Bartaman Patrika
প্রচ্ছদ নিবন্ধ
 

রাজনীতির ভাগ্যপরীক্ষা
আকাশদীপ কর্মকার

এই মুহূর্তে দেশের রাজনীতিতে মুখ্য আলোচিত বিষয় লোকসভা নির্বাচন। রাজনীতিকদের ভাগ্যপরীক্ষা। এই নির্বাচনে দেশের প্রধান প্রধান রাজনৈতিক দলের শক্তি পরীক্ষার পাশাপাশি ভাগ্য পরীক্ষা দেশের হাইপ্রোফাইল ব্যক্তিদেরও।
ভারতের স্বাধীনতার মুহূর্তটিকে জন্ম সময় ধরলে জন্ম বিবরণটি হল– 15.08.1947, 00.01 A.M, New Delhi. অর্থাৎ উক্ত বিবরণটি থেকে যে জন্ম কুণ্ডলীটি পাওয়া যায়, সেটি হল— লগ্ন–বৃষ (৭°), রাহু– বৃষ (৫°), মঙ্গল-মিথুন (৭°), চন্দ্র–কর্কট (৩°), বুধ-কর্কট (১৩°), শনি-কর্কট (২০°), শুক্র-কর্কট (২২°), রবি-কর্কট (২৭°), বৃহস্পতি–তুলা (২৫°), কেতু –বৃশ্চিক (৫°)। ভারতের লগ্নে তুঙ্গ রাহুর অবস্থান কালসর্পদোষ সৃষ্টি করেছে। রাহু রবির নক্ষত্রে। তাই ভারতবর্ষের রাজনৈতিক পরিবেশ দ্রুত পরিবর্তনশীল ও বিপরীতপক্ষ তথা কেন্দ্র সরকারে প্রতিপক্ষ যথেষ্ট শক্তিশালী। চতুর্থ পতি রবি-শনি যুক্ত। রবি স্বৈরতন্ত্র ও শনি গণতন্ত্রের কারক। তাই এই দুটি গ্রহযোগ মোটেই শুভ নয়। গণতন্ত্র বারবার স্বৈরতন্ত্রের রূপ নেয়। দশমপতি শনি রাজযোগকারক। কে পি মতে দশমভাবস্ফুটটি মকরে। মকর রাশিতে ৬টি গ্রহের দৃষ্টি রয়েছে। যা বিশিষ্ট প্রতিভাবান রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বের জন্ম দিতে সক্ষম। দশমপতি শনি যোগী তথা অবিবাহিত বা বিধবা। তাই অধিকাংশ যাঁরা ভারতকে সফলভাবে পরিচালনা করতে সক্ষম হয়েছেন তাঁরা প্রত্যেকেই বিধবা বা বিপত্নীক বা অবিবাহিত। অটলবিহারী বাজপেয়ি, জওহরলাল নেহরু, ইন্দিরা গান্ধী। এমনকী নরেন্দ্র মোদি, জয়ললিতাও এর প্রকৃষ্ট উদাহরণ।
ভারতে বর্তমানে চন্দ্রের দশায় বৃহস্পতির অন্তর্দশা চলছে। এটি চলবে ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত। এরপর শুরু হবে শনির অন্তর্দশা। চন্দ্র নক্ষত্রও যাবে ৩, ৪, ৯, ১০, ১১-এর নির্দেশক। বৃহস্পতি এইভাবে ৬, ৮, ৯, ১২-এর নির্দেশক। অন্তর্দশায় ৬, ৮, ১২ নির্দেশ রাজনৈতিক ইস্যুতে মোটেই শুভ নয়। এর অর্থ, ঝামেলা, গণ্ডগোল ও ব্যাপক পরিবর্তন। বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতার মৃত্যু, শীর্ষ নেতার অবসর তথা একাধিক রাজনৈতিক নেতার আইনি সমস্যাদির যোগ নির্দেশ করছে। বৃহস্পতির ষষ্ঠে অবস্থান রাজনৈতিক নীতির অবনমনকেই নির্দেশ করছে। গোচরে বৃহস্পতি বৃশ্চিকে, কিন্তু ভোটের সময় বক্রী হয়ে ধনুতে প্রবেশ করছে। তাই পুরনো কোনও রাজনৈতিক বা রাষ্ট্রীয় ইস্যু উঠবে যা জাতীয় রাজনীতিকে প্রভাবিত করবে। বক্রগ্রহ জনগণের মনেও দ্বৈত মানসিকতা আনবে। কোন দলকে সমর্থন করা যায়, তা সিদ্ধান্ত নিতে অসুবিধা হবে। শনির গোচর অষ্টমে ধনুতে এবং রাহু-কেতু-শনি-মঙ্গল পরস্পর সমসপ্তমে আসছে ভোটের দিনগুলিতে ও পরবর্তী দিনগুলিতে। যা নির্দেশ করছে যে যেকোনও দাঙ্গা, বোমাবাজি, প্রতিহিংসা, কোনও ব্যক্তির রাষ্ট্রীয় দণ্ড, রাজনৈতিক অস্থিরতা। কেন্দ্রে সরকার গঠনে যথেষ্ট কঠিন পরিস্থিতি অপেক্ষা করছে।
এখন আমরা দেখে নেব যে, দেশের চতুর্দিকের কোন দিকটি অস্থির, আর কোন দিকটি সুস্থির থাকবে।
