Bartaman Patrika
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 

জল সঙ্কট 

কল্যাণ বসু: দুধ সাদা ধুতি পাঞ্জাবি, মাথায় নেহরু টুপি, গলায় মালা ঝুলিয়ে মন্ত্রী দু’হাত জোড় করে হাসিমুখে মঞ্চের দিকে যাচ্ছেন। চারদিকে জয়ধ্বনি, হাততালি। মঞ্চে উঠে মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে মন্ত্রী বলতে শুরু করেছেন সবে। ‘আমি অবশ্যই এই গ্রামে জল এনে দেব, এ আমার অঙ্গীকার...’। ঠিক তখনই জনগণের মধ্যে থেকে এক তরুণ পাঁচ বছর আগের নির্বাচনী প্রচারে করা মন্ত্রীর একই প্রতিশ্রুতির রেকর্ডিংটা চালিয়ে দেয়। মঞ্চে নেতার তখন কাঁচুমাচু অবস্থা। রেকর্ডিং বন্ধ করার অনুনয়-বিনয়। ছোকরা তখন বলে ওঠে, ‘মন্ত্রীমশাই, গ্রামে থাকি বলে বুদ্ধু বানাবেন না।’ এরপর মোবাইল রেকর্ডিংটা হাতে নিয়ে মুচকি হেসে সে মাথা দোলাতে থাকে আর ব্যাকগ্রাউন্ডে চালু হয়ে যায় কোম্পানির সেই বিখ্যাত ব্র্যান্ড স্লোগান—‘নো উল্লু বানাউয়িং, নো উল্লু বানাউয়িং।’
বেশ কয়েক বছর আগে এক বিখ্যাত মোবাইল সার্ভিস প্রোভাইডার কোম্পানির হয়ে অভিষেক বচ্চনের প্রায় আধ মিনিটের এই বিজ্ঞাপনটি জলকে জড়িয়ে সমাজ-রাজনীতির একটা গুরুত্বপূর্ণ দিক উন্মোচিত করেছিল। স্বাধীনতার ৭১ বছর পার করেও দেশের অধিকাংশ মানুষ নিরাপদ পানীয় জল থেকে বঞ্চিত।
তৃষ্ণা মেটাতে ও শারীরবৃত্তীয় আবশ্যকতার বিচারে ‘জলের অপর নাম জীবন’। এই আপ্তবাক্যটির যথার্থতা যেমন তর্কাতীত, তেমনই জলকে কেন্দ্র করেই আবার দুনিয়াজুড়ে দু’ভাবে জীবনসঙ্কট তৈরি হয়েছে। এক, দূষণের কারণে জীবনস্বরূপ জল হয়ে উঠেছে জীবনহানির অন্যতম কারণ। ফি বছর ৫০ লক্ষেরও বেশি মানুষ জলঘটিত রোগে বিশ্বজুড়ে প্রাণ হারায়, যার মধ্যে প্রতি ৮ সেকেন্ডে একজন শিশু। শুধুমাত্র ডায়ারিয়া বা পেট খারাপের কারণে বিশ্বে গড়ে বার্ষিক মৃত্যু প্রায় ৩৩ লক্ষ। দুই, জলের দাবি বা সংগ্রহকে ঘিরে ঘনিয়ে ওঠা যুদ্ধংদেহি পরিস্থিতি। বিশ্বজুড়ে জনসংখ্যার বিস্ফোরণ ঘটায় পাল্লা দিয়ে জলের চাহিদা বাড়তে শুরু করে। সেই সঙ্গে বাড়তে থাকল বিবাদের সম্ভাবনাও। বিশ্বব্যাঙ্কের প্রাক্তন ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসমাইল সেরেজেলডিন শোনালেন চরম আশঙ্কার কথা, ‘পরবর্তী বিশ্বযুদ্ধটি হবে জলকে ঘিরেই।’ জলের জন্য বিশ্বযুদ্ধ! অতিরঞ্জিত মনে হলে জেনে রাখুন, দুনিয়াজুড়ে যাঁরা জলের জন্য বিভিন্ন মাপের লড়াই লড়ছেন তাঁদের জলযোদ্ধা (ওয়াটার ওয়ারিয়রস) বলে অভিহিত করা হচ্ছে। যুদ্ধের মতো সেইসব সংগ্রামের সঙ্গেও জড়িয়ে থাকছে নানা হানাহানি। এই হানাহানি প্রত্যক্ষ করেছে ভারতও। ২০০৫ সালে। জলের দাবিতে আন্দোলনকারীদের উপর বিজেপিশাসিত রাজস্থান সরকারের পুলিস গুলি চালিয়েছিল। দু’টি ঘটনায় মোট ১১ জনের মৃত্যু হয়। প্রথমটি ঘটে শ্রীগঙ্গানগর জেলায়। মৃত্যু হয়েছিল ৬ জনের। দ্বিতীয় ঘটনাটি টঙ্ক শহর থেকে ১৪ কিমি দূরে সোহেলা গ্রামে। সেখানে মৃত ৫ জনের মধ্যে অনিতা গুজুর নামে ৪৫ বছরের এক গর্ভবতী মহিলাও ছিলেন। বছর চারেক আগে মধ্যপ্রদেশের দামোহ জেলায় সরকারি কল থেকে জল সংগ্রহের সময় কাড়াকাড়ির কারণে খুন হতে হয় এক মহিলাকে। জলের জন্য এও কি যুদ্ধ নয়?
তবে এই জল সংক্রান্ত লড়াইয়ে মেয়েদের কথা না বললে তা অসম্পূর্ণ থেকে যায়। নারীর মর্যাদায়ন ও ক্ষমতায়ন নিয়ে প্রচুর গালভরা কথা, কুম্ভীরাশ্রু মোচন দেখা গেলেও, জল সংগ্রহকে ঘিরে যে বিপুল নারীশক্তির অপচয় হয়, অমর্যাদা হয় সে দিকটা অন্ধকারেই থাকে। মেয়েদের এই জল সংগ্রহকে প্রথম জীবনে কাব্যিক দৃষ্টিতে (‘দুই বিঘা জমি’র উপেনের চোখ দিয়ে) দেখে রবীন্দ্রনাথ লিখেছিলেন, ‘বুকভরা মধু বঙ্গের বধূ জল লয়ে যায় ঘরে—/ মা বলিতে প্রাণ করে আনচান, চোখে আসে জল ভরে।’ কিন্তু ৪১ বছর বাদে সেই তিনিই রূঢ় গদ্যে জানালেন, ‘যে জলকষ্ট সমস্ত দেশকে অভিভূত করেছে তার সবচেয়ে প্রবল দুঃখ মেয়েদের ভোগ করতে হয়। মাতৃভূমির মাতৃত্ব প্রধানত আছে তার জলে—তাই মন্ত্রে আছে: আপো অস্মান মাতরঃ শুদ্ধয়ন্তু। জল মায়ের মতো আমাদের পবিত্র করুক। জলাভাবে দেশে যেমন মাতৃত্বের ক্ষতি হয়, সেই ক্ষতি মেয়েদের দেয় বেদনা।’ গনগনে রোদ মাথায় নিয়ে তপ্ত বালির উপর দিয়ে বারংবার মাইলের পর মাইল হেঁটে মেয়েদের জল সংগ্রহের দৃশ্য দেখে রবীন্দ্রনাথ এই কষ্টকে এক বক্তৃতায় ‘মরণদশা’র সঙ্গে তুলনা করেছিলেন। তারপর ৮২ বছর অতিক্রান্ত। মেয়েদের এই জলকষ্ট কতটা দূর হল? উত্তর হল, ভারতে জল সংগ্রহকে কেন্দ্র করে নারী দুর্দশার চিত্র বিশ্বের দরবারে মাথা হেঁট করে দেওয়ার ক্ষেত্রে যথেষ্ট। ঘটনাটি হল—মধ্যপ্রদেশের বুন্দেলখণ্ড এলাকার একাধিক জেলায় পানীয় জলের সঙ্কট বহু বছরের। টিকমগড় জেলার লিধোরা গ্রামে এই সমস্যা নিয়ে বলতে গিয়ে জেলার সাব-ডিভিশনাল ম্যাজিস্ট্রেট গ্রামবাসীদের উদ্দেশে বলেন, ‘জাতারা ব্লকের বায়িরবার গ্রামের মধ্যে দিয়ে যেতে গিয়ে কয়েকদিন আগে দেখলাম রাত দু’টোর সময় মহিলারা উঠে জল আনতে যাচ্ছে। এই সমস্যার সমাধানে তিনটে বিয়ে করা যায়। একটা বউ সন্তান জন্ম দেওয়া ও প্রতিপালনের জন্য আর জল আনার জন্য বাকি দুই বউ। গরিবদের ক্ষেত্রে এটা অসম্ভব হলেও, বড়লোকরা এটা করতেই পারেন।’ শুনতে খারাপ লাগলেও, পরিবারের জল সংগ্রহের জন্য মেয়েদের দুর্ভোগ এমন পর্যায়েই। শুধু মধ্যপ্রদেশ কেন, মহারাষ্ট্রেও এক কাহিনী। মুম্বই থেকে ১৪০ কিমি দূরে দেঙ্গনমাল গ্রামের শ’খানেক পরিবারের অনেকেই একাধিক বউ পালন করেন জল সংগ্রহের জন্য। এরকমই একজন ৬৬ বছর বয়সি সখারাম ভগত। সোজাসাপ্টা মন্তব্য, ‘বউকে বাচ্চা সামলাতে হতো। জল আনতে তো কাউকে দরকার! তাই ফের বিয়ে করলাম। দ্বিতীয় স্ত্রী অসুস্থ হওয়ায় আবার বিয়ে করতে হল।’
