Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

মার্কশিট 

তোমাদের জন্য চলছে নতুন বিভাগ। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় বাংলা।

পরামর্শ দিচ্ছেন হিন্দু স্কুলের বাংলার শিক্ষক স্বাগত বিশ্বাস।

‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে কৈশোরের আত্মগরিমা, ‘বহুরূপী’ গল্পে শিল্পের জন্য আত্মত্যাগ, ‘পথের দাবী’ উপন্যাসাংশে দেশাত্মবোধ , ‘অদল বদল’ গল্পে বন্ধুত্বের মূল্য ও ‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্পে নদীর জন্য মমত্ববোধ কৈশোরের নীতি, আদর্শ ও দৃষ্টিভঙ্গিকে প্রভাবিত করবে। শুধুমাত্র পরীক্ষার পড়া ভেবে বাধ্য হয়ে পড়ো না, ভালোবেসে গল্প পড়ো। MCQ ও অতিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্নের (৩+৪ নম্বরের) জন্য সব গল্পগুলো, একমাত্র ব্যাখ্যাভিত্তিক প্রশ্নের (৩ নম্বর) জন্য বহুরূপী, অদল বদল ও পথের দাবী। রচনাধর্মী প্রশ্নের (৫ নম্বর)জন্য জ্ঞানচক্ষু, পথের দাবী ও অদল বদল থেকে তৈরি হও।
‘জ্ঞানচক্ষু’ গল্পে তপনের প্রথম বোধোদয় ঘটে, ‘লেখক মানে কোনো আকাশ থেকে পড়া জীব নয়’। তাই তপনের লেখক হতে বাধা নেই। ‘এমন সময় ঘটল সেই ঘটনা’। ‘পৃথিবীতে এমন অলৌকিক ঘটনাও ঘটে?’ ‘প্রথম দিন’ গল্পটি শ্রী তপন কুমার রায়ের নামে ছাপা হলেও নতুন মেসোর ছাপিয়ে দেওয়ার কৃতিত্ব বেশি গুরুত্ব পায়। নেহাত কাঁচা হাতের লেখাকে সম্পাদনার নামে নতুন মেসো এতটাই পরিবর্তিত করে ফেলেছেন যে ‘এর মধ্যে তপন কোথা?’, ‘মনে হয় আজ যেন তার জীবনের সবচেয়ে দুঃখের দিন’। এই আঘাত তার প্রকৃত বোধোদয় ঘটায়। কৈশোরের অনভিজ্ঞতা থেকে প্রতিষ্ঠা পায় ‘লেখক’ তপনের আত্মসম্মানবোধ। ‘শুধু এই দুঃখের মুহূর্তে গভীরভাবে সংকল্প করে তপন’, কী সংকল্প করে ও কেন? উদ্ধৃত লাইনগুলোর পাশাপাশি তপন চরিত্র ও গল্পের নামকরণ গুরুত্বপূর্ণ।
‘পথের দাবী’তে ‘পলিটিক্যাল সাসপেক্ট’ সব্যসাচী মল্লিককে থানায় জিজ্ঞাসাবাদের সময় যে পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়, তার বর্ণনা এবং তাঁর অদ্ভুত বেশভূষা ও শখ-শৌখিনতার পরিচয় জানতে চায়। দেশপ্রেমিক যুবক অপূর্বর বিনা দোষে ফিরিঙ্গি যুবকদের কাছে অপমানিত হওয়ার ঘটনা ও উপস্থিত ভারতীয়দের প্রতিবাদহীন কাপুরুষের মতো আচরণে ব্যথিত অপূর্বর উপলব্ধি —‘অবিচারের দণ্ডভোগ করার অপমান আমাকে কম বাজে না রামদাস’, ‘এমন তো নিত্য-নিয়তই ঘটচে’, ‘মনে হল দুঃখে লজ্জায় ঘৃণায় নিজেই যেন মাটির সঙ্গে মিশিয়ে যাই।’
