Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

গোলাপি বিপ্লবের সন্ধিক্ষণে ইডেন

ছোট্টবন্ধুরা! তোমরা যারা ক্রিকেট খেলা দেখতে ভালোবাসো, বা যারা ক্রিকেটের খোঁজখবর একটু আধটু রাখো, তারা নিশ্চয়ই ইডেনে দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচ হওয়ার খবর জানো। ভারত তাদের প্রথম দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচটি খেলতে নামছে ২২ নভেম্বর, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। আর এই ঐতিহাসিক ঘটনার জন্য কলকাতার ইডেন উদ্যান ছাড়া উপযুক্ত মঞ্চ আর কী-ই বা হতে পারে! গোলাপি বলে ভারতের এই প্রথম বাইশ গজের লড়াইকে স্মরণীয় করে রাখতে গোলাপি আলোয় সেজে উঠছে আমাদের এই প্রিয় শহর। দেশ-বিদেশের অতিথি-অভ্যাগতদের স্বাগত জানানোর জন্য চলছে শেষ পর্যায়ের চূড়ান্ত ব্যস্ততা। ক্রিকেট এবং ক্রিকেটের বাইরের নক্ষত্র সমাবেশকে ঘিরে এক চমকপ্রদ মুহূর্ত উপহারের জন্য প্রহর গুনছে ঐতিহ্য, আভিজাত্য ও আবেগের ইডেন।
কালের স্রোতে গা ভাসিয়ে বহু স্মরণীয় ঘটনার সাক্ষী থেকেছে ক্রিকেটের এই নন্দনকানন। ১৮৬৪ সালের জন্মলগ্ন থেকে পরিবর্তনের হাওয়ায় পাল তুলে সে ক্রমে হয়ে উঠেছে আধুনিক, আরও আকর্ষণীয়। ৪০ হাজারের দর্শকাসন ১৯৮৭ সালে সংস্কারের পর বেড়ে দাঁড়ায় এক লাখে। ২০১১ সালে বিশ্বকাপ ক্রিকেটের আগে আধুনিকীকরণের পর ইডেনের বর্তমান দর্শকাসন সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৭ হাজারের মতো। পুরনো প্যাভিলিয়ন ভেঙে হয়েছে সুদৃশ্য ক্লাব হাউস। বন্দোবস্ত হয়েছে ফ্লাডলাইটের (’৯২)। যার প্রথম ব্যবহার হয় ১৯৯৩ সালে, সিএবির ডায়মণ্ড জুবিলি টুর্নামেন্ট হিরো কাপের সময়। হিরো কাপের সেমি-ফাইনালে ভারত ও দক্ষিণ আফ্রিকার সেই ম্যাচটি তাই পাকাপাকিভাবে ইতিহাসের পাতায় স্থান করে নিয়েছে। বর্ণবিদ্বেষের কারণে প্রায় ২২ বছরের নির্বাসনের পর এই ইডেনেই প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচ (১০ নভেম্বর, ১৯৯১) খেলেছিল ক্লাইভ রাইসের দক্ষিণ আফ্রিকা। আর এবার গোলাপি বিপ্লবের সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে এই ঐতিহাসিক ইডেন।
গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট খেলার রেওয়াজ অবশ্য অনেক আগেই শুরু হয়ে গিয়েছে। ভারত ও বাংলাদেশ ছাড়া আর প্রায় সব টেস্ট খেলিয়ে দেশই এই তালিকায় নাম লিখিয়ে ফেলেছে। এখনও পর্যন্ত পাঁচটির মধ্যে সবকটিতেই জয় ছিনিয়ে নিয়েছে অজিরা। গোলাপি বলে প্রথম দিন-রাতের টেস্ট খেলার নজিরও রয়েছে তাদেরই দখলে। ২০১৫ সালের (২৭ নভেম্বর-১ ডিসেম্বর) সেই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার প্রতিপক্ষ ছিল নিউজিল্যান্ড। অ্যাডিলেডের সেই লড়াইয়ে অজিরা জিতেছিল তিন উইকেটে। দ্বিতীয় টেস্টে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল পাকিস্তান ও ওয়েস্ট ইন্ডিজ। খেলা হয়েছিল (১৩-১৭ অক্টোবর, ২০১৬) দুবাই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে। ৫৬ রানে জিতেছিল পাকিস্তান। এভাবে এখনও পর্যন্ত ১১টি দিন-রাতের টেস্ট গোলাপি বলে খেলা হয়ে গিয়েছে। ইংল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা, জিম্বাবোয়েও তাতে অংশ নিয়েছে। তবে, পরিসংখ্যানের নিরিখে বলাই যায় যে ‘অ্যাডভান্টেজ অস্ট্রেলিয়া’। ভারত এতদিন গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট খেলতে রাজি হয়নি। অস্ট্রেলিয়ার প্রস্তাব তারা সুকৌশলে কাটিয়ে দিয়েছে। কিন্তু, ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের (বিসিসিআই) সভাপতি হওয়ার পরই বদল হয়েছে মানসিকতায়। তাঁর উদ্যোগেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে দু’ম্যাচের সিরিজের দ্বিতীয় তথা শেষ টেস্ট গোলাপি বলে খেলতে রাজি করানো গিয়েছে অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে।
