Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

মার্কশিট
মাধ্যমিকে চলতড়িৎ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায় 

ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি নিয়ে অনেক ছাত্রছাত্রীদেরই একটা ভীতি থেকে যায়। বিশেষ করে যখন পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের ভৌতবিজ্ঞানের বেশ কিছু গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তখন তাদের ভীতি আরও বেড়ে যায়। কিন্তু ছাত্ররা, তোমাদের মাথায় রাখতে হবে ভবিষ্যতে অর্থাৎ ক্লাস XI-XII এবং আরও পরবর্তী ধাপে বিজ্ঞানমুখী পড়াশোনা শুরু করার ক্ষেত্রে ক্লাস IX এবং ক্লাস X-এ যে ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি পড়ানো হয় সেটিই হল প্রধান স্তম্ভ। বিষয়টি তোমাদের স্বাধীন ও যুক্তিনির্ভর মানসিকতার বিকাশের প্রধান সহায়ক। ক্লাস X-এ সিলেবাস অনুযায়ী প্রথমে তোমাদের পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন-এর সম্মিলিত তিনটি সাধারণ অধ্যায় পড়ানো হয়, যাতে থাকে মোট ১৭ নম্বর। এরপর পদার্থবিজ্ঞানের চারটি অধ্যায় নিয়ে আলোচনা করা হয় যাতে মোট ৩৪ নম্বর বরাদ্দ থাকে। সর্বশেষ রসায়নের ছয়টি অধ্যায় থাকে মোট ৩৯ নম্বরের। আজ তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করব পদার্থবিজ্ঞানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় চলতড়িৎ নিয়ে। মাধ্যমিকে এই অধ্যায় থেকে তোমাদের গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। অধ্যায়টির নাম যদিও চলতড়িৎ কিন্তু এই অধ্যায়ের শুরুতে তোমাদের পড়তে হয় স্থিরতড়িতের আলোচনা (কুলম্বের সূত্র) এবং তারপর চলতড়িৎ সংক্রান্ত বিষয়। অধ্যায়টির শেষ অংশে থাকে তড়িৎ চুম্বক সংক্রান্ত বিষয়। সুতরাং তোমরা বুঝতেই পারছ অধ্যায়টির বিষয়বস্তু অত্যন্ত বিস্তৃত। তড়িদাধানের ধারণা থেকে অধ্যায়টির শুরু। দুটি তড়িদাধানের মাঝে কাজ করে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বল। যে বলের মান নির্ণয় করা যায় কুলম্বের সূত্র থেকে। তাই সূত্রটির গাণিতিক রূপ মনে রাখা তোমাদের ভীষণ প্রয়োজন। বলটি আকর্ষণ হবে না বিকর্ষণ তা নির্ভর করে আধানদ্বয়ের পোলারিটির উপর। তাই আধানের মান ও পোলারিটি দুটিই প্রয়োজন হয় বলের মান ও বলের প্রকৃতি জানার জন্য। এই স্থিরতড়িৎ বলের ধারণা থেকে আসে তড়িৎক্ষেত্রের (Electric field) ধারণা। এই দুই ভৌত রাশিরই মান ও অভিমুখ উভয়ই বর্তমান অর্থাৎ এরা ভেক্টর রাশি। আবার তোমরা কার্যের ধারণা পেয়েছ ক্লাস IX-এ। স্থিরতড়িৎ বলের বিরুদ্ধে কার্যের ধারণা থেকে আসে তড়িৎ বিভবের ধারণা। কার্য যেহেতু স্কেলার রাশি তাই বিভব হল স্কেলার রাশি। বিভব এবং বিভবপ্রভেদ নিয়ে তোমাদের ধারণা স্বচ্ছ থাকা দরকার। বিভবের মধ্যে থাকে অসীমের ধারণা কারণ অসীমে কোনও তড়িৎ আধানের জন্য তড়িৎক্ষেত্র শূন্য হয়ে যায়। অসীম আমাদের পরিমাপ যোগ্য নয় বলে এসেছে বিভবপ্রভেদের ধারণা।