শুধু কি জল সংগ্রহ করে দেওয়ার জন্য বউ? না। মনে পড়ে মতি নন্দীর লেখা গল্প ‘জলের ঘূর্ণি ও বক বক শব্দ’-এর কথা। বহু পরিবারের বাস এমন বাড়িতে থাকেন বিশ্বনাথ ও তাঁর স্ত্রী পূর্ণিমা। বারোয়ারি টাইম কলে কর্পোরেশনের জল আসা বন্ধ থাকে একদিন। পূর্ণিমা পাশের বস্তিতে জল সংগ্রহ করতে গিয়ে বেইজ্জত হন, বস্তির মহিলারা তাঁকে শাড়ি খুলে, ব্লাউজ ছিঁড়ে মাটিতে ফেলে হেনস্তা করে। অবশেষে ভাড়া বাড়ির কলে জল এলে পূর্ণিমা পাগলের মতো ঘরের প্রায় সব কিছুতে জল ভরে রাখে ফের জল বন্ধের আশঙ্কায়। কত জলসঞ্চয় দরকার জানতে বিশ্বনাথ প্রায়োন্মাদ স্ত্রীকে প্রশ্ন করেন, ‘তোমার টার্গেট কত?’ পূর্ণিমা জবাবে বলেন, ‘আমার টার্গেট নেই।’ এই ‘টার্গেট’ শব্দটা গভীর ব্যঞ্জনাময় হয় গল্পের পরিসমাপ্তিতে।
তথ্য বলছে, বিশ্বের মোট জনসংখ্যার ১৮ শতাংশ ভারতে। অথচ জলের ব্যবহার মাত্র ৪ শতাংশ। ১০০ কোটি মানুষ এদেশে জলাভাবে আছেন, যার মধ্যে ৬০ কোটির অবস্থা শোচনীয়। জলের গুণমান সূচকের নিরিখে ভারত ১২২টি দেশের মধ্যে ১২০তম অবস্থানে। ২০১৩-২০১৮ সালে এদেশে জলবাহিত রোগে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৭ কোটি মানুষ, যা ইংল্যান্ডের জনসংখ্যার প্রায় সমান। ওই পাঁচ বছরে মারা গিয়েছিলেন ১০ হাজার ৭৩৮ জন, যার মধ্যে পেট খারাপেই ৬৫১৪ জন! ২০১৬ সালে ইন্ডিয়া স্পেন্ডের রিপোর্ট বলছে, জলবাহিত রোগে ভারতে ৭ কোটি ৩০ লক্ষ কর্মদিবস নষ্ট হয়।
তবে দেশবাসীকে যথেষ্ট পরিমাণে পরিস্রুত পানীয় জল সরবরাহের লড়াইয়ে ভারত চুপ করে বসে আছে ভাবলে ভুল করা হবে। আমাদের স্বতন্ত্র জলসম্পদ মন্ত্রক আছে, জল কমিশন আছে, একাধিক মন্ত্রী ও সচিব আছেন, জাতীয় জলনীতি আছে, জল নিয়ে বাজেট বরাদ্দ আছে। ছিল ‘হু’-এর মিশন ‘ওয়াটার ফর অল বাই ১৯৯০’, ‘হেল্থ ফর অল বাই ২০০০’, রাষ্ট্রসঙ্ঘের ‘ইন্টারন্যাশনাল ড্রিংকিং ওয়াটার সাপ্লাই অ্যান্ড স্যানিটেশন ডিকেড’ (১৯৮১-১৯৯০), মিলিয়ন ডেভেলপমেন্ট গোলের অন্তর্গত ‘ওয়াটার ফর লাইফ ডিকেড’ (২০০৫-২০১৫)। সর্বোপরি এবছর বিশ্ব জলদিবস (২২ মার্চ) ২৫ বছর অতিক্রম করেছে। এবছরে দিনটির থিম ছিল ‘সকলের জন্য জল।’ কিন্তু বাস্তবটা কী? বিশ্বখ্যাত সংস্থা ‘ওয়াটার এইড’ তাদের সর্বশেষ সমীক্ষায় জানিয়েছে, ভারত যখন বিশ্বের বৃহত্তম গণতন্ত্রের ভোট উৎসবে মেতেছিল, তখন বিশ্বের সবথেকে বেশি সংখ্যক পানীয় জল বঞ্চিত মানুষ (১৬ কোটি ৩১ লক্ষ) এই দেশেই। এহেন কাকতালীয় সমাপতন কপালে ভাঁজ ফেলার মতোই বটে!  
07th  July, 2019
পথদ্রষ্টা ফালকে
সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়

