Bartaman Patrika
গল্পের পাতা
 

পুণ্য ভূমির পুণ্য ধুলোয় 
ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়

একান্ন মহাপীঠের অন্যতম শ্রেষ্ঠ মহাপীঠ হল কামাখ্যা। এই মহাতীর্থে সতীর মহামুদ্রা অর্থাৎ যোনিদেশ পতিত হয়েছিল। দেবীর গুপ্ত অঙ্গ পতিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে, পর্বতটি নীলবর্ণ ধারণ করে এবং শত যোজন উচ্চ পর্বত ক্রমশ ভূগর্ভে নেমে যেতে থাকে। দেবাদিদেব মহাদেব তখন উমানন্দ ভৈরব নাম ধারণ করে পর্বতকে নিজশক্তিতে ধরে রাখেন বলে পর্বত আর নামতে পারে না। সতী অঙ্গ এরপর কঠিন শিলারূপ ধারণ করে এবং দেবী মহামায়াও এই পর্বতে ক্রমশ যোগনিদ্রায় বিলীন হতে থাকেন। পর্বত নীল হওয়ার কারণে এর নাম হয় নীলপর্বত। দেবী কামাখ্যারও নাম হয় নীলপার্বতী। পর্বতের যে স্থানে দেবীর অঙ্গ পতিত হয় সেই স্থানের নাম হয় কুজ্জিকাপীঠ।
আমার পনেরো বছর বয়সের সময় মা-বাবার সঙ্গে প্রথম এসেছিলাম কামাখ্যা-তীর্থে। সালটা হবে ১৯৫৬। তখন কামাখ্যায় যাওয়া সহজসাধ্য ছিল না। প্রথমে সাহেবগঞ্জ হয়ে সকরিগলি ঘাট। তারপর দীর্ঘক্ষণ ধরে গঙ্গা পার হয়ে ওপারে মণিহারি ঘাটে। সেখান থেকে আবার ট্রেনে আমিনগাঁও। পরে আবার ব্রহ্মপুত্র পার হয়ে পাণ্ডুঘাট। সেখান থেকে ট্রেনে অথবা বাসে গৌহাটি (গুয়াহাটি)। এরপর কামাখ্যা, ওই কামাখ্যাতে আমরা কয়েকদিন ছিলাম এবং কামাখ্যা থেকে ঘুরে এসে দেবীর কৃপায় কামাখ্যা ভ্রমণ লিখে আমি লেখকজীবন শুরু করি। এখন এই পথের মহাপ্রস্থান হয়েছে। কামাখ্যা তীর্থযাত্রীদের জন্য হাওড়া থেকে সরাইঘাট এক্সপ্রেসই এখন সবচেয়ে জনপ্রিয় ট্রেন। এছাড়াও ভারতের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ট্রেন আসে গুয়াহাটিতে। এই মহাতীর্থে অজস্র ধর্মশালা, লজ, পাণ্ডার বাড়ি ইত্যাদি হয়েছে।
আমার কিশোর বয়সে যা ছিল না, এখন তাই হয়েছে। তখন হেঁটে উঠতে হতো পাহাড়ে। এখন বাস, মোটর, অটো, ট্রেকার সবেরই ব্যবস্থা হয়েছে। মন্দিরে দর্শনার্থীদের ভিড়ও এখন অনেক। দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়াতে হয় তাই। কম ভিড়ের জন্য একশো টাকা ও পাঁচশো টাকার লাইনও আছে। এখন গেলে ওইভাবেই দর্শন করতে হয়। তবে জাগ্রতা দেবীর আশীর্বাদেই আমি শুধু নয় অনেকেই ধন্য।
