Bartaman Patrika
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 

কেমন যাবে ১৪২৭
শ্রীশাণ্ডিল্য

১৪২৭ সালের সূচনাকালে রাশিচক্রে নবগ্রহের অবস্থান— রবি মেষে, শুক্র বৃষে, রাহু মিথুনে, চন্দ্র ও কেতু ধনুতে, মকরে বৃহস্পতি, শনি, মঙ্গল ও মীনে বুধ। তিথি— কৃষ্ণ সপ্তমী, শিবযোগ,ববকরণ পূর্বাষাঢ়া নক্ষত্র। মেষ থেকে লগ্ন আরম্ভ। বারোটি রাশির নতুন বছরের ভাগ্যবিচার। তাই ‘অন্নগতপ্রাণ’ মানুষের আর্থ-সামাজিক, পারিবারিক ক্ষেত্রে বিশেষ গুরুত্বকেই প্রাধান্য দেওয়া হল।
মেষ রাশি
শুভাশুভ মিশ্রভাবে বছরটি কাটবে। জাতকের অর্থপ্রাপ্তি যোগ বেশ ভালো। দীর্ঘমেয়াদি অর্থলগ্নী শুভফল দেবে। তবে শেয়ার বা ফাটকায় অর্থ বিনিয়োগে ক্ষতির সম্ভাবনা আছে। পুলিস, আইটি সেক্টরের কর্মী, চিকিৎসক, আইনজীবী, রাসায়নিক দ্রব্য ও শস্য ব্যবসায়ীর অর্থ ও কর্মে বিশেষ উন্নতি হবে। ২৫ জুলাই থেকে ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কর্মক্ষেত্রে কম-বেশি বাধা, অশান্তির যোগ রয়েছে। সতর্ক থাকতে হবে। নতুন কর্মপ্রাপ্তি হতে পারে। কর্মসূত্রে দেশের মধ্যে একাধিক স্থানে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। স্বাস্থ্য খুব একটা ভালো যাবে না। ৫৯ বছরের বেশি বয়সিদের শারীরিক সমস্যা দেখা দেবার সম্ভাবনা সর্বাধিক। ভাইরাস ঘটিত রোগ, কোমর থেকে পায়ের পাতা পর্যন্ত অংশে বাতের বেদনা বৃদ্ধি, শ্লেষ্মাদি রোগে ভোগান্তি হতে পারে। হঠাৎ আঘাত লাগা অসম্ভব নয়। শিক্ষাক্ষেত্রটি শুভ। প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার ফল ভালো হবে। তবে মাঝেমাঝে মানসিক চঞ্চলতা বাড়বে। শিল্পীদের বিশেষ শুভপ্রদ। সংসারে সুখ শান্তি বজায় থাকবে। মাঝেমাঝে স্ত্রীর সঙ্গে মত পার্থক্য হতে পারে। সন্তানের কৃতিত্বে গৌরবান্বিত হবেন। বাবার স্বাস্থ্য ভালো যাবে না। ২০ এপ্রিল থেকে ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত ভাই-বোন, সন্তান ও স্ত্রীর সঙ্গে সম্পর্কে ভুল বোঝাবুঝির প্রভাব পড়তে পারে।
প্রেম প্রণয়ে আনন্দলাভ এবং বিবাহের সম্ভাবনা। গৃহে শুভ কাজ হবে। পরোপকার করতে গিয়ে বিপদে পড়তে পারেন। আইনগত সমস্যাও হতে পারে। ১০ আশ্বিন থেকে ২৩ ফাল্গুনের মধ্যে দীর্ঘদিনের সম্পত্তিগত ঝামেলার অবসান হতে পারে। নতুন কোনও বাড়ি বা ফ্ল্যাট কেনার যোগ রয়েছে।
শুভরত্ন: পান্না। শুভ সংখ্যা: ২,৬। অশুভ সংখ্যা: ৪,৯। শুভ রং—সবুজ, হলুদ। প্রতিকার: চন্দন দিয়ে একটি তুলসি পাতা ও লাল জবাফুল হনুমানজিকে দিন ও গাওয়া ঘিয়ের দীপ দিয়ে আরতি করুন।

বৃষ রাশি
জাতকের পক্ষে বছরটি শুভ হলেও ঘটনাবহুল। জাতকের কর্মে হঠাৎ আয় বৃদ্ধি ও উন্নতি হবে। ভবিষ্যৎমুখী পরিকল্পনার বাস্তবায়ন হবে। অর্থ সঞ্চয়ে বাধা থাকলেও আগের থেকে বেশি সঞ্চয় হবে। অংশীদারি কারবারে ক্ষতির সম্ভাবনা। রাসায়নিক দ্রব্যের ব্যবসায়ী, চাকুরীজীবী, চিকিৎসক, সাংবাদিক, রাজনীতিকদের কর্মের প্রসার। খ্যাতি ও অর্থ উপার্জন প্রচুর হবে। কর্মসূত্রে বিদেশ যাত্রাও হতে পারে। স্বাস্থ্য এক প্রকার ভালোই। পা, কোমর ও ঘাড়ে বাতের বেদনা, হাঁপানি, পেটের রোগ বাড়বে। সংক্রামক রোগেও কষ্ট পাবার যোগ রয়েছে। ৫০ বছরের বেশি বয়সিদের হার্টের অসুখ ও সেরিব্রালে আক্রান্ত হবার সম্ভাবনা। জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সাবধানে থাকার চেষ্টা করুন।
শিক্ষার্থীদের শুভ সময় আগত। দর্শন, বাণিজ্য, আইন, অর্থনীতি তথা উচ্চ শিক্ষার ক্ষেত্রে শুভ ফল হবে। শিক্ষার জন্য বিদেশ যাত্রা হতে পারে। একই সঙ্গে স্কলারশিপ প্রাপ্তি এবং নামযশ বৃদ্ধির যোগ আছে।
স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক ভালো হবে। ৪৯ বছরের ওপরের স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মানসিক চঞ্চলতা বাড়বে। বাবার সঙ্গে সম্পর্ক ভালো থাকবে এবং জাতক বা জাতিকা তাঁদের দ্বারা বৈষয়িক ভাবে উপকৃত হবেন। মায়ের স্বাস্থ্য মাঝেমধ্যে ভালো যাবে না। ভাইবোনের সঙ্গে সুসম্পর্কের অভাব হতে পারে।
প্রেমে প্রতারিত হতে পারেন। সম্ভব হলে এবছর বিয়ে না করলেই মঙ্গল। তবে অপারগ হলে ভালো করে দেখে শুনে বিয়ে করুন। লটারি বা ফাটকা কারবার থেকে অর্থ উপার্জনের যোগ রয়েছে। স্বদেশে বা বিদেশে সুখকর ভ্রমণের সম্ভাবনা। ধর্মেকর্মে মনে শান্তি পাবেন। নতুন কর্মলাভের যোগ প্রবল। শত্রুরা মাথা চাড়া দেবে ও ক্ষতির চেষ্টা করবে।
শুভ রত্ন: ইন্দ্রনীলা। শুভ সংখ্যা: ৫,৯। অশুভ সংখ্যা: ১,৭। শুভ রং: আকাশি, হলুদ ও সাদা। প্রতিকার: শ্রীহরি ও নারায়ণের ফটোতে বোঁটা সমেত দুটি তুলসি দিন, মধুসূদন স্তব পাঠ।

