Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

রক্তের গ্রুপ থেকে
কী কী জানা যায়? 

বর্তমানে ভারতে তো বটেই, সারা বিশ্বে রক্তরোগীর সংখ্যা বাড়ছে। রক্তের গ্রুপের সঙ্গে রোগের আদৌ কি কোনও সম্পর্ক রয়েছে? শরীরে ভুল রক্ত ঢুকলে তা কতটা মারাত্মক হতে পারে? রক্ত সম্পর্কিত রোগের শিকার মানুষের আধুনিক চিকিৎসার কোনও ব্যবস্থা আমাদের রাজ্যে রয়েছে কি? এসব প্রশ্নেরই জবাব দিলেন কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ইমিউনোহেমাটোলজি অ্যান্ড ব্লাড ট্রান্সফিউশন বিভাগের প্রধান ডাঃ প্রসূন ভট্টাচার্য।
গোড়ার কথা
ব্লাড গ্রুপ কী, সে সম্পর্কে আমাদের সকলেরই একটা ধারণা রয়েছে। সবাই নিজের নিজের ব্লাড গ্রুপ সম্পর্কে ওয়াকিবহাল। অঙ্গ প্রতিস্থাপন বা শরীরে রক্ত দেওয়ার (ব্লাড ট্রান্সফিউশন) দরকার পড়লে ব্লাড গ্রুপ নির্ণয় করা ছাড়া গতি নেই। এক্ষেত্রে সামান্যতম গাফিলতিও চরম পরিণতি ডেকে আনতে পারে। কারও শরীরের ভুল রক্ত ঢুকলে তাঁর শরীরের প্রতিরোধ ক্ষমতা ভেঙে পড়তে পারে। কিডনি বিকল হয়ে যেতে পারে। রক্ত জমাট বেঁধে অর্গ্যান ফেলিওর, স্ট্রোক এমনকী মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। কিন্তু বর্তমানে চিকিৎসা বিজ্ঞানের প্রভূত উন্নতির ফলে রক্তের মিসম্যাচ হওয়ার এই ঝুঁকি অনেকটাই কমে গিয়েছে।
রক্ত কী?
রক্ত সম্পর্কে জানতে গেলে আগে তার প্রাথমিক উপাদানগুলি জানতে হবে। রক্তে উপস্থিত লোহিত রক্তকণিকার কাজ হল ফুসফুসের মধ্যে এবং ফুসফুস থেকে অক্সিজেন সংবহন করা। শ্বেত রক্তকণিকা আবার রক্তে মিশে যাওয়া ‘অনুপ্রবেশকারীদের’ সঙ্গে লড়াই করে তাদের নিকেষ করে। প্লেটলেটের কাজ হল রক্তকে জমাট বাঁধতে সাহায্য করে রক্তক্ষরণ বন্ধ করা। সবশেষে আসে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান, প্লাজমা বা রক্তরস। এই উপাদানটি বাকিদের একজোট করে রাখে।
রক্তের গ্রুপ নির্ণয়
মানুষের রক্তের লোহিত কণিকার মধ্যে সাধারণত দুটি অ্যান্টিজেন পাওয়া যায় ‘এ’ এবং ‘বি’। এই দুই অ্যান্টিজেন-এর উপস্থিতি বা অনুপস্থিতিই রক্তের গ্রুপ নির্ণয় করে। যা উত্তরাধিকার সূত্রে সন্তান তার বাবা-মায়ের কাছ থেকে পেয়ে থাকে। বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত মোট ৩৬টি ব্লাড গ্রুপ সিস্টেম এবং ৩৪০ রকম অ্যান্টিজেন খুঁজে পেয়েছেন বটে, কিন্তু সাধারণত চার ধরনের রক্তই মানবশরীরে সবচেয়ে বেশি পাওয়া যায়। সেগুলি হল— এ, বি, এবি এবং ও। এ গ্রুপের রক্তে ‘এ’ অ্যান্টিজেন থাকে আর ‘বি’ গ্রুপের রক্তে ‘বি’। আবার ‘এবি’ গ্রুপের রক্তে দুটোই থাকে এবং ‘ও’ গ্রুপে ‘এ’ কিংবা ‘বি’ কোনও অ্যান্টিজেনই থাকে না। সারা বিশ্বে ‘ও’ গ্রুপের রক্তেরই আধিক্য রয়েছে। তারপরের স্থানে রয়েছে ‘এ’ অথবা ‘বি’ এবং সবশেষে ‘এবি’। আমরা সবাই রক্তের পজিটিভ ও নেগেটিভ দিকটা জানি। কিন্তু, তা কী করে নির্ণয় করা হয়, সেটাও জেনে রাখা ভালো। আমাদের রক্তে আরেক ধরনের প্রোটিন থাকে, যার নাম আরএইচ ফ্যাক্টর। এই প্রোটিন রক্তে থাকলে সেটা হয়ে যায় পজিটিভ। না থাকলে নেগেটিভ।
গবেষকরা দাবি করেছেন, বিশেষ বিশেষ গ্রুপের রক্তের সঙ্গে বিশেষ কিছু রোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বৃদ্ধির সম্পর্ক রয়েছে। কিন্তু, তাই বলে আপনি আপনার রক্তের গ্রুপ বদলে ফেলতে পারেন না। সেটা সম্ভবও নয়। তবে আগেভাগে কিছু সতর্কতা মেনে চললে সেই রোগগুলিকে প্রতিহত করা সম্ভব।
রক্ত ও রোগ
