Bartaman Patrika
হ য ব র ল
 

মার্কশিট
মাধ্যমিকে চলতড়িৎ খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি অধ্যায় 

ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি নিয়ে অনেক ছাত্রছাত্রীদেরই একটা ভীতি থেকে যায়। বিশেষ করে যখন পরীক্ষায় ছাত্রছাত্রীদের ভৌতবিজ্ঞানের বেশ কিছু গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় তখন তাদের ভীতি আরও বেড়ে যায়। কিন্তু ছাত্ররা, তোমাদের মাথায় রাখতে হবে ভবিষ্যতে অর্থাৎ ক্লাস XI-XII এবং আরও পরবর্তী ধাপে বিজ্ঞানমুখী পড়াশোনা শুরু করার ক্ষেত্রে ক্লাস IX এবং ক্লাস X-এ যে ভৌতবিজ্ঞান বিষয়টি পড়ানো হয় সেটিই হল প্রধান স্তম্ভ। বিষয়টি তোমাদের স্বাধীন ও যুক্তিনির্ভর মানসিকতার বিকাশের প্রধান সহায়ক। ক্লাস X-এ সিলেবাস অনুযায়ী প্রথমে তোমাদের পদার্থবিজ্ঞান ও রসায়ন-এর সম্মিলিত তিনটি সাধারণ অধ্যায় পড়ানো হয়, যাতে থাকে মোট ১৭ নম্বর। এরপর পদার্থবিজ্ঞানের চারটি অধ্যায় নিয়ে আলোচনা করা হয় যাতে মোট ৩৪ নম্বর বরাদ্দ থাকে। সর্বশেষ রসায়নের ছয়টি অধ্যায় থাকে মোট ৩৯ নম্বরের। আজ তোমাদের সঙ্গে আলোচনা করব পদার্থবিজ্ঞানের একটি গুরুত্বপূর্ণ অধ্যায় চলতড়িৎ নিয়ে। মাধ্যমিকে এই অধ্যায় থেকে তোমাদের গাণিতিক সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। অধ্যায়টির নাম যদিও চলতড়িৎ কিন্তু এই অধ্যায়ের শুরুতে তোমাদের পড়তে হয় স্থিরতড়িতের আলোচনা (কুলম্বের সূত্র) এবং তারপর চলতড়িৎ সংক্রান্ত বিষয়। অধ্যায়টির শেষ অংশে থাকে তড়িৎ চুম্বক সংক্রান্ত বিষয়। সুতরাং তোমরা বুঝতেই পারছ অধ্যায়টির বিষয়বস্তু অত্যন্ত বিস্তৃত। তড়িদাধানের ধারণা থেকে অধ্যায়টির শুরু। দুটি তড়িদাধানের মাঝে কাজ করে আকর্ষণ বা বিকর্ষণ বল। যে বলের মান নির্ণয় করা যায় কুলম্বের সূত্র থেকে। তাই সূত্রটির গাণিতিক রূপ মনে রাখা তোমাদের ভীষণ প্রয়োজন। বলটি আকর্ষণ হবে না বিকর্ষণ তা নির্ভর করে আধানদ্বয়ের পোলারিটির উপর। তাই আধানের মান ও পোলারিটি দুটিই প্রয়োজন হয় বলের মান ও বলের প্রকৃতি জানার জন্য। এই স্থিরতড়িৎ বলের ধারণা থেকে আসে তড়িৎক্ষেত্রের (Electric field) ধারণা। এই দুই ভৌত রাশিরই মান ও অভিমুখ উভয়ই বর্তমান অর্থাৎ এরা ভেক্টর রাশি। আবার তোমরা কার্যের ধারণা পেয়েছ ক্লাস IX-এ। স্থিরতড়িৎ বলের বিরুদ্ধে কার্যের ধারণা থেকে আসে তড়িৎ বিভবের ধারণা। কার্য যেহেতু স্কেলার রাশি তাই বিভব হল স্কেলার রাশি। বিভব এবং বিভবপ্রভেদ নিয়ে তোমাদের ধারণা স্বচ্ছ থাকা দরকার। বিভবের মধ্যে থাকে অসীমের ধারণা কারণ অসীমে কোনও তড়িৎ আধানের জন্য তড়িৎক্ষেত্র শূন্য হয়ে যায়। অসীম আমাদের পরিমাপ যোগ্য নয় বলে এসেছে বিভবপ্রভেদের ধারণা।
