Bartaman Patrika
গল্পের পাতা
 

ছায়া আছে কায়া নেই
অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়

১৯
স্ত্রীর মুত্যুতে একদম অসহায় হয়ে পড়েছিলেন প্যারীচাঁদ মিত্র। নিঃসঙ্গতা তাঁকে গ্রাস করছিল। পরিবার থেকে ক্রমশ তিনি দূরে সরে যাচ্ছিলেন। অবেলায় স্ত্রীকে হারিয়ে তিনি যে বিপন্নবোধ করছিলেন তা তাঁর—‘ON THE SOUL: ITS NATURE AND DEVELOPMENT’ গ্রন্থের ভূমিকায় চোখ বোলালেই স্পষ্ট বোঝা যায়। তিনি লিখছেন— ‘ My love for God became stronger by the afflictions I met with from time to time. In the year 1860 I lost my wife, which convulsed me much, I took to the study of spiritualism which, I confess. I would not have thought of otherwise nor relished its charms. I wrote for instruction to Judge W. Edmonds in May 1861..... ’ তিনি তাঁর গ্রন্থের ভূমিকায় আরও লিখছেন— তাঁর সহৃদয় সেই সুপরামর্শ আমি আমার পরবর্তী গ্রন্থ ‘ Stray Thoughts On Spiritualism’-এ সুন্দর ভাবে লিপিবদ্ধ করেছিলাম। এই সময়েই ডাক্তার বেরিগনি কলকাতায় এসেছিলেন। সালটা ছিল ১৮৬৩ (ফরাসি ডাক্তার বেরিগনিই প্রথম কলকাতায় হোমিওপ্যাথি চিকিৎসা ও পরলোক চর্চা শুরু করেন)। সেইসময় তাঁর বাড়িতে আমরা প্রতি সপ্তাহে চক্রে বসতাম। একটি বৈঠকে আমিই হয়েছিলাম মিডিয়াম। ১৮৬০ সাল থেকেই আমি আধ্যাত্মিক লেখাপড়া ও ধ্যানধারণায় গভীরভাবে ডুবে গিয়েছিলুম। এর প্রভাবে আমার চারটি বছর অতিবাহিত হয়, যার ফলে আমি এই সিদ্ধান্তে এসেছি— যোগ এবং স্পিরিচ্যুয়ালিজম একই লক্ষ্যের অভিমুখী। সেই লক্ষ্যটি হল ধীরে ধীরে ইন্দ্রিয়ের হাত থেকে মুক্তি।
প্যারীচাঁদ মিত্রের জীবনীকার লিখছেন— ‘প্যারীচাঁদ খড়দহের প্রাণকৃষ্ণ বিশ্বাসের কন্যা বামাকালীকে বিবাহ করিয়াছেন।.... পত্নীবিয়োগের পর হইতে তিনি প্রেততত্ত্বের দিকে আকৃষ্ট হইয়া পড়েন।’
স্ত্রী-বিয়োগের পর একদম বিধ্বস্ত প্যারীচাঁদ মিত্রের মানসিক অবসাদের হৃদয়স্পর্শী বর্ণনা দিয়ে গিয়েছেন রাজকৃষ্ণ মিত্র তাঁর ‘শোকবিজয়’ গ্রন্থে। তিনি লিখছেন, ‘মৃত্যুর পর আমাদের আত্মীয় স্বজনের মুক্তাত্মা নিকটে থাকিয়া আপদ হইতে সর্ব্বদা রক্ষা করেন। বাবু প্যারিচাঁদ মিত্রের নাম কে না শুনিয়াছেন! ইনি ইংরাজি ও সংস্কৃত ভাষায় অতিশয় পণ্ডিত। বিগত ৫০ বৎসর মধ্যে এ নগরীতে যত সাধারণ হিতার্থী কার্য্য হইয়াছে, প্যারিবাবুর হাত ছাড়া কোন কর্ম্মই হয় নাই। দেশের ছোট বড় যাবতীয় লোক, এমনকি রাজপুরুষগণ পর্য্যন্ত ইঁহাকে অতিশয় সম্ভ্রম করেন। কয়েক বৎসর হইল, পরিবারের মৃত্যু হওয়ায় প্যারিবাবু শোকে অতিশয় কাতর হইয়া অধ্যাত্ম বিজ্ঞান চর্চ্চা করিতে করিতে ১৮৬৪ সালে নিজে ঩মিডিয়ম হইয়া উঠিলেন। এখন উঁহার স্ত্রী সর্ব্বদা নিকটে থাকিয়া নিয়মিত পতিসেবা করেন ও আপদ-বিপদ হইতে রক্ষা করিয়া থাকেন। প্যারিবাবু মনে করিলেই তাঁহাকে দেখিতে পান, আর এখন তিনি ‘ধরি মাছ না ছুঁই পানি’ রূপে সংসারে লিপ্ত থাকিয়া আত্মার মুক্তকাল অপেক্ষায় দিবানিশি ঈশ্বর আরাধনায় নিযুক্ত থাকিয়া দিন যাপন করিতেছেন।’
