Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

কোমা মানে কি দেহ থেকে আত্মা
বেরিয়ে আশপাশে ঘুরে বেড়ায়?  

মৃত্যু আসলে কী? জীবনের শেষ? নাকি নতুন জীবনের সূচনা? আমাদের এই আসা-যাওয়া নিয়ে তর্ক তো চলতেই থাকবে। কিন্তু কেউ যদি জীবন আর মরণের সন্ধিক্ষণে আটকে পড়েন? তখন! কেমন সে অভিজ্ঞতা? শোনা যায় বহু যোগী পুরুষ নাকি রক্তমাংসের দেহ ছেড়ে সূক্ষ্মশরীর ধারণ করার ক্ষমতা রাখতেন। সেই সূক্ষ্মশরীরে পৃথিবী ঘুরে বেড়াতেন। তারপর ফিরে আসতেন নিজের শরীরে।
মেনে নেওয়া গেল যে, সাধকরা না হয় যোগবলে যখন তখন এমন কাজ করার শক্তি পেতেন। কিন্তু সাধারণ মানুষের তো এমন ক্ষমতা নেই। তবু শোনা যায়, প্রকৃতির খেয়ালে নাকি এমন কিছু ঘটনা ঘটেই যায় সাধারণ মানুষের সঙ্গেও। আপাতদৃষ্টিতে যার ব্যাখ্যা মেলে না। উদাহরণ হিসেবে কোমায় চলে যাওয়া কতকগুলি মানুষের অলৌকিক ঘটনার কথা বলা যায়।
ডাক্তার ইবেন আলেকজান্ডার। ভদ্রলোক পেশায় নিউরোসার্জেন। এই চিকিৎসক সম্প্রতি একটি বই লিখেছেন। বইটির নাম— ‘প্রুফ অফ হেভেন: অ্যা নিউরোসার্জেন’স জার্নি ইনটু দ্য আফটার লাইফ’। বলাই বাহুল্য, স্নায়ু শল্য চিকিৎসকের মূল দাবি ছিল স্বর্গ আছে এবং তা দেখার সৌভাগ্য তাঁর নিজেরই হয়েছে। কীভাবে স্বর্গদর্শন হল তাঁর?
২০০৮ সালের শীতকাল। আমেরিকা নিবাসী
ডাঃ আলেকজান্ডার আক্রান্ত হলেন মেনিনজাইটিসে। ধীরে ধীরে এই রোগের প্রকোপে কোমাচ্ছন্ন হয়ে পড়েন। প্রায় সাতদিন ধরে তিনি কোমায় ছিলেন। আর সেই সময়েই স্বর্গে ভ্রমণ করার অভিজ্ঞতা হয় তাঁর। ইবেনের কথা মতো— অসংখ্য সুন্দর প্রজাপতিরা উড়ছিল সেখানে। অপার শান্তিময়তা বিরাজ করছিল চারপাশে। গ্রাম্য মেয়ের পোশাক পরে দাঁড়িয়েছিল ইবেনের মৃতা বোন। তার সঙ্গে কথাও হয় ইবেনের। তবে স্বর্গ এমন একটা জায়গা যেখানে মুখ ফুটে কোনও কথা বলতে হয় না। মনে মনে প্রশ্ন করলেই চলে। সব প্রশ্নের উত্তর আপনা আপনিই মিলে যায়! মনে হয় চারিদিকে ভেসে আছে শুধু ভালোবাসা। সাতদিন একটানা কোমায় থাকার পর ডাঃ আলেকজান্ডার জ্ঞান ফিরে পান। তারপর দীর্ঘসময় লাগে সম্পূর্ণভাবে সুস্থ হয়ে উঠতে। এদিকে কোমায় থাকাকালীন ঘটা সব ঘটনা তাঁর প্রতিদিন মনে পড়ত। সেগুলি লিখে বই আকারে প্রকাশ করেন তিনি। তবে আত্মজীবনী প্রকাশ হওয়ার পর বৈজ্ঞানিকমহলে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। একটি ম্যাগাজিনে আলেকজান্ডারের কেরিয়ার ও তাঁর অসুখ সম্পর্কে বিস্তারিত রিপোর্ট বেরয়। সেখানে দাবি করা হয় আলেকজান্ডারের ব্রেন সম্পূর্ণ সজাগ ছিল। যদিও ডাঃ আলেকজান্ডার সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন।