‘রাজা হরিশ্চন্দ্র’-এর হাত ধরে পথচলা শুরু হয় প্রথম ভারতীয় পূর্ণাঙ্গ কাহিনীচিত্রের। ভারতীয় জাতীয়তাবাদের সঙ্গেও ফালকের নাম অবিচ্ছেদ্যভাবে জড়িয়ে গিয়েছে। ৭৫তম মৃত্যুবার্ষিকীতে এ দেশের সিনেমার পথদ্রষ্টাকে ফিরে দেখা। 
বিশদ

16th  February, 2020
ইতিহাসে টালা
দেবাশিস বসু

 ‘টালা’ কলকাতার অন্যতম প্রাচীন উপকণ্ঠ। ১৬৯০ সালের ২৪ আগস্ট জব চার্নক নেমেছিলেন সুতানুটিতে। ১৬৯৩ সালের ১০ জানুয়ারি তিনি মারা যান। অর্থাৎ তিনি সুতানুটিতে ছিলেন জীবনের শেষ আড়াই বছর। তাঁর মৃত্যুর প্রায় পাঁচ বছর পরে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি সাবর্ণ চৌধুরীদের কাছ থেকে গোবিন্দপুর, কলকাতা ও সুতানুটি গ্রাম তিনটির জমিদারি স্বত্ব কিনে নেয়।
বিশদ

09th  February, 2020
মহাশ্বেতা 

সন্দীপন বিশ্বাস: ‘সরস্বতী পুজো।’ শব্দ দুটো লিখে ল্যাপটপের কি-বোর্ড থেকে হাতটা সরিয়ে নিল শুভব্রত। চেয়ারে হেলান দিয়ে বাইরে চোখ। রাত এখন গভীর। আর কয়েকদিন পরেই সরস্বতী পুজো। এডিটর একটা লেখা চেয়েছেন। পুজো নিয়ে স্পেশাল এডিশনে ছাপা হবে। সাহিত্যিক হিসেবে শুভর একটা খ্যাতি আছে। 
বিশদ

