Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প কি আছে? 

অ্যান্টিবায়োটিক-এর বিপদ নিয়ে সতর্ক করেছিলেন আলেকজান্ডার ফ্লেমিং। সত্যিই কি এর বিকল্প আছে? জানালেন সংক্রামক অসুখ বিশেষজ্ঞ ও এইমস-এর প্রাক্তনী ডাঃ সায়ন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়।

ডাঃ সায়ন্তন বন্দ্যোপাধ্যায়
সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ

শুরুর কথা
সেই ১৯২৮ সালে স্যার আলেকজান্ডার ফ্লেমিং আবিষ্কার করেছিলেন অ্যান্টিবায়োটিক পেনিসিলিন। আর তারপরেই, সেই আদ্যিকালেই তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, অ্যান্টিবায়োটিক এমন এক ওষুধ যা মূর্খদের হাতে পড়লে মানবজাতির কাছে অভিশাপ হয়ে উঠবে! ঘটনাচক্রে পেনিসিলিন বাজারজাত হওয়ার কয়েকবছরে মধ্যেই দেখা পেনিসিলিন রেজিস্ট্যান্স তৈরি হয়েছে বহু রোগীর মধ্যে!
প্রশ্ন হল কী এই অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স?
এককথায় ব্যাকটেরিয়ার বিশেষ ধরনের বিবর্তন হয় অ্যান্টিবায়োটিকের উপস্থিতিতে! ফলে ওই রোগ উদ্রেককারী ব্যাকটেরিয়াকে আর নষ্ট করতে পারে না অ্যান্টিবায়োটিক। আসলে ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অ্যান্টিবায়াোটিক হল মূল অস্ত্র। কিন্তু সেই অস্ত্র কীভাবে চালনা করা হয়, তার ধরা কতটা এসব যদি ব্যাকটেরিয়া আগে থেকেই বুঝতে পারে? আর কী! ব্যাকটেরিয়া নিজের মধ্যে বিশেষ ধরনের পরিবর্তন ঘটাবে এবং নিজেও সেই অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে বিশেষ অস্ত্র তৈরি করবে যাতে সেই অ্যান্টিবায়োটিক আর তাকে মেরে ফেলতে না পারে! অ্যান্টিবায়োটিকের ডোজ তাই খুব গুরত্বপূর্ণ। ডোজ শেষ না হলে ব্যাকটেরিয়া মারাও যাবে না, উপরন্তু অল্পমাত্রায় অ্যান্টিবায়োটিকের সংস্পর্শে এসে তারা নিজেদের মধ্যে পরিবর্তন ঘটিয়ে প্রতিরোধী ক্ষমতা গড়ে তুলতে পারবে।
প্রশ্ন হল, অল্পমাত্রায় অ্যান্টিবায়োটিকের সঙ্গে ব্যাকটেরিয়া পরিচিত হচ্ছে কীভাবে?
 অ্যান্টিবায়োটিকের ডোজ: অ্যান্টিবায়োটিকের নির্দিষ্ট ডোজ থাকে সে কথা আগেই বলা হয়েছে। কোনও রোগীকে পাঁচদিন দুটি করে অ্যান্টিবায়োটিক খেতে বলার পরেও তিনি দুদিন দুটি করে ওষুধ খাওয়ার পর বন্ধ করে দিলে হতে পারে অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স।
 মাছ চাষ: মাছের রোগ-বিরেত নিয়ন্ত্রণে রাখতে ও মড়ক আটকাতে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করা হয়। এই মাছ খাওয়ার পরে সুস্থ মানুষের দেহেও সামান্য মাত্রায় হলেও অ্যান্টিবায়োটিক প্রবেশ করে।