আলেকজান্ডারের কাহিনী না হয় মিথ্যা বা মনগড়া। কিন্তু আরও কিছু এমন কিছু ঘটনার উদাহরণ রয়েছে যেমন অনিতা মুরজানির অভিজ্ঞতা। ২০০২ সালে হংকং শহরে কর্মরত থাকাকালীন লিম্ফোমা ক্যান্সারে আক্রান্ত হন অনিতা। ক্যান্সারের সঙ্গে লড়াইয়ে ক্লান্ত নিতা ঢলে পড়েন কোমায়। সেটা ২০০৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাস। অনিতার কথায় আসলে তিনি মারা গিয়েছিলেন— ‘আমি এমন একটা অবস্থায় ছিলাম যেখান থেকে ৩৬০ ডিগ্রি পর্যন্ত দেখতে পাচ্ছিলাম। হাসপাতালের শয্যায় থাকা আমার শরীর, হাসপাতালের ঘর এবং ঘরের বাইরের সমস্ত কিছু আমার চোখে স্পষ্ট হয়ে উঠছিল। মৃত বাবার সঙ্গেও দেখা হল। তিনিই আমাকে বললেন যে আমি অনেকটা পথ পেরিয়ে এসেছি। এবার ফিরে যেতে হবে। না হলে আর কোনওদিনই ফিরতে পারব না। আমার একেবারেই ফিরতে ইচ্ছা করছিল না। অদ্ভুত শান্তি ছিল ওখানে। আমার কোনও যন্ত্রণা হচ্ছিল না। কোনও কষ্টের অনুভূতি অবধি ছিল না। তবে আমি বুঝতে পারছিলাম আমার ফিরে যাওয়া উচিত। কারণ দৈহিক কষ্ট আর থাকবে না। খুব শীঘ্রই এসব শেষ হবে।’
কোমা থেকে ফিরে অনিতা প্রায় সবাইকেই বলতে শুরু করেন যে তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবেন। আর চিকিৎসকরাও খুব আশ্চর্য হয়ে যান। কারণ মাত্র চার দিনের মধ্যে অনিতার টিউমারের ৭০ শতাংশ শুকিয়ে যায়! এক সপ্তাহের মধ্যে অনিতা সুস্থ হতে থাকেন। কয়েকদিন পরে ছুটিও পেয়ে যান অনিতা। তারপর মৃত্যুর কাছাকাছি চলে যাওয়ার অভিজ্ঞতা নিয়ে লিখে ফেলেন ‘ডাইং টু বি মি’। ইতিমধ্যেই বেস্ট সেলিং বইয়ের খেতাব পেয়েছে সেটি।
এইরকম আরও বহু উদাহরণ দেওয়া যেতে পারে। তবে তথ্যের ভার না বাড়িয়ে আমরা বরং দেখি চিকিৎসকরা কী বলছেন এই অদ্ভুত অভিজ্ঞতা নিয়ে।
কী বলছেন চিকিৎসকরা—
এই যে আমরা সচেতন হয়ে থাকি, তা নির্ভর করে দুটি বিষয়ের উপর— জাগরণ অবস্থা এবং সজাগ অবস্থা। দুটি শব্দই খুব কাছাকাছি হলেও শব্দ দুটির মধ্যে অনেকখানি পার্থক্য রয়েছে। শুধু জেগে থাকলেই হবে না, আশপাশের অবস্থা সম্পর্কেও জ্ঞান থাকতে হবে এবং পারিপার্শ্বিক অবস্থার পরিবর্তনে সাড়াও দিতে হবে।
কোমায় রোগীর না থাকে জাগরণ অবস্থা, না থাকেন তিনি সজাগ। অর্থাৎ কোমা মানে দীর্ঘ সময় ধরে অচেতন অবস্থায় বিরাজ করা (কোনও ব্যক্তি প্রায় ছ’ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে অচেতন অবস্থায় বিরাজ করলে তবেই তাকে কোমা বলা হবে)। কোমায় আচ্ছন্ন মানুষটিকে সচেতন করার জন্য বাইরে থেকে শব্দ, স্পর্শ, ব্যথা অনুভূতি প্রয়োগ করলেও রোগী সচেতন অবস্থায় ফেরেন না। কোমা রোগীকে অনেকে ঘুমন্ত ভেবে ভুল করেন। কিন্তু মনে রাখতে হবে— ঘুমের সঙ্গে কোমার তফাৎ আছে। কেউ ঘুমিয়ে থাকলে তাঁকে বারবার ডাকতে হয় বা স্পর্শ করে তাঁকে জাগাতে হয়। কোমার রোগীর ক্ষেত্রে এই বাইরে থেকে উদ্দীপক প্রয়োগ করে কোনও কাজ হয় না, সেকথা আগেই বলা হল। আরও একটু পরিষ্কার করে বুঝিয়ে বলি— আসলে প্রকৃতিগতভাবেই আমাদের শরীরে একটা ঘড়ি অনবরত ঘুরে চলেছে। একে বলে স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেল বা বায়োলজিক্যাল ক্লক। এই ঘড়ির কারণেই রাতে আমাদের চোখে ঘুম নেমে আসে। আবার সকাল হলে আমার জেগে উঠি। কোমায় চলে যাওয়া ব্যক্তির শরীরের এই স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেলে একটা বড়সড় পরিবর্তন ঘটে যায়। সোজাভাবে বললে তার জেগে ওঠার প্রক্রিয়াটি কাজ করা বন্ধ করে দেয়। ফলে রোগী সবসময় আচ্ছন্ন অবস্থার মধ্যে বিরাজ করে।
