Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

 হোমিওপ্যাথিক ওষুধ
ডাঃ দেবর্ষি দাস ( হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক)

বাঙালি আর বেড়ানো এই দুই শব্দকে কখনওই আলাদা করা যায় না। কিন্তু বেড়াতে গিয়ে শরীর খারাপ হলে প্রকৃতি দর্শনের পুরো আনন্দটাই মাটি। আর এই বেড়ানোর আনন্দটা যাতে কোনওভাবেই নিরানন্দে পরিণত না হয় তাই বেড়াতে যাবার ব্যাগ গোছানোর সময় অবশ্যই কিছু জরুরি ওষুধ ব্যাগে নিতে হবে। দরকারে এগুলো ভীষণ উপযোগী এবং বেড়ানোটাকে নির্ঝঞ্ঝাট রাখতে পারে।
সাধারণ বেড়ানোর সমস্যা
প্রথমেই বলি উঁচু পাহাড়ে বেড়াতে গেলে পাহাড়ের উচ্চতার কারণে অনেক সময় (হাই অল্টিটিউড সিকনেশ) শ্বাসকষ্ট, বমি বমি ভাব সহ খিদে চলে যায়। কোকা ৩০ (মাইন্টেনারস রেমেডি) ওষুধটা একটু ঘন ঘন খেলে এই উপসর্গ থেকে মুক্তি মেলে। যাঁদের এরোপ্লেনে উঠতে ভয় বা সমস্যা আছে তাঁরা বেলেডোনা ২০০ ওষুধটা নিতে পারেন (এয়ার সিকনেশ)। গাড়ি করে বা বাসে ট্রেনে উঠলে কারও কারও বমি বমি ভাব বা বমি করার সমস্যা থাকে (কার সিকনেশ/ মোশন সিকনেশ)। এক্ষেত্রে কক্কুলাস ইন্ডিকা ৩০ যাত্রা শুরুর ঘণ্টাখানেক আগের থেকে খাওয়া শুরু করলে বেশ উপকারে আসে।
পেটের সমস্যা
বেড়ানো মানেই নিয়মের বাইরে গিয়ে বেহিসেবী খাওয়া-দাওয়া। তাই নিয়মের বাইরে গিয়ে ঝাল-তেল-মশলা খাবার খেয়ে পেট খারাপ হলে পালসাটিল্লা ৩০ কয়েকবার খেলে সুরাহা হয়। আমাশয়, পায়খানা, কষ্ট করে হলে মারসল ৩০, তাড়াতাড়ি যেতে হয়, ধরে রাখা যায় না এরকম হলে— এলো-সক ৩০ কাজ করে। রাত জাগা, হই-হুল্লোড় করা, পেট ফাঁপা, বমি বমি ভাব, খাবারের অনিয়মে নাক্স ভোমিকা ২০০ কার্যকরী। বদ হজমে কার্বো ভেজ ২০০ কয়েকবার খাওয়া যেতে পারে। বাসি খাবার, অস্বাস্থ্যকর খাবার বা জল থেকে পেটের সমস্যা, ব্যথা, বমি, পাতলা পায়খানা হলে (ফুড পয়জনিং) আর্সেনিক অ্যালব ৩০ কাজে আসে। পেট ভীষণ ফাঁপা সঙ্গে পাতলা পায়খানা হলে সিনকোনা ২০০ ভালো কাজ করে। তলপেটে খুব মুচড়ে ব্যথা, চেপে ধরলে আরাম হলে কলোসিন্স ৩০ কয়েকবার খেলে আরাম মিলবে। এক্ষেত্রে ম্যাপ ফল ৬ এক্স ৫ থেকে ৬টা ট্যাবলেটও যে কোনও ব্যথা কমাতে সাহায্য করে।
চোট আঘাতের সমস্যায়
বেড়াতে বেরিয়ে চোট, ব্যথা লাগতেই পারে। তাই ব্যাগে অবশ্যই রাখতে হবে আর্নিকা ৩০ কিংবা ২০০। পড়ে গিয়ে চোট, কালসিটে, ফুলে গেলে এই ওষুধ অব্যর্থ কাজ করে। মচকা ব্যথাতে রুটা ২০০ সুন্দর কাজে আসে। পেশিতে ব্যথা হলে রাসটক্স ২০০ কার্যকরী। ধারালো কোনও কিছুতে শরীরের কোনও অংশ কেটে গেলে হাইপেরিকাম ২০০ খেতে হবে। ক্যালেন্ডুলা ৩০ ওষুধটিও কেটে গেলে খাওয়া যেতে পারে আর ক্যালেন্ডুলা মাদার টিংকচার দিয়ে কাটা জায়গাটায় লোশোন বানিয়ে ড্রেসিং করলে নিরাময় হয়। আর্নিকা ওয়েন্টমেন্ট ব্যথা ফোলায় এবং ক্যালেন্ডুলা ওয়েন্টমেন্ট কাটা-ছেঁড়ায় লাগানো যেতে পারে।
জ্বর
সারাদিন রোদে গরমে ঘুরে, ঠান্ডা জল খেয়ে বা যে কোনও ভাবে ঠান্ডা গরমে জ্বর এলে ব্র্যায়োনিয়া ২০০ বা ৩০ একটু খেলে উপশম মিলবে। নদী-সমুদ্রের স্নান করে অথবা বৃষ্টিতে ভিজে জ্বর এলে রাসটক্স ২০০ কয়েকবার খেতে হবে। তবে এগুলোর সঙ্গে বেলেডোনা, জেলসেমিয়াম অন্যান্য অনেক কার্যকরী ওষুধও আছে।
পুড়ে গেলে
আগুনে বা গরম কোনও কিছুতেই হাত বা পা, শরীরের কোনও অংশ পুড়ে গেলে বা ছ্যাঁকা লাগলে ক্যানথেরিস ৩০ খেতে হবে আর ক্যানথেরিস ওয়েন্টমেন্ট লাগানোর সঙ্গে সঙ্গে আনুসঙ্গিক প্রাথমিক চিকিৎসাও করতে হবে।
পোকা-মাকড়
কোনও বাগান বা জঙ্গলে ঘোরার সময় ধুলো, পোকা-মাকড়ের সংস্পর্শে চামড়ায় অ্যালার্জি জাতীয় কিছু দেখা দিলে বা মারাত্মক বিষাক্ত নয় এমন কিছু কামড়ালে (যেমন মৌমাছি, বোলতা, লাল পিঁপড়ে ইত্যাদি) এপিস মেল ৩০ ব্যথা জ্বালা উপশমে কাজে আসে।
নতুন জুতো
নতুন জুতো পরে পায়ে ফোস্কা পড়লে এলিয়াম সেপা ৩০ ঘন ঘন খেলে লাভ হয়।
পরিশেষে, মোটামুটি কিছু ওষুধের সিম্পটম তুলে ধরা হল যাতে কিছুটা হলেও সবার কাজে আসে। তবে সমস্যা বেশি বা জটিল হলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
12th  September, 2019
ব্রেকফাস্টে খই-চিঁড়ে-মুড়ি?
নাকি কর্নফ্লেক্স-ওটস-মুসেলি? 