মিথুন রাশি
বছরটি শুভাশুভ মিশ্র হলেও শুভভাব বেশি। অর্থকড়ি প্রাপ্তি বেশ ভালো হবে। চাকরিতে আয়, উন্নতি ও সুনাম বাড়বে। একাধিক ক্ষেত্র থেকে অর্থ উপার্জন হবে। অংশীদারি কারবারে বিবাদ, অর্থক্ষতির সম্ভাবনা। পেশাদার সাহিত্যিক, শিল্পী উকিল, ইমারত দ্রব্যের কারবারি, শিক্ষক, অধ্যাপক, সাংবাদিকতায় কর্মসফলতা, সুনাম, অর্থ উপার্জন প্রচুর হবে। ২ বৈশাখ থেকে ১০ আষাঢ় পর্যন্ত কর্মে বাধা ও শত্রুতা মাঝেমাঝে আসবে। লটারি বা ফাটকা অথবা জমি বাড়ির স্পেকুলেশন থেকে অপ্রত্যাশিত ধনাগম হতে পারে।
স্বাস্থ্য এক প্রকার ভালো গেলেও মাঝেমাঝে দুর্বলতাবোধ, গ্যাস, অম্বল, পা বা গোড়ালিতে বাতের ব্যথা বাড়বে। ঘাড় ও মেরুদণ্ডের সমস্যাতেও কষ্ট পেতে পারেন। ৬২ বছর বয়েসের ঊর্ধ্বে যাঁদের বয়েস তাঁদের হার্ট, চোখ ও মুখের ব্যাধি সমস্যায় ফেলতে পারে। ১০ কার্তিকের পর স্বাস্থ্য অপেক্ষাকৃত ভালো যাবে।
শিক্ষার্থীদের শুভ সময়। বিশেষ করে উচ্চশিক্ষা, প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় সাফল্য লাভ। লেখাপড়ায় মনোযোগ বাড়বে। চিকিৎসা, বিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং ও আইনের ছাত্রছাত্রীদের পক্ষে বছরটি বিশেষ শুভ। ভ্রমণে গিয়ে স্বাস্থ্য নিয়ে সমস্যায় পড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। যদিও বিদেশ ভ্রমণের যোগ রয়েছে। ভেবে সিদ্ধান্ত নিন। স্বল্পদূর ভ্রমণে ভয় নেই।
পারিবারিক সুখশান্তি ও পারস্পরিক সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। মতপার্থক্য হলেও স্বামীস্ত্রীর মধ্যে প্রেমময় সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। সন্তানের সাফল্য ও কৃতিত্বে আনন্দ পাবেন। তবে সন্তানের ভবিষ্যৎ শিক্ষার পথ নির্দেশ করতে চিন্তা বাড়বে। মন চঞ্চল হবে। আষাঢ় মাস পর্যন্ত মা এবং তারপর বাবার স্বাস্থ্য উদ্বেগের কারণ হতে পারে।
প্রেমে কিছু সুখ, কিছু ব্যথা থাকবে। বিয়ের শুভ যোগ আছে। মামলায় জয়ী হবার সম্ভাবনা প্রবল। ফ্ল্যাট বা জমি বাড়ি ক্রয়ের সুযোগ আসবে। সুযোগ কাজে লাগাবার চেষ্টা করুন। কোনও পারিবারিক বন্ধুর দ্বারা উপকৃত হবেন।
শুভরত্ন: ইন্দ্রনীলা ও মুক্তো। শুভ সংখ্যা: ৪,৬,৮। অশুভ সংখ্যা: ৩,৭। শুভ রং: সবুজ, হলুদ। প্রতিকার: দক্ষিণকালী দর্শন, শ্রীহরির পুজো।

কর্কট রাশি
নতুন বছরটি শুভ। যে কোনও কর্মের ক্ষেত্রেই অর্থকড়ি উপার্জন ভালোই হবে। মাছ, তুলো, ওষুধ, ব্যবসায়ী, অধ্যাপক, লেখক, বিমান ও জাহাজ কর্মীদের মান,যশ, পদোন্নতি, অর্থকড়ি আয় বেশি হবে। ১০ অগ্রহায়ণ থেকে বছরের শেষ পর্যন্ত শুভত্বের ভাব বৃদ্ধি পাবে। কর্মহীনের কর্মপ্রাপ্তি এবং কর্মবিষয়ে বিদেশ যাত্রার যোগ আছে। ব্যয় বেশি হলেও অর্থ সঞ্চয় হবে।
বড় কোনও রোগভোগ না হলেও প্রায় সময়েই কিছু না কিছু ছোটখাটো অসুখে ভুগতে পারেন। হাঁপানি, নার্ভের সমস্যা, চর্মরোগ, অ্যালার্জি ও জীবাণু সংক্রমণে কষ্টের যোগ রয়েছে। ৬২ বছরের বেশি বয়সিদের ভোগান্তির সম্ভাবনা। ১৮ জ্যৈষ্ঠ পর্যন্ত এবং ১০ কার্তিক থেকে ২৫ মাঘ পর্যন্ত সময়ে রোগভোগের যোগ বেশি।ছাত্রছাত্রীদের শুভ সময়। ১৮ এপ্রিল থেকে ২৯ জুলাই পর্যন্ত বিদ্যায় একটু বাধা থাকবে। কয়েকজন বন্ধুর সাহায্য পাবেন ও বিদ্যাচর্চাও ভালো হবে। সবধরনের পরীক্ষায় সাফল্য আসবে। তবে কম্পিউটার জাতীয় ক্ষেত্রে সাফল্য হবে সর্বাধিক।
বাবা-মায়ের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। ১০ আশ্বিন থেকে ২৫ পৌষের মধ্যে তাঁদের স্বাস্থ্য ভালো নাও যেতে পারে। ভাই-বোনের কাছ থেকে মিথ্যা বদনাম পেতে পারেন। সন্তানের আচরণে মনে শান্তি ও সাফল্যে গর্ববোধ করবেন। কোনও আত্মীয় ক্ষতির চেষ্টা করবেন। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক ভালো থাকবে। প্রেমে বছরটি আশা, আনন্দে কাটবে। বিবাহ যোগ আছে। কাছে দূরে ভ্রমণ হতে পারে। ১০ বৈশাখের পর ধর্মকর্ম ভালো হবে। মনে শান্তি পাবেন।
শুভ রত্ন: পীত পোখরাজ ও ক্যাটস আই। শুভ সংখ্যা: ৪,৬,৮। অশুভ সংখ্যা: ৫,৮। শুভ রং: আকাশি, হলুদ ও সাদা। প্রতিকার: প্রতিদিন চন্দ্রদেবের স্তব পাঠ, গঙ্গাজল দিয়ে শিবপুজো।