 হাসপাতালের ড্রেন: হাসপাতালে বহু রোগী ভর্তি থাকেন। সেই রোগীর মল-মূত্র হাসপাতালের ড্রেন থেকে বেরিয়ে মাটিতে মিশছে! এমনকী ধীরে ধীরে ভূগর্ভস্থ জলের আধারে মেশাও অসম্ভব নয়।
 পুরনো ওষুধ: অব্যবহৃত পুরনো ওষুধ মাটিতে মিশে বা পানীয় জলের সঙ্গে কোনওভাবে মিশে গেলেও হতে পারে বিপদ।
 পশুখাদ্য: শুধুমাত্রা খাদ্য হিসেবে চাষ করা হয় এমন প্রাণীর মাংসেও আজকাল মিলছে অ্যান্টিবায়োটিক। বিশেষ করে মুরগির খাদ্যের সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিক মিশিয়ে দেওয়া হচ্ছে রোগ নিয়ন্ত্রণের জন্য। এই ধরনের চিকেন খেলে, সেখান থেকেও হতে পারে অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স!
অতএব বোঝাই যাচ্ছে যে কীভাবে ধীরে ধীরে ব্যাকটেরিয়ারা বিভিন্ন অ্যান্টিবায়োটিকের সঙ্গে পরিচিত হয়ে উঠছে এবং ধীরে ধীরে শরীরে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলছে।
এছাড়াও একটা কারণ আছে যেটির সম্পর্কে বলা দরকার—
 অতি ব্যবহার: সামান্য অসুখ-বিসুখে বারবার অ্যান্টিবায়োটিক খেলে খেলে হতে পারে এমন রেজিস্ট্যান্স। কারণ আমাদের শরীরে যেমন খারাপ ব্যাকটেরিয়া ঢোকে তেমনি কিছউ বন্ধু ব্যাকটেরিয়াও থাকে। কিন্তু অ্যান্টিবায়োটিক খারাপ ও ভালো উভয় ব্যাকটেরিয়ায় মেরে ফেলে। এদিকে বারবার, ছোটখাট কারণে অ্যান্টিবায়োটিক খেলে এই বন্ধু ব্যাকটেরিয়াগুলিও অ্যান্টিবায়োটিকের বিরুদ্ধে নিজেদের প্রতিরোধ ব্যবস্থা গ্রহণ করে নেয়। পরবর্তীকালে শরীরে খারাপ ব্যাকটেরিয়া শরীরে প্রবেশ করার পর ওই ভালো ব্যাকটেরিয়ার অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী জিনটি দিয়ে তারাও নিজেদের প্রতিরোধ ক্ষমতা গড়ে তুলবে! এই প্রক্রিয়াকে বলে জিন ট্রান্সফার।
পরিসংখ্যান
বিভিন্ন সংস্থার করা সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, আমাদের দেশেই সবচাইতে বেশি অ্যান্টিবায়োটিক সেবন করা হয়! ফলে রেজিস্ট্যান্সও বেশি হয়!
২০১০ সালে এদেশে মারাত্মক এক অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্সের কথা শোনা যায়। এই রেজিস্ট্যান্ট অ্যান্টিবায়োটিকের নাম ছিল নিউ দিল্লি মেটালো-বেটা-ল্যাকটামেস-১ (এনডিএম-১)। এনডিএম হল এমন একটা উৎসেচক, যা খুব শক্তিশালী অ্যান্টিবায়োটিক গ্রুপকে (কার্বপেনেম) ধ্বংস করে ফেলতে পারে। এই উৎসেচক অনেক ধরনের ব্যাকটেরিয়ার মধ্যে পাওয়া যায়। এই উৎসেচক প্রথম ভারতের ব্যাকটেরিয়া থেকে মেলে। অতএব বোঝা যাচ্ছে পরিস্থিতি কতটা ভয়ঙ্কর!
মনে রাখতে হবে, অ্যান্টিবায়োটিক প্রতিরোধী হয়ে যাওয়া মানে, রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়ার বিরুদ্ধে অস্ত্র শূন্য হয়ে পড়া!
