Bartaman Patrika
শরীর ও স্বাস্থ্য
 

 সোয়াইন ফ্লু প্রতিরোধে হোমিওপ্যাথি-আয়ুর্বেদ

সোয়াইন ফ্লু নিয়ে সতর্ক থাকুন। রোগ এড়ান। আর অতি অবশ্যই ঘরে মজুত রাখুন প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা। পরামর্শে পিসিএম হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক ডাঃ আশিস শাসমল এবং বেঙ্গল ইনস্টিটিউট অফ ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্সেস-এর প্রিন্সিপাল ইনচার্য ডাঃ লোপামুদ্রা ভট্টাচার্য।

সোয়াইন ফ্লুতে হোমিওপ্যাথি

ঘরে থাক জরুরি ওষুধ:
যে কোনও ভাইরাসজনিত অসুখে হোমিওপ্যাথি ওষুধ খুব ভালো কাজ করে। সোয়াইন ফ্লু’র ক্ষেত্রেও হোমিওপ্যাথি কার্যকরী। আমরা জানি চিকিৎসার তুলনায় রোগ প্রতিরোধই সেরা উপায়।
রোগ প্রতিরোধে ওষুধ—
ওসিলোকক্সিনাম ৩০, ২০ মাত্রার চারটি করে দানা দিনে একবার করে পাঁচদিন খেতে পারেন। আপনার এলাকায় ফ্লু দেখা দিলে, একমাস পরে একই নিয়মে এই ওষুধ খেতে পারেন। এছাড়া আর্সেনিক অ্যালবা ৩০ ওষুধটিও প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।
রোগ সারাতে ওষুধ—
আর্সেনিক অ্যালবাম: রোগী মানসিকভাবে উদ্বিগ্ন, অস্থির, ক্লান্ত, জল পিপাসা আছে, একটু একটু করে বারাবার জল পান করেন, নাক দিয়ে জল পড়া, জ্বালাভাব সঙ্গে বমি, পায়খানা হলে এই ওষুধটি খাওয়ানো যায়।
ইউপটেরিয়াম পারপিউরাম: সারা শরীরে ব্যথা, হাড়ে ব্যথা, জল পিপাসা আছে, কিন্তু ঠান্ডা ভাবের জন্য জল পান করতে পারেন না।
জেলসিমিয়াম: রোগী খুব দুর্বল, তন্দ্রাচ্ছন্ন, শুয়ে থাকতে চান এবং জলপিপাসা থাকে না—এমন লক্ষণে এই ওষুধ কার্যকরী।
ব্রায়োনিয়া অ্যালবা: নাক দিয়ে জল পড়া, গা-হাত-পা-মাথা ব্যথা থাকলে, রোগী চুপচাপ শুয়ে থাকতে চাইলে, জিভ, ঠোঁট শুকিয়ে যাওয়া এবং সঙ্গে জলপিপাসা বোধ থাকলে এই ওষুধ দেওয়া যায়।
রাসটাকস: রোগীর গা, হাত, পা ব্যথা, অস্থিরতা, শুয়ে থাকতে চান না, জল পিপাসা আছে, এমন লক্ষণে এই ওষুধটি খাওয়া যায়। এছাড়া রোগলক্ষণ অনুযায়ী নাক্সভোমিকা, ইনফ্লুয়েঞ্জিনাম, ব্যাপটিসিয়া, ডালকামারা ইত্যাদি ওষুধ কার্যকরী।

