Bartaman Patrika
রঙ্গভূমি
 

থিয়েটার পাড়ার গপ্পো
‘দুর্গাদাস বাঁড়ুজ্জে দুটো হবে না’ 

পেশাদারি বিভিন্ন মঞ্চে প্রায় চুয়াল্লিশটি নাটকে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছিলেন শিল্পী দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি থিয়েটারের টানেই বর্ধিষ্ণু পরিবারের সন্তান হওয়া সত্ত্বেও, নাট্যমঞ্চকেই আপন করে নিয়েছিলেন। উইংস-এর আড়াল থেকে সেই সুদর্শন নটকে প্রত্যক্ষ করলেন ড. শঙ্কর ঘোষ।
কী মঞ্চে, কী চলচ্চিত্রে তখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায়। অপরূপ রূপলাবণ্য, গৌরকান্তি। দর্শকদের আকর্ষণ করতেন সহজেই। মঞ্চে তিনি অত্যন্ত সমাদৃত এক নায়ক। পেশাদারি রঙ্গমঞ্চে নিয়মিত অভিনয় করলেও কি শিল্পীদের নিজের সাধ আহ্লাদ কিছু থাকবে না। শনিবার, রবিবারের শোয়ের পর দুর্গাদাসবাবু দেওঘরে গেলেন। কারণ তার আগেই বাড়ির লোকজনদের সেখানে পাঠিয়েছিলেন বায়ু পরিবর্তনের জন্য। তাঁর দেওঘরে যাওয়ার কারণ পরিবারবর্গকে দেওঘর থেকে কলকাতায় ফিরিয়ে আনা। দেওঘর স্টেশনে পরিবারের লোকজনদের নিয়ে উপস্থিত হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে রেলের কয়েকজন কর্মচারী দুর্গাদাসের কাছে উপস্থিত হলেন এবং তাঁরাই তদ্বির করে দুর্গাদাসবাবুর কলকাতায় ফেরার টিকিট কিনিয়ে দেওয়া থেকে আরম্ভ করে সবরকমের স্বাচ্ছন্দ্যের ব্যবস্থা করেদিলেন। যে ট্রেনে দুর্গাদাসবাবু কলকাতায় ফিরছিলেন সেই ট্রেনে একটা ফার্স্ট ক্লাস কম্পার্টমেন্ট খালি ছিল। রেলের কর্মচারীরা সেই গাড়িতে দুর্গাদাসবাবুর কলকাতায় ফেরার ব্যবস্থা করে দিলেন। সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে রেলগাড়িতে চেপে বসলেন দুর্গাদাসবাবু। গাড়ি ছেড়ে দিল। কিন্তু তখন কে জানত যে ওই কম্পার্টমেন্টটি বর্ধমান থেকে কলকাতা পর্যন্ত রিজার্ভ ছিল তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী জনাব এ কে ফজলুল হক সাহেবের জন্য। অনেকটা পথ আরামে কাটিয়ে দুর্গাদাসবাবুর ঝঞ্ঝাট হল বর্ধমানে এসে।
ট্রেনটি বর্ধমান স্টেশন প্ল্যাটফর্মে ঢুকতেই রাজকর্মচারীরা ব্যস্তভাবে হক সাহেবের চিহ্নিত গাড়িটি খুঁজতে লাগলেন। কিন্তু বহু অনুসন্ধানের পরেও তারা কম্পার্টমেন্টের হদিশ করতে না পেরে শেষে রেল কর্মচারীদের শরণাপন্ন হলেন। কিছুক্ষণের মধ্যে ওই কম্পার্টমেন্টের সন্ধান পাওয়া গেল। রেল কর্মচারীরা দুর্গাদাসবাবুকে এসে অনুরোধ জানালেন কম্পার্টমেন্টটি খালি করে দেওয়ার জন্য, দুর্গাদাসবাবু রাজি হলেন না। বললেন, ‘রিজার্ভের লেবেল কোথায়?’ সত্যি কোনও লেবেল তাতে অঁটা ছিল না। দুর্গাদাসবাবুকে সন্তুষ্ট করার জন্য রেল কর্মচারীরা লেবেলটি দেওঘর থেকেই অপসারণ করে তাঁর হাতে তুলে দিয়েছিলেন। দুর্গাদাসবাবু জেদ ধরে বসে রইলেন। ফজলুল হক সাহেব দূর থেকে সব কিছুই লক্ষ করছিলেন। তিনি চিনতেন দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি নিজেই অপর একটি ফার্স্ট ক্লাস কম্পার্টমেন্টে উঠে বসলেন।
যখন জোর-জবরদস্তি চলছিল দুর্গাদাসবাবুকে নামানোর জন্য, তখন সশব্দে দুর্গাদাসবাবু বলেছিলেন, ‘এক প্রধানমন্ত্রীর জায়গায় আর একজন প্রধানমন্ত্রী হতে পারে। কিন্তু দুর্গাদাস বাঁডুয্যে আর দুটো হবে না।’ কথাটা হয়তো তিনি নেশার ঘোরেই বলেছিলেন, কিন্তু এটা তো সত্যি কথা যে দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায় আর দুটো হয়নি।