প্যারীচাঁদ মিত্র সেইসময় কলিকাতার বেঙ্গল লাইব্রেরির (বর্তমানে জাতীয় গ্রন্থাগার) সম্পাদক ছিলেন। স্ত্রীর মৃত্যুর পর তিনি পরলোক চর্চা নিয়ে অতিশয় মেতে উঠলেন। লাইব্রেরির সংগ্রহশালায় থাকা পরলোকতত্ত্ব সম্বন্ধীয় বিভিন্ন পুস্তক ও প্রবন্ধাদি পাঠ করতে শুরু করলেন। আর তারই ফলস্বরূপ তিনি অল্পদিনের মধ্যে প্রেতচক্র ও প্রেতলোক সম্পর্কে বিশেষজ্ঞ হয়ে উঠেছিলেন। লাইব্রেরির কর্ম ও অন্যান্য কাজ সেরে ঘরে ফিরেই তিনি বসে পড়তেন প্রেতচক্রে। এই কাজে তাঁকে সাহায্য করতেন তাঁর পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা। আর প্যারীচাঁদ মিত্র হতেন মিডিয়াম। এইসময় থেকে প্যারীচাঁদ লন্ডনের ‘স্পিরিচুয়ালিস্ট’, বস্টনের প্রেততত্ত্ববিষয়ক ‘ব্যানার অফ লাইট’ এবং বোম্বের ‘থিওজফিস্ট’ পত্রিকায় নিয়মিত প্রবন্ধ লিখতে শুরু করেন।
ঊনবিংশ শতকের ছয়ের দশককে বৈপ্লবিক দশক হিসেবে অনায়াসে চিহ্নিত করা যায়। নতুন চিন্তা, নতুন ভাবধারার সঙ্গে আমরা তখন পরিচিত হচ্ছি। আর এরই পাশাপাশি বাংলা মেতে উঠেছিল পরলোকচর্চা নিয়ে এবং এর প্রধান উদ্যেক্তা ছিলেন প্যারীচাঁদ মিত্র ওরফে টেকচাঁদ ঠাকুর। তাঁরই নেতৃত্বে ১৮৮০ সালে কলকাতায় ইউনাইটেড অ্যাসোসিয়েশন অব স্পিরিচুয়্যালিস্ট নামে একটি সমিতি গঠিত হয়েছিল। এই সমিতির সভাপতি ছিলেন জে জি মিউগেন্স, সহ সভাপতি ও সম্পাদক রূপে মনোনীত হন যথাক্রমে প্যারীচাঁদ মিত্র ও নরেন্দ্রনাথ সেন।
তাঁদেরই আমন্ত্রণে ১৮৮২ খ্রিস্টাব্দের ১৯ মার্চ নিউ ইয়র্ক থিওজফিক্যাল সোসাইটির সভাপতি কর্নেল অলকট ও প্রেততত্ত্ববিশেষজ্ঞা মাদাম ব্ল্যাভাৎস্কি কলকাতায় এসেছিলেন। প্রাসঙ্গিক না হলেও একথা জানানোর অবশ্যই প্রয়োজন আছে— এই অলকট এবং ব্ল্যাভাৎস্কি তাঁদের ‘অলৌকিক’ আসন বেশিদিন ধরে রাখতে পারেননি। তাঁরা যে প্রতারণা করে মানুষ ঠকাতেন, তা এর কিছুদিন বাদেই জনসমক্ষে প্রকাশিত হয়ে পড়ে। অচিরেই তাঁরা গুপ্ত স্থানে আত্মগোপন করতে বাধ্য হন। তবে এখন সেকথা থাক। তবে সেই বছরেরই এপ্রিল মাসে থিওজফিক্যাল সোসাইটির যে বঙ্গীয় শাখার প্রতিষ্ঠা হয়েছিল তারও সভাপতি ছিলেন প্যারীচাঁদ মিত্র।
প্যারীচাঁদ এবং তাঁদের ইউনাইটেড অ্যাসোসিয়েশন অফ স্পিরিচুয়্যালিস্টের অন্যান্য সভ্যরা নিয়মিত প্রেতচক্রে বসে বিভিন্ন আত্মাকে তাঁদের আসরে আহ্বান করে ডেকে এনে তাঁদের জীবনকাহিনী শুনতেন। কখনও কখনও তাঁদের সঙ্গে নানা প্রসঙ্গে আলাপ আলোচনাও করতেন। (ক্রমশ)
14th  July, 2019
 