এখন পরিবেশে অনেক ধরনের ব্যাকটেরিয়া আছে। কতকগুলি সামান্য শরীর খারাপের জন্য দায়ী থাকে। কিছু ব্যাকটেরিয়া আবার মারাত্মক রকম শরীর খারাপের জন্য দায়ী থাকে। এখন,অ্যান্টিবায়োটিকের সঠিক ব্যবহার না হলে, সব ধরনের ব্যাকটেরিয়ার মধ্যেই প্রতিরোধী ক্ষমতা তৈরি হবে। ফলে একসময় যে কোনও রোগ সারানো অসম্ভব হয়ে যাবে। বিশেষ করে প্রাণঘাতী রোগ সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়াগুলি একবার যদি নিজেদের মধ্যে প্রতিরোধ ব্যবস্থা গড়ে তুলতে পারে, তাহলে আমাদের প্রাক অ্যান্টিবায়োটিক যুগে ফিরে যেতে হবে!
তাহলে উপায় কী?
পৃথিবীতে মানুষের মৃত্যু হওয়ার পিছনে বড় বড় কারণগুলির সঙ্গে অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্সকেও অন্যতম কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গ্যানাইজেশন।
সাম্প্রতিক বেশ কিছু নামী ব্যক্তিত্ব যেমন রাজনীতিক, অভিনেত্রীর হ্যাসপাতালে মৃত্যুর কারণের দিকে নজর রাখলেই জানা যাবে, তাঁদের মৃত্যুর পিছনে দায়ী ছিল অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স!
বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে এখন দরকার—
১) অ্যান্টিবায়োটিকের সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করা।
২) অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প খোঁজা!
প্রথমটি নিয়ে আলোচনা করা যাক।
অ্যান্টিবায়োটিকের সঠিক ব্যবহার:
আইন: অ্যান্টিবায়োটিকের যথেচ্ছ ব্যবহার রোধে আইন প্রণয়ন করার চেষ্টা চলছে। এই প্রক্রিয়াকে বলা হচ্ছে অ্যান্টিমাইক্রবিয়াল স্টুয়ার্ডশিপ! ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গ্যানাইজেশনের তরফে সবার জন্য মনোগ্রাহী আইন তৈরির চেষ্টা করে চলছে। ফলে ওষুধের দোকান থেকে হুটহাট ওষুধ কিনে খাওয়া বা গ্রামের কোয়াক চিকিৎসকের পরামর্শে অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়া বন্ধ হবে। এছাড়া মডার্ন মেডিসিন প্র্যাকটিস করেন এমন চিকিৎসকদের যথেচ্ছ মাত্রায় অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহারে রাশ টানা যাবে।
সংক্রমণ রোধ: নতুন করে সংক্রমণ না হলে অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার করার দরকার পড়বে না। তাই সংক্রমণ ঠেকানো খুব জরুরি। এক্ষেত্রে হাসপাতালগুলিকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে। আমাদের মনে রাখতে হবে, হাসপাতালে ভর্তির পর রোগীর যেমন রোগ সারে তেমনই বহু জীবাণুও সেখানে বাস করে। ফলে