বর্তমানে শনির গোচর পূর্বাষাঢ়া নক্ষত্রের উপর যা বরাহমিহিরের কূর্মা চক্রে পশ্চিম দিক নির্দেশিত। তাই ভারতের পশ্চিম প্রদেশগুলিতে, যেমন—পশ্চিম মহারাষ্ট্র, গুজরাত, রাজস্থান ইত্যাদি রাজ্যে ব্যাপক উত্তেজনা ও ক্ষয়ক্ষতির যোগ। রাহুর গোচর পুনর্বসু নক্ষত্রের উপর যা কূর্মা চক্রে পূর্বদিক নির্দেশ করছে। তাই বিহার, পশ্চিমবঙ্গ, গোয়া, আসাম, ত্রিপুরা ইত্যাদি রাজ্যে ঝামেলা আসার প্রবল সম্ভাবনা।
 এবার আমরা প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ রাজ্যগুলির রাজনৈতিক ভাগ্যফল বিচার করব।
উত্তরপ্রদেশ: উত্তরপ্রদেশের জন্মলগ্ন তুলা ও রাশি মেষ। বর্তমানে বৃহস্পতির মহাদশায় বুধের অন্তর্দশা চলছে। বৃহস্পতি নক্ষত্রও যাবে ৩, ৪, ৬, ৭, ৯, ১০, ১২ এবং বুধ নক্ষত্রও যাবে ১, ৩, ৪, ৮, ৯, ১২ এর নির্দেশক। তাই এখানে যথেষ্ট হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে (৭, ১২)। প্রতিপক্ষ জোট ব্যাপক প্রভাব বিস্তার করবে। যোগাযোগ (৩, ৯), ধর্মীয় ভাবাবেগ (৮, ৯, ১২) লোকসভায় ইস্যু হয়ে দাঁড়াবে।
মহারাষ্ট্র: মহারাষ্ট্রের লগ্ন ধনু ও রাশি মিথুন। বর্তমানে বুধের মহাদশায় বৃহস্পতির অন্তর্দশা চলছে। বুধ নক্ষত্র যাবে ২, ৩, ৬, ৭, ৯, ১২ ও বৃহস্পতি ১, ২, ৩, ১২ নির্দেশক। তাই এখানে বর্তমান শাসকের প্রভুত্ব (১, ৩, ৬, ৯) থাকলেও পরিবর্তনশীল পরিবেশ ও কেন্দ্রবিরোধী মানসিকতা জন্ম নেবে (১, ৩, ১২)।
পশ্চিমবঙ্গ: পশ্চিমবঙ্গের লগ্ন তুলা ও রাশি মেষ। বর্তমানে বৃহস্পতির মহাদশায় বুধের অন্তর্দশা চলছে। দশান্তর্দশা ১, ৬, ৩ ১০ এর নির্দেশক। তাই শাসকের সার্বিক ভালো ফল আশা করা গেলেও পরিবর্তন ও ভালোরকম ক্ষয়ক্ষতির যোগ অর্থাৎ বিরোধীদের ভালো ফলও (১, ৩, ৮, ১২) আশা করা যাচ্ছে।
তামিলনাড়ু: তামিলনাড়ুর লগ্ন বৃষ ও রাশি কর্কট। বর্তমানে চন্দ্র-শনির দশান্তর্দশা চলছে। চন্দ্র ৩, ৪, ১০, ১১ ও শনি ১, ২, ৩, ৬ নির্দেশ করছে। তাই বর্তমানে এখানে শাসকের ব্যাপক উন্নতি ও প্রতিযোগিতার সাফল্য নির্দেশ করছে (১, ৩, ৬)। তবে গোচরে শনি-বৃহস্পতির অবস্থান হঠাৎ বাধা ও পুরনো কোনও রাজনৈতিক ইস্যু উঠে আসতে পারে। কোনও বড় রাজনীতিবিদের রাষ্ট্রীয় শাস্তি বা সমালোচনাও হতে পারে।
বিহার: বিহারের রাশি মেষ, লগ্ন তুলা। দশান্তর্দশা (১, ৩, ১২) নির্দেশক। তাই বর্তমানে শাসকের ব্যাপক জয়লাভ (৩, ৬, ৯, ১০) হলেও ধীরে ধীরে শাসক কেন্দ্র-বিরোধী মন্তব্য ও বিশৃঙ্খলতা আসবে। জনস্বাস্থ্য (১, ৬), শিক্ষা (৪, ৬, ৯) ইত্যাদি ক্ষেত্রে উন্নতি নির্বাচনের মূল বাজি থাকবে।
মধ্যপ্রদেশ: মধ্যপ্রদেশের রাশি কন্যা, লগ্ন মকর। বর্তমানে বুধ শুক্রের দশান্তর্দশা ৪, ৫, ৬, ৮, ৯, ১০, ১১ নির্দেশ করছে। তাই সুস্থ ও সুস্থির ভোট আশা করা যায়। প্রতিপক্ষের উন্নতি (৪, ৬), বর্তমান শাসকের কিছুটা অবনতি (৪, ৫), আশানুরূপ ফলাফল (৯, ১১) হবে।
কর্ণাটক: কর্ণাটকের লগ্ন কর্কট, রাশি ধনু। বর্তমানে রাহু বুধের দশান্তর্দশা চলছে। দশান্তর্দশা ৩, ৪, ৫, ৬, ৯, ১১, ১২ নির্দেশ করছে। তাই এখানেও রাজ্য সরকার বিরোধিতা সাফল্য আনবে (৪, ৫)। উত্তেজনার পরিবেশ থাকবে (৬, ১২)।
গুজরাত: গুজরাতের রাশি মিথুন। লগ্ন ধনু। বর্তমানে বুধ-বৃহস্পতির দশান্তর্দশা চলছে। দশান্তর্দশা ১, ২, ৩, ৭, ৯, ১২ নির্দেশক হওয়ায় জাতীয় সুরক্ষা, ইনভেস্টমেন্ট, লেবার ক্লাস তথা দলিত ইস্যু ভোটের বাজি হবে। গণ্ডগোলের পরিস্থিতিও আসতে পারে।
