Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

 জলবাহিত রোগের মোকাবিলা করবেন কীভাবে?

পরামর্শে পিয়ারলেস হসপিটাল অ্যান্ড বি কে রয় রিসার্চ সেন্টারের গ্যাসট্রোএনটেরোলজি এবং হেপাটোলজি বিভাগের ক্লিনিক্যাল ডিরেক্টর ডাঃ অশোকানন্দ কোনার।

ক্যালেন্ডারে বছরের পর বছর বদলে গেলেও, রাজ্যের জলছবি কিন্তু বদলায় না। বৃষ্টির দাপটে রাজ্যের উত্তর ভাগ যেমন ভেসেছে, কয়েক দফা বৃষ্টিতে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় ছিল হাঁটু জল। অসংখ্য মানুষ জল যন্ত্রণার শিকার। তবে এসবের মধ্যে সবচেয়ে বড় মাথা ব্যথার কারণ হয়ে উঠতে পারে বিভিন্ন ধরনের জলবাহিত রোগের বাড়বাড়ন্ত। তাই এই পরিস্থিতিতে সতর্কতা প্রয়োজন।
সমস্যার গোড়ায়
আমাদের দেশ তথা রাজ্যের গ্রামের এবং শহরের পানীয় জলের ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভিন্ন। গ্রাম বাংলায় অনেক মানুষ পুকুর, ঝিল, কুয়োর জল পান করেন। সমস্যা হল, বৃষ্টির কারণে মল, মূত্র অন্যান্য আবর্জনা এসে এই পানীয় জলের উৎসে মেশে। পানীয় জল সংক্রামিত হয়। এবার সেই অপরিশোধিত জলপান করলে মানুষের বিভিন্ন ধরনের সমস্যায় আক্রান্ত হওয়াই স্বাভাবিক।
অন্যদিকে শহরে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই পাইপের মাধ্যমে পানীয় জল পৌঁছে দেওয়া হয়। এক্ষেত্রে সাধারণত নদীর জলকে বিভিন্ন উপায়ে পরিশোধিত করে মানুষের কাছে জল পৌঁছানো হয়। ফলে এই জলে সংক্রমণের আশঙ্কা তুলনায় অনেকাংশে কম। তবে এক্ষেত্রেও জল পরিশোধনে খামতি থাকলে সমস্যা হতে পারে। কারণ এখন দেশের বেশিরভাগ বড় নদীই দূষণের শিকার। এবার কোনও কারণে সেই নদীর সংক্রামিত জল সঠিক পদ্ধতিতে পরিশোধিত না করে মানুষের বাড়ি পৌঁছে গেলেই সমস্যা। এক্ষেত্রে সংক্রামিত জলপান করে মানুষ বিভিন্ন জলবাহিত রোগে আক্রান্ত হন। এই ধরনের সমস্যা অনেকসময় মহামারীর আকার নেয়। আমাদের রাজ্যেও এই ধরনের ঘটনার সংখ্যা ভুরি ভুরি। আবার শহরাঞ্চলে অনেকসময় পানীয় জলের পাইপ ফেটেও জলে সংক্রমণ হয়। মূলত বর্ষাকালে পানীয় জলের পাইপ লাইনে ফাটলের মাধ্যমে নোংরা জল প্রবেশ করে। তখন পানীয় জল সংক্রামিত হয়। সেই জলপান করেও বহু মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েন।
এক নজরে বিভিন্ন জলবাহিত অসুখ
 ব্যাকটেরিয়াল ডায়ারিয়া—ই-কোলাই ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের কারণে মূলত মানুষ এই সমস্যায় আক্রান্ত হন। সাধারণত এই ধরনের ব্যাকটেরিয়া অন্ত্র বা ইনটেসটাইনে ইনফেকশন তৈরি করে। ফলে মানুষ ডায়ারিয়াতে আক্রান্ত হয়ে থাকেন। এক্ষেত্রে রোগী বারংবার তরল মলত্যাগ করেন। পাশাপাশি বমি, পেট কামড়ানো, জ্বরের মতো সমস্যাও দেখা দিতে পারে। এই সমস্যার প্রাথমিক চিকিৎসা হল ওআরএস। ডায়ারিয়ার সময় শরীরকে রিহাইড্রেট করার জন্য ওর‌্যাল রিহাইড্রেশন সলিউশন বা ওআরএসের কোনও জুড়ি নেই। ডায়ারিয়া শুরু হওয়ার সময় থেকেই ওআরএস মেশানো জলপান করলে ভালো ফল দেয়। এক্ষেত্রে এক প্যাকেট ওআরএস এক লিটার জলে গুলে নিতে হবে। তবে সমস্যা খুব বেড়ে গিয়ে থাকলে অবশ্যই অপেক্ষা না করে চিকিৎসকের কাছে যাওয়া উচিত।
অনেকের আবার পায়খানা, বমির সমস্যায় ওষুধের দোকানে বলে অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার অভ্যেস রয়েছে। এই অভ্যেস কিন্তু অত্যন্ত বিপজ্জনক। এর থেকে হিতে বিপরীত হওয়ার আশঙ্কাই বেশি। তাই ওষুধের দোকানে জিজ্ঞাসা করে অ্যান্টিবায়োটিক খাওয়ার অভ্যেস ছাড়তে হবে। বদলে এমন সমস্যা হলে প্রাথমিক পর্যায়ে ওআরএস পান করা দরকার। সমস্যা বেগতিক বুঝলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে। একজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকই রোগীর শারীরিক অবস্থা অনুযায়ী সঠিক পরামর্শ দিতে পারেন।