সঠিক পদ্ধতিতে অপারেশন না করলে, অপারেশন থিয়েটারের পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার দিকে নজর না রাখলে, গ্লাভস পরার নিয়ম না মানলে, রোগীর পরিচর্যা না করলে ফের সংক্রমণ ঘটতে পারে। এই নিয়ম মানার পাশাপাশি, হাসপাতালের স্যানিটেশন ব্যবস্থার দিকেও নজর দিতে হবে। অর্থাৎ হাসপাতালের বর্জ্য যাতে নদীতে না মেশে বা মাটির সঙ্গে মিশে ফের দূষণ ও সংক্রমণ না ছড়াতে পারে সেই দিকেও সতর্ক দৃষ্টি রাখা দরকার।
ওয়ান হেলথ: আগেই বলা হয়েছে, অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্সের পিছনে কম ডোজে অ্যান্টিবায়োটিক সেবন, গবাদি পশু, খাদ্য হিসেবে প্রতিপালন করা পশুর ক্ষেত্রে যথেচ্ছ অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার, মাটিতে, জলে অ্যান্টিবায়োটিক মেশা সমানভাবে গুরত্বপূর্ণ! ফলে এমন একটা আইন আনতে হবে যাতে, এই সমস্ত বিষয়গুলি একই আইনের আওতায় চলে আসে। অতএব হাসপাতালের বর্জ্য হোক বা কোনও ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থার বর্জ্য, তা যেন কোনওভাবেই নদীতে বা মাটিতে না মেশে তা নিশ্চিত হবে এই আইনের মাধ্যমেই। একই সঙ্গে পশুখাদ্যের সঙ্গে অবৈজ্ঞানিকভাবে অ্যান্টিবায়োটিক মেশানোও বন্ধ করতে হবে।
অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প
ব্যাকটেরিওফাজ: ব্যাকটেরিয়া খেকো ভাইরাস বা ব্যাকটেরিওফাজ দিয়ে চিকিৎসা করা শুরু হয়েছিল প্রথম সোভিয়েত রাশিয়ায়। কিন্তু অ্যান্টিবায়োটিক প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির বাড়বাড়ন্তে ব্যাকটেরিওফাজ দিয়ে চিকিৎসাপ্রণালী বাধাপ্রাপ্ত হয়। সাম্প্রতিককালে ব্যাকটেরিওফাজ নিয়ে ফের নাড়াচাড়া শুরু হয়েছে। এমনকী মাত্র দু’বছর আগে আমেরিকার ইউনিভার্সিটি অব সান দিয়েগোর সাইকিয়াট্রি বিভাগের এক অধ্যাপকের প্যাংক্রিয়াসে অ্যাসিনেটোব্যাকটর জীবাণুর সংক্রমণ হয়। কোনও অ্যান্টিবায়োটিকই তাঁর শরীরে কাজ করছিল না। অবশেষে আমেরিকার নৌবাহিনীর ল্যাবরেটরি থেকে পাঠানো ব্যাকটেরিওফাজ দ্বারা ওই অধ্যাপকের চিকিৎসা হয় এবং তিনি সেরে ওঠেন। অতএব বোঝাই যাচ্ছে, রোগ সারাতে আপাতত ভবিষ্যত বলতে ব্যাকটেরিওফাজ। এই নিয়ে আরও গবেষণা হওয়া দরকার। যতবেশি গবেষণা হবে, ততই মানুষ উপকৃত হবেন। ইতিমধ্যে ভারত সরকারের চিকিৎসা গবেষণা বিভাগ (আইসিএমআর) সম্প্রতি জাতীয় অ্যান্টিমাইক্রোবিয়াল রেজিস্ট্যান্স হাব তৈরি করার কথা ঘোষণা করেছে কলকাতায়। এই গবেষণাগারে সারা দেশের অ্যান্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্স নিয়ে গবেষণা নিয়ন্ত্রিত হবে।
লিখেছেন সুপ্রিয় নায়েক 
10th  October, 2019
ছাত্রছাত্রীদের চোখের
যত্ন নেবেন কীভাবে?
ডাঃ প্রিয়াংশা চট্টোপাধ্যায়