দুটি বস্তুতে ধনাত্মক ও ঋণাত্মক তড়িৎ আধানের পার্থক্য থাকলে তাদের মধ্যে তৈরি হয় বিভবপ্রভেদের। এই বিভব প্রভেদই তড়িৎ প্রবাহের কারণ। তড়িৎ প্রবাহিত হয় উচ্চ বিভবযুক্ত বস্তু থেকে নিম্ন বিভবযুক্ত বস্তুতে এবং ততক্ষণই এই প্রবাহ চলে যতক্ষণ বিভবপ্রভেদ বজায় থাকে। চলতড়িতের কথা বলতে গিয়ে যে বিজ্ঞানীর কথা প্রথম মনে আসে তিনি হলেন বিজ্ঞানী ওহম্‌। ওহমের সূত্রানুযায়ী কোনও পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভবপ্রভেদ এবং তার মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ পরস্পরের সমানুপাতিক হয়। যে সূত্র থেকে আমরা পরিবাহীর রোধের ধারণা পাই। গাণিতিক সমস্যা সমাধানের জন্য তোমাদের R= সমীকরণটি বিশেষ ভাবে মনে রাখতে হবে। যেখানে R হল পরিবাহীর রোধ, r হল পরিবাহীর রোধাঙ্ক এবং L, A হল যথাক্রমে পরিবাহীর দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থচ্ছেদ। বলা হয় কোনও পরিবাহীর দৈর্ঘ্য X শতাংশ পরিবর্তন হলে রোধের শতকরা কী পরিবর্তন হবে? সেক্ষেত্রে তোমাদের দৈর্ঘ্য পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পরিবাহীর প্রস্থের পরিবর্তন গণনা করতে ভুললে চলবে না। কারণ পরিবাহী তারটির মোট ভর কিন্তু অপরিবর্তনীয় থাকে। পরিবাহীর তড়িৎ পরিবহণের দরুন যে তড়িৎ ক্ষমতা ব্যয় হয় তার রাশিমালা তোমরা জানো P=I2R বা P = । কিন্তু কোন সূত্রটি শ্রেণীসমবায়ের ক্ষেত্রে অথবা কোনটি সমান্তরাল সমবায়ের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করবে তার দিকে তোমাদের বিশেষ নজর দিতে হবে। চলতড়িৎ যে চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে পারে তার কথা তোমরা জানো বিজ্ঞানী ওরস্টেডের পরীক্ষা থেকে। এক্ষেত্রে চৌম্বক শলাকার বিক্ষেপণ কোন দিকে হবে সেই সংক্রান্ত নিয়মগুলি যত্ন নিয়ে পড়তে হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের মধ্যে তড়িৎবাহী পরিবাহীর ওপর যে বল প্রয়োগ হয় তা বার্লোচক্রে দেখা যায়। ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নিয়মটি এক্ষেত্রে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। বার্লোচক্রের বৃহত্তর প্রয়োগ হিসাবে তৈরি হয়েছে ইলেকট্রিক মোটর। আবার মোটরের ঠিক বিপরীত নীতি অনুসরণ করে অর্থাৎ যান্ত্রিক শক্তিকে তড়িৎ শক্তিতে রূপান্তরের নীতিকে অনুসরণ করে এসেছে ইলেকট্রিক জেনারেটর (D.C. এবং A.C.)।
একটি D.C. জেনারেটর ও A.C. জেনারেটরের গঠনগত পার্থক্য ঠিক কোথায় তা যদি তোমরা জেনারেটরের বর্তনী চিত্র অঙ্কন করে বোঝার চেষ্টা কর তবে মনে রাখা সহজ হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের অভিমুখ ও আর্মেচারের ঘূর্ণনের অভিমুখ অনুযায়ী ফ্লেমিং-এর দক্ষিণ হস্ত নিয়ম মেনে নিজেরাই আবিষ্ট তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ নির্ধারণের চেষ্টা করবে। তড়িৎ চুম্বকীয় আবেশের প্রাথমিক সূত্র অর্থাৎ ফ্যারাডের সূত্রাবলি বোঝার জন্য তোমরা চৌম্বক আবেশ, চৌম্বক প্রবাহ প্রভৃতি ভৌত রাশিগুলি বিশেষ ভাবে বুঝে নেবার চেষ্টা করবে। আর সব শেষে একটাই কথা বলার যে, ভৌতবিজ্ঞানের যে অধ্যায়ই তোমরা পড়ো না কেন জানার আগ্রহ নিয়ে পড়বে তাহলে তা অনেক বেশি তোমাদের আত্মস্থ হবে। 
28th  July, 2019
‘চিন্তার জগৎকে বড় করে পৃথিবীটা বদলে দিন...’ 