অনূদিত ‘অদল বদল’ গল্পটি দুই কিশোরের বন্ধুত্বের মধ্য দিয়ে সমাজে জাতি, ধর্মের ঊর্ধ্বে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত তুলে ধরে। গ্রামের ছেলেরা হোলির দিন দুই বন্ধুর মধ্যে কুস্তি লড়িয়ে দেওয়ার মতলব করে, অমৃতকে জোর করে মাটিতে ফেলে দেয়,তাতে ‘ইসাবের মেজাজ চড়ে গেল’।অমৃতের বিপদে পাশে দাঁড়াতে গিয়ে ইসাবের নতুন জামা ছিঁড়ে যায় । ইসাবকে তাঁর বাবার প্রহারের হাত থেকে বাঁচাতে অমৃত বুদ্ধি করে নতুন জামা অদল-বদলের । এই ঘটনা আড়ালে থেকে ইসাবের বাবা দেখেন এবং বন্ধুত্বের জন্য আত্মত্যাগ দেখে তাঁর বুক ভরে যায় ‘.... ও আমাকে শিখিয়েছে, খাঁটি জিনিস কাকে বলে’।
‘বহুরূপী’ গল্পে হতদরিদ্র বহুরূপী হরিদার দশটা-পাঁচটার বাঁধাধরা কাজ পছন্দ নয়। ‘হরিদার জীবনে সত্যিই একটা নাটকীয় বৈচিত্র্য আছে’। বাহ্যিক সাজপোশাকে ও নিখুঁত অভিনয়ে যে কোন চরিত্রকে জীবন্ত করে তোলেন। একবার বেশি বকশিশ পাওয়ার আশায় অবস্থাপন্ন জগদীশবাবুর বাড়িতে বিরাগী সন্ন্যাসীর বেশে গেলেন ‘এবার মারি তো হাতি, লুঠি তো ভাণ্ডার’। হরিদাকে চিনতে না পেরে ‘চমকে উঠলেন জগদীশবাবু’। বিরাগী বললেন ‘আপনি কি ভগবানের চেয়েও বড়ো?’ জগদীশবাবু তীর্থ ভ্রমণের জন্য একশো এক টাকার প্রণামী দিতে চান, সব উপেক্ষা করে বিরাগী চলে গেলেন ‘আমি যেমন অনায়াসে ধুলো মাড়িয়ে চলে যেতে পারি, তেমনই অনায়াসে সোনাও মাড়িয়ে চলে যেতে পারি’। পরে বিরাগী সন্ন্যাসীরূপী হরিদার পরিচয় শুনে ‘চমকে ওঠে ভবতোষ’। আর জগদীশবাবুর দান গ্রহণ না করা প্রসঙ্গে হরিদা বলেন, ‘তাতে যে আমার ঢং নষ্ট হয়ে যায়’। ‘হরিদার একথার সঙ্গে তর্ক চলে না’।
‘নদীর বিদ্রোহ’ গল্পে ত্রিশ বছর বয়সি স্টেশন মাস্টার নদেরচাঁদের নদীর প্রতি মায়া একটু অস্বাভাবিক। শৈশব, কৈশোর ও প্রথম যৌবন কেটেছে নদীর ধারে। একবার অনাবৃষ্টির বছরে গ্রাম্য নদীটি শুকিয়ে যাওয়ার জোগাড় হলে সে কষ্টে কেঁদে ফেলেছিল। তাই অবিরাম বৃষ্টি হওয়ার জন্য পাঁচ দিন নদীকে দেখা হয়নি বলে স্টেশন থেকে এক মাইল দূরে ব্রিজের কাছে সে চলে আসে। ‘নদেরচাঁদের ভারী আমোদ বোধ হতে লাগল’। ধীরে ধীরে অন্ধকার নেমে এল,‘বড়ো ভয় করিতে লাগিল নদেরচাঁদের’। নদীর এই উন্মত্ততাকে নদেরচাঁদ নদীর বিদ্রোহ বলে মনে করে। যান্ত্রিক সভ্যতায় নিজেদের শৌখিন সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের কারণে মানুষ নদীর স্বাভাবিক গতিপথকে রুদ্ধ করেছে। বাঁধ, ব্রিজ, জলাধার যেন নদীর শৃঙ্খল। নদী সেই শৃঙ্খলমোচন করে আপন ছন্দে বয়ে যেতে চায়। কিন্তু মানুষ আবার তাকে বেড়ি পরায়। অন্যমনস্ক নদেরচাঁদের ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু, একটু অস্বাভাবিক মনে হলেও, এ যেন যন্ত্র সভ্যতার প্রতি এক নীরব প্রতিবাদ। 
03rd  November, 2019
নতুন পৃথিবী গড়বো আমরা 

