Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

হ্যালোইন নাকি ভূত উৎসব

 বিদেশের ভূত পার্বণ নিয়ে লিখেছেন অভীক বসু।

কার কতটা ভূতের ভয় তা আমার জানা নেই, আমার কিন্তু খুবই ভূতের ভয়, তাই রাতে আমি একা একা ঘরে শুতে পারি না, চোখ বুঝলেই ভূশুণ্ডির মাঠ থেকে হাজার হাজার ভূত উড়ে এসে আমাকে ঘিরে ধরে, কেউ আমার পা ধরে টানে কেউ বা আবার কাতুকুতু দিয়ে আমাকে নাজেহাল করে ছাড়ে, সে সব দুঃখের কথা আজ নয় ছেড়েই দিলাম। তাই ভূত নিয়ে কিছু লিখতে গেলে আমার হাত-পা ঠান্ডা হয়ে আসে, গায়ের লোম খাড়া হয়ে যায়।
বেশ কিছুদিন হল আমেরিকায় এসেছি, নিঃসন্দেহ এটি একটি স্বপ্নের দেশ। প্রকৃতি যেন তার সমস্ত সম্পদ দিয়ে দেশটিকে উজাড় করে সাজিয়েছে। যে দিকেই তাকাই মনে হয় যেন কোনও এক নিপুণ শিল্পী তার ক্যানভাসে ধরে রেখেছে এর সৌন্দর্যের নিদর্শন। এ দেশে মানুষজনের সংখ্যা এতই কম অনেকটা পথ হাঁটার পর দু’একজন মানুষ দেখা যায়। রাত হলেই গা ছমছম করে, এ যেন এক আজব দেশ। তবে এই নির্জন নিরালা জায়গায় আধিভৌতিক কাণ্ড হামেশাই ঘটে, ভূতপ্রেত দেখা যায় শুনেছি। নিউজার্সি, ক্যানকটিকা, মেরিল্যান্ড এখনকার কিছু কিছু জায়গা আমার দেখা, লোকজন নেই বললেই চলে। আমার এক প্রিয়জন সাউথ ক্যারোলিনায় পড়াশুনো করতে গিয়েছিল। তার মুখ থেকে শোনা, সে ছিল একজন গবেষণার ছাত্র, রাত হয়ে যেত প্রায় ল্যাবরেটরি থেকে বের হতে। ক্যাম্পাস থেকে তার পিজি হোস্টেলটি বেশ কিছু দূরে ছিল, সাইকেল করেই সে যাতায়াত করত, মাঝপথে পড়ত একটা হালকা জঙ্গল। সে দু’একবার দেখেছে এক অপরূপা মেম, উচ্চতা প্রায় ছ’ফুটের মতো, ঘন অন্ধকারের মধ্যে তার গায়ের রঙের ঝলক, অন্ধকার ভেদ করে বেরিয়ে আসছে। কিছুটা পথ আগুপিছু করে সে জঙ্গলের মধ্যে কোথায় যেন মিলিয়ে যেত। ভৌতিক পরিবেশ সৃষ্টি না করে ভূতের গল্প হয় না। তাই আরেকটি ঘটনার কথা বলি, নায়াগ্রা জলপ্রপাত দেখতে গিয়ে গাইডের মুখে এ কাহিনী শোনা। ‘স্ক্রিমিং টানেল’ নায়াগ্রা জলপ্রপাতের কুখ্যাত ভৌতিক স্থানের অন্যতম। এখানকার মানুষজন বলে এই টানেলের ভেতরে একটি দেশলাইকাঠি দিয়ে আগুন জ্বালালে সঙ্গে সঙ্গে সেটি আগুনের গোলা হয়ে টানেলের বাইরে চলে যাবে। আর শোনা যাবে একটি ছোট্ট মেয়ের চিৎকার যা খুবই ভয়ানক।