রাজস্থান: রাজস্থানের লগ্ন ধনু, রাশি মিথুন। দশান্তর্দশা ১, ৩, ৭, ১২ নির্দেশক হওয়ায় পরিবর্তনশীল তথা রাজ্য সরকারের বিরোধী শক্তিশালী হবে। জনগণের মধ্যেও পরিবর্তন ও ধর্মীয় ভাবাবেগ, জাতীয়তাবাদী মানসিকতা ভোট ব্যাঙ্কে থাবা দেবেই (৯, ১২)।
অন্ধ্রপ্রদেশ: অন্ধ্রপ্রদেশের লগ্ন কর্কট, রাশি কুম্ভ। বর্তমানে বুধ-বুধের দশান্তর্দশা চলছে। বুধ ৩, ৪, ৫, ১০, ১২ নির্দেশক হওয়ায় রাজ্য সরকারের দুর্নাম (১২), প্রতিপক্ষ শক্তিশালী (৪, ৫), পরিবর্তনকামী চিন্তাধারা প্রকাশ (৩, ১২) ইত্যাদি নির্দেশ করছে।
 এবার আমরা বিচার করে নেব বেশ কিছু তাবড় তাবড় নেতা-নেত্রীর ভাগ্য, যাদের কৃতকার্যতা, ব্যর্থতা জাতীয় রাজনীতিতে ব্যাপক প্রভাব ফেলতে পারে।
নরেন্দ্র মোদি: রাশি বৃশ্চিক, লগ্ন বৃশ্চিক। লগ্নে চন্দ্র নীচভঙ্গ রাজযোগ করেছে। রুচকযোগ বিদ্যমান। কারকাংশ লগ্ন, লগ্ন, রাশি লগ্ন তিনটিই বলবান। বর্তমানে ওনার চন্দ্রের মহাদশায় শুক্রের অন্তর্দশা চলছে। শুক্র বৃহস্পতি দৃষ্ট ও ৭, ৯, ১০, ১২ এর নির্দেশক। তাই যুদ্ধ পরিস্থিতি, সমালোচনা, দুর্ঘটনা ইত্যাদি হওয়ার প্রবল যোগ। সংঘর্ষপূর্ণ ও প্রতিপক্ষের কাছে বাধাপ্রাপ্ত হওয়ার যোগ। যদিও লোকসভার সময় বৃহস্পতির গোচর হঠাৎ সুনাম ও এককভাবে সাফল্য নির্দেশ করছে।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়: রাশি বৃষ, লগ্ন মেষ। বর্তমানে শনি-চন্দ্রের দশান্তর্দশা ২, ৩, ৬, ৯ এর কারকতা দেওয়ায় উক্ত সময়ে ওনার ব্যাপক সাফল্যযোগ নির্দেশ করছে। ভারতের জাতীয় রাজনীতিতে যথেষ্ট প্রভাব ফেলবেন। তবে গোচরে শনির অবস্থান মানহানির কারক ও ব্যাপক শত্রুতাকারক।
রাহুল গান্ধী: রাহুল গান্ধীর রাশি বৃশ্চিক, লগ্ন মকর। নীচস্থ শনি দশমে দৃষ্টি দিচ্ছে। তাই রাজনীতিতে সাফল্যযোগ শেষ বয়সে। সহজে ব্যাপক সাফল্য আসবে না। বর্তমানে ওনার চন্দ্র-বুধের দশান্তর্দশা চলছে। বুধ ৩, ৪, ৬, ৭, ৯, ১১, ১২ নির্দেশ দেওয়ায় হতাশা (৬, ৭, ১২), আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি (৬, ১২), পরিবর্তনশীল মানসিকতা হেতু ক্ষয়ক্ষতি (৩, ৬, ১২) ইত্যাদি আসলেও পূর্ব নির্বাচন ২০১৪-এর তুলনায় সাফল্য আসবে (৩, ৬, ৯, ১১)। যথেষ্ট সম্মানিত হবেন (৬, ৯, ১১)।
প্রিয়াঙ্কা গান্ধী: রাশি বৃশ্চিক। লগ্ন মিথুন। সপ্তমে বৃহস্পতি, রবি, বুধের রাজযোগ। বর্তমানে শুক্র-শনির দশান্তর্দশা চলছে। দশান্তর্দশা ১, ২, ৭, ৪, ১০ নির্দেশক। তাই ওনার এই মুহূর্তে জাতীয় রাজনীতিতে প্রবেশ যথেষ্ট তাৎপর্যপূর্ণ। উনি এই সময় যথেষ্ট প্রভাব বিস্তার করবেন। কিন্তু চূড়ান্ত সাফল্য পাবেন না। কারণ শুক্র-শনির দশান্তর্দশা একটি ব্যতিক্রমী দশান্তর্দশা।
সোনিয়া গান্ধী: রাশি মিথুন। লগ্ন কর্কট। দশমে বৃহস্পতি-শুক্রের প্রভাব শুভ ফলদায়ক। বর্তমানে ওনার কেতুর দশা চলছে। কেতু ৩, ৫, ১২ নির্দেশক। তাই এই সময় সমালোচনা বেশি হবে। সাফল্যযোগের সম্ভাবনা কম।
অরবিন্দ কেজরিওয়াল: রাশি মেষ, লগ্ন বৃষ। বর্তমানে অন্তর্দশা পতি শুক্র ১, ৪, ৬ নির্দেশক। তাই শত্রুতা ও প্রতিপক্ষের জয় নির্দেশ করছে। শনির গোচরও শুভ নয়।
অখিলেশ যাদব: রাশি মিথুন, লগ্ন কন্যা। বর্তমানে কেতু-চন্দ্র দশান্তর্দশা চলছে। যা বিভ্রান্তিকারক। পারিবারিক বিবাদ কর্মক্ষেত্রে প্রভাব ফেলবে। মহাজোটে দ্বৈত মানসিকতা পোষণ করবেন। প্রবল উদ্যমহেতু কিছু সাফল্য আসবে। ভোট শেয়ার দ্বারা লাভবান হতে পারেন।
