Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

গরমে টক খাবেন কেন?

 লিখেছেন ভারত সরকারের আয়ুর্বেদ গবেষণা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডাঃ সুবলকুমার মাইতি

গরমের দিনে টক খাবারের নাম মনে পড়লে জিভে জল আসে বৈকি! অন্য ঋতুগুলিতে টকের তেমন সমাদর নেই। আয়ুর্বেদ মতে রস ৬টি—মধুর, অম্ল, লবণ, তিক্ত, কটু, কষায়, আর এগুলির সমন্বয়ে শরীরে বায়ু-পিত্ত-কফের বৃদ্ধি-হ্রাস হয়ে শরীরকে সুস্থ ও অসুস্থ করে তুলতে পারে। তাই সব ঋতুতে কম-বেশি ৬টি রসের ব্যবহার শরীরের পক্ষে খুবই উপযোগী।
টক খাবার বলতে সাধারণত যেসব দ্রব্যের নাম মনের আনাচে-কানাচে ঘুরঘুর করতে থাকে, তার মধ্যে টক দই বাদ দিলে, বাকি রইল কিছু টক ফল, মোটামুটি সেগুলি হল— কাঁচা আম, কাঁচা ও পাকা তেঁতুল, কাঁচা ও পাকা চালতা, যে কোনও প্রকারের লেবু, কামরাঙা, আমড়া, জলপাই, কাঁচা ও পাকা কয়েতবেল, টোপাকুল, নোয়াড় বা শিলাকুল, চেরি প্রভৃতি। অসম সহ পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতে আমচুরের মতো ব্যবহৃত হয় অম্লবেতস ফল। এছাড়া কাঁচা-পাকা আনারসও এই তালিকায় এসে যায়। একেবারে শেষে আলোচনা করব টক দই।
এবারে সংক্ষিপ্ত আকারে এগুলির গুণাগুণ, ব্যবহারিক পদ্ধতি ও উপকারিতা সম্বন্ধে আলোচনা করা যাক—
১. কাঁচা আম: এই ফলে ভিটামিন সি, প্রোটিন, কার্বোহাইড্রেট, ফ্যাট, সোডিয়াম, পটাশিয়াম, ক্যালশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম, কপার, বিটা ক্যারোটিন, ফাইবার, নায়াসিন, থায়ামিন, রাইবোফ্লাভিন, আয়রন, ম্যাঙ্গানিক, জিঙ্ক, আলফা ক্যারোটিন প্রভৃতি থাকে। কাঁচা আমে থাকে সাইট্রিক অ্যাসিড, ম্যালিক অ্যাসিড, টারটারিক অ্যাসিড। ফলে এটি রক্তে অম্ল ও ক্ষারের সমতা রক্ষা করে। চরক সংহিতায় বলা হয়েছে—কচি আম রক্তপিত্তকর, মধ্যবয়সি আম পিত্তকর। পরবর্তীকালের সমীক্ষাতে দেখা যায়—কচি আম অম্ল, কষায়,রুচিকর, বায়ু ও পিত্তবর্ধক।
কাঁচা আমের মুখের কাছে যে আঁঠা থাকে, তা ভালোভাবে ধুয়ে খেতে হবে। খুব বেশি খাওয়া ভালো নয়। গর্ভাবস্থায় কাঁচা আম না খাওয়া ভালো।
দক্ষিণ বঙ্গে কাঁচা আম দিয়ে শোল মাছ খাওয়ার চল খুব বেশি। এই সময় প্রত্যেকটি হোটেলেও পাওয়া যায়। আমাদের প্রিয় কবির এটি বড়ই প্রিয় ছিল।
