Bartaman Patrika
রঙ্গভূমি
 

থিয়েলাভার্সের দুটি নাটক 

নাটক: অনার্যবারতা ও গাজনাচরের বাজনা
প্রযোজনা: থিয়েলাভার্স
পরিচালনা: অতনু সরকার ও ভর্গোনাথ ভট্টাচার্য

থিয়েলার্ভাস প্রযোজিত দুটি ভিন্নধর্মী নাটক ‘অনার্যবারতা ও পশ্চিমবঙ্গ নাট্য আকাদেমির আর্থিক সহায়তায় কর্মশালা ভিত্তিক ‘গাজনাচরের বাজনা’ মঞ্চস্থ হল গিরিশ মঞ্চে। সময়, কাল ও নিয়তি— এই তিনটি বিষয়ের ওপর নির্ভর করে সকলের ভাগ্য। এরাই নির্ধারণ করে প্রত্যেকের গন্তব্য। জন্ম এবং মৃত্যুর ক্ষণ নির্ধারিত হয় জীবনের ওই তিনটি বস্তুর দ্বারা। এই ধ্রুব সত্যটির মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দেয় ‘অনার্যবারতা’ নাটকটি। নাটকের বিষয়টির তাৎপর্য বুঝতে আমাদের সময়ের অনেক পেছনদিকে ফিরে যেতে হবে, কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধের একটা দৃশ্যে। মহাভারতের এই যুদ্ধক্ষেত্রে যেখানে এক ভাই অন্য ভাইয়ের বিরুদ্ধে অস্ত্রধারণ করে। মাতা হিরিম্বা যুদ্ধক্ষেত্রে দাঁড়িয়ে ঘটোৎকচের সন্দেহজনক প্রশ্নের উত্তর দিতে প্রস্তুত। এইসব প্রশ্নের উত্তরের দ্বারাই তার অতীতের যন্ত্রণার ছবি, বর্তমান সময় এবং ভবিষ্যৎ জীবনের কাহিনী ব্যখ্যা করে। মা ও ছেলের এই আলোচনাতেই গোটা নাটকের বক্তব্য বর্ণিত হয়।
মহাভারতের যুগ থেকে পৃথিবীতে নিচু জাতের মানুষেরা, বঞ্চিতরা, নিজেদের প্রাপ্য সম্মানের জন্য, অধিকারের জন্য প্রাণ দিয়ে লড়ে যায়। জগৎজুড়ে ভিন্নস্থানে, ভিন্নরূপে, এই বঞ্চিত মানুষেরা স্বীকৃতি পাওয়ার জন্য যুদ্ধ করে। কোথাও জাত-পাতের বঞ্চনা, কোথাও আলো-আঁধারির দ্বন্দ্ব, আবার কোথাও ভূমিপুত্রের লড়াই। এই ভূমিপুত্রেরা দেশের জন্য নিজেদের জীবন তুচ্ছ করে। এমনই এই দেশপ্রেমী, আজ্ঞাহীন, দ্বিতীয় পাণ্ডব ভীমের পুত্র, মহাবীর ঘটোৎকচ কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধক্ষেত্রে দাঁড়িয়ে অন্তিমবারের মতো তার মাকে প্রশ্ন করছে। সে জানে যুদ্ধ থেকে তার আর ফেরা হবে না। তার মা হিরিম্বাও জানে পুত্রের সঙ্গে তার এই শেষ দেখা। কেন এই মা পুত্রকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দিচ্ছে? যেটা আদতে আত্মঘাত, সেটাকে পিতৃবংশ রক্ষা কেন বলছে? অথচ ঘটোৎকচকে কেউ চিনত না যদি সে পাণ্ডবপক্ষে অস্ত্রধারণ করে আত্মঘাত না করতেন। তাঁর মৃত্যুই তাঁর পরিচয়। সেই বীর আত্মঘাতী ঘটোৎকচ, তাঁর জ্যেষ্ঠের আজ্ঞা পালন করে যুদ্ধে যাওয়ার আগে শেষবারের মতো তাঁর পিতৃবংশ পরিচয়, তাঁর জীবনের দ্বিধা, তাঁর মনের সংশয় মেটানোর প্রশ্ন করছে মাকে।