চন্দ্রশেখর রাও: রাশি কর্কট, লগ্ন বৃষ। বর্তমানে রাহু-শুক্র দশান্তর্দশা চলছে। যা রাজযোগ কারক। থার্ড ফ্রন্টের প্রধান নেতাদের একজন উনি। শুক্র একাদশে, তাই শত্রুতা ও শত্রুজয় নির্দেশ করছে। যদিও শুক্রের ১, ৬, ৮, ১০ নির্দেশ কর্মক্ষেত্রে ব্যর্থ পরিকল্পনা তথা শাস্তিমূলক অভিজ্ঞতা আনতে পারে।
নীতীশ কুমার: রাশি বৃশ্চিক, লগ্ন মিথুন। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী উনি। বর্তমানে ওনার রাহু-শনির দশান্তর্দশা চলছে। শনি ৩, ৫, ৮, ৯, ১০, ১২ নির্দেশক। জয়লাভ (৩, ৯, ১০), পরিবর্তন (৩, ৮, ১২) নির্দেশ করছে। নির্বাচনের পর ওনার সঙ্গে এনডিএ জোটের মতান্তর হতে পারে।
চন্দ্রবাবু নাইডু: রাশি ধনু, লগ্ন মেষ। টিডিপি দলের প্রধান তথা অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী উনি। বর্তমানে শনি-কেতুর দশান্তর্দশা চলছে। শনি-কেতুতে যে কোনও ফৌজদারি তথা মানহানি মামলায় জড়াতে পারেন। এক্ষেত্রে দশা শুভ নয়।
কুমারস্বামী: রাশি মিথুন, লগ্ন মিথুন। উনি কর্ণাটকের নব নির্বাচিত মুখ্যমন্ত্রী। ওনার এখন কেতু শুক্র দশান্তর্দশা চলছে। যা ১, ৪, ৫, ১২ নির্দেশক। উক্ত দশা শুভ যাবে না। ক্ষয়ক্ষতি ও পরিবর্তন আসতে পারে।
মায়াবতী: রাশি মকর, লগ্ন কর্কট। বর্তমানে বুধ-শুক্রের দশান্তর্দশা চলছে। যা ৪, ৫, ৭, ১০, ১১ নির্দেশক। সময় শুভ। পরিকল্পনার সাফল্য এলেও গোচরে বক্র বৃহস্পতি। হঠাৎ বাধা ও হঠাৎ প্রতিপক্ষ শক্তিশালী (৪, ৫) হতে পারে।
রাজনাথ সিং: রাশি-বৃশ্চিক, লগ্ন-বৃশ্চিক। একাধিক রাজযোগ বিদ্যমান। বর্তমানে ওনার রাহু-শুক্রের দশান্তর্দশা ১, ২, ৬, ৭, ৯, ১০, ১২ নির্দেশ করায়, ব্যাপক প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হবে। ১, ৬, ৯, ১০ এর নির্দেশ ব্যাপক সাফল্য দেবে।
অমিত শাহ: লগ্ন কন্যা, রাশি মেষ। বর্তমানে রাহু-রবির দশান্তর্দশা ১, ৩, ৮, ১২ নির্দেশ করছে। তাই বদনাম ও রাষ্ট্রীয় ক্ষেত্রে যে কোনও ব্যর্থ পরিকল্পনা আনতে পারে। মে মাসের পর চন্দ্রের অন্তর্দশা প্রবল প্রচেষ্টায় মনস্কামনা পূরণ করাতে পারে। দশমস্থ রাহুর উপস্থিতি যে কোনও পরিস্থিতির মোকাবিলায় সাফল্য এনে দেবে।
সর্বশেষে দেখে নেব যে প্রধানমন্ত্রিত্বের দাবিদার তিনটি দলের অর্থাৎ (১) বিজেপি (২) কংগ্রেস (৩) ফেডারেল ফ্রন্টের ভাগ্যফল
বিজেপি: বিজেপির প্রতিষ্ঠা দিনটিকে জন্মদিন ধরে নিলে রাশি বৃশ্চিক, লগ্ন মিথুন। কুণ্ডলীতে তৃতীয়ে চারটি গ্রহ। তৃতীয়ে বুধের দৃষ্টি। তাই দলটিতে সাহসী ও সংগ্রামী ও জনসংযোগকারী ব্যক্তিরা স্থান পায় এবং দলটি প্রচার, গণমাধ্যম তথা মিডিয়ার দ্বারা ব্যাপক সাফল্য পায়। তৃতীয় ভাব পরাক্রমস্থান, তাই দলটি বহু প্রচেষ্টার পর সাফল্য পায়। হঠাৎ উত্থান-পতনের মধ্যে যায়। বিরূপ ও প্রতিকূল পরিবেশে জয়লাভের সামর্থ্য রাখে। বর্তমানে বিজেপির চন্দ্র-মঙ্গলের দশান্তর্দশা চলছে। দশাপতি নীচস্থ ও ষষ্ঠস্থ। তাই এইসময় যে কোনও নারী চরিত্র কর্তৃক ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে পড়ার প্রবল যোগ। মঙ্গল ৩, ৬, ৯, ১১ এর নির্দেশক হওয়ায় বহু সংগ্রামের পর জয়লাভ নির্দেশ করছে। চন্দ্রের উপর বৃহস্পতির গোচর অনেকখানি স্বস্তি এনে দিতে পারে। কোনও বয়োজ্যেষ্ঠ নেতা-নেত্রীর অসুস্থতা নির্দেশ করছে।