বাংলা ছবির দিকপাল চরিত্রাভিনেতারা একেকটা শৈল্পিক আঁচড়ে বঙ্গজীবনে নিজেদের অমর করে রেখেছেন। অভিনয় ছিল তাঁদের শরীরে, মননে, আত্মায়। তাঁদের জীবনেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে অনেক অমূল্য রতন। তাঁরই খোঁজে সন্দীপ রায়চৌধুরী। আজ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়- অষ্টম কিস্তি।
বিশদ

19th  January, 2020
 

চলতি বছর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশতজন্মবর্ষ। সেই উপলক্ষে মাইলফলক দেখে ইংরেজি সংখ্যা শেখাই হোক বা বিধবা বিবাহ প্রচলনের জন্য তীব্র লড়াই— বিদ্যাসাগরের জীবনের এমনই নানা জানা-অজানা কাহিনী দিয়ে সাজানো এ ধারাবাহিকের ডালি। 
বিশদ

19th  January, 2020
নজরদার
সঞ্জয় রায়

—‘হ্যাঁ গো চাঁপার মা, এই তো সেদিনই তেল আনালাম। এর মধ্যেই শেষ?’
—‘ও মা অত্তগুলো নোকের রান্না, তা তেল লাগবে নাকো।’ 
বিশদ

19th  January, 2020
আজও তারা জ্বলে

বাংলা ছবির দিকপাল চরিত্রাভিনেতারা একেকটা শৈল্পিক আঁচড়ে বঙ্গজীবনে নিজেদের অমর করে রেখেছেন। অভিনয় ছিল তাঁদের শরীরে, মননে, আত্মায়। তাঁদের জীবনেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে অনেক অমূল্য রতন। তাঁরই খোঁজে সন্দীপ রায়চৌধুরী। আজ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়- সপ্তম কিস্তি। 
বিশদ

12th  January, 2020
অথৈ সাগর
বারিদবরণ ঘোষ

বিদ্যাসাগর মশায় কলকাতায় এলেন। বাবা ঠাকুরদাস বুঝতে পেরেছিলেন গাঁয়ের টোলে পড়িয়ে ছেলের কোনও ভবিষ্যৎ তৈরি হবে না। কলকাতার একটা ছাপের দরকার। সব দেশেই সব সমাজে পরামর্শদাতার অভাব হয় না। এমন করে তাঁরা কথা বলেন যে, সেই বিষয়ে তাঁর চেয়ে দিগ্‌গজ পণ্ডিত আর নেই।  
বিশদ

12th  January, 2020
হেঁড়ল
হামিরউদ্দিন মিদ্যা 

ধর! ধর! ধর!ছাগল নিয়েছে রে! হেঁড়লে ছাগল নিয়েছে!
সবেমাত্র খাওয়া-দাওয়া করে সারাদিন খেতে-খামারে খেটে আসা ক্লান্ত মানুষগুলো শুয়েছে, ঠিক তখনই বাগদিপাড়া থেকে সমস্বরে হইচই করে মাঠে নেমে এল কয়েকজন। হাতে টর্চ, লাঠি, কেউবা খালি হাতেই বেরিয়ে এসে ইঁটের টুকরো, শুকনো ঢিল তুলে নিয়েছে হাতে।  
বিশদ

12th  January, 2020
আজও তারা জ্বলে 

বাংলা ছবির দিকপাল চরিত্রাভিনেতারা একেকটা শৈল্পিক আঁচড়ে বঙ্গজীবনে নিজেদের অমর করে রেখেছেন। অভিনয় ছিল তাঁদের শরীরে, মননে, আত্মায়। তাঁদের জীবনেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে অনেক অমূল্য রতন। তাঁরই খোঁজে সন্দীপ রায়চৌধুরী। আজ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় ষষ্ঠ কিস্তি।

 
বিশদ

05th  January, 2020
অথৈ সাগর 
বারিদবরণ ঘোষ

জগতে কোন মা কবে ছেলের কাছে এমনধারা গয়না চেয়েছিলেন— আমাদের জানা নেই। এই গয়না চুরি হয় না, এই গয়না সবাই মিলে ভাগ করে নিতে পারে, এই গয়না কারও একার হয় না— দেশের সম্পদ হয়। 
বিশদ

