Bartaman Patrika
রঙ্গভূমি
 

বাংলা থিয়েটার
এখন কাগুজে বাঘ

 আজকের বাংলা থিয়েটারে ব্যস্ততম অভিনেতার নাম প্রসেনজিৎ বর্ধন। তাঁর সঙ্গে কথোপকথনে শুভঙ্কর গুহ।

 কেমন আছেন?
 ভালো, ভালোই আছি। কাজের মধ্যেই আছি।
 আপনাকে বলা হচ্ছে এই মুহূর্তে বাংলা থিয়েটারে ব্যস্ততম অভিনেতা। কেমন লাগছে?
 না... না... সেরকম কোনও ব্যাপার নয়। লোকে বলছে ব্যস্ত, তবে আমার ঠিক সেরকম মনে হয় না। আমার থেকেও ব্যস্ত শিল্পী বাংলা থিয়েটারে অনেকে আছেন। এই যেমন ধরুন যাঁরা নাটকে মিউজিকের কাজ করেন বা যাঁরা মঞ্চ নিয়ে কাজ করছেন তাঁরাও শিল্পী। আমি তাঁদের শিডিউল দেখেছি। তাঁরা আমাদের থেকেও অনেক বেশি ব্যস্ত।
 এই মুহূর্তে ক’টা নাটকে কাজ করছেন?
 হা... হা... হা... সেরকমভাবে গুণে দেখিনি। তবে হ্যাঁ, নিয়মিত শো করে এরকম প্রায় সতেরোটা নাটকে অভিনয় করছি। আর অনিয়মিত মানে চার-পাঁচ মাস পরে পরে শো করে এরকম দলের সংখ্যা প্রায় এগারো-বারো। আর অভিনয়ের পাশাপাশি নির্দেশনার কাজ এবং কোরিওগ্রাফির কাজকে যদি ধরি তাহলে সংখ্যাটা নিঃসন্দেহে চল্লিশের ওপরে।
 আগামী ছয় মাসের মধ্যে কী কী নাটক আসছে?
 (একটু ভেবে) খুব উল্লেখযোগ্য কাজের মধ্যে ধরুন ধানসিড়ি নাটকের দলের হয়ে ‘সারমেয় সংবাদ’ করছি কণিকা মজুমদারের নির্দেশনায়। হাতিবাগান সংঘারামের হয়ে ‘পঞ্চু লাহা’ করছি অনির্বাণ ভট্টাচার্যের নির্দেশনায়, আমার আর সুজিতকুমার রায়ের যৌথ নির্দেশনায় একটি নাটক আসছে ‘দ্য কাইট রানার’। অন্য থিয়েটারের ব্যানারে ‘টোপি’ বলে একটি নাটক করছি অরিন্দম মুখোপাধ্যায়ের পরিচালনায়। এছাড়া আরও বেশ কয়েকটি নাটক আস্তে আস্তে তৈরি হচ্ছে। যেগুলো আগামী বছরের গোড়ার দিকে আসবে।
 আজকের প্রসেনজিৎ হয়ে ওঠার পিছনে কি ‘মুম্বাই নাইটস’ নাটকটির অবদান অনেকখানি?
 না আমার ঠিক তা মনে হয় না। দেখুন আমি একটা নাটক করতাম ‘জাল’ বলে, যেটি প্রথমে কল্যাণী নাট্যচর্চা কেন্দ্রের ব্যানারে হতো। যেটা পরবর্তীকালে গৌতম হালদারের নির্দেশনা ন’য়ে নাটুয়ার ব্যানারে হতো। ওই নাটকটি আমাকে একটা অন্যরকম পরিচিতি দিয়েছিল। তারপর মিনার্ভা রেপাটারির ‘দেবী সর্পমস্তা’ নাটকটি বেশ প্রশংসিত হয় এবং অবশ্য করেই আমার চরিত্রটি। তারপর ‘মুম্বাই নাইটস’। এই নাটকটি বাণিজ্যিকভাবে সফল একটি নাটক। তাই প্রচুর মানুষ দেখে ফেললেন।
 আপনার অভিনয়ের জগতে প্রবেশ কীভাবে?