সেই দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায় এত মদ খেতেন যে মুমূর্ষু হয়ে পড়লেন। পেশাদারি রঙ্গমঞ্চের দর্শকেরা প্রায় পাগল হয়ে উঠেছিলেন দুর্গাদাসকে মঞ্চে আর দেখতে না পেয়ে। সেই বরেণ্য শিল্পীর মৃত্যুর আটদিন আগে তাঁর ব্যক্তিগত চিকিৎসকের পরামর্শে ডাঃ বিধানচন্দ্র রায়কে আনা হল দুর্গাবাবুকে পরীক্ষা করানোর জন্য। ডাঃ রায় যথা সময়ে হাজির হলেন। তিনি শিল্পীকে অনেকক্ষণ ধরে পরীক্ষা করে বললেন, ‘মদ আপনার দেহে বিষের কাজ করেছে।’ দুর্গাদাসবাবু ভাবলেশহীন ভাবে বললেন, ‘তা হবে। তবে মদ এখন আমি ছেড়ে দিয়েছি।’ কথার পৃষ্ঠে কথা। দুর্গাদাসবাবুকে ডাঃ রায় বললেন, ‘কিন্তু সে আর ক’দিন? আরও আগে ছাড়তে পারলে ভালো হতো। বিয়ার খান তো?’ দুর্গাদাসবাবু মাথা নেড়ে সম্মতি জানালেন। ডাঃ রায় গম্ভীর হয়ে গেলেন। বললেন, ‘বিয়ারটাও মদেরই অঙ্গ। কোনও সোডা লেমনেড নয়। এটাও আপনাকে ছাড়তে হবে।’
ডাঃ বিধানচন্দ্র রায়ের কথায় দুর্গাদাসবাবু বিরক্ত হলেন। বললেন, ‘উপদেশ চাই না। চাই প্রেসক্রিপশন। আপনি ডাক্তার আর আমি রোগী। পারেন তো কাগজে প্রেসক্রিপশন করুন। জীবনে বহু উপদেশ শুনেছি। বাবা, কাকার উপদেশ কোনওদিন কানে তুলিনি। আজও তুলব না।’ দুর্গাদাসবাবুর এই কথায় ডাঃ রায় মৃদু হেসে ঘর থেকে বেরিয়ে গেলেন। গৃহচিকিৎসকের সামনে বললেন, ‘প্রেসক্রিপশন করা নিরর্থক। কোনও ওষুধেই আর কিছু হবে না। তবে দুঃখ এই যে, একজন প্রতিভাধর শিল্পীকে যখন দেখতে এলাম তখন আর আমার করার কিছু নেই। তিলে তিলে নিজেকেই তিনি শেষ করেছেন।’
ডাঃ রায়ের ফিজ দিতে গেলেন ম্যানেজার বিজয় মুখোপাধ্যায়। ডাঃ রায় সেই ফিজের টাকা ফিরিয়ে দিলেন বিজয়বাবুকে। শুধু বললেন, ‘একটা প্রতিভার অপমৃত্যু দেখে গেলাম। এর জন্য ফি দিতে হবে না। যদি কিছু করতে পারতাম বা তার উপায় থাকত তা হলে না হয় ফিজ নিতাম।’ এরপর আর কোনও কথা না বলে ডাঃ বিধানচন্দ্র রায় ঘর ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন। এই ঘটনার কয়েকদিন পরেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন দুর্গাদাস বন্দ্যোপাধ্যায়। এই মানুষটি স্টার থিয়েটারে প্রথম অবতরণ করেন ১৯২৩ সালের ৩০ জুন ‘কর্ণার্জুন’ নাটকের মধ্য দিয়ে। ওই নাটকে পরবর্তীকালে কখনও কর্ণ, কখনও বা অর্জুন চরিত্রে অভিনয় করে বিপুল জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন। স্বনামধন্যা অভিনেত্রী নীহারবালা দুর্গাদাসের জনপ্রিয়তা প্রসঙ্গে উইংসের আড়ালে কৌতুক করে বলতেন, ‘হাততালি আমরা অনেকেই পাই। কিন্তু সোনার চুড়ির উচ্ছ্বসিত হাততালি একমাত্র দুর্গাদাই পেয়ে থাকেন।’ রঙমহল থিয়েটারে (৭৬/১ বিধান সরণী) ‘স্বামী-স্ত্রী’ নাটকটি দর্শকদের মধ্যে বিপুল চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছিল এবং ওই নাটকে ললিত চরিত্রে দুর্গাদাসের অভিনয় তাঁকে খ্যাতির চূড়ায় পৌঁছে দিয়েছিল। তিনি শেষ অভিনয় করেন শচীন্দ্রনাথ সেনগুপ্তের ‘কাঁটা ও কমল’ নাটকে। চলচ্চিত্রে বিদ্যাপতি, প্রিয় বান্ধবী, ভাগ্যচক্র, চিরকুমার সভা সহ কয়েকটি ছবিতে কাজ করলেও তাঁর প্রথম প্রেম অবশ্যই থিয়েটার। পেশাদার রঙ্গমঞ্চগুলিতে তিনি দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে নিজের একটা জায়গা করে নিয়েছিলেন। পান-দোষ না থাকলে তিনি দর্শকদের যে আরও কিছু স্মরণীয় নাট্যাভিনয় দেখিয়ে যেতে পারতেন, তা নির্দ্বিধায় বলা চলে। 
02nd  November, 2019
গিরিশ মঞ্চে সাজাহান 

