Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

মার্কশিট
মাধ্যমিকে চলতড়িৎ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায় 

ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি নিয়ে অনেক ছাত্রছাত্রীদেরই একটা ভীতি থেকে যায়। বিশেষ করে যখন পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের ভৌতবিজ্ঞানের বেশ কিছু গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তখন তাদের ভীতি আরও বেড়ে যায়। কিন্তু ছাত্ররা, তোমাদের মাথায় রাখতে হবে ভবিষ্যতে অর্থাৎ ক্লাস XI-XII এবং আরও পরবর্তী ধাপে বিজ্ঞানমুখী পড়াশোনা শুরু করার ক্ষেত্রে ক্লাস IX এবং ক্লাস X-এ যে ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি পড়ানো হয় সেটিই হল প্রধান স্তম্ভ। বিষয়টি তোমাদের স্বাধীন ও যুক্তিনির্ভর মানসিকতার বিকাশের প্রধান সহায়ক। ক্লাস X-এ সিলেবাস অনুযায়ী প্রথমে তোমাদের পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন-এর সম্মিলিত তিনটি সাধারণ অধ্যায় পড়ানো হয়, যাতে থাকে মোট ১৭ নম্বর। এরপর পদার্থবিজ্ঞানের চারটি অধ্যায় নিয়ে আলোচনা করা হয় যাতে মোট ৩৪ নম্বর বরাদ্দ থাকে। সর্বশেষ রসায়নের ছয়টি অধ্যায় থাকে মোট ৩৯ নম্বরের। আজ তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করব পদার্থবিজ্ঞানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় চলতড়িৎ নিয়ে। মাধ্যমিকে এই অধ্যায় থেকে তোমাদের গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। অধ্যায়টির নাম যদিও চলতড়িৎ কিন্তু এই অধ্যায়ের শুরুতে তোমাদের পড়তে হয় স্থিরতড়িতের আলোচনা (কুলম্বের সূত্র) এবং তারপর চলতড়িৎ সংক্রান্ত বিষয়। অধ্যায়টির শেষ অংশে থাকে তড়িৎ চুম্বক সংক্রান্ত বিষয়। সুতরাং তোমরা বুঝতেই পারছ অধ্যায়টির বিষয়বস্তু অত্যন্ত বিস্তৃত। তড়িদাধানের ধারণা থেকে অধ্যায়টির শুরু। দুটি তড়িদাধানের মাঝে কাজ করে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বল। যে বলের মান নির্ণয় করা যায় কুলম্বের সূত্র থেকে। তাই সূত্রটির গাণিতিক রূপ মনে রাখা তোমাদের ভীষণ প্রয়োজন। বলটি আকর্ষণ হবে না বিকর্ষণ তা নির্ভর করে আধানদ্বয়ের পোলারিটির উপর। তাই আধানের মান ও পোলারিটি দুটিই প্রয়োজন হয় বলের মান ও বলের প্রকৃতি জানার জন্য। এই স্থিরতড়িৎ বলের ধারণা থেকে আসে তড়িৎক্ষেত্রের (Electric field) ধারণা। এই দুই ভৌত রাশিরই মান ও অভিমুখ উভয়ই বর্তমান অর্থাৎ এরা ভেক্টর রাশি। আবার তোমরা কার্যের ধারণা পেয়েছ ক্লাস IX-এ। স্থিরতড়িৎ বলের বিরুদ্ধে কার্যের ধারণা থেকে আসে তড়িৎ বিভবের ধারণা। কার্য যেহেতু স্কেলার রাশি তাই বিভব হল স্কেলার রাশি। বিভব এবং বিভবপ্রভেদ নিয়ে তোমাদের ধারণা স্বচ্ছ থাকা দরকার। বিভবের মধ্যে থাকে অসীমের ধারণা কারণ অসীমে কোনও তড়িৎ আধানের জন্য তড়িৎক্ষেত্র শূন্য হয়ে যায়। অসীম আমাদের পরিমাপ যোগ্য নয় বলে এসেছে বিভবপ্রভেদের ধারণা।