ইডেন অবশ্য অনেক আগেই গোলাপি বলে ম্যাচ প্রত্যক্ষ করেছে। প্রশাসক সৌরভের উদ্যোগেই ২০১৬’র ১৮ জুলাই মোহন বাগান ও ভবানীপুর ক্লাবের মধ্যে সিএবি সুপার লিগের ফাইনাল ম্যাচটি খেলা হয়েছিল গোলাপি বলে। এই ম্যাচে খেলেছিলেন ভারতীয় দলের দুই বর্তমান সদস্য ঋদ্ধিমান সাহা ও মহম্মদ সামি। ম্যাচটি মোহন বাগান জিতেছিল ২৯৬ রানে। সেই বছর দলীপ ট্রফির ম্যাচও হয়েছিল নৈশালোকে। এখানে বলে রাখা ভালো, ’৯৭-এর এপ্রিলে দিল্লি ও মুম্বইয়ের মধ্যে রনজি ট্রফির ফাইনালটি হয়েছিল নৈশালোকে। কিন্তু, গোয়ালিয়রে পাঁচদিনের সেই ম্যাচে গোলাপি নয়, খেলা হয়েছিল সাদা বলেই। তবে অনেকের মতে, উজ্জ্বলতার কারণেই ব্যাটসম্যানদের পাশাপাশি টিভি ক্যামেরার পক্ষেও ফ্লাডলাইটে লাল বলের তুলনায় গোলাপি বল ট্র্যাক করতে না কি বেশি সুবিধা হয়।
তবে, নৈশালোকে গোলাপি বলে খেলার সুবিধা বা অসুবিধা নিয়ে কিছুটা সংশয় রয়েছে ক্রিকেটারদের মধ্যে। বিশেষত, গোধূলিতে এই বলের দৃশ্যমানতা কেমন থাকবে তা নিয়ে জোর চর্চা চলছে। আলোচনায় ডুবে রয়েছেন ক্রিকেটপ্রেমীরাও। আসলে, সাদা পোশাকে দিন-রাতের ম্যাচে লাল ও সাদা বলের থেকে গোলাপি বল এগিয়ে রাখার প্রধান কারণ হল এর দৃশ্যমানতা। ফ্লাডলাইটের আলোয় লাল বল অনেক সময়েই পিচের খয়েরি রঙের মধ্যে হারিয়ে যায়। ফলে, ব্যাটসম্যানদের দেখতে কিছুটা সমস্যা হয়। আর সাদা বল ময়লা হয়ে গেলেও ব্যাটসম্যানদের একই সমস্যায় পড়তে হয়। তাছাড়া, সাদা বল গোলাপি বলের তুলনায় দ্রুত নষ্ট হয়ে যায়। গোলাপি বলে অতিরিক্ত ল্যাকার থাকায় তা দ্রুত পুরনো হয় না। অর্থাৎ, এর জৌলুস বা উজ্জ্বলতা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়। এর সিমটাও তুলনামূলকভাবে পোক্ত। এর আগে হলুদ এবং কমলা ক্রিকেট বল নিয়েও পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালানো হয়েছে। কিন্তু, সেক্ষেত্রে ইতিবাচক ফল মেলেনি। বরং, লাল এবং সাদার পর সসম্মানে পাশ করেছে গোলাপি বলই। তবে, এসজি গোলাপি বল রাতের শিশির ফ্যাক্টরে কেমন ব্যবহার করবে, তা সময়ই বলবে। কিন্তু, এর সুবাদে ইডেনের ইতিহাসের পাতায় যে আরও একটি উজ্জ্বল নজির যোগ হতে চলেছে, প্রাপ্তির সেই স্বাদই আলাদা। এই প্রেক্ষিতেই জানিয়ে রাখি, ইডেনে প্রথম টেস্ট ম্যাচটি হয়েছিল ১৯৩৪ সালের ৫-৮ জানুয়ারি ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যে। আর ইডেনে প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচ হয়েছিল ১৯৮৭’র ১৮ ফেব্রুয়ারি। সেই ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিল ভারত ও পাকিস্তান। আর এখানে প্রথম আন্তর্জাতিক টি-২০ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১১’র ২৯ অক্টোবর। প্রতিপক্ষ ছিল ভারত ও ইংল্যান্ড। ফের ইডেনকে সাক্ষী রেখে ভারতীয় ক্রিকেটে এক নতুন অধ্যায় সংযোজিত হতে চলেছে।
অতীতের বহু লড়াইয়ের সাক্ষী এই ইডেন। ভি ভি এস লক্ষ্মণ ও রাহুল দ্রাবিড়ের মহাকাব্যিক ইনিংস এবং হরভজনের বলের জাদুতে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে টেস্টে ফলো-অনের লজ্জা সামলে নাটকীয়ভাবে জয় ছিনিয়ে নিয়েছিল সৌরভের ভারত। ফের (প্রশাসক) সৌরভের হাত ধরেই ইডেন এবার আরও একটা সাহসী উদ্যোগের মুখোমুখি হতে চলেছে। সেই উৎসবে শান দিতে আয়োজনের কোনও ত্রুটি রাখতে চান না সংগঠকরা। আর তাই, সেই উৎসবের মহড়া শুরু হয়ে গিয়েছে এখন থেকেই।
সঞ্জয় চট্টোপাধ্যায় ছবি: সংশ্লিষ্ট সংস্থার সৌজন্যে 
17th  November, 2019
অরণ্যে অ্যাডভেঞ্চার