সোয়াইন ফ্লুতে আয়ুর্বেদ

 তুলসী: বর্তমানে নানা বৈজ্ঞানিক গবেষণায় তুলসীর ‘অ্যান্টি ফ্লু প্রপার্টি’র প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে। সোয়াইন ফ্লু দূরে রাখতে নিয়মিত দুই থেকে পাঁচটি তুলসীর পাতা খেতে হবে। এছাড়া তুলসী, আদা, মরিচ, লবঙ্গ অল্প অল্প (তিন গ্রাম) পরিমাণে নিয়ে জলে ফুটিয়ে ক্বাথ তৈরি করে নেওয়া যায়। এই ক্বাথ মধু মিশিয়ে সপ্তাহে অন্তত তিন দিন পান করলে উপকার হয়। এছাড়া তুলসী চা হিসেবে বা ফল অথবা স্যালাডেও মেশানো যায়। এ তো গেল তুলসীর প্রতিরোধক দিক; আর যদি সোয়াইন ফ্লু ধরা পড়ে তবে দ্রুত নিরাময়ের জন্য এই তুলসী যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। এটি জ্বর নিয়ন্ত্রণে রাখে, মেটাবলিজম বাড়ায়, নাক বন্ধ হয়ে যাওয়া কমাতে সাহায্য করে এবং মিউকাস মেমব্রেনের ইনফ্লামেশন কমায়। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট যুক্ত তুলসী দেহের ইমিউনিটি বাড়াতে সাহায্য করে।
 হলুদ: হলুদ এইচ১এন১ ভাইরাস নিয়ন্ত্রণে খুবই কার্যকর। হলুদের রস অথবা দুধের সঙ্গে অল্প মাত্রায় হলুদ মিশিয়ে পান করা যায়। হলুদ শতকরা ৯০ ভাগ পর্যন্ত ভাইরাসের বৃদ্ধি দমন করতে পারে। হলুদের কারকিউমিন নামক যৌগটি অ্যান্টি-মাইক্রোবিয়াল গুণযুক্ত।
 গুলঞ্চ: সোয়াইন ফ্লু নিয়ন্ত্রণে আরেকটি গুরুত্বপূর্ণ ভেষজ হল গুলঞ্চ। এটি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট তো বটেই, সেই সঙ্গে অ্যান্টিসেপটিক, অ্যানালজেসিক (ব্যথা কমায়) এবং অ্যান্টিপাইরেটিক (জ্বর কমায়)। গুলঞ্চ রস সামান্য পিপুল চূর্ণ ও মধু মিশিয়ে খেলে জ্বর কমে। শরীরের জ্বালাভাব, দূর্বলতা কমে এবং অরুচি কম হয়। কিছু কিছু বৈজ্ঞানিকের মতে গুলঞ্চ ও তুলসীর রস একত্রে পান করলে রক্তের প্লেটলেটের সংখ্যা বাড়ে।
 আমলকী: আমলকী রোজ খেলে এই রোগের আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। আমলকী ইমিউনিটি বাড়ায়। ফলে সহজে ভাইরাস সংক্রমণ হয় না।
 যষ্টিমধু: এর চূর্ণ তিন থেকে ছ’গ্রাম মাত্রায় খেলে উপকার হয়। যষ্টিমধু অ্যান্টি-ভাইরাল গুণযুক্ত। এটি মধুসহ খেলে (সোয়াইন ফ্লু’র কারণে ক্ষতিগ্রস্ত) গলার মিউকাস মেমব্রেনের ইনফ্লামেশন কমে।
 চা: সোয়াইন ফ্লুতে গলা ব্যথা এবং গলার মিউকাস মেমব্রেনের প্রদাহ কমাতে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মেশানো চা খেলে উপকার হয়। এই চায়ে হালকা গরম অবস্থায় একটু মধু মিশিয়ে নিতে হবে।
সোয়াইন ফ্লু-এর গুরুত্বপূর্ণ আয়ুর্বেদিক ওষুধ:
১. লক্ষ্মীবিলাস রস ২. ত্রিভুবনকীর্তি রস ৩. সঞ্জীবনী বটী ৪. আনন্দভৈরব রস এবং ৫. সিতোপলাদি চূর্ণ।
এই রোগে প্রাণহানির উল্লেখযোগ্য কারণগুলো হল নিউমোনিয়া, শ্বাসকষ্ট, প্রবল জ্বর, ডি-হাইড্রেশন এবং রেনাল ফেলিওর। তাই জ্বর যাতে না বাড়ে এবং শ্বাসকার্য স্বাভাবিক থাকে, সেদিকে লক্ষ রাখতে হবে। যদি বেশি বমি ও ডায়ারিয়া হয় তবে উপরোক্ত ভেষজগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ রেখে আগে ডি-হাইড্রেশনের চিকিৎসা করানো দরকার। কোনও ব্যক্তি আক্রান্ত রোগীর কাছে গেলে, তাঁর এই রোগ হবার আশঙ্কা থাকে। তাঁরা প্রতিষেধক হিসেবে এই সব ভেষজ ব্যবহার করলে উপকার পাবেন। সোয়াইন ফ্লু রোগ নিয়ন্ত্রণে খাওয়ার আগে ভালোভাবে হাত ধোওয়া জরুরি, হ্যান্ড ওয়াশ হিসেবে কর্পূর মিশ্রিত জল খুবই কার্যকর। ভাইরাস দমনে ঘরে নিম, ধুনো ও গুগ্গুলের ধোঁয়া দিলে উপকার পাওয়া যায়।
  যে কোনও চিকিৎসা পদ্ধতিতেই ডাক্তারবাবুর পরামর্শ মেনে ওষুধ খাওয়াই বাঞ্ছনীয়।
28th  February, 2019
কিডনি  ভালো রাখতে কী করবেন?