গোপীমোহন সব পেয়েছিল আসর সম্প্রতি গিরিশ মঞ্চে দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের লেখা সাজাহান নাটকটি মঞ্চস্থ করল। উপলক্ষ ছিল তাদের ৬৬তম বর্ষ উদযাপন। সাজাহানের চরিত্রে অভিনয় করেন সুব্রত ভট্টাচার্য।  বিশদ

14th  March, 2020
রামধনু নাট্যোৎসব 

বরানগর রামধনু নাট্যোৎসব এবার তৃতীয় বর্ষে পা রাখল। আগামী শুক্রবার ২০ মার্চ বরানগর রবীন্দ্রভবনে দুপুর ১২টায় এই উৎসবের উদ্বোধন করবেন বর্ষীয়ান নাট্যব্যক্তিত্ব গৌতম মুখোপাধ্যায়। নাট্যোৎসবটি চলবে ২২ মার্চ পর্যন্ত। মোট ১৬টি নাট্যদল এবার এই উৎসবে অংশ নিচ্ছে, তারমধ্যে বেশিরভাগই মফস্সলের। 
বিশদ

14th  March, 2020
পুশকিনের জীবন নিয়ে নাটক 

আগামী ২১ মার্চ বিশ্ব কবিতা দিবস। দু’শো বছর আগে ওইদিনই জন্ম হয়েছিল বিশ্ববন্দিত রাশিয়ান কবি আলেকজান্দার পুশকিনের। আর তাঁর জীবনদীপ নেভে মাত্র ৩৭ বছর বয়সে। জারের রাজকর্মচারী দান্তেসের সঙ্গে ডুয়েল লড়তে গিয়ে নিহত হন পুশকিন। অনেকে বলেন মৃত্যু, অনেকে বলেন হত্যা।  
বিশদ