তবে কোমার থেকে সচেতন অবস্থায় অনেকে ফেরেন। এই ফেরার পথগুলিও কোমার কাছাকাছি অবস্থা। সেগুলি সম্পর্কেও জানা দরকার।
পারসিসটেন্ট ভেজিটেটিভ স্টেট: এই অবস্থায় রোগীর স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেল ফিরে আসে। ফলে দেখা যায়, এই ধরনের রোগী দিনের বেলা চোখ খুলেই থাকছেন। আর রাত হলে চোখ বন্ধ করে ঘুমোচ্ছেন। কিন্তু চোখ খোলা অবস্থায় তাঁকে বাইরে থেকে কেউ আদেশ দিলেও তিনি কিছু বুঝতে পারছেন না। এই অবস্থায় থাকা ব্যক্তির চারপাশে কেউ ঘুরলেও তিনি চোখ দিয়ে তাঁকে অনুসরণ করতে পারেন না।
লকড ইন সিনড্রোম: এই অবস্থায় রোগী জেগে থাকেন, কিন্তু কেউ কোনও আদেশ দিলে তিনি তা করে দেখাতে পারেন না! অর্থাৎ একজন ব্যক্তি জেগে আছেন, তাঁকে বলা হল ডান হাতটা ওপরে তোলো। সে তুলতে পারল না কিন্তু চোখ দিয়ে বুঝিয়ে দিল, সে আদেশটা শুনতে পেয়েছে! অর্থাৎ লকড ইন সিনড্রোমের রোগী শুধু চোখ নড়াতে পারেন কিন্তু শরীরের বাকি অংশ নড়াতে পারছে না, এই অবস্থাকেই বলা হয় লকড ইন সিনড্রোম। কিন্তু এই রোগীর স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেলে পরিবর্তন ঘটতে পারে।
মিনিম্যালি কনশাস স্টেট: আরও একটি অবস্থা হল, রোগী জেগে থাকলেন কিন্তু সজাগ হলেন আংশিক ভাবে। তখন তাকে বলা হল মিনিম্যালি কনশাস স্টেট।
এই অবস্থার পরেই সাধারণত রোগীরা জেগে ওঠেন ও সজাগ হন।
এখন প্রশ্ন হল, কোমার চলে যাওয়ার পর রোগী কি সত্যিই কি স্বর্গ দর্শন করেন? তাঁর আত্মা শরীর থেকে বেরিয়ে যায়? এখানেই আসে স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেল-এর কারিকুরি। আমাদের মনে রাখতে হবে, স্লিপ অবস্থায় যাওয়া মানেই কিন্তু ওই ব্যক্তি স্বপ্ন দেখবেন! যে ব্যক্তি কোমায় চলে গিয়েছে তাঁর স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেল নেই। ফলে তিনি কোনওরকম স্বপ্ন দেখেন না। কিন্তু কোমা থেকে ফেরার পথে বা পারসিসটেন্ট ভেজিটেটিভ স্টেট-এ থাকা রোগীর স্লিপ-অ্যাওয়েক সাইকেল অটুট থাকে। ফলে ঘুমন্ত অবস্থায় তিনি যা যা স্বপ্ন দেখেন সেগুলি মনে রাখেন। এরপর রোগী সজাগ অবস্থায় চলে আসলে, তাঁর মনে হয় স্বপ্নগুলোই আসলে সত্যি! এমনকী লকড ইন সিনড্রোম এবং মিনিম্যালি কনশাস স্টেট-এ থাকা রোগীরও কিছু কিছু স্বপ্ন মনে থাকে। স্বপ্নগুলোই সত্যিকারের জীবন মনে হয়।
লিখেছেন সুপ্রিয় নায়েক
কৃতজ্ঞতা স্বীকার: ডাঃ আশিস দত্ত, নিউরোলজিস্ট, ইনস্টিটিউট অব নিউরোসায়েন্স কলকাতা। 
09th  October, 2019
দুঃস্বপ্ন মস্তিষ্ককে শক্তিশালী করে 