কামাখ্যা দর্শনের পর একটু উচ্চস্থানে নীলপর্বতের সর্বোচ্চ শৃঙ্গে হল ভুবনেশ্বরী পীঠ। কামাখ্যা মন্দির ছাড়া এই পর্বতের বিভিন্ন অংশে দশমহাবিদ্যার যেসব মন্দির আছে তার মধ্যে মহাগৌরী ভুবনেশ্বরীরই প্রাধান্য বেশি। এখান থেকে ব্রহ্মপুত্র ও পিকক আইল্যান্ডে উমানন্দ ভৈরবের দৃশ্য ভারী সুন্দর দেখায়। কামাখ্যা দর্শনার্থীদের প্রত্যেকেরই উচিত উমানন্দ ভৈরবকে দর্শন করা।
ভুবনেশ্বরী পীঠ হল আর এক জাগ্রত পীঠ। এখানে জপতপাদি ক্রিয়াকর্ম করলে স্থানমাহাত্ম্যে অপ্রত্যাশিত ফললাভ হয়। তন্ত্রসাধকদের মতে তন্ত্রসাধনার এর চেয়ে উপযুক্ত স্থান আর নেই। শুধু কামাখ্যা মন্দির বা ভুবনেশ্বরী নয় কামরূপ জেলার সর্বত্র তন্ত্রসাধনা যথেষ্ট ফলপ্রদ। আগে এই কামরূপ প্রদেশ চারভাগে বিভক্ত ছিল। যেমন কামপীঠ, রত্নপীঠ, স্বর্ণপীঠ বা ভদ্রপীঠ ও সৌমার পীঠ। দেবী কামাখ্যা যেখানে বিরাজ করছেন সেই স্থান হল কামপীঠ।
কামরূপের দেবী কামাখ্যা দশমহাবিদ্যার এক মহাবিদ্যা। মহামায়ার বিভূতির অন্তর্গত ষোড়শী দেবী নামেই পূজিতা ইনি। মাতঙ্গী এখানে দেবী সরস্বতী। আর কমলা হলেন লক্ষ্মী। এখানে কামাখ্যা ও কামেশ্বর মন্দিরের মধ্যস্থলে আছেন দেবী কালিকা। ইনি দীর্ঘেশ্বরী নামে পূজিতা। কামাখ্যা এবং কালী মন্দিরের মধ্যস্থলে তারা দেবীর অবস্থান। ইনি এখানে উগ্রতারা। ভুবনেশ্বরীর কথা তো আগেই বলেছি। এবার ভৈরবীর কথা বলি। কামাখ্যা মন্দিরের দক্ষিণ দিকে একটু নিম্নস্থানে ভৈরবী দেবীর মন্দির। এই দেবী ত্রিঅঙ্গে বিভক্ত। উত্তরাঙ্গ হর, পশ্চিমাঙ্গ হেরুক ও দক্ষিণাঙ্গ ত্রিপুর ভৈরবী। এখানকার কুণ্ডটির নাম ভৈরবীকুণ্ড। অসংখ্য কচ্ছপে পরিপূর্ণ। কামাখ্যা মন্দিরের দক্ষিণে দেবী ছিন্নমস্তা গুপ্তদুর্গা নামে বিরাজিতা। অগ্নিকোণে আছেন বগলা। এর দক্ষিণ প্রান্তেই ধূমবতীর পীঠ। ইনি কষ্মাণ্ডী নামে প্রসিদ্ধা। এই পীঠকে বলা হয় কোটেশ্বরী পীঠ। দশমহাবিদ্যা দর্শনের পর মহাদেবের পঞ্চপীঠও দর্শন করতে হয়। তবে এই দর্শনে একজন পাণ্ডা অথবা স্থানীয় কাউকে সঙ্গে নিলে দর্শন সহজসাধ্য হয়।
কামাখ্যা মন্দিরে সবচেয়ে দর্শনীয় যা তা হল সৌভাগ্যকুণ্ড। মন্দির এলাকার মধ্যেই উত্তরদিকে এই সৌভাগ্যকুণ্ড। ইন্দ্রাদি দেবগণ এখানেই কুণ্ড খনন করে নরকাসুর বধের জন্য তপ ও জলতর্পণ করেন। দ্বারভাঙার মহারাজ ইটের প্রাচীর দিয়ে এই কুণ্ডটিকে দু’ভাগ করেছেন। একদিকের জল সাধারণের ব্যবহারের জন্য অপরদিকের কুণ্ডসলিলে মহামায়ার নিত্যস্নান ও ভোগপূজাদি হয়।
