Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

মার্কশিট 

তোমাদের জন্য চলছে নতুন বিভাগ। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় বাংলা।

পরামর্শ দিচ্ছেন হিন্দু স্কুলের বাংলার শিক্ষক স্বাগত বিশ্বাস।

‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে কৈশোরের আত্মগরিমা, ‘বহুরূপী’ গল্পে শিল্পের জন্য আত্মত্যাগ, ‘পথের দাবী’ উপন্যাসাংশে দেশাত্মবোধ , ‘অদল বদল’ গল্পে বন্ধুত্বের মূল্য ও ‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্পে নদীর জন্য মমত্ববোধ কৈশোরের নীতি, আদর্শ ও দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রভাবিত করবে। শুধুমাত্র পরীক্ষার পড়া ভেবে বাধ্য হয়ে পড়ো না, ভালোবেসে গল্প পড়ো। MCQ ও অতিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্নের (৩+৪ নম্বরের) জন্য সব গল্পগুলো, একমাত্র ব্যাখ্যাভিত্তিক প্রশ্নের (৩ নম্বর) জন্য বহুরূপী, অদল বদল ও পথের দাবী। রচনাধর্মী প্রশ্নের (৫ নম্বর)জন্য জ্ঞানচক্ষু, পথের দাবী ও অদল বদল থেকে তৈরি হও।
‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে তপনের প্রথম বোধোদয় ঘটে, ‘লেখক মানে কোনো আকাশ থেকে পড়া জীব নয়’। তাই তপনের লেখক হতে বাধা নেই। ‘এমন সময় ঘটল সেই ঘটনা’। ‘পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনাও ঘটে?’ ‘প্রথম দিন’ গল্পটি শ্রী তপন কুমার রায়ের নামে ছাপা হলেও নতুন মেসোর ছাপিয়ে দেওয়ার কৃতিত্ব বেশি গুরুত্ব পায়। নেহাত কাঁচা হাতের লেখাকে সম্পাদনার নামে নতুন মেসো এতটাই পরিবর্তিত করে ফেলেছেন যে ‘এর মধ্যে তপন কোথা?’, ‘মনে হয় আজ যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের দিন’। এই আঘাত তার প্রকৃত বোধোদয় ঘটায়। কৈশোরের অনভিজ্ঞতা থেকে প্রতিষ্ঠা পায় ‘লেখক’ তপনের আত্মসম্মানবোধ। ‘শুধু এই দুঃখের মুহূর্তে গভীরভাবে সংকল্প করে তপন’, কী সংকল্প করে ও কেন? উদ্ধৃত লাইনগুলোর পাশাপাশি তপন চরিত্র ও গল্পের নামকরণ গুরুত্বপূর্ণ।
‘পথের দাবী’তে ‘পলিটিক্যাল সাসপেক্ট’ সব্যসাচী মল্লিককে থানায় জিজ্ঞাসাবাদের সময় যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, তার বর্ণনা এবং তাঁর অদ্ভুত বেশভূষা ও শখ-শৌখিনতার পরিচয় জানতে চায়। দেশপ্রেমিক যুবক অপূর্বর বিনা দোষে ফিরিঙ্গি যুবকদের কাছে অপমানিত হওয়ার ঘটনা ও উপস্থিত ভারতীয়দের প্রতিবাদহীন কাপুরুষের মতো আচরণে ব্যথিত অপূর্বর উপলব্ধি —‘অবিচারের দণ্ডভোগ করার অপমান আমাকে কম বাজে না রামদাস’, ‘এমন তো নিত্য-নিয়তই ঘটচে’, ‘মনে হল দুঃখে লজ্জায় ঘৃণায় নিজেই যেন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে যাই।’