সিংহ রাশি
বছরটা শুভ হলেও হঠাৎ স্বাস্থ্যহানি হতে পারে। মাঝেমধ্যেই এবং বৈশাখ থেকে আশ্বিন প্রচুর অর্থপ্রাপ্তি হতে পারে। কার্তিক থেকে চৈত্র ব্যয়যোগ প্রবল। ব্যয়ের ক্ষেত্রগুলি হল বৈষয়িক পারিবারিক ও চিকিংসা সংক্রান্ত। ডাক্তার উকিল, শিক্ষাব্রতী, খাদ্যদ্রব্য ও ওষুধ ব্যবসায়ী, অভিনয় ও সঙ্গীত শিল্পীদের কর্মে সাফল্য, মান যশ বৃদ্ধি ও প্রসার। কর্মহীনের কর্মপ্রপ্তির যোগ। লটারি বা অপ্রত্যাশিত অর্থযোগ। বাবা ও সন্তানের মত পার্থক্য সাংসারিক অশান্তির কারণ হবে। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে চাপা ও প্রকাশ্য অশান্তি থাকবে। বাবা মায়ের স্বাস্থ্য ভালো যাবে। পেট, চোখ, হার্ট কিডনি হাঁটু কোমরের ব্যথা ও ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যা দেখা দিতে পারে। হঠাৎই অসুস্থতার সম্ভাবনা আছে। বৈশাখ-জ্যৈষ্ঠ, আশ্বিন থেকে মাঘ স্বাস্থ্য বিষয়ে সতর্ক থাকা দরকার। শিক্ষাক্ষেত্রে ছাত্রছাত্রীদের সাফল্যের সম্ভাবনা বেশি। উচ্চ শিক্ষা, বিশেষ করে ইঞ্জিনিয়ারিং ও প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষায় ঈর্ষণীয় সাফল্য। ধর্মে কর্মে মনে শান্তিলাভ। দূর ভ্রমণে বিপত্তির সম্ভাবনা আছে। প্রেম প্রণয় গতানুগতিক। বিয়ের যোগ এবছর প্রবল।
শুভরত্ন: প্রবাল। শুভ সংখ্যা: ৩, ৭, ৯। অশুভ সংখ্যা: ২, ৬। শুভ রং: লাল, হালকা গোলাপি। প্রতিকার: দক্ষিণাকালী দর্শন, সঙ্কটমোচন গণেশ স্তব পাঠ তিনবার করে।

কন্যা রাশি
এ বছরটি শুভাশুভ মিশ্র যাবে। অর্থকরি উপার্জন ভালো। ব্যয়ের যোগ থাকলেও সঞ্চয় হবে। ওষুধ ব্যবসায়ী, ব্যাঙ্ক, বিমাকর্মী, ডাক্তার, আইনবিদদের রোজগার ভালো হবে। শিল্পীদের কর্মে যশলাভ, পুরস্কার লাভও হতে পারে। কর্মক্ষেত্রে শত্রুর মুখে ছাই দিয়ে স্বমত প্রতিষ্ঠা করতে পারেন। ফলে প্রভাব, প্রতিপত্তি ও সুনাম বাড়বে। ক্রীড়াক্ষেত্রে সাফল্যযোগ। বিদেশভ্রমণ হতে পারে। স্ত্রীর সঙ্গে মতপার্থক্যের কারণে সাংসারিক অশান্তি। সন্তানের সঙ্গে মতের অমিল হবে। নিজগৃহে পরবাসীর মতো থাকতে হবে। বাবা-মায়ের স্বাস্থ্য নিয়ে চিন্তা। আত্মীয় প্রিয়জনের সম্পর্ক ভালো যাবে না। তারা নানাভাবে শত্রুতা করবে। শিক্ষার্থীদের পক্ষে বছরটি শুভ। উচ্চশিক্ষা ও গবেষণায় অনেক সুযোগ ও সাফল্য আসবে। শিক্ষাসূত্রে বিদেশযাত্রা। মাঝে মাঝে স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করবে। শিরদাঁড়া, কোমর থেকে পায়ের নানা স্থানে ব্যথা হতে পারে। ত্বক দাঁত ও পেটের রোগে সমস্যা। ৬৪ বছরের ওপর যাঁদের বয়েস তাঁরা স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হবেন। সংক্রামক ব্যাধির যোগ আছে। প্রেমের ক্ষেত্র শুভ। বিবাহের যোগ আছে। ধর্মে অগ্রগতি ও মানসিক শান্তি লাভ। লটারিতে অর্থপ্রাপ্তি। কর্মসূত্রে দূরভ্রমণ। গৃহে অতিথি আগমন বেশি, সেই সূত্রে ব্যয়ও বেশি হবে।
শুভরত্ন: ক্যাটস আই ও রক্ত প্রবাল। শুভ সংখ্যা: ১, ৪, ৯। অশুভ সংখ্যা: ৭। শুভ রং: সবুজ ও সাদা। প্রতিকার: বাণলিঙ্গে পূজাঅর্ঘ্য নিবেদন ও দক্ষিণাকালী দর্শন।