14th  March, 2020
আনন্দজীবন নাট্যোৎসব

দিনাজপুর কৃষ্টি আয়োজিত সাতদিনের আনন্দজীবন নাট্যোৎসব হয়ে গেল কুশমন্ডিতে। ২০ থেকে ২৬ জানুয়ারি এই উৎসবে মোট আটটি দল অংশগ্রহণ করে। প্রতিদিনই দিনাজপুরের পাশাপাশি অন্যান্য জেলা থেকে আগত দলগুলির একটি করে নাটক মঞ্চস্থ হয়। উৎসবের প্রথমদিনে স্থানীয় বিধায়ক নর্মদা রায় প্রদীপ জ্বালিয়ে শুভ সূচনা করেন।  
বিশদ

14th  March, 2020
এ নাটক এক সমকালীন দলিল যা দর্শককে ভাবায় 

সময়টা বড়ই ভয়ঙ্কর। ধর্মের সুড়সুড়ি দিয়ে রাজনীতির কারবারিরা যে যার মত করে ঘুঁটি সাজাতে তৎপর। ধর্ম নামক বস্তুটিকে সামনে রেখে চলছে গরিব-বড়লোকের শ্রেণীবিন্যাস আর চিরকালীন সংঘাত। ঠিক এই সময়ে দাঁড়িয়ে ‘কালিন্দী নাট্যসৃজন’-এর নতুন প্রযোজনা ‘মন সারানি’ চমকে দেয়।
বিশদ

14th  March, 2020
কমলকুমারের গল্পের দুঃসাহসিক মঞ্চায়ন 

কমলকুমার মজুমদারকে ‘দুঃসাহসী লেখক’ বলে অভিহীত করেছিলেন সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর বাক্যগঠন, শব্দ, ক্রিয়াপদ, কমা, পূর্ণচ্ছেদের ব্যবহার সবই ছিল চলতি রীতির থেকে আলাদা। এমনকী আলাদা ছিল তাঁর ভাষাও। সাধুভাষার ব্যবহার, অপ্রচলিত শব্দের ব্যবহার তাঁর লেখাকে করে তুলেছিল অন্য সবার থেকে আলাদা, ফলে হয়তো দুরূহও।  
বিশদ

14th  March, 2020
নান্দীকারের নাট্যোৎসব একটি প্রতিবেদন 

অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টস মঞ্চে নান্দীকারের ছত্রিশতম নাট্যমেলা অনুষ্ঠিত হল গত ডিসেম্বর মাসের ষোলো থেকে পঁচিশ তারিখ পর্যন্ত। নান্দীকারের সুনাম অক্ষুণ্ণ রেখেই সমাপ্ত হল তাদের এই নাট্যোৎসব। 
বিশদ

07th  March, 2020
প্রসেনিয়ামের থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল 

প্রসেনিয়াম’স আর্ট সেন্টার ও বিভাবন যৌথ উদ্যোগে গত ১৩ থেকে ১৭ নভেম্বর এক থিয়েটার উৎসবের আয়োজন করে। তাদের নিজস্ব সেন্টারে আয়োজিত এই উৎসবে ১১টি নাট্যদলের থিয়েটার মঞ্চস্থ হয়। 
বিশদ

07th  March, 2020
দ্বাদশ থিয়েলাইট নাট্যোৎসব 

থিয়েলাইট নাট্যদলের নাট্যোৎসব এবছর বারোয় পা দেবে। বিগত বছরগুলিতে এই উৎসব ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিভিন্ন জেলায় করা হতো। এবছর সেই ধারায় ব্যতিক্রম ঘটতে চলেছে। এবছর উৎসব হবে কলকাতাতেই।  
বিশদ

07th  March, 2020
সাথী হারা ভালোবাসা ফিরিয়ে দেয় যাত্রার স্বাদ 

২৪তম যাত্রা উৎসব হয়ে গেল ফণীভূষণ বিদ্যাবিনোদ মঞ্চে। এই উৎসবের উল্লেখযোগ্য যাত্রাপালা ছিল বিশ্বভারতী অপেরার প্রযোজনায় ‘সাথী-হারা ভালোবাসা’। আর পাঁচটি প্রেম কাহিনীর মতোই একটি রোমান্টিক প্রেমের গল্প এটি। ভালোবাসার জন্য একজন মানুষ সবকিছুই করতে পারে।  
বিশদ