অনূদিত ‘অদল বদল’ গল্পটি দুই কিশোরের বন্ধুত্বের মধ্য দিয়ে সমাজে জাতি, ধর্মের ঊর্ধ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত তুলে ধরে। গ্রামের ছেলেরা হোলির দিন দুই বন্ধুর মধ্যে কুস্তি লড়িয়ে দেওয়ার মতলব করে, অমৃতকে জোর করে মাটিতে ফেলে দেয়,তাতে ‘ইসাবের মেজাজ চড়ে গেল’।অমৃতের বিপদে পাশে দাঁড়াতে গিয়ে ইসাবের নতুন জামা ছিঁড়ে যায় । ইসাবকে তাঁর বাবার প্রহারের হাত থেকে বাঁচাতে অমৃত বুদ্ধি করে নতুন জামা অদল-বদলের । এই ঘটনা আড়ালে থেকে ইসাবের বাবা দেখেন এবং বন্ধুত্বের জন্য আত্মত্যাগ দেখে তাঁর বুক ভরে যায় ‘.... ও আমাকে শিখিয়েছে, খাঁটি জিনিস কাকে বলে’।
‘বহুরূপী’ গল্পে হতদরিদ্র বহুরূপী হরিদার দশটা-পাঁচটার বাঁধাধরা কাজ পছন্দ নয়। ‘হরিদার জীবনে সত্যিই একটা নাটকীয় বৈচিত্র্য আছে’। বাহ্যিক সাজপোশাকে ও নিখুঁত অভিনয়ে যে কোন চরিত্রকে জীবন্ত করে তোলেন। একবার বেশি বকশিশ পাওয়ার আশায় অবস্থাপন্ন জগদীশবাবুর বাড়িতে বিরাগী সন্ন্যাসীর বেশে গেলেন ‘এবার মারি তো হাতি, লুঠি তো ভাণ্ডার’। হরিদাকে চিনতে না পেরে ‘চমকে উঠলেন জগদীশবাবু’। বিরাগী বললেন ‘আপনি কি ভগবানের চেয়েও বড়ো?’ জগদীশবাবু তীর্থ ভ্রমণের জন্য একশো এক টাকার প্রণামী দিতে চান, সব উপেক্ষা করে বিরাগী চলে গেলেন ‘আমি যেমন অনায়াসে ধুলো মাড়িয়ে চলে যেতে পারি, তেমনই অনায়াসে সোনাও মাড়িয়ে চলে যেতে পারি’। পরে বিরাগী সন্ন্যাসীরূপী হরিদার পরিচয় শুনে ‘চমকে ওঠে ভবতোষ’। আর জগদীশবাবুর দান গ্রহণ না করা প্রসঙ্গে হরিদা বলেন, ‘তাতে যে আমার ঢং নষ্ট হয়ে যায়’। ‘হরিদার একথার সঙ্গে তর্ক চলে না’।
‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্পে ত্রিশ বছর বয়সি স্টেশন মাস্টার নদেরচাঁদের নদীর প্রতি মায়া একটু অস্বাভাবিক। শৈশব, কৈশোর ও প্রথম যৌবন কেটেছে নদীর ধারে। একবার অনাবৃষ্টির বছরে গ্রাম্য নদীটি শুকিয়ে যাওয়ার জোগাড় হলে সে কষ্টে কেঁদে ফেলেছিল। তাই অবিরাম বৃষ্টি হওয়ার জন্য পাঁচ দিন নদীকে দেখা হয়নি বলে স্টেশন থেকে এক মাইল দূরে ব্রিজের কাছে সে চলে আসে। ‘নদেরচাঁদের ভারী আমোদ বোধ হতে লাগল’। ধীরে ধীরে অন্ধকার নেমে এল,‘বড়ো ভয় করিতে লাগিল নদেরচাঁদের’। নদীর এই উন্মত্ততাকে নদেরচাঁদ নদীর বিদ্রোহ বলে মনে করে। যান্ত্রিক সভ্যতায় নিজেদের শৌখিন সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের কারণে মানুষ নদীর স্বাভাবিক গতিপথকে রুদ্ধ করেছে। বাঁধ, ব্রিজ, জলাধার যেন নদীর শৃঙ্খল। নদী সেই শৃঙ্খলমোচন করে আপন ছন্দে বয়ে যেতে চায়। কিন্তু মানুষ আবার তাকে বেড়ি পরায়। অন্যমনস্ক নদেরচাঁদের ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু, একটু অস্বাভাবিক মনে হলেও, এ যেন যন্ত্র সভ্যতার প্রতি এক নীরব প্রতিবাদ। 
03rd  November, 2019
সহজ উপায়ে মনঃসংযোগ  