 আন্ত্রিক—আমাশার একটি বিশেষ ধরন হল আন্ত্রিক। মূলত জলবাহিত ব্যাকটেরিয়া থেকেই এই সমস্যায় মানুষ আক্রান্ত হন। অনেকসময় একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলের অনেক মানুষ একসঙ্গে আন্ত্রিকের করলে পড়েন। এক্ষেত্রে রোগী বারংবার রক্ত যুক্ত মলত্যাগ করেন। সঙ্গে পেটে ব্যথা থাকে। এই জটিল সমস্যা সমাধানে যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।
 জন্ডিস— এই সময়ে জলবাহিত হেপাটাইটিসের সংক্রমণ বাড়তে থাকে। মূলত হেপাটাইটিস ই ভাইরাসটিই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই সমস্যার নেপথ্যে দায়ী। তবে সংখ্যায় কম হলেও, হেপাটাইটিস এ ভাইরাস জলবাহিত হয়ে মানুষের শরীরে সমস্যা তৈরি করতে পারে।
সাধারণত, সেপ্টেম্বর মাস নাগাদই জলবাহিত হেপাটাইটিসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ে। কারণ এই ভাইরাসটি শরীরে প্রবেশ করার পর প্রায় চার থেকে ছয় সপ্তাহ বাদেই রোগ লক্ষণ দেখা দিতে শুরু করে। এই সময়টি হল জলবাহিত হেপাটাইটিসের ইনকিউবেশন পিরিয়ড। এক্ষেত্রে রোগীর গা-হাত-পা ম্যাজ ম্যাজ করে, চোখ হলদে হয়ে যায়, গা বমি ভাব দেখা দেয়। এছাড়া শরীরে আরও কিছু লক্ষণ ফুটে উঠতে পারে। হেপাটাইটিসের মতো অসুখে প্রথম থেকেই সঠিক চিকিৎসা দরকার। তাই রোগীর শরীরে এমন লক্ষণ দেখা দিলে, যত দ্রুত সম্ভব চিকিৎসকের কাছে আনতে হবে। চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া ওষুধ খাওয়া উচিত নয়।
 টাইফয়েড—জলবাহিত অসুখের তালিকায় টাইফয়েডের নামটি বিশেষভাগে উল্লেখযোগ্য। সামলোনেল্লা টাইফি ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ থেকে মানুষ টাইফয়েডে আক্রান্ত হয়। মূল রোগ লক্ষণ হল জ্বর। এক্ষেত্রে জ্বরের মাত্রা থাকে বেশি। পাশাপাশি দুর্বলতা, মাথাব্যথা, পেটে ব্যথা, বারবার মলত্যাগের মতো উপসর্গও দেখা দিতে পারে। এই রোগের নির্দিষ্ট চিকিৎসা রয়েছে। প্রয়োজন শুধু যত শীঘ্র সম্ভব রোগ নির্ণয়ের। তাই টাইফয়েডের লক্ষণ দেখা দিলেই অবশ্যই চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে।
অনেকসময় রোগীর টাইফয়েড এবং হেপাটাইটিস একসঙ্গে হতে পারে। এক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে রোগীকে টাইফয়েডের লক্ষণ নিয়ে চিকিৎসকের কাছে আনা হয়। পরে হেপাটাইটিস ধরা পড়ে। তবে এক্ষেত্রেও তেমন দুশ্চিন্তা করার কিছু নেই। চিকিৎসকের পরামর্শ মতো চললে সমস্যার সমাধান সম্ভব।
জলবাহিত রোগ থেকে বাঁচতে
১. জলবাহিত রোগের হাত থেকে নিস্তার পাওয়ার একমাত্র উপায় হল পরিশুদ্ধ পানীয় জলপান করা।
২. গ্রামের দিকে যেই পুকুর বা জলাশয়ের জলপান করা হয়, সেই জলে স্নান, কাপড় কাচা বন্ধ করতে হবে।
৩. সবথেকে ভালো হয় বর্ষার সময় টিউবওয়েলের জলপান করতে পারলে। মোটামুটি ২০০ ফিট বা তার বেশি গভীর টিউবওয়েলের জলে সংক্রমণের আশঙ্কা খুব কম। আর অপরদিকে শহরাঞ্চলে পরিশোধিত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থাকে আরও মজবুত করা ছাড়া কোনও উপায় নেই।
৪. কোনও একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে নির্দিষ্ট জলবাহিত অসুখের প্রকোপ বাড়লে সেখানকার মানুষ এবং প্রশাসনকে অবশ্যই আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে।
৫. সবথেকে ভালো হয় জল ফুটিয়ে পান করলে। তবে সব সময় জল ফুটিয়ে পান করা সম্ভব নয়। বিশেষত আমাদের মতো দেশে সকল মানুষ জ্বালানি পুড়িয়ে জল ফুটিয়ে পান করবেন, এটা ভাবাই অবাস্তব। তাই গ্রাম-শহর নির্বিশেষে সরকারকেই মানুষের কাছে পরিশোধিত পানীয় জল পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। অন্যথায় জলবাহিত রোগ প্রতিরোধ প্রায় অসম্ভব।
লিখেছেন সায়ন নস্কর
22nd  August, 2019
ক্যান্সারের আধুনিক
চিকিৎসা কী কী?