দুটি বস্তুতে ধনাত্মক ও ঋণাত্মক তড়িৎ আধানের পার্থক্য থাকলে তাদের মধ্যে তৈরি হয় বিভবপ্রভেদের। এই বিভব প্রভেদই তড়িৎ প্রবাহের কারণ। তড়িৎ প্রবাহিত হয় উচ্চ বিভবযুক্ত বস্তু থেকে নিম্ন বিভবযুক্ত বস্তুতে এবং ততক্ষণই এই প্রবাহ চলে যতক্ষণ বিভবপ্রভেদ বজায় থাকে। চলতড়িতের কথা বলতে গিয়ে যে বিজ্ঞানীর কথা প্রথম মনে আসে তিনি হলেন বিজ্ঞানী ওহম্‌। ওহমের সূত্রানুযায়ী কোনও পরিবাহীর দুই প্রান্তের বিভবপ্রভেদ এবং তার মধ্য দিয়ে তড়িৎপ্রবাহ পরস্পরের সমানুপাতিক হয়। যে সূত্র থেকে আমরা পরিবাহীর রোধের ধারণা পাই। গাণিতিক সমস্যা সমাধানের জন্য তোমাদের R= সমীকরণটি বিশেষ ভাবে মনে রাখতে হবে। যেখানে R হল পরিবাহীর রোধ, r হল পরিবাহীর রোধাঙ্ক এবং L, A হল যথাক্রমে পরিবাহীর দৈর্ঘ্য এবং প্রস্থচ্ছেদ। বলা হয় কোনও পরিবাহীর দৈর্ঘ্য X শতাংশ পরিবর্তন হলে রোধের শতকরা কী পরিবর্তন হবে? সেক্ষেত্রে তোমাদের দৈর্ঘ্য পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে পরিবাহীর প্রস্থের পরিবর্তন গণনা করতে ভুললে চলবে না। কারণ পরিবাহী তারটির মোট ভর কিন্তু অপরিবর্তনীয় থাকে। পরিবাহীর তড়িৎ পরিবহণের দরুন যে তড়িৎ ক্ষমতা ব্যয় হয় তার রাশিমালা তোমরা জানো P=I2R বা P = । কিন্তু কোন সূত্রটি শ্রেণীসমবায়ের ক্ষেত্রে অথবা কোনটি সমান্তরাল সমবায়ের ক্ষেত্রে প্রয়োগ করবে তার দিকে তোমাদের বিশেষ নজর দিতে হবে। চলতড়িৎ যে চৌম্বক ক্ষেত্র সৃষ্টি করতে পারে তার কথা তোমরা জানো বিজ্ঞানী ওরস্টেডের পরীক্ষা থেকে। এক্ষেত্রে চৌম্বক শলাকার বিক্ষেপণ কোন দিকে হবে সেই সংক্রান্ত নিয়মগুলি যত্ন নিয়ে পড়তে হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের মধ্যে তড়িৎবাহী পরিবাহীর ওপর যে বল প্রয়োগ হয় তা বার্লোচক্রে দেখা যায়। ফ্লেমিং-এর বাম হস্ত নিয়মটি এক্ষেত্রে বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। বার্লোচক্রের বৃহত্তর প্রয়োগ হিসাবে তৈরি হয়েছে ইলেকট্রিক মোটর। আবার মোটরের ঠিক বিপরীত নীতি অনুসরণ করে অর্থাৎ যান্ত্রিক শক্তিকে তড়িৎ শক্তিতে রূপান্তরের নীতিকে অনুসরণ করে এসেছে ইলেকট্রিক জেনারেটর (D.C. এবং A.C.)।
একটি D.C. জেনারেটর ও A.C. জেনারেটরের গঠনগত পার্থক্য ঠিক কোথায় তা যদি তোমরা জেনারেটরের বর্তনী চিত্র অঙ্কন করে বোঝার চেষ্টা কর তবে মনে রাখা সহজ হবে। চৌম্বক ক্ষেত্রের অভিমুখ ও আর্মেচারের ঘূর্ণনের অভিমুখ অনুযায়ী ফ্লেমিং-এর দক্ষিণ হস্ত নিয়ম মেনে নিজেরাই আবিষ্ট তড়িৎ প্রবাহের অভিমুখ নির্ধারণের চেষ্টা করবে। তড়িৎ চুম্বকীয় আবেশের প্রাথমিক সূত্র অর্থাৎ ফ্যারাডের সূত্রাবলি বোঝার জন্য তোমরা চৌম্বক আবেশ, চৌম্বক প্রবাহ প্রভৃতি ভৌত রাশিগুলি বিশেষ ভাবে বুঝে নেবার চেষ্টা করবে। আর সব শেষে একটাই কথা বলার যে, ভৌতবিজ্ঞানের যে অধ্যায়ই তোমরা পড়ো না কেন জানার আগ্রহ নিয়ে পড়বে তাহলে তা অনেক বেশি তোমাদের আত্মস্থ হবে। 
28th  July, 2019
বিস্ময়কর প্রাণী 