বেঁচে থাকতে মানুষের খাওয়া এবং ঘুম অপরিহার্য। দিনের শেষে একটু ঘুমিয়ে নেওয়া মানে টোটাল রিফ্রেশ। কিন্তু সেই ঘুমের ভেতরে অনেকেই অনেক সময় ভয়ানক কোনও স্বপ্ন দেখে চিৎকার করে জেগে ওঠেন। স্বপ্ন যেমন সুখের হয়, তেমনি দুঃখেরও হয়। হয় ভয়েরও। তবে মজার বিষয় হল, গবেষকরা সম্প্রতি জানিয়েছেন, ঘুমের ভেতর দুঃস্বপ্ন দেখলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা অধিকাংশ ক্ষেত্রে অনেকগুণ বেড়ে যায়।
বিশদ

13th  February, 2020
কন্যাসন্তান হলে পিতার আয়ু বাড়ে 

পুত্রসন্তান তাদের পিতার আয়ুর ওপর কোনও প্রভাব ফেলে না। তবে কন্যাসন্তানের সংখ্যার সঙ্গে পিতার লম্বা আয়ুর সমানুপাতিক সম্পর্ক রয়েছে। পোল্যান্ডের জাগিলোনিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্প্রতি পরিচালিত এক গবেষণা শেষে এমন তথ্য পাওয়া গিয়েছে। 
বিশদ

13th  February, 2020
ক্রমাগত অনলাইন শপিং কি অবসাদের প্রকাশ? 