ব্রেকফাস্টে কী খাব? খই-চিঁড়ে-মুড়ি নাকি কর্নফ্লেক্স-ওটস-মুসেলি? এই তরজা এখন সব বাঙালি পরিবারে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পরিবারের বয়ঃজেষ্ঠ্যদের দাবি, সনাতন খই-চিঁড়ে-মুড়ি খেলেই পাওয়া রাখা যায় ঝরঝরে চেহারা। থাকা যায় সুস্থ। অন্যদিকে কনিষ্ঠরা বলে, ব্যাকডেটেড চিঁড়ে-মু‌঩ড়ির থেকে কর্নফ্লেক্স-ওটস-মুসেলিতে শরীর ফিট রাখা যায় বেশি। কাদের দাবি সঠিক? উত্তর এককথায় দেওয়া সম্ভব নয়। কারণ উপরোক্ত সব প্রকৃতির খাদ্যই হল দানাশস্য। সব ধরনের খাদ্যেরই উপকার রয়েছে।
বিশদ

17th  September, 2020
পুজোর আগে বাড়িতেই কমান ভুঁড়ি 

হাতে আর মাত্র এক মাস। করোনার রক্তচক্ষু যতই ‘নিউ নর্মাল’ এর দাবি জানাক না কেন, বাঙালির পুজো মানে প্রাণ খোলা আনন্দ। আর পুজোর আগে প্রত্যেকেই চায় একটু চাকচিক্য। প্যান্ডেল হপিংয়ের সময় পারফেক্ট ছবির জন্য ওজন যেন না কমালেই নয়। ফলে এসময় থেকেই প্রতি বছর ভিড় বাড়ে জিমে। শুরু হয় ডায়েটের কড়াকড়ি। আনলক পর্বে জিম ও যোগা কেন্দ্র খুলে গেলেও এখনও সবাই নিশ্চিন্ত মনে সেখানে যেতে পারছেন না। বিশদ