05th  January, 2020
আজও তারা জ্বলে

বাংলা ছবির দিকপাল চরিত্রাভিনেতারা একেকটা শৈল্পিক আঁচড়ে বঙ্গজীবনে নিজেদের অমর করে রেখেছেন। অভিনয় ছিল তাঁদের শরীরে, মননে, আত্মায়। তাঁদের জীবনেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে অনেক অমূল্য রতন। তাঁরই খোঁজে সন্দীপ রায়চৌধুরী। আজ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চম কিস্তি। 
বিশদ

29th  December, 2019
অথৈ সাগর 

আগামী বছর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশতজন্মবর্ষ। তার প্রাক্কালে মাইলফলক দেখে ইংরেজি সংখ্যা শেখাই হোক বা বিধবা বিবাহ প্রচলনের জন্য তীব্র লড়াই— বিদ্যাসাগরের জীবনের এমনই নানা জানা-অজানা কাহিনী দিয়ে সাজানো এ ধারাবাহিকের ডালি।  বিশদ

29th  December, 2019
হিসেব-নিকেশ
অঞ্জনা চট্টোপাধ্যায় 

অটোরিকশর পিছনের সিটে, দু’জনের মাঝখানে বসে, প্যাচপ্যাচে গরমে ঘেমেনেয়ে একেবারে কাহিল অবস্থা হচ্ছে বিমলবাবুর। অতি কষ্টে প্যান্টের পকেট থেকে রুমালটা বের করে, মুখের ওপর জমে থাকা ঘামের বিন্দুগুলি মুছে নিয়ে, বিমলবাবু আবার একবার হাতঘড়ির দিকে দেখলেন।  বিশদ

29th  December, 2019
আজও তারা জ্বলে
পর্ব-৪

বাংলা ছবির দিকপাল চরিত্রাভিনেতারা একেকটা শৈল্পিক আঁচড়ে বঙ্গজীবনে নিজেদের অমর করে রেখেছেন। অভিনয় ছিল তাঁদের শরীরে, মননে, আত্মায়। তাঁদের জীবনেও ছড়িয়ে ছিটিয়ে অনেক অমূল্য রতন। তাঁরই খোঁজে সন্দীপ রায়চৌধুরী। আজ ভানু বন্দ্যোপাধ্যায়-চতুর্থ কিস্তি। 
বিশদ

22nd  December, 2019
অথৈ সাগর
বারিদবরণ ঘোষ

আগামী বছর ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের দ্বিশতজন্মবর্ষ। তার প্রাক্কালে মাইলফলক দেখে ইংরেজি সংখ্যা শেখাই হোক বা বিধবা বিবাহ প্রচলনের জন্য তীব্র লড়াই— বিদ্যাসাগরের জীবনের এমনই নানা জানা-অজানা কাহিনী দিয়ে সাজানো এ ধারাবাহিকের ডালি। 
বিশদ

22nd  December, 2019
ডাকনাম ফড়িং
স্বপন পাল

অখিলেশের চাকরি জীবন থেকে অবসর নেওয়া প্রায় চার বছর হয়ে গেল। তার এই অবসর জীবনে সবচেয়ে বড় সমস্যা দেখা দিয়েছে, অবসর সময় কাটানো নিয়ে সময় খুঁজে বের করা। বই বা খবরের কাগজ পড়ে কতটাই বা সময় কাটানো যায়। টিভি অখিলেশ খুব একটা দেখে না। চোখের ওপর চাপ পড়ে। গেল মাসে ডান চোখটায় ছানি অপারেশন হয়েছে। 
বিশদ

22nd  December, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, কান্দি: বৃহস্পতিবার রাতে খবর পেয়ে বড়ঞা থানার শ্রীরামপুর গ্রাম থেকে আগ্নেয়াস্ত্র সহ এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিস। ধৃতের নাম সাদ্দাম শেখ। ওই গ্রামেই তার বাড়ি।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: উৎপাদন কম থাকায় দাম বাড়ছে হু হু করে। সেকারণেই কুমোরটুলিতে শোলার বদলে সরস্বতী প্রতিমার সাজে ব্যবহার বাড়ছে জরির অলঙ্কারের। মৃৎশিল্পীদের কথায়, প্রতিমা তৈরির সরঞ্জামের দাম লাফিয়ে বাড়ছে। এর মধ্যে যদি প্রতিমা শোলার অলঙ্কারে সাজাতে হয়, তাহলে ঢাকের ...