গা ছমছমে গহিন অরণ্য। দূর থেকে শোনা যাচ্ছে জলপ্রপাতের গর্জন। পথে বন্য পশুর ভয়। কোথাও ভয়ঙ্কর নদী পেরতে হবে। এমনই কয়েকটি অরণ্যের কথা তোমাদের শুনিয়েছেন সায়ন নস্কর। 
বিশদ

17th  November, 2019
ছোটদের রান্নাঘর 

তোমাদের জন্য চলছে একটি আকর্ষণীয় বিভাগ ছোটদের রান্নাঘর। এই বিভাগ পড়ে তোমরা নিজেরাই তৈরি করে ফেলতে পারবে লোভনীয় খাবারদাবার। বাবা-মাকেও চিন্তায় পড়তে হবে না। কারণ আগুনের সাহায্য ছাড়া তৈরি করা যায় এমন রেসিপিই থাকবে তোমাদের জন্য। এবার সেরকমই দুটি জিভে জল আনা রেসিপি দিয়েছেন দ্য পার্কিং লট রেস্তোরাঁর এক্সিকিউটিভ শেফ সুমিত রঘুবংশী। 
বিশদ

10th  November, 2019
জওহরলাল নেহরুর ছেলেবেলা 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার পণ্ডিত জওহরলাল নেহরু। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়। 
বিশদ

10th  November, 2019
ছোটদের ভালোবাসতেন চাচা নেহেরু 

স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু। শিশুদের কাছে তিনি চাচা নেহরু হিসেবে বেশি জনপ্রিয়। নেহরু ছোটদের খুব ভালোবাসতেন বলে তাঁর জন্মদিনটি অর্থাৎ ১৪ নভেম্বর দেশজুড়ে শিশুদিবস পালিত হয়। প্রিয় চাচা নেহরুকে নিয়ে লিখেছে বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা।  
বিশদ

10th  November, 2019
মার্কশিট 

তোমাদের জন্য চলছে নতুন বিভাগ। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় বাংলা।
 
বিশদ

03rd  November, 2019
সে কি সত্যি হবে! 
আয়ূষী বন্দ্যোপাধ্যায়

পাইন আর দেওদার গাছের মধ্যে পাখির বাসা থাকে কি না তা ঠিক জানা নেই, তবে এক মিষ্টি পাখির কূজন কানে ভেসে আসে রোজই। গতকাল রাতে অমন ঝড়, বৃষ্টি, দম্ভোলি হয়েছে কে বলবে? ভোরের প্রভাকরের প্রকীর্ণ আভা যেন দুর্যোগকে নিশ্চিহ্ন করেছে। ঈশ্বরের দেশে সবই তো তাঁর লীলাখেলা, সেখানে যে নেই কোনও মোহ, মায়া, মাৎসর্য। শুধুই আছে মনকে দয়ার্দ্র করে তোলার পরিপূর্ণ রসদ। 
বিশদ