কামাখ্যা মন্দির দর্শনের পর তন্ত্র সাধনার মূল পীঠস্থান প্রাগ্‌঩জ্যোতিষপুরেও যাওয়া যেতে পারে। সুপ্রাচীনকালে পিতামহ ব্রহ্মা এখানে বসে নক্ষত্রাদি জগতের সৃষ্টিকার্য আরম্ভ করেছিলেন তাই এর নাম প্রাগ্‌঩জ্যোতিষপুর। নরকাসুর ও তাঁর পুত্র ভগদত্ত এই প্রাগ্‌঩জ্যোতিষপুরেই রাজত্ব করতেন। ভগদত্তের কন্যা ভানুমতীকে মহাভারতের দুর্যোধন বিবাহ করেছিলেন। যেখানে নরকাসুরের রাজ্যপাট ছিল সেটি গুয়াহাটি শহর থেকে তিন কিমি দূরে চিত্রাচলে। সেখানে নবগ্রহের অধিষ্ঠান আছে। এখনও প্রবলভাবে জ্যোতিষচর্চা হয় সেখানে।
গুয়াহাটি শহর থেকে ১২ কিমি দূরে বশিষ্ঠ আশ্রম না দেখলে মন ভরবে না। স্টেশনের কাছ থেকেই ঘন ঘন বাস ছাড়ে বশিষ্ঠ আশ্রমের।
বশিষ্ঠ আশ্রমের অবস্থান সন্ধ্যাচল পর্বতে। কী দারুণ প্রাকৃতিক সৌন্দর্য সেখানকার। দলে দলে যাত্রীরা আসেন এখানে পুজো দিতে। একটি বড় গুহাকে ঘিরে মন্দির। অন্ধকার গুহায় দুটি বড় বড় শিলাখণ্ডই বশিষ্ঠমুনির স্মৃতি বহন করছে। এখানে বসেই মুনি তপস্যা করতেন। গুহামন্দিরের পাশে উচ্চ পর্বতের ঘন বনভূমির মধ্য দিয়ে সন্ধ্যা, ললিতা ও কান্তা নামে তিনটি ঝর্ণা নেমে এসে বশিষ্ঠ গঙ্গা নাম নিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
কালিকাপুরাণে আছে— ব্রহ্মার মানসপুত্র বশিষ্ঠদেব একবার নিমি রাজার অভিশাপে দেহহীন হন। রাজর্ষি নিমিও তখন দেহহীন হন বশিষ্ঠের শাপে। যাই হোক, বশিষ্ঠদের দেহ ফিরে পাওয়ার জন্য ব্রহ্মার শরণাপন্ন হন। ব্রহ্মা বশিষ্ঠকে উপদেশ দেন কামরূপের সন্ধ্যাচল পর্বতে বসে বিষ্ণুর তপস্যা করতে। বশিষ্ঠদেব তাই করেন। বিষ্ণুও প্রসন্ন হন। বশিষ্ঠের তপোপ্রভাবে এবং বিষ্ণুর বরে সন্ধ্যাচল পর্বতে সন্ধ্যা, ললিতা ও কান্তা নামে তিনটি ঝর্ণা উদ্‌গম হয় এবং সেই ঝর্ণা ধারাতেই আবির্ভূতা হন মা গঙ্গা। তাই এর নাম হল বশিষ্ঠগঙ্গা। বশিষ্ঠদেব প্রতিদিন এই ত্রিধারা সঙ্গমে স্নান, পান, সন্ধ্যা ও তর্পণ করে পূর্বশরীর প্রাপ্ত হন।
(ক্রমশ)
অলংকরণ : সোমনাথ পাল 
29th  September, 2019
মানুষ গড়ার কারিগর
সৌমিত্র চৌধুরী

