Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

মোবাইল, ল্যাপটপ, টিভি
বাচ্চাদের কতটা ক্ষতি করছে?

 পরামর্শে অ্যাপোলো গ্লেনিগলস হাসপাতালের কনসালটেন্ট পেডিয়াট্রিশিয়ান ডাঃ অঞ্জন ভট্টাচার্য

‘টেলিভিশন, মোবাইলে তো কতই জানার জিনিস থাকে’ এই বলে বেচারি অরিত্র দেখা শুরু করেছিল টেলিভিশনের জ্ঞান-বিজ্ঞানের প্রোগ্রাম! আজ তার ১২ বছর বয়সে, বাবা-মা তাকে নিয়ে ছুটছেন ডাক্তারের কাছে। টেলিভিশনের নেশায় তার লেখাপড়া লাটে উঠেছে। লুকিয়ে লুকিয়ে সে রাতে বাবা-মা’র মোবাইল থেকে টেলিভিশনের প্রোগ্রাম দেখতে শুরু করেছে।

কেন এই মোহিনী টান? কী ক্ষতি করে এই নেশা?

২০১২ সালে, ইংল্যান্ডের ব্রাইটন হাসপাতালের ডাঃ এরিক সিগম্যান লেখেন রয়্যাল কলেজ অব পেডিয়াট্রিকস অ্যান্ড চাইল্ড হেল্‌থ-এর ‘আর্কাইভ অব ডিজিজেস ইন চাইল্ডহুড’ জার্নালে। এই জার্নাল শিশু বিশেষজ্ঞদের পৃথিবী বিখ্যাত জার্নাল। আর্টিকলের নাম ‘টাইম ফর এ ভিউ অন স্ক্রিন টাইম’ ইলেক্ট্রনিক পর্দার সামনে সময় কাটানোর শারীরবৃত্তীয় অভিঘাত। টেলিভিশন, মোবাইল, ল্যাপটপ জাতীয় যাবতীয় ইলেক্ট্রনিক পর্দার সামনে অতিবাহিত সময়ের নামই স্ক্রিন টাইম বা এসটি। নানা দেশের নানা বিজ্ঞানীর ৮৩টি উচ্চমান সম্পন্ন গবেষণাপত্র সংকলন করে ডাঃ সীগম্যান দেখিয়েছেন, স্ক্রিন টাইম আর কেবলমাত্র সামাজিক সমস্যাই নয়। স্ক্রিন টাইম-এর মাত্রার উপর ভিত্তি করে গজিয়ে উঠছে হাজারো শারীরিক সমস্যা।

১) মেটাবলিক
আমেরিকা এবং নরফোকের তিনটি বাঘা বাঘা গবেষণা সম্মেলনে দেখা গিয়েছে, যে প্রত্যেক ঘণ্টা টেলিভিশন-র সামনে (স্ক্রিন টাইম) থাকার দরুন বয়স, লিঙ্গভেদ, লেখাপড়ার ক্ষমতা, ধূমপান, অ্যালকোহল, ওষুধ ব্যবহার, আনুষঙ্গিক ডায়াবেটিস, পরিবারে আর কারও থাকা না থাকা, ঘুম ও ব্যায়াম ব্যতিরেকে ৬ শতাংশ হার্টের রোগের প্রকোপ (যার মধ্যে হার্টের রোগে মৃত্যুও আছে) বেড়ে যায়।
স্ট্যামাটাকিস ও তাঁর সতীর্থরা, অন্য বড় গবেষণায় আবার দেখান (২০১১) যে দিনে ২ ঘণ্টার বদলে ৪ ঘণ্টা করে টেলিভিশন (স্ক্রিন টাইম) দেখলে, কারণ নির্বিশেষে মৃত্যুহার বৃদ্ধি পায় ৪৮ শতাংশও হার্টের রোগে মৃত্যু বাড়ে ১২৫ শতাংশ।
অন্যান্য গবেষণা দেখিয়েছে, ব্যায়াম করা ও হেলদি ডায়েট খাওয়ার পরও স্ক্রিন টাইম বাড়ার সঙ্গে রক্তে লিপিড বাড়ে ।
বি. গোপীনাথ, এল. এ. বাউর এবং এল. এল. হার্ডি ওই ২০১৮ সালেই দেখান যে বয়ঃসন্ধিকালীন সময়ে প্রতিঘণ্টা স্ক্রিন টাইম যেমন কিশোর-কিশোরীর রক্তচাপে বাড়িয়ে দেয় দ্রুত, তেমনই প্রতি ঘণ্টা বই পড়লে কমে যায় রক্তচাপ। এমনকী রক্তচাপ অস্বাভাবিক হয়ে উঠতে পারে না। (জার্নাল অব হিউম্যান হাইপারটেনশন)।