১৫০ মিলিয়ন বছর আগে যখন ডাইনোসরদের স্বর্ণযুগ ছিল সেই সময় পাখি নামক আর এক প্রজাতির উদ্ভব হয়েছিল। সরীসৃপের নানা বৈশিষ্ট্যের সঙ্গে সঙ্গে তারা পালকের মতো কিছু অসাধারণ বৈশিষ্ট্য অর্জন করেছিল।   বিশদ

18th  October, 2020
পুজোর আনন্দ 

করোনা ভাইরাস সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে এবার কীভাবে পুজোর আনন্দ উপভোগ করবে জানাল তোমাদের দুই বন্ধু।   বিশদ

18th  October, 2020
মহিষাসুর 
হিমাদ্রিকিশোর দাশগুপ্ত

দুর্গাপুজোর মহাষষ্ঠী। সকালবেলাই পদ্মপুকুর গ্রামের পুজো প্যান্ডেলের ছোট আটচালার প্রতিমা এসে গিয়েছে, তবুও বিকেলবেলা প্যান্ডেলের সামনে দাঁড়িয়ে অধীর আগ্রহে গ্রামে ঢোকার রাস্তার দিকে তাকিয়ে ছিল পুজো কমিটির লোকজন ও গ্রামের নানা বয়সি বাচ্চারা।  বিশদ

18th  October, 2020
কয়েকটি আশ্চর্যজনক প্রাণীর কর্মকাণ্ড

পৃথিবীতে এমন অনেক প্রাণী আছে যাদের কিছুটা হলেও মানুষের মতো আচরণ করতে দেখা যায়। হ্যাঁ, আশ্চর্য মনে হলেও এমন প্রাণীর অস্তিত্ব আমাদের এই ব্রহ্মাণ্ডে আছে। ব্যালেট থেকে ট্যাঙ্গোর মতো প্রাণীরা তো নাচতেও পারে।  বিশদ

11th  October, 2020
কাটবে কেমন পুজোর দিন?

করোনা আবহে ছোট্ট অভিনেতা-অভিনেত্রীরা তাদের এবারের পুজো পরিকল্পনা জানাল হ য ব র ল’র বন্ধুদের।
বিশদ

11th  October, 2020
নয় তো পুজো বিষাদের
পার্থজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়

চারদিকেতে মেরাপ, আলো, দুধ-সাদা মেঘ আসমানে,
ভোরের বাতাস, তুই কি আমায় বলতে কিছু চাস কানে? বিশদ

11th  October, 2020
হুলো ও ছবির
জয়ন্ত দে

জলের ট্যাঙ্কের ওপর দাঁড়িয়ে ছিল হুলো। দৃষ্টি নীচের ছাদে। একটা খবরের কাগজ খুলে তার ওপর গড়াগড়ি খাচ্ছে মেনি। মাঝে মাঝে খবরের কাগজটা তুলে কী যেন দেখছে। এটা অনেকক্ষণ ধরেই চলছে। ব্যাপারটা কী? মেনি কি খেলছে?
বিশদ

11th  October, 2020
আশ্চর্যের হামিংবার্ড 

অনবরত ডানা ঝাপটাচ্ছে এক অপূর্ব সুন্দর পাখি। এক সেকেন্ডের মধ্যেই বহুবার। খালি চোখে আলাদা করে ধরা যাচ্ছে না ডানা ঝাপটানোর দৃশ্য। পাখিটির এত দ্রুত গতিতে ডানা ঝাপটানোর জন্য একধরনের গুঞ্জন হয়। ইংরেজিতে যাকে বলে ‘হাম’। ভাবছ কোন পাখির কথা বলছি? তার নাম হামিংবার্ড। বিশদ

04th  October, 2020
জঙ্গলে জ্যান্ত পাথর 

‘জঙ্গলে জ্যান্ত পাথর’ বইটির মধ্যে রয়েছে দুটি রোমাঞ্চকর গল্প। প্রথমটি, ‘জঙ্গলে ভয় ছিল’ এবং দ্বিতীয়টি, ‘জ্যান্ত পাথর! তারপর...’। লেখক ত্রিদিবকুমার চট্টোপাধ্যায় রচিত চরিত্র, ন্যাশনাল সায়েন্টিস্ট জগবন্ধু মুখার্জি, অর্থাৎ জগুমামা ও তাঁর অ্যাসিস্ট্যান্ট অর্ণব ওরফে টুকলুর দুটি রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতার কথাই রয়েছে বইটিতে। বিশদ

