পরামর্শে বারাসত ক্যান্সার হাসপাতালের ভিজিটিং ইএনটি সার্জেন ডাঃ অমিতাভ ভট্টাচার্য।

পুজোর সিজন এখন শুরু হয় গণেশপুজো থেকে। বিশ্বকর্মা, দুর্গা, লক্ষ্মী, ছট, কালী হয়ে জগদ্ধাত্রীতে এসে শেষ হয়। প্রতি পুজোতেই এখন কমবেশি বাজি-পটকা ফাটে, কালীপুজোতে যা ভয়ঙ্কর রূপ নেয়। পুজো ছাড়াও খেলার মাঠে, রাজনৈতিক দলের বিজয়োৎসব, এমনকী বিয়েবাড়িতেও এখন বাজি পটকার রমরমা। বাজি থেকে বিপত্তি হতে পারে তিনভাবে। কানের ক্ষতি হতে পারে, চোখে আগুনের ফুলকি পড়তে পারে, শরীরের অংশবিশেষ পুড়ে যেতে পারে। কানের কথাই আগে বলি।
কীভাবে শুনি: বড় জটিল আমাদের শ্রবণ পথ। কানের তিনটে ভাগ বহিঃকর্ণ, মধ্যকর্ণ, অন্তঃকর্ণ। বহিঃকর্ণে থাকে সুড়ঙ্গের মতো কর্ণনালী যা শেষ হয় কানের পর্দায়। মধ্যকর্ণে থাকে তিনটে ছোট হাড় (মেলিয়াস, ইনকাস ও স্টেপিস) কিছু মাংসপেশি, তন্তু, রক্তনালী ইত্যাদি। অন্তঃকর্ণ হল কানের আসল অংশ, যার আরেক নাম ল্যাবাইরিন্থ, যার আবার দুটো অংশ। বাইরেরটা হাড়ের তৈরি বোনি ল্যাবাইরিন্থ আর ভিতরটা নরম মেমব্রেনাস ল্যাবাইরিন্থ। এই দু’য়ের মাঝে থাকে স্পেরিলিম্ফ এবং এন্ডোলিম্ফ নামক তরল পদার্থ। অন্তঃকর্ণে অন্যান্য অংশগুলো হল ভেস্টিবিউল, সেমি সার্কুলার ক্যানাল এবং ককলিয়া। এই ককলিয়াই আমাদের আসল শোনার জায়গা। এর হেয়ার সেল প্রচণ্ড শব্দে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বহিঃকর্ণ থেকে শব্দতরঙ্গ মধ্যকর্ণ হয়ে অন্তঃকর্ণে পৌঁছয়। যেখানে শব্দতরঙ্গ বৈদ্যুতিক তরঙ্গে রূপান্তরিত হয়ে ব্রেনে পৌঁছয়। শব্দের তীব্রতা অর্থাৎ শব্দ কতটা জোরে হচ্ছে তা মাপবার জন্য একটি এককের ব্যবহার করা হয়ে থাকে যার নাম ডেসিবেল। এর সঙ্গে দেড় দশক ধরে আমরা দারুণভাবে পরিচিত হয়ে গেছি। শব্দবিজ্ঞানীরা অনেকদিন আগেই জানিয়েছিল ৬৫ ডেসিবেলের বেশি তীব্রতার শব্দ স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। খুব বেশি হলে ৮৫ ডেসিবেল পর্যন্ত আমরা সহ্য করতে পারি। এর বেশি হলে কানে নানা ক্ষতি হয়। আমাদের শ্রবণ ক্ষমতা ধীরে ধীরে কমে যেতে পারে। হার্টের গতি ও রক্তচাপ বাড়তে পারে। দেখা দিতে পারে অনিদ্রা, অস্থিরতা নানা ধরনের স্নায়ু রোগ।
১৪০ ডেসিবেলের শব্দ শরীরে ব্যথা সৃষ্টি করে। ১৬০ ডেসিবেলের বেশি শব্দ কানের পর্দা ফাটিয়ে দিতে পারে।
কী কী ক্ষতি হতে পারে: প্রধানত চার ধরনের ক্ষতি হতে পারে শব্দবাজি থেকে—
 কানে সাময়িক তালা ধরতে পারে ও ব্যথা হতে পারে।
 কানের পর্দা সরাসরি ফেটে যেতে পারে।
 অন্তঃকর্ণের স্নায়ুতে চোট লাগার জন্য কানে সাময়িক বা চিরস্থায়ী বধিরতা দেখা দিতে পারে।