ছোট্ট বন্ধুরা কেমন আছ? বাড়িতেই অনলাইন ক্লাস করতে করতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছ নাকি? কম্পিউটারে পড়াশোনা একঘেয়ে লাগছে তোমাদের? মন বসছে না বুঝি পড়ায়? পড়ায় মন বসানোর কয়েকটা সহজ উপায় তোমাদের বলি তাহলে।
বিশদ

05th  July, 2020
দিশারী  

আয়ুষী বন্দ্যোপাধ্যায়: বিশ্বময় যখন থাবা বসিয়েছে মারণ করোনা ভাইরাস তখন ছোট্ট মিনির মনে অনেক প্রশ্ন। আজকাল তার দিনগুলো ভালো কাটছে না। কেমন যেন থম মেরে পড়ে আছে কলের কলকাতা, নিস্তব্ধ গোটা তল্লাট-স্তব্ধতার অন্তর্গত বোধ হয়ে ঘেয়ো কুকুর লালুর ডাকও।   বিশদ

05th  July, 2020
এই সময়ের বােয়াস্কোপ 

দীর্ঘদিন একটানা স্কুল বন্ধ। যদিও তোমাদের অনলাইনে ক্লাস চলছে, কিন্তু বাইরে বেরনোর কোনও উপায় নেই। এক কাজ করো, ঘরে বসে অনলাইনে কিছু সিনেমা দেখে ফেলো। একঘেয়েমি কিছুটা কাটবে। লিখেছেন ড. শংকর ঘোষ। 
বিশদ

05th  July, 2020
ছোটদের রান্নাঘর 

করোনার দাপটে স্কুল বন্ধ। সুতরাং বাড়ি থেকে বেরিয়ে এটা ওটা খাওয়ারও জো নেই। তাই বলে কি লকডাউনে কোনও ভালো খাবারই চেখে দেখার সুযোগ হবে না? চিন্তা নেই, ছোটদের রান্নাঘর-এ শুধু তোমাদের জন্যই চারটি লোভনীয় রেসিপি দিয়েছেন জেমস ইন সিরাজের এক্সিকিউটিভ শেফ সাগ্নিক মজুমদার এবং হাটারি রেস্তরাঁর শেফ স্বপন বিশ্বাস। এগুলি আগুনের সাহায্য ছাড়াই তৈরি করা যাবে। তোমরাই করে চমকে দাও বড়দের। 
বিশদ

28th  June, 2020
রায় অ্যান্ড মার্টিনের অনলাইন ক্লাস 

করোনা ভাইরাসের জন্য আপাতত ৩১ জুলাই পর্যন্ত স্কুল বন্ধ। একটানা অনেকদিন ধরে তোমরা গৃহবন্দী। এজন্য যে তোমাদের পড়াশোনার ভীষণ ক্ষতি হচ্ছে তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। যদিও তোমরা এখন স্কুলের অনলাইন ক্লাসে পড়াশোনা করা করছ। এর মাধ্যমে তোমরা অনেকটাই উপকৃতও হচ্ছ।  বিশদ

28th  June, 2020
ইংরেজিতে শুদ্ধ বাক্যগঠন করবে কী কী দেখে?  

তোমাদের জন্য চলছে জনপ্রিয় বিভাগ মার্কশিট। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় ইংরেজি। পরামর্শে রহড়া রামকৃষ্ণ মিশন বালকাশ্রম উচ্চ বিদ্যালয়ের (উচ্চ মাধ্যমিক) ইংরেজির শিক্ষক উৎপল ভৌমিক। বিশদ

28th  June, 2020
দেখতে যাবে মিশরের মমি

ইতিহাসের দিনগুলোয় ফিরতে চাইলে দি ইন্ডিয়ান মিউজিয়াম বা কলকাতার ভারতীয় জাদুঘর ঘুরে আসা হল সেরা উপায়। তবে এখন জাদুঘর বন্ধ। তাহলে? খুব সহজ। আমাদের প্রত্যেকের বাড়িতেই রয়েছে আশ্চর্য এক যন্ত্র! সেই যন্ত্রের সাহায্যেই আমরা ঢুকে পড়ব জাদুঘরে! ঘুরেও বেড়াব ইচ্ছে মতো! লিখেছেন সুপ্রিয় নায়েক।  
বিশদ

28th  June, 2020
একদিনে বাংলা বর্ণমালা শিখেছিলেন  

আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার সাহিত্য-সম্রাট ঋষি বঙ্কিমচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়।
 