17th  September, 2020
করোনা জয়ী
প্রচুর সাহস যুগিয়েছেন সহকর্মীরা 

করোনা-পর্বের শুরু থেকেই শুনে আসছি, চিকিৎসক, নার্সের মতো আমরা পুলিসকর্মীরাও এই যুদ্ধে প্রথম সারির যোদ্ধা। তাই আমাদের স্যারেরাও সেই কথা বলে সবসময় সাবধান থাকার পরামর্শ দিয়েছিলেন। তবু, অনেক সতর্কতা সত্ত্বেও করোনা হয়েই গেল। আমি থাকি শিবপুর থানার পুলিস ব্যারাকে। সেখানকার সবার করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয় গত ২০ এপ্রিল।  বিশদ

17th  September, 2020
করোনার জন্য ‘প্যানিক
অ্যাটাক’ কী করবেন?

‘বুক ধড়ফড় করছে। মনে হচ্ছে জ্বর হয়েছে। কিন্তু থার্মোমিটারে মেপে দেখছি ৯৮। আমার কি করোনা হতে পারে’? বিশদ

10th  September, 2020
ট্রেন-মেট্রো খুললে যাতায়াতে
কী কী সতর্কতা নেবেন?

 মেট্রো চালু হচ্ছে। শহর ও শহরতলির একটা বড় সংখ্যক মানুষ মেট্রো পাকড়ে অফিসপাড়ায় ফিরতে চাইবেন আগের মতোই। অতএব মেট্রো ধরতে চাইলেও কঠোর নিয়ম মানতে হবে— বিশদ

10th  September, 2020
 কুড়ি বছর বয়সের নীচে করোনা
আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অর্ধেক

 গবেষকরা বলছেন, সমীক্ষায় ১০ থেকে ১৯ বছর বয়সীদের মধ্যে ২১ শতাংশের ক্ষেত্রে কোভিড-১৯ এর লক্ষণগুলো প্রকাশ পেতে দেখেছেন তাঁরা। অন্যদিকে ৭০ বা তার বেশি বয়সিদের ক্ষেত্রে এই হার প্রায় ৬৯ শতাংশ। বিশদ

10th  September, 2020
 সচেতন হলেই কিস্তিমাত

 করোনা হলেই সেই রোগীকে একঘরে করে রাখা হোক। তাঁকে কার্যত সমাজচ্যুত করা হোক কিছুদিনের জন্য। শহর হোক বা গ্রামাঞ্চল, মাসকয়েক ধরে এগুলি শুনে আসছি। কিন্তু কেন করা হবে এরকম? বিশদ

10th  September, 2020
বীরভূমে হোমিওপ্যাথিক
মেডিক্যাল কলেজের অনুষ্ঠান 

বীরভূম বিবেকানন্দ হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের ৪৯তম প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলেজের পরিচালন সমিতির সম্পাদক ডাঃ তপনকুমার চট্টোপাধ্যায়, কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ অনুপকুমার দাস সহ অন্যান্যরা।   বিশদ

03rd  September, 2020
এই পরিস্থিতিতে হঠাৎ
জ্বর, কী করবেন? 

করোনা ছাড়াও এখন যে কারণে জ্বর আসতে পারে তা হল— ম্যালেরিয়া, ডেঙ্গু, টাইফয়েড, স্ক্রাব টাইফাস, চিকুনগুনিয়া এবং চিকেন পক্স। এছাড়া নিউমোনিয়া বা ফুসফুসের সংক্রমণ ও মেনিনজাইটিস অথবা মস্তিষ্কের সংক্রমণেও জ্বর আসতে পারে। সবক’টিই সংক্রামক রোগ, চিকিৎসাযোগ্য এবং সেরেও যায়।  
বিশদ

03rd  September, 2020
ভুঁড়ি কমানো
কেন জরুরি? 

ভুঁড়ি অর্থাৎ স্থূলত্বে কি করোনার ঝুঁকি বাড়ে? সরাসরি ‘হ্যাঁ’ বা ‘না’-তে এই উত্তর দেওয়া সমীচীন নয়। প্রথমেই বলে নেওয়া দরকার, করোনা সংক্রমণের সঙ্গে মোটা বা রোগার কোনও সম্পর্ক নেই। তবে, কোভিড-১৯ আক্রান্ত হওয়ার পর রোগ আরও জটিল হওয়ার আশঙ্কার সঙ্গে ওবেসিটি অর্থাৎ স্থূলত্বের পরোক্ষ যোগাযোগ রয়েছে।  
বিশদ

03rd  September, 2020
করোনা আর কতদিন
থাকতে পারে ?