02nd  February, 2020
শতবর্ষে জনসংযোগ
সমীর গোস্বামী

অনেকে মজা করে বলেন, সেলুনে যিনি হেয়ার স্টাইল ঠিক করেন, তিনি অনেক সময় বিশিষ্ট মানুষের কানেও হাত দিতে পারেন। জনসংযোগ আধিকারিক বা পিআরও’রাও খানিকটা তেমনই। প্রচারের স্বার্থে তাঁরা কেবল সাহসের উপর ভর করে অনেক কিছু করতে পারেন। মনে পড়ছে, বহু কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বা গণ্যমান্য ব্যক্তিকে কোনও কিছু উদ্বোধনের সময় ফিতে কাটতে দিতাম না। 
বিশদ

26th  January, 2020
অনন্য বিকাশ 

পাহাড়ী স্যান্যাল থেকে উত্তমকুমার সবাই ছিলেন তাঁর অভিনয়ের গুণমুগ্ধ ভক্ত। হেমেন গুপ্তের ‘৪২’ ছবিতে এক অত্যাচারী পুলিস অফিসারের ভূমিকায় এমন অভিনয় করেছিলেন যে দর্শকাসন থেকে জুতো ছোঁড়া হয়েছিল পর্দা লক্ষ্য করে। এই ঘটনাকে অভিনন্দন হিসেবেই গ্রহণ করেছিলেন তিনি। সেই অপ্রতিদ্বন্দ্বী অভিনেতা বিকাশ রায়কে নিয়ে লিখেছেন বেশ কিছু সিনেমায় তাঁর সহ অভিনেতা ও মণীন্দ্রচন্দ্র কলেজের বাংলা বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান অধ্যাপক ডঃ শঙ্কর ঘোষ।  
বিশদ

19th  January, 2020
যদি এমন হতো! 
সঞ্জীব চট্টোপাধ্যায়

যদি এমন হতো? সিমুলিয়ার দত্ত পরিবারে নরেন্দ্রনাথ এসেছেন, ধনীর আদরের সন্তান; কিন্তু শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংসদেব পৃথিবীতে আসেননি। তাহলে নরেন্দ্রনাথ কি স্বামী বিবেকানন্দ হতেন! মেধাবী, সাহসী, শ্রুতিধর এই সুন্দর যুবকটি পিতাকে অনুসরণ করে হয়তো আরও শ্রেষ্ঠ এক আইনজীবী হতেন, ডাকসাইটে ব্যারিস্টার, অথবা সেই ইংরেজযুগের সর্বোচ্চ পদাধিকারী, ঘোড়ায় চাপা ব্রাউন সাহেব— আইসিএস। ক্ষমতা হতো, সমৃদ্ধি হতো।
বিশদ

12th  January, 2020
সেলুলয়েডের শতবর্ষে হিচকক 
মৃন্ময় চন্দ

‘Thank you, ….very much indeed’
শতাব্দীর হ্রস্বতম অস্কার বক্তৃতা। আবার এটাও বলা যেতে পারে, মাত্র পাঁচটি শব্দ খরচ করে ‘ধন্যবাদজ্ঞাপন’।
হ্যাঁ, হয়তো অভিমানই রয়েছে এর পিছনে।
বিশদ

05th  January, 2020
ফিরে দেখা
খেলা

আর তিনদিন পরেই নতুন বছর। স্বাগত ২০২০। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে পুরনো বছরকেও। তাই ২০১৯ সালের বেশকিছু স্মরণীয় ঘটনার সংকলন নিয়ে চলতি বছরের সালতামামি। 
বিশদ

29th  December, 2019
ফিরে দেখা
বিনোদন

আর তিনদিন পরেই নতুন বছর। স্বাগত ২০২০। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে পুরনো বছরকেও। তাই ২০১৯ সালের বেশকিছু স্মরণীয় ঘটনার সংকলন নিয়ে চলতি বছরের সালতামামি।  
বিশদ

29th  December, 2019
ফিরে দেখা
রাজ্য 

আর তিনদিন পরেই নতুন বছর। স্বাগত ২০২০। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে পুরনো বছরকেও। তাই ২০১৯ সালের বেশকিছু স্মরণীয় ঘটনার সংকলন নিয়ে চলতি বছরের সালতামামি।   বিশদ