ছোট্ট বন্ধুরা কেমন আছো? দীর্ঘ লকডাউনে বাড়িতে স্কুলের অনলাইন ক্লাসের চাপে ক্লান্ত হয়ে পড়ছো? অবসর সময় ভালো মতো কাটছে না? তবে শোনো, আজ তোমাদের একটা ভালো খবর দিই।   বিশদ

31st  May, 2020
ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয় 

লাতিন শব্দ ‘ভাইরাস’-এর অর্থ হল ‘বিষ’। এই বিষ যুগে যুগে মানুষের জীবনকে বিষিয়ে তুলেছে। তেমনই যুগে যুগে মানুষ পরাস্ত করেছে এমন ভয়াবহ শত্রুকেও। আজ গোটা দুনিয়া অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে, কবে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা হাতের মুঠোয় আসবে। বিজ্ঞানীরা বসে নেই, দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন এই মহা মূল্যবান ধন্বন্তরি হাতের মুঠোয় আনার জন্য। সেইরকম ভয়ঙ্কর সব ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের যুদ্ধের বহু ইতিহাস রয়েছে বিশ্বজুড়ে। 
বিশদ

31st  May, 2020
মার্কশিট
এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে
খুঁটিয়ে পড়ো প্রতিটি অধ্যায়

আজ আমরা সৈয়দ মুজতবা আলী রচিত 'চতুরঙ্গ' প্রবন্ধসংগ্রহের অন্তর্গত 'মামদোর পুনর্জন্ম' প্রবন্ধের অংশবিশেষ 'নব নব সৃষ্টি' পাঠ্যাংশটি থেকে প্রাবন্ধিকের কয়েকটি বিশেষ মত সম্পর্কে জানব এবং সে বিষয়টি নবমশ্রেণীরই অন্যান্য পাঠের সঙ্গে মিলিয়ে দেখব।
বিশদ

31st  May, 2020
বাঘ পড়েছিল শান্তিনিকেতনে 

পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়: রবীন্দ্রনাথ গান বেঁধেছিলেন, ‘আমাদের শান্তিনিকেতন/ সে যে সব হতে আপন/ তার আকাশ ভরা কোলে / মোদের দোলে হৃদয় দোলে, / মোরা বারে বারে দেখি তারে নিত্যই নূতন।’ সত্যিই ছিল সার্থকনামা, যথার্থ অর্থেই ‘শান্তিনিকেতন’।  বিশদ

31st  May, 2020
চিরবিদ্রোহী রণক্লান্ত 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তুলতে অনেকে অনেক স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম। আগামী ২৫ মে তাঁর জন্মদিন। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়।
বিশদ

24th  May, 2020
চোখের যত্ন নাও 

রোজ অনলাইন ক্লাসের জেরে তোমাদের চোখে নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে। একটু সতর্ক হলেই কিন্তু এসব সমস্যা এড়ানো যায়। সেরকম ১০টি জরুরি পরামর্শ দিয়েছেন দিশা আই হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাঃ ভাস্কর ভট্টাচার্য। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ।
বিশদ

24th  May, 2020
স্কুলে অনলাইন পড়াশোনাই
এখন একমাত্র উপায় 

লকডাউনের মধ্যেও পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যেতে স্কুলে চলছে অনলাইন ক্লাস। এর ভালো মন্দ নিয়ে আলোচনা করলেন বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীরা। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

24th  May, 2020
ছোটদের রান্নাঘর 

করোনার দাপটে স্কুল বন্ধ। সুতরাং বাড়ি থেকে বেরিয়ে এটা ওটা খাওয়ারও জো নেই। তাই বলে কি লকডাউনে কোনও ভালো খাবারই চেখে দেখার সুযোগ হবে না? চিন্তা নেই, ছোটদের রান্নাঘর - এ শুধু তোমাদের জন্যই চারটি লোভনীয় রেসিপি দিয়েছেন ৬ বালিগঞ্জ প্লেসের কর্ণধার ও শেফ সুশান্ত সেনগুপ্ত এবং হলিডে ইন হোটেলের কর্পোরেট শেফ জয়ন্ত বন্দ্যোপাধ্যায়। 
বিশদ