 কানে ভোঁ ভোঁ করতে পারে, মাথা ঘুরতে পারে, বমিও হতে পারে।
কী করবেন: বাড়ির বাইরে থাকলে তাড়াতাড়ি বাড়ি ফিরে আসুন। বাইরের শব্দের উৎপাত থেকে বাঁচতে দরজা-জানলা বন্ধ করে দিন। গরম তেল, জল বা বাড়িতে পড়ে থাকা পুরনো কানের ড্রপ কখনও কানে দেবেন না। দোকানে বলে সদ্য কিনে আনা কানের ড্রপও দেওয়া উচিত নয়। কানে বরং শুকনো তুলো গুঁজে দিন। অস্থিরতা কমাতে অ্যালপ্রাজ্যোলাম জাতীয় বড়ি বা ০.২৫ মাত্রা খেতে পারেন। কান থেকে রক্ত গড়ালে কানে তুলো গুঁজে ডাক্তারের কাছে যান বা হাসপাতালে ইমার্জেন্সিতে যান। তবে যাই করুন রাতারাতি কানের তালা খুলে যাবে এমনটা কখনও ভাববেন না। সকালে ঘুম থেকে উঠে যদি দেখেন কান থেকে জল গড়াচ্ছে সত্ত্বর ডাক্তার দেখাবেন। কানে কম শুনলে, তালা ধরলে ভোঁ ভোঁ করলে কানের অডিওমেট্রি পরীক্ষা করে শ্রবণ ক্ষমতা পরীক্ষা করতে হবে। অন্তঃকর্ণের ক্ষতির পরিমাণ জানার জন্য প্রয়োজনে করতে হবে ইলেক্ট্রো ককলিয়াগ্রাফ। পর্দা ফেটে গেলে পরবর্তীকালে ম্যাটারিনগোপ্লাস্টি করে পর্দা জুড়ে নিতে হবে। কানের নার্ভের স্থায়ী ক্ষতি হলে, কানে হেয়ারিং এড নিতে হতে পারে।
আঙুল পুড়ে গেলে: হাউসস্টাফশিপ পিরিয়ড একবার কালীপুজোর রাতে একবার ডিউটি করতে হয়েছিল আরজিকর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ইমার্জেন্সিতে। ৩৬ বছর আগে সেই রাতের স্মৃতি আমার স্মৃতিতে এখনও উজ্জ্বল। তখন শব্দবাজিতে কোনও নিষেধাজ্ঞা ছিল না। একের পর এক হাত পোড়া, গা পোড়া সারা শরীর ঝলছে যাওয়া, মাথা, চোখ, চুল পুড়ে যাওয়া রোগী ঢুকছে এমার্জেন্সিতে। তাঁদের চিৎকার আর পোড়ার গন্ধে বার বার দমবন্ধ হয়ে আসছিল আমার। হাইকোর্ট, পুলিস, প্রশাসন সর্বোপরি জনগণ কিছুটা সচেতন হওয়ায় কিছুটা অবস্থার কিছুটা পরিবর্তন হয়েছে। তবু কালীপুজোর ক’দিন আগুনে অনেকের হাত-পা, মুখ পুড়বে। তখন কী করবেন জেনে নিন।
জল ঢালবেন পুড়ে যাওয়া জায়গায়। না, বরফ ঠান্ডা জল বা বরফ নয়। ঢালবেন স্বাভাবিক (১০ থেকে ২৫ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড) তাপমাত্রার বা অল্প ঠান্ডা জল। আবার বলছি বরফ নয়, কারণ অতিরিক্ত ঠান্ডায় রক্তবাহী নালীগুলি সঙ্কুচিত হয়ে পুড়ে যাওয়া অংশটিতে রক্তসঞ্চালন কমিয়ে দেয়। কতক্ষণ ধরে জল ঢালবেন? যতক্ষণ না ব্যাথা-জ্বালা কমে। তবে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন একঘণ্টার বেশি সময় জল ঢাললে কোনও লাভ হয় না।
এবার জেনেনিন কেন ঢালবেন জল?