ক্যান্সার ধরা পড়ার পর চিকিৎসার প্রথম পদক্ষেপ হল সার্জারি। সেক্ষেত্রে একটা কথা অবশ্যই স্বীকার করতে হবে, অপারেশন এখন অনেক রোগীমুখী হয়েছে। এখন ‘মিনিম্যাল সার্জারি’র সময়। অর্থাৎ যতটা সম্ভব কম কাটাছেঁড়া করে রোগ সারিয়ে তোলা যায়। উদাহরণ হিসেবে ব্রেস্ট ক্যান্সারের কথা বলা যায়
বিশদ

23rd  January, 2020
কেমোথেরাপি’র নয়া টেকনিক
হাইপেক আর পাইপেক

আমাদের পেটের অন্দরে একটি পর্দার মতো আস্তরণ রয়েছে। এর নাম হল পেরিটোনিয়াম। এর মধ্যেই থাকে যকৃৎ, পাকস্থলী, প্লীহা, অগ্ন্যাশয়, খাদ্যনালী ইত্যাদি গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। এবার শরীরের অন্যান্য অংশের মতো পেরিটোনিয়ামও ক্যান্সারে আক্রান্ত হতে পারে। এক্ষেত্রে প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি, দুই ধরনের পেরিটোনিয়াল ক্যান্সার হয়।
বিশদ