দুটি বস্তুতে ধনাত্মক ও ঋণাত্মক তড়িৎ আধানের পার্থক্য থাকলে তাদের মধ্যে তৈরি হয় বিভবপ্রভেদের। এই বিভব প্রভেদই তড়িৎ প্রবাহের কারণ। তড়িৎ প্রবাহিত হয় উচ্চ বিভবযুক্ত বস্তু থেকে নিম্ন বিভবযুক্ত বস্তুতে এবং ততক্ষণই এই প্রবাহ চলে যতক্ষণ বিভবপ্রভেদ বজায় থাকে। চলতড়িতের কথা বলতে গিয়ে যে বিজ্ঞানীর কথা প্রথম মনে আসে তিনি হলেন বিজ্ঞানী ওহম্‌। ওহমের সূত্রানুযায়ী কোনও পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভবপ্রভেদ এবং তার মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ পরস্পরের সমানুপাতিক হয়। যে সূত্র থেকে আমরা পরিবাহীর রোধের ধারণা পাই। গাণিতিক সমস্যা সমাধানের জন্য তোমাদের R= সমীকরণটি বিশেষ ভাবে মনে রাখতে হবে। যেখানে R হল পরিবাহীর রোধ, r হল পরিবাহীর রোধাঙ্ক এবং L, A হল যথাক্রমে পরিবাহীর দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থচ্ছেদ। বলা হয় কোনও পরিবাহীর দৈর্ঘ্য X শতাংশ পরিবর্তন হলে রোধের শতকরা কী পরিবর্তন হবে? সেক্ষেত্রে তোমাদের দৈর্ঘ্য পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পরিবাহীর প্রস্থের পরিবর্তন গণনা করতে ভুললে চলবে না। কারণ পরিবাহী তারটির মোট ভর কিন্তু অপরিবর্তনীয় থাকে। পরিবাহীর তড়িৎ পরিবহণের দরুন যে তড়িৎ ক্ষমতা ব্যয় হয় তার রাশিমালা তোমরা জানো P=I2R বা P = । কিন্তু কোন সূত্রটি শ্রেণীসমবায়ের ক্ষেত্রে অথবা কোনটি সমান্তরাল সমবায়ের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করবে তার দিকে তোমাদের বিশেষ নজর দিতে হবে। চলতড়িৎ যে চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে পারে তার কথা তোমরা জানো বিজ্ঞানী ওরস্টেডের পরীক্ষা থেকে। এক্ষেত্রে চৌম্বক শলাকার বিক্ষেপণ কোন দিকে হবে সেই সংক্রান্ত নিয়মগুলি যত্ন নিয়ে পড়তে হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের মধ্যে তড়িৎবাহী পরিবাহীর ওপর যে বল প্রয়োগ হয় তা বার্লোচক্রে দেখা যায়। ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নিয়মটি এক্ষেত্রে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। বার্লোচক্রের বৃহত্তর প্রয়োগ হিসাবে তৈরি হয়েছে ইলেকট্রিক মোটর। আবার মোটরের ঠিক বিপরীত নীতি অনুসরণ করে অর্থাৎ যান্ত্রিক শক্তিকে তড়িৎ শক্তিতে রূপান্তরের নীতিকে অনুসরণ করে এসেছে ইলেকট্রিক জেনারেটর (D.C. এবং A.C.)।
একটি D.C. জেনারেটর ও A.C. জেনারেটরের গঠনগত পার্থক্য ঠিক কোথায় তা যদি তোমরা জেনারেটরের বর্তনী চিত্র অঙ্কন করে বোঝার চেষ্টা কর তবে মনে রাখা সহজ হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের অভিমুখ ও আর্মেচারের ঘূর্ণনের অভিমুখ অনুযায়ী ফ্লেমিং-এর দক্ষিণ হস্ত নিয়ম মেনে নিজেরাই আবিষ্ট তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ নির্ধারণের চেষ্টা করবে। তড়িৎ চুম্বকীয় আবেশের প্রাথমিক সূত্র অর্থাৎ ফ্যারাডের সূত্রাবলি বোঝার জন্য তোমরা চৌম্বক আবেশ, চৌম্বক প্রবাহ প্রভৃতি ভৌত রাশিগুলি বিশেষ ভাবে বুঝে নেবার চেষ্টা করবে। আর সব শেষে একটাই কথা বলার যে, ভৌতবিজ্ঞানের যে অধ্যায়ই তোমরা পড়ো না কেন জানার আগ্রহ নিয়ে পড়বে তাহলে তা অনেক বেশি তোমাদের আত্মস্থ হবে। 
28th  July, 2019
নতুন পৃথিবী গড়বো আমরা 