কাঁচা আম—লবণ, কাঁচা লঙ্কা ছেঁচাতে সামান্য সর্ষে তেল মিশিয়ে রোদে বসিয়ে রাখতে হয়। দুপুরের এক ফাঁকে তারিয়ে তারিয়ে খাওয়ার একটা আলাদা আমেজ আছে। এটি ক্লান্তি ও পিপাসা দূর করে, হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। কিন্তু কাঁচা আম বেশি খেলে পেট ব্যথা, বদহজম, আমাশা, ঠোঁটে ও মুখে প্রদাহ হতে পারে। গরমের দিনে কাঁচা-মিঠে আম খাওয়া বড়ই উপাদেয়। কাঁচা আম থেকে আমসি, আচার, আমচুর, কাসুন্দি, মোরব্বা, তেল আম, গোটা আমের সরষে আম প্রভৃতি তৈরি হয়। ডালে কাঁচা আম খাওয়া বা আম পোড়ার শরবত খুবই স্বাস্থ্যপ্রদ। শেষে বলি—আম গাছের আদি জন্মস্থান ভারতভূমি, তাই তো বিশ্ব স্বীকৃত নাম—ম্যাগনিফেরা ইন্ডিকা।
২. কাঁচা ও পাকা তেঁতুল: সারাবছর খেতে পারেন। অত্যধিক রুচিকর হজমে সহায়ক, তবে অল্প পরিমাণে খেতে হয়। রাতের দিকে না খাওয়াই ভালো। পুরাতন পাকা তেঁতুল খাদ্যগুণে ও ঔষধি গুণে অধিক সমৃদ্ধ; লবণের ক্ষতিকর প্রভাবকে তেঁতুল নষ্ট করতে পারে, সেজন্য লবণাক্ত অঞ্চলের লোকেরা তেঁতুল বেশি খেয়ে থাকেন। পুরাতন তেঁতুল অর্শ, আমাশা, প্রস্রাবের দোষে, কোলেস্টেরল বৃদ্ধিতে, পেটের রোগে, দাহ-প্রশমনে, সর্দি-কাশিতে, অগ্নিমান্দ্য ও অরুচিতে বিশেষ কার্যকর। তবে যাঁরা প্রকৃত অর্থে অম্বলের রোগে ভোগেন, তাঁরা সাবধানে খাবেন নতুবা খাবেন না। তেঁতুলে থাকে টারটারিক ও ম্যালিক অ্যাসিড।
৩. কাঁচা ও পাকা চালতা: চালতায় ম্যালিক অ্যাসিড থাকে। ফলটি মধুর অম্ল-কষায় ধর্মী, রুচিকর, মুখশোধক, পিত্ত ও শ্লেষ্মার বিকারে কার্যকর এবং হৃদয়ের বলকারক। গুড়, রাঙালু, মূলো প্রভৃতি দিয়ে চালতার অম্বল বা টক তৈরি করা যায়। চাটনি ও মোরব্বা খুবই সুস্বাদু।
৪. যে কোন প্রকারের লেবু: (পাতি, কাগজি, গোঁড়া, টাবা, শরবতি, কমলা, গন্ধরাজ) প্রভৃতি। এগুলির সাধারণ গুণ হল—অম্লরস, বায়ুনাশক, অগ্নিদ্দীপক, পাচক ও লঘু। এছাড়া এক একটি জাতের লেবুর বিশেষ বিশেষ গুণ থাকে। খাওয়ার পদ্ধতিও আলাদা। বাতাবি, কমলা ফলের মতো খাওয়া যায়। বাকিগুলো কোনটা ভাতে, ডালে, শরবতে ব্যবহৃত হয়। কমবেশি সবগুলিতে ভিটামিন সি, ক্যালসিয়াম, ফসফরাস, আয়রন, প্রোটিন প্রভৃতি থাকে। গরমের দিনে লবণ-চিনি-লেবুর রস দিয়ে তৈরি পানীয় শরীরের জলীয়াংশের ভারসাম্য রক্ষা করে। লেবুর আচার সারাবছর খাওয়া যেতে পারে। পাতিলেবু-কাগজি লেবু সারাবছরই কম বেশি পাওয়া যায়।