ভূতেদের কথা নিয়ে যখন লিখছি তখন বরং অন্যরকম এক ভূতের কাহিনী শোনাই আজ।
বিশ্বের এমন কতকগুলি দেশ আছে যারা বছরের একটি দিনে ভূতেদের আমন্ত্রণ জানায়। আমি আমেরিকায় যে পাড়ায় থাকতাম সেটি হল নিউইয়র্ক শহরের কুইনস বোরোতে। সেই পাড়াতে নানা দেশের মানুষের বাস আমেরিকান, আইরিশ, স্প্যানিশ, গাইনিজ, বাংলাদেশি এবং আফ্রো আমেরিকান। একদিন সন্ধ্যাবেলা নির্জন রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছি, ফুটপাতে সারি সারি ম্যাপল গাছ। হাডসন নদী থেকে ফুরফুরে হাওয়া উড়ে আসছে, গাছগুলিতে ফল লেগেছে অর্থাৎ পাতার রং পাল্টাচ্ছে, সবুজ থেকে কমলা তারপর হলুদ, ঝরে পড়ার আগে হয় লাল। এ যেন এক অভিনব প্রকৃতির রং বদলের খেলা, রাস্তার দু’ধারে ছবির মতো বাগানওয়ালা বাংলো বাড়ি, ছিমছাম পরিবেশ। হঠাৎ যেন সমস্ত চিত্রটাই বদলে গেল যখন দেখলাম ওই বাড়িগুলোর দরজায় আর বাগানে বীভৎস সব কঙ্কাল রাখা, পুতুল দিয়ে সাজিয়ে দেখানো হয়েছে বন্দুক থেকে গুলি ছুঁড়ে একজন অপরকে খুন করছে। কোথাও আবার হাওয়ায় কঙ্কালের মাথাটি দুলছে। আলখাল্লা পরে বাড়ির বাগানে ভূতেরা নাচছে। এ দেশের ভূতেরা আবার ইংরেজিতে কথা বলে, নাকিসুরে কী সব বলছিল, আর আছে বাগানের মাঝখানে রাখা বিশাল বিশাল কুমড়ো।
এই ভৌতিক পরিবেশ আমাকে একটু ভীত ও ভাবিত করে তুলল, রাস্তায় লোকজন নেই বললেই চলে দু’একটি গাড়ি সাঁই সাঁই করে পাশ দিয়ে চলে যাচ্ছে, আমি বাড়ির দিকে দ্রুত পা বাড়ালাম। হঠাৎ চোখে পড়ল একটি বাড়ির দেওয়ালে আলো দিয়ে লেখা ‘হ্যালোইন ফেস্টিভাল’।
প্রতি বছর অক্টোবর মাসের শেষ দিনটি অর্থাৎ ৩১ অক্টোবর সারা পাশ্চাত্য দেশে খ্রিস্টানদের মধ্যে এই হ্যালোইন উৎসব পালিত হয়। এই দিনটিকে বলে ‘অল হ্যালোজ ডে’। প্রায় দু’হাজার বছর আগে বর্তমান আয়ারল্যান্ড, ইংল্যান্ড ও উত্তর ফ্রান্সে বসবাস করত কেল্টিক জাতি। নভেম্বরের প্রথম দিনটি নববর্ষ হিসাবে পালন হতো। এই দিনটিকে তারা গ্রীষ্মের শেষ এবং অন্ধকারের বা শীতের শুরু মনে করত। বড়ই ভয়ের এ সময়। এই রাতে প্রেতাত্মা ও অতৃপ্ত আত্মারা মানুষের মাঝে ফিরে আসে। এদের সঙ্গে যদি মানুষের দেখা হয় তবে সেই মানুষের ক্ষতি হতে পারে। তাই মানুষরা এই রাতে বিভিন্নরকম ভূতের