কংগ্রেস: কংগ্রেসের রাশি কন্যা, লগ্ন মীন। দশমে রবি-বৃহস্পতির উপস্থিতি ব্যাপক সম্মান ও দীর্ঘমেয়াদি সাফল্য এনে দিয়েছে। বর্তমানে কংগ্রেসের বৃহস্পতি-শুক্রের দশান্তর্দশা চলছে। শুক্র তৃতীয়-অষ্টমপতি হয়ে ৩, ৪, ৭, ৮, ৯, ১০ এর নির্দেশক। তাই দলে হঠাৎ পরিবর্তন, পুরাতন সমস্যার পুনরাবৃত্তি, মহিলা কর্তৃক সাহায্য লাভ, সংগ্রাম ইত্যাদি আসবে। এ কথা উল্লেখ করতেই হয় যে দলে প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর উপস্থিতি কংগ্রেসকে অনেক সুবিধা এনে দেবে।
ফেডারেল ফ্রন্ট: ১৯ মার্চ, ২০১৮, দুপুর ১২.৩০ কে ফেডারেল ফ্রন্টের জন্ম ধরে নিলে যে কুণ্ডলীটি হয় তার রাশি মীন ও লগ্ন মিথুন। লগ্নের সপ্তমে শনি-মঙ্গলের উপস্থিতি মান-অভিমান, ঝামেলা ও আইনি বড়সড় জটিলতার কারক। দ্বিতীয়ে রাহুর উপস্থিতি কলহকারক। লগ্নপতি বুধ নীচস্থ। যা অশুভ। বর্তমানে বুধ-বৃহস্পতির দশান্তর্দশা চলছে। বৃহস্পতি বক্রী ও বুধ নীচস্থ। বৃহস্পতি ৩, ৫, ৭, ৯, ১০-এর নির্দেশ দেওয়ায় উন্নত পরিকল্পনা ও ব্যাপক সাড়া মিললেও গ্রহ বক্রী তাই বহু প্রচেষ্টার পর সাফল্য আসবে। বলা বাহুল্য মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ফেডারেল ফ্রন্টের প্রধান মুখ।
সুদীর্ঘ আলোচনার পর এখন আমাদের সিদ্ধান্ত বা ফলাফলের দিকে আসতেই হয়। সার্বিক মূল্যায়নের প্রথমেই ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে অবধি গোচর দেখে নেওয়া কর্তব্য। ৭ দফায় ভোট হবে। তাই ৭ দিনের গোচরটি হল—
১১ এপ্রিল: রবি মীনে, মঙ্গল বৃষে, বক্রী বৃহস্পতি ধনুতে, শনি ধনুতে।
১৮ এপ্রিল: রবি মেষে প্রবেশ করছে। বাকি অপরিবর্তিত।
২৩ এপ্রিল: বৃহস্পতি পুনরায় বৃশ্চিকে। বাকি অপরিবর্তিত।
২৯ এপ্রিল: কোনও পরিবর্তন নেই।
৬ মে: শনি বক্রী। মঙ্গল মিথুনে প্রবেশ করার মুখে।
১২ মে: মঙ্গল মিথুনে। বাকি অপরিবর্তিত।
১৯ মে: রবি বৃষে। বাকি অপরিবর্তিত।
এটা স্পষ্ট যে ১১ এপ্রিল থেকে ১৯ মে গোচরে ব্যাপক পরিবর্তন হচ্ছে যা মানুষের মনে দ্বন্দ্ব বা দ্বৈত মানসিকতা আসতে পারে। এর ফলে কোনও দফায় বিজেপি, কোনও দফায় কংগ্রেস আবার কোনও দফায় আঞ্চলিক দলগুলি সুবিধা পাবে। বিশেষত শনি-বৃহস্পতির বক্রতা ব্যাপক তাৎপর্যপূর্ণ। রাহু-কেতু মঙ্গলের গোচর হানাহানি ও ঝামেলার কারক। ফলাফল ঘোষণার মুহূর্তে অর্থাৎ ২৩ মে বিকেলে চন্দ্রের অবস্থান কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন সরকার বিজেপির তৃতীয়ে, শনি-কেতু দ্বিতীয়ে, বৃহস্পতি লগ্নে। তাই সংগ্রাম ও বাধার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে।
ভারতের লগ্নের অষ্টমে শনির উপস্থিতি রাজনৈতিক বিশৃঙ্খলতা নির্দেশ করছে। সরকার গঠনে ঝামেলা ও বাধা হবেই। হঠাৎ অপ্রত্যাশিত ফলাফল হবে। কোনও পক্ষই ব্যাপক অর্থে সাফল্য না পাওয়ার যোগ। বলা বাহুল্য— শনি-বৃহস্পতির অষ্টমে গোচর কোনও বয়স্ক-অভিজ্ঞ নেতা/নেত্রীকেই বেছে নেবে।
তবে এটাও ঠিক, জ্যোতিষশাস্ত্রে গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থান আর সংখ্যাতত্বের পর্যালোচনায় রাশিচক্র অনুযায়ী আগাম ধারণা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়ে থাকে। এটা মনে রাখতে হবে রাশি কখনও ভাগ্যের নিয়ন্ত্রক হতে পারে না। মানুষের কর্মই নিয়ন্ত্রণ করে তার ভাগ্যকে। জ্যোতিষশাস্ত্র কেবল কিছু সূত্র ধরে সম্ভাবনার পথ বাতলে দেয় মাত্র।
21st  April, 2019
জল সঙ্কট 