ছোট্ট বন্ধুরা কেমন আছো? দীর্ঘ লকডাউনে বাড়িতে স্কুলের অনলাইন ক্লাসের চাপে ক্লান্ত হয়ে পড়ছো? অবসর সময় ভালো মতো কাটছে না? তবে শোনো, আজ তোমাদের একটা ভালো খবর দিই।   বিশদ

31st  May, 2020
ভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ জয় 

লাতিন শব্দ ‘ভাইরাস’-এর অর্থ হল ‘বিষ’। এই বিষ যুগে যুগে মানুষের জীবনকে বিষিয়ে তুলেছে। তেমনই যুগে যুগে মানুষ পরাস্ত করেছে এমন ভয়াবহ শত্রুকেও। আজ গোটা দুনিয়া অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে, কবে নভেল করোনা ভাইরাসের প্রতিষেধক টিকা হাতের মুঠোয় আসবে। বিজ্ঞানীরা বসে নেই, দিনরাত কাজ করে যাচ্ছেন এই মহা মূল্যবান ধন্বন্তরি হাতের মুঠোয় আনার জন্য। সেইরকম ভয়ঙ্কর সব ভাইরাসের বিরুদ্ধে মানুষের যুদ্ধের বহু ইতিহাস রয়েছে বিশ্বজুড়ে। 
বিশদ

31st  May, 2020
মার্কশিট
এই সময়টাকে কাজে লাগিয়ে
খুঁটিয়ে পড়ো প্রতিটি অধ্যায়

আজ আমরা সৈয়দ মুজতবা আলী রচিত 'চতুরঙ্গ' প্রবন্ধসংগ্রহের অন্তর্গত 'মামদোর পুনর্জন্ম' প্রবন্ধের অংশবিশেষ 'নব নব সৃষ্টি' পাঠ্যাংশটি থেকে প্রাবন্ধিকের কয়েকটি বিশেষ মত সম্পর্কে জানব এবং সে বিষয়টি নবমশ্রেণীরই অন্যান্য পাঠের সঙ্গে মিলিয়ে দেখব।
বিশদ

31st  May, 2020
বাঘ পড়েছিল শান্তিনিকেতনে 

পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়: রবীন্দ্রনাথ গান বেঁধেছিলেন, ‘আমাদের শান্তিনিকেতন/ সে যে সব হতে আপন/ তার আকাশ ভরা কোলে / মোদের দোলে হৃদয় দোলে, / মোরা বারে বারে দেখি তারে নিত্যই নূতন।’ সত্যিই ছিল সার্থকনামা, যথার্থ অর্থেই ‘শান্তিনিকেতন’।  বিশদ

31st  May, 2020
চিরবিদ্রোহী রণক্লান্ত 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তুলতে অনেকে অনেক স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলাম। আগামী ২৫ মে তাঁর জন্মদিন। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়।
বিশদ

24th  May, 2020
চোখের যত্ন নাও 

রোজ অনলাইন ক্লাসের জেরে তোমাদের চোখে নানান সমস্যা দেখা দিতে পারে। একটু সতর্ক হলেই কিন্তু এসব সমস্যা এড়ানো যায়। সেরকম ১০টি জরুরি পরামর্শ দিয়েছেন দিশা আই হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডাঃ ভাস্কর ভট্টাচার্য। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ।
বিশদ

24th  May, 2020
স্কুলে অনলাইন পড়াশোনাই
এখন একমাত্র উপায় 

লকডাউনের মধ্যেও পড়াশোনা এগিয়ে নিয়ে যেতে স্কুলে চলছে অনলাইন ক্লাস। এর ভালো মন্দ নিয়ে আলোচনা করলেন বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক-শিক্ষিকা ও ছাত্রছাত্রীরা। তাঁদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন কমলিনী চক্রবর্তী। 
বিশদ