তুলা রাশি
এবছরটি জাতক জাতিকার পক্ষে অনেক ক্ষেত্রেই শুভ হবে ও সৌভাগ্যের সৃষ্টি করবে। কিন্তু স্বাস্থ্যক্ষেত্রটি কম বেশি সারা বছরই ভোগাবে। অর্থ ও কর্মক্ষেত্রে সারাবছর একই রকম চাপ থাকবে। কর্মক্ষেত্রে শত্রুরা একাধিক বার ক্ষতির চেষ্টা করবে। প্রতিকূলতা থাকলেও তারই মধ্যে অর্থ-কর্মক্ষেত্রে সাফল্য আসবে। তবে ব্যয়ের যোগ প্রবল। হয়তো সঞ্চিত অর্থেও হাত পড়তে পারে। কর্মে পদোন্নতি হবে একটু দেরি করে। যে কোন শাখার শিল্পী, চিকিৎসক, উকিল, ওষুধ, লোহা ব্যবসায়ীদের আয় হবে প্রচুর। পরিবারে মাঝে মাঝে অশান্তি হলেও বেশির ভাগ সময়েই সুখ শাস্তি থাকবে। তবে স্বামী, স্ত্রী, সম্তান, ভাই-বোনের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সম্ভাবনা থাকায় নিজ কথাবার্তা ও আচরণে সংযত হওয়া দরকার। মেয়ে জামাইকে ঘিরে দুশ্চিন্তা বাড়াবে। তাদের আচার-আচরণে মনে হতাশা আসতে পারে। মায়ের স্বাস্থ্য মাঝেমধ্যেই ভালো যাবে না। সব জাতক জাতিকা বিশেষ করে ৪২ বছরের বেশি বয়সিদের স্বাস্থ্য বিষয়ে সতর্কতা দরকার। চর্মরোগ, বাতের ব্যথা, হার্ট, কিডনি, জলীয় সংক্রমণ রোগে ভুগতে পারেন। চিকিৎসা বিভ্রাটে বহু অর্থব্যয় হতে পারে। শিক্ষার্থীদের শুভ সময়। বিদ্যায় অভাবনীয় ভালো ফলের যোগ আছে। উচ্চশিক্ষা ও গবেষণার ফল আরও ভালো হবে। রাজ্যস্তরে সম্মান লাভও হতে পারে। প্রেম প্রণয়ে মনের মিল হবে এবং আনন্দ পাবেন। বেশি বয়সে অবৈধ প্রণয়ে ফেঁসে সম্মান ও অর্থক্ষতির সম্ভাবনা। বিবাহের যোগ আছে। দূর স্থানে ভ্রমণ শুভ হবে না। খুব ছোট ভ্রমণ চলতে পারে।
শুভরত্ন: হীরে। শুভ সংখ্যা: ৪, ৫, ৬। অশুভ সংখ্যা: ৪, ৮। শুভ রং: সাদা ও আকাশি। প্রতিকার: ১০৮ জবার মালা প্রতি শনিবার দক্ষিণাকালীকে দান।

বৃশ্চিক রাশি
জাতক জাতিকার পক্ষে বছরটি বেশ শুভ। তবে সম্পূর্ণভাবে নয়। জীবনে চলার পথে নানা দিকের চাপ কম-বেশি সব সময়েই থাকবে। আয় হবে অনেক বেশি। সেই তুলনায় ব্যয় কম হওয়ায় সঞ্চয় হবে প্রচুর। ধাতু, রাসায়নিক দ্রব্য, প্রমোটারি ব্যবসায়ী, পুলিস বা সামরিক বিভাগের কর্মী, উকিল, চিকিৎসকদের অর্থ উপার্জন হবে সব থেকে বেশি। কর্মদক্ষতা বা সাহসিকতার পুরস্কার প্রাপ্তি হতে পারে। রাজনীতিবিদদের প্রতিষ্ঠা লাভ ও জনপ্রিয়তা বাড়বে। কর্মসূত্রে সফল বিদেশ যাত্রার সম্ভাবনা। ভাদ্র থেকে ২০ পৌষ পর্যন্ত কর্মে বাধা ও শত্রুদ্বারা উত্ত্যক্ত হতে পারেন। পরিবারে সবার সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় থাকবে। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক হবে আনন্দঘন। কোনও তৃতীয় পক্ষ সংসারের সুখ শান্তি নষ্টের চেষ্টা করেও অসফল হবেন। পিতার স্বাস্থ্য মানসিক উদ্বেগ বাড়াতে পারে। ভাই-বোনের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো যাবে না। তারা জাতককে হিংসা করবে এবং অসম্মান ও ক্ষতির চেষ্টা। করবে। সন্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো গেলেও অগ্রহায়ণ ও মাঘ মাসে সন্তানের সঙ্গে মতের অমিল হলেও তাড়াতাড়ি মিটে যাবে। কোনও গুরুজনের স্বাস্থ্যের জন্য অর্থব্যয় হতে পারে। স্বাস্থ্যক্ষেত্রটি জাতক জাতিকার বর্তমান বছরে ভালো যাবে না। মাঝে মধ্যে দাঁত, পায়ের ব্যথা, মাথার যন্ত্রণায় কাবু করে দেবে। ৫২ বছর বয়সের বেশি যাঁদের বয়স সেই সব জাতক জাতিকার স্ত্রী বা স্বামীর সুগার, হার্ট বা কিডনির সমস্যার যোগ আছে। ২৮ ভাদ্র থেকে ২৬ পৌষ পর্যন্ত স্বাস্থ্যক্ষেত্রে সাবধানতা দরকার। লেখাপড়া এবং পরীক্ষার ফলাফল খুব ভালো হবে। অর্থশাস্ত্র, বিজ্ঞান, সাহিত্যের ক্ষেত্রে উচ্চশিক্ষালাভের ও প্রসিদ্ধ প্রতিষ্ঠানে ভর্তির সুবর্ণ সুযোগ আসতে পারে। অদীক্ষিতের দীক্ষা হতে পারে। প্রেম প্রণয়ে মন আকর্ষিত হবে। বিয়ের যোগ প্রবল। ভ্রমণ হবে। বিদেশ ভ্রমণে বাধা আসবে। অর্থ বা সম্পত্তি প্রাপ্তি বা ক্রয়ের সম্ভাবনা। তর্কাতর্কি, মাথাগরম ও অপ্রিয় সত্য কথা বলবেন না। কোনও আপনজনের কাছ থেকে এবছর কোনও উপকার পাবেন না।
শুভরত্ন: প্রবাল ও পীত পোখরাজ। শুভ সংখ্যা: ৩। অশুভসংখ্যা: ৫, ৯। শুভ রং: লাল, সাদা। প্রতিকার: শিবলিঙ্গে ৫টি বেলপাতা দিয়ে প্রণাম ও মঙ্গলের স্তব পাঠ ও প্রণাম।