২) পুষ্টি
টেলিভিশন দেখতে দেখতে খাবার খেলে, মস্তিষ্কে সেই খাদ্যবস্তুর যে মেমোরি এনকোডিং হওয়ার কথা, সেই এনকোডিং প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। দুঃখের বিষয় টেলিভিশন এক্সপোজার-এর বহু ঘণ্টা বাদে পর্যন্ত দেখা গিয়েছে তার বিষক্রিয়া থাকে। ফলে ছেলে গোঁৎ গোঁৎ করে খেয়ে মোটা হতে পারে বটে, কিন্তু পুষ্টি তার কিছু জোটে না।
এই ছিদ্র দিয়েও কালসাপ ঢুকে শিশুটির রক্তে লিপিডের মাত্রা, সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে বসে থাকে।
আর্কাইভ অব পেডিয়াট্রিক অ্যাডোলোসেন্ট মেডিসিন পত্রিকায় ২০০৮-এর গবেষণা দেখায়, যে যদি দু’টি দলে কিশোরদের ভাগ করা যায়, যেখানে গ্রুপ ‘এ’ যত স্ক্রিন টাইম ডোজ পায় গ্রুপ ‘বি’ পায় তার অর্ধেক। তিন বছর বাদে গ্রুপ বি-এর বিএমআই হ্রাস পায় দ্রুতগতিতে যেখানে গ্রুপ ‘এ’-এর বিএমআই থাকে বিপজ্জনক মাত্রায়।
আর আজকের দিনে, আমরা কে না জানি, যে উচ্চ বিএমআই ব্লাড প্রেশার, কোলেস্টেরল ও রক্তে অতিরিক্ত ইনসুলিনের বৃদ্ধি (যা কিনা প্রি-ডায়াবেটিক অবস্থা) ঘটায়!