 সে এক লম্বা কাহিনী। অবশ্যই খুব পরিকল্পিতভাবে এ জগতে আসিনি। আমি ছোটবেলায় বেহালার একটা কোচিং সেন্টারে পড়তাম। পড়াশোনায় বেশ ভালো ছিলাম। খেলাধুলো, অভিনয়ও ভালো লাগত। তো একবার কোচিং সেন্টার থেকে নাটক করা হচ্ছে। সেই নাটকে শেষ মুহূর্তে একটি চরিত্রের অভিনেতা অনুপস্থিত হয়ে পড়ে। তখন স্যার আমাকে বললেন সেই চরিত্রটা করে দিতে। কারণ আমি তাড়াতাড়ি মুখস্থ করতে পারব। তো করলাম সেই নাটক। যিনি আমাদের পরিচালনার কাজ দেখছিলেন সেই দাদা আমার অভিনয় দেখে প্রস্তাব দিলেন তাঁদের সঙ্গে স্ট্রিট ড্রামা করার। সেগুলো ছিল আসলে অ্যাওয়ারনেস ক্যাম্পেন জাতীয়। বললেন, করলে টাকা পাওয়া যাবে। সেই সময়ে আমাদের পরিবারের অর্থনৈতিক হাল যা ছিল তাতে ‘টাকা পাওয়া যাবে’ এই প্রস্তাবটা আমাকে নাড়িয়ে দিয়েছিল। ব্যস! যুক্ত হয়ে গেলাম স্ট্রিট থিয়েটারে। টানা পাঁচবছর সেই দলে কাজ করেছি। টাকাও পেয়েছি। ফলে অন্য কোনও ভাবনা মাথায় আসেনি। তখন এক শুভানুধ্যায়ী আমাকে বললেন, দেখ তুই যদি অভিনয়টাকেই পেশা হিসেবে নিতে চাস তবে তোকে কিন্তু আরও শিখতে হবে। আসলে তখনও কিন্তু আমি মঞ্চে কোনও নাটক দেখিনি, করা তো দূরস্থান। তো সেই শুভানুধ্যায়ীর কথায় আমি বেহালার শরৎ সদনে টিকিট কেটে একটি নাটক দেখলাম। নাটকটির নাম ‘তিস্তাপারের বৃত্তান্ত’। নাটকটা দেখে আমার মনে হল, আরে, নাটক এরকম হয়! আমি তো এর কিছুই জানি না। তারপর ভর্তি হলাম নান্দীকারের ওয়ার্কশপে। সেই আমার প্রথম থিয়েটারের অভিনয় শেখা। তারপর নান্দীকারের ‘সোজনবাদিয়ার ঘাট’ নাটকে কোরাসে অভিনয় করার সুযোগ পেলাম। প্রায় পনেরোটা শো করেছি। তারপর গৌতম হালদারের হাত ধরে ন’য়ে নাটুয়ায় প্রবেশ। সেখান থেকে দেবেশ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে মিনার্ভা রেপার্টরিতে। সেখানে প্রথমে ‘দেবী সর্পমস্তা’ তারপর ব্রাত্য বসুর নির্দেশনায় ‘মুম্বাই নাইটস’। এই হল আমার পথচলার শুরু।
 ব্রাত্য বসুর কথা যখন উঠলই তখন কোম্পানি থিয়েটারের কথায় আসি। কী মনে হয় কোম্পানি থিয়েটার থাকবে নাকি থিয়েটার আবার আগের ফর্মে ফিরে যাবে?
 দেখুন, আমি ঠিক ব্যাপারটাকে এরকমভাবে দেখি না। থিয়েটার করে প্রফিট করা সম্ভব নয়, মানুষ যদি টিকিট কেটে হলে আসে তবে অন্তত প্রোডাকশন কস্টটা উঠে আসতে পারে। আর তার জন্য চাই ভালো মানের প্রযোজনা। সে যে কোনও ফর্মেই হোক।
 এখন বাংলা থিয়েটারে আদর্শহীন নিকৃষ্ট এক রাজনীতির রমরমা দেখা যাচ্ছে। এ বিষয়ে আপনার মতামত কী?
 (হাসি)... দেখুন যে যার রাজনীতি বা দর্শনের কথা বলতেই পারে। কিন্তু সেটা খুব গোদাভাবে না বলে একটু শিল্পের মধ্যে দিয়ে নাটকের মাধ্যমে বললে ভালো হয়।
 আমার প্রশ্নটা কিন্তু ঠিক এরকম ছিল না।
 দেখুন আমি অভিনেতা, রাজনীতি নিয়ে আমার ধ্যান-ধারণা খুবই কম। তাই এর থেকে আর বিশদভাবে কিছু বলতে পারব না।