রক্তের গ্রুপের সঙ্গে রোগের প্রবণতা তৈরি হওয়ার একটা যোগসূত্র রয়েছে। দীর্ঘদিনের গবেষণা এবং সমীক্ষা চালিয়ে বিজ্ঞানীরা সেটা দেখিয়েছেন। যেমন— ‘এ’ গ্রুপের রক্তে জমাট বাঁধার ক্ষমতা (কোয়াগুলেশন) বেশি থাকে। এই ধরনের রক্তের গ্রুপের অধিকারী ব্যক্তিদের মধ্যে থ্রম্বোএম্বোলিক ডিসঅর্ডারে (মাথায় বা ধমনীতে রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়া) আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বেশি থাকে। এছাড়াও ‘এ’ গ্রুপের রক্তের মধ্যে পাকস্থলী বা অন্ত্রের ক্যান্সারের প্রবণতাও বেশি দেখা যায়। অন্যদিকে, ‘ও’ গ্রুপের রক্তে এর ঠিক উল্টো বৈশিষ্ট্য থাকে। সেখানে রক্ত জমাট বাঁধার ক্ষমতা এতটাই কম থাকে যে, একবার রক্তক্ষরণ শুরু হলে তা সহজে বন্ধ হয় না। পাশাপাশি এবি গ্রুপের রক্তে স্মৃতিশক্তির সমস্যা, বি গ্রুপের রক্তে হৃদরোগের সমস্যা ইত্যাদির প্রবণতা বৃদ্ধির আশঙ্কা থাকে। আমরা সাধারণত এ, বি, এবি এবং ও গ্রুপের রক্তকে প্রাধান্য দিলেও বাকি যে সমস্ত রক্তের গ্রুপ রয়েছে, তাদেরও কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। যেমন— ‘ডাফি’ ব্লাড গ্রুপ ম্যালিগনেন্ট ম্যালেরিয়ার জীবাণুর বাহক হিসেবে কাজ করে। আফ্রিকায়, যেখানে এই ম্যালিগনেন্ট ম্যালেরিয়ার প্রকোপ বেশি, সেখানকার অধিবাসীদের শরীরে কিন্তু এই গ্রুপের রক্ত একেবারেই পাওয়া যায় না। বিবর্তনের মাধ্যমে প্রকৃতিই তাঁদের এই ‘রক্ষাকবচ’ দিয়েছে। অন্যদিকে, আরএইচ ব্লাড গ্রুপের ক্ষেত্রে মা যদি আরএইচ নেগেটিভ হন এবং তাঁর সন্তান যদি পজিটিভ হয়, তাহলে পরিণতি ভয়ঙ্কর হতে পারে। প্রথম সন্তান সুস্থ থাকলেও, গোল বাঁধে দ্বিতীয় সন্তানের ক্ষেত্রে। মায়ের রক্তের অ্যান্টিবডিগুলি শিশুর রক্তে থাকা লোহিত কণিকাগুলিকে ভেঙে দেয়। এই রোগকে বলা হয় এরিথ্রোব্লাস্টোসিস ফিটালিস। এছাড়াও রয়েছে ‘কেল’ ব্লাড গ্রুপ। এই গ্রুপের ক্ষেত্রে যদি মায়ের শরীরে কেল অ্যান্টিবডি থাকে এবং সন্তানের শরীরে যদি সেটার অ্যান্টিজেন থাকে তবে তা আরএইচ-এর থেকেও ভয়ঙ্কর। এতে শিশুটির শরীরে এরিথ্রোপোয়েসিস হয়, যা তার শরীরে রক্ত তৈরির ক্ষমতাকেই নষ্ট করে দেয়।
রাজ্যে চিকিৎসার সুযোগ
আমাদের রাজ্যে বর্তমানে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রক্তের প্রক্রিয়াকরণ থেকে যাবতীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য বিশেষ ল্যাবরেটরি রয়েছে। নাম ইমিউনো হেমাটোলজি অ্যান্ড ব্লাড ট্রান্সফিউশন ল্যাব। যে সমস্ত রোগীদের নিয়মিত রক্তের প্রয়োজন পড়ে, মূলত (যেমন— ক্যান্সার বা থ্যালাসেমিয়া রোগী) তাঁদের জন্যই চালু হয়েছে এই বিভাগ। রোগীর ব্লাড গ্রুপের সঙ্গে বাইরে থেকে দেওয়া রক্ত মিলিয়ে দেখারই কাজ হয় এই লাবে। রোগীকে শুধুমাত্র ‘এ’, ‘বি’, ‘এবি’, ‘ও’ এবং আরএইচ গ্রুপ মিলিয়ে দেখে রক্ত দিলেই হয় না। ডাফি বা কেল ব্লাড গ্রুপের রক্তেরও প্রাদুর্ভাব আমাদের রাজ্যে থাকার দরুন এই মিলিয়ে দেখার কাজের পরিধিটা অনেক বেড়ে যায়। প্রয়োজন হলে একটি বিশেষ প্রক্রিয়ায় আমরা রোগীর ব্লাড গ্রুপের সঙ্গে বাইরের রক্ত মিলিয়ে দেওয়ারও ব্যবস্থা করি। এই সংক্রান্ত মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের একাধিক গবেষণাপত্র দেশে তো বটেই, বিদেশেও সমাদৃত হয়েছে। আবার অঙ্গ বা অস্থিমজ্জা প্রতিস্থাপনের জন্য আসা রোগীদের ক্ষেত্রে বাইরে থেকে দেওয়া রক্তের শ্বেত রক্তকণিকাগুলিকে বিশেষ পদ্ধতিতে ছেঁটে ফেলতে হয়। সংশ্লিষ্ট রোগীর শরীরে নতুন রক্ত দেওয়ার ফলে যাতে বড় ধরনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া না হয়, সেটা নিশ্চিত করতেই এই ব্যবস্থা। আমাদের ল্যাবে সেকাজও সাফল্যের সঙ্গে হচ্ছে।
লিখেছেন নীতীশ চক্রবর্তী 
05th  September, 2019
ওষুধে জিএসটি চাই না, দাবি
মেডিক্যাল রিপ্রেজেন্টেটিভদের 