 চোখের জল মুছে বাবা বলল, ‘ঠিক আছে স্যার, আপনার কথা রাখলাম। তবে ঋণ বাড়াব না। ফেল করলে ওর কিন্তু পড়া বন্ধ।’ এত দূর বলে আমাদের পিসিএম থামল। আমার চোখে বিস্ময়। জম স্যার নিজে গেল হাটখোলায়? একটু অবাক হয়েছিলাম সেদিন। কিন্তু কয়েকমাস পরে ক্লাসের সবাইকে, এমনকী গোটা স্কুলকে অবাক করে দেবার মতো ঘটনা ঘটল। অঙ্কে আশি নম্বর পেয়ে বার্ষিক পরীক্ষায় চার নম্বর স্থানটা দখল করেছে প্রদীপ। বিশদ

08th  December, 2019
অথৈ সাগর

 আগামী বছর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশতজন্মবর্ষ। তার প্রাক্কালে মাইলফলক দেখে ইংরেজি সংখ্যা শেখাই হোক বা বিধবা বিবাহ প্রচলনের জন্য তীব্র লড়াই— বিদ্যাসাগরের জীবনের এমনই নানা জানা-অজানা কাহিনী দিয়ে সাজানো এ ধারাবাহিকের ডালি। বিশদ

08th  December, 2019
আজও তারা জ্বলে
ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়
সন্দীপ রায়চৌধুরী

 ওপার বাংলা থেকে আসা ‘বাঙাল’ ভানুকে শুধু চেহারা দেখেই নাকি ‘জাগরণ’ ছবির জন্য নির্বাচন করেছিলেন বিভূতি চক্রবর্তী। কারণ হিসেবে বলেছিলেন, ‘আমার ছবিতে দুর্ভিক্ষপীড়িত চিমসে চেহারার একটা চরিত্র আছে, সেটা তুমি করবে।’ বিশদ

08th  December, 2019
ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় পর্ব * ১
সন্দীপ রায়চৌধুরী

উজ্জ্বল জ্যোতিষ্কের দ্যুতিতে ভাস্বর। এই লাইনটা বললে হয়তো এক রকম অপমানই করা হয় তাঁদের। কারণ অন্যের আলোয় আলোকিত হওয়ার প্রয়োজন এঁদের কারও কখনও হয়নি। এঁরা নিজেরাই এক একজন কিংবদন্তি।   বিশদ

01st  December, 2019
অথৈ সাগর
বারিদবরণ ঘোষ

আগামী বছর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশতজন্মবর্ষ। তার প্রাক্কালে মাইলফলক দেখে ইংরেজি সংখ্যা শেখাই হোক বা বিধবা বিবাহ প্রচলনের জন্য তীব্র লড়াই— বিদ্যাসাগরের জীবনের এমনই নানা জানা-অজানা কাহিনী দিয়ে সাজানো এ ধারাবাহিকের ডালি। 
বিশদ

01st  December, 2019
ফেসবুকে বনলতা
শুচিস্মিতা দেব 

আমি তপেন বাগচি। পেশাহীন এবং নেশাহীন ছাপোষা মানুষ। পেশার অভাবে নেশা করার হিম্মত হয়নি কখনও। অভিজাত পাড়ায় ঠাকুরদার আমলের দোতলা বাড়িতে বিনা পয়সার বাসস্থান। বাবা ছিলেন ব্যারিস্টার ঠাকুরদার ল ফার্মের যোগ্য উত্তরাধিকারী।   বিশদ

01st  December, 2019
পুণ্য ভূমির পুণ্য ধুলোয়
মহাকালীর কালীমঠ
ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়  

পর্ব-৩৭

হিমালয়ের পবিত্র দেবস্থানগুলি বারে বারে পরিব্রজন করলেও গুপ্তকাশীর অদূরে কালীমঠে আর যাওয়াই হয় না। তাই সেবার গৌরীকুণ্ডের পথে ত্রিযুগীনায়ারণ হয়ে গুপ্তকাশীতে এসে রাত্রিবাস করলাম। 
বিশদ

24th  November, 2019
ছায়া আছে কায়া নেই
অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়  

৩৭

ছিলেন বিজ্ঞানের ছাত্র, বিষয় ছিল রসায়ন। তিনি নিজের সম্পর্কে বলতেন, ‘আমি বিজ্ঞানের ছাত্র। আচারে-ব্যবহারে, ভ্রমণে-পর্যটনে, খাদ্যে-পানীয়ে কালাপাহাড় বলিয়া পরিচিত মহলে আমার অখ্যাতি আছে; তবু আজ অস্বীকার করিতে পারি না, অলৌকিক শ্রেণীর দুইটি ঘটনার আমি সাক্ষী হইয়া আছি। 
বিশদ

24th  November, 2019
বীরবল
তপন বন্দ্যোপাধ্যায়

 বাদশাহের মর্জিতেই তাকে নামানো হয়েছে লড়াইতে, কিন্তু তাকে কিছুতেই বাগ মানাতে পারছে না তার পিলবান। কিছুক্ষণের মধ্যেই সে প্রতিদ্বন্দ্বী হাতিকে ছেড়ে তাড়া করল এক জওয়ান লেড়কা দর্শককে, সেই লেড়কা দ্রুত পালিয়ে ঢুকে গেল আম-আদমির ভিড়ের মধ্যে। হাতিটা তখন দূর থেকে দেখছে বীরবরের লাল বেনিয়ান পরা চেহারাটা। বিশদ

