Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপে চিকিৎসা বিপদ কী কী?

 জানাচ্ছেন পিজি হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডাঃ সৌমিত্র ঘোষ।
 হোয়াটসঅ্যাপ, মেসেজ বা ফোনে ডাক্তারি কতটা বিপজ্জনক?
 ফোনে বা কোনও সোশ্যাল মিডিয়ায় চিকিৎসা উচিত কাজ নয়। বিধিসম্মতভাবেও ঠিক নয়। মেডিক্যাল কাউন্সিলের নিয়মাবলি থেকে শুরু করে যে সমস্ত অথরিটিটেটিভ বডি বা পেশাদার সংগঠনগুলি রয়েছে, তারা সকলেই এই বিষয়ে একমত যে, ফোনের মাধ্যমে চিকিৎসা করা ঠিক নয়। কারণ, এটি অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ কাজ। এই ঝুঁকির দিকটি যেমন চিকিৎসকের দিক দিয়ে থাকে, তেমনই থাকে রোগীর দিক থেকেও। একজন রোগী বা তাঁর পরিবারের পক্ষে রোগের সম্পূর্ণ বিবরণ ফোনে দেওয়া নাও সম্ভব হতে পারে। আবার যে চিকিৎসককে ফোনের মাধ্যমে রোগের বিষয়ে বলা হচ্ছে, তিনি সেই সময়ে কোন পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছেন, সেই বিষয়টি রোগী বা তাঁর পরিজনের পক্ষে বোঝা সম্ভব নয়। হতে পারে, সেই চিকিৎসক হয়তো সেই সময়ে অন্য কোনও রোগী দেখছিলেন। আসলে, রোগী এবং চিকিৎসক যখন সামনাসামনি থাকেন, তখন তাঁদের আলোচ্য বিষয় থাকে একটিই। রোগীর সমস্যা। সেই সময়ে একজন চিকিৎসক এবং একজন রোগী, দু’জনেই অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে রোগ নিয়ে আলোচনা করেন। ফলে রোগীর অবস্থা হাতেকলমে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া যায়। কিন্তু ফোন বা হোয়াটসঅ্যাপে একপক্ষ অপরপক্ষকে দেখতে না পাওয়ায় রোগের গভীরে যাওয়া সম্ভব হয়ে ওঠে না। ভুলভ্রান্তির আশঙ্কা অনেকটাই বেশি থাকে, যা রোগী এবং চিকিৎসক উভয়ের জন্যই ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ, ফোন বা হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে চিকিৎসা করার সময় রোগীর কিছু হলে, তার দায় চিকিৎসকের উপরেও বর্তায়। ফোনে অনেক সময়েই চিকিৎসকের কথা ঠিকমতো বুঝতে না পারার ফলে রোগীর জটিলতা বাড়তে পারে। তাই ফোনে বা হোয়াটসঅ্যাপে চটজলদি চিকিৎসার বদলে উভয়কেই প্রয়োজনীয় সময় দেওয়াটা বিশেষ প্রয়োজন।
 বর্তমানে বহু চিকিৎসকই খুব অল্প সময়ের জন্য রোগী দেখেন। এর ফলে চিকিৎসার সময় কমছে। সেক্ষেত্রে ফোন বা হোয়াটসঅ্যাপে আপত্তি কোথায়?
 রোগীর সংখ্যা বাড়লেও তুলনায় চিকিৎসকদের সংখ্যা অপ্রতুল। কিন্তু চিকিৎসকদের সময়টা বাড়ছে না। এর মধ্যে যদি ফোন ও হোয়াটসঅ্যাপ যুক্ত হয়, তবে রোগীদের চিকিৎসার সময় আরও কমে যাবে। একজন চিকিৎসকের কাছে যদি একদিনে ২০০টি ফোন আসে এবং তিনি যদি ফোনগুলিতে ন্যূনতম ১ মিনিট করেও সময় দেন, তবে শুধুমাত্র ফোনের জবাব দিতেই তাঁকে প্রায় সাড়ে তিন ঘণ্টা সময় অতিবাহিত করতে হবে। যার ফলে খুব স্বাভাবিকভাবেই রোগী দেখার সময়টা কমবে। রোগীর সংখ্যা বাড়লেও চিকিৎসকের সময় বাড়ে না। সুতরাং প্রযুক্তির সহায়তা নিয়ে সবাই যে চটজলদি চিকিৎসকের কাছে পৌঁছতে চাইছেন, তাতে ঝুঁকির মাত্রাই বাড়ছে।