29th  December, 2019
ফিরে দেখা
দেশ-বিদেশ 

আর তিনদিন পরেই নতুন বছর। স্বাগত ২০২০। কিন্তু ভুলে গেলে চলবে পুরনো বছরকেও। তাই ২০১৯ সালের বেশকিছু স্মরণীয় ঘটনার সংকলন নিয়ে চলতি বছরের সালতামামি।  
বিশদ

29th  December, 2019
বঙ্গ মিষ্টিকথা 
শান্তনু দত্তগুপ্ত

মিষ্টান্ন ভোজন। যার সঙ্গে জড়িয়ে বাঙালির আবেগ, অনুভূতি, অ্যাডভেঞ্চার। ডায়েটিংয়ের যুগে আজও বহু বাঙালি ক্যালরির তোয়াক্কা করে না। খাওয়া যতই আজব হোক, মিষ্টি না হলে ভোজ সম্পূর্ণ হয় না যে! 
বিশদ

22nd  December, 2019
সংবিধানের ৭০
সমৃদ্ধ দত্ত

ভারত এবং বিশেষ করে আগামীদিনের শাসক কংগ্রেসের সঙ্গে এভাবে চরম তিক্ততার সম্পর্ক করে রেখে পৃথক পাকিস্তান পাওয়ার পর, সেই নতুন দেশের নিরাপত্তা কতটা সুনিশ্চিত? কীভাবে সম্ভাব্য পাকিস্তানের নিরাপত্তা সুরক্ষিত করা যাবে? কী কী সমস্যা আসতে পারে?  
বিশদ

15th  December, 2019
রাজ সিংহাসন
প্রণবকুমার মিত্র

 দরবারে আসছেন মহারাজ। শিঙে, ঢাক, ঢোল, কাঁসর ঘণ্টার বাদ্যি আর তোপের শব্দ সেটাই জানান দিচ্ছে। তারপর সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে মহারাজ ধীর পায়ে গিয়ে বসলেন রাজ সিংহাসনে। আগেকার দিনে রূপকথার গল্পে এটাই বলা হতো।
বিশদ

08th  December, 2019
একনজরে
সংবাদদাতা, কাঁথি: পশ্চিমবঙ্গ যোগ সোসাইটি আয়োজিত রাজ্যস্তরের যোগাসন প্রতিযোগিতায় সাফল্য পেল কাঁথির দুই ছেলে। গত ১৬ফেব্রুয়ারি বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের বিদ্যাসাগর ভবনে রাজ্যস্তরের এই প্রতিযোগিতাটি অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে রাজ্যের ১৮টি জেলার ১৭৯জন প্রতিযোগী অংশ নেয়। ...

বেজিং, ১৯ ফেব্রুয়ারি (পিটিআই): চীনে মহামারীর আকার নিয়েছে করোনা ভাইরাস। বুধবার পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা দু’হাজার ছাড়িয়ে গেল। একইসঙ্গে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭৪ হাজার ১৮৫। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া: মঙ্গলবার সকালে জগাছা থানার মৌড়িগ্রাম শ্মশানধার এলাকা থেকে এক অজ্ঞাতপরিচয় যুবকের দেহ উদ্ধার করেছিল পুলিস। বিভিন্ন সূত্র কাজে লাগিয়ে বুধবারই সেই মৃতদেহের পরিচয় জানা গিয়েছে। পাশাপাশি এই খুনের ঘটনায় চারজনকে মঙ্গলবার রাতেই গ্রেপ্তার করেছে পুলিস।   ...