মুখোশ ও কাপড় পরে কাটাত। আর রাতেরবেলা আগুনের পাশে মুখোশ পরে বৃত্তাকারে একসঙ্গে ঘুরতে ঘুরতে মন্ত্র বলত। এই উৎসবের উদ্দেশ্য বিদেহী আত্মাদের স্মরণ করা। মজা করে বলা হয় ভূত উৎসব। এই সময় নাকি ভূতেরা ভূতলোক থেকে মর্তে নেমে আসে। আর ১ নভেম্বর এরা পালন করে অল সেন্ট ডে, যেদিন সবাই শ্রদ্ধা নিবেদন করে সেই মানুষদের প্রতি যারা যিশুর সঙ্গে সঙ্গে শহিদ হয়েছেন।
এই ভূত উৎসবে বা হ্যালোইন ডে-তে কতরকম যে বিচিত্র ঘটনা ঘটে তার ঠিকঠিকানা নেই। শিশুরা ভূতেদের থেকে নিজেদের লুকিয়ে রাখতে বিচিত্র সাজ সাজে। কেউ সাজে বাঘ বা সিংহ কেউ জলদস্যু, স্পাইডারম্যান কেউ আবার পুলিস। ছোট মেয়েরা সাজে রাজকুমারী, প্রজাপতি আরও কত কিছু যাতে ভূতেরা ওদের চিনতে না পারে। এই উৎসব উপলক্ষে শহরে নানা দোকানে শিশুদের জন্য নানারকম পোশাক বিক্রি হয়।
হ্যালোইন উৎসব নানারকম কর্মকাণ্ডের মধ্যে দিয়ে পালিত হয়, তার মধ্যে আছে ট্রিক আর ট্রিট, ভয়ের চলচ্চিত্র দেখা, বনফায়ার, আধিভৌতিক স্থানগুলি ঘুরে ঘুরে দেখা, আজব পোশাকের পার্টি। ওইদিন নাকি উড়ন্ত ঝাড়ুতে করে হ্যালোইন ডাইনিরা উড়ে বেড়ায় সারা আকাশ জুড়ে। হ্যারি পটার চলচ্চিত্রে এই দৃশ্যের কিছুটা নমুনা পাওয়া যায়। হ্যালোইন উৎসবে সাজের আরেকটা মজা হল কুমড়ো, এরা কুমড়োর গায়ে নাক-চোখ আঁকে, কুমড়োগুলি বেশিরভাগ কাচের। আমরা যখন বেড়াচ্ছিলাম এদিক-ওদিক, একটি মিউজিয়াম চোখে পড়ল নাম কর্নিং মিউজিয়াম অফ গ্লাস, এই মিউজিয়াম সংলগ্ন একটি কারখানায় ঢাউস ঢাউস কাচের হ্যালোইন কুমড়ো তৈরি হচ্ছে, এত অত্যাধুনিক কারিগরি যে একটি কুমড়ো তৈরি করতে এক মিনিটও সময় লাগছে না।
আমেরিকায় শিশু কিশোর থেকে শুরু করে যাকেই জিজ্ঞাসা করা যায় তাদের কাছে সবচেয়ে মজার উৎসব কী, সবাই বলবে হ্যালোইন। কমবয়সী ছেলেমেয়েরা টর্চ হাতে বেরিয়ে পড়ে ‘ট্রিক অর ট্রিট’ করার জন্য। আর অনেকেই প্রথা অনুযায়ী মুখে মুখোশ এঁটে গায়ে অদ্ভুত পোশাক পরে বেরিয়ে পড়ে। শিশু-কিশোরদের এই অবাধ বিচরণ, তাদের আনন্দ-উল্লাসে প্রথম শীতের অন্ধকার রাতের বিষণ্ণতা যেন ঢাকা পড়ে যায়। অতলান্তিক থেকে ধেয়ে আসা দমকা হাওয়া মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় হ্যালোইন উৎসবের সঙ্গে।