অল ওয়েস্ট বেঙ্গল সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভস ইউনিয়নের ৪৫তম রাজ্য সম্মেলন কৃষ্ণনগরে অনুষ্ঠিত হল। তিনদিন ধরে চলা এই সম্মেলনের উদ্বোধন করলেন সংগঠনের নদীয়া জেলার সভাধিপতি রিক্তা কুণ্ডু।   বিশদ

গ্রামের মেয়েদের জন্য
সুশ্রুতের সার্টিফিকেট কোর্স 

বর্তমানে পশ্চিমবঙ্গে শিক্ষিত এবং স্বনির্ভর মহিলাদের পরিসংখ্যান ৭০.৫৪ শতাংশ। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে শহরতলি ও গ্রামাঞ্চলের মহিলাদের জন্য বহু স্বনির্ভর প্রকল্প আনা হয়েছে, যা যথেষ্ট সাফল্যও পেয়েছে।  বিশদ

হোমিওপ্যাথির সমস্যা মেটাতে ফোরামের দাবি 

হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ছে অথচ পশ্চিমবঙ্গ সহ গোটা দেশেই হোমিওপ্যাথি পড়াশোনা সংকটের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে। বিশেষত, বেসরকারি হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজগুলি খুবই সমস্যায় রয়েছে।   বিশদ

পরিবারের সঙ্গে খারাপ সম্পর্ক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর 

পরিবারহীন ব্যক্তির জীবন খুব সুখকর হয় না। সমাজের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশ পরিবার। ব্যক্তির বিকাশ, মানসিকতা, ভালোবাসা, রাগসহ অনেক কিছুতেই পরিবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।  বিশদ

ভালো ঘুমের জন্য দরকার বড় বিছানা 

আমরা বিভিন্ন সময়ে উপদেশ শুনি যে, রাতে ভালো ঘুমের জন্য শোওয়ার ঘর থেকে টেলিভিশন সরিয়ে ফেলুন। ভালো একটা আরামদায়ক বিছানার ব্যবস্থা করা হোক।   বিশদ

ডায়াবেটিস ও টিবির কি কোনও সম্পর্ক আছে? 