 চিকিৎসকদের ক্ষেত্রে ডাক্তারির পাশাপাশি ষষ্ঠ ইন্দ্রিয়ের বিষয়টিও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু এত অল্প সময়ে তার প্রয়োগ কি সম্ভব?
 চিকিৎসক যখন রোগীর পাশে বসেন, তখন তাঁর পালস, প্রেশার, হার্টবিট সহ বিভিন্ন জিনিস দেখেন। তা থেকে রোগীর শারীরিক অবস্থার ধারণা পাওয়া যায়। পাশাপাশি, সামনে বসে রোগীর হাঁটাচলা দেখে বা কথা বলে চিকিৎসকরা সমস্যাগুলিকে সহজেই চিহ্নিত করতে পারেন। কিন্তু দৃষ্টিসীমার বাইরে থেকে শুধুমাত্র ফোনে শুনে রোগীর অবস্থা বোঝা অত্যন্ত দুরূহ। অত্যন্ত ঝুঁকিসাপেক্ষও বটে।
 এখন অনেক চিকিৎসকই হোয়াটসঅ্যাপে প্রেসক্রিপশন দেখতে চান। ওষুধও দেন। সেক্ষেত্রে?
 হোয়াটসঅ্যাপে প্রেসক্রিপশন চাওয়ার অর্থ, রোগী কী কী ওষুধ খান বা তাঁর কী ধরনের চিকিৎসা চলছে, সেই সম্পর্কে কিছুটা ধারণা পাওয়া। এর মধ্যে দিয়ে রোগীর বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে চিকিৎসকরা কিছুটা ধারণা পেতে পারেন। অত্যন্ত প্রয়োজনে আপৎকালীনভাবে তিনি রোগীকে বা তাঁর পরিবারকে কিছু পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রেও ঝুঁকি থেকেই যায়।
 কী ধরনের ঝুঁকির আশঙ্কা থাকে?
 অনেক ওষুধ আছে, যেগুলির নাম শুনতে অনেকটা একইরকম, কিন্তু কার্যকারিতা সম্পূর্ণ ভিন্ন। হয়তো ফোনে চিকিৎসক একটি ওষুধের নাম বললেন। কিন্তু রোগী ঠিক বুঝতে না পেরে দোকানে গিয়ে অন্য নাম বললেন এবং সেই ওষুধটি গ্রহণ করলেন, তাতে মারাত্মক বিপদের আশঙ্কা থাকে। একটা উদাহরণ দিলে বিষয়টি সহজ হবে। ধরুন, একটা ওষুধের নাম ডাইমক্স ২৫০। অপর একটি ওষুধের নাম ডায়ামক্স ২৫০। বানানের তফাৎ সামান্যই। কিন্তু এই সামান্য তারতম্যই রোগীর ক্ষেত্রে মারাত্মক হয়ে দেখা দিতে পারে। সেক্ষেত্রে রোগীর রোগ নিরাময়ের বদলে নতুন সমস্যা দেখা দিতে পারে। কখনও কখনও তা প্রাণ সংশয়ের কারণও হতে পারে। সেক্ষেত্রে চিকিৎসক রোগীর ভালো চেয়ে ফোনে পরামর্শ দিলেও তা আদতে উল্টো কাজ করায় স্বভাবতই ঝুঁকি বাড়বে চিকিৎসকেরও। তাই ফোন বা হোয়াটসঅ্যাপে পরামর্শ দেওয়াটা অনুচিত। রোগীদেরও এই ঝুঁকির বিষয়টিকে বুঝতে হবে।
 এখন তো টেলিমেডিসিন সেন্টারও হচ্ছে। তবে কি প্রযুক্তির সাহায্য নেব না আমরা?
 প্রযুক্তির উন্নতি হচ্ছে। তাই একটা পর্যায় পর্যন্ত প্রযুক্তির সাহায্য নিতেই হবে। বর্তমান সময়ে প্রযুক্তির সাহায্যে রোগের বিচার করা অনেকটাই সহজ হয়েছে। কিন্তু প্রযুক্তির মাধ্যমে দূরে থেকে রোগীর চিকিৎসা করা সম্ভব নয়। কারণ প্রযুক্তির উন্নতি হলেও শরীর তো বদলায়নি, তা একই রয়েছে।
 চিকিৎসকরা এখন আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের সাহায্যও নিচ্ছেন। সেটা কতটা গুরুত্বপূর্ণ?