৫. কামরাঙা: কাঁচা ফল স্বাদে অম্ল, পাকা ফল মধুর ও অম্ল স্বাদের, পিত্তবর্ধক, বলকারক, রুচিকর। এটিতে প্রোটিন, ফ্যাট, কার্বোহাইড্রেট, আয়রন, ভিটামিন-এ ও অন্যান্য কিছু খনিজ পদার্থ রয়েছে। এটির চাটনি, আচার, সরবত প্রভৃতি খুবই উপাদেয়।
৬. আমড়া (দেশি বা টক আমড়া): কাঁচা আমড়া স্বাদে অম্ল, গুরুপাক, রুচিকর ও বায়ুনাশক। পাকা আমড়া মধুর ও কষায় রস, রুচিকর, স্নিগ্ন, বলকারক, শুক্রবর্ধক ও বহুমূত্র রোগে হিতকর। আমড়ার চাটনি বা অম্বল তৃপ্তিদায়ক এছাড়া দেশি মিষ্টি আমড়া ও থাইল্যান্ডের আমড়া পাওয়া যায়।
৭. জলপাই: এই ফলে সাইট্রিক অ্যাসিড থাকে। আমাশা ও অতিসারে এটির চাটনি বা অম্বল উপকারী।
৮. কাঁচা ও পাকা কয়েতবেল: কাঁচায় কষায়ধর্মী, ধারক ও লঘু। পাকায় বায়ু-পিত্ত নাশক, গুরু, অম্ল কষায় রস, ধারক, পিপাসা নাশক। উভয়ই সহজে হজম হয় না। বিভিন্নভাবে আচার, চাটনি করে সামান্য খাওয়া যায়। তবে এটি রুচিপ্রদ ও বলকারক।
৯. টোপা কুল: কাঁচায় খেলে কফ ও পিত্ত বৃদ্ধি করে, তাই খাওয়া নিষেধ। পাকলে অম্লমধুর, তখন সেটি বায়ু-পিত্তের দোষ দূর করে। রুচিকর ও বলকারক। লবণ সহযোগে আচার তৈরি করে দীর্ঘদিন রাখা যায়। পাকা ফলের টক বা চাটনি উপাদেয় খাদ্য।
১০. নোয়াড় বা শিলাকুল/লবলী: এই ফলটির গরমের দিনে ফলন বেশি। চাটনি করে লোকে খায়। স্বাদে অম্ল-মধুর- কষায় রস সমৃদ্ধ। স্বভাবে রুক্ষ ও গুরু হলেও কফ ও পিত্তনাশক, রুচিকর, অশ্মরী (মূত্রপাথুরী) ও অর্শনাশক। দুপুরে ভাত খাওয়ার পর ২/৩টি ফল লবণ সহযোগে কাঁচায় খেলে সহজে হজম হয়।
১১. চেরি: পার্বত্য এলাকার গাছ হলেও নিম্নভূমিতে ভালোভাবে জন্মে ও ফল দেয় চেরি গাছ। এই গরমে খেতে পারেন কাঁচা আম সহ চাটনি বানিয়ে। ফলটি পিত্ত নিঃসারক ও বিরেচন ধর্মী, স্বাদে অম্লমধুর, পাকস্থলীর পক্ষে খুবই উপকারী। মুখ ও ফুসফুসের রোগনাশক, রুচিকর, তৃষ্ণা-বমি-হিক্কা প্রশমিত করতে পারে। এছাড়া এটি মস্তিষ্কের পক্ষে খুবই ভালো।