পরামর্শে রায়গঞ্জ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের টিবি চিকিৎসার দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক ডাঃ দেবব্রত রায়  বিশদ

সিকে বিড়লা হাসপাতালের ৩০ বছর পূর্তি 

৩০ বছর পূর্ণ করল কলকাতার সিকে বিড়লা হসপিটাল-বিএমবি। সেই উপলক্ষ্যে সংস্থার পক্ষ থেকে একটি সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়েছিল।  বিশদ

20th  February, 2020
মহিলারা এইবার অন্তত নিজের দিকে তাকান! 

পরামর্শে স্পর্শ ইনফার্টিলিটি ক্লিনিকের বিশিষ্ট গাইনিকোলজিস্ট এবং ইনফার্টিলিটি বিশেষজ্ঞ ডাঃ দেবলীনা ব্রহ্ম।  বিশদ

20th  February, 2020
হার্ট অ্যাটাক-স্ট্রোক এড়ান 

পরামর্শে মুকুন্দপুরের আর এন টেগোর হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ অরিন্দম বিশ্বাস।  বিশদ

20th  February, 2020
৪০ পেরলে কী কী সতর্কতা নেবেন? 

পরামর্শে বিশিষ্ট মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ আশিস মিত্র  বিশদ

20th  February, 2020
দুঃস্বপ্ন মস্তিষ্ককে শক্তিশালী করে 

বেঁচে থাকতে মানুষের খাওয়া এবং ঘুম অপরিহার্য। দিনের শেষে একটু ঘুমিয়ে নেওয়া মানে টোটাল রিফ্রেশ। কিন্তু সেই ঘুমের ভেতরে অনেকেই অনেক সময় ভয়ানক কোনও স্বপ্ন দেখে চিৎকার করে জেগে ওঠেন। স্বপ্ন যেমন সুখের হয়, তেমনি দুঃখেরও হয়। হয় ভয়েরও। তবে মজার বিষয় হল, গবেষকরা সম্প্রতি জানিয়েছেন, ঘুমের ভেতর দুঃস্বপ্ন দেখলে মস্তিষ্কের কার্যকারিতা অধিকাংশ ক্ষেত্রে অনেকগুণ বেড়ে যায়।
বিশদ

13th  February, 2020
কন্যাসন্তান হলে পিতার আয়ু বাড়ে 

পুত্রসন্তান তাদের পিতার আয়ুর ওপর কোনও প্রভাব ফেলে না। তবে কন্যাসন্তানের সংখ্যার সঙ্গে পিতার লম্বা আয়ুর সমানুপাতিক সম্পর্ক রয়েছে। পোল্যান্ডের জাগিলোনিয়ান বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্প্রতি পরিচালিত এক গবেষণা শেষে এমন তথ্য পাওয়া গিয়েছে। 
বিশদ

13th  February, 2020
ক্রমাগত অনলাইন শপিং কি অবসাদের প্রকাশ? 

অফিসে কাজের ফাঁকে কিংবা অবসরে মোবাইলে প্রতিদিনই অনায়াসে চোখ ঘোরাফেরা করছে নানা সাইটে। ল্যাপটপে একগুচ্ছ উইন্ডো খোলা কিংবা মোবাইলে অনলাইন শপিং সাইট খুলে রাখা— এটা রোজকার অভ্যেসে পরিণত হয়েছে। জামা, জুতো, শ্যাম্পু কিংবা লাইফ স্টাইলের নানা পণ্যও শপিং সাইটগুলো থেকে হুট করে কিনে ফেলেন অনেকে।  
বিশদ

13th  February, 2020
এক ঝলকে 

মেডিকায় লিভার ট্রান্সপ্ল্যান্ট
জটিল লিভারের সমস্যায় ভুগছিলেন বছর চল্লিশের যুবক মুকেশকুমার শ। এরপর তিনি মেডিকা হাসপাতালের ইনস্টিটিউট অব গ্যাস্ট্রোইন্টেসটিনাল ডিজিজ বিভাগে চিকিৎসার জন্য আসেন।  
বিশদ

13th  February, 2020
একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: কলকাতা কর্পোরেশনের ভোটে ওয়ার্ড ভিত্তিক সমস্যা তুলে ধরতে নাগরিকদের কাছে বিশেষ সমীক্ষক টিম পাঠাচ্ছে বিজেপি। মহানগরের ১৪৪টি ওয়ার্ডের নিত্যদিনের সমস্যার চিত্র তুলে ধরতে চাইছে গেরুয়া শিবির। ভোটের প্রচারে স্থানীয় স্তরে এই ইস্যুগুলিকে সামনে রেখে শাসক তৃণমূলকে বিঁধতে ...