 আজকাল সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রায়ই দেখা যাচ্ছে থিয়েটারকর্মীরা ঝগড়া বিবাদে জড়িয়ে পড়ছেন...
 হ্যাঁ, এটা আমিও লক্ষ্য করি। খুবই দুঃখজনক। ধরুন আজকের দিনে ফেসবুক একটা বিরাট প্ল্যাটফর্ম। সেটা নাটকের মানুষদের বেশি বেশি করে ব্যবহার করা উচিত। আসলে খুব তাড়াতাড়ি সাফল্য চাইছে কিছু মানুষ। আর সেটার জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় ইচ্ছে করেই খানিকটা বিতর্ক তৈরি করছে। দেখুন আপনার দায়িত্ব, পদমর্যাদা যত বাড়বে, আপনার তত বেশি সংযত হওয়া উচিত বলে আমি মনে করি। কিন্তু তাড়াতাড়ি নাম করার দৌড়ে আমরা সেসব ভুলে যাচ্ছি। আবারও বলছি খুবই দুঃখজনক।
 সামগ্রিকভাবে বাংলা থিয়েটারের ভবিষ্যৎ কী?
 এখন যে অবস্থায় আছে সেটা একটা ফুলিয়ে-ফাঁপিয়ে কাগুজে বাঘের মতো অবস্থা। মানে আমরা বড় ভালো আছি। কিন্তু আদতেই ব্যাপারটা তা নয়। থিয়েটারকে স্বনির্ভর হতে হবে, মানুষকে হলমুখী করতে হবে। ভিন্ন মত থাকলেও কোনও একটা জায়গায় ঐক্যবদ্ধ হতে হবে, না হলে ভবিষ্যৎ অন্ধকার।
 এরকম একটা সময়ে দাঁড়িয়ে থিয়েটারে অভিনয় করাটাকে জীবিকা বানালেন, অনিশ্চয়তায় ভোগেন না?
 ভুগি তো। কিন্তু কী করব! ঝুঁকি তো সব পেশাতেই আছে। আমি না হয় একটু বেশিই ঝুঁকি নিলাম। ধরুন যে প্যারাগ্লাইডিং করছে সেও তো জীবনের ঝুঁকি নিচ্ছে। আবার ধরুন যিনি মাঝসমুদ্রে মাছ ধরতে যাচ্ছেন তিনিও তো ঝুঁকি নিচ্ছেন। সেটাও তো একটা পেশা।
 ব্যস্ততার চরম শিখরে রয়েছেন, থিয়েটারের ব্যস্ততা আর পারিবারিক জীবন এ দুটো ব্যালেন্স করছেন কীভাবে?
 ব্যালেন্স যে খুব একটা করতে পারছি তা একদমই নয়। ডিপ্রাইভড হচ্ছে আমার ব্যক্তিগত জীবন। আমি সবটা উপলব্ধি করতে পারলেও আমার আর কিছু করার নেই। তবুও আমার পরিবারের লোকেরা আমার পাশে আছে। খানিকটা অন্যায় করছি হয়তো, তবুও তারা আমাকে উৎসাহ দেয়।
 ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা কী? দল করবেন? বড় পর্দায় অভিনয় করার বাসনা আছে?
 প্রশ্নই ওঠে না। কেউ লিডার হয়ে জন্মায়, আবার কেউ জীবনে ঘুর পথে লিডার হয়ে ওঠে। দুটোর কোনওটাই আমার মধ্যে নেই। তবে আমি বেশ কিছু দলে নির্দেশনার কাজ করে থাকি। সেটা আমি চালিয়ে যাব। কিন্তু দল খুলে অনেক মানুষকে সামলানো বড্ড কঠিন কাজ। আর একটা সিনেমায় ইতিমধ্যেই অভিনয় করে ফেলেছি। সেটা হল ‘হামি’। পরবর্তীকালে ডাক পেলে ফের করতে পারি। তবে প্রায়োরিটি কিন্তু থিয়েটার। আপাতত এই বেশ ভালো আছি।
ছবি : গোপাল দেবনাথ
14th  September, 2019
গিরিশ মঞ্চে সাজাহান 