এ বছরের মতো পুজো পর্ব প্রায় শেষ। সামনে আছে বলতে কেবল কালী পুজো-ভাইফোঁটা। এই ছুটি পেরলেই দরজায় কড়া নাড়বে বার্ষিক পরীক্ষা। তাই শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতিতে স্বভাবতই উঠে পড়ে লেগে গিয়েছেন পড়ুয়া এবং তাঁদের অভিভাবকরা। চলছে এক্সট্রা ক্লাস, রাত জেগে পড়ার পর্ব। বিশদ

17th  October, 2019
শীতকালের বিস্ময়কর স্বাস্থ্য উপকারিতা

 আমাদের শরীর ও সার্বিক সুস্থতার জন্য শীতকাল যে নেতিবাচক— তাতে কোনও সন্দেহ নেই। কিন্তু এর কিছু ইতিবাচক দিকও রয়েছে। নীচে শীতকাল বা ঠান্ডা আবহাওয়ার কিছু বিস্ময়কর স্বাস্থ্য উপকারিতা আলোচনা করা হল। বিশদ

17th  October, 2019
ডিমেনশিয়া সচেতনতায় 

বাকি বিশ্বের মতো ভারতেও ডিমেনশিয়া নিয়ে উন্নাসিকতা বিদ্যমান! এই উদাসীনতার কারণে সময় থাকতে সাধারণ মানুষ রোগীর ডিমেনশিয়ার প্রাথমিক লক্ষণগুলি অবধি অবহেলা করে যান। 
বিশদ

10th  October, 2019
পূর্ব ভারতে পা রাখল
হিয়ারিং সলিউশন 

কানের চিকিৎসায় যুক্ত থাকা হিয়ারিং সলিউশন সংস্থাটি পশ্চিমবঙ্গে ৬টি ক্লিনিক খুলল। এই উপলক্ষে সংস্থার পক্ষ থেকে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার ডিরেক্টর রাজাপন্দিয়ান এস, সিভান্তোস ইন্ডিয়ার সিইও অভিনাশ পাওয়ার, হিয়ারিং সলিউশনের বিজনেস হেড শুভেন্দু দাস এবং প্রাক্তন ক্রিকেটার পদ্মশ্রী সইদ কিরমানি। 
বিশদ

10th  October, 2019
দিশা সম্মান 

এ বছরের দিশা সম্মানে পুরস্কৃত হলেন দৃষ্টিহীন সাঁতারু কানাইলাল চক্রবর্তী, অধ্যাপিকা ডঃ মউশ্রী বশিষ্ঠ এবং শ্যামবাজার ব্লাইন্ড অপেরা নামক একটি দৃষ্টিহীনদের নাট্যদল। সম্মানিতদের হাতে স্মারক এবং ৫০ হাজার টাকার চেক তুলে দেওয়া হয়। 
বিশদ

10th  October, 2019
টেলিপ্যাথি সম্ভব? কীভাবে করবেন? 

মেঘলা আকাশ। জানলার ধারে বাসের সিট। মনে মনে বিশেষ মানুষটির কথা ভাবছিলেন। হঠাৎ বেজে উঠল ফোন। স্ক্রিনে কলারের নাম ভেসে উঠতে দেখেই নিশ্চয় হাঁ হয়ে গেলেন? কী করে সম্ভব?  বিশদ

09th  October, 2019
কোমা মানে কি দেহ থেকে আত্মা
বেরিয়ে আশপাশে ঘুরে বেড়ায়?  

মৃত্যু আসলে কী? জীবনের শেষ? নাকি নতুন জীবনের সূচনা? আমাদের এই আসা-যাওয়া নিয়ে তর্ক তো চলতেই থাকবে। কিন্তু কেউ যদি জীবন আর মরণের সন্ধিক্ষণে আটকে পড়েন? তখন! কেমন সে অভিজ্ঞতা?  বিশদ

09th  October, 2019
ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা
থেকে মুক্তি পাবেন কীভাবে? 

পরামর্শে আরটিআইআইসিএস হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ অরিন্দম বিশ্বাস।   বিশদ

09th  October, 2019
ডেঙ্গু হলে কী করবেন? 

পরামর্শে আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ জ্যোতির্ময় পাল।  বিশদ

09th  October, 2019
বুদ্ধি কমায় ধূমপান

হ্যাঁ, ধূমপান করলে বুদ্ধি কমে। সম্প্রতি পরিচালিত একটি গবেষণার ফলাফল জানাচ্ছে যে, ধূমপান মস্তিষ্কের বাইরের স্তর তথা কর্টেক্সকে অনেকটাই পাতলা করে দেয়।
মস্তিষ্কের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ কর্টেক্স স্মৃতি, ভাষা ও উপলব্ধি, চেতনার মতো বিষয়গুলোর সঙ্গে যুক্ত।
বিশদ