আর্নল্ড শোয়ার্জেনেগারকে পৃথিবী চেনে ‘টার্মিনেটর’ হিসেবে। তিনি একজন অভিনেতা, পেশাদার বডিবিল্ডার। রাজনীতিও করেছেন। ছিলেন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর। এসব পরিচয় ছাপিয়েও তরুণদের কাছে তিনি একজন অনুপ্রেরণাদায়ী বক্তা। সম্প্রতি স্পিকোলা ডটকম-এ প্রকাশিত হয় অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে দেওয়া তাঁর এক বক্তৃতা। সেই বক্তৃতা তোমাদের জন্য তুলে দিলেন মৃণালকান্তি দাস। 
বিশদ

24th  November, 2019
সারা বাংলা অঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন
করেছে ইনস্টিটিউট অব ফিজিক্যাল কালচার 

আজ তোমাদের একটা ভালো খবর দিই। তোমরা যারা ছবি আঁকতে ভালোবাসো তাদের কথা মাথায় রেখে সারা বাংলা অঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে ইনস্টিটিউট অব ফিজিক্যাল কালচার। আগামী ১৫ ডিসেম্বর সংস্থার নির্দিষ্ট জায়গায় এই বিশেষ প্রতিযোগিতাটি হবে। 
বিশদ

24th  November, 2019
মার্কশিট

তোমাদের জন্য শুরু হয়েছে নতুন বিভাগ। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় ইংরেজি।
  বিশদ

24th  November, 2019
নোলকপুরের গোলকরাজা
প্রদীপ আচার্য

নোলকপুরের রাজার কান্না আর থামছে না। দিনরাত ভেউ ভেউ করে কেঁদেই চলেছে। ঘুম থেকে উঠেই রাজা কাঁদতে শুরু করে। আবার কাঁদতে কাঁদতেই ঘুমিয়ে পড়ে। তারই ফাঁকে ব্রেকফাস্টে গোটা দুয়েক আস্ত চিকেন রোস্ট, দিস্তা দিস্তা বাটার টোস্ট, কাটলেট, ওমলেট ভরপেট খাচ্ছে। 
বিশদ

24th  November, 2019
গোলাপি বিপ্লবের সন্ধিক্ষণে ইডেন

ছোট্টবন্ধুরা! তোমরা যারা ক্রিকেট খেলা দেখতে ভালোবাসো, বা যারা ক্রিকেটের খোঁজখবর একটু আধটু রাখো, তারা নিশ্চয়ই ইডেনে দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচ হওয়ার খবর জানো। ভারত তাদের প্রথম দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচটি খেলতে নামছে ২২ নভেম্বর, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে। 
বিশদ

17th  November, 2019
অরণ্যে অ্যাডভেঞ্চার

গা ছমছমে গহিন অরণ্য। দূর থেকে শোনা যাচ্ছে জলপ্রপাতের গর্জন। পথে বন্য পশুর ভয়। কোথাও ভয়ঙ্কর নদী পেরতে হবে। এমনই কয়েকটি অরণ্যের কথা তোমাদের শুনিয়েছেন সায়ন নস্কর। 
বিশদ

17th  November, 2019
ছোটদের রান্নাঘর 

তোমাদের জন্য চলছে একটি আকর্ষণীয় বিভাগ ছোটদের রান্নাঘর। এই বিভাগ পড়ে তোমরা নিজেরাই তৈরি করে ফেলতে পারবে লোভনীয় খাবারদাবার। বাবা-মাকেও চিন্তায় পড়তে হবে না। কারণ আগুনের সাহায্য ছাড়া তৈরি করা যায় এমন রেসিপিই থাকবে তোমাদের জন্য। এবার সেরকমই দুটি জিভে জল আনা রেসিপি দিয়েছেন দ্য পার্কিং লট রেস্তোরাঁর এক্সিকিউটিভ শেফ সুমিত রঘুবংশী। 
বিশদ