১২. আম্লবেতস: এখানে অসম থেকে আসা থৈকলের কথাই বলছি। ওখানকার লোকেরা সারাবছর খেয়ে থাকেন। অনেকটা আমের সাইজের ফল, কাঁচায় কেটে আমচুরের মতো তৈরি করেন। শুকনো আমচুর মতো থৈকল খেতে অম্ল স্বাদের, রুচিকর, হৃদয়ের বলকারক, অজীর্ণ, আমাশা, তৃষ্ণা, পেট ফাঁপা, গ্রহণী প্রভৃতি রোগে প্রযোজ্য। থৈকলের টক বা চাটনি উপাদেয় খাদ্য। এই ফলটি থ্যালাসিমিয়া রোগ প্রতিকারে কার্যকর।
 টক কীভাবে খাবেন— খেতে পারেন আনারসের চাটনি, তাতে মেশাতে পারেন কাঁচা আম আর পোনা মাছের ডিম। পোস্ত বাটা ও পুরাতন তেঁতুলের টক বা চাটনি খেতে পারেন। ডালে কাঁচা আম বা পুরাতন তেঁতুল মেশালেও টক ডাল তৈরি হয়। পাকা চালতা ও রাঙালু—গুড় দিয়ে অম্বল, কাঁচা তেঁতুলের সময় তার টক বা অম্বল— কত রকমেরই না টকের কাহিনী। এছাড়া টক পালং ও টক শুষুনি (আমরুল শাক) দিয়ে উপাদেয় চাটনি বানানো যায়। গরমে টক শুষুনি আপনা থেকেই বাগানে জন্মে।
 টক দই: মিষ্টি দই-এর উপকারিতা নেই বললেই চলে। পেটের সমস্যা বৃদ্ধি করে। বরং টক দইতে যে ব্যাকটেরিয়াগুলো থাকে, সেগুলোকে প্রোবায়োটিক ব্যাকটেরিয়া বলা হয়। দই তৈরির সময় এগুলি তৈরি হয় এবং শরীরে গিয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে।
টক দইতে থাকে—ক্যালশিয়াম, ফসফরাস, পটাশিয়াম, জিঙ্ক, প্রোটিন, ভিটামিন-বি১২, ফলিক অ্যাসিড প্রভৃতি। দুধের তুলনায় দইতে ভিটামিন বি-কমপ্লেক্স ও ফলিক অ্যাসিড বেশি থাকে।
আয়ুর্বেদের বিচারে—গোরু, মহিষ, ছাগল প্রভৃতির দুধের মধ্যে গোরুর দুধের দধি বা দই সর্বোৎকৃষ্ট। এটি হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, বায়ুনাশক, রুচিকারক, বলকারক, পুষ্টিকারক ও শুক্রবর্ধক আরও নানা প্রকারের গুণসম্পন্ন।
গরমের দিনে টক দই ফেটিয়ে ঘোল বা লস্যি করে খেলে উপকার মেলে। তবে মনে রাখবেন, মাছ-মাংস-ডিম প্রভৃতির যে কোন একটি দিয়ে আহার করলে, সঙ্গে সঙ্গে দই প্রভৃতি না খেয়ে ৩-৪ ঘণ্টা পরে খাওয়া উচিত। নিত্য দই সেবনে শরীর তরতাজা থাকে, মনোবল বৃদ্ধি পায়, কর্মক্ষমতা বাড়ে, হৃদয়ের বল বৃদ্ধি করে। তাছাড়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা তো বৃদ্ধি হয়ই নানাভাবে খাওয়া যেতে পারে। ঘরে পাতা সামান্য টক হওয়া দই খাওয়া সবচেয়ে ভালো এবং নিরাপদ।
09th  May, 2019
ছড়াতে পারে করোনা, দাঁতের
অস্ত্রোপচারে নিষেধাজ্ঞা জারি