এক সুন্দর ঐতিহাসিক মর্মগাথা, যার বীজ বপন করা হয় সেই অতীতে, তবে এর প্রভাব আজও চলছে। তাই এ শুধু বীরের অমরত্ব লাভ বা বলিদান নয়। দুটো জাতের বিভেদ ও বঞ্চনা সমানে কায়েম রয়েছে। তাই এটা আজও প্রাসঙ্গিক বলেই মনে হয়। রচনা ও নির্দেশনা, গল্প বলার ভঙ্গিমা এবং অসাধারণ উপস্থাপনার জন্য অবশ্যই ভর্গনাথ ভট্টাচার্যকে ধন্যবাদ দিতে হয়। সময়, নিয়তি ও কালের বর্ণনায় মঞ্চকে ব্যবহার করার পদ্ধতিটাও বেশ অভিনব। নাটকের প্রতিটি চরিত্রই বেশ সাবলীল, প্রাণবন্ত। আলো, মিউজিকের ব্যবহার বিষয়টিকে আরও গভীরে প্রবেশ করতে সাহায্য করে। দুটি মূল চরিত্র নাটকটিকে বিন্যস্ত করলেও পার্শ্বরূপকারীরাও যথাযোগ্য সহায়তা করে। তাদের অভিনয়ে পেশাদারিত্বের ছাপ স্পষ্ট লক্ষ করা যায়। শ্রীলেখা সিনহা, মেহুলি সরকার, মেখলা ঘোষ, অলোকান্না ভট্টাচার্যকে হিরিম্বার রূপে বেশ ভালো লাগে। অন্যান্য চরিত্রে রাহুল সওদাগর (কৃষ্ণ), সুমন দে (কাল), সাগর দাস (সময়), রূপসা নাগ (নিয়তি) নিজেদের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।
দ্বিতীয় নাটক ‘গাজনাচরের বাজনা’। এই নাটকটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে পরিবেশিত হয়। প্রেম চিরন্তন সত্য, মানে না বর্ণ, মানে না জাতপাত, মানে না ধর্ম। কিন্তু সবধর্মের মিলনেও যখন স্বজাতির বা স্বধর্মের আগ্রাসন আর এই আগ্রাসনের চরম পরিণতি হয়ে ওঠে মৃত্যু! হত্যা! তখন নববধূর সিঁথির সিঁদুর মুছে যায়। এ ছবি ভারতবর্ষের অলিগলিতে ঘটে চলেছে প্রতিদিন। তবে প্রেম সত্য—সত্য মানবতা। মানবতার হত্যা আটকানোর প্রচেষ্টা এই ‘গাজনাচরের বাজনা’।
বাংলাদেশের পল্লি কবি জসিমউদ্দিনের কালজয়ী পল্লিকাব্য ‘নকশিকাঁথার মাঠ’ আশ্রিত নাটক এটি।
রুপাই ও সাজু নামের দুই গ্রামীণ যুবক-যুবতীর অবিনশ্বর প্রেমের করুণ কাহিনী। বাস্তবে দুটি চরিত্রের নাম ছিল রূপা ও ললিতা। বাংলাদেশের ময়মনসিংহর গফরগায়ের উপজেলার শিলাসি গ্রামে যার বাড়ি ছিল। এই দুটি বাস্তব চরিত্রকে উপজীব্য করে কবি লিখেছিলেন এই যুবক-যুবতীর গল্প। তাদের নাম বদল করে হয় রুপাই ও সাজু। রুপাই চাষআবাদ করে। বন্ধু-বান্ধবদের নিয়ে আনন্দে মজায় দিন