বাণীব্রত রায়  শিলিগুড়ি, শিলিগুড়ি শহরে ক্রিকেট নিয়ে উন্মাদনা বরাবরই। এই শহরকে পাপালির শহর বলে একডাকে চেনে ক্রিকেট দুনিয়া। ভারতীয় ক্রিকেট দলের অন্যতম উইকেট রক্ষক পাপালি মানে ঋদ্ধিমান সাহা এই শহরেরই ছেলে। এখানেই তাঁর স্কুল শিক্ষা থেকে কলেজ পড়া। এই ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

আত্মবিশ্বাস এত বৃদ্ধি পাবে, কোনও কাজই কঠিন মনে হবে না। সঞ্চয় বেশ ভালো হবে। লটারি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

আন্তর্জাতিক সামাজিক ন্যায় দিবস
১৯৪৭- ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ক্লিমেন্ট অ্যাটলি ঘোষণা করলেন, ১৯৪৮-এর জুন মাসের মধ্যে ইংরেজরা ভারত ত্যাগ করে চলে যাবে
১৯৫০- স্বাধীনতা সংগ্রামী শরৎচন্দ্র বসুর মৃত্যু
১৯৭১- স্বাধীনতা সংগ্রামী ও ফব নেতা হেমন্ত বসু শহরের রাজপথে প্রকাশ্যে খুন হলেন  





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৯.৭৮ টাকা ৭৩.৩১ টাকা
পাউন্ড ৯০.৮৭ টাকা ৯৫.৭৭ টাকা
ইউরো ৭৫.৫০ টাকা ৭৯.৫৮ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪২,১১০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৯,৯৫০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪০,৫৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৭,৮০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৭,৯০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, (মাঘ কৃষ্ণপক্ষ) দ্বাদশী ২৪/৩৬ অপঃ ৪/০। পূর্বাষাঢ়া ৩/১৫ দিবা ৭/২৮। সূ উ ৬/৯/৩৬, অ ৫/৩১/৩৪, অমৃতযোগ রাত্রি ১/৬ গতে ৩/৩৮। বারবেলা ২/৪১ গতে অস্তাবধি। কালরাত্রি ১১/৫০ গতে ১/২৫ মধ্যে। 
৭ ফাল্গুন ১৪২৬, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার, দ্বাদশী ২৭/৩৪/৪৬ সন্ধ্যা ৫/১৪/৪৩। পূর্ব্বাষাঢ়া ৭/২৪/৪১ দিবা ৯/১০/৪১। সূ উ ৬/১২/৪৯, অ ৫/৩০/২৩। অমৃতযোগ রাত্রি ১/০ গতে ৩/২৮ মধ্যে। কালবেলা ২/৪১/০ গতে ৪/৫/৪১ মধ্যে। কালরাত্রি ১১/৫১/৩৬ গতে ১/২৬/৫৪ মধ্যে। 
২৫ জমাদিয়স সানি  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
 পরীক্ষার মরশুমে সিইএসসির বিশেষ হেল্পলাইন নম্বর
পরীক্ষার মরশুমে সুষ্ঠু বিদ্যুৎ সরবরাহে একগুচ্ছ পদক্ষেপ করা হয়েছে। সিইএসসির ...বিশদ

09:10:00 AM

  সার্ভিস কোটা: আজ থেকে আন্দোলনে জুনিয়র ডাক্তাররা
প্রতিবার সার্ভিস ডাক্তার ইস্যুতে শাসক-বিরোধী সব দলেরই চিকিৎসক সংগঠনের পালের ...বিশদ

09:09:02 AM

নির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে এবার ইএসআই হাসপাতালে সারপ্রাইজ ভিজিট করবেন সরকারি প্রতিনিধিরা
নির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে এবার ইএসআইসির হাসপাতালগুলিতে ‘সারপ্রাইজ ভিজিট’ করবেন কেন্দ্রীয় ...বিশদ

08:50:00 AM

  ধর্ষণে অভিযুক্ত বিজেপি বিধায়ক
উত্তরপ্রদেশের এক স্থানীয় বিজেপি বিধায়কের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল। অভিযোগকারিণী ...বিশদ

08:40:00 AM

কৃষককে দেড় লক্ষাধিক টাকা জরিমানা বিদ্যুৎ কোম্পানির
একদিনের জন্যে অনুমতি নিয়ে ধারাবাহিকভাবে চলছিল বিদ্যুৎ ব্যবহার। আর এরই ...বিশদ

08:37:21 AM

ইতিহাসে আজকের দিনে 
আন্তর্জাতিক সামাজিক ন্যায় দিবস১৯৪৭- ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ক্লিমেন্ট অ্যাটলি ঘোষণা করলেন, ...বিশদ

08:23:45 AM