ছবি : সংশ্লিষ্ট সংস্থার সৌজন্যে
27th  October, 2019
নতুন পৃথিবী গড়বো আমরা 

ছোট্ট বন্ধুরা কেমন আছো? দীর্ঘ লকডাউনে বাড়িতে স্কুলের অনলাইন ক্লাসের চাপে ক্লান্ত হয়ে পড়ছো? অবসর সময় ভালো মতো কাটছে না? তবে শোনো, আজ তোমাদের একটা ভালো খবর দিই।   বিশদ

31st  May, 2020
ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয় 

লাতিন শব্দ ‘ভাইরাস’-এর অর্থ হল ‘বিষ’। এই বিষ যুগে যুগে মানুষের জীবনকে বিষিয়ে তুলেছে। তেমনই যুগে যুগে মানুষ পরাস্ত করেছে এমন ভয়াবহ শত্রুকেও। আজ গোটা দুনিয়া অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে, কবে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা হাতের মুঠোয় আসবে। বিজ্ঞানীরা বসে নেই, দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন এই মহা মূল্যবান ধন্বন্তরি হাতের মুঠোয় আনার জন্য। সেইরকম ভয়ঙ্কর সব ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের যুদ্ধের বহু ইতিহাস রয়েছে বিশ্বজুড়ে। 
বিশদ

31st  May, 2020
মার্কশিট
এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে
খুঁটিয়ে পড়ো প্রতিটি অধ্যায়

আজ আমরা সৈয়দ মুজতবা আলী রচিত 'চতুরঙ্গ' প্রবন্ধসংগ্রহের অন্তর্গত 'মামদোর পুনর্জন্ম' প্রবন্ধের অংশবিশেষ 'নব নব সৃষ্টি' পাঠ্যাংশটি থেকে প্রাবন্ধিকের কয়েকটি বিশেষ মত সম্পর্কে জানব এবং সে বিষয়টি নবমশ্রেণীরই অন্যান্য পাঠের সঙ্গে মিলিয়ে দেখব।
বিশদ

31st  May, 2020
বাঘ পড়েছিল শান্তিনিকেতনে 

পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়: রবীন্দ্রনাথ গান বেঁধেছিলেন, ‘আমাদের শান্তিনিকেতন/ সে যে সব হতে আপন/ তার আকাশ ভরা কোলে / মোদের দোলে হৃদয় দোলে, / মোরা বারে বারে দেখি তারে নিত্যই নূতন।’ সত্যিই ছিল সার্থকনামা, যথার্থ অর্থেই ‘শান্তিনিকেতন’।  বিশদ

31st  May, 2020
চিরবিদ্রোহী রণক্লান্ত 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তুলতে অনেকে অনেক স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম। আগামী ২৫ মে তাঁর জন্মদিন। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়।
বিশদ

24th  May, 2020
চোখের যত্ন নাও 

রোজ অনলাইন ক্লাসের জেরে তোমাদের চোখে নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে। একটু সতর্ক হলেই কিন্তু এসব সমস্যা এড়ানো যায়। সেরকম ১০টি জরুরি পরামর্শ দিয়েছেন দিশা আই হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাঃ ভাস্কর ভট্টাচার্য। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ।
বিশদ

24th  May, 2020
স্কুলে অনলাইন পড়াশোনাই
এখন একমাত্র উপায় 

লকডাউনের মধ্যেও পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যেতে স্কুলে চলছে অনলাইন ক্লাস। এর ভালো মন্দ নিয়ে আলোচনা করলেন বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীরা। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

24th  May, 2020
ছোটদের রান্নাঘর 

করোনার দাপটে স্কুল বন্ধ। সুতরাং বাড়ি থেকে বেরিয়ে এটা ওটা খাওয়ারও জো নেই। তাই বলে কি লকডাউনে কোনও ভালো খাবারই চেখে দেখার সুযোগ হবে না? চিন্তা নেই, ছোটদের রান্নাঘর - এ শুধু তোমাদের জন্যই চারটি লোভনীয় রেসিপি দিয়েছেন ৬ বালিগঞ্জ প্লেসের কর্ণধার ও শেফ সুশান্ত সেনগুপ্ত এবং হলিডে ইন হোটেলের কর্পোরেট শেফ জয়ন্ত বন্দ্যোপাধ্যায়। 
বিশদ