অফিসে কাজের ফাঁকে কিংবা অবসরে মোবাইলে প্রতিদিনই অনায়াসে চোখ ঘোরাফেরা করছে নানা সাইটে। ল্যাপটপে একগুচ্ছ উইন্ডো খোলা কিংবা মোবাইলে অনলাইন শপিং সাইট খুলে রাখা— এটা রোজকার অভ্যেসে পরিণত হয়েছে। জামা, জুতো, শ্যাম্পু কিংবা লাইফ স্টাইলের নানা পণ্যও শপিং সাইটগুলো থেকে হুট করে কিনে ফেলেন অনেকে।  
বিশদ

13th  February, 2020
এক ঝলকে 

মেডিকায় লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট
জটিল লিভারের সমস্যায় ভুগছিলেন বছর চল্লিশের যুবক মুকেশকুমার শ। এরপর তিনি মেডিকা হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব গ্যাস্ট্রোইন্টেসটিনাল ডিজিজ বিভাগে চিকিৎসার জন্য আসেন।  
বিশদ

13th  February, 2020
ক্যান্সার চিকিৎসায় কতটা এগল আয়ুর্বেদ? 

জানাচ্ছেন কলকাতার ডি.এস রিসার্চ সেন্টারের আয়ুর্বেদাচার্য কনসালটেন্ট ডাঃ অনির্বাণ ভট্টাচার্য।
এক সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, বিশ্বে প্রতি বছর এক কোটি কুড়ি লক্ষ মানুষ ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হয়। সেই হিসাবে প্রতি বছর ক্যান্সারের চিকিৎসায় সারা বিশ্বে ব্যয় হয় ২৮ হাজার ৬০০ কোটি ডলার।  
বিশদ

13th  February, 2020
কীভাবে ‘ওম’ উচ্চারণ করলে শান্তি পাওয়া যায়? 

শারীরিক অসুখের সঙ্গে মানসিক অস্থিরতা ও দুশ্চিন্তার সম্পর্ক নিবিড়। তাই প্রতিদিন ‘ওম’ ধ্বনি সহযোগে ধ্যান করলে মন শান্ত হয়। প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হয়। তবে ধ্যান করার কিছু নিয়ম রয়েছে। জানাচ্ছেন যোগ বিশারদ প্রেমসুন্দর দাস। 
বিশদ

13th  February, 2020
শিশুদেরও সাবধানে রাখুন 

চীনের গণ্ডি পেরিয়ে ভারতের মাটিতে এসে উপস্থিত হয়েছে নোভেল করোনা ভাইরাস। সবমিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ জটিল দিকে মোড় নিচ্ছে। উদ্বিগ্ন দেশের স্বাস্থ্য মহল। এমন খবরে গৃহস্থ বাড়িতে শিশুর অভিভাবকদের কপালেও চিন্তার ভাঁজ পড়েছে। বিশদ

06th  February, 2020
অহেতুক আতঙ্কে ভুগবেন না, বলছেন নামী রেস্তরাঁ ব্যবসায়ীরা 

করোনা আতঙ্কে ব্যবসা কতটা পড়ল, নাকি আদৌ পড়েনি? কী বলছেন শহরের নামী চাইনিজ ও মাল্টিক্যুইজিন রেঁস্তরা ব্যবসায়ীরা? মেইনল্যান্ড চায়না’র কর্ণধার অঞ্জন চট্টোপাধ্যায় বলেন, আমি সত্যিই বুঝতে পারছি না, আমাদের রেঁস্তরাগুলির সঙ্গে চীনের সর্ম্পক কী?  
বিশদ

06th  February, 2020
করোনার সঙ্গে চাইনিজ খাবারের কি সম্পর্ক রয়েছে?  

যাঁরা নিয়মিত ফাস্ট ফুড ও চাইনিজ ফুড খান, তাঁদের অনেকেই ইতিমধ্যে চাইনিজ খাবারের সঙ্গে চিকেন খাওয়াও ছেড়ে দিয়েছেন! একটা বিরাট সংখ্যক মানুষের ধারণা, চাইনিজ ফুডের বিভিন্ন ধরনের স্যস, চাউমিন থেকে না করোনা সংক্রমণ হয়! আবার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে, মাংস থেকেই এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছিল। বিশদ

06th  February, 2020
করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচবেন কীভাবে? 