৩) ব্রেন ও বুদ্ধি
স্ক্রিন টাইম ব্রেনের বারোটা বাজায়। ‘ডোজ-রেসপন্স’ রিলেশনশিপ-এ অর্থাৎ, যত স্ক্রিন টাইম মাত্রা, তত বুদ্ধির বারোটা বেজে তেরোটা! শুধু বুদ্ধিই বা কেন? ২০০৪ সালে ২৬২৩টি শিশুর উপর গবেষণা দেখিয়েছে ১ থেকে ৩ বছরের শিশুরা টেলিভিশন দেখলেই তাদের মনঃসংযোগ ব্যাহত হতে থাকে। প্রতি ঘণ্টা স্ক্রিন টাইম বাড়ায় এডিএইচডি হওয়ার মতো চিত্তবিক্ষেপ ৯ শতাংশ করে।
শিশু বয়সে টেলিভিশন দেখেনি এমন ৫ থেকে ১১ বছরের শিশুদের স্ক্রিন টাইম এক্সপোজার-এ বা ৮ থেকে ২৪ বছরের বয়সিদের স্ক্রিন টাইম দেখার ফলও হয় মারাত্মক।
এ.এস. লিজার্ড ও প্যাটারসন ২০১১ সনে আরও দেখান ৪ বছরের শিশুদের ৯ মিনিটের কার্টুন তাদের একজিকিউটিভ ফাংশন কমিয়ে দিতে পারে। অর্থাৎ ছেলের আর একজিকিউটিভের চাকরি পাওয়া হল না, ছোটবেলায় বাবা-মা আদর করে টেলিভিশন দেখাতে দেখাতে খাওয়াতেন বলে।
মস্তিষ্কে ডোপামিনের ক্ষরণ হয় স্ক্রিন টাইম থেকে। অন্যের কষ্ট বোঝার জন্য যে ডরসাল আন্তেরিওর সিংগুলেটেড কর্টেক্স এবং ইনসুলা রিজিওন নামে যে অংশ আছে ব্রেনে, ফাংশানাল এমআরআই করে দেখা গিয়েছে সেখানে কম্পিউটার গেম খেলা বাচ্চাদের ক্ষেত্রে এই জায়গাগুলো নিভে থাকে।
যেসব শিশুর সহমর্মিতা এবং সামাজিক মেলামেশার ক্ষেত্র ভালো হয়, এরকম ১০ বছরের বাচ্চাদের ক্ষেত্রে দেখা গিয়েছে যে তাদের মিরর নিউরনগুলোও তত দড় হয়! ২০১১ সালে পার্সোনাল সোশ্যাল সাইকোলজিক্যাল রিভিউ ম্যাগাজিনে গবেষণা প্রকাশিত হয় এই দেখিয়ে যে এই মিরর নিউরোনগুলো চালনা করার জন্য যে মুখোমুখি সামাজিক উদ্দীপনার প্রয়োজন, প্রতি ঘণ্টা স্ক্রিন টাইম সেই মুখোমুখি ভাব আদানপ্রদানের ২৪ মিনিটের সমতুল্য চুরি করে নেয়। কলেজে যখন এই বাচ্চারা যায় বড় হয়ে, তখন তারা আর ভালো করে মিশতে শেখে না। হিংস্রতাও তাদের মধ্যে বেশি দেখা গিয়েছে। আমেরিকা, কানাডা এবং অস্ট্রেলিয়া জাতীয় রেকমেন্ডেশনের ভিত্তিতে ডাঃ সিগম্যান তাই বলেছেন—
১) যেহেতু ব্রেনের ৮০ শতাংশ বাড়বৃদ্ধি হয় প্রথম ৩ বছর বয়সের মধ্যে, তাই প্রথম ৩ বছরে স্ক্রিন টাইম এক্সপোজার শূন্য করতে হবে। অর্থাৎ এই বয়সের মধ্যে টেলিভিশন ও মোবাইলের সামনে বাচ্চাদের একেবারে আনা যাবে না।
২) ৩ থেকে ৭ বছর বয়সি বাচ্চাদের সাকুল্যে ৩০ থেকে ৬০ মিনিট দৈনিক স্ক্রিন টাইম দেওয়া যেতে পারে।
৭ থেকে ১২ বছর বয়সি বাচ্চাদের জন্যও ধার্য ৬০ মিনিট। ১২ থেকে ১৫ বছর বয়সি বাচ্চাদের জন্য দেড় ঘণ্টা। ১৬ বছরের পরে ২ ঘণ্টা (সারাজীবন)।
৩) কোনও দিন স্ক্রিন টাইম কম হলেও কোনও ক্ষতি নেই। কিন্তু, কোনওভাবেই কোনও একটি দিনে এই ডোজ-এর এর বেশি হওয়া মানেই কিন্তু ক্ষতি!
আপনি হয়তো ভাবছেন, অরিত্রকে কি বললেই সে আর কথা শুনবে? এই প্রসঙ্গে জানিয়ে রাখি যে শিশু বিকাশ কেন্দ্র বা চাইল্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারে কিন্তু অরিত্রর মতো অনেক শিশু কিশোর-কিশোরীরা আসে। আর বিজ্ঞানের সদ্বব্যবহারের মাধ্যমে অচিরেই ইলেক্টনিক গ্যাজেটের নেশা পরিত্যাগ করে লেখাপড়ায় মন দিতে পারে।

18th  July, 2019
মহিলাদের ক্যান্সার আমরা চুপ কেন?
 