ধনু রাশি
বছরটি শুভ। উপার্জন প্রচুর হলেও যথেষ্ট খরচও হবে। যিনি যে কর্মই করুন না কেন অর্থকড়ি প্রচুর উপার্জন করবেন। খাদ্যশস্য, সব্জি ব্যবসায়ী যে কোনও ক্ষেত্রের শিল্পী, রেল, ব্যাঙ্ক, বড় প্রতিষ্ঠানে উচ্চপদস্থ কর্মীদের কর্মে সাফল্য, সুনামও উপার্জন সব থেকে বেশি হবে। কর্মক্ষেত্রে কিছু শত্রু অপযশ ও বাধার সৃষ্টি করবে। তবে তাতে ক্ষতি না। শত্রুবিজয়ী হবেন। রাজনীতিবিদদের মান, যশ, প্রভাব, প্রতিপত্তি, জনপ্রিয়তা বাড়বে। কর্মে স্থানগত পরিবর্তন হতে পারে। কর্মহীনের কর্মপ্রাপ্তির সম্ভাবনা। লটারিতে অর্থপ্রাপ্তি আশ্চর্য নয়। আপনি কর্মযোগী। তবুও ঝুঁকি নিয়ে নিজের আয়ত্তের বাইরে গিয়ে কোনও কাজ করতে গেলে বিপদে পরতে পারেন। কর্মক্ষেত্রে শত্রু বাড়বে, তারা ক্ষতি করতে চেষ্টা করলে সফল হবে না। মানসিক চঞ্চলতা মাঝে মাঝে বাড়লেও স্বামী-স্ত্রী সম্পর্ক এক প্রকার ভালোই থাকবে। সন্তানের সঙ্গে একাধিকবার মতপার্থক্য হলেও তা অচিরেই মিটে যাবে। বাবা স্বাস্থ্য চিন্তা বাড়াবে। কর্ম বা শিক্ষার সূত্র ধরে সন্তানের আশ্বিন মাসের পর বিদেশযাত্রার সম্ভাবনা। অর্থশাস্ত্র, কলাবিদ্যা, চিকিৎসাশাস্ত্র অধ্যয়নে শুভ। উচ্চতর শিক্ষায় বাধার মধ্যে অগ্রগতি হবে। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীদের বিদ্যাচর্চা ও পরীক্ষার ফল ভালো হবে। ভ্রমণ যোগ আছে। ধর্মে আস্থা থাকবে। লটারি বা ফাটকা থেকে অর্থপ্রাপ্তি। প্রেমে একটু কাঁটা থাকলেও সম্পর্ক হবে মধুর। প্রবল বিবাহের যোগ। গৃহসংস্কার ও গৃহের শুভ কাজের সম্ভাবনা আছে।
শুভরত্ন: পান্না ও গোমেদ। শুভ সংখ্যা:১,৭। অশুভ সংখ্যা: ২। শুভ রং: হলুদ ও গোলাপি। প্রতিকার: ইষ্টমন্ত্র জপ, দুর্গা নাম জপ অথবা শ্রীহনুমান চালিসা ৩ বার করে পাঠ।

মকর রাশি
বছরটি ভালো-মন্দ মিশিয়ে কাটবে। তবে ভালোর দিকটাই বেশি। অর্থ ও কর্ম দুটি ক্ষেত্রই শুভ। চিকিৎসক আইনজীবী, শিক্ষাবিদ, খনিজ দ্রব্য, ওষুধ ব্যবসায়ী, চাকরিজীবী কোনও প্রতিষ্ঠানে প্রায় সর্বোচ্চ পদে আসীন ব্যক্তিদের পক্ষে সাফল্য। কর্মের প্রসার, যশ, প্রতিষ্ঠা, অর্থকড়ি উপার্জন সহ সার্বিক উন্নতি হবে। আষাঢ়, আশ্বিন, কার্তিক মাসে কর্মক্ষেত্র চেনা ও অচেনা শত্রু সম্মানহানি ও ক্ষতির চেষ্টা করবে। সতর্ক থাকতে হবে। বর্তমান ও ভবিষ্যৎ সব কাজই সাফল্যের র সঙ্গে এগবে। ভাই-বোনের সম্পর্ক ভালো যাবে না। সন্তানের কৃতিত্বে গৌরবান্বিত হবেন। স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক বেশির ভাগ সময়ই আনন্দময় হবে। বাবা মায়ের কাছ থেকে বৈষয়িকভাবে উপকৃত হবেন। বৈশাখ ও জ্যৈষ্ঠ মাসে স্ত্রীর শরীর খারাপ হওয়ার সম্ভাবনা। স্ত্রীর অর্থকড়ি বা সম্পত্তি প্রাপ্তির সম্ভাবনা। স্বাস্থ্য এক প্রকার ভালো যাবে। বড় কোনও ব্যাধির যোগ নেই। তবে মাঝে মাঝে শিরদাঁড়া, ঘাড়, কোমর, হাঁটুর ব্যথা ও ইউরিক অ্যাসিডের সমস্যায় কাবু হতে পারেন। সংক্রমক রোগেরও সম্ভাবনা আছে। পায়ে আঘাত লাগতে পারে। ছাত্রছাত্রীদের শুভ সময়। উচ্চশিক্ষা বাধার মধ্যেই অগ্রগতি হবে। কার্তিক মাস থেকে ডাক্তারির ছাত্র-ছাত্রী ও কারিগরি বিদ্যা পড়ুয়াদের শুভ ফল লাভ। উচ্চতর শিক্ষার জন্য বিদেশযাত্রার সম্ভাবনা। প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার ফল ভালো হবে।
ঈশ্বরের নাম জপ ও পুজোয় মনে শান্তি লাভ হবে। প্রেম প্রণয়ে অম্ল-মধুরতা থাকবে। বিবাহ যোগ আছে। বন্ধুর প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় বিপদ থেকে উদ্ধারের সম্ভাবনা।
শুভ রত্ন: পীত পোখরাজ ও চুনি। শুভ সংখ্যা: ৪, ৭। অশুভ: ৩। শুভ রং: হলুদ, সাদা। প্রতিকার: প্রতিদিন হনুমানজিকে তুলসি ও লাল জবার মালা দান।