 প্রযুক্তির উন্নতিতে আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের সাহায্য নিতেই হবে। রোগ বিশ্লেষণ, তার নীতি নির্ধারণ, জটিল অপারেশন— এই সমস্ত ক্ষেত্রগুলিতে আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের সাহায্য নিতেই হবে। রোগ বিশ্লেষণ ও তা প্রতিরোধের জন্য প্রয়োজনীয় যাবতীয় পদক্ষেপ নিতে আমরা বদ্ধপরিকর। সেক্ষেত্রে আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের থেকে মুখ ফিরিয়ে রাখার কোনও কারণ নেই। তবে সবসময় লক্ষ রাখতে হবে, এই প্রয়োগের ক্ষেত্রে কোনও ভুল যাতে না হয়। আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের পরিশীলিত ব্যবহার সর্বদাই কাম্য।
 আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের কি কোনও বিপদ রয়েছে?
 একজন চিকিৎসক রোগীকে পরীক্ষা করার পর নিজের দীর্ঘ অভিজ্ঞতা থেকে সেই সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেন। কিন্তু আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের ক্ষেত্রে যা কখনওই সম্ভব নয়। তাই আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্সের উপর ১০০ শতাংশ নির্ভর করলে বহু সময়েই ভুল সিদ্ধান্ত নিতে হতে পারে। একজন চিকিৎসকের অভিজ্ঞতালব্ধ জ্ঞানের বিকল্প কখনওই আর্টিফিশিয়াল ইন্টালিজেন্স হতে পারে না।
 কোন কোন ক্ষেত্রে ফোনে পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে?
 দীর্ঘদিন ধরে একজন ডাক্তার যদি একজন রোগীর চিকিৎসা করেন, সেক্ষেত্রে তিনি ওই রোগীর ইতিবৃত্তান্ত সবই জানবেন। তাই কখনও যদি ওই রোগীর অন্য কোনও সমস্যা হয় (জ্বর বা বমির মতো ছোটখাট বিষয়), তবে তিনি তাৎক্ষণিকভাবে কী করা প্রয়োজন, সেই বিষয়ে রোগীকে পরামর্শ দিতে পারেন। তবে রোগের কারণ নির্ধারণ করতে হলে রোগী এবং চিকিৎসককে মুখোমুখি বসতেই হবে। সেটি কখনওই ফোনের মাধ্যমে সম্ভব নয়। তবে কোনও নতুন রোগীর ক্ষেত্রে অনেক সময়েই এই কাজটিও করা সম্ভব হয়ে ওঠে না। কারণ, নতুন রোগীর শারীরিক পরিস্থিতি সম্পর্কে চিকিৎসক সম্পূর্ণভাবে ওয়াকিবহাল নাও থাকতে পারেন।
 ফোনে চিকিৎসার কারণে কোনও রোগীর মৃত্যু হলে তাঁর পরিবার কি মেডিক্যাল কাউন্সিলে যেতে পারেন? এর আইনি দিক কী আছে?
 চিকিৎসা সংক্রান্ত সমস্ত অথরিটি বডিই ফোনে বা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে চিকিৎসার বিরুদ্ধেই মত পোষণ করে। সর্বদাই বলা হয়, ফোনে বা সোশ্যাল মিডিয়ায় চিকিৎসা না করার জন্য। কারণ, এক্ষেত্রে কোনও তথ্যপ্রমাণ থাকে না। হোয়াটসঅ্যাপকেও বিধিসম্মতভাবে কোনও প্রেসক্রিপশন হিসেবে তুলে ধরা যায় না। একজন চিকিৎসককে যেমন এই ধরনের কাজ থেকে বিরত থাকতে হবে, তেমনই রোগী এবং তাঁর পরিবারকেও গোটা বিষয়টির গুরুত্ব বুঝে ডাক্তারদের এই ধরনের অনুরোধ করা বন্ধ করতে হবে।সাক্ষাৎকার সুদীপ্ত রায়চৌধুরী
03rd  October, 2019
ওষুধে জিএসটি চাই না, দাবি
মেডিক্যাল রিপ্রেজেন্টেটিভদের 