বিশ্ব জুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক। কী করবেন? জানাচ্ছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নেগলেক্টেড ট্রপিক্যাল ডিজিজ-এর পশ্চিমবঙ্গ শাখার প্রধান ডাঃ প্রীতম রায়।  বিশদ

06th  February, 2020
গরম পড়লেই কুপোকাত করোনা

করোনা ভাইরাস একটি গ্রুপ অব ভাইরাস। করোনা ভিরিডি ফ্যামিলির অন্তর্গত। এই ভাইরাস অনেকটা সাধারণ ঠান্ডা জ্বর বা ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো। করোনা নামটা এসেছে ‘ক্রাউন’ থেকে। মাইক্রোস্কোপে এই ভাইরাস ক্রাউন বা মুকুটের মতো দেখায়। সেখান থেকেই এই ভাইরাসের নাম করোনা। বিশদ

30th  January, 2020
‘রাজরোগ’ যক্ষ্মা 

যক্ষ্মাকে রাজরোগ বলা হতো সম্ভবত রাজার রোগ বলে নয়, রোগের রাজা বলে এবং চিকিৎসার ব্যয় রাজোচিত হয়ে যেত বলে। আগে চিকিৎসা বলতে ছিল শুধু পুষ্টিকর খাদ্য, নির্মল বাতাস ও পর্যাপ্ত সূর্যালোক। বিশদ

30th  January, 2020
ড্রাগ রেজিস্ট্যান্ট টিবি 

জানাচ্ছেন পিয়ারলেস হসপিটাল অ্যান্ড বিকে রয় রিসার্চ সেন্টারের ইন্টেনসিভ কেয়ার ইউনিটের ক্লিনিক্যাল ডিরেক্টর ডাঃ অজয়কৃষ্ণ সরকার।  বিশদ

30th  January, 2020
টিউবারক্যুলোসিস কী? 

 যক্ষ্মা বা টিউবারক্যুলোসিস ক্রনিক রোগ। একবার রোগটির আত্মপ্রকাশ ঘটলে, সারতে দীর্ঘসময় লাগে। টিবি হয় মাইকোব্যাকটেরিয়াম টিউবারক্যুলোসিস নামে একধরনের জীবাণু সংক্রমণের কারণে। যক্ষ্মা খুবই প্রাচীন অসুখ! প্রায় পাঁচ হাজার বছরের পুরনো মিশরের মমিতেও এই ব্যাকটেরিয়ার উপস্থিতির প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। 
বিশদ

30th  January, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: বিস্তর অভিযোগ ওঠায় আলিপুর জেলা জজ কোর্টে সওয়াল করা থেকে সরিয়ে দেওয়া হল পাঁচ সরকারি আইনজীবীকে। ওই পাঁচ সরকারি কৌঁসুলির ভূমিকাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে আদালত সূত্রের খবর। ...

সৌরভ পাল, রায়গঞ্জ, বিএনএ: এনআরসি আতঙ্কে আধার কার্ড সংশোধনের জন্য রায়গঞ্জ থেকে বিহারে ছুটছেন বাসিন্দারা। এতে তাঁদের ভোগান্তির পাশাপাশি অর্থও সময় দু’ই নষ্ট হচ্ছে।   ...

ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে শুধু সেগুলির বাজার বন্ধকালীন দরই নীচে দেওয়া হল।  ...