কুম্ভ রাশি
বছরটি জাতকের পক্ষে শুভাশুভ মিশ্র। যত্র আয় তত্র ব্যয়। সঞ্চয় প্রায় না হওয়ার মতোই। কর্মে বাধা থাকবে। দ্রব্য উত্পাদকদের শ্রমিক সমস্যা থাকবে। কার্তিক মাস থেকে ধীরে ধীরে বাধাটা কমবে। অর্থকড়ি উপার্জন বাড়বে। কোনও সম্পত্তি লাভ বা ক্রয়ের যোগ আছে। ৭ বৈশাখ থেকে ১০ পৌষ পর্যন্ত কাজে বাধা থাকবে। চিকিৎসক, হিসাব পরীক্ষক, খনি ও রেল কর্মী, বিদেশি দ্রব্য, পাথর ব্যবসায়ীদের কর্মে সাফল্য, প্রচুর অর্থ উপার্জনের সম্ভাবনা। ছাত্র-ছাত্রীদের শুভ সময়। সব ধরনের পরীক্ষার ফল ভালো হবে। নামী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হতে পারেন। হঠাৎ আসা সুযোগ জাতকের জীবন পাল্টে দিতে পারে। স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মতপার্থক্য সংসারের শান্তি নষ্ট করবে। ভাই-বোনের সম্পর্ক ভালো যাবে না। বাবা মায়ের সঙ্গে আনন্দময় সম্পর্ক থাকবে। ভাদ্র থেকে পৌষ মাসের মধ্যে বাবার স্বাস্থ্যহানি মানসিক উদ্বেগ বাড়াবে। আত্মীয় হিংসায় ও শত্রুতায় ক্ষতির সম্ভাবনা। এছাড়াও কোনও বন্ধুবেশী শত্রু প্রবল ক্ষতি করতে পারে। স্বাস্থ্য একপ্রকার ভালো যাবে। তবে পায়ে আঘাত, এমনকী অস্থিভঙ্গও হতে পারে। ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে যাঁদের বয়স তাঁদের হাড়, নার্ভ, মাথা ও হাঁটুর রোগের সম্ভাবনা। যাঁদের পুরনো রোগ আছে তাঁদের রোগ বাড়বে। এই বিষয়ে বিশেষ সতর্ক থাকতে হবে। ধর্ম আচরণে মন বসবে না। প্রেমে ব্যথা থাকলেও ভালোবাসার অভাব হবে না। বিয়ের যোগ আছে।
শুভরত্ন: পীত পোখরাজ, গোমেদ। শুভ সংখ্যা: ৬, ৮। অশুভ সংখ্যা: ৯। শুভ রং: সাদা, গোলাপি। প্রতিকার: দিনে তিনবার মা কালী ও সঙ্কটমোচন হনুমানজিকে স্মরণ।

মীন রাশি
জাতকের পক্ষে বছরটি শুভ। অর্থকড়ি রোজগার হবে অনেক। সঞ্চয় হবে প্রচুর। জাতকের জীবনে সুপ্রতিষ্ঠার বছর হতে পারে এটি। হঠাৎ একাধিকবার অথপ্রাপ্তি হবে। আইন ব্যবসায়ী, চিকিৎসক, অধ্যাপক, ওষুধ ব্যবসায়ী, সাংবাদিক এবং চাকুরিজীবীদেরও কর্মে সাফল্য ও স্বীকৃতি। উপার্জন বৃদ্ধি পাবে। বৈশাখ থেকে শ্রাবণ মাস পর্যন্ত কর্মে একটু বাধা থাকলেও আশ্বিন থেকে চৈত্র মাস পর্যন্ত বিশেষ শুভ। ওই সময় রাজনীতিবিদদের জনপ্রিয়তা, দায়-দায়িত্ব বাড়বে। মানুষের মঙ্গলের জন্য নেতৃত্বদানের সুযোগ পাবনে। চাকরিজীবীদের পদোন্নতি ও কর্মসূত্রে স্থানান্তরে যাওয়ার সম্ভাবনা।
সংসারে দাম্পত্য অশান্তি যোগ থাকলেও তা বড় আকার নেবে না। কিছু ক্ষেত্রে বাবা ও ছেলের মধ্যে মত পার্থক্য হতে পারে। ভাই বোনের মধ্যে সদ্ভাবের অভাব। বাবার স্বাস্থ্য এক প্রকার গেলেও মায়ের স্বাস্থ্যহানির সম্ভাবনা। প্রিয়জন শত্রুর মতো আচরণ করতে পারে। স্ত্রীর স্বাস্থ্য মাঝেমধ্যে ভালো যাবে না।
ছাত্রছাত্রীদের লেখাপড়া ভালোই হবে। কিছু বাধা, চঞ্চলতা থাকবে। তবে তা কোনও অবস্থাতেই ভালো ফলের প্রতিবন্ধক হবে না। সব ধরনের পরীক্ষার ফল ভালো হবে। উচ্চশিক্ষার জন্য বিদেশযাত্রার সুযোগ আসবে। সঙ্গে পেতে পারেন স্কলারশিপ।
শরীর স্বাস্থ্য এক প্রকার যাবে। সংক্রামক ব্যাধি, অর্শাদি রোগের সম্ভাবনা আছে। জল, আগুন ও হাঁটা-চলায় বিশেষ সাবধানতা দরকার। ওই ক্ষেত্রগুলি থেকে বিপদের সম্ভাবনা।
বিবাহের যোগ প্রবল। মাঘ, ফাল্গুন মাসে নতুন জমি, বাড়ি, ফ্ল্যাট কেনার প্রবল যোগ। গাড়ি চালনায় সতর্ক হন। সম্ভব হলে না চালানোই ভালো হবে। দূর ভ্রমণের যোগ আছে। শত্রু বাড়বে অনেক এবং তারা ক্ষতির চেষ্টা করবে। মাঝেমধ্যে বিভিন্ন কারণে অকারণে জাতকের মন ও বুদ্ধি চঞ্চল হয়ে উঠবে।
শুভরত্ন: পীতাম্বর নীলা। শুভ সংখ্যা: ১, ৫। অশুভ সংখ্যা: ৩। শুভ রং: হলুদ। প্রতিকার: নটি বেলপাতা ও গঙ্গা জল বাণেশ্বর শিবের মাথায় দিয়ে প্রণাম ও প্রার্থনা। তারা মায়ের পুজো ও স্তব পাঠ।
সব শেষে বলি, কায়মনোবাক্যে ‘গ্রহরূপী নারায়ণ’ নাম জপ করলেই সব ধরনের গ্রহ দোষ থেকে মুক্ত হবেন।
 ছবি ও গ্রাফিক্স : সোমনাথ পাল  সহযোগিতায়: চিন্ময় গড়গড়ি
19th  April, 2020
 লক্ষ্য লাদাখ

  ইতিহাসের পুনরাবৃত্তি...। দশকের পর দশক ধরে চলতে থাকা সীমান্ত টেনশন মাথাচাড়া দিয়েছে। ফের আগ্রাসী চীন। পিছু হটবে না ভারতও...। বিশদ

31st  May, 2020
লকডাউনের দিনগুলি
ডাঃ শ্যামল চক্রবর্তী

মুখ্যমন্ত্রী দাঁড়িয়ে আছেন গাইনি বাড়ির উল্টোদিকে কার্ডিওলজি বিল্ডিংয়ের সামনে। পাশে পুলিস কমিশনার। খবর পেয়ে দ্রুত ওখানে চলে এলেন হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারিন্টেন্ডেন্ট ও ডেপুটি সুপার। মিটার দেড়েক দূরত্ব, করজোড়ে মুখ্যমন্ত্রী... ‘খুব ভালো কাজ করছেন আপনারা।
বিশদ

24th  May, 2020
করোনা কক্ষের ডায়েরি
ডাঃ চন্দ্রাশিস চক্রবর্তী

 গত ১০০ বছরে পৃথিবী এরকম মহামারী দেখেনি। শহরের প্রায় সমস্ত বড় হাসপাতালে এখন করোনা আক্রান্ত রোগী ভর্তি। ফলে আউটডোর চলছে গুটিকয়েক রোগী নিয়ে, হাসপাতালের ক্যান্টিন বন্ধ, ভিতরের রাস্তাগুলো ফাঁকা, বাইরে গাড়ির লাইন নেই…।
বিশদ