অকল্যান্ড, ২৪ জানুয়ারি: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পিছিয়ে পড়ে একদিনের সিরিজ জেতার পর ভারতের আত্মবিশ্বাস যে অনেকটাই বেড়েছে তার প্রমাণ মিলল শুক্রবার। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে টি-২০ সিরিজের প্রথম ...

সংবাদদাতা, পুরাতন মালদহ: দক্ষিণবঙ্গ থেকে ভোজ্য তেল নিয়ে এসে কালিয়াচকের ডাঙা এলাকায় একটি গোডাইনে মজুত করেছিল পাচারকারীরা। কিন্তু শেষরক্ষা হয়নি। তার কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই তেল পাচারকারী লরির চালক ও খালাসিকে গ্রেপ্তার করে পুলিস।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ব্যবসাসূত্রে উপার্জন বৃদ্ধি। বিদ্যায় মানসিক চঞ্চলতা বাধার কারণ হতে পারে। গুরুজনদের শরীর-স্বাস্থ্য নিয়ে সচেতন থাকা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

জাতীয় ভোটদাতা দিবস
১৮৫০: অভিনেতা অর্ধেন্দু শেখর মুস্তাফির জন্ম
১৮৫৬: সমাজসেবক ও লেখক অশ্বিনীকুমার দত্তের জন্ম
১৮৭৪: ইংরেজ লেখক সামারসেট মমের জন্ম  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.৫১ টাকা ৭২.২১ টাকা
পাউন্ড ৯১.৯৮ টাকা ৯৫.৩২ টাকা
ইউরো ৭৭.৩৮ টাকা ৮০.৩৩ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪০,৭১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৮,৬২৫ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৯,২০৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৬,৪০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৬,৫০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫৫/২৪ রাত্রি ৪/৩২। শ্রবণা ৫৫/৩৩ রাত্রি ৪/৩৬। সূ উ ৬/২২/৭, অ ৫/১৫/৩১, অমৃতযোগ দিবা ১০/০ গতে ১২/৫৩ মধ্যে। রাত্রি ৭/৫২ গতে ১০/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/১৪ গতে ২/০ মধ্যে পুনঃ ২/৫২ গতে ৪/৩৭ মধ্যে। বারবেলা ৭/৪৩ মধ্যে পুনঃ ১/১০ গতে ২/৩২ মধ্যে পুনঃ ৩/৫৪ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৬/৫৪ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৪ গতে উদয়াবধি। 
১০ মাঘ ১৪২৬, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৫২/৪৫/৪২ রাত্রি ৩/৩১/৩১। শ্রবণা ৫৪/৮/১ শেষরাত্রি ৪/৪/২৬। সূ উ ৬/২৫/১৪, অ ৫/১৪/৮, অমৃতযোগ দিবা ৯/৫৮ গতে ১২/৫৭ মধ্যে ও রাত্রি ৭/৫৮ গতে ১০/৩৩ মধ্যে ও ১২/১৬ গতে ১/৫৮ মধ্যে ও ২/৫০ গতে ৪/৩৩ মধ্যে। কালবেলা ৭/৪৬/২১ মধ্যে ও ৩/৫৪/২ গতে ৫/১৪/৮ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৫৪/১ মধ্যে ও ৪/৪৬/২০ গতে ৬/২৪/৫৫ মধ্যে। 
২৯ জমাদিয়ল আউয়ল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
২৬ জানুয়ারি বন্ধ থাকবে দিল্লি মেট্রোর সমস্ত পার্কিং লট
 

২৬ জানুয়ারি, সাধারণতন্ত্র দিবসের দিন বন্ধ থাকবে দিল্লি মেট্রোর সমস্ত ...বিশদ

10:40:48 AM

জম্মু ও কাশ্মীরের অবন্তিপোরায় সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই 

10:37:58 AM

বিহারের হাজিপুরে পুলিসের গুলিতে হত কুখ্যাত দুষ্কৃতী বাইজু মাহাতো 

10:37:00 AM

ঘন কুয়াশার জেরে দৃশ্যমানতা কম, উঃ ভারতে দেরিতে চলছে ২১টি দুরপাল্লার ট্রেন 

10:29:00 AM

করোনা সংক্রমণে চিনে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪১ 

10:28:00 AM

শহরে ট্রাফিকের হাল
 

আজ, শনিবার সকালে শহরের রাস্তাঘাটে যান চলাচল মোটের উপর স্বাভাবিক। ...বিশদ

10:27:00 AM