নানা গবেষণা থেকে জানা যাচ্ছে, মহিলাদের সার্ভাইক্যাল ও ব্রেস্ট ক্যান্সারের ক্ষেত্রে আমরা ততটা সচেতনই নই। ব্রেস্ট ক্যান্সার নিয়ে তাও যদি বা কিছু কর্মসূচি দেখা যায়, সার্ভাইক্যাল ক্যান্সার নিয়ে প্রচার কই! এই ক্যান্সারে গ্রামীণ মহিলারা বেশি আক্রান্ত হন। বিশদ

বিশ্ব ক্যানসার দিবস
গবেষণায় আশার আলো...

ক্যান্সার চিকিৎসা এখন অনেকটাই ‘কাস্টোমাইজড’ বা ব্যক্তিগত প্রয়োজন অনুসারে করা হয়। একটা সময় ধরা হতো, যে কোনও এক ধরনের ক্যান্সারে আক্রান্ত সব রোগীই একই ধরনের ওষুধ ও কেমোথেরাপি পাবেন। নতুন গবেষণা সেই ভাবনায় বদল এনেছে। বিশদ

বিশ্ব ক্যানসার দিবস
ভবিষ্যতে কেমন হবে ক্যান্সার চিকিৎসা?

বিভিন্ন ধরনের ক্যান্সারের চিকিৎসায় এখন ইমিউনোথেরাপি প্রয়োগ হচ্ছে। এই থেরাপির মূল লক্ষ্য হল ক্যান্সার কোষগুলিকে ধ্বংস করা। কেমোথেরাপির লক্ষ্যও তাই। তাহলে কেমোথেরাপির সঙ্গে ইমিউনোথেরাপির তফাতটা কোথায়? আমরা জানি, ক্যান্সার কোষ খুব দ্রুত বিভাজিত হয়। বিশদ

ছোট বয়স থেকেই ইনহেলার
পরিস্থিতি এতটা উদ্বেগের কেন?

এখন ঘরে ঘরে বাচ্চার হাতে ইনহেলার। অভিভাবকরা উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। উদ্বেগটা ঠিক কি নিয়ে? অসুখ নিয়ে, নাকি ইনহেলার বাহনটিকে নিয়ে। ইনহেলার প্রথম চিকিৎসা হিসাবে সর্বজনলভ্য হিসেবে বাজারে আসে আশির দশকে। বিশদ

02nd  February, 2023
ইনহেলার নির্ভরতা কি
প্রা ণা য়া মে কমে?

শ্বাসকষ্ট বা সিওপিডি থাকলে ওষুধপত্রের সঙ্গে খুব সহজ সমাধান হিসেবে ইনহেলার ধরিয়ে দেওয়ার রীতি নতুন নয়। যুগ যুগ ধরেই রোগীদের এই অভ্যেসে অভ্যস্ত করে তোলা হচ্ছে। বাড়াবাড়ি হলে ইনহেলার নেওয়া ছাড়া গতিও থাকে না। বিশদ

02nd  February, 2023
হাড়ের যত্নে খাবার
ডাঃ রুদ্রজিৎ পাল

অস্টিওপোরোসিস। অর্থাৎ হাড়ের ক্ষয়রোগ। এটিকে কোন রোগ না বলে বার্ধক্যের স্বাভাবিক পরিণতিও বলা যায়। এর ফলে আমাদের শরীরের নানা জায়গায় হাড় ক্ষয় হয়ে নরম হয়ে যায় এবং সামান্য আঘাতেই ভেঙে যায়। ধরুন আপনি চেয়ারে বসে আছেন, হঠাৎ করে ঝুঁকতে গিয়ে মেঝেতে পড়ে গেলেন। বিশদ

27th  January, 2023
কাশির দমকে রাতের ঘুম উধাও?
চটজলদি কাশি কমান ঘরোয়া ভেষজে!