17th  May, 2020
খেলাচ্ছলে যোগাভ্যাস 

বাইরে বেরনো বন্ধ! তাতে কী, এই সুযোগে বাড়িতে বড়দের সঙ্গী হয়ে খেলতে খেলতে কয়েকটি যোগাসন ও প্রাণায়াম শিখে নিতে পারো। এতে শরীর ও মন থাকবে চনমনে, বাড়বে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। পরামর্শ দিয়েছেন যোগাচার্য প্রেমসুন্দর দাস। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ। 
বিশদ

17th  May, 2020
পুনুর বন্ধু ডাকু 

কার্তিক ঘোষ: পুনু তখন সবে একটু মুখধরা হয়ে উঠেছে বাবা-মা’র।
বাবা তখন বাড়ি ফিরে এসেছেন কলকাতা থেকে।
দোকানের চাকরিটা গেছে!
বিশদ

17th  May, 2020
বইয়ের নেশায় বুঁদ 

লক ডাউনের সুযোগে ভালো বই পড়ার নেশায় মেতে ওঠো তোমরা। কোন বয়সে কেমন বই পড়বে তার একটা ধারণা দিলেন কমলিনী চক্রবর্তী।  
বিশদ

10th  May, 2020
ইন্দ্রজা, ফুড হ্যাবিটটা
এবার পালটে ফেলো 

ডাঃ অমিতাভ ভট্টাচার্য: ইন্দ্রজার কথা দিয়েই শুরু করি। এই এক মাসে কেমন যেন পাল্টে গিয়েছে মেয়েটা। ভাবসাব দেখে তো রমা আর ইন্দ্রজিতের চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। তাদের একমাত্র মেয়ে যে এমন লক্ষ্মীমন্ত হয়ে উঠবে, এ যে তারা স্বপ্নেও ভাবেনি।  
বিশদ

10th  May, 2020
সত্যজিতের ছেলেবেলা, ছেলেবেলার

সত্যজিৎ রায়ের শততম জন্মবর্ষে ছোট্ট সত্যজিতের মধ্য দিয়ে ভবিষ্যতের সত্যজিৎকে দেখার চেষ্টা করলেন অতনু বিশ্বাস। 
বিশদ

10th  May, 2020
বন্দি জীবনে সঙ্গী সিনেমা

 লকডাউনে বাড়িতে বসে পড়াশুনো আর গল্পের বই পড়ার পাশাপাশি দেখে নাও দশটি দুর্দান্ত সিনেমা। তোমাদের জন্য বেছে দিলেন স্বস্তিনাথ শাস্ত্রী। বিশদ

03rd  May, 2020
একনজরে
নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনে দেশের সর্বত্র গুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পগুলি আটকে রয়েছে। ব্যতিক্রম নয় প্রতিরক্ষা ক্ষেত্রও। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের কর্তাদের চিন্তা বাড়িয়েছে দেশীয় প্রযুক্তিতে প্রথম তৈরি হতে চলা ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: করোনার দাপটে বিভিন্ন দেশ থেকে ফেরা পেশাদার ব্যক্তিদের জীবিকার সংস্থান করে দিতে উদ্যোগ নিল কেন্দ্রীয় সরকার। এঁদের জন্য তথ্যভাণ্ডার তৈরি করে নিয়োগকারী সংস্থা, রাজ্য সরকার এবং বণিকসভাগুলিকে পাঠানোর পরিকল্পনা করা হয়েছে। ...