 দুবাই, ২৬ ফেব্রুয়ারি: নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়েলিংটন টেস্টে ব্যর্থতার জেরে স্টিভ স্মিথের কাছে মসনদ খোয়ালেন বিরাট কোহলি। আইসিসি’র টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ে দু’নম্বরে নেমে গেলেন ভারত অধিনায়ক। তাঁর জায়গায় শীর্ষস্থানে অস্ট্রেলিয়ার তারকা ব্যাটসম্যান স্মিথ। ...

 কোটা, ২৬ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): ভয়াবহ সড়ক দুর্ঘটনা রাজস্থানে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতু থেকে বরযাত্রী বোঝাই বাস নদীতে পড়ল। দুর্ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে অন্তত ২৪ জনের। গুরুতর জখম ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী আর্থিক বছর থেকে বিভিন্ন প্রশাসনিক খরচের বিল অনুমোদনের ক্ষেত্রে দপ্তরগুলিকে বিশেষ ছাড় দেওয়া হবে না। তাই দপ্তরগুলিকে বরাদ্দ টাকা যথাযথভাবে ও নিয়ম মেনে খরচ করার পরামর্শ দিয়েছে অর্থদপ্তর। দপ্তরগুলির আর্থিক পরামর্শদাতাদের সঙ্গে অর্থদপ্তরের বৈঠকের পর এই ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যার্থীদের ক্ষেত্রে আজকের দিনটা শুভ। কর্মক্ষেত্রে আজ শুভ। শরীর-স্বাস্থ্যের ব্যাপারে সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। লটারি, শেয়ার ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০২- ফরাসি লেখক ভিক্টর হুগোর জন্ম
১৯০৮- লেখিকা লীলা মজুমদারের জন্ম
১৯৩১- স্বাধীনতা সংগ্রামী চন্দ্রশেখর আজাদের মৃত্যু
১৯৩৬- চিত্র পরিচালক মনমোহন দেশাইয়ের জন্ম
২০১২- কিংবদন্তি ফুটবলার শৈলেন মান্নার মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮৯ টাকা ৭২.৫৯ টাকা
পাউন্ড ৯১.৫৯ টাকা ৯৪.৮৮ টাকা
ইউরো ৭৬.৪৯ টাকা ৭৯.৪১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৩,১৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪০,৯৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪১,৫৬০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, (ফাল্গুন শুক্লপক্ষ) চতুর্থী অহোরাত্র। রেবতী ৪৭/৪০ রাত্রি ১/৮। সূ উ ৬/৪/১৪, অ ৫/৩৫/২, অমৃতযোগ রাত্রি ১/৫ গতে ৩/৩৫ বারবেলা ২/৪২ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৪৯ গতে ১/৩৫ মধ্যে। 
১৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, চতুর্থী, রেবতী ৪২/২৩/২২ রাত্রি ১১/৪/৩৪। সূ উ ৬/৭/১৩, অ ৫/৩৪/৯। অমৃতযোগ দিবা ১/০ গতে ৩/২৮ মধ্যে। কালবেলা ২/৪২/২৫ গতে ৪/৮/১৭ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৫০/৪১ গতে ১/২৪/৪৯ মধ্যে। 
২ রজব 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
এসএসকেএম থেকে ছাড়া পেল পোলবা দুর্ঘটনায় জখম দিব্যাংশ ভকত 

07:08:00 PM

দিল্লি হিংসার ঘটনায় দুটি সিট গঠন করল ক্রাইম ব্রাঞ্চ 

06:49:02 PM

১৪৩ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

04:08:26 PM

জলপাইগুড়িতে ২১০ কেজি গাঁজা সহ ধৃত ৩ 

03:39:45 PM

পুরভোট অবাধ ও শান্তিপূর্ণ করতে হবে, রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে নির্দেশ রাজ্যপাল 
পুরভোটের দিনক্ষণ চূড়ান্ত না হলেও প্রশাসনিক তৎপরতা তুঙ্গে। এরমধ্যেই রাজ্য ...বিশদ

01:25:00 PM

লেকটাউনে নির্মীয়মাণ বিল্ডিং থেকে পড়ে মৃত শ্রমিক 

01:10:00 PM