07th  March, 2020
গা ছমছম কী হয় কী হয়!
রহস্য নাটকের সার্থক মঞ্চায়ন

সময়টা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর পশ্চিমবঙ্গ। প্রচণ্ড ঝড়জলের এক রাত। কার্শিয়াংয়ের এক সদ্য চালু হওয়া হোটেল ড্রিমল্যান্ডে একে একে জড়ো হয় রহস্যময় কয়েকজন বোর্ডার। একজন নাকউঁচু মহিলা মিস কাজল দত্ত, যিনি অবসরপ্রাপ্ত সরকারি অফিসার। 
বিশদ

07th  March, 2020
এনএসডি-র আদিরঙ মাতিয়ে দিল দ্বারোন্দা 

ইউক্যালিপটাসের সুউচ্চ গাছগুলোর মাথায় মেঘমুক্ত পশ্চিমাকাশে ধ্রুবতারাটা জ্বলজ্বল করছিল। শেষ লগ্নে এসেও শীত তার দাপট জানান দিচ্ছে তীব্র হিমেল হাওয়ায়। তবু বোলপুরের দ্বারোন্দা গ্রামের মুক্ত প্রান্তরে মানুষের ভিড় কম নয়। চলছে দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা (এনএসডি) আয়োজিত ‘আদিরঙ’ অর্থাৎ আদিবাসী রঙ্গোৎসব।  
বিশদ

22nd  February, 2020
প্রেমের ঘেরাটোপে শয়তানের পদচারণা 

আ কনফেশন অব সাইকোফেনিক— আলোচনাটা এভাবে শুরু করা যায়। জালের ঘেরাটোপের মধ্যে শুরু হয় নাটক। একটি অন্তরঙ্গ ঘরে, কুলকুল জলের শব্দে, জালের মধ্যে গাঢ় বেগুনি আলোয় ভেসে ওঠে কতকগুলি বিমূর্ত হাত। একপাশে যুগল অন্তরঙ্গ হয়ে চুম্বনরত ও তাদের ঘিরে পুলিসবেশী ডাক্তার ও নার্সের পদচারণা।  
বিশদ

22nd  February, 2020
ভাষা দিবসে এনআরসি বিরোধী নাট্য 

শুধুমাত্র মাতৃভাষার জন্য আন্দোলন করতে গিয়ে একটা দেশ স্বাধীনতার স্বাদ উপলব্ধি করতে পেরেছিল। তারই স্বীকৃতি স্বরূপ ইউনেসকো ২১ ফেব্রুয়ারি দিনটিকে বিশ্ব মাতৃভাষা দিবস হিসেবে চিহ্নিত করে। যা গোটা বিশ্বে পালিত হয়। 
বিশদ

22nd  February, 2020
একনজরে
লখনউ: গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের ঘনিষ্ঠ এক সহযোগী তথা আত্মীয়কে গ্রেপ্তার করল উত্তরপ্রদেশ পুলিস। ধৃতের নাম শশীকান্ত ওরফে সোনু পাণ্ডে। তাকে জেরা করে এনকাউন্টারের দিন পুলিসের ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: হাসপাতালের দরজায় দরজায় ঘুরে প্রায় বিনা চিকিৎসায় তরতাজা ছেলেকে হারানো বাবা-মা অবশেষে ন্যায়ের প্রতীক আদালতের দরজায় মাথা কুটে সামান্য হলেও বিচার পেলেন। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, আরামবাগ: সোমবার গভীর রাতে আরামবাগ শহরের কালীপুরে তৃণমূলের পতাকা ও ফ্লেক্স ছিঁড়ে ফেলার ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। শাসক দলের অভিযোগ, বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরাই ওই কাজ করেছে। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি।   ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: এফসিআইতে বিভিন্ন পদে চাকরির টোপ দিয়ে এ রাজ্যের পঞ্চান্ন জন বেকার যুবকের কাছ থেকে পৌনে এক কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল। তারাতলা থানা এলাকার ব্রেস ব্রিজের বাসিন্দা প্রতারিত সুবোধকুমার সিংয়ের লিখিত অভিযোগের ভিত্তিতে সম্প্রতি তদন্তে নেমেছে ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