03rd  October, 2019
রোগ সারাতে হাসপাতালের রং

রূপ-রস-বর্ণ-গন্ধ যে মানব শরীর ও মনে কতটা প্রভাব ফেলে তা আমরা অনেকেই জানি। গবেষকরা এখন বলছেন, রোগীদের ক্ষেত্রেও ইতিবাচক ভূমিকা রাখতে পারে রং। জার্মানির ভুপার্টাল সিটি ইউনিভার্সিটি হসপিটালে রং ও তার ওপর রোগীর প্রভাব নিয়ে গবেষণা চালানো হচ্ছে।
বিশদ

03rd  October, 2019
রক্তের অসুখ নিয়ে সম্মেলন 

রক্তের নানা অসুখ যেমন থ্যালাসিমিয়া, হিমোফিলিয়া, হজকিন্স লিম্ফোমা এবং অন্যান্য রক্তের ক্যান্সারের চিকিৎসা আছে। মুশকিল হল, সঠিক তথ্য না জানায় রোগীরা ঠিক সময়ে চিকিৎসা করাতে পারেন না।
বিশদ

03rd  October, 2019
মরণোত্তর লিভার প্রতিস্থাপন 

কলকাতার মুকুন্দপুর লাগ।য়া রবীন্দ্রনাথ টেগোর ইন্টারন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কার্ডিয়াক সায়েন্স সম্প্রতি তাদের প্রথম মরণোত্তর লিভার প্রতিস্থাপনের কথা ঘোষণা করেছে। এই প্রসঙ্গে হাসপাতালের বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাক্তার সন্দীপ পাল জানিয়েছেন, লিভার প্রতিস্থাপনের পরে রোগী এখন স্থিতিশীল।
বিশদ

03rd  October, 2019
জন্ম নিল হাতের তালুর আকারের শিশু!

ছোট্ট একটা মানুষ। খুব ছোট্ট। ওজন মোটে ৬৫০ গ্রাম। দুর্গাপুর মিশন হাসপাতালের চিকিৎসক সুদীপ সামন্তের তত্ত্বাবধানে জন্ম হয়েছিল শিশুটির। নানা কারণে মাত্র ছয় মাস গর্ভে কাটানোর পরেই তাকে পৃথিবীতে আনতে হয়।
বিশদ

03rd  October, 2019
একনজরে
 রিয়াধ, ১৭ অক্টোবর (পিটিআই): পুণ্যতীর্থ মদিনা থেকে মক্কায় যাওয়ার পথে বাস দুর্ঘটনায় মারা গেলেন ৩৫ জন তীর্থযাত্রী। সৌদি আরবের সরকারি সংবাদমাধ্যম সূত্রে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছে, বুধবার সন্ধ্যায় ওই দুর্ঘটনা ঘটে। তীর্থযাত্রীবাহী ওই বাসটি আরও কোনও বড় গাড়িতে ধাক্কা মারে। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ইয়োনো গ্রাহকদের জন্য ‘গ্রিন রিওয়ার্ড পয়েন্ট’ চালু করল স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া। এসবিআই ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে যে ‘ইয়োনো এসবিআই গ্রিন ফান্ড’-এর তদারকি হয়, সেখানেই ওই গ্রিন রিওয়ার্ড পয়েন্টগুলিকে কাজে লাগানোর জন্য গ্রাহকদের আর্জি জানিয়েছে স্টেট ব্যাঙ্ক। ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আজ, শুক্রবার বিশ্ববিদ্যালয়ের কোর্ট মিটিংয়ে যোগ দিতে যাদবপুরে যাচ্ছেন আচার্য তথা রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার। তা নিয়ে যেমন চাপা উত্তেজনা রয়েছে, তেমনই কর্তৃপক্ষের একটু চিন্তাও রয়েছে। এদিন সকাল ১১টা নাগাদ তাঁর বিশ্ববিদ্যালয়ে যাওয়ার কথা। ...