17th  May, 2020
খেলাচ্ছলে যোগাভ্যাস 

বাইরে বেরনো বন্ধ! তাতে কী, এই সুযোগে বাড়িতে বড়দের সঙ্গী হয়ে খেলতে খেলতে কয়েকটি যোগাসন ও প্রাণায়াম শিখে নিতে পারো। এতে শরীর ও মন থাকবে চনমনে, বাড়বে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। পরামর্শ দিয়েছেন যোগাচার্য প্রেমসুন্দর দাস। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ। 
বিশদ

17th  May, 2020
পুনুর বন্ধু ডাকু 

কার্তিক ঘোষ: পুনু তখন সবে একটু মুখধরা হয়ে উঠেছে বাবা-মা’র।
বাবা তখন বাড়ি ফিরে এসেছেন কলকাতা থেকে।
দোকানের চাকরিটা গেছে!
বিশদ

17th  May, 2020
বইয়ের নেশায় বুঁদ 

লক ডাউনের সুযোগে ভালো বই পড়ার নেশায় মেতে ওঠো তোমরা। কোন বয়সে কেমন বই পড়বে তার একটা ধারণা দিলেন কমলিনী চক্রবর্তী।  
বিশদ

10th  May, 2020
ইন্দ্রজা, ফুড হ্যাবিটটা
এবার পালটে ফেলো 

ডাঃ অমিতাভ ভট্টাচার্য: ইন্দ্রজার কথা দিয়েই শুরু করি। এই এক মাসে কেমন যেন পাল্টে গিয়েছে মেয়েটা। ভাবসাব দেখে তো রমা আর ইন্দ্রজিতের চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। তাদের একমাত্র মেয়ে যে এমন লক্ষ্মীমন্ত হয়ে উঠবে, এ যে তারা স্বপ্নেও ভাবেনি।  
বিশদ

10th  May, 2020
সত্যজিতের ছেলেবেলা, ছেলেবেলার

সত্যজিৎ রায়ের শততম জন্মবর্ষে ছোট্ট সত্যজিতের মধ্য দিয়ে ভবিষ্যতের সত্যজিৎকে দেখার চেষ্টা করলেন অতনু বিশ্বাস। 
বিশদ

10th  May, 2020
বন্দি জীবনে সঙ্গী সিনেমা

 লকডাউনে বাড়িতে বসে পড়াশুনো আর গল্পের বই পড়ার পাশাপাশি দেখে নাও দশটি দুর্দান্ত সিনেমা। তোমাদের জন্য বেছে দিলেন স্বস্তিনাথ শাস্ত্রী। বিশদ

03rd  May, 2020
একনজরে
  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সম্প্রতিক ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত চাষিদের ক্ষতিপূরণ দিতে প্রথম পর্যায়ে ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ করল রাজ্য কৃষি দপ্তর। মোট ৯টি জেলার জন্য এই টাকা দেওয়া হচ্ছে। প্রতি জেলায় কৃষি দপ্তরের ডেপুটি ডিরেক্টরের (প্রশাসন) কাছে ক্ষতিপূরণের টাকা পাঠিয়ে দেওয়ার ...

 তুরিন, ২ জুন: করোনার ধাক্কা সামলে ইউরোপের বাকি দেশগুলির মতো ইতালিও লিগ শুরুর কথা আগেই ঘোষণা করেছিল। ঠিক ছিল, ১৩ জুন মাঠে বল গড়াবে। তবে শেষ পর্যন্ত তা পিছিয়ে ২০ জুন করা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় চূড়ান্ত সূচি জানিয়ে দিল সিরি-এ ...