10th  November, 2019
জওহরলাল নেহরুর ছেলেবেলা 

আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার পণ্ডিত জওহরলাল নেহরু। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়। 
বিশদ

10th  November, 2019
ছোটদের ভালোবাসতেন চাচা নেহেরু 

স্বাধীন ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী জওহরলাল নেহরু। শিশুদের কাছে তিনি চাচা নেহরু হিসেবে বেশি জনপ্রিয়। নেহরু ছোটদের খুব ভালোবাসতেন বলে তাঁর জন্মদিনটি অর্থাৎ ১৪ নভেম্বর দেশজুড়ে শিশুদিবস পালিত হয়। প্রিয় চাচা নেহরুকে নিয়ে লিখেছে বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা।  
বিশদ

10th  November, 2019
মার্কশিট 

তোমাদের জন্য চলছে নতুন বিভাগ। এই বিভাগে থাকছে পরীক্ষায় নম্বর বাড়ানোর সুলুক সন্ধান। এবারের বিষয় বাংলা।
 
বিশদ

03rd  November, 2019
সে কি সত্যি হবে! 
আয়ূষী বন্দ্যোপাধ্যায়

পাইন আর দেওদার গাছের মধ্যে পাখির বাসা থাকে কি না তা ঠিক জানা নেই, তবে এক মিষ্টি পাখির কূজন কানে ভেসে আসে রোজই। গতকাল রাতে অমন ঝড়, বৃষ্টি, দম্ভোলি হয়েছে কে বলবে? ভোরের প্রভাকরের প্রকীর্ণ আভা যেন দুর্যোগকে নিশ্চিহ্ন করেছে। ঈশ্বরের দেশে সবই তো তাঁর লীলাখেলা, সেখানে যে নেই কোনও মোহ, মায়া, মাৎসর্য। শুধুই আছে মনকে দয়ার্দ্র করে তোলার পরিপূর্ণ রসদ। 
বিশদ

03rd  November, 2019
পুজোর ছুটি 

পুজোর ছুটিতে কে কী করবে তার পরিকল্পনা অনেক আগেই সেরে ফেলে ছোটরা। সেই তালিকায় ঠাকুর দেখা, খাওয়া-দাওয়া, বন্ধুদের সঙ্গে গল্পগুজব, মামার বাড়ি যাওয়া, বেড়ানো, গল্পের বই পড়া, খেলাধুলো সবই থাকে। এবারের পুজোর ছুটি কার কেমন কাটাল তোমাদের শোনাচ্ছে বৈঁচি বিহারীলাল মুখার্জি’স ফ্রি ইনস্টিটিউশনের ছাত্র-ছাত্রীরা। 
বিশদ

03rd  November, 2019
 আলোর উৎসব
কা লী পু জো

 রং-বেরঙের আলো দিয়ে বাড়ি সাজানো, তুবড়ি, হাউই আর রংমশালের আলোর ছটা, মিষ্টিমুখ, রাত জেগে পুজো দেখা... এমনভাবেই কেটে যায় কালীপুজোর দিনটা। জানাল বিভিন্ন স্কুলের ছেলেমেয়েরা। বিশদ

27th  October, 2019
 ভগিনী নিবেদিতা

 আমাদের এই দেশকে গড়ে তোলার জন্য অনেকে অনেকভাবে স্বার্থত্যাগ করে এগিয়ে এসেছিলেন। এই কলমে জানতে পারবে সেরকমই মহান মানুষদের ছেলেবেলার কথা। এবার ভগিনী নিবেদিতা। লিখেছেন চকিতা চট্টোপাধ্যায়। বিশদ

27th  October, 2019
একনজরে
বিএনএ, মেদিনীপুর: খড়্গপুরে এসে পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার উন্নয়নে ৩৬টি প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেইসঙ্গে ২৯টি নয়া প্রকল্পের শিলান্যাসও করবেন তিনি। বিধানসভা উপনির্বাচনে তৃণমূলের বিপুল সাফল্যে খড়্গপুরবাসীকে ধন্যবাদ জানাতে ৯ ডিসেম্বর আসছেন মুখ্যমন্ত্রী।  ...