আজ বিশ্ব কিডনি দিবস। সারা বিশ্বেই অসংখ্য মানুষ কিডনি সংক্রান্ত নানা সংস্যায় ভুগছেন। অথচ সচেতন হয়ে আগে থেকে ব্যবস্থা নিলে ঠেকানো যায় কিডনির সমস্যা। পরামর্শে নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালের নেফ্রোলজি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ডাঃ পিনাকী মুখোপাধ্যায় এবং পিয়ারলেস হাসপাতাল এবং বি কে রায় রিসার্চ সেন্টারের নেফ্রোলজিস্ট ডাঃ শৌভিক সুরাল।
বিশদ

14th  March, 2019
ডায়ালিসিস না কিডনি প্রতিস্থাপন?

 কিডনির অসুখ সাধারণত দু’ধরনের। অ্যাকিউট এবং ক্রনিক। অ্যাকিউট কিডনির অসুখ হয় সাধারণত কোনও সংক্রমণ, ডায়েরিয়া বা কোনও ওষুধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থেকে। অ্যাকিউট কিডনির অসুখে দ্রুত চিকিৎসা শুরু করা গেলে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই রোগী সুস্থ হয়ে যান। অন্যদিকে, ক্রনিক কিডনি ডিজিজ একেবারেই সাইলেন্ট কিলার।
বিশদ

14th  March, 2019
নিখরচায় শিশুদের ক্যান্সারের চিকিৎসা করবে ইনস্টিটিউট অব চাইল্ড হেলথ

পার্কসার্কাসের ইনস্টিটিউট অব চাইল্ড হেলথ (আইসিএইচ) এবং রোটারাক্ট ডিস্ট্রিক্ট ৩২৯১ সংস্থার উদ্যোগে আইসিএইচ হাসপাতালে উদ্বোধন হল পেডিয়াট্রিক ক্যান্সার রিহ্যাবিলিটেশন ইউনিট-এর। শিশুদের ক্যান্সারের নিরাময়ে বিভাগটি কাজ করবে।
বিশদ

14th  March, 2019
অ্যাপোলোর নতুন হাসপাতাল

 অ্যাপোলো হাসপাতাল গোষ্ঠীর ৭২তম হাসপাতালের উদ্বোধন করা হল লখনউতে। এই আন্তর্জাতিক মানের হাসপাতালটি উদ্বোধন করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। বিশদ