 নিজস্ব প্রতিনিধি, নয়াদিল্লি, ২০ মে: দাঁতের ডাক্তারখানা থেকে ব্যাপক হারে ছড়াতে পারে করোনার ভাইরাস। তাই একান্ত জরুরি ছাড়া দাঁতের অস্ত্রোপচার করতে বারণ করল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক। রোগী দেখার ক্ষেত্রেও জারি হল বিধি নিষেধ। বিশদ

21st  May, 2020
গার্হস্থ্য হিংসায় বাচ্চাদের মানসিক স্বাস্থ্য
ভেঙে পড়ার আশঙ্কা শিশু কমিশনের

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনে বেড়ে চলা গার্হস্থ্য হিংসার ঘটনা শিশুমনেও ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে। ফলে তাদের মধ্যে নানা আচরণগত পরিবর্তন হওয়ার প্রবল সম্ভাবনা রয়েছে। এমনই আশঙ্কা রাজ্য শিশু কমিশনের।
বিশদ

21st  May, 2020
প্রসূতিদের মধ্যে উত্তরোত্তর বাড়ছে করোনা,
হাই-প্রোটিন ডায়েট এবং ব্যায়ামের পরামর্শ 

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এনআরএস মেডিক্যাল কলেজে সাতজন, মেডিক্যাল কলেজে দু’জন, কেপিসি মেডিক্যাল কলেজে তিনজন, সঞ্জীবন হাসপাতালে একজন....। করোনা পর্ব যতই দীর্ঘায়িত হচ্ছে, প্রসূতিদের মধ্যে সংক্রমণও বাড়ছে। 
বিশদ

10th  May, 2020
করোনা ঠেকাতে কোন ধরণের
সাবান ব্যবহার করবেন

যে রোগে মৃত্যুর হার শতকরা মাত্র পাঁচ ভাগ, সেই রোগটাকে নিয়ে কী শুরু হয়েছে বলুন তো! গুজব আর আতঙ্কে তো কান পাতাই দায়। এলাকায় কারো করোনা ধরা পড়ার পর, যে ধরনের অসভ্যতা শুরু হয়ে যায়, মনে হয় কোনও আতঙ্কবাদী ধরা পড়েছে! সেদিন আবার শুনলাম, সাবান না স্যানিটাইজার, নাকি দুটোই- এই নিয়েও প্রশ্ন উঠছে। সাবান হলে কোন সাবান? 
বিশদ

06th  May, 2020
খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে ভারতীয়দের সতর্ক
করলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ডাক্তার

  লন্ডন, ৩ মে (পিটিআই): করোনায় মৃত্যু এড়াতে দৈনন্দিন খাদ্যাভ্যাস সম্পর্কে ভারতীয়দের সতর্ক করলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ চিকিৎসক ডাঃ অসীম মালহোত্রা। ব্রিটেনের ন্যাশনাল হেলথ সার্ভিস (এনএইচএস)-এর সঙ্গে যুক্ত স্বনামধন্য কার্ডিওলজিস্ট ডাঃ মালহোত্রা আবার ‘এভিডেন্স বেসড মেডিসিন’-এর অধ্যাপক। বিশদ

04th  May, 2020
লকডাউনে সুস্থ থাকবেন কী করে
প্রেমসুন্দর দাস, বিশিষ্ট যোগ বিশেষজ্ঞ

শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার জন্য জরুরি তিনটি বিষয়—শারীরিক স্বাস্থ্য, মানসিক স্বাস্থ্য ও পুষ্টি। তিনের মেলবন্ধনেই প্রতিরোধ ক্ষমতার শ্রীবৃদ্ধি ঘটে। মন যত প্রশান্ত হবে, শারীরিক সমস্যাও তত কমবে। মন একাগ্র করার পন্থা আবার নিহিত শরীরচর্চার মধ্যে।
বিশদ

02nd  May, 2020
লকডাউন ওঠার পর কী কী
অভ্যাস বজায় রাখবেন?

 লকডাউন কবে উঠবে? তার চাইতেও অনেক বড় প্রশ্ন হল আমাদের আগামী দিনে জীবন কেমন হবে? সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা, মাস্ক, স্যানিটাইজারের ব্যবহার করে যেতেই হবে লকডাউন শেষ হওয়া পর্যন্ত। বিশদ

02nd  May, 2020
কীভাবে হাত ধুলে করোনা
ভাইরাসকে মাত দেওয়া যায়?

 করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে চিকিৎসাবিজ্ঞানের সমস্ত স্তর দিয়েই হাত ধোয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সেই পরামর্শ মেনে নিয়ে একটা বড় অংশের মানুষই নিয়মিত হাত ধুয়ে চলেছেন। তবে অনবরত হাত ধুয়ে চলা এই মানুষগুলির মধ্যে অনেকেই অবশ্য হাত ধোয়ার আদর্শ পদ্ধতি মানছেন না।
বিশদ

02nd  May, 2020
ওয়ার্ক ফ্রম হোমে
উৎসাহ হারাচ্ছেন?
জেনে নিন সমাধানের ঘরোয়া উপায়

 নোভেল করোনার দাপট রুখতে দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন। মোটের উপর ঘরবন্দি দেশের অধিকাংশ মানুষ। অবশ্য এই ঘরবন্দি অবস্থাতেও বাড়িতে বসেই কাজ করে যাচ্ছেন অনেকে। বিশদ

02nd  May, 2020
রান্নায় এই ৭ টি মশলা বাড়াবে
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

 এই মুহূর্তে করোনা আতঙ্কে কাঁপছে গোটা বিশ্ব। মারণ এই ভাইরাসের তাণ্ডবে কার্যত বিপর্যস্ত মানবজীবন। কীভাবে এই মহামারীর হাত থেকে নিজেকে রক্ষা করা যায় এই চিন্তাতেই দিন কাটছে মানুষের।
বিশদ

02nd  May, 2020
বাসন মাজলে করোনা
ভাইরাস মরে?

 জিম বন্ধ। বন্ধ সেলেবদের শরীরচর্চা। তা বলে থেমে নেই তারকারা। বেছে নিয়েছেন অন্য উপায়। হাত লাগিয়েছেন বাসন মাজায়! কে নেই এই তালিকায়— ক্যাটরিনা থেকে কার্তিক আরিয়ান সকলেই মাজছেন বাসন। গৃহস্থালির এত কাজ থাকতে হঠাত্ কেন বাসন মাজা-মাজি?
বিশদ

02nd  May, 2020
সাবান না স্যানিটাইজার
কোনটা বেশি ভালো?

 নোভেল করোনার করাল গ্রাস থেকে রক্ষা পেতে সাবান এবং স্যানিটাইজারের কদর প্রতিদিন বেড়েই চলেছে। চাহিদা এতটাই বেশি যে বাজারে স্যানিটাইজার তো প্রায় পাওয়াই যাচ্ছে না। আর সাবান পাওয়া গেলেও তার বিক্রি বেড়েছে কয়েক গুণ। বিশদ

02nd  May, 2020
বারবার বাসন মেজে নখকুনি?
কাপড় কেচে, ঘর মুছে
হাতে হাজা? কী করবেন?

 বাসন মাজা, ঘর মোছা, কাপড় কাচা, সব্জি কাটার কারণে হাতে বেশ কিছু ত্বকের সমস্যা দেখা দেয়। তার উপর এখন লকডাউন চলছে। ঘরের কাজ একটু বেশিই করতে হচ্ছে। এদিকে কাজ থেকে নিষ্কৃতি পাওয়ার উপায় নেই। বিশদ

02nd  May, 2020
 ঘাড়, কোমর, কনুই, কবজিতে ব্যথা?
সমস্যাটা মোবাইলেই লুকিয়ে নেই তো?

 দীর্ঘ লকডাউনে বাড়িতে বন্দী ছোট থেকে বড় সকলেই। খেয়াল করে দেখেছেন কি, ইতিমধ্যেই বেশ কিছু শারীরিক সমস্যা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। বিশেষতঃ ঘাড়ে, কাঁধে, কনুই ও কবজিতে একটা ব্যথা এবং শক্তভাব টের পাচ্ছেন? আসুন জেনে নিই বিশেষজ্ঞরা কী বলছেন এবং এই সমস্য দূরই বা করবেন কীভাবে। বিশদ