এরফলে গভীর ক্ষত হয় না ত্বকে। পুড়ে যাওয়া অংশটি ফুলে ওঠে না, ব্য‌থা কমে। জল ঢাললে পুড়ে যাওয়া অংশ থেকে তাপ দ্রুত বেরিয়ে যায়। ত্বকের কোষ থেকে হিস্টামিন ও কাইনিন বেরোনো কমে যাওয়ার ফলে ক্ষতি কম হয়, ক্ষতিটা ত্বকের গভীর স্তর পর্যন্ত পৌঁছয় না। আরেকটা কথা পোড়া জায়গায় গাদা গাদা বার্নল লাগাবেন না, ফোস্কা পড়লে গেলে দেবেন না। শুধু জল ঢেলে, ব্যাথার ওষুধ খেয়ে জায়গাটা পরিষ্কার কাপড় বা গজ দিয়ে ঢেকে ডাক্তারের কাছে যাবেন।
বিপত্তি যখন চোখে: বাজিতে থাকে নানারকম রাসায়নিক, যার কোনওটি শরীরের পক্ষে ভালো নয়, চোখের জন্যও তো নয়ই। আগুনের ফুলকি বা সালফারের গুড়ো চোখে ঢুকে যেতে পারে। একদম চোখ রগড়াবেন না। কোনও ঘরে পড়ে থাকা ড্রপ বা মলম চোখে দেবেন না। বারে বারে চোখে পরিষ্কার জলের ঝাপটা দিন। অন্ধকারে চোখককে বিশ্রাম দিন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব চোখের ডাক্তারের পরামর্শ নিন। অনেক সময় বাজি থেকে চোখের কর্নিয়া পুড়ে যেতে পারে। কাজেই সাবধান!
তবে কী বাজি পোড়াবেন না: পোড়াবেন, তবে সাবধানে। নিজের ও পরের ক্ষতি না করে। শব্দবাজি, রকেট বাদ দিয়ে অন্য আতসবাজি পোড়ান।
যদি বাজি পোড়াতেই হয় তবে কিছু সাবধানতা আপনাকে অবলম্বন করতেই হবে—
 জনমুখর পরিবেশে বাজি পোড়াবেন না। খোলা ছাদ, বাড়ির উঠোন বা মাঠে বাজি ফাটান। শব্দ বাজি না ফাটিয়ে আলোক বাজি ফাটান।
 ঢিলেঢালা সিন্থেটিক পোশাক পরবেন না। সুতির আঁটোসাটো পোশাক পরুন। জুতো মোজা পরুন বা চামড়ার চটি। শিশুদের তাই পরাবেন।
 বাজির বারুদ যেন ঘরে না পড়ে। অ্যালার্জি বা শ্বাসকষ্ট হতে পারে। চোখে গেলে কনজাংটিভাইটিসও হতে পারে।
 শিশুদের নাগালে বাজি রাখবেন না। ওদের একা একা বাজি পোড়াতে দেবেন না। নখ কেটে দেবেন। একটা লম্বা লাঠির মাথায় আলোকবাজি বেঁধে শিশুদের পোড়াতে দিন।
 বাজি পোড়াবার জায়গায় একবালতি জল রাখবেন। আধপোড়া বাজিতে জল ঢেলে দেবেন।
 ড্যাম্প ধরা বাজি পোড়াবেন না। পোড়াবার আগে রোদে দিয়ে দেবেন। পলতে ঠিক আছে কিনা, দেখে নেবেন। রকেট বা হাউই বাজি একটা লম্বা খালি বোতলে খাড়া করে রেখে আগুন দেবেন, যাতে বাজিটি উল্টোপাল্টা জায়গায় গোঁত্তা না মারে। শিশুরা যেন এগুলি না ফাটায়।
 বাজির মুখোমুখি পড়ে গেলে দু’হাতে দু’কান চেপে ধরে, চোখ বন্ধ করে হাঁটুতে মাথা গুংজে বসে পড়বেন।
শেষ কথা হল, বাজি পোড়াতে হলে নিজের এবং প্রতিবেশির কথা মাথায় রাখুন। বাজি থেকে যে কোনও মানুষের প্রাণ সংশয় হতে পারে, এটা ভুলে যাবেন না।
24th  October, 2019
স্ট্রোকের রোগীকে ৪ ঘণ্টার মধ্যে হাসপাতালে আনুন 