23rd  January, 2020
জীবন-মৃত্যুর মাঝের
তিন মিনিটের প্রহরী

 সে এক অদ্ভুত সময়। সার্জারি বা শল্য চিকিৎসা তখন দুর্লভ। আর ব্যথাহীন শল্য চিকিৎসা— নৈব নৈব চ। প্রভূত পরিমাণ অ্যালকোহল আর প্রচুর আফিম—অ্যানাস্থিয়ার উপকরণ বলতে এইটুকু মাত্র। তারপর এল ১৮৪০ সাল। ম্যাসাচুসেটস হসপিটালে ডব্লু টি জে মোর্টোন প্রথম সারা পৃথিবীকে দেখালেন ইথার দিয়ে সার্জারি। 
বিশদ

23rd  January, 2020
অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি না বাইপাস
কোন পদ্ধতি বেশি নিরাপদ?

  স্টেন্ট কী?
 হার্টের করোনারি ধমনিতে কোলেস্টেরল প্লাক জমে, ধমনির মধ্যে রক্ত সঞ্চালন বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। সেখান থেকে হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ভয় রয়ে যায়। তাই অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টির মাধ্যমে, ধমনির মধ্যে জমা প্লাক বা বাধা সৃষ্টিকারী পদার্থ অপসারণ করা হয়। এরপর ওই অংশে বসানো হয় স্টেন্ট। ক্ষুদ্র স্টেন্ট ধমনির মধ্যে রক্ত সঞ্চালনে সাহায্য করে। বিশদ

16th  January, 2020
 রাগ তাড়ানোর থেরাপি

সম্প্রতি পানাগড়ের কাছে ‘তেপান্তর’ নামে থিয়েটার ভিলেজ-এ দুইদিনব্যাপী কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছিল ‘ক্রিয়েটিভ স্ফিয়ার কলকাতা’র উদ্যোগে। সংস্থার অন্যতম সদস্য, কর্মশালার উদ্যোক্তা এবং এক্সপ্রেসিভ আর্ট থেরাপিস্ট মালবিকা গুহ জানান, কর্মশালার বিষয় ছিল ‘বিষ থেকে অমৃতে উত্তরণ’।
বিশদ

16th  January, 2020
সুশ্রুতের চক্ষু পরীক্ষা শিবির

  দীর্ঘদিন ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্তের ডায়াবেটিস রেটিনোপ্যাথি হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। এই সমস্যায় প্রাথমিক পর্যায়ে চোখের রেটিনা অংশে রক্তবাহী সরু ধমনিগুলি দুর্বল হয়ে পড়ে। ফলে ফ্লুইড লিক করে। কমতে থাকে দৃষ্টিশক্তি।
বিশদ

16th  January, 2020
 কোন পাত্রে খাওয়া স্বাস্থ্যকর?

 পরামর্শে বেঙ্গল ইনস্টিটিউট অব ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্সেস-এর প্রিন্সিপাল ইনচার্জ ডাঃ লোপামুদ্রা ভট্টাচার্য। বিশদ

09th  January, 2020
নিমপাতা ভাতে মেখে
খেলে কী কী রোগ সারে?

 লিখেছেন ভারত সরকারের আয়ুর্বেদ গবেষণা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসা বিজ্ঞানী, বনৌষধি গবেষক আয়ুর্বেদ চিকিৎসক অধ্যাপক ডাঃ সুবলকুমার মাইতি বিশদ

09th  January, 2020
 কর্নিয়া দিবস পালন

  সম্প্রতি চলে গেল কর্নিয়া দিবস। ওই দিবস উপলক্ষে অ্যাপেক্স ক্লাব অব বালি বরিষ্ঠ নাগরিক মঞ্চের ব্যবস্থাপনায় পশ্চিমবঙ্গ কর্নিয়া দিবস কমিটির উদ্যোগে অ্যাপেক্স ক্লাবের সুবর্ণ জয়ন্তী সভাগৃহে পালিত হল কর্নিয়া দিবস। ডাঃ জিরমের প্রতিকৃতিতে মাল্যদানের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শুরু হয়। বিশদ