24th  May, 2020
ছোটদের রান্নাঘর 

করোনার দাপটে স্কুল বন্ধ। সুতরাং বাড়ি থেকে বেরিয়ে এটা ওটা খাওয়ারও জো নেই। তাই বলে কি লকডাউনে কোনও ভালো খাবারই চেখে দেখার সুযোগ হবে না? চিন্তা নেই, ছোটদের রান্নাঘর - এ শুধু তোমাদের জন্যই চারটি লোভনীয় রেসিপি দিয়েছেন ৬ বালিগঞ্জ প্লেসের কর্ণধার ও শেফ সুশান্ত সেনগুপ্ত এবং হলিডে ইন হোটেলের কর্পোরেট শেফ জয়ন্ত বন্দ্যোপাধ্যায়। 
বিশদ

17th  May, 2020
খেলাচ্ছলে যোগাভ্যাস 

বাইরে বেরনো বন্ধ! তাতে কী, এই সুযোগে বাড়িতে বড়দের সঙ্গী হয়ে খেলতে খেলতে কয়েকটি যোগাসন ও প্রাণায়াম শিখে নিতে পারো। এতে শরীর ও মন থাকবে চনমনে, বাড়বে রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা। পরামর্শ দিয়েছেন যোগাচার্য প্রেমসুন্দর দাস। লিখেছেন স্নেহাশিস সাউ। 
বিশদ

17th  May, 2020
পুনুর বন্ধু ডাকু 

কার্তিক ঘোষ: পুনু তখন সবে একটু মুখধরা হয়ে উঠেছে বাবা-মা’র।
বাবা তখন বাড়ি ফিরে এসেছেন কলকাতা থেকে।
দোকানের চাকরিটা গেছে!
বিশদ

17th  May, 2020
বইয়ের নেশায় বুঁদ 

লক ডাউনের সুযোগে ভালো বই পড়ার নেশায় মেতে ওঠো তোমরা। কোন বয়সে কেমন বই পড়বে তার একটা ধারণা দিলেন কমলিনী চক্রবর্তী।  
বিশদ

10th  May, 2020
ইন্দ্রজা, ফুড হ্যাবিটটা
এবার পালটে ফেলো 

ডাঃ অমিতাভ ভট্টাচার্য: ইন্দ্রজার কথা দিয়েই শুরু করি। এই এক মাসে কেমন যেন পাল্টে গিয়েছে মেয়েটা। ভাবসাব দেখে তো রমা আর ইন্দ্রজিতের চোখ কপালে ওঠার জোগাড়। তাদের একমাত্র মেয়ে যে এমন লক্ষ্মীমন্ত হয়ে উঠবে, এ যে তারা স্বপ্নেও ভাবেনি।  
বিশদ

10th  May, 2020
সত্যজিতের ছেলেবেলা, ছেলেবেলার

সত্যজিৎ রায়ের শততম জন্মবর্ষে ছোট্ট সত্যজিতের মধ্য দিয়ে ভবিষ্যতের সত্যজিৎকে দেখার চেষ্টা করলেন অতনু বিশ্বাস। 
বিশদ

10th  May, 2020
বন্দি জীবনে সঙ্গী সিনেমা

 লকডাউনে বাড়িতে বসে পড়াশুনো আর গল্পের বই পড়ার পাশাপাশি দেখে নাও দশটি দুর্দান্ত সিনেমা। তোমাদের জন্য বেছে দিলেন স্বস্তিনাথ শাস্ত্রী। বিশদ

03rd  May, 2020
একনজরে
বেজিং, ৪ জুন (পিটিআই): চীনে একটি প্রাথমিক স্কুলে ছুরিকাহত হলেন পড়ুয়া ও শিক্ষক মিলিয়ে কমপক্ষে ৪০ জন। আহতদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ গুয়াংজি প্রদেশের ওঝাউ শহরের একটি সরকারি স্কুলে ওই ঘটনা ঘটেছে। ...