চলতি বছরের ৩ নভেম্বর পঞ্চমীর রাতে তীব্র স্ট্রোকে আক্রান্ত হন ৫৮ বছর বয়সি সমীর বন্দ্যোপাধ্যায়। কথা জড়িয়ে যাওয়া, শরীরের ডানদিক বিকল হওয়ার মতো লক্ষণও ফুটে ওঠে তাঁর শরীরে। সেই রাতেই তাঁকে আনা হয় অ্যাপোলো গ্লেনিগলস হাসপাতালে। তৎক্ষণাৎ শুরু হয়ে যায় চিকিৎসা।
বিশদ

07th  November, 2019
ব্রেস্ট ক্যান্সারের লক্ষণ চিনুন 

পরামর্শে হাওড়ার নারায়ণা সুপারস্পেশালিটি হাসপাতালের কনসালটেন্ট ব্রেস্ট অঙ্কো সার্জেন ডাঃ নেহা চৌধুরী।  বিশদ

07th  November, 2019
নিয়মিত ধ্যান করুন, বলছেন অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসকরাও 

ধ্যান বা মেডিটেশন শব্দটা শুনলেই চোখের সামনে ভেসে উঠে পদ্মাসনে বসে থাকা মুনি-ঋষিদের ছবি। কেননা ধ্যান সম্পর্কে সাধারণ মানুষের ধারণা খুবই কম। আসলে ধ্যান হল এমন একটি উপায়, যার মাধ্যমে মনের উপর নিয়ন্ত্রণ আনা হয়। মনকে প্রশিক্ষিত করা হয়। ধ্যানের মাধ্যমে নতুন ও ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি তৈরি করা যায়। মানুষের মন সর্বদাই একসঙ্গে অনেক কিছু চিন্তা করে। ধ্যানের মাধ্যমে একটি বিষয়ে মনোনিবেশ করার অভ্যাস তৈরি হয়। কিন্তু, আজকের আধুনিক চিকিৎসাশাস্ত্রে তথা অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা ব্যবস্থায় ধ্যান কতটা বিজ্ঞানসম্মত? কতটাই বা উপকারী ‘মেডিটেশন ইন মেডিকেশন’? সে বিষয়েই আলোকপাত করছেন তিন ক্ষেত্রের তিন বিশিষ্ট চিকিৎসক। 
বিশদ

07th  November, 2019
ধ্যান করলে কী কী লাভ? 

সমস্ত রোগের উৎস আসলে রিপু। রিপুর আধার হল শরীর। শরীরকে চালনা করে মন। শরীর থেকে মনকে আলাদা করে ফেললেই রিপুর উপর আসবে নিয়ন্ত্রণ! আর মনকে নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রয়োজন ধ্যানের অভ্যেস। পরামর্শে যোগবিশারদ প্রেমসুন্দর দাস 
বিশদ

07th  November, 2019
ঘুম না এলে
কী করবেন?