09th  January, 2020
 কাজের স্বীকৃতি

  বিশাখাপত্তনমে আয়োজিত ভি ডি গুড টেকনোলজিক্যাল প্রফেশনাল অ্যাসোসিয়েশনের লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পেয়েছেন কলকাতা স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিনের প্যাথোলজির প্রফেসর ডাঃ প্রণবকুমার ভট্টাচার্য। বিশদ

09th  January, 2020
  মহিলাদের মনোজগৎ

 সম্প্রতি কলকাতায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘উইমেন ইন রোম্যান্স, সেক্স অ্যান্ড ম্যারেজ’ শীর্ষক দু’দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক সেমিনার। আলোচনাসভার আহ্বায়ক সাইকোঅ্যানালিস্ট ঝুমা বসাক জানান, সারা দেশ এমনকী বিদেশ থেকেও অসংখ্য মনোরোগ বিশেষজ্ঞ, গবেষক, সাহিত্যিক, সাইকোঅ্যানালিস্ট, মনোবিদ যোগ দিয়েছিলেন আলোচনাসভায়। বিশদ

09th  January, 2020
 সুন্দরবনের মানুষের পাশে

  পাথরপ্রতিমা ব্লকে উদ্বোধন হয়ে গেল ‘বাঁচবো’ নামে এক সংগঠন পরিচালিত অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানটি ছিল প্রাক প্রাথমিক ও প্রাথমিক বিদ্যালয় ‘বিকশিত’ স্কুলের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধনের। পাশাপাশি এলাকার মানুষের জন্য শুদ্ধ পানীয় জল ও স্কুলের ছাত্রছাত্রীদের জন্য চারটি শৌচাগার প্রকল্পেরও আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। বিশদ

09th  January, 2020
চিকিৎসা ক্ষেত্রে ফিরে দেখা ২০১৯ 

স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে কেমন কাটল ২০১৯? এক ঝলকে পড়ে নিন গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাগুলি।  বিশদ

02nd  January, 2020
বিরল রোগে আক্রান্ত অসীমবাবু খাবার দেখলে পালাতেন 

কথায় আছে কেউ বাঁচার জন্য খায়, কেউ আবার খাবার জন্য বাঁচে। অবশ্য ষাটোর্ধ্ব অসীমবাবুর ক্ষেত্রে দু’টি পরিস্থিতিই প্রহসনের মতো ঠেকছিল। কারণ তিনি তরল বা কঠিন— কোনও খাদ্যই গলাধঃকরণ করতে পারছিলেন না! এ যেন ট্যান্টালাসের অভিশাপ! তৃষ্ণায় ছাতি ফাটলেও জল পান করতে পারতেন না। খিদেতে পেট জ্বললেও খেতে পারতেন না। 
বিশদ

02nd  January, 2020
একনজরে
সংবাদদাতা, পুরাতন মালদহ: দক্ষিণবঙ্গ থেকে ভোজ্য তেল নিয়ে এসে কালিয়াচকের ডাঙা এলাকায় একটি গোডাইনে মজুত করেছিল পাচারকারীরা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই তেল পাচারকারী লরির চালক ও খালাসিকে গ্রেপ্তার করে পুলিস।  ...

মুম্বই, ২৪ জানুয়ারি (পিটিআই): বিধানসভা নির্বাচনের সময় মহারাষ্ট্রের অবিজেপি নেতাদের ফোন ট্যাপ করা হয়েছিল। সরকারি পরিকাঠামোর অপব্যবহার করে এই কাজ করেছিল তৎকালীন বিজেপি সরকার। বৃহস্পতিবার এমনই অভিযোগ করেছেন মহারাষ্ট্রের বর্তমান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অনিল দেশমুখ। এই কাণ্ডে তদন্তের নির্দেশও দেওয়া হয়েছে ইতিমধ্যে।  ...

অকল্যান্ড, ২৪ জানুয়ারি: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়ে একদিনের সিরিজ জেতার পর ভারতের আত্মবিশ্বাস যে অনেকটাই বেড়েছে তার প্রমাণ মিলল শুক্রবার। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজের প্রথম ...