কাটায়। একদিন পাশের গ্রামের কয়েকজন মেয়ে গান গাইতে গাইতে তাদের গ্রামে আসে। তাদের মধ্যে ছিল সাজুও। সাজুকে রুপাইয়ের ভালো লাগে। সে জানতে পারে তার পরিচিত এক আত্মীয়ের মেয়ে সাজু। তাই একদিন সে পাশের গ্রামে যায়। তাদের দু’জনের মধ্যে দেখা সাক্ষাৎ হয়। একে অপরের প্রেমে পড়ে তারা। রুপাই সাজুর ভালোবাসার কথাটা সকলে জানতে পারে। বিষয়টা ভালোভাবে নেয় না মামুদ। সে চক্রান্ত করে। সাজুর সঙ্গে রুপাইয়ের বিয়ে হয়। সংসার পাতে তাঁরা। কিন্তু সুখে সংসার করা হয় না তাদের। মামুদ বনগেঁয়োর দলকে খেপিয়ে তোলে। তারা নিজেদের জমি ফিরে পাওয়ার আশায় রুপাইয়ের গাজনাচরের ধানজমি দখলের জন্য আক্রমণ করে। বনগেঁয়োদের প্রতিরোধ করতে সেখানে বড় ধরনের দাঙ্গা হয়। সেই দাঙ্গায় নেতৃত্ব দেয় রুপাই। দাঙ্গায় প্রাণ হারায় রুপাইয়ের কিছু বন্ধু ও বনগেঁয়োর দল। বাকি সকলে পালিয়ে যায়। সাজু ঝরা পাতার মতো মন নিয়ে, সেই প্রথম দেখা বাঁশ বাগানের দৃষ্টি বিনিময় থেকে শুরু করে তাদের জীবনের সব কথা, এমনকী যে রাতে রুপাই চলে গেল সেসব স্মৃতি কাঁথার ওপর ফুটিয়ে তুলতে থাকে সুচ-সুতো দিয়ে। এবং তার মাকে বলে যায় তার মরণের পরে যেন সেই কাঁথাটি কবরের উপর বিছিয়ে দেওয়া হয়। বহু দিন পরে গ্রামের কৃষকরা গভীর রাতে বেদনার্ত বাঁশির সুর শুনতে পায়। আর ভোরে সবাই এসে দেখে সাজুর কবরের পাশে এক ভিনদেশি লোক মরে পড়ে আছে। পল্লিকবি সেই দাঙ্গা দেখেন, গ্রামাঞ্চলে জমি দখলের এক নারকীয় দৃশ্য। লাঠিয়াল দলের নেতৃত্বদানকারী রুপাইয়ের তেজোদীপ্ত এক ভয়ঙ্কর বীরত্ব। ‘নকশি কাঁথার মাঠ’ আশ্রিত নাটকে সেই দাঙ্গাই মূল উপজীব্য হয়ে ওঠে। নাচেগানে জমজমাট এই নাটকে সূত্রধারের ভূমিকাটি খুব গুরুত্বপূর্ণ। যেটি মেহুলি সরকার ও অলকানন্দা ভট্টাচার্য খুব সুন্দর করে পালন করেছেন। আঞ্চলিক ভাষায় গানের বর্ণনায় উপস্থাপিত নাটকটিও মনোগ্রাহী হয়। অভিনয়ে রুপাইয়ের চরিত্রে সৌরভ দত্ত ও সাজুর ভূমিকায় শিবাঙ্গী ভট্টাচার্য এককথায় অনবদ্য।
অন্যান্য চরিত্রগুলির প্রতি যথাযোগ্য সুবিচার করেছেন আবির ঘোষ (মামুদ), সুরজিৎ দেবনাথ (রহিম চাচা), সুতপা মুখার্জি (আসমা), স্বাতী চক্রবর্তী (বরু), শুভাশীষ দত্ত (অছি মিঞা)। উপস্থাপনায় অতনু সরকার এবং মুখ্য উপদেষ্টা ভর্গোনাথ ভট্টাচার্য।
কলি ঘোষ 
05th  October, 2019
পশুতে মানুষে... 