 আমাদের শরীরের ভিতরে রয়েছে কয়েক হাজার ঘড়ি! হার্টের যে কোষগুলি রয়েছে, সেই কোষগুলি নির্দিষ্ট সময় মেনে কাজ করে, একইরকমভাবে লিভার, প্যাংক্রিয়াসের কোষগুলিরও কাজ করার এবং কাজ বন্ধ করার নির্দিষ্ট সময় আছে। বিশদ

31st  October, 2019
 খাবার যখন বিষ!

  নিম্নমানের খাদ্যাভ্যাস আয়ু কমাচ্ছে আমাদের। প্রতিদিন যে নিম্নমানের খাদ্য খাই, তাতে ফি বছর এক কোটিরও বেশি মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন। তাও আবার অকালে। এক চিকিৎসা সাময়িকীতে প্রকাশিত তথ্য থেকে এমনটাই জানা গিয়েছে। ধূমপানের পাশাপাশি রোজকার কিছু খাবারও আমাদের অকালমৃত্যুর পিছনে অনুঘটকের কাজ করে।
বিশদ

31st  October, 2019
বোকাবাক্সে স্মৃতিনাশ!

প্রতিদিন সাড়ে তিন ঘণ্টার বেশি সময় টেলিভিশন দেখলে বয়স্ক মানুষদের স্মৃতিশক্তি কমে যেতে পারে! এমনই জানানো হয়েছে এক গবেষণায়। ৫০ বছরের বেশি বয়সি সাড়ে তিন হাজার মানুষের ওপর বিজ্ঞানীরা এই গবেষণাটি চালিয়েছেন।
বিশদ

31st  October, 2019
 আগে চোখ, তারপর বাজি
ডাঃ নলিনাক্ষী করণ  চক্ষু বিশেষজ্ঞ

কালীপুজো বা দিওয়ালিতে ‘ফায়ার ক্রেকার্স’ বা বাজি ফাটানো খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু সেখান থেকে নানান দুর্ঘটনা হতে পারে। তুবড়ি, রংমশাল ইত্যাদি জাতীয় বাজি হঠাৎ ফেটে গিয়ে চোখের নানান ক্ষতি করতে পারে
বিশদ

24th  October, 2019
 ত্বকের সমস্যায় হোমিওপ্যাথি

সোরিয়াসিস, একজিমা ও স্কিন অ্যালার্জির মতো সমস্যায় ভুক্তভোগী মাত্রই জানেন সমস্যা কতটা জটিল। তবে এক্ষেত্রে হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা যথেষ্ট কার্যকরী হতে পারে বলে জানাচ্ছেন মল্লিক হোমিও হল প্রতিষ্ঠানের কর্ণধার ডাঃ প্রকাশ মল্লিক।
বিশদ

24th  October, 2019
 মেডেভিশন-এর চতুর্থ রাজ্য সম্মেলন

বিজেপি প্রভাবিত মেডিক্যাল ও ডেন্টাল পড়ুয়াদের সংগঠন মেডেভিশন-এর চতুর্থ সম্মেলন কলকাতায় অনুষ্ঠিত হল। সংগঠনের তরফে জানানো হয়, মেডিক্যাল ও ডেন্টাল পড়ুয়া, যুব চিকিৎসক, অন্যান্য কৃতী ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন এখানে। অনুষ্ঠানে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে আলোচনা করা হয়।
বিশদ

24th  October, 2019
ছাত্রছাত্রীদের চোখের
যত্ন নেবেন কীভাবে?
ডাঃ প্রিয়াংশা চট্টোপাধ্যায়