গোপীমোহন সব পেয়েছিল আসর সম্প্রতি গিরিশ মঞ্চে দ্বিজেন্দ্রলাল রায়ের লেখা সাজাহান নাটকটি মঞ্চস্থ করল। উপলক্ষ ছিল তাদের ৬৬তম বর্ষ উদযাপন। সাজাহানের চরিত্রে অভিনয় করেন সুব্রত ভট্টাচার্য।  বিশদ

14th  March, 2020
রামধনু নাট্যোৎসব 

বরানগর রামধনু নাট্যোৎসব এবার তৃতীয় বর্ষে পা রাখল। আগামী শুক্রবার ২০ মার্চ বরানগর রবীন্দ্রভবনে দুপুর ১২টায় এই উৎসবের উদ্বোধন করবেন বর্ষীয়ান নাট্যব্যক্তিত্ব গৌতম মুখোপাধ্যায়। নাট্যোৎসবটি চলবে ২২ মার্চ পর্যন্ত। মোট ১৬টি নাট্যদল এবার এই উৎসবে অংশ নিচ্ছে, তারমধ্যে বেশিরভাগই মফস্সলের। 
বিশদ

14th  March, 2020
পুশকিনের জীবন নিয়ে নাটক 

আগামী ২১ মার্চ বিশ্ব কবিতা দিবস। দু’শো বছর আগে ওইদিনই জন্ম হয়েছিল বিশ্ববন্দিত রাশিয়ান কবি আলেকজান্দার পুশকিনের। আর তাঁর জীবনদীপ নেভে মাত্র ৩৭ বছর বয়সে। জারের রাজকর্মচারী দান্তেসের সঙ্গে ডুয়েল লড়তে গিয়ে নিহত হন পুশকিন। অনেকে বলেন মৃত্যু, অনেকে বলেন হত্যা।  
বিশদ

14th  March, 2020
আনন্দজীবন নাট্যোৎসব

দিনাজপুর কৃষ্টি আয়োজিত সাতদিনের আনন্দজীবন নাট্যোৎসব হয়ে গেল কুশমন্ডিতে। ২০ থেকে ২৬ জানুয়ারি এই উৎসবে মোট আটটি দল অংশগ্রহণ করে। প্রতিদিনই দিনাজপুরের পাশাপাশি অন্যান্য জেলা থেকে আগত দলগুলির একটি করে নাটক মঞ্চস্থ হয়। উৎসবের প্রথমদিনে স্থানীয় বিধায়ক নর্মদা রায় প্রদীপ জ্বালিয়ে শুভ সূচনা করেন।  
বিশদ

14th  March, 2020
এ নাটক এক সমকালীন দলিল যা দর্শককে ভাবায় 

সময়টা বড়ই ভয়ঙ্কর। ধর্মের সুড়সুড়ি দিয়ে রাজনীতির কারবারিরা যে যার মত করে ঘুঁটি সাজাতে তৎপর। ধর্ম নামক বস্তুটিকে সামনে রেখে চলছে গরিব-বড়লোকের শ্রেণীবিন্যাস আর চিরকালীন সংঘাত। ঠিক এই সময়ে দাঁড়িয়ে ‘কালিন্দী নাট্যসৃজন’-এর নতুন প্রযোজনা ‘মন সারানি’ চমকে দেয়।
বিশদ

14th  March, 2020
কমলকুমারের গল্পের দুঃসাহসিক মঞ্চায়ন 

কমলকুমার মজুমদারকে ‘দুঃসাহসী লেখক’ বলে অভিহীত করেছিলেন সুনীল গঙ্গোপাধ্যায়। তাঁর বাক্যগঠন, শব্দ, ক্রিয়াপদ, কমা, পূর্ণচ্ছেদের ব্যবহার সবই ছিল চলতি রীতির থেকে আলাদা। এমনকী আলাদা ছিল তাঁর ভাষাও। সাধুভাষার ব্যবহার, অপ্রচলিত শব্দের ব্যবহার তাঁর লেখাকে করে তুলেছিল অন্য সবার থেকে আলাদা, ফলে হয়তো দুরূহও।  
বিশদ

14th  March, 2020
নান্দীকারের নাট্যোৎসব একটি প্রতিবেদন 

অ্যাকাডেমি অব ফাইন আর্টস মঞ্চে নান্দীকারের ছত্রিশতম নাট্যমেলা অনুষ্ঠিত হল গত ডিসেম্বর মাসের ষোলো থেকে পঁচিশ তারিখ পর্যন্ত। নান্দীকারের সুনাম অক্ষুণ্ণ রেখেই সমাপ্ত হল তাদের এই নাট্যোৎসব। 
বিশদ

07th  March, 2020
প্রসেনিয়ামের থিয়েটার ফেস্টিভ্যাল 

প্রসেনিয়াম’স আর্ট সেন্টার ও বিভাবন যৌথ উদ্যোগে গত ১৩ থেকে ১৭ নভেম্বর এক থিয়েটার উৎসবের আয়োজন করে। তাদের নিজস্ব সেন্টারে আয়োজিত এই উৎসবে ১১টি নাট্যদলের থিয়েটার মঞ্চস্থ হয়। 
বিশদ