পড়শির ঈর্ষায় অযথা হয়রানি। সন্তানের বিদ্যা নিয়ে চিন্তা। মামলা-মোকদ্দমা এড়িয়ে চলা প্রয়োজন। প্রেমে বাধা।প্রতিকার: একটি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

১৮২০: সাহিত্যিক অক্ষয়কুমার দত্তের জন্ম
১৯০৩: রাজনীতিক কে কামরাজের জন্ম
১৯০৪: রুশ লেখক আস্তন চেকভের মৃত্যু
১৯৫৪: আর্জেন্তিনার ফুটবলার মারিও কেম্পেসের জন্ম  



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৪.৪৬ টাকা ৭৬.১৭ টাকা
পাউন্ড ৯২.৯৩ টাকা ৯৬.২০ টাকা
ইউরো ৮৩.৮৮ টাকা ৮৬.৯৯ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৪৯, ৭৭০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৪৭, ২২০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৪৭, ৯৩০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৫১, ৯০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৫২, ০০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

৩১ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী ৪৩/৯ রাত্রি ১০/২০। ভরণী ২৯/৭ অপঃ ৪/৪৩। সূর্যোদয় ৫/৪/৪২, সূর্যাস্ত ৬/২০/১৪। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৫ মধ্যে পুনঃ ১/৫৫ গতে ৫/২৭ মধ্যে। রাত্রি ৯/৫৫ মধ্যে পুনঃ ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। বারবেলা ৮/২৩ গতে ১০/৩ মধ্যে পুনঃ ১১/৪২ গতে ১/২১ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৩ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।  
৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ১৫ জুলাই ২০২০, বুধবার, দশমী রাত্রি ৮/৪৩। ভরণী নক্ষত্র অপরাহ্ন ৪/৭। সূযোদয় ৫/৪, সূর্যাস্ত ৬/২৩। অমৃতযোগ দিবা ৭/৪৩ গতে ১১/১৬ মধ্যে ও ১/৫৬ গতে ৫/২৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৯/৫৬ মধ্যে ও ১২/৪ গতে ১/৩০ মধ্যে। কালবেলা ৮/২৪ গতে ১০/৪ মধ্যে ও ১১/৪৩ গতে ১/২৩ মধ্যে। কালরাত্রি ২/২৪ গতে ৩/৪৪ মধ্যে।
২৩ জেল্কদ  

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
মাধ্যমিকে ষষ্ঠ অর্চিষ্মান সাহা গবেষক হতে চায় 

12:58:00 PM

মাধ্যমিকে ষষ্ঠ শিলিগুড়ির রিঙ্কিণী ঘটক বিজ্ঞানী হতে চায় 

12:57:46 PM

মাধ্যমিকে ষষ্ঠ প্রিন্স কুমার সিং কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হতে চায় 
রাজ্যে মাধ্যমিকে ষষ্ঠ ও পুরুলিয়া জেলায় প্রথম স্থান অধিকারী ...বিশদ

12:56:10 PM

মাধ্যমিকে নবম হওয়া পুরুলিয়ার শুভদীপ বন্দ্যোপাধ্যায় চিকিৎসক হতে চায়

12:54:29 PM

মাধ্যমিকে দশম হওয়া সম্প্রীতি রায় শিক্ষিকা হতে চায় 
কোচবিহারের মহারানি ইন্দিরা দেবী বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী সম্প্রীতি রায় মাধ্যমিকে ...বিশদ

12:50:55 PM

মাধ্যমিকে নবম কাটোয়ার উর্জশী মণ্ডল পদার্থবিদ্যা নিয়ে গবেষণা করতে চায় 
মাধ্যমিকে রাজ্যে নবম স্থান অধিকার করেছে কাটোয়া দুর্গাদাসী চৌধুরানি বালিকা ...বিশদ

12:46:59 PM