সংবাদদাতা, রায়গঞ্জ: দুর্গাপুজোর আগে রায়গঞ্জ শহরের বিভিন্ন এলাকায় গজিয়ে ওঠা মদের ঠেকগুলিতে বিশেষ দল নিয়ে অভিযান চালিয়েছিল পুলিস। তাতে সাফল্যও মিলেছিল। এবার কালীপুজোর সময়েও সেই একই মডেল অনুসরণ করতে চাইছে জেলা পুলিস।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চতর ও গবেষণামূলক বিদ্যার ক্ষেত্রে সাফল্য আসবে, ব্যবসায় যুক্ত হলে শুভ যোগাযোগ ঘটবে। ভ্রমণ যোগ ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৭১: কম্পিউটারের জনক চার্লস ব্যাবেজের মৃত্যু
১৯১৮: চিত্রশিল্পী পরিতোষ সেনের জন্ম
১৯৩১: গ্রামাফোনের আবিষ্কারক টমাস আলভা এডিসনের মৃত্যু
১৯৪০: টলিউড অভিনেতা পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯৫০: অভিনেতা ওমপুরীর জন্ম





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৬১ টাকা ৭২.৩১ টাকা
পাউন্ড ৮৯.৯৯ টাকা ৯৩.২৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৬৭ টাকা ৮০.৬৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৮৪৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৮৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,৪১০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,২৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,৩৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, চতুর্থী ৪/৩৮ দিবা ৭/২৯। রোহিণী ২৮/৪১ অপঃ ৪/৫৯। সূ উ ৫/৩৭/৪৪, অ ৫/৬/১৬, অমৃতযোগ দিবা ৬/২৪ মধ্যে পুনঃ ৭/১০ গতে ৯/২৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৫ গতে ২/৪৭ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৩ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৫/৫৭ গতে ৯/১৬ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৭ গতে ৩/৭ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৮ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/৩০ গতে ১১/২১ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/১৩ গতে ৯/৪৭ মধ্যে।
৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ অক্টোবর ২০১৯, শুক্রবার, পঞ্চমী ৫৮/২৯/৫১ শেষরাত্রি ৫/২/১০। রোহিণী ২৫/৩৩/৪৮ দিবা ৩/৫১/৪৫, সূ উ ৫/৩৮/১৪, অ ৫/৭/৩৪, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩১ মধ্যে ও ৭/১৫ গতে ৯/২৯ মধ্যে ও ১১/৪২ গতে ২/৪১ মধ্যে ও ২/২৫ গতে ৫/৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৬ গতে ৯/১১ মধ্যে ও ১১/৪৬ গতে ৩/১২ মধ্যে ও ৪/৩ গতে ৫/৩৯ মধ্যে, বারবেলা ৮/৩০/৩৪ গতে ৯/৫৬/৪৪ মধ্যে, কালবেলা ৯/৫৬/৪৪ গতে ১১/২২/৫৪ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/১৫/১৪ গতে ৯/৪৯/৪ মধ্যে।
 ১৮ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
বিশ্ব বাংলা শারদ সম্মান প্রদান অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

17-10-2019 - 04:52:00 PM

খেজুরিতে সমুদ্রে নেমে মৃত নাবালক পর্যটক 
বেড়াতে এসে সমুদ্রে স্নান করতে নেমে তলিয়ে গিয়ে প্রাণ গেল ...বিশদ

17-10-2019 - 04:19:36 PM

নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে কমিউনিস্ট পার্টির সূচনা অনুষ্ঠান 

17-10-2019 - 03:47:00 PM

জলঙ্গিতে গুলিবিদ্ধ হয়ে বিএস‌এফ কর্মীর মৃত্যু, জখম আর‌ও এক জ‌ওয়ান, অভিযোগ বাংলাদেশের সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর বিরুদ্ধে 

17-10-2019 - 03:07:52 PM

মালদহে শিক্ষিকা খুনে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারির দাবিতে পথ অবরোধ 
মালদহের হবিবপুর ব্লকের মঙ্গলপুরা গ্রামে এক বেসরকারি স্কুলের শিক্ষিকা খুনের ...বিশদ

17-10-2019 - 02:11:02 PM

কুলটিতে নিখোঁজ তিন ব্যক্তির সন্ধানে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী 
পাঁচ দিন ধরে কুয়ো খাদানে নিখোঁজ তিনজনকে উদ্ধারে নামল জাতীয় ...বিশদ

17-10-2019 - 02:03:57 PM