24th  May, 2020
এয়ারলিফট 
সমৃদ্ধ দত্ত

একটা স্তব্ধতা তৈরি হল ঘরে। সন্ধ্যা হয়েছে অনেকক্ষণ। এখন আর বেশি কর্মী নেই। অনেকেই বাড়ি চলে গিয়েছেন। তবু কিছু লাস্ট মিনিট আপডেট করার থাকে। তাই কয়েকজন এখনও রয়েছেন অফিসে। তাঁদেরও ফিরতে হবে।  
বিশদ

17th  May, 2020
রবির মানিক 

শ্রীকান্ত আচার্য: অতীতে কলকাতায় বরাবরই ঠাকুর পরিবার এবং রায়চৌধুরী পরিবার, সব দিক থেকে অত্যন্ত সমৃদ্ধ ছিল। তা সে জ্ঞানের পরিধি বলুন বা সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল—সব ক্ষেত্রেই এই দুই পরিবার উন্নত করেছে বাংলাকে। উপেন্দ্রকিশোর রায়চৌধুরীর জন্ম ১৮৬৩ সালে।  
বিশদ

10th  May, 2020
অনুরাগের রবি ঠাকুর 

সন্দীপ রায়: বাবার কলাভবনে ভর্তি হওয়া থেকেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সঙ্গে সংযোগটা একরকম তৈরি হয়ে গিয়েছিল। যদিও আপনারা জানবেন, শৈশবে ওঁর মোটেই শান্তিনিকেতন যাওয়ার ইচ্ছে ছিল না। তবে হ্যাঁ, সেখানে গিয়ে কিন্তু তাঁর অবশ্যই মন পরিবর্তন হয়েছিল। 
বিশদ

10th  May, 2020
‘ছবিটা ভাই ভালো হয়েছে। তবে
চলবে কি না, বলতে পারছি না!’ 

প্রশ্ন: ‘চারুলতা’-র জন্য নিজেকে কীভাবে তৈরি করেছিলেন?
মাধবী: ছ’বছর বয়স থেকে কাজ করা শুরু করেছিলাম। তারপর নানা পথ পেরিয়ে প্রেমেন্দ্র মিত্রের সঙ্গে কাজ। ‘সাহসিকা’ বলে একটি ছবিতে হিরোইনের ছেলেবেলার চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। 
বিশদ

10th  May, 2020
বন্ধু আমার...
দীপ্তি নাভাল

আমি হতবাক: আমি বাকরুদ্ধ। চিন্টুর চলে যাওয়া কিছুতেই মেনে নিতে পারছি না। তবে অসুস্থতার খবর আগেই পেয়েছিলাম। চিন্টুর মৃত্যুর আগের দিন ইরফানের খবরটা পাই। তখনই মানসিকভাবে বেশ দুর্বল হয়ে পড়েছিলাম। এর পরপরই খবর আসে যে চিন্টু অসুস্থ। বিশদ

03rd  May, 2020
তোমার স্মৃতিতে...
অমিতাভ বচ্চন

দেওনার কটেজে প্রথম দেখেছিলাম চিন্টুকে। প্রচণ্ড হাসিখুশি, প্রাণবন্ত এক তরুণ। দু’চোখ ভরা দুষ্টুমি। দিনটা আমার কাছে সত্যি বিরল। কারণ, রাজ জি’র বাড়িতে আমন্ত্রণ পাওয়ার মতো সৌভাগ্য আমার তখন খুব একটা হতো না। তারপর থেকে আরও বেশি করে দেখতাম ওকে... আর কে স্টুডিওয়। 
বিশদ

03rd  May, 2020
বিদায়
তিগমাংশু ধুলিয়া

দীর্ঘ ৩৪ বছরের বন্ধুত্ব তাঁদের। ইরফান খানের সঙ্গে জাতীয় পুরস্কারজয়ী পরিচালক-অভিনেতা তিগমাংশু ধুলিয়ার পথ চলা শুরু ‘ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা’ র আঙিনা থেকে। এরপর তিগমাংশুর পরিচালনায় হাসিল, চরস, পান সিং তোমার, সাহেব বিবি অউর গ্যাংস্টার রিটার্নস ছাড়া একাধিক টেলিভিশন অনুষ্ঠানে কাজ করেছেন ইরফান।
বিশদ

03rd  May, 2020
প রি বা র...
সুতপা, বাবিল, অয়ন
সুতপা শিকদার

 পরিবারের পক্ষ থেকে লিখতে বসে একটাই প্রশ্ন বারবার মনে আসছে... কী করে লিখব? এটা কি শুধু আমার পরিবারের ক্ষতি? গোটা দুনিয়াকে দেখছি... সবাই যেন পাথর হয়ে গিয়েছে ও চলে যাওয়ার পর। বিশদ

03rd  May, 2020
অক্ষয় হোক এই তৃতীয়া!
সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়

 ভারতবর্ষ সেই দেশ, যে দেশের মানুষ সৃষ্টির আদিতে শুনেছিল স্রষ্টার কণ্ঠস্বর—তোমরা সবাই অমৃতের পুত্র। গড়ে উঠেছিল অপূর্ব এক শান্ত সভ্যতা। পেয়েছিল একটি ধর্ম, যার মূল কথা ছিল জীবনের চারটি স্তম্ভ— ধর্ম, অর্থ, কাম, মোক্ষ।
বিশদ

26th  April, 2020
 টি ২০ নয়,
এটা টেস্ট ম্যাচ

পিজি হাসপাতালের লিভার সংক্রান্ত বিদ্যা হেপাটোলজি’র অধ্যাপক। পূর্ব ভারতের সরকারিভাবে লিভার ট্রান্সপ্লান্টেশনের অন্যতম উদ্যোগী মানুষ। পাশাপাশি করোনা মোকাবিলায় তৈরি রাজ্যের একাধিক শীর্ষ কমিটির সদস্য, কো-অর্ডিনেটর। একইসঙ্গে অনেকগুলি দায়িত্ব পালন করছেন বিশিষ্ট চিকিৎসক ডাঃ অভিজিৎ চৌধুরী। সাক্ষাৎকারে বিশ্বজিৎ দাস।
বিশদ

12th  April, 2020
সামাজিক দূরত্বই ওষুধ
ডাঃ দেবী শেঠি
বিশিষ্ট হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ

 ১৯১৮ সালে আমেরিকায় আঘাত হানল ভয়ঙ্কর স্প্যানিশ ফ্লু। ফিলাডেলফিয়া প্রদেশে প্রাণহানি হল হাজার হাজার মানুষের। অথচ, ওই একই মহামারীর প্রকোপে সেন্ট লুইস শহরে প্রাণহানি ঘটল ফিলাডেলফিয়ার তুলনায় অর্ধেক! কারণ ভয়ঙ্কর মহামারীর ওই আতঙ্কের আবহেও, ফিলাডেলফিয়ায় প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সমর্থনে আয়োজিত হয়েছিল বিরাট জন সমাবেশের। বিশদ

12th  April, 2020
একনজরে
দেরাদুন, ৫ জুন (পিটিআই): স্বস্তি পেলেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত। তাঁর করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। গত ১ জুন মন্ত্রিসভার বৈঠক ডেকেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পর্যটন মন্ত্রী সৎপাল মহারাজ।  ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: লকডাউনের বিধি শিথিল করে রা‌঩জ্যের চটকলগুলিতে ১০০ শতাংশ হাজিরার পাশাপাশি উৎপাদন চালুর অনুমতি দিয়েছে নবান্ন। কিন্তু সিংহভাগ চটকলে শ্রমিকদের বড় অংশই ভিনরাজ্যের বাসিন্দা। ...

সংবাদদাতা, পতিরাম, ইংলিশবাজার ও কর্ণজোড়া: বিশ্ব পরিবেশ দিবসে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলা পুলিসের উদ্যোগে জেলার আটটি থানা এবং তিনটি ট্রাফিক বিভাগে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করা হল। মোট ৩০৮টি গাছ লাগানো হয়েছে।   ...

সংবাদদাতা, রামপুরহাট: করোনা পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে শুক্রবার রামপুরহাট মহকুমার প্রতিটি ব্লক অফিস ঘুরে বিডিওদের সঙ্গে কথা বললেন সংসদ সদস্য শতাব্দী রায়। হঠাৎ লকডাউনের ফলে পরিযায়ীরা চরম দুর্দশার শিকার হয়েছেন ও জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বলে দাবি করেন তিনি।   ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

উচ্চপদস্থ ব্যক্তির সহায়তায় কর্মস্থলে জটিলতার সমাধান। বাতজবেদনায় কষ্ট পাবার সম্ভাবনা। প্রেম-প্রণয়ে সাফল্য। পরশ্রীকাতর ব্যক্তির দ্বারা ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১০৯৯: প্রথম ধর্মযুদ্ধের শুরু, অবরোধের সূচনা জেরুজালেমে
১৬৫৪: ফ্রান্সের সিংহাসনে বসলেন রাজা চতুর্দশ লুই
১৮২৯: ইন্ডিয়ান ন্যাশনাল কংগ্রেসের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা অ্যালান অক্টাভিয়ান হিউমের জন্ম
১৮৬৭: কলকাতা হাইকোর্টের প্রথম ভারতীয় বিচারপতি শম্ভুনাথ পণ্ডিতের মৃত্যু
১৯১১: লেখক নীহাররঞ্জন গুপ্তের জন্ম
১৯২৮: অভিনেতা ও রাজনীতিক সুনীল দত্তের জন্ম
১৯৪২: লিবিয়ার প্রাক্তন স্বৈরাচারী শাসক মুয়াম্মার গদ্দাফির জন্ম
১৯৬৭: ছ’দিনের যুদ্ধে জেরুজালেমে প্রবেশ করল ইজরায়েলি সেনা
১৯৭০: ইংরাজি সাহিত্যিক ই এম ফস্টারের মৃত্যু
১৯৭২: কবি হুমায়ুন কবিরের মৃত্যু
১৯৭৫: ইংল্যান্ডে প্রথম বিশ্বকাপ ক্রিকেটের উদ্বোধন 



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৫৯ টাকা ৭৬.৩০ টাকা
পাউন্ড ৯৩.৪২ টাকা ৯৬.৭১ টাকা
ইউরো ৮৩.৯৯ টাকা ৮৭.১০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪১,৮৮০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৭৩০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৩৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
22nd  March, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ জুন ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ ৪৪/৬ রাত্রি ১০/৩৩। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র ২৫/৪৩ দিবা ৩/১২। সূর্যোদয় ৪/৫৫/৯, সূর্যাস্ত ৬/১৪/৫৫। অমৃতযোগ দিবা ৩/৩৪ গতে অস্তাবধি। রাত্রি ৬/৫৭ গতে ৭/৩৯ মধ্যে পুনঃ ১১/১৩ গতে ১/২১ মধ্যে পুনঃ ২/৪৭ গতে উদয়াবধি। বারবেলা ৬/৩৫ মধ্যে পুনঃ ১/১৪ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৩ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ৭/৩৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৬ গতে উদয়াবধি।  
২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৬ জুন ২০২০, শনিবার, প্রতিপদ রাত্রি ১১/২৯। জ্যেষ্ঠা নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/২০। সূর্যোদয় ৪/৫৬, সূর্যাস্ত ৬/১৬। অমৃতযোগ ৩/৩৮ গতে ৬/১৬ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২ গতে ৭/৪৪ মধ্যে ও ১১/১৬ গতে ১/২৩ মধ্যে ও ২/৪৭ গতে ৪/৫৬ মধ্যে। কালবেলা ৬/৩৬ মধ্যে ও ১/১৬ গতে ২/৫৬ মধ্যে ও ৪/৩৬ গতে ৬/১৬ মধ্যে। কালরাত্রি ৭/৩৬ মধ্যে ও ৩/৩৬ গতে ৪/৫৬ মধ্যে।
১৩ শওয়াল  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
করোনা: অসমে আক্রান্ত আরও ৮১ জন, মোট আক্রান্ত ২৩২৪ 

04:49:36 PM

করোনা: নেপালে আক্রান্ত আরও ৩২৩ জন, মোট আক্রান্ত ৩২৩৫

04:48:10 PM

করোনা: ইরানে একদিনে আক্রান্ত ২২৬৯ জন
 

ইরানে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন আরও ২২৬৯ জন। মৃত্যু ...বিশদ

04:38:00 PM

বাংলাদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২৬৩৫, মৃত ৩৫ 
গত ২৪ ঘণ্টায় বাংলাদেশে করোনা আক্রান্ত হয়েছে ২৬৩৫ জন। মৃত্যু ...বিশদ

04:10:03 PM

নবান্নে এল কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল 
নবান্নে এল কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল। উল্লেখ্য, রাজ্যে উমপুনে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ ...বিশদ

03:53:00 PM

বারুইপুরে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তার ১ 
বারুইপুরে অস্ত্র সহ গ্রেপ্তার করা হল এক ব্যক্তিকে। ধৃতের নাম ...বিশদ

03:28:00 PM