03rd  November, 2019
পুজোর ছুটি 

পুজোর ছুটিতে কে কী করবে তার পরিকল্পনা অনেক আগেই সেরে ফেলে ছোটরা। সেই তালিকায় ঠাকুর দেখা, খাওয়া-দাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে গল্পগুজব, মামার বাড়ি যাওয়া, বেড়ানো, গল্পের বই পড়া, খেলাধুলো সবই থাকে। এবারের পুজোর ছুটি কার কেমন কাটাল তোমাদের শোনাচ্ছে বৈঁচি বিহারীলাল মুখার্জি’স ফ্রি ইনস্টিটিউশনের ছাত্র-ছাত্রীরা। 
বিশদ

03rd  November, 2019
 আলোর উৎসব
কা লী পু জো

 রং-বেরঙের আলো দিয়ে বাড়ি সাজানো, তুবড়ি, হাউই আর রংমশালের আলোর ছটা, মিষ্টিমুখ, রাত জেগে পুজো দেখা... এমনভাবেই কেটে যায় কালীপুজোর দিনটা। জানাল বিভিন্ন স্কুলের ছেলেমেয়েরা। বিশদ

27th  October, 2019
 ভগিনী নিবেদিতা

 আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার ভগিনী নিবেদিতা। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়। বিশদ

27th  October, 2019
হ্যালোইন নাকি ভূত উৎসব

কার কতটা ভূতের ভয় তা আমার জানা নেই, আমার কিন্তু খুবই ভূতের ভয়, তাই রাতে আমি একা একা ঘরে শুতে পারি না, চোখ বুঝলেই ভূশুণ্ডির মাঠ থেকে হাজার হাজার ভূত উড়ে এসে আমাকে ঘিরে ধরে, কেউ আমার পা ধরে টানে কেউ বা আবার কাতুকুতু দিয়ে আমাকে নাজেহাল করে ছাড়ে, সে সব দুঃখের কথা আজ নয় ছেড়েই দিলাম। তাই ভূত নিয়ে কিছু লিখতে গেলে আমার হাত-পা ঠান্ডা হয়ে আসে, গায়ের লোম খাড়া হয়ে যায়। বিশদ

27th  October, 2019
হিলি গিলি হোকাস ফোকাস 

চলছে নতুন বিভাগ হিলি গিলি হোকাস ফোকাস। এই বিভাগে জনপ্রিয় জাদুকর শ্যামল কুমার তোমাদের কিছু চোখ ধাঁধানো আকর্ষণীয় ম্যাজিক সহজ সরলভাবে শেখাবেন। আজকের বিষয় থট-রিডিং।   বিশদ

20th  October, 2019
মামরাজ আগরওয়াল রাষ্ট্রীয় পুরস্কার 

প্রতিবারের মতো এবারও ‘মামরাজ আগরওয়াল রাষ্ট্রীয় পুরস্কার’ প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিল মামরাজ আগরওয়াল ফাউন্ডেশন। গত ২১ সেপ্টেম্বর রাজভবনে অনুষ্ঠানটি হয়েছিল। এবার মোট ৯৯ জন ছাত্রছাত্রীকে পুরস্কৃত করা হয়।   বিশদ

20th  October, 2019
মহাপ্রলয় আসছে 

পরিবেশ বিজ্ঞানীরা বলছেন, ষষ্ঠ মহাপ্রলয় ঘটতে আর দেরি নেই। জঙ্গল কেটে সাফ হয়ে যাচ্ছে। বাড়ছে গাড়ি, কলকারখানার সংখ্যা। দূষিত হয়ে উঠছে পরিবেশ। গলতে শুরু করেছে কুমেরু ও সুমেরুর বরফ। মহাপ্রলয় আটকাতে এখনই ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। পৃথিবীর ধ্বংস আটকানোর উপায় কী? লিখেছেন সুপ্রিয় নায়েক। 
বিশদ

20th  October, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, তারকেশ্বর: পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মৎস্য দপ্তরের পক্ষ থেকে ৩৮ জন মাছচাষিকে সোমবার মাছ ও চুন বিতরণ করা হল।  ...