ভোপাল, ১৭ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): মধ্যপ্রদেশে জ্যোতিরাদিত্য বনাম কমলনাথের দ্বন্দ্ব থামছেই না। ফের দলের সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নামার হুঁশিয়ারি কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, ‘আমি জন সেবক। মানুষের জন্য লড়াই করাই আমার ধর্ম।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের ক্ষেত্রে শুভ। সরকারি ক্ষেত্রে কর্মলাভের সম্ভাবনা। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। প্রেম-ভালোবাসায় মানসিক অস্থিরতা থাকবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৪৮৬: শ্রী চৈতন্যদেবের জন্ম
১৫৪৬: মার্টিন লুথারের মৃত্যু
১৮৩৬: শ্রীরামকৃষ্ণদেবের জন্ম
১৯৬৭: ইতালির ফুটবলার রবার্তো বাজ্জোর জন্ম
২০০৭: হরিয়ানায় সমঝোতা এক্সপ্রেসে বিস্ফোরণ, মৃত্যু ৬৮ জনের 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৮২ টাকা ৭২.৯৭ টাকা
পাউন্ড ৯০.৯৯ টাকা ৯৫.৩৮ টাকা
ইউরো ৭৫.৫৯ টাকা ৭৯.২৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৪২০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৩০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,৮৯০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৪৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৫৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, (মাঘ কৃষ্ণপক্ষ) দশমী ২০/৫৫ দিবা ২/৩৩। মূলা ৫৯/৪৯ শেষ রাত্রি ৬/৬। সূ উ ৬/১০/৫৯, অ ৫/৩০/৩৫, অমৃতযোগ দিবা ৮/২৭ গতে ১০/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৮ গতে ২/২৮ মধ্যে পুনঃ ৩/৩১ গতে ৪/৪৪ মধ্যে। রাত্রি ৬/২০ মধ্যে পুনঃ ৮/৫২ গতে ১১/২৫ মধ্যে পুনঃ ১/৫৮ গতে ৩/৩৯ মধ্যে। বারবেলা ৭/৩৫ গতে ৯/০ মধ্যে পুনঃ ১/১৫ গতে ২/৪১ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৬ গতে ৮/৪১ মধ্যে। 
৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, মঙ্গলবার, দশমী ২৯/৭/২২ সন্ধ্যা ৫/৫২/৫৭। জ্যেষ্ঠা ৬/৪২/১৬ দিবা ৮/৫৪/৫৪। সূ উ ৬/১৪/০, অ ৫/২৯/২২। অমৃতযোগ দিবা ৮/১৭ গতে ১০/৩৭ মধ্যে ও ১২/৫৭ গতে ২/৩০ মধ্যে ও ৩/১৭ গতে ৪/৫০ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/২৬ মধ্যে ও ৮/৫৪ গতে ১১/২২ মধ্যে ও ১/৫০ গতে ৩/২৯ মধ্যে। কালবেলা ১/১৬/৬ গতে ২/৪০/৩১ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৪/৫৭ গতে ৮/৪০/৩২ মধ্যে। 
২৩ জমাদিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
স্ত্রীর সাহায্যে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ, ধৃত দম্পতি 
বাঘাযতীনে স্ত্রীর সাহায্যে বছর ২২-এর এক তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ। অভিযুক্ত ...বিশদ

17-02-2020 - 07:34:00 PM

পাকিস্তানের কোয়েটায় বিস্ফোরণ, মৃত কমপক্ষে ৭, জখম ২০

17-02-2020 - 06:58:00 PM

মত্ত অবস্থায় পুলকার চালানোর অভিযোগে আটক চালক 
পোলবায় পুলকার দুর্ঘটনার পর নড়েচড়ে বসেছে প্রশাসন। রাজ্যজুড়ে পুলকার আটকে ...বিশদ

17-02-2020 - 05:58:22 PM

নির্ভয়াকাণ্ডের দোষীদের ফাঁসি ৩ মার্চ
নতুন করে ফের নির্ভয়াকাণ্ডের দোষীদের ফাঁসির দিনক্ষণ ঘোষণা হল। আগামী ...বিশদ

17-02-2020 - 04:22:33 PM

  বেলেঘাটায় দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল চলন্ত গাড়ি
দাউ দাউ করে জ্বলে উঠল চলন্ত গাড়ি। ঘটনাটি কলকাতার বেলেঘাটা ...বিশদ

17-02-2020 - 03:49:00 PM

শাহিনবাগ মামলায় মধ্যস্থকারী নিয়োগ সুপ্রিম কোর্টের
শাহিনবাগ মামলায় মধ্যস্থকারী নিয়োগ করল সুপ্রিম কোর্ট। আজ এই মামলায় ...বিশদ

17-02-2020 - 02:41:45 PM