সংবাদদাতা, হরিশ্চন্দ্রপুর: বৃহস্পতিবার মালদহে তিনজনের মৃত্যু হল বজ্রপাতে। তাঁরা হরিশ্চন্দ্রপুর-১ ব্লকের বাসিন্দা। পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃতরা হলেন বিনু ওঁরাও (৫৫), সুলতান আহমেদ (২৩) ও মিঠু কর্মকার (৩৩)। বিনুর বাড়ি বাইশা গ্রামে। সুলতানের বাড়ি নারায়ণপুর গ্রামে ও মিঠুর বাড়ি দক্ষিণ ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: মাসখানেক হল চালু হয়েছে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ কোভিড হাসপাতাল। চালু হয়েছে করোনা রোগীদের সুপার স্পেশালিটি ব্লক বা এসএসবি বাড়ি। কিন্তু, এরই মধ্যে কোভিডে মৃত ব্যক্তির মোবাইল উধাও হয়ে গিয়েছে বলে অভিযোগ জমা পড়েছে মেডিক্যালের সিকিউরিটি অফিসারের ...

  নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: আগামী ১ আগস্ট ভারতে খুলছে ফিফার ট্রান্সফার উইন্ডো। আন্তঃরাজ্য ছাড়পত্রও শুরু হবে একই দিনে। বৃহস্পতিবার অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের সচিব কুশল দাস এই কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘৯ জুন ভারতে ফিফার আন্তর্জাতিক উইন্ডো খোলার কথা ছিল। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

সঠিক বন্ধু নির্বাচন আবশ্যক, কর্মরতদের ক্ষেত্রে শুভ। বদলির কোনও সম্ভাবনা এই মুহূর্তে নেই। শেয়ার বা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৯৩২: শ্রীশ্রীরামকৃষ্ণ কথামৃতের রচনাকার মহেন্দ্রনাথ গুপ্তের (শ্রীম) মৃত্যু
১৯৩৬: অভিনেত্রী নূতনের জন্ম
১৯৫৯: শিল্পপতি অনিল আম্বানির জন্ম
১৯৭৪: অভিনেতা অহীন্দ্র চৌধুরির মৃত্যু
১৯৭৫ - মার্কিন অভিনেত্রী অ্যাঞ্জেলিনা জোলির জন্ম
১৯৮৫: জার্মান ফুটবলার লুকাস পোডোলোস্কির জন্ম

04th  June, 2020


ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৭৪ টাকা ৭৬.৪৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.১৩ টাকা ৯৬.৪৪ টাকা
ইউরো ৮৩.২২ টাকা ৮৬.৩১ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

দৃকসিদ্ধ: ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ৪৯/২৮ রাত্রি ১২/৪২। অনুরাধা নক্ষত্র ২৯/৩১ অপঃ ৪/৪৪। সূর্যোদয় ৪/৫৫/১২, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৩২। অমৃতযোগ দিবা ১২/১ গতে ২/১৪ মধ্যে। রাত্রি ৮/২২ মধ্যে পুনক্ষ ১২/৩৮ গতে ২/৪৭ মধ্যে পুনঃ ৩/২৯ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৮/১৫ গতে ১১/৩৫ মধ্যে। কালরাত্রি ৮/৫৫ গতে ১০/১৫ মধ্যে।
২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৫ জুন ২০২০, শুক্রবার, পূর্ণিমা ১/১। অনুরাধা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৫/১২। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ দিবা ১২/৬ গতে ২/৪৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে ও ১২/৪২ গতে ২/৪৮ মধ্যে ও ৩/৩০ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। বারবেলা ৮/১৬ গতে ১১/৩৬ মধ্যে কালরাত্রি ৮/৫৬ গতে ১০/১৬ মধ্যে।
১২ শওয়াল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
রাজ্যে করোনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২৯৪ 
রাজ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় আরও ২৭২ জনের শরীরে মিলল করোনা ...বিশদ

07:03:39 PM

করোনা: ইরানে একদিনে আক্রান্ত ২৮৮৬ জন
 

ইরানে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২৮৮৬ জন। মৃত্যু ...বিশদ

05:40:15 PM

উত্তরপাড়ায় রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক থেকে লুট ১৮ লক্ষ টাকা 
উত্তরপাড়ায় একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক থেকে লুট হল ১৮ লক্ষ টাকা। ...বিশদ

04:29:00 PM

দুর্যোগ নিয়েও রাজনীতি করা হচ্ছে: মমতা 

04:20:00 PM

উমপুনে সুন্দরবনের ম্যানগ্রোভ নষ্ট হয়েছে: মমতা 

04:15:00 PM

পরিযায়ী শ্রমিকদের ট্রেন-বাসের ভাড়া দিয়েছি: মমতা

04:13:00 PM