এ বছরের মতো পুজো পর্ব প্রায় শেষ। সামনে আছে বলতে কেবল কালী পুজো-ভাইফোঁটা। এই ছুটি পেরলেই দরজায় কড়া নাড়বে বার্ষিক পরীক্ষা। তাই শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে স্বভাবতই উঠে পড়ে লেগে গিয়েছেন পড়ুয়া এবং তাঁদের অভিভাবকরা। চলছে এক্সট্রা ক্লাস, রাত জেগে পড়ার পর্ব। বিশদ

17th  October, 2019
শীতকালের বিস্ময়কর স্বাস্থ্য উপকারিতা

 আমাদের শরীর ও সার্বিক সুস্থতার জন্য শীতকাল যে নেতিবাচক— তাতে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু এর কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে। নীচে শীতকাল বা ঠান্ডা আবহাওয়ার কিছু বিস্ময়কর স্বাস্থ্য উপকারিতা আলোচনা করা হল। বিশদ

17th  October, 2019
ডিমেনশিয়া সচেতনতায় 

বাকি বিশ্বের মতো ভারতেও ডিমেনশিয়া নিয়ে উন্নাসিকতা বিদ্যমান! এই উদাসীনতার কারণে সময় থাকতে সাধারণ মানুষ রোগীর ডিমেনশিয়ার প্রাথমিক লক্ষণগুলি অবধি অবহেলা করে যান। 
বিশদ

10th  October, 2019
পূর্ব ভারতে পা রাখল
হিয়ারিং সলিউশন 

কানের চিকিৎসায় যুক্ত থাকা হিয়ারিং সলিউশন সংস্থাটি পশ্চিমবঙ্গে ৬টি ক্লিনিক খুলল। এই উপলক্ষে সংস্থার পক্ষ থেকে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার ডিরেক্টর রাজাপন্দিয়ান এস, সিভান্তোস ইন্ডিয়ার সিইও অভিনাশ পাওয়ার, হিয়ারিং সলিউশনের বিজনেস হেড শুভেন্দু দাস এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার পদ্মশ্রী সইদ কিরমানি। 
বিশদ

10th  October, 2019
একনজরে
অলকাভ নিয়োগী, বর্ধমান, বিএনএ: মুখে ‘শিল্প আমাদের ভবিষ্যৎ’ স্লোগান দিলেও বামফ্রন্ট সরকারের আমলেই বন্ধ হয়েছিল ‘বর্ধমান ডেয়ারি’। টানা ১০ বছর বন্ধ থাকার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে ওই বর্ধমান ডেয়ারি থেকে মাদার ডেয়ারিতে রূপান্তরিত হয়ে চালু হয়েছে।  ...

সংবাদদাতা, নবদ্বীপ: রাজ্য সরকারের বাংলা ভাষায় জয়েন্ট পরীক্ষার দাবি অনর্থক। কেন্দ্র অনেক আগেই সব রাজ্যকে জানিয়েছিল। বাংলার সরকার সেই সময় হ্যাঁ বা না কিছুই বলেনি। এখন নাটকবাজি শুরু করেছে। বাংলার মানুষকে বোঝাচ্ছে আমরা কত বাংলা দরদি।   ...

সংবাদদাতা, গঙ্গারামপুর: বোল্লাকালীর অন্যতম ভোগ চিনির বাতাসা তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন মিষ্টি বিক্রেতারা। শুক্রবারই মায়ের পুজো। তাই নাওয়াখাওয়া ভুলে কয়েক কুইন্টাল চিনি জাল দিয়ে তৈরি হচ্ছে কদমা, বাতাসা। দূরদূরান্ত থেকেন বোল্লাকালীর পুজো দিতে আসেন ভক্তেরা।   ...