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: বৃহস্পতিবার মালদহে তিনজনের মৃত্যু হল বজ্রপাতে। তাঁরা হরিশ্চন্দ্রপুর-১ ব্লকের বাসিন্দা। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতরা হলেন বিনু ওঁরাও (৫৫), সুলতান আহমেদ (২৩) ও মিঠু কর্মকার (৩৩)। বিনুর বাড়ি বাইশা গ্রামে। সুলতানের বাড়ি নারায়ণপুর গ্রামে ও মিঠুর বাড়ি দক্ষিণ ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী ১ আগস্ট ভারতে খুলছে ফিফার ট্রান্সফার উইন্ডো। আন্তঃরাজ্য ছাড়পত্রও শুরু হবে একই দিনে। বৃহস্পতিবার অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস এই কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘৯ জুন ভারতে ফিফার আন্তর্জাতিক উইন্ডো খোলার কথা ছিল। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক, কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃতের রচনাকার মহেন্দ্রনাথ গুপ্তের (শ্রীম) মৃত্যু
১৯৩৬: অভিনেত্রী নূতনের জন্ম
১৯৫৯: শিল্পপতি অনিল আম্বানির জন্ম
১৯৭৪: অভিনেতা অহীন্দ্র চৌধুরির মৃত্যু
১৯৭৫ - মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির জন্ম
১৯৮৫: জার্মান ফুটবলার লুকাস পোডোলোস্কির জন্ম

04th  June, 2020


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৭৪ টাকা ৭৬.৪৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.১৩ টাকা ৯৬.৪৪ টাকা
ইউরো ৮৩.২২ টাকা ৮৬.৩১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

দৃকসিদ্ধ: ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ৪৯/২৮ রাত্রি ১২/৪২। অনুরাধা নক্ষত্র ২৯/৩১ অপঃ ৪/৪৪। সূর্যোদয় ৪/৫৫/১২, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৩২। অমৃতযোগ দিবা ১২/১ গতে ২/১৪ মধ্যে। রাত্রি ৮/২২ মধ্যে পুনক্ষ ১২/৩৮ গতে ২/৪৭ মধ্যে পুনঃ ৩/২৯ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/১৫ গতে ১১/৩৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৫৫ গতে ১০/১৫ মধ্যে।
২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ১/১। অনুরাধা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৫/১২। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ দিবা ১২/৬ গতে ২/৪৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে ও ১২/৪২ গতে ২/৪৮ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। বারবেলা ৮/১৬ গতে ১১/৩৬ মধ্যে কালরাত্রি ৮/৫৬ গতে ১০/১৬ মধ্যে।
১২ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মহরাষ্ট্রে ফের ৪ জন পুলিস করোনা আক্রান্ত, মৃত ১ 
মহারাষ্ট্র ফের ৪ জন পুলিস কর্মী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। মৃত্যু ...বিশদ

11:54:04 AM

মালদহে শাশুড়িকে কুমন্তব্য করায় ভাড়াটিয়া ও জামাইয়ের সংঘর্ষ 
শাশুড়ির বিরুদ্ধে কু মন্তব্য করায় ভাড়াটিয়া ও মালিকের জামাইয়ের মধ্যে ...বিশদ

11:45:10 AM

দিল্লি মেট্রো রেলের ২০ জন কর্মী করোনা আক্রান্ত 
দিল্লি মেট্রোর ২০ জন কর্মী করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সেখানকার মেট্রো ...বিশদ

11:27:17 AM

করোনা: কোন কোন দেশ বেশি আক্রান্ত? 
করোনায় আক্রান্তের বিচারে তালিকায় শীর্ষে রয়েছে আমেরিকা। এদেশে করোনায় আক্রান্ত ...বিশদ

11:13:14 AM

বিশ্ব পরিবেশ দিবসের শুভেচ্ছা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী 
আজ বিশ্ব পরিবেশ দিবস। সেই উপলক্ষে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইটারে ...বিশদ

10:46:00 AM

কলেজ স্ট্রিটে ভেঙে পড়ল দোতলা বাড়ি 
কলেজ স্ট্রিটে ভেঙে পড়ল একটি দোতলা বাড়ি। ঘটনাটি ঘটেছে আজ ...বিশদ

10:37:19 AM