শীতের প্রহর শেষ হতে চলল। আর এই সময়েই আবহাওয়ার আকস্মিক পরিবর্তনে হঠাৎই শুরু হচ্ছে সর্দি আর কাশির সমস্যা। বিশেষত ঋতু পরিবর্তনের এমন বেলায় পরিবেশে ধুলোবালির পরিমাণ এতখানিই বেড়ে যায় যে কাশির সমস্যা চরম আকার ধারণ করে। 
বিশদ

27th  January, 2023
জ্বর, সর্দি, কাশি এখন 
বেশিদিন  ভোগাচ্ছে কেন?

শীতকালে সর্দি, কাশি হওয়ার প্রথম কারণ হল তাপমাত্রার পরিবর্তন। দ্বিতীয়ত, শীতে আবহাওয়া অত্যন্ত শুকনো হয়ে পড়ে। ঠান্ডার কারণে জলপানের মাত্রাও কমে যায়। সব মিলিয়ে ফলে মুখগহ্বর, গলা শুকিয়ে গিয়ে কাশির মাত্রা বৃদ্ধি পায়। আবার শীতকালে কিছু ভাইরাস রীতিমতো সক্রিয় হয়ে ওঠে। বিশদ

26th  January, 2023
দূষণই কি ভিলেন?

বেঁচে থাকার জন্য দরকার যে বাতাসের, সেখান থেকেই বিষ ঢুকছে শরীরে। ডেকে আনছে বিভিন্ন রোগ। জানালেন অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব হাইজিন অ্যান্ড পাবলিক হেলথ-এর প্রাক্তন ডিন ও ডিরেক্টর প্রফেসর ডাঃ মধুমিতা দোবে। বিশদ

26th  January, 2023
শরীরে রোদ
লাগানো কেন জরুরি?

দিনে কখন আর কতক্ষণ রোদ গায়ে লাগাতে হবে? কী কী অসুখ ঠেকাতে প্রয়োজন রোদে বসা? জানালেন পিজি হাসপাতালের মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডাঃ সৌমিত্র ঘোষ।  
বিশদ

19th  January, 2023
কোন কোন শাকসব্জি ও ফলে থাকে ভিটামিন-ডি?

পরামর্শে বাঁকুড়ার পাত্রসায়র ব্লক হাসপাতালের আয়ুর্বেদ মেডিক্যাল অফিসার ডাঃ সুমিত সুর। বিশদ

19th  January, 2023
চিকিৎসকের প্রতি অগাধ
বিশ্বাসে কি অসুখ সারে?

চিকিৎসকের প্রতি বিশ্বাসেই কি অর্ধেক রোগ সারে? নাকি শুধুমাত্র সঠিক বিজ্ঞানভিত্তিক চিকিৎসাতেই মেলে আরোগ্য। এইবারের স্বাস্থ্যকর বিতর্ক এ নিয়েই। আলোচনায় মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজের মনোরোগ বিভাগের প্রধান ডাঃ রঞ্জন ভট্টাচার্য। বিশদ