04th  October, 2020
এপাশ ওপাশ
দীপ মুখোপাধ্যায়

মনের আকাশ। চাঁদ উঠেছে। আর ফুটেছে তারা
স্বপ্নে উড়ে যাচ্ছি সবাই ঘুমন্ত বাচ্চারা বিশদ

04th  October, 2020
রূপচাঁদের ভাগ্যোদয়
ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়

বহুদিন আগে পশ্চিম মেদিনীপুরের ‘গুড়গুড়িপাল’ ছিল ভয়াবহ অরণ্যে ভরা। এ পথে যাতায়াত রীতিমতো ভয়ের ব্যাপার ছিল।  সেবার ইন্দ্রা (ইঁদা) অঞ্চল থেকে বছর তেইশের এক যুবককে এই অঞ্চলে ভিক্ষার ঝুলি নিয়ে এদিকে আসতে দেখা গেল। এমন বনপ্রদেশে কে এই যুবক?
বিশদ

04th  October, 2020
ছোটদের রান্নাঘর

করোনার দাপটে স্কুল বন্ধ। সুতরাং বাড়ি থেকে বেরিয়ে এটা ওটা খাওয়ারও জো নেই। তাই বলে কি লকডাউনে কোনও ভালো খাবারই চেখে দেখার সুযোগ হবে না? চিন্তা নেই, ছোটদের রান্নাঘর-এ শুধু তোমাদের জন্যই দুটি লোভনীয় রেসিপি দিয়েছেন হায়াত রিজেন্সি কলকাতা হোটেলের শেফ ডি  কুইজিন সঞ্জয় রাউত। এগুলি আগুনের সাহায্য ছাড়াই তৈরি করা যাবে। তোমরাই করে চমকে দাও বড়দের। বিশদ

27th  September, 2020
জা না অ জা না
গাছেরাও কথা বলে

১৯০১ সাল। ওই বছরেই আচার্য জগদীশচন্দ্র বসু প্রমাণ করে দিয়েছিলেন গাছেরও প্রাণ আছে। তিনি তাঁর আবিষ্কৃত ক্রেসকোগ্রাফ যন্ত্রের মাধ্যমে দেখিয়েছিলেন, আলো, তাপ, শব্দ এবং অন্যান্য উদ্দীপনায় সাড়া দেয় উদ্ভিদও! সেই আবিষ্কারের একশো বছর পরে, এখনও গাছেদের নিয়ে হয়ে চলেছে নতুন অনেক গবেষণা। বিশদ

27th  September, 2020
দখল
শমীন্দ্র ভৌমিক

শরৎ দিল উড়াল
মেঘের ডানায়–
শরৎ দিল দেশ দেশান্তে
রুগ্ন ঘরে হানা। বিশদ

27th  September, 2020
একনজরে
 দলের স্বার্থে যে কোনও পজিশনে ব্যাটিং করতে রাজি জস বাটলার। সোমবার আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে রাজস্থান রয়্যালসের জয়ের নায়ক বলেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট যেখানে চাইবে, ...

 চীনকে চাপে রাখতে তাইওয়ানের সঙ্গে সখ্যতা বাড়াতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তাইওয়ান বরাবরই ভারতের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক আরও গভীর করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। তবে চীনের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হতে পারে আশঙ্কায় ভারত এখনও পর্যন্ত তাইওয়ানের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনে তেমন আগ্রহ দেখায়নি। ...

‘কমলে কামিনী’ নন। দেবী দুর্গার বেশে স্বয়ং কমলা হ্যারিস। মহিষাসুররূপী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অস্ত্র দিয়ে বিঁধছেন তিনি। বাহনেও বৈচিত্র্য। ...

 জম্মুর কাটরায় শুরু হল ‘নবরাত্রি উৎসব’। আনুষ্ঠানিকভাবে উৎসবের সূচনা করেন উত্তর-পূর্বাঞ্চল উন্নয়ন মন্ত্রকের স্বাধীন দায়িত্বপ্রাপ্ত রাষ্ট্রমন্ত্রী জিতেন্দ্র সিং। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