আমরা প্রায়শই কারও দুর্ব্যবহারে ক্ষুব্ধ হয়ে বলে থাকি — তুই তো জন্তুর মতো ব্যবহার করছিস! প্রশ্ন হল, সত্যি কি এখন এই উপমাটি ব্যবহার করা চলে? কেন না, বর্তমানে এই সমাজবদ্ধ জীবটি, অর্থাৎ মানুষ, সবচেয়ে বেশি হিংস্র, ভয়ঙ্কর, স্বার্থপর এক প্রাণী। যার সঙ্গে কোনও জন্তুরই তুলনা চলে না। 
বিশদ

12th  October, 2019
ধর্মের নামে ব্যবসার এক জ্বলন্ত ঘটনা তুলে ধরে এ নাটক 

ধর্ম ও মানুষের ধর্মীয় আবেগকে পুঁজি করে সারা পৃথিবীজুড়ে এক ব্যবসা চলছে। এক শ্রেণীর অসাধু ব্যক্তি তাদের স্বার্থ চরিতার্থ করতে, নিজেদের প্রভাব-প্রতিপত্তি বৃদ্ধি করতে কাজে লাগাচ্ছে সাধারণ মানুষের এই আবেগকে। 
বিশদ

12th  October, 2019
রংমহল ছাড়েননি 

সামনেই দুর্গাপুজো। ফি বছর মা আসেন পতিগৃহ থেকে পিতৃগৃহে। তেমনই একবার দুর্গা মর্তে আসার প্রাক্কালে পতিদেব মহাদেবের কাছে আর্জি জানালেন যে তিনি মর্তবাসীর দুঃখ-দুর্দশা সইতে পারছেন না। মহাদেব এমন কিছু করুন যাতে মর্তের লোকেদের দুর্গতি দূর হয়।  
বিশদ

12th  October, 2019
রঙরূপের ৫০ পূর্ণ 

পঞ্চাশ বছর পূর্ণ করে একান্নে পা রাখল নাট্যদল রঙরূপ। শারদোৎসবের প্রাক্কালে এই উপলক্ষে তারা আয়জোন করেছিল দুই দিনব্যাপী এক উৎসবের। পয়লা ও দোসরা অক্টোবর, এই দুই দিন বাাংলা অ্যকাডেমি ও অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টস মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় আলোচনা সভা ও নাটক।  
বিশদ

05th  October, 2019
সমীর সেন-উৎপল রায় যুগলবন্দি সাথীহারা ভালোবাসা 

ফেসবুক-হোয়াটস অ্যাপ-ইনস্টাগ্রামের হড়পা বান যতই আছড়ে পড়ুক না কেন, বঙ্গ জীবনের অঙ্গে পরম্পরা ঐতিহ্যকে মান্যতা দিতে এখনও অভাব হয়নি আন্তরিকতার। তার নমুনা মিলবে বিশ্বভারতী অপেরার ১৪২৬ সনের নয়া পালাগান ‘সাথী হারা ভালোবাসা’য়। নিবেদনে শুভজিৎ সেন। 
বিশদ

05th  October, 2019
বীরত্ব ও আত্মবলিদানের গল্প 

সম্প্রতি গিরিশ মঞ্চে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘বীরপুরুষ’ কবিতাটি নাট্যাঙ্গিকে মঞ্চস্থ করল হাওড়া শিল্পী সংঘ। নাটকে অবশ্য শিশুর বীরত্বর সঙ্গে ভারতীয় সেনাবাহিনীর মেজরের এক মর্মস্পর্শী কাহিনী মিশিয়ে পরিবেশন করা হয়। বিষয়টি অন্যরকম এবং হৃদয়বিদারক সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই। 
বিশদ

05th  October, 2019
পেশাদারিত্ব না এলে ভালো থিয়েটার হবে না 

...বলতেন প্রয়াত নট ও পরিচালক অজিতেশ বন্দ্যোপাধ্যায়। গত ৩০ সেপ্টেম্বর ছিল তাঁর ৮৬তম জন্মদিন। সেই উপলক্ষে তাঁকে স্মরণ করলেন তাঁর শিষ্য প্রকাশ ভট্টাচার্য। 
বিশদ

05th  October, 2019
দুটি চেয়ার কেন? 

অগ্রজকে কীভাবে সম্মান জানাতে হয় তা শিখেছিলেন বিভাস চক্রবর্তীর থেকেই। তাঁর আসন্ন জন্মদিন উপলক্ষে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করলেন প্রকাশ ভট্টাচার্য।  বিশদ

21st  September, 2019
চণ্ডীতলা প্রম্পটারের কলাকেন্দ্র 

হুগলি জেলার বরিজাহাটি অঞ্চলে নাটকের দল চণ্ডীতলা প্রম্পটারের নিজস্ব উদ্যোগে নির্মিত হয়েছে একটি নাট্যগৃহ ‘কলাকেন্দ্র’-র। আদতে এটি একটি মুক্তমঞ্চ। গত ৮ সেপ্টম্বর নাট্যব্যক্তিত্ব ব্রাত্য বসু এটির উদ্বোধন করেন। 
বিশদ