14th  March, 2019
তামাকমুক্ত বাংলার দাবি

রাজ্যের ২ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ ধোঁয়াযুক্ত বা ধোঁয়াহীন তামাক ব্যবহার করেন। দুঃখের ব্যাপার হল, বেআইনিভাবে জনবহুল জায়গায় ধূমপানের পরোক্ষ শিকার হন ২২.৫ শতাংশ মানুষ। আর তামাক সংক্রান্ত রোগের কারণে প্রতি বছর অকালে প্রাণ হারান দেড় লক্ষ মানুষ। 
বিশদ

14th  March, 2019
 বিশেষভাবে সক্ষমদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা

 বিশেষভাবে সক্ষম মানুষদের জন্য সম্প্রতি ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় মুকুন্দপুরের প্রতিবন্ধী ভিলেজের মাঠে। আয়োজন করে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য প্রতিবন্ধী সম্মিলনী। উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট পবর্তারোহী দেবাশিস বিশ্বাস।
বিশদ

14th  March, 2019
 দীপায়নের স্বাস্থ্যপরীক্ষা শিবির

  স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন দীপায়ন। সম্প্রতি সংস্থাটির উদ্যোগে, হুগলির রঘুনাথপুর কালীরচকের ‘আমরা সবাই’ সংঘে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শিবিরের আয়োজন করা হয়েছিল। বিশদ

07th  March, 2019
 রুবি হাসপাতালে প্রি ম্যারেজ ক্লিনিক

  সাত জন্ম বিয়ে টিকিয়ে রাখার জন্য আমরা পালন করি নানা আচার। এমনকী বিয়ের আগে কুষ্ঠি মিলিয়েও দেখা হয় পাত্র-পাত্রীর। হ্যাঁ সবই করা হয় দম্পতির ভালো থাকার জন্যই। অথচ আশ্চর্যের ব্যাপার হল, আমরা যেন খানিক উদাসীনভাবেই ভুলে যাই, দুটি মানুষের মনও আছে। আর মনের মিল হলে তবেই একটা সম্পর্কের গিঁট আরও শক্ত হয়।
বিশদ

07th  March, 2019
কোন কোন হোমিওপ্যাথিক
ওষুধ বাড়িতে রাখবেন?

অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসার পরই সবচেয়ে বেশি মানুষ ভরসা রাখেন হোমিওপ্যাথিতে। এমনকী বহু মানুষ আছেন, যাঁদের কাছে অসুখবিসুখ মানেই হোমিওপ্যাথিক ওষুধ। বছরের বিভিন্ন সময় কোন কোন রোগ ও লক্ষণে কী কী হোমিওপ্যাথি ওষুধ বাড়িতে রাখা যেতে পারে, তাদের কার্যকারিতা কী, সেই সব ওষুধ খাওয়ার সঠিক মাত্রাই বা কত, সেই সব কিছু নিয়েই এবারের শরীর ও স্বাস্থ্যে’র পাতা। পরামর্শ দিলেন বিশিষ্ট হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক ডাঃ রথীন চক্রবর্তী।
বিশদ

07th  March, 2019
সোয়াইন ফ্লু’র বিপদ
সামলাবেন কীভাবে?

 কেন নাম সোয়াইন ফ্লু?
সোয়াইন ফ্লু এক ধরনের ভাইরাসজনিত রোগ। এইচ১এন১ নামের ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের আক্রমণে মানুষ এই রোগে আক্রান্ত হন। সাধারণত তিন ধরনের ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস রয়েছে— ইনফ্লুয়েঞ্জা এ, বি ও সি। 
বিশদ

28th  February, 2019
নারায়ণা উদ্যোগ

  স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সঙ্গে হাতে হাত মিলিয়ে নারী ও শিশুর স্বাস্থ্যের বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে উদ্যোগী হল নারায়ণা মাল্টিস্পেশালিটি হাসপাতাল, হাওড়া। মূলত হুগলি জেলা ও পার্শ্ববর্তী কিছু অঞ্চলে এই সচেতনতামূলক অভিযান চালানো হবে।
বিশদ