বিশদ

21st  June, 2020
রথযাত্রার ছোট্ট অঙ্গীকার 

করোনা সংক্রমণের জন্য এবারে কিন্তু রথ নিয়ে আর বেরিও না। পুরীর রথযাত্রাও এবার হচ্ছে না। তোমরা কীভাবে কাটাবে রথযাত্রার দিনটি? লিখেছেন সুমন গুপ্ত। 
বিশদ

21st  June, 2020
সবুজ দেশের স্বপ্ন 

তোমরা নিশ্চয়ই জানো একটি গাছ একটি প্রাণ। বর্ষার শুরুতে তোমরা যদি একটি করে চারাগাছ লাগাও, তাহলে পৃথিবী হয়ে উঠবে সবুজের দেশ। এমনই এক সবুজ দেশের স্বপ্ন দেখালেন অভীক বসু। 
বিশদ

21st  June, 2020
নতুন পৃথিবী গড়বো আমরা 

ছোট্ট বন্ধুরা কেমন আছো? দীর্ঘ লকডাউনে বাড়িতে স্কুলের অনলাইন ক্লাসের চাপে ক্লান্ত হয়ে পড়ছো? অবসর সময় ভালো মতো কাটছে না? তবে শোনো, আজ তোমাদের একটা ভালো খবর দিই।   বিশদ

31st  May, 2020
ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয় 

লাতিন শব্দ ‘ভাইরাস’-এর অর্থ হল ‘বিষ’। এই বিষ যুগে যুগে মানুষের জীবনকে বিষিয়ে তুলেছে। তেমনই যুগে যুগে মানুষ পরাস্ত করেছে এমন ভয়াবহ শত্রুকেও। আজ গোটা দুনিয়া অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে, কবে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা হাতের মুঠোয় আসবে। বিজ্ঞানীরা বসে নেই, দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন এই মহা মূল্যবান ধন্বন্তরি হাতের মুঠোয় আনার জন্য। সেইরকম ভয়ঙ্কর সব ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের যুদ্ধের বহু ইতিহাস রয়েছে বিশ্বজুড়ে। 
বিশদ

31st  May, 2020
মার্কশিট
এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে
খুঁটিয়ে পড়ো প্রতিটি অধ্যায়

আজ আমরা সৈয়দ মুজতবা আলী রচিত 'চতুরঙ্গ' প্রবন্ধসংগ্রহের অন্তর্গত 'মামদোর পুনর্জন্ম' প্রবন্ধের অংশবিশেষ 'নব নব সৃষ্টি' পাঠ্যাংশটি থেকে প্রাবন্ধিকের কয়েকটি বিশেষ মত সম্পর্কে জানব এবং সে বিষয়টি নবমশ্রেণীরই অন্যান্য পাঠের সঙ্গে মিলিয়ে দেখব।
বিশদ

31st  May, 2020
বাঘ পড়েছিল শান্তিনিকেতনে 

পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়: রবীন্দ্রনাথ গান বেঁধেছিলেন, ‘আমাদের শান্তিনিকেতন/ সে যে সব হতে আপন/ তার আকাশ ভরা কোলে / মোদের দোলে হৃদয় দোলে, / মোরা বারে বারে দেখি তারে নিত্যই নূতন।’ সত্যিই ছিল সার্থকনামা, যথার্থ অর্থেই ‘শান্তিনিকেতন’।  বিশদ

31st  May, 2020
একনজরে
 জীবানন্দ বসু, কলকাতা: গত এক বছরে দেশের কম আয়ের শ্রমিক-কর্মচারীদের স্বাস্থ্য ও সামাজিক সুরক্ষা দেখভালের দায়িত্বে রয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থা ইএসআই কর্পোরেশন। এর আয় ৫ ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ট্রেন বন্ধ। শিয়ালদহ খাঁ খাঁ করছে। স্টেশন সংলগ্ন হোটেল ব্যবসায়ীরা কার্যত মাছি তাড়াচ্ছেন। এশিয়ার ব্যস্ততম স্টেশনের আশপাশের লজ, হোটেল, গেস্ট হাউসগুলির সদর ...