02nd  May, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনে দেশের সর্বত্র গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পগুলি আটকে রয়েছে। ব্যতিক্রম নয় প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রও। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্তাদের চিন্তা বাড়িয়েছে দেশীয় প্রযুক্তিতে প্রথম তৈরি হতে চলা ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী ১ আগস্ট ভারতে খুলছে ফিফার ট্রান্সফার উইন্ডো। আন্তঃরাজ্য ছাড়পত্রও শুরু হবে একই দিনে। বৃহস্পতিবার অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস এই কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘৯ জুন ভারতে ফিফার আন্তর্জাতিক উইন্ডো খোলার কথা ছিল। ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনার দাপটে বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরা পেশাদার ব্যক্তিদের জীবিকার সংস্থান করে দিতে উদ্যোগ নিল কেন্দ্রীয় সরকার। এঁদের জন্য তথ্যভাণ্ডার তৈরি করে নিয়োগকারী সংস্থা, রাজ্য সরকার এবং বণিকসভাগুলিকে পাঠানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। ...

বেজিং, ৪ জুন (পিটিআই): চীনে একটি প্রাথমিক স্কুলে ছুরিকাহত হলেন পড়ুয়া ও শিক্ষক মিলিয়ে কমপক্ষে ৪০ জন। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ গুয়াংজি প্রদেশের ওঝাউ শহরের একটি সরকারি স্কুলে ওই ঘটনা ঘটেছে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক, কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃতের রচনাকার মহেন্দ্রনাথ গুপ্তের (শ্রীম) মৃত্যু
১৯৩৬: অভিনেত্রী নূতনের জন্ম
১৯৫৯: শিল্পপতি অনিল আম্বানির জন্ম
১৯৭৪: অভিনেতা অহীন্দ্র চৌধুরির মৃত্যু
১৯৭৫ - মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির জন্ম
১৯৮৫: জার্মান ফুটবলার লুকাস পোডোলোস্কির জন্ম

04th  June, 2020


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৭৪ টাকা ৭৬.৪৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.১৩ টাকা ৯৬.৪৪ টাকা
ইউরো ৮৩.২২ টাকা ৮৬.৩১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

দৃকসিদ্ধ: ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ৪৯/২৮ রাত্রি ১২/৪২। অনুরাধা নক্ষত্র ২৯/৩১ অপঃ ৪/৪৪। সূর্যোদয় ৪/৫৫/১২, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৩২। অমৃতযোগ দিবা ১২/১ গতে ২/১৪ মধ্যে। রাত্রি ৮/২২ মধ্যে পুনক্ষ ১২/৩৮ গতে ২/৪৭ মধ্যে পুনঃ ৩/২৯ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/১৫ গতে ১১/৩৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৫৫ গতে ১০/১৫ মধ্যে।
২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ১/১। অনুরাধা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৫/১২। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ দিবা ১২/৬ গতে ২/৪৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে ও ১২/৪২ গতে ২/৪৮ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। বারবেলা ৮/১৬ গতে ১১/৩৬ মধ্যে কালরাত্রি ৮/৫৬ গতে ১০/১৬ মধ্যে।
১২ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে করোনায় মৃত্যু ২৮৩
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৬৮ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

04-06-2020 - 07:02:37 PM

তামিলনাড়ুতে একদিনে করোনা আক্রান্ত ১,৩৭৩, মৃত ১২ 
তামিলনাড়ুতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১,৩৭৩ জন। মৃত্যু ...বিশদ

04-06-2020 - 07:01:52 PM

কর্ণাটকে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২৫৭, মৃত ৪ 
কর্ণাটকে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৫৭ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত্যু ...বিশদ

04-06-2020 - 06:51:26 PM

বাংলাদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২,৪২৩, মৃত ৩৫
গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ২,৪২৩ জন। ফলে ...বিশদ

04-06-2020 - 06:04:57 PM

নেপালে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৩৩৪ 
গত ২৪ ঘণ্টায় নেপালে করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৩৪ জন। এখন ...বিশদ

04-06-2020 - 05:53:17 PM

তবলিগি যোগ: ৩১৬০ জন বিদেশির ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ
৩১৬০ জন বিদেশি নাগরিককে ভারতে প্রবেশ নিষিদ্ধ করল কেন্দ্র। তবলিগি ...বিশদ

04-06-2020 - 05:29:00 PM