হায়দরাবাদ, ৬ ডিসেম্বর (পিটিআই): হায়দরাবাদে তরুণী চিকিৎসককে গণধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় শুক্রবার চার অভিযুক্তের মৃত্যু হল পুলিসি এনকাউন্টারে। যবনিকা পতন ঘটল এক বর্বরোচিত অপরাধের। একনজরে দেখে নেওয়া যাক, গত দশ দিনে কোন পথে এগিয়েছিল ঘটনাক্রম।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: ভারতীয় দলের কোচ রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে সৌরভ গাঙ্গুলির সম্পর্ক যে ভালো নয়, তা সবারই জানা। ২০১৬ সালে ‘টিম ইন্ডিয়া’র কোচ নির্বাচন ঘিরে ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সাইনি হুন্ডাইয়ের উদ্যোগে ২৯তম ফ্রি কার কেয়ার ক্লিনিকের আয়োজন করা হয়েছে। শুক্রবার থেকে সেই ক্লিনিক শুরু হয়েছে। তা চলবে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

মানসিক অস্থিরতা দেখা দেবে। বন্ধু-বান্ধবদের থেকে দূরত্ব বজায় রাখা দরকার। কর্মে একাধিক শুভ যোগাযোগ আসবে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮৭২: কলকাতায় প্রতিষ্ঠিত হল ন্যাশনাল থিয়েটার
১৯৪১: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে পার্ল হারবারে বোমাবর্ষণ
১৯৮৪: বরুণ সেনগুপ্তের সম্পাদনায় আত্মপ্রকাশ করল ‘বর্তমান’  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৯ টাকা ৭২.১৯ টাকা
পাউন্ড ৯২.২০ টাকা ৯৫.৫৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৭৫ টাকা ৮০.৭৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮,৬৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬,৬৭০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭,২২০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৪,২৫০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৪,৩৫০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, দশমী ১/৭ দিবা ৬/৩৪। রেবতী ৪৭/৫০ রাত্রি ১/২৮। সূ উ ৬/৭/৩৪, অ ৪/৪৮/২, অমৃতযোগ দিবা ৬/৫১ মধ্যে পুনঃ ৭/৩৩ গতে ৯/৪১ মধ্যে পুনঃ ১১/৪৯ গতে ২/৪০ মধ্যে পুনঃ ৩/২৩ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ১২/৪৮ গতে ২/৩৫ মধ্যে, বারবেলা ৭/২৭ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৭ গতে ২/৮ মধ্যে পুনঃ ৩/২৮ গতে অস্তাবধি, কালরাত্রি ৬/২৮ মধ্যে পুনঃ ৪/২৬ গতে উদয়াবধি। 
২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৭ ডিসেম্বর ২০১৯, শনিবার, একাদশী ৬০/০/০ অহোরাত্র। রেবতী ৪৭/৫০/২৭ রাত্রি ১/১৭/৯, সূ উ ৬/৮/৫৮, অ ৪/৪৮/৩৬, অমৃতযোগ দিবা ৭/১ মধ্যে ও ৭/৪৩ গতে ৯/৫০ মধ্যে ও ১১/৫৭ গতে ২/৫২ মধ্যে ও ৩/২৭ গতে ৪/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ১২/৫৬ গতে ২/৪৩ মধ্যে, কালবেলা ৭/২৮/৫৫ মধ্যে ও ৩/২৮/৩৮ গতে ৪/৪৮/৩৬ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/২৮/৩৯ মধ্যে ও ৪/২৮/৫৬ গতে ৬/৯/৩৭ মধ্যে। 
৯ রবিয়স সানি

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়ে সিরিজের প্রথম টি-২০ জিতল ভারত

06-12-2019 - 10:31:05 PM

 প্রথম টি২০: ভারত ১৭৭/২ (১৬ ওভার)

06-12-2019 - 10:13:22 PM

প্রথম টি২০: ভারত ৮৯/১ (১০ ওভার) 

06-12-2019 - 09:34:38 PM

প্রথম টি২০: ভারতকে ২০৮ রানের টার্গেট দিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ 

06-12-2019 - 08:34:59 PM

প্রথম টি২০: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১৪৪/৩ (১৫ ওভার) 

06-12-2019 - 08:09:22 PM

প্রথম টি২০: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১০১/২ (১০ ওভার) 

06-12-2019 - 07:47:55 PM