কল্যাণ বসু: দুধ সাদা ধুতি পাঞ্জাবি, মাথায় নেহরু টুপি, গলায় মালা ঝুলিয়ে মন্ত্রী দু’হাত জোড় করে হাসিমুখে মঞ্চের দিকে যাচ্ছেন। চারদিকে জয়ধ্বনি, হাততালি। মঞ্চে উঠে মাইক্রোফোন হাতে নিয়ে মন্ত্রী বলতে শুরু করেছেন সবে।  বিশদ

07th  July, 2019
জগন্নাথের ভাণ্ডার
মৃন্ময় চন্দ

‘রথে চ বামনং দৃষ্ট, পুনর্জন্ম ন বিদ্যতে’। অর্থাৎ, রথের রশি একবার ছুঁতে পারলেই কেল্লা ফতে, পুনর্জন্ম থেকে মুক্তি। আসলে সর্বধর্মের সমন্বয়ে বিবিধের মাঝে মিলন মহানের এক মূর্ত প্রতিচ্ছবি এই রথযাত্রা। সেই কারণেই নিউজিল্যান্ডের হট প্যান্টের গা ঘেঁষে সাত হাত কাঞ্চীপূরমীয় ঘোমটা টানা অসূর্যমপশ্যা দ্রাবিড়ীয় গৃহবধূও শামিল হন রথের রশি ধরতে। অর্কক্ষেত্র, শঙ্খক্ষেত্র আর শৈবক্ষেত্রের সমাহারে সেই মিলন মহানের সুরটিই সতত প্রতিধ্বনিত নীলাচলে। তাই নীলাচলপতির দর্শনে অক্ষয় বৈকুণ্ঠ লাভের আশায় ভিড়ের ঠেলায় গুঁতো খেতে খেতে চলেন সংসার-বঞ্চিত বাল্যবিধবারা। একই মনোবাসনা নিয়ে চলেছেন অন্ধ, চলেছেন বধির, চলেছেন অথর্ব।
বিশদ

30th  June, 2019
স্টেফির হাফ সেঞ্চুরি
প্রীতম দাশগুপ্ত

 মার্টিনা নাভ্রাতিলোভা, ক্রিস এভার্টরা নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করার লড়াই শুরু করেছেন তখন। ঠিক একই সময়ে জার্মানির অখ্যাত শহর ব্রুয়ে বেড়ে উঠছিল স্টিফানি মারিয়া গ্রাফ। ১৯৬৯ সালের ১৪ জুন জার্মানির ম্যানহাইনে জন্ম স্টিফানির। মেয়ের দুষ্টুমি বন্ধের দাওয়াই হিসেবে স্টিফানির বাবা পিটার তার হাতে ধরিয়ে দিয়েছিলেন একটা পুরনো টেনিস র‌্যাকেট।
বিশদ

23rd  June, 2019
বাঙালি জীবনের গল্পই ছিল তাঁর ছবির বিষয় 
রঞ্জিত মল্লিক

ঢুলুদার সঙ্গে কাজ করা আমার জীবনের অন্যতম সেরা অভিজ্ঞতা। অমন রসিক মানুষ খুব কমই দেখেছি। মৃণাল সেন কিংবা সত্যজিৎ রায়ের মধ্যেও আমি রসবোধ দেখেছি। কিন্তু ঢুলুদার রসবোধ তুলনাহীন। 
বিশদ

16th  June, 2019
শতবর্ষে স্রষ্টা 
সন্দীপন বিশ্বাস

সবাই তাঁকে চেনেন ঢুলুদা নামে। পোশাকি নাম অরবিন্দ মুখোপাধ্যায়। সেই মানুষটির হাত দিয়ে বেরিয়েছিল ‘আহ্বান’, ‘অগ্নীশ্বর’, ‘ধন্যি মেয়ে’, ‘মৌচাক’-এর মতো অমর ছবি। আগামী মঙ্গলবার, ১৮ জুন তাঁর জন্মশতবর্ষ।  
বিশদ

16th  June, 2019
ধ্বংসের প্রহর গোনা 
মৃন্ময় চন্দ

আরও একটা বিশ্ব পরিবেশ দিবস গেল। অনেক প্রতিজ্ঞা, প্রতিশ্রুতি...। কিন্তু দূষণ বা অবৈজ্ঞানিক নির্মাণ কি কমছে? উদাসীনতায় আজ ধ্বংসের মুখে যে এরাজ্যের সমুদ্রতটও! 
বিশদ

09th  June, 2019
বিরাট সম্ভাবনা ভারতের

রাতুল ঘোষ: প্রায় দেড় মাসব্যাপী সাত দফার লোকসভা নির্বাচন পর্ব শেষ। একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে নরেন্দ্র দামোদর দাস মোদির প্রধানমন্ত্রিত্বের দ্বিতীয় ইনিংসের সূচনা হয়েছে। অতঃপর পরবর্তী দেড় মাস আসমুদ্রহিমাচলব্যাপী ভারতবর্ষের সোয়াশো কোটি জনগণ আন্দোলিত হবেন দ্বাদশ আইসিসি বিশ্বকাপ ঘিরে।
বিশদ