বিদ্যায় সাফল্য ও হতাশা দুই-ই বর্তমান, নতুন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠবে। কর্মপ্রার্থীদের শুভ যোগ আছে। ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮০৫: ত্রাফালগারের যুদ্ধে ভাইস অ্যাডমিরাল লর্ড নেলসনের নেতৃত্বে ব্রিটিশ নৌবাহিনীর কাছে পরাজিত হয় নেপোলিয়ানের বাহিনী
১৮৩৩: ডিনামাইট ও নোবেল পুরস্কারের প্রবর্তক সুইডিশ আলফ্রেড নোবেলের জন্ম
১৮৫৪: ক্রিমিয়ার যুদ্ধে পাঠানো হয় ফ্লোরেন্স নাইটেঙ্গলের নেতৃত্বে ৩৮ জন নার্সের একটি দল
১৯৩১: অভিনেতা শাম্মি কাপুরের জন্ম
১৯৪০: আর্নেস্ট হেমিংওয়ের প্রথম উপন্যাস ফর হুম দ্য বেল টোলস-এর প্রথম সংস্করণ প্রকাশিত হয়
১৯৪৩: সিঙ্গাপুরে আজাদ হিন্দ ফৌজ গঠন করলেন নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু
১৯৬৭: ভিয়েতনামের যুদ্ধের প্রতিবাদে আমেরিকার ওয়াশিংটনে এক লক্ষ মানুষের বিক্ষোভ হয়
২০১২: পরিচালক ও প্রযোজক যশ চোপড়ার মৃত্যু



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭২.৫৪ টাকা ৭৪.২৫ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪০ টাকা ৯৬.৭১ টাকা
ইউরো ৮৪.৮৭ টাকা ৮৮.০২ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫১,৭৫০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৯,১০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৯,৮৪০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৬২,৬৪০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৬২,৭৪০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

 ৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী ৮/৪২ দিবা ৯/৮। মূলানক্ষত্র ৪৮/৫৫ রাত্রি ১/১৩। সূর্যোদয় ৫/৩৯/২১, সূর্যাস্ত ৫/৩/১৭। অমৃতযোগ দিবা ৬/২৫ মধ্যে পুনঃ ৭/১০ গতে ৭/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১০/১৩ গতে ১২/৩০ মধ্যে। রাত্রি ৫/৫৪ গতে ৬/৪৫ মধ্যে পুনঃ ৮/২৫ গতে ৩/৯ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/২৫ গতে ৭/১০ মধ্যে পুনঃ ১/১৫ গতে ৩/৩২ মধ্যে। বারবেলা ৮/৩০ গতে ৯/৫৬ মধ্যে পুনঃ ১১/২১ গতে ১২/৪৭ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
৪ কার্তিক, ১৪২৭, বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, পঞ্চমী দিবা ২/৪৫। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র দিবা ৮/২১। সূর্যোদয় ৫/৪০, সূর্যাস্ত ৫/৪। অমৃতযোগ দিবা ৬/৩৩ মধ্যে ও ৭/১৮ গতে ৮/২ মধ্যে ও ১০/১৪ গতে ১২/২৭ মধ্যে এবং রাত্রি ৫/৪৩ গতে ৬/৩৫ মধ্যে ও ৮/১৯ গতে ৩/১৪ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/৩৩ গতে ৭/১৮ মধ্যে ও ১/১১ গতে ৩/২৩ মধ্যে। কালবেলা ৮/৩১ গতে ৯/৫৭ মধ্যে ও ১১/২২ গতে ১২/৪৮ মধ্যে। কালরাত্রি ২/৩১ গতে ৪/৬ মধ্যে।
 ৩ রবিয়ল আউয়ল

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
জয়নগরে মহিলা খুনের কিনারা, ধৃত ৩ 
জয়নগরে মহিলার দ্বিখণ্ডিত দেহ উদ্ধারের ঘটনার কিনারা করল পুলিস। ঘটনায় ...বিশদ

11:35:36 AM

ওড়িশায় একটি জালনোটের কারখানার হদিশ, গ্রেপ্তার ২
ওড়িশার নয়াগড়ে একটি বাড়িতে জালনোটের কারখানার হদিশ মিলল। বুধবার এই ...বিশদ

11:35:26 AM

 পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণে মৃত ৩, আহত ১৫
পাকিস্তানে একটি চারতলা বাড়িতে বিস্ফোরণ ঘটে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।আহত ...বিশদ

11:18:31 AM

 কোঝিকোড় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফের ১,৮৮৬ গ্রাম চোরাই সোনা উদ্ধার

11:04:00 AM

 আজ দিনের শুরুতে সেনসেক্স উঠল ৪০২ পয়েন্ট

10:52:00 AM

 দীঘার হোটেলে শিরা ও নলি কেটে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা
দীঘায় বেড়াতে এসে ব্লেড দিয়ে গলার নলি ও হাতের শিরা ...বিশদ

10:51:55 AM