21st  September, 2019
নট চিন্ময় রায় 

‘চিন্ময় রায় কিন্তু নাটকেরও মানুষ ছিলেন’— মনে করিয়ে দিয়েছেন বিভাস চক্রবর্তী। আসলে ব্যবসায়িক সিনেমায় কমেডিয়ান হিসেবে চিন্ময় রায়ের নামডাকের আড়ালে তাঁর নাটকের সত্তা ঢাকা পড়ে গিয়েছিল। নান্দীকারের সদস্য হিসেবে শুরু করেছিলেন অভিনয় জীবন। পরে ১৯ জন মিলে সে দল ছেড়ে গড়ে তোলেন ‘থিয়েটার ওয়ার্কশপ’। 
বিশদ

21st  September, 2019
বিদ্যাসাগরের দ্বিশত জন্মবর্ষ উপলক্ষে ভ্রান্তিবিলাস 

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরের নাম বাংলার নবজাগরণের একেবারে উপরের সারিতে রয়েছে। বাংলা ভাষা ও সমাজ সংস্কারের কাজ ছাড়াও তিনি বেশকিছু সুখপাঠ্য গল্প, উপন্যাস লিখেছিলেন। তারই একটি ভ্রান্তিবিলাস। শেক্সপিয়রের লেখা ‘কমেডি অব এররস’ অবলম্বনে কাহিনীটি লিখেছিলেন বিদ্যাসাগর। 
বিশদ

21st  September, 2019
নতুন নাটক আজীর 

মহাশ্বেতা দেবীর লেখা গল্প ‘আজীর’ অবলম্বনে ‘নব বারাকপুর কোরাস থিয়েটার’ নির্মাণ করেছে তাদের নতুন নাটক ‘আজীর’। এ গল্প হল সামন্ততান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থার নিষ্ঠুরতার এক জ্বলন্ত দলিল।  
বিশদ

21st  September, 2019
আশুতোষ মুখোপাধ্যায় স্মারক নাট্যোৎসব 

সাহিত্যিক আশুতোষ মুখোপাধ্যায়ের জন্ম শতবর্ষ আগতপ্রায়। সেই উপলক্ষে গত ২০ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তিনদিনব্যাপী এক নাট্যোৎসবের আয়োজন করা হয়েছে কালীঘাটের যোগেশ মাইম অ্যাকাডেমি মঞ্চে। 
বিশদ

21st  September, 2019
তাপসদাকে আজ
বড় প্রয়োজন ছিল

তাঁকে বলা হত আলোর জাদুকর। আলোকশিল্পী হিসেবে বিশ্বজোড়া তাঁর খ্যাতি। গত ১১ সেপ্টেম্বর ছিল সেই প্রয়াত তাপস সেনের জন্মদিন। তাঁকে কাছ থেকে দেখার সুবাদে স্মৃতিচারণ করলেন প্রকাশ ভট্টাচার্য। বিশদ

14th  September, 2019
একনজরে
 নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: টিভি দেখার খরচে স্বচ্ছতা আনার উদ্যোগ নিয়েছিল টেলিকম নিয়ামক সংস্থা টেলিকম রেগুলেটরি অথরিটি অব ইন্ডিয়া বা ট্রাই। চলতি বছরের গোড়ায় সেই নিয়ম কার্যকর হতে শুরু করে। ...

 সংবাদদাতা, তারকেশ্বর: তারকেশ্বর মন্দিরের পুরোহিত মণ্ডলীর কার্যকরী সমিতির নির্বাচন ঘিরে শুরু হয়েছে জল্পনা। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য মনোনয়নপত্র জমা দিয়েও ইতিমধ্যেই তা প্রত্যাহার করেছেন চারজন। আজ, মঙ্গলবার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। ...

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: সৌরভ গাঙ্গুলি বোর্ড সভাপতি হওয়ায় খুশির হাওয়া সিএবি’তে। তবে একই সঙ্গে শুরু হয়েছে অঙ্ক কষাও। কারণ, বোর্ড সভাপতি পদে বসতে গেলে সৌরভকে ...