দাভোস, ২৪ জানুয়ারি: ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তোলার প্রচেষ্টায় গণতন্ত্রকে ‘ধ্বংসের মুখে’ ঠেলে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বৃহস্পতিবার দাভোসের ওয়ার্ল্ড ইকনমিক ফোরাম-এর মঞ্চ থেকে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসাসূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। বিদ্যায় মানসিক চঞ্চলতা বাধার কারণ হতে পারে। গুরুজনদের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন থাকা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

জাতীয় ভোটদাতা দিবস
১৮৫০: অভিনেতা অর্ধেন্দু শেখর মুস্তাফির জন্ম
১৮৫৬: সমাজসেবক ও লেখক অশ্বিনীকুমার দত্তের জন্ম
১৮৭৪: ইংরেজ লেখক সামারসেট মমের জন্ম  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৫১ টাকা ৭২.২১ টাকা
পাউন্ড ৯১.৯৮ টাকা ৯৫.৩২ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৮ টাকা ৮০.৩৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৭১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৬২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,২০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫৫/২৪ রাত্রি ৪/৩২। শ্রবণা ৫৫/৩৩ রাত্রি ৪/৩৬। সূ উ ৬/২২/৭, অ ৫/১৫/৩১, অমৃতযোগ দিবা ১০/০ গতে ১২/৫৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫২ গতে ১০/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/১৪ গতে ২/০ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩৭ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১/১০ গতে ২/৩২ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৪ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৪ গতে উদয়াবধি। 
১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫২/৪৫/৪২ রাত্রি ৩/৩১/৩১। শ্রবণা ৫৪/৮/১ শেষরাত্রি ৪/৪/২৬। সূ উ ৬/২৫/১৪, অ ৫/১৪/৮, অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৮ গতে ১২/৫৭ মধ্যে ও রাত্রি ৭/৫৮ গতে ১০/৩৩ মধ্যে ও ১২/১৬ গতে ১/৫৮ মধ্যে ও ২/৫০ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৬/২১ মধ্যে ও ৩/৫৪/২ গতে ৫/১৪/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৫৪/১ মধ্যে ও ৪/৪৬/২০ গতে ৬/২৪/৫৫ মধ্যে। 
২৯ জমাদিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
পেরিয়ারকে নিয়ে মন্তব্য: রজনীকান্তের বিরুদ্ধে মামলা খারিজ মাদ্রাজ হাইকোর্টে 
তামিলনাড়ুর যুক্তিবাদী নেতা ই ভি রামস্বামী (পেরিয়ার) সম্পর্কে বিরূপ মন্তব্য ...বিশদ

09:00:00 AM

আধার ও প্যান নম্বর জমা না দিলে কাটা হবে ২০ শতাংশ টিডিএস 
আধার ও প্যান নম্বর জমা দেননি? তাহলে কিন্তু আপনার আয়ের ...বিশদ

08:55:31 AM

হাওড়া পুরভোটে সব আসনে প্রার্থী দেবে শিবসেনা 
হাওড়া পুরসভার আসন্ন নির্বাচনে সবক’টি ওয়ার্ডেই প্রার্থী দেবে শিবসেনা। গত ...বিশদ

08:55:00 AM

হুগলির ৩৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংস্কারে অর্থ অনুমোদন 
হুগলি জেলার ৩৮টি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংস্কারের জন্যে প্রায় দেড় কোটি ...বিশদ

08:50:00 AM

টালা ব্রিজ ভাঙার বিজ্ঞপ্তি জারি হল, বন্ধ হচ্ছে ৩১ জানুয়ারি মধ্যরাত থেকে
 

টালা ব্রিজ ভাঙার বিজ্ঞপ্তি জারি হল শুক্রবার। ৩১ জানুয়ারি রাত ...বিশদ

08:45:00 AM

ফেব্রুয়ারিতে ছাত্রী সংসদের ভোট চায় ডায়মন্ডহারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয় 
ছাত্রী সংসদের নির্বাচন নিয়ে অনেকটাই পিছিয়ে ডায়মন্ডহারবার মহিলা বিশ্ববিদ্যালয়। কবে ...বিশদ

08:40:00 AM