02nd  June, 2019
মোদি ম্যাজিক
সমৃদ্ধ দত্ত

আর নিছক জয় নয়। দেখা যাচ্ছে জয় খুব সহজ তাঁর কাছে। ২০ বছর ধরে কখনও মুখ্যমন্ত্রী হয়ে, কখনও প্রধানমন্ত্রী হয়ে জিতেই চলেছেন। সুতরাং ওটা নিয়ে ভাবতে হচ্ছে না। তাহলে এরপর টার্গেট কী? সম্ভবত ইতিহাস সৃষ্টি করা। এক রেকর্ড সৃষ্টি করাই লক্ষ্য হবে নরেন্দ্র মোদির। কিসের রেকর্ড?
বিশদ

26th  May, 2019
ভোটের ভারত 

রাত নামল দশাশ্বমেধ ঘাটে। অন্ধ ভিক্ষুককে প্রতিবন্ধী ফুলবিক্রেতা এসে বলল, চলো ভান্ডারা শুরু হয়েছে। ফুল বিক্রেতার হাত ধরে অন্ধ ভিক্ষুক এগিয়ে গেল বিশ্বনাথ গলির দিকে। পোস্টার, ফ্লেক্স, টিভি চ্যানেল আর সভামঞ্চ থেকে মুখ বাড়িয়ে এসব দেখে গোপনে শ্বাস ফেলল ভোটের ভারত! যে ভারত ঘুরে দেখলেন সমৃদ্ধ দত্ত।
 
বিশদ

19th  May, 2019
মাসুদনামা

অবশেষে আন্তর্জাতিক জঙ্গি মাসুদ আজহার। ভারতের কূটনীতির কাছে পরাস্ত চীন এবং পাকিস্তান। কীভাবে উত্থান হল তার? রাষ্ট্রসঙ্ঘের সিদ্ধান্তে মোদির লাভই বা কতটা হল? লিখলেন শান্তনু দত্তগুপ্ত
বিশদ

12th  May, 2019
কবিতর্পণ 

তিনি রবীন্দ্রনাথের বড়দাদা দ্বিজেন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রপৌত্রী। জোড়াসাঁকো ও শান্তিনিকেতনে শৈশব কাটানোর সুবাদে কবিগুরুকে খুব সামনে থেকে দেখার সৌভাগ্য হয়েছিল তাঁর। যদিও শৈশবের বেশিরভাগ স্মৃতিই কালের নিয়মে ঢাকা পড়েছে ধুলোর আস্তরণে। তবুও স্মৃতির সরণিতে কিছু ঘটনা ইতিউতি উঁকি মেরে যায়। একসময়ে নিজে অভিনয় করেছেন সত্যজিৎ রায়, তপন সিংহের মতো পরিচালকদের ছবিতে। দাপিয়ে বেড়িয়েছেন মঞ্চেও। আজ তিনি অশীতিপর। আরও একটি পঁচিশে বৈশাখের আগে ঠাকুরবাড়ির কন্যা স্মিতা সিংহের কবিতর্পণের সাক্ষী থাকলেন বর্তমানের প্রতিনিধি অয়নকুমার দত্ত। 
বিশদ

05th  May, 2019
চিরদিনের সেই গান
শতবর্ষে মান্না দে 
হিমাংশু সিংহ

২৫ ডিসেম্বর ২০০৮। কলকাতার সায়েন্স সিটি প্রেক্ষাগৃহ। একসঙ্গে আসরে প্রবাদপ্রতিম দুই শিল্পী। পদ্মভূষণ ও দাদাসাহেব ফালকে সম্মানে ভূষিত মান্না দে ও গীতশ্রী সন্ধ্যা মুখোপাধ্যায়। একজনের বয়স ৮৯ অন্য জনের ৭৭। মঞ্চে দুই মহান শিল্পীর শেষ যুগলবন্দি বলা যায়।  
বিশদ

28th  April, 2019
প্রতীক বদলে ডিজিটাল ছোঁয়া
দেবজ্যোতি রায়

সাহিত্য বা লেখালিখিতে সর্বদা সময়ের দাবিই উঠে আসে। প্রতিফলিত হয় তৎকালীন সময়ের পটভূমি, চরিত্র, চিত্রায়ন। অতীতেও হয়েছে, আধুনিক বা নব্য আধুনিক যুগও তার ব্যতিক্রম নয়। বর্তমানে আধুনিক সাহিত্য বা পটভূমির একটা বড় অংশ দখল করে নিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া বা সামাজিক মাধ্যম।
বিশদ

21st  April, 2019
শতবর্ষে জালিয়ানওয়ালাবাগ হত্যাকাণ্ড

১৯১৯ সালের ১৩ এপ্রিল জালিয়ানওয়ালাবাগে একটি প্রতিবাদ সভায় জেনারেল ডায়ার বিনা প্ররোচনায় নির্বিচারে গুলি চালিয়েছিলেন। এ বছর ওই হত্যাকাণ্ডের ১০০ বছর। সেদিনের ঘটনা স্মরণ করলেন সমৃদ্ধ দত্ত।
বিশদ

14th  April, 2019
একনজরে
লখনউ, ১১ জুলাই (পিটিআই): দেশের বিরোধী-শাসিত রাজ্যগুলিতে সরকারকে ফেলার চেষ্টা করছে বিজেপি। বৃহস্পতিবার ট্যুইটারে এই অভিযোগ করলেন বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী। একই সঙ্গে ‘দলবদলু’ বিধায়কদের সদস্যপদ ...