28th  February, 2019
 হোমিওপ্যাথিক সেমিনার ২০১৯

  হোমিওপ্যাথির মান, গবেষণা ও চিকিৎসার উৎকর্ষ বাড়াতে নিউটাউনের বিশ্ববাংলা কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল ‘অল ইন্ডিয়া হোমিওপ্যাথিক পোস্ট গ্র্যাজুয়েট সেমিনার ২০১৯’।
বিশদ

28th  February, 2019
 সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভদের সম্মেলন

  সম্প্রতি সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ ইউনিয়ন-এর রাজ্য শাখার ৪৪তম সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়ে গেল মহাজতি সদনে। সম্মেলনের কর্মসূচি মেনে সংগঠনের প্রায় ২ হাজার পাঁচশো সদস্যের এক মিছিল বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে পথ পরিক্রমা করে।
বিশদ

28th  February, 2019
চুলে রং করেন? মুখ ফুলে যাওয়া থেকে সাবধান

বাজার থেকে চুলের রং কিনে এনে একটু লাগিয়ে দেখেছিলেন। পুরোটা ব্যবহারও করেননি। কিন্তু তাতেই যা হওয়ার হয়ে গেল। সম্প্রতি কলপের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়ায় ফ্রান্সের ১৯ বছরের এক তরুণীর মুখ ফুলে ঢোল হয়ে গিয়েছিল। ওই তরুণীর নাম এস্তেলে। এক সংবাদ সংস্থার প্রতিবেদনে বিষয়টি জানা গিয়েছে।
বিশদ

21st  February, 2019
একনজরে
নয়াদিল্লি, ১৪ মার্চ: বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ২-৩ ব্যবধানে ওয়ান ডে সিরিজ হেরেও বিচলিত নন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ‘বিশ্বকাপের জন্য ...

 লন্ডন, ১৪ মার্চ (পিটিআই): বুধবার রাতে চুক্তিহীন ব্রেক্সিটের বিপক্ষে ভোট দিয়ে সরকারকে দ্বিতীয়বার ধাক্কা দিয়েছেন হাউস অব কমন্সের সদস্যরা। কার্যত কোণঠাসা হয়ে পড়া ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী টেরিজা মে ভেঙে পড়তে নারাজ। আগামী সপ্তাহের কোনও একটি দিনে শেষবারের মতো চেষ্টা করে দেখতে ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যের জুট মিলগুলির শ্রমিকদের নতুন বেতন চুক্তি বুধবার বেশি রাতে শ্রম দপ্তরে স্বাক্ষরিত হয়েছে। তবে সিটু সহ সাতটি শ্রমিক সংগঠন জানিয়েছে, আজ শুক্রবার জুট মিলগুলিতে প্রতীকী ধর্মঘট থেকে তারা সরে আসছে না। ...

  সংবাদদাতা, বুদবুদ: বুদবুদে শান্তিনিকেতনের আদলে বসন্ত উৎসব ঘিরে প্রস্তুতি তুঙ্গে। বুদবুদের মহাকালী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে এই উৎসব এবার দ্বিতীয় বর্ষে পদার্পণ করছে। শান্তিনিকেতনকে বাদ দিয়ে বাঙালির বসন্ত উৎসব কার্যত অসম্পূর্ণ। তাই দোল উৎসবে শান্তিনিকেতন যেতে মুখিয়ে থাকেন অনেকেই। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় অধিক পরিশ্রম করতে হবে। ব্যবসায় যুক্ত ব্যক্তির পক্ষে দিনটি শুভ। প্রেম-প্রীতিতে আগ্রহ বাড়বে। নতুন ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৫৬৪ – জিজিয়া কর তুলে দেন মুঘল সম্রাট আকবর
১৮৯২ – লিভারপুল ফুটবল ক্লাব প্রতিষ্ঠিত হয়।
১৮৭২ - ভারতীয় সাক্ষ্য আইন প্রবর্তন।
১৯০৪ - স্বনামধন্য বাঙালি কবি ও লেখক অন্নদাশঙ্কর রায়ের জন্ম
১৯৩৪: রাজনীতিক কাঁসিরামের জন্ম
১৯৩৭ - পৃথিবীর প্রথম ব্লাডব্যাংক চালু হয় শিকাগোতে
১৯৩৯ - বাঙালি ভ্রমণ কাহিনী, রম্যরচনা ও উপন্যাস লেখক জলধর সেনের মৃত্যু
১৯৭৬: অভিনেতা অভয় দেওলের জন্ম
১৯৭৭: অভিনেতা যিশু সেনগুপ্তের জন্ম
১৯৮৩: সঙ্গীতশিল্পী হানি সিংয়ের জন্ম
১৯৮৫ – প্রথম ইন্টারনেট ডোমেইন নাম নিবন্ধিত হয়। (symbolics.com)