12th  January, 2023
বিশ্বাসে ভাসলেই বিপদ, 
আগে বিজ্ঞান মেনে চিকিৎসা

চিকিৎসাশাস্ত্রে এই অনুভব এক অদ্ভুত বিশ্বাসের খেলা। রোগী বা তাঁর পরিজন অনেক সময় ভাবেন, নির্দিষ্ট কোনও চিকিৎসকের পরামর্শ নিলেই তাঁদের শারীরিক যন্ত্রণা কিছুটা লাঘব হয় বা কোনও অসুখ কোনও কারণে কেউ ধরতে না পারলে মনে মনে বিশ্বাস জন্মায় যে, অমুক ডাক্তার দেখলে ঠিকই সুস্থ হয়ে যেতাম। বিশদ

12th  January, 2023
এক ঝলকে
 

ত্রিপুরার সেপাহিজলার বর্যালা এলাকার বাসিন্দা রণজিৎ রায় দীর্ঘদিন ধরে ভুগছিলেন ডায়েলেটেড কার্ডিও মায়োপ্যাথির সমস্যায়। রণজিৎবাবুর হার্ট ফেল করার পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছিল এবং তাঁর প্রাণহানির আশঙ্কাও ছিল। বিশদ

12th  January, 2023
একনজরে
শুক্রবার আসানসোলে বইমেলার উদ্বোধন করলেন গ্রন্থাগারমন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী এবং শ্রম ও আইনমন্ত্রী মলয় ঘটক। এদিন দুপুরে রবীন্দ্র ভবন থেকে পদযাত্রা করে একটি র‌্যালি পোলো গ্রাউন্ড সংলগ্ন বইমেলা প্রাঙ্গণে যায়। ...

সব ধরনের ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন ২০০৭ টি-২০ বিশ্বকাপের অন্যতম নায়ক যোগিন্দর শর্মা। জোহানেসবার্গে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক ফাইনালের শেষ ওভারে তাঁর হাতেই বল তুলে দিয়েছিলেন অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ...

নতুন বছরে খুশির খবর পেলেন প্রায় তিন হাজার মহিলা। শুক্রবার আইসিডিএস সুপারভাইজার পদে ২,৯৩১ জন প্রার্থীর (মহিলাদের জন্য বরাদ্দ পদ) নাম ঘোষণা করেছে পাবলিক সার্ভিস কমিশন। সফল প্রার্থীদের এই তালিকা সুপারিশ হিসেবে যাবে নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ দপ্তরে। সেখান থেকে ...

আমদানি নির্ভরতা কমেনি। গত আর্থিক বছরেই বিদেশ থেকে কেনা হয়েছে ৪০ হাজার কোটি টাকার বেশি অস্ত্রশস্ত্র। ফলে আত্মনির্ভর ভারতের প্রচার চললেও বিদেশের ওপর নির্ভরশীলতা যে কাটেনি, তা স্পষ্ট। বরং গত পাঁচ বছরে তা বেড়েছে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পারিবারিক ধর্মকর্ম সম্পাদনে সাফল্য ও পারিবারিক বৃত্তে সুখ্যাতি। প্রিয়জন সান্নিধ্যে আনন্দলাভ। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব ক্যান্সার দিবস
১৬২৮: সম্রাট শাহজাহান আনুষ্ঠানিকভাবে আগ্রার সিংহাসনে বসেন
১৭৯২: যুদ্ধে পরাজিত হওয়ার পর টিপু সুলতান অর্ধেক মহীশুর ইংরেজদের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হয়েছিলেন
১৯১৮: সাহিত্যিক নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯২২: বাংলার গভর্নর-জেনারেল রোনাল্ডসে কলকাতার "স্কুল অফ ট্রপিক্যাল ডিজিজেস"-এর দ্বারোদ্‌ঘাটন করেন
১৯২২: ধ্রুপদী সঙ্গীত শিল্পী ভারতরত্ন পণ্ডিত ভীমসেন যোশির জন্ম
১৯৩৮: নৃত্যগুরু পণ্ডিত বিরজু মহারাজ ওরফে ব্রিজমোহন মিশ্রর জন্ম
১৯৪৮: সিংহল (পরবর্তীতে শ্রীলঙ্কা নামকরণ হয়) স্বাধীন হয়
১৯৪৯: নির্মাণের ১৭৬ বছর পর কলকাতার ফোর্ট উইলিয়াম দুর্গের দরজা জনসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়
১৯৭৪: পদার্থ বিজ্ঞানী সত্যেন্দ্রনাথ বসুর মৃত্যু
১৯৭৪: অভিনেত্রী ঊর্মিলা মাতন্ডকরের জন্ম
১৯৯০: বিশিষ্ট বাঙালি সাহিত্যিক মৈত্রেয়ী দেবীর মৃত্যু
১৯৯৮ : বাঙালি চলচ্চিত্র কৌতুকাভিনেতা রবি ঘোষের মৃত্যু
২০০১: ক্রিকেটার পঙ্কজ রায়ের মৃত্যু
২০০৪: স্যোশাল নেটওয়ার্কিং সাইট ফেসবুক চালু হয়