17th  November, 2019
 বন্ধুত্ব
তপনকুমার দাস

দীনবন্ধুর যে ক’জন বন্ধু ছিল, তাদের সবাই প্রায় হারিয়ে গেছে। কলেজবেলার পর চাকরিবেলার শুরুতেই হারানোর পালা শুরু হতে হতে সংসারবেলায় পৌঁছে একেবারে ফেড আউট হয়ে গেছিল যাবতীয় বন্ধুত্ব। একে অপরকে ভুলে যেতে যেতে একসময় গল্পের উঠোনে গিয়ে দাঁড়িয়েছিল সব বন্ধুত্ব।
বিশদ

17th  November, 2019
পুণ্য ভূমির পুণ্য ধুলোয়
পুষ্করের সাবিত্রী মা
ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায় 

পর্ব-৩৫

রাজস্থান ভ্রমণে এসে পুষ্কর তীর্থে স্নান করে ভারতের একমাত্র ব্রহ্মা মন্দিরে পুজো দিয়ে সাবিত্রী পাহাড়ে সাবিত্রী মাতাকে দর্শন করেন না এমন যাত্রী নেই বললেই চলে।
আজমির থেকে পুষ্করের দূরত্ব ১১ কিমি।  
বিশদ

10th  November, 2019
ছায়া আছে কায়া নেই
অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়  

৩৫

ঔপন্যাসিক উপেন্দ্রনাথ গঙ্গোপাধ্যায়। ১৩৩৪ বঙ্গাব্দের আষাঢ় মাসে ‘বিচিত্রা’ পত্রিকা প্রতিষ্ঠার সঙ্গে সঙ্গে শুরু হল এক নতুন যুগের। জন্ম হল উপেন্দ্রনাথ গঙ্গোপাধ্যায় নামে এক স্বয়ংসম্পূর্ণ প্রতিষ্ঠানের। সম্পর্কে তিনি ছিলেন কথা সাহিত্যিক শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের মামা।   বিশদ

10th  November, 2019
সম্পর্ক
সম্পন্ন চৌধুরী 

রাত প্রায় বারোটা
মুষলধারে বৃষ্টি হয়েই চলেছে। থামার কোনও লক্ষণই যেন নেই। কিন্তু গরমটা কিছুতেই যেন কমছে না। মানে বৃষ্টিটা আরও হবে। গোটা বাড়িটাই প্রায় জলে ভরে গেছে। ঘরের ভিতরেও জল ঢুকবে ঢুকবে করছে। 
বিশদ

10th  November, 2019
পুণ্য ভূমির পুণ্য ধুলোয়
দেশনোকের করণীমাতা
ষষ্ঠীপদ চট্টোপাধ্যায়

পর্ব-৩৪

দেশনোকের করণীমাতার প্রসঙ্গে এবার আসা যাক। ইনি রাজস্থানের মরু অঞ্চলে রাজ পরিবারের আরাধ্যা দেবী। করণীমাতার মন্দির হচ্ছে পৃথিবীবিখ্যাত মন্দির, অসংখ্য ইঁদুরের জন্য এই মন্দির ‘চুহা মন্দির’ নামে প্রসিদ্ধ। সেবার রাজস্থান ভ্রমণের সময় মুলতানি ঘাঁটির কোলায়েতে গিয়েছিলাম কপিলমুনির মন্দির ও পবিত্র সরোবর দেখতে।  
বিশদ

03rd  November, 2019
একনজরে
হায়দরাবাদ, ৮ ডিসেম্বর (পিটিআই): তেলেঙ্গানায় পশু চিকিৎসককে গণধর্ষণ করে পুড়িয়ে মারায় অভিযুক্ত চারজনের পুলিসি এনকাউন্টার নিয়ে রবিবারও পুরোদস্তর তদন্তের প্রক্রিয়া চালাল জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। শনিবার থেকে এই তদন্ত শুরু হয়েছে।  ...

বিএনএ, সিউড়ি ও সংবাদদাতা, শান্তিনিকেতন: লাভপুরে একই পরিবারের তিন ভাইয়ের হত্যা মামলায় নতুন করে সাপ্লিমেন্টারি চার্জশিট জমা দিল পুলিস। নতুন করে চার্জশিটে নাম জুড়ল বিজেপি নেতা মনিরুল ইসলামের।  ...