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৮.৭০ টাকা ৭০.৩৯ টাকা
পাউন্ড ৯০.৬৮ টাকা ৯৩.৯৭ টাকা
ইউরো ৭৭.২৯ টাকা ৮০.২৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩২,৫২০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩০,৮৫৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩১,৩২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,২০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৩০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩০ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার, নবমী ৪৯/৪৭ রাত্রি ১/৪৫। আর্দ্রা ৫৪/৪৫ রাত্রি ৩/৪৪। সূ উ ৫/৪৯/৫৫, অ ৫/৪১/৫৩, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৩ মধ্যে পুনঃ ৮/১২ গতে ১০/৩৪ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৬ গতে ২/৩২ মধ্যে পুনঃ ৪/৭ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৭/১৯ গতে ৮/৫৬ মধ্যে পুনঃ ৩/২২ গতে ৪/১১ মধ্যে, বারবেলা ৮/৪৮ গতে ১১/৪৬ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৪৩ গতে ১০/১৫ মধ্যে।
৩০ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৫ মার্চ ২০১৯, শুক্রবার, নবমী রাত্রি ৯/০/৫০। আর্দ্রানক্ষত্র রাত্রি ১১/৩২/৪৫, সূ উ ৫/৫০/২৮, অ ৫/৪০/৪৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/২৫/১১ মধ্যে ও ৮/১২/৩২ থেকে ১০/৩৪/৩৬ মধ্যে ও ১২/৫৬/৫১ থেকে ২/৩১/২৪ মধ্যে ও ৪/৬/৬ থেকে ৫/৪০/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/১৮/৬ থেকে ৮/৫৫/২৩ মধ্যে ও ৩/২৪/৩২ থেকে ৪/১৩/১১ মধ্যে, বারবেলা ৮/৪৩/৩ থেকে ১০/১৬/৫১ মধ্যে, কালবেলা ১০/১৬/৫১ থেকে ১১/৪৫/৩৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৮/৪৩/১৪ থেকে ১০/১৪/২৬ মধ্যে।
 ৭ রজব
এই মুহূর্তে
দাসপুরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নয়ানজুলিতে বাস 
টোটোকে বাঁচাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নয়ানজুলিতে পড়ে গেল কনেযাত্রীবোঝাই বাস। ...বিশদ

07:55:31 PM

২৫টি আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল বামেরা 
১৭টি আসন ছেড়ে ২৫টি আসনে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করল বামফ্রন্ট। ...বিশদ

06:51:12 PM

আজ সন্ধ্যায় দক্ষিণবঙ্গে ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা 
আজ সন্ধ্যায় দক্ষিণবঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায় ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে ...বিশদ

05:01:43 PM

২৬৯ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স

04:02:07 PM

নিউজিল্যান্ডের মসজিদে হামলার ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ 

02:22:06 PM

মাদারিহাটে গাড়িতে ধাক্কা মারল ট্রাক, জখম ১০ 

01:36:00 PM