সংবাদদাতা, পূর্বস্থলী: গত কয়েকদিনে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কারণে গাছ নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বিভিন্ন বাজারে কার্যত অমিল শশা। এর ফলে পূর্বস্থলীর বিভিন্ন পাইকারি বাজারে ক্রমশ চড়ছে শশার ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: উম-পুনে যাঁদের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, সেইসব ক্রেতাদের পাশে দাঁড়াল হুন্ডাই মোটর ইন্ডিয়া। গড়া হল স্পেশাল টাস্ক ফোর্স। রোড সাইড অ্যাসিস্ট্যান্স সার্ভিস টিমকে নিয়োগ করা হয়েছে, যারা ঘূর্ণিঝড়ে বিধ্বস্ত গাড়িগুলিকে সার্ভিস দেবে। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

অত্যধিক পরিশ্রমে শারীরিক দুর্বলতা, বাহন ক্রয়ের বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। সন্তানের বিদ্যা শিক্ষায় সংশয় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব সাইকেল দিবস
১৯০৮: স্বাধীনতা সংগ্রামী শহীদ বিপ্লবী গোপাল সেনগুপ্তর জন্ম
১৯১৯: টলিউডের বিশিষ্ট অভিনেত্রী ছায়া দেবীর (চট্টোপাধ্যায়) জন্ম
১৯২০: বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসবিদ তথা গবেষক অসিতকুমার বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম
১৯২৪: রাজনীতিক এম করুণানিধির জন্ম,
১৯৫৩: মনোবিদ গিরীন্দ্রশেখর বসুর মৃত্যু,
১৯৮৬: টেনিস তারকা রাফায়েল নাদালের জন্ম
২০১৩: অভিনেত্রী জিয়া খানের মৃত্যু
২০১৬: মার্কিন বক্সার মোহাম্মদ আলীর মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৩৪ টাকা ৭৬.০৬ টাকা
পাউন্ড ৯২.৭৪ টাকা ৯৬.০৬ টাকা
ইউরো ৮২.৪৮ টাকা ৮৫.৫৭ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৩ জুন ২০২০, বুধবার, দ্বাদশী ১০/২৫ দিবা ৯/৬। স্বাতী নক্ষত্র ৩৯/২৯ রাত্রি ৮/৪৩। সূর্যোদয় ৪/৫৫/২১, সূর্যাস্ত ৬/১৩/৪৫। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৪ গতে ১১/৭ মধ্যে পুনঃ ১/৪৭ গতে ৫/২০ মধ্যে। রাত্রি ৯/৪৭ মধ্যে পুনঃ ১১/৫৫ গতে ১/২১ মধ্যে। বারবেলা ৮/১৫ গতে ৯/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১১/৩৫ গতে ১/১৪ মধ্যে। কালরাত্রি ২/১৫ গতে ৩/৩৬ মধ্যে।
২০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৩ জুন ২০২০, বুধবার, দ্বাদশী দিবা ৭/২০। স্বাতী নক্ষত্র রাত্রি৭/৪৭। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৫। অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৬ গতে ১১/১১ মধ্যে ও ১/৫৩ গতে ৫/২৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫৩ মধ্যে ও ১১/৫৯ গতে ১/২৪ মধ্যে। কালবেলা ৮/১৬ গতে ৯/৫৬ মধ্যে ও ১১/৩৬ গতে ১/১৫ মধ্যে। কালরাত্রি ২/১৬ গতে ৩/৩৬ মধ্যে।
১০ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
জি-৭:মোদিকে আমন্ত্রণ জানালেন ট্রাম্প
 জি-৭:মোদিকে আমন্ত্রণ জানালেন ট্রাম্পআমেরিকায় অনুষ্ঠিত আসন্ন জি-৭ সামিটে যোগ দেওয়ার ...বিশদ

02-06-2020 - 09:40:06 PM

গুজরাতে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ৪১৫, মৃত ২৯ 
গুজরাতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ৪১৫ ...বিশদ

02-06-2020 - 09:03:40 PM

মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ২২৮৭, মৃত ১০৩ 
মহারাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২২৮৭জন। ...বিশদ

02-06-2020 - 08:57:33 PM

রাজ্যে করোনায় আক্রান্ত আরও ৩৯৬
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ৩৯৬ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

02-06-2020 - 07:49:50 PM

স্নান যাত্রায় এবার পুরীতে জারি কার্ফু
করোনা মোকাবিলায় যে কোনও জমায়েতেই নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছে। কিন্তু পুরীর ...বিশদ

02-06-2020 - 07:01:42 PM

বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত ২,৯১১ ও মৃত ৩৭ 
বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত হল ২,৯১১ জন। মৃত ...বিশদ

02-06-2020 - 06:35:51 PM