দেশে চতুর্থ পর্যায়ের আনলক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।  একদিকে টিকা আবিষ্কারের প্রচেষ্টা চলছে, অন্যদিকে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ।  এখন পরিস্থিতি ঠিক কীরকম? কী লেখা রয়েছে ভবিষ্যতের খাতায়? ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করলেন রাজ্য সরকারের করোনা মোকাবিলার বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্য তথা পিজি হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের প্রধান ডাঃ সৌমিত্র ঘোষ।
বিশদ

03rd  September, 2020
করোনার অ্যান্টিবডির
মেয়াদ কতদিনের?

কল্পনা করুন, আপনি সীমান্তের সৈন্য, মেশিনগান হাতে পাহারা দিচ্ছেন। দেখলেন শত্রুসৈন্যরা এগিয়ে আসছে। কী করবেন? অবশ্যই গুলি করবেন। গুলি করলেন, শত্রুরা নিহত হল, আর কেউ আসছেও না। তখনও কি মেশিনগান চালাতেই থাকবেন? অবশ্যই না। একইভাবে ভাইরাস হল শত্রুসৈন্য, আর অ্যান্টিবডি হল শরীরের রোগ-প্রতিরোধ ব্যবস্থার গুলি। বিশদ

27th  August, 2020
সুগার ফল-এর বিপদ

 কোনও ডায়াবেটিস রোগীর রক্তে সুগারের মাত্রা ৭০ মিলিগ্রাম/ডেসিলিটার-এর নীচে নেমে গেলে বিভিন্ন শারীরিক সমস্যা দেখা দেয়। এই অবস্থাকে বিজ্ঞানের ভাষায় হাইপোগ্লাইসেমিয়া এবং জনসাধারণের ভাষায় ‘সুগার ফল’ করা বলে। এ সময় বুক ধড়ফড়, হাত কাঁপা, মাথা ঝিমঝিম, শরীরে অস্বস্তি ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়। বিশদ

27th  August, 2020
ভাবুন আপনি ২২ গজের বীরেন্দ্র
সেওয়াগ, করোনা পালাবেই!

 করোনা আক্রান্ত হলে ভয় পাওয়ারই কথা। কিন্তু দ্রুত নিজেকে সামলে নেবেন। আর যাবতীয় সাহস সঞ্চয় করে বলবেন, ‘সুস্থ হবই’। দেখবেন করোনা থাকবে না। রিষড়ার চারবাতি এলাকায় আমার দোকান। হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরেছি এই দিন পনেরো হল। বুঝেছি, আত্মবিশ্বাসই হল এই ভাইরাসের সঙ্গে লড়াই করবার সেরা হাতিয়ার। বিশদ

27th  August, 2020
একনজরে
জীবানন্দ বসু, কলকাতা: রাজ্যের চটকল শ্রমিকদের নানাবিধ সমস্যা সমাধানের প্রতি এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকার বিশেষ নজর দিতে চলেছে। শ্রমিকদের চাকরির স্থায়িত্ব এই শিল্পের অন্যতম এবং বহু পুরনো সমস্যা হওয়ায় আপাতত তার সমাধানকেই পাখির চোখ করেছে শ্রমদপ্তর।   ...

নয়াদিল্লি: রবিবার ডিজেলের দাম ফের কমল দেশজুড়ে। এই নিয়ে গত চার দিনে ডিজেলের দাম লিটার প্রতি প্রায় ১ টাকা হ্রাস পেল। এদিন দিল্লিতে ডিজেলের দাম ২৪ পয়সা কমে হয়েছে ৭১ টাকা ৫৮ পয়সা।  ...

সংবাদদাতা, রানাঘাট: রানাঘাটে জাতীয় সড়কের ধার থেকে চুরি যাওয়া একটি লরি উত্তর ২৪ পরগনা জেলা থেকে উদ্ধার করল পুলিস। বুধবার রাতে পায়রাডাঙায় জাতীয় সড়কের ধারের একটি পেট্রল পাম্পের পাশ থেকে ১২ চাকার ওই লরিটি চুরি যায়।  ...