 কাঠমাণ্ডু: গদি বাঁচাতে শেষপর্যন্ত করোনাকে হাতিয়ার করতে চাইছেন নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা ওলি। তবে খাদের কিনারায় দাঁড়িয়ে তাঁর এই কৌশল কতটা কার্যকর হবে, তা নিয়ে সন্দিগ্ধ রাজনৈতিক মহল। জানা গিয়েছে, করোনার মোকাবিলায় দেশে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে জরুরি অবস্থা জারির প্রস্তাব ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, তমলুক: পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ভুয়ো ক্ষতিগ্রস্তদের কাছ থেকে টাকা ফেরাতে ব্লক লেভেল টাস্ক ফোর্স (বিএলটিএফ) তৈরি করল জেলা প্রশাসন। গত ৭জুলাই জেলাশাসক পার্থ ঘোষ এই সংক্রান্ত একটি নির্দেশিকা জারি করেছেন। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পঠন-পাঠনে আগ্রহ বাড়লেও মন চঞ্চল থাকবে। কোনও হিতৈষী দ্বারা উপকৃত হবার সম্ভাবনা। ব্যবসায় যুক্ত হলে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৮৫- ভাষাবিদ মহম্মদ শহীদুল্লাহর জন্ম,
১৮৯৩- গণিতজ্ঞ কে সি নাগের জন্ম,
১৯৪৯- ক্রিকেটার সুনীল গাভাসকরের জন্ম,
১৯৫০- গায়িকা পরভীন সুলতানার জন্ম,
১৯৫১- রাজনীতিক রাজনাথ সিংয়ের জন্ম



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.০৪ টাকা ৭৬.৭৪ টাকা
পাউন্ড ৯২.১৪ টাকা ৯৭.১৪ টাকা
ইউরো ৮২.৯৩ টাকা ৮৭.৪০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫০,০৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭,৪৯০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৮,২০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১,৭১০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫১,৮১০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী ১৬/৩০ দিবা ১১/৩৯। পূর্বভাদ্রপদ অহোরাত্র। সূর্যোদয় ৫/২/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২১/২৷ অমৃতযোগ দিবা ১২/৮ গতে ২/৪৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/২২ গতে ১১/৪২ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/১ গতে ১০/২১ মধ্যে।
২৫ আষাঢ় ১৪২৭, ১০ জুলাই ২০২০, শুক্রবার, পঞ্চমী দিবা ১১/২৭। পূর্বভাদ্রপদ নক্ষত্র অহোরাত্র। সূযোদয় ৫/২, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ১২/৯ গতে ২/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৩০ মধ্যে ও ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৩৭ গতে ৫/৩ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১১/৪৩ মধ্যে। কালরাত্রি ৯/৩ গতে ১০/২৩ মধ্যে।
১৮ জেল্কদ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মহারাষ্ট্রের জেলগুলিতে করোনায় আক্রান্ত ৫৯৬ জন বন্দী ও ১৬৭ কর্মী
মহারাষ্ট্রের জেলগুলিতে এ পর্যন্ত মোট করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৫৯৬ জন ...বিশদ

09:44:11 AM

করোনা:ফের রেকর্ড, দেশে একদিনে আক্রান্ত ২৬,৫০৬
গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হলেন আরও ...বিশদ

09:35:40 AM

 শিয়ালদহ-ভুবনেশ্বর স্পেশাল ট্রেন এখন সপ্তাহে ২ দিন
আগামী ১৩ জুলাই থেকে শিয়ালদহ-ভুবনেশ্বর স্পেশাল ট্রেন সপ্তাহে তিনদিনের বদলে ...বিশদ

09:20:11 AM

কন্টেইনমেন্ট জোনে হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপ 
কন্টেইনমেন্ট জোনে বিভিন্ন আবাসন, বাড়ি কিংবা পাড়ার বাসিন্দাদের নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপ ...বিশদ

09:00:19 AM

ফের রেকর্ড আমেরিকায়, একদিনে আক্রান্ত ৬৫ হাজারেরও বেশি
করোনা আক্রান্ত নিয়ে ফের রেকর্ড আমেরিকায়। গত ২৪ ঘণ্টায় মার্কিন ...বিশদ

08:55:18 AM

আজ আইসিএসই, আইএসসির ফল
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আজ, শুক্রবার দুপুর ৩টেয় প্রকাশিত হতে চলেছে ...বিশদ

08:43:37 AM