সংবাদদাতা, পুরাতন মালদহ : যে আমবাগান থেকে দিন তিনেক আগে উদ্ধার করা হয়েছে দগ্ধ মহিলার দেহ, তার এক প্রান্তে রয়েছে আড়াপুর জোত টিপাজানি আহ্লাদমণি ঘোষ ...

সংবাদদাতা, তারকেশ্বর: তারকেশ্বর নতুন বাসস্ট্যান্ডে নির্মিত পুরসভার প্যাথলজিক্যাল পরীক্ষাগার বেসরকারিকরণ হতে চলেছে। ‌বোর্ড মিটিংয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে পুরসভা সূত্রে জানা গেছে। এই বিষয়ে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

মাঝে মধ্যে মানসিক উদ্বেগের জন্য শিক্ষায় অমনোযোগী হয়ে পড়বে। গবেষণায় আগ্রহ বাড়বে। কর্মপ্রার্থীদের নানা সুযো ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৪৮৩: অন্ধকবি সুরদাসের জন্ম
১৮৯৮: বেলুড় মঠ প্রতিষ্ঠিত হল
১৬০৮: ইংরেজ কবি জন মিলটনের জন্ম
১৯৪৬: কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধীর জন্ম
১৯৪৬: অভিনেতা শত্রুঘ্ন সিনহার জন্ম
২০১১: আমরি হাসপাতালে আগুন 





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৪৯ টাকা ৭২.১৯ টাকা
পাউন্ড ৯২.২০ টাকা ৯৫.৫৪ টাকা
ইউরো ৭৭.৭৫ টাকা ৮০.৭৪ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
07th  December, 2019
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৩৮৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৪২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৬, ৯৬৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৩, ৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৩, ৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
08th  December, 2019

দিন পঞ্জিকা

২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, দ্বাদশী ৯/২৩ দিবা ৯/৫৪। ভরণী ৫৭/৯ শেষ রাত্রি ৫/০। সূ উ ৬/৮/৫৩, অ ৪/৪৮/২৯, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৩ মধ্যে পুনঃ ৮/৫৮ গতে ১১/৬ মধ্যে। রাত্রি ৭/২৮ গতে ১১/২ মধ্যে পুনঃ ২/৩৫ গতে ৩/৩০ মধ্যে, বারবেলা ৭/২৭ গতে ৮/৪৮ মধ্যে পুনঃ ২/৮ গতে ৩/২৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৪৮ গতে ১১/২৮ মধ্যে। 
২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার, দ্বাদশী ৭/১০/১১ দিবা ৯/২/২২। ভরণী ৫৭/৩১/১০ শেষরাত্রি ৫/১০/২৬, সূ উ ৬/১০/১৮, অ ৪/৪৯/১, অমৃতযোগ দিবা ৭/৩৯ মধ্যে ও ৯/৪ গতে ১১/১১ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩১ গতে ১১/৫ মধ্যে ও ২/৪০ গতে ৩/৩৪ মধ্যে, কালবেলা ৭/৩০/৮ গতে ৮/৪৯/৫৯ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৪৯/৩০ গতে ১১/২৯/৪০ মধ্যে।
১১ রবিয়স সানি 

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে জেএনইউ পড়ুয়াদের মিছিলে লাঠিচার্জ করল পুলিস 

04:29:13 PM

ডোপিংয়ের অভিযোগে ওলিম্পিক থেকে চার বছরের জন্য নির্বাসিত রাশিয়া 

04:12:10 PM

কর্ণাটক বিধানসভা উপনির্বাচনে কংগ্রেসের হার, পরিষদীয় দলনেতার পদ থেকে পদত্যাগ সিদ্দারামাইয়ার

03:56:19 PM

৪২ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

03:50:07 PM

পানিপথ: জয়পুরে সিনেমা হলে ভাঙচুর 
হিন্দি ছবি পানিপথে মহারাজ সূরজমলের চরিত্র বিকৃত করা হয়েছে, এই ...বিশদ

03:32:17 PM

মালদহে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে ভাঙচুর 
আধার কার্ডের জন্য রাত থেকে লাইন দিয়েছিলেন আবেদনকারীরা। সকাল ১০টার ...বিশদ

01:57:25 PM