সংবাদদাতা, কাঁথি: পটাশপুর থানার শৌলাভেড়ি গ্রামের এক নাবালিকার বিয়ে রুখল পুলিস-প্রশাসন। রবিবার ওই নাবালিকার সঙ্গে পাশের গ্রামের এক যুবকের বিয়ে হওয়ার কথা ছিল। ওই নাবালিকা স্থানীয় একটি হাইস্কুলে একাদশ শ্রেণীতে পড়াশোনা করে।  ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

গুরুজনের চিকিৎসায় বহু ব্যয়। ক্রোধ দমন করা উচিত। নানাভাবে অর্থ আগমনের সুযোগ। সহকর্মীদের সঙ্গে ঝগড়ায় ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

বিশ্ব হাতধোয়া দিবস
১৫৪২: মোগল সম্রাট আকবরের জন্ম
১৯৩১: বিজ্ঞানী ও ভারতের একাদশ রাষ্ট্রপতি ডঃ এ পি জে আবদুল কালামের জন্ম
১৯৪৬: অভিনেতা ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্ম  

ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭০.০৪ টাকা ৭১.১৪ টাকা
পাউন্ড ৮৭.৭৬ টাকা ৯০.৯৭ টাকা
ইউরো ৭৬.৭৩ টাকা ৭৯.৭০ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৩৮, ৯৫৫ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৩৬, ৯৬০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৩৭, ৫১৫ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৪৫, ৬০০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৪৫, ৭০০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]

দিন পঞ্জিকা

২৮ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, দ্বিতীয়া অহোরাত্র। অশ্বিনী ১৭/১৪ দিবা ১২/৩০। সূ উ ৫/৩৬/২৯, অ ৫/৮/৪৯, অমৃতযোগ দিবা ৬/২৩ মধ্যে পুনঃ ৭/৯ গতে ১০/৫৯ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৯ গতে ৮/২৯ মধ্যে পুনঃ ৯/১৮ গতে ১১/৪৮ মধ্যে পুনঃ ১/২৭ গতে ৩/৭ মধ্যে পুনঃ ৪/৪৭ গতে উদয়াবধি, বারবেলা ৭/৪ গতে ৮/৩০ মধ্যে পুনঃ ১২/৪৯ গতে ২/১৫ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৪১ গতে ৮/১৫ মধ্যে।
২৭ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার, দ্বিতীয়া ৫৭/৩৩/৪৮ শেষরাত্রি ৪/৩৮/২৩। অশ্বিনী ১৭/৪৮/৫৩ দিবা ১২/৪৪/২৫, সূ উ ৫/৩৬/৫২, অ ৫/১০/১২, অমৃতযোগ দিবা ৬/৩০ মধ্যে ও ৭/১৪ গতে ১০/৫৮ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/৩০ গতে ৮/২১ মধ্যে ও ৯/১২ গতে ১১/৪৬ মধ্যে ও ১/২৮ গতে ৩/১১ মধ্যে ও ৪/৫৪ গতে ৫/৩৭ মধ্যে, বারবেলা ৭/৩/৩২ গতে ৮/৩০/১২ মধ্যে, কালবেলা ১২/৫০/১২ গতে ২/১৬/৫২ মধ্যে, কালরাত্রি ৬/৪৩/৩২ গতে ৮/১৬/৫২ মধ্যে।
১৫ শফর

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
কার্নিভালে সম্মানহানির অভিযোগ রাজ্যপালের 
কার্নিভাল নিয়ে রাজ্যের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকার। ...বিশদ

04:36:31 PM

মন্তেশ্বরে বাস-বাইক মুখোমুখি সংঘর্ষ, মৃত ৩ 
বাইক ও যাত্রীবাহী বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষ। আজ দুপুর ২টো নাগাদ ...বিশদ

04:36:00 PM

কেতুগ্রামে গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ পুলিস কর্মীর বিরুদ্ধে 
পূর্ব বর্ধমানের কেতুগ্রামে গৃহবধূকে হুমকি দিয়ে লাগাতার ধর্ষণের অভিযোগ উঠল ...বিশদ

03:58:12 PM

৪০০ পয়েন্ট উঠল সেনসেক্স 

03:39:36 PM

নারদ কাণ্ড: ৩০ অক্টোবর পর্যন্ত আইপিএস মির্জার জেল হেফাজত

03:34:00 PM

দঃ দিনাজপুরে মৎস্যজীবীদের জালে উঠল নরকঙ্কাল
দক্ষিণ দিনাজপুরের কুশমণ্ডি থানার কঙ্কন দীঘিতে মাছ ধরতে গিয়ে মৎস্যজীবীদের ...বিশদ

01:41:00 PM