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৮০.৯৮ টাকা ৮২.৭২ টাকা
পাউন্ড ৯৮.৫৫ টাকা ১০১.৯৮ টাকা
ইউরো ৮৭.৮৬ টাকা ৯১.০৬ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫৮,৭৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৫৫,৭৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫৬,৬০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬৯,৯৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৭০,০৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২১ মাঘ ১৪২৯, শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩। চতুর্দ্দশী ৩৭/৫৯ রাত্রি ৯/৩০। পুনর্বসু নক্ষত্র ৭/২৪ দিবা ৯/১৬। সূর্যোদয় ৬/১৮/৪০, সূর্যাস্ত ৫/২২/২০। অমৃতযোগ দিবা ১০/০ গতে ১২/৫৬ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫৭ গতে ১০/৩২ মধ্যে পুনঃ ১২/১৬ গতে ২/০ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩৫ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪১ মধ্যে পুনঃ ১/১৩ গতে ২/৩৬ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৯ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৬/৫৯ মধ্যে পুনঃ ৪/৪১ গতে উদয়াবধি। 
২০ মাঘ ১৪২৯, শনিবার, ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩। চতুর্দ্দশী রাত্রি ৯/১৮। পুনর্বসু নক্ষত্র দিবা ৯/৪০। সূর্যোদয় ৬/২১, সূর্যাস্ত ৫/২২। অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৬ গতে ১২/৫৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৪ গতে ১০/৩৪ মধ্যে ও ১২/১৫ গতে ১/৫৬ মধ্যে ও ২/৪৬ গতে ৪/২৬ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৪ মধ্যে ও ১/১৪ গতে ২/৩৭ মধ্যে ও ৩/৫৯ গতে ৫/২২ মধ্যে। কালরাত্রি ৬/৫৯ মধ্যে ও ৪/৪৪ গতে ৬/২১ মধ্যে। 
১২ রজব।

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
৯০৯ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স

03-02-2023 - 04:36:43 PM

কাঁচরাপাড়ায় উদ্ধার মহিলার মৃতদেহ, চাঞ্চল্য
কাঁচরাপাড়ার নিউ কলোনি ফোর্থ অ্যাভিনিউ সংলগ্ন জঙ্গল থেকে উদ্ধার মহিলার ...বিশদ

03-02-2023 - 04:32:25 PM

নৈহাটিতে শিশু অপহরণের চেষ্টা, ধরা পড়ল অভিযুক্ত
নৈহাটিতে তিন বছরের শিশু কন্যাকে অপহরণ করতে গিয়ে হাতেনাতে ধরা ...বিশদ

03-02-2023 - 04:27:49 PM

৬০৫ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স

03-02-2023 - 02:06:10 PM

মুর্শিদাবাদে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু শ্রমিকের
সাবমার্সিবল পাম্প বসানোর সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক শ্রমিকের। ...বিশদ

03-02-2023 - 02:05:27 PM

৩৬১ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স

03-02-2023 - 12:33:38 PM