অল ওয়েস্ট বেঙ্গল সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভস ইউনিয়নের ৪৫তম রাজ্য সম্মেলন কৃষ্ণনগরে অনুষ্ঠিত হল। তিনদিন ধরে চলা এই সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন সংগঠনের নদীয়া জেলার সভাধিপতি রিক্তা কুণ্ডু।   বিশদ

27th  February, 2020
গ্রামের মেয়েদের জন্য
সুশ্রুতের সার্টিফিকেট কোর্স 

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষিত এবং স্বনির্ভর মহিলাদের পরিসংখ্যান ৭০.৫৪ শতাংশ। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে শহরতলি ও গ্রামাঞ্চলের মহিলাদের জন্য বহু স্বনির্ভর প্রকল্প আনা হয়েছে, যা যথেষ্ট সাফল্যও পেয়েছে।  বিশদ

27th  February, 2020
হোমিওপ্যাথির সমস্যা মেটাতে ফোরামের দাবি 

হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে অথচ পশ্চিমবঙ্গ সহ গোটা দেশেই হোমিওপ্যাথি পড়াশোনা সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষত, বেসরকারি হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজগুলি খুবই সমস্যায় রয়েছে।   বিশদ

27th  February, 2020
পরিবারের সঙ্গে খারাপ সম্পর্ক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর 

পরিবারহীন ব্যক্তির জীবন খুব সুখকর হয় না। সমাজের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ পরিবার। ব্যক্তির বিকাশ, মানসিকতা, ভালোবাসা, রাগসহ অনেক কিছুতেই পরিবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।  বিশদ

27th  February, 2020
ভালো ঘুমের জন্য দরকার বড় বিছানা 

আমরা বিভিন্ন সময়ে উপদেশ শুনি যে, রাতে ভালো ঘুমের জন্য শোওয়ার ঘর থেকে টেলিভিশন সরিয়ে ফেলুন। ভালো একটা আরামদায়ক বিছানার ব্যবস্থা করা হোক।   বিশদ

27th  February, 2020
ডায়াবেটিস ও টিবির কি কোনও সম্পর্ক আছে? 

পরামর্শে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের টিবি চিকিৎসার দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক ডাঃ দেবব্রত রায়  বিশদ

27th  February, 2020
সিকে বিড়লা হাসপাতালের ৩০ বছর পূর্তি 

৩০ বছর পূর্ণ করল কলকাতার সিকে বিড়লা হসপিটাল-বিএমবি। সেই উপলক্ষ্যে সংস্থার পক্ষ থেকে একটি সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল।  বিশদ

20th  February, 2020
মহিলারা এইবার অন্তত নিজের দিকে তাকান! 

পরামর্শে স্পর্শ ইনফার্টিলিটি ক্লিনিকের বিশিষ্ট গাইনিকোলজিস্ট এবং ইনফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞ ডাঃ দেবলীনা ব্রহ্ম।  বিশদ

20th  February, 2020
হার্ট অ্যাটাক-স্ট্রোক এড়ান 

পরামর্শে মুকুন্দপুরের আর এন টেগোর হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ অরিন্দম বিশ্বাস।  বিশদ

20th  February, 2020
৪০ পেরলে কী কী সতর্কতা নেবেন? 