লন্ডন: করোনা রুখতে কঠোর জরিমানার পথে হাঁটতে চলেছে ব্রিটেন। সেল্ফ আইসোলেশনে না থাকলে করোনা আক্রান্তকে ১০ হাজার পাউন্ড জরিমানা করা হবে বলে শনিবার ঘোষণা করেছে বরিস জনসন সরকার।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সম্পত্তিজনিত মামলা-মোকদ্দমায় জটিলতা বৃদ্ধি। শরীর-স্বাস্থ্য দুর্বল হতে পারে। বিদ্যাশিক্ষায় বাধাবিঘ্ন। হঠাকারী সিদ্ধান্তের জন্য আপশোস বাড়তে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক শান্তি দিবস
১৮৬৬: ব্রিটিশ সাংবাদিক, ঐতিহাসিক ও লেখক এইচ জি ওয়েলসের জন্ম
১৯৩৪: জাপানের হনসুতে টাইফুনের তাণ্ডব, মৃত ৩ হাজার ৩৬ জন
১৯৪৭: মার্কিন লেখক স্টিফেন কিংয়ের জন্ম
১৯৭৯: ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার ক্রিস গেইলের জন্ম
১৯৮০: অভিনেত্রী করিনা কাপুর খানের জন্ম
১৯৮১: অভিনেত্রী রিমি সেনের জন্ম
১৯৯৩: সংবিধানকে অস্বীকার করে রাশিয়ায় সাংবিধানিক সংকট তৈরি করলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বরিস ইয়েলৎসিন
২০০৭: রিজওয়ানুর রহমানের মৃত্যু
২০১৩: কেনিয়ার রাজধানী নাইরোবিতে ওয়েস্ট গেট শপিং মলে জঙ্গি হামলা, নিহত কমপক্ষে ৬৭



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৮৯ টাকা ৭৪.৬০ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৫৫ টাকা ৯৬.৯১ টাকা
ইউরো ৮৫.১০ টাকা ৮৮.২১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
19th  September, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫২,৩৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,৭০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫০,৪৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৬,৭৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬৬,৮৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
20th  September, 2020

দিন পঞ্জিকা

৫ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, পঞ্চমী ৪৫/৩৬ রাত্রি ১১/৪৩। বিশাখানক্ষত্র ৩৮/২১ রাত্রি ৮/৪৯। সূর্যোদয় ৫/২৮/৩৬, সূর্যাস্ত ৫/৩০/৫৪। অমৃতযোগ দিবা
৭/৪ মধ্যে পুনঃ ৮/৪১ গতে ১১/৬ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫৫ গতে ১১/৬ মধ্যে পুনঃ ২/১৭ গতে ৩/৫ মধ্যে। বারবেলা ৬/৫৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ২/৩০ গতে ৪/০ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/০ গতে ১১/৩০ মধ্যে।  
৪ আশ্বিন ১৪২৭, সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০, চতুর্থী দিবা ৭/৩৭ পরে পঞ্চমী শেষরাত্রি ৫/১৭। বিশাখানক্ষত্র রাত্রি ৩/১। সূর্যোদয় ৫/২৮, সূর্যাস্ত ৫/৩৩। অমৃতযোগ দিবা ৭/৭ মধ্যে ও ৮/৪১ গতে ১১/১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৪২ গতে ১০/৫৯ মধ্যে ও ২/১৭ গতে ৩/৬ মধ্যে। কালবেলা ৬/৫৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে ও ২/৩২ গতে ৪/২ মধ্যে। কালরাত্রি ১০/১ গতে ১১/৩১ মধ্যে।  
মোসলেম: ৩ শফর। 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
এই আইনে মধ্যস্বত্বভোগীরা বিলুপ্ত হবে: প্রধানমন্ত্রী 

01:29:06 PM

কৃষক মাণ্ডি বন্ধ করা হবে না: প্রধানমন্ত্রী 

01:22:49 PM

যেখানে ফসলের দাম বেশি সেখানেই বিক্রি করতে পারবেন কৃষকরা: প্রধানমন্ত্রী 

01:21:13 PM

ফসল বিক্রির উপর কোনও কর লাগবে না: প্রধানমন্ত্রী 

01:21:00 PM

এই আইন কৃষক মাণ্ডির বিরুদ্ধে নয়: প্রধানমন্ত্রী 

01:20:34 PM

ফসল বিক্রির উপর কর লাগবে না: প্রধানমন্ত্রী 

01:19:14 PM