 নয়াদিল্লি, ১২ নভেম্বর (পিটিআই): কংগ্রেস নেতা শশী থারুরের বিরুদ্ধে জামিনযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করল দিল্লি আদালত। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির বিরুদ্ধে আপত্তিকর মন্তব্য করায় তাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের হয়। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কোনও চুক্তিবদ্ধ কাজে যুক্ত হবার যোগ আছে। ব্যবসা শুরু করা যেতে পারে। বিবাহের যোগাযোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৪০: ফরাসি ভাস্কর অগ্যুস্ত রদ্যঁর জন্ম
১৮৯৩: পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের সীমান্তরেখা ডুরান্ড লাইন চুক্তি স্বাক্ষরিত
১৮৯৬: পক্ষীবিদ সালিম আলির জন্ম
১৯৪৬: পণ্ডিত মদনমোহন মালব্যের মৃত্যু  

12th  November, 2019




ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৭০ টাকা ৭২.৮৫ টাকা
পাউন্ড ৮৯.০৬ টাকা ৯৩.৩৬ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৩ টাকা ৮০.৪৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
12th  November, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৫৩০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৫৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,১০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, প্রতিপদ ৩৪/৩৬ রাত্রি ৭/৪২। কৃত্তিকা ৪০/২৩ রাত্রি ১০/১। সূ উ ৫/৫১/২৯, অ ৪/৫০/১৫, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১৯ গতে ৮/৩ মধ্যে পুনঃ ১০/১৫ গতে ১২/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৫/৪২ গতে ৬/৩৪ মধ্যে পুনঃ ৮/১৯ গতে ৩/১৫ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩৫ গতে ৯/৫৮ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ১২/৪৩ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩৬ গতে ৪/১৪ মধ্যে।
 ২৬ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার, প্রতিপদ ৩৪/২৪/৩৯ রাত্রি ৭/৩৮/৩৩। কৃত্তিকা ৪২/২৪/১১ রাত্রি ১০/৫০/২১, সূ উ ৫/৫২/৪১, অ ৪/৫০/৫২, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪৭ মধ্যে ও ৭/৩০ গতে ৮/১২ মধ্যে ও ১০/২১ গতে ১২/২৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪০ গতে ৬/৩৩ মধ্যে ও ৮/১৯ গতে ৩/২৪ মধ্যে, বারবেলা ১১/২১/৪৪ গতে ১২/৪৪/০ মধ্যে, কালবেলা ৮/৩৭/১৩ গতে ৯/৫৯/২৯ মধ্যে, কালরাত্রি ২/৩৭/১২ গতে ৪/১৪/৫৬ মধ্যে।
১৫ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কর্ণাটকের ১৭ বিধায়কের পদ খারিজের সিদ্ধান্ত সঠিক, পর্যবেক্ষণ সুপ্রিম কোর্টের 
কর্ণাটকে কংগ্রেস ও জেডি(এস)-এর ১৭জন বিধায়কের পদ খারিজের সিদ্ধান্ত সঠিক ...বিশদ

10:53:00 AM

শিলিগুড়িতে গোডাউনে আগুন, ঘটনাস্থলে দমকলের ৫টি ইঞ্জিন 

10:49:42 AM

বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসওয়েতে দুর্ঘটনা 
সাত সকালে বেলঘড়িয়া এক্সপ্রেসে দুর্ঘটনা। একটি বাইক ও গাড়ির মধ্যে ...বিশদ

10:12:04 AM

শহরে ট্রাফিকের হাল 
আজ, বুধবার সকালে শহরে ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে অফিস টাইমের ...বিশদ

10:02:32 AM

নৃশংসভাবে মারা হল একটি গর্ভবতী বিড়ালকে, অভিযোগ দায়ের
কেরলে নৃশংসভাবে হত্যা করা হল একটি গর্ভবতী বিড়ালকে। একটি বাড়ির ...বিশদ

09:50:00 AM

  কল্যাণীতে এবার অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন
কল্যাণী বিশ্ববিদ্যালয়ে এবার অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন। বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীন নদীয়া, মুর্শিদাবাদ জেলার ...বিশদ

09:45:00 AM