পরামর্শে বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ আশিস মিত্র  বিশদ

20th  February, 2020
দুঃস্বপ্ন মস্তিষ্ককে শক্তিশালী করে 

বেঁচে থাকতে মানুষের খাওয়া এবং ঘুম অপরিহার্য। দিনের শেষে একটু ঘুমিয়ে নেওয়া মানে টোটাল রিফ্রেশ। কিন্তু সেই ঘুমের ভেতরে অনেকেই অনেক সময় ভয়ানক কোনও স্বপ্ন দেখে চিৎকার করে জেগে ওঠেন। স্বপ্ন যেমন সুখের হয়, তেমনি দুঃখেরও হয়। হয় ভয়েরও। তবে মজার বিষয় হল, গবেষকরা সম্প্রতি জানিয়েছেন, ঘুমের ভেতর দুঃস্বপ্ন দেখলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা অধিকাংশ ক্ষেত্রে অনেকগুণ বেড়ে যায়।
বিশদ

13th  February, 2020
কন্যাসন্তান হলে পিতার আয়ু বাড়ে 

পুত্রসন্তান তাদের পিতার আয়ুর ওপর কোনও প্রভাব ফেলে না। তবে কন্যাসন্তানের সংখ্যার সঙ্গে পিতার লম্বা আয়ুর সমানুপাতিক সম্পর্ক রয়েছে। পোল্যান্ডের জাগিলোনিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্প্রতি পরিচালিত এক গবেষণা শেষে এমন তথ্য পাওয়া গিয়েছে। 
বিশদ

13th  February, 2020
ক্রমাগত অনলাইন শপিং কি অবসাদের প্রকাশ? 

অফিসে কাজের ফাঁকে কিংবা অবসরে মোবাইলে প্রতিদিনই অনায়াসে চোখ ঘোরাফেরা করছে নানা সাইটে। ল্যাপটপে একগুচ্ছ উইন্ডো খোলা কিংবা মোবাইলে অনলাইন শপিং সাইট খুলে রাখা— এটা রোজকার অভ্যেসে পরিণত হয়েছে। জামা, জুতো, শ্যাম্পু কিংবা লাইফ স্টাইলের নানা পণ্যও শপিং সাইটগুলো থেকে হুট করে কিনে ফেলেন অনেকে।  
বিশদ

13th  February, 2020
এক ঝলকে 

মেডিকায় লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট
জটিল লিভারের সমস্যায় ভুগছিলেন বছর চল্লিশের যুবক মুকেশকুমার শ। এরপর তিনি মেডিকা হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব গ্যাস্ট্রোইন্টেসটিনাল ডিজিজ বিভাগে চিকিৎসার জন্য আসেন।  
বিশদ

13th  February, 2020
একনজরে
 জেনিভা, ২৮ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): পাকিস্তানের মাটিকে নাশকতা ছড়াতে ব্যবহার করা এবং সন্ত্রাসে আর্থিক মদতের প্রসঙ্গে ফের ইসলামাবাদকে সতর্ক করল ভারত। তাও আবার রাষ্ট্রসঙ্ঘের মঞ্চে। ...

সুকান্ত বেরা  কলকাতা: ইডেনের ঘড়িতে তখন দুপুর ১২টা বেজে ২০ মিনিট। প্র্যাকটিস শেষে বাংলার কোচ অরুণ লাল ও ক্যাপ্টেন অভিমন্যু ঈশ্বরণ যখন সাংবাদিক সম্মেলন ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: রামপুরহাটের একমাত্র বিনোদনের জায়গা গান্ধীপার্কে অসামাজিক কাজকর্ম বন্ধের দাবিতে শুক্রবার পুরসভার চেয়ারম্যানের কাছে স্মারকলিপি জমা দিল গণতান্ত্রিক নাগরিক মঞ্চ। যদিও স্মারকলিপিতে যাঁরা সই করেছেন তাঁদের অধিকাংশই কংগ্রেস ও সিপিএমের সঙ্গে জড়িত।   ...

 ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জে যেসব সংস্থার শেয়ার গতকাল লেনদেন হয়েছে সেগুলির মধ্যে কয়েকটির বাজার বন্ধকালীন দর। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় মাঝেমধ্যে উদ্বেগ দেখা দেবে। প্রেম-প্রণয়ে শুভাশুভ মিশ্র, মাঝেমধ্যে মতান্তর ঘটবে। বুঝেশুনে চলা দরকার। কর্মে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৪৬৮ - পোপ দ্বিতীয় পলের জন্ম
১৭১২ - সুইডেনে ২৯ ফেব্রুয়ারির পর ৩০ ফেব্রুয়ারি পালনের সিদ্বান্ত হয়। এর কারণ তারা আগের নিয়মে ফিরতে চেয়েছিল।
১৮৯৬ - ভারতের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মোরারজি দেসাইয়ের জন্ম





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭১.২৯ টাকা ৭৩.০০ টাকা
পাউন্ড ৯১.৩৬ টাকা ৯৪.৬৮ টাকা
ইউরো ৭৭.৮৮ টাকা ৮০.৮৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪২,৯৬৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪০,৭৬৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৩৮০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শনিবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ)পঞ্চমী। ভরণী অহোরাত্র ৭/৪৮ দিবা ৯/১০। সূ উ ৬/২/৩৭, অ ৫/৩৫/৫৭, অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৩ গতে ১২/৫৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/৫ গতে ১০/৩৪ মধ্যে পুনঃ ১২/১৩ গতে ১/৫৩ মধ্যে পুনঃ ২/৪৩ গতে ৪/২২ মধ্যে। বারবেলা ৭/৩০ মধ্যে পুনঃ ১/১৬ গতে ২/৪২ মধ্যে পুনঃ ৪/৮ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৭/৯ মধ্যে পুনঃ ৪/২৯ গতে উদয়াবধি।
১৬ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, শনিবার, ষষ্ঠী, ভরণী ৫৩/২৫/৩২ রাত্রি ৩/২৭/৪৩। সূ উ ৬/৫/৩০, অ ৫/৩৫/১১। অমৃতযোগ দিবা ৯/৪৯ গতে ১২/৫৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৬ গতে ১০/৩৩ মধ্যে ও ১২/১১ গতে ১/৪৯ মধ্যে ও ২/৩৮ গতে ৪/১৭ মধ্যে। কালবেলা ৭/৩১/৪৩ মধ্যে ও ৪/৮/৫৯ গতে ৫/৩৫/১১ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৮/৫৮ মধ্যে ও ৪/৩১/৪২ গতে ৬/৪/৩৭ মধ্যে।
৪ রজব

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মালদহের ইংলিশবাজারে বাড়িতে ঢুকে গৃহবধূকে ছুরি তিন দুষ্কৃতীর, চাঞ্চল্য 

04:04:32 PM

বাঁকুড়ার জয়পুরে ট্রাক্টরের ধাক্কায় শিশুর মৃত্যু, মৃতদেহ আটকে চলছে বিক্ষোভ 

01:45:04 PM

চার নম্বর ব্রিজে স্কুটিতে ধাক্কা গাড়ির, জখম চালক 

01:19:00 PM

কামারহাটির প্রান্তিক নগরে গ্যাস সিলিন্ডার ফেটে আগুন, দমকলের চেষ্টায় নিয়ন্ত্রণে 

12:07:00 PM

ঋণ দেওয়ার নামে প্রতারণা, ধৃত ১ 
ঋণ দেওয়া ও তামাদি হওয়া বিমা পুনর্জীবিত করার নাম করে ...বিশদ

11:32:51 AM

মুর অ্যাভেনিউতে বাড়িতে চুরি, ধৃত ১ 
মুর অ্যাভেনিউতে এক আইনজীবীর বাড়িতে চুরির অভিযোগে এক যুবককে গ্রেপ্তার ...বিশদ

10:57:03 AM