 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজ্যের প্রতি বঞ্চনার প্রতিবাদ জানাতে দিল্লিতে বিধায়কদের সর্বদলীয় প্রতিনিধিদল পাঠানোর বিষয়টি সরকার বিবেচনা করছে। বৃহস্পতিবার বিধানসভায় রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প সংস্থা বিক্রি করে দেওয়ার কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের পরিবর্তনের দাবিতে আনা একটি প্রস্তাব নিয়ে আলোচনার সময় পরিষদীয়মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এই ...

  সংবাদদাতা, ইসলামপুর: বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত টানা বৃষ্টিতে ইসলামপুর পুরসভার বিভিন্ন এলাকা জলমগ্ন হয়ে যায়। এদিন দুপুরের পর বৃষ্টি কমলেও আকাশ মেঘলাই ...

 ওয়াশিংটন, ১১ জুলাই (এএফপি): শরণার্থী এক মহিলার দুগ্ধপোষ্য শিশুকন্যার মৃত্যুতে কাঠগড়ায় উঠল মার্কিন প্রশাসন। নিন্দায় সরব হয়েছে রাষ্ট্রসঙ্ঘ। প্রশাসনের সমালোচনায় মুখর হয়েছেন মার্কিন কংগ্রেসের একাধিক সদস্যও। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
aries

বেশি বন্ধু-বান্ধব রাখা ঠিক হবে না। প্রেম-ভালোবাসায় সাফল্য আসবে। বিবাহযোগ আছে। কর্ম পরিবেশ পরিবর্তন হতে ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮২৩: কলকাতা বন্দর থেকে ছাড়ল ভারত নির্মিত প্রথম বাষ্পচালিত জাহাজ ‘ডায়না’
১৯০০:অভিনেতা ছবি বিশ্বাসের জন্ম
১৯০৪: চিলির নোবেলজয়ী কবি পাবলো নেরুদার জন্ম
১৯০৯: চিত্র পরিচালক বিমল রায়ের জন্ম
১৯৬৫: ক্রিকেটার সঞ্জয় মঞ্জরেকরের জন্ম
১৯৭২: গুগলের কর্ণধার সুন্দর পিচাইয়ের জন্ম
১৯৯১: ফুটবলার হামেস রডরিগেজের জন্ম
১৯৯৭: পাকিস্তানি শিক্ষা আন্দোলনকর্মী মালালা ইউসুফজাইয়ের জন্ম
১৯৯৯: অভিনেতা রাজেন্দ্রকুমারের মৃত্যু
২০১২: কুস্তিগীর ও অভিনেতা দারা সিংয়ের মূত্যু
২০১৩: অভিনেতা প্রাণের মৃত্যু





ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৬৭.৫৫ টাকা ৬৯.২৪ টাকা
পাউন্ড ৮৪.১০ টাকা ৮৭.২৪ টাকা
ইউরো ৭৫.৬৬ টাকা ৭৮.৫৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৫,২০৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৩,৪০০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৩,৯০০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৩৮,৩০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৩৮,৪০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৭ আষা‌ঢ় ১৪২৬, ১২ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ৪৮/৪০ রাত্রি ১২/৩১। বিশাখা ২৭/১৪ দিবা ৩/৫৭। সূ উ ৫/৩/১৩, অ ৬/২০/৫৩, অমৃতযোগ দিবা ১২/৮ গতে ২/৪৮ মধ্যে। রাত্রি ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে পুনঃ ৩/৩৮ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৮/২২ গতে ১১/৪২ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/১ গতে ১০/২১ মধ্যে।
২৬ আষাঢ় ১৪২৬, ১২ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার, একাদশী ৫৩/৮/৩৭ রাত্রি ২/১৮/৩৩। বিশাখানক্ষত্র ৩৪/৮/৪১ সন্ধ্যা ৬/৪২/৩৪, সূ উ ৫/৩/৬, অ ৬/২৩/৬, অমৃতযোগ দিবা ১২/৯ গতে ২/৪৯ মধ্যে এবং রাত্রি ৮/৩০ মধ্যে ও ১২/৪৬ গতে ২/৫৫ মধ্যে ও ৩/৩৭ গতে ৫/৩ মধ্যে, বারবেলা ৮/২৩/৬ গতে ১০/৩/৬ মধ্যে, কালবেলা ১০/৩/৬ গতে ১১/৪৩/৬ মধ্যে, কালরাত্রি ৯/৩/৬ গতে ১০/২৩/৬ মধ্যে।
৮ জেল্কদ
এই মুহূর্তে
রাজাবাজারে গুলি চালনার ঘটনায় ধৃত ১ 

06:47:00 PM

চৌবাগা খালে বাস উল্টে জখম বেশ কয়েকজন 

06:32:34 PM

মুর্শিদাবাদের প্রদীপপাড়ায় তৃণমূল পঞ্চায়েত প্রধানের স্বামীকে গুলি করে খুন

04:06:59 PM

৮৭ পয়েন্ট পড়ল সেনসেক্স 

03:59:16 PM

রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশ মেনে এনইএফটি, আরটিজিএস, আইএমপিএস-এর চার্জ প্রত্যাহার করল এসবিআই 

03:16:50 PM

দিল্লিতে বান্ধবীকে ছুরি মারার অভিযোগ এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে

02:54:00 PM