সংবাদদাতা, ইসলামপুর: সোমবার সকালে উত্তর দিনাজপুর জেলার গোয়ালপোখর থানার বেলন গ্রাম পঞ্চায়েতের পটুয়া এলাকায় ধান খেতে এক অজ্ঞাতপরিচয়ের যুবকের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। এই ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়ায়।   ...

ইসলামাবাদ, ১৮ নভেম্বর (পিটিআই): ভারতের অগ্নি-২ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষার একদিন পরেই পাকিস্তান শাহিন-১ নামের একটি ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ করল। ৬৫০ কিলোমিটার দূরের বস্তুকে আঘাতে সক্ষম পাক ক্ষেপণাস্ত্র শাহিন-১। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: শয়নে স্বপনে এখন শুধুই গোলাপি টেস্ট। যার উন্মাদনা কেবল সমর্থকদের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়েছে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যেও। দেশের মাটিতে প্রথমবার ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

কর্মপ্রার্থীদের কর্মলাভ কিছু বিলম্ব হবে। প্রেম-ভালোবাসায় সাফল্য লাভ ঘটবে। বিবাহযোগ আছে। উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় থেকে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৩৮: সমাজ সংস্কারক কেশবচন্দ্র সেনের জন্ম
১৮৭৭: কবি করুণানিধান বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯১৭: ভারতের তৃতীয় প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর জন্ম
১৯২২: সঙ্গীতকার সলিল চৌধুরির জন্ম
১৯২৮: কুস্তিগীর ও অভিনেতা দারা সিংয়ের জন্ম
১৯৫১: অভিনেত্রী জিনাত আমনের জন্ম 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৮৪ টাকা ৭২.৫৪ টাকা
পাউন্ড ৯১.০৬ টাকা ৯৪.৩৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৮৫ টাকা ৮০.৮১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৫৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৬০৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,১৫৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, সপ্তমী ২৪/১১ দিবা ৩/৩৬। অশ্লেষা ৩৮/৩৮ রাত্রি ৯/২২। সূ উ ৫/৫৫/২২, অ ৪/৪৮/২৩, অমৃতযোগ দিবা ৬/৪০ মধ্যে পুনঃ ৭/২৩ গতে ১১/০ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৬ গতে ৮/১৯ মধ্যে পুনঃ ৯/১১ গতে ১১/৪৯ মধ্যে পুনঃ ১/৩৪ গতে ৩/১৯ মধ্যে পুনঃ ৫/৫ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৭/১৬ গতে ৮/৩৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৩ গতে ২/৫ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৭ গতে ৮/৫ মধ্যে। 
২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, মঙ্গলবার, সপ্তমী ১৯/২৬/৫২ দিবা ১/৪৩/৫৬। অশ্লেষা ৩৬/১/৪১ রাত্রি ৮/২১/৫১, সূ উ ৫/৫৭/১১, অ ৪/৪৮/১৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫০ মধ্যে ও ৭/৩০ গতে ১১/৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৮ গতে ৮/২১ মধ্যে ও ৯/১৪ গতে ১১/৫৪ মধ্যে ও ১/৪১ গতে ৩/২৮ মধ্যে ও ৫/১৪ গতে ৫/৫৮ মধ্যে, বারবেলা ৭/১৮/৩৬ গতে ৮/৪০/১ মধ্যে, কালবেলা ১২/৪৩/১৫ গতে ২/৫/৪০ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৭/৪ গতে ৮/৫/৪০ মধ্যে।
২১ রবিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
দিল্লিতে ভূমিকম্প 

07:07:50 PM

বুধেরহাটে অ্যাসিড খেয়ে আত্মঘাতী বধূ 
স্বামীর সঙ্গে অশান্তির জেরে অ্যাসিড খেয়ে আত্মঘাতী হলেন এক বধূ। ...বিশদ

06:22:42 PM

মালদহের প্রশাসনিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 

06:13:00 PM

বিধানসভায় পালিত হবে সংবিধান দিবস 
২৬ এবং ২৭ নভেম্বর রাজ্য বিধানসভায় পালিত হবে সংবিধান দিবস। ...বিশদ

03:59:00 PM

প্রশাসনিক বৈঠকে যোগ দিতে মালদহে পৌঁছলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

03:58:52 PM

ডেঙ্গুতে পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যার মৃত্যু 
ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হল পাঁচ বছরের এক শিশুকন্যার। মৃতের ...বিশদ

02:28:49 PM