07th  March, 2020
দ্বাদশ থিয়েলাইট নাট্যোৎসব 

থিয়েলাইট নাট্যদলের নাট্যোৎসব এবছর বারোয় পা দেবে। বিগত বছরগুলিতে এই উৎসব ঘুরিয়ে ফিরিয়ে বিভিন্ন জেলায় করা হতো। এবছর সেই ধারায় ব্যতিক্রম ঘটতে চলেছে। এবছর উৎসব হবে কলকাতাতেই।  
বিশদ

07th  March, 2020
সাথী হারা ভালোবাসা ফিরিয়ে দেয় যাত্রার স্বাদ 

২৪তম যাত্রা উৎসব হয়ে গেল ফণীভূষণ বিদ্যাবিনোদ মঞ্চে। এই উৎসবের উল্লেখযোগ্য যাত্রাপালা ছিল বিশ্বভারতী অপেরার প্রযোজনায় ‘সাথী-হারা ভালোবাসা’। আর পাঁচটি প্রেম কাহিনীর মতোই একটি রোমান্টিক প্রেমের গল্প এটি। ভালোবাসার জন্য একজন মানুষ সবকিছুই করতে পারে।  
বিশদ

07th  March, 2020
গা ছমছম কী হয় কী হয়!
রহস্য নাটকের সার্থক মঞ্চায়ন

সময়টা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধোত্তর পশ্চিমবঙ্গ। প্রচণ্ড ঝড়জলের এক রাত। কার্শিয়াংয়ের এক সদ্য চালু হওয়া হোটেল ড্রিমল্যান্ডে একে একে জড়ো হয় রহস্যময় কয়েকজন বোর্ডার। একজন নাকউঁচু মহিলা মিস কাজল দত্ত, যিনি অবসরপ্রাপ্ত সরকারি অফিসার। 
বিশদ

07th  March, 2020
এনএসডি-র আদিরঙ মাতিয়ে দিল দ্বারোন্দা 

ইউক্যালিপটাসের সুউচ্চ গাছগুলোর মাথায় মেঘমুক্ত পশ্চিমাকাশে ধ্রুবতারাটা জ্বলজ্বল করছিল। শেষ লগ্নে এসেও শীত তার দাপট জানান দিচ্ছে তীব্র হিমেল হাওয়ায়। তবু বোলপুরের দ্বারোন্দা গ্রামের মুক্ত প্রান্তরে মানুষের ভিড় কম নয়। চলছে দিল্লির ন্যাশনাল স্কুল অব ড্রামা (এনএসডি) আয়োজিত ‘আদিরঙ’ অর্থাৎ আদিবাসী রঙ্গোৎসব।  
বিশদ

22nd  February, 2020
প্রেমের ঘেরাটোপে শয়তানের পদচারণা 

আ কনফেশন অব সাইকোফেনিক— আলোচনাটা এভাবে শুরু করা যায়। জালের ঘেরাটোপের মধ্যে শুরু হয় নাটক। একটি অন্তরঙ্গ ঘরে, কুলকুল জলের শব্দে, জালের মধ্যে গাঢ় বেগুনি আলোয় ভেসে ওঠে কতকগুলি বিমূর্ত হাত। একপাশে যুগল অন্তরঙ্গ হয়ে চুম্বনরত ও তাদের ঘিরে পুলিসবেশী ডাক্তার ও নার্সের পদচারণা।  
বিশদ

22nd  February, 2020
ভাষা দিবসে এনআরসি বিরোধী নাট্য 

শুধুমাত্র মাতৃভাষার জন্য আন্দোলন করতে গিয়ে একটা দেশ স্বাধীনতার স্বাদ উপলব্ধি করতে পেরেছিল। তারই স্বীকৃতি স্বরূপ ইউনেসকো ২১ ফেব্রুয়ারি দিনটিকে বিশ্ব মাতৃভাষা দিবস হিসেবে চিহ্নিত করে। যা গোটা বিশ্বে পালিত হয়। 
বিশদ

22nd  February, 2020
একনজরে
 দাম্পত্য অশান্তির জেরে বিষ খেয়ে আত্মহত্যা করলেন স্ত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে বিষ্ণুপুর থানার বগাখালি এলাকায়। মৃতার নাম রেণুকা সর্দার (৫৩)। ...

 আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার লক্ষ্যে আবার অনুশীলনে ফিরতে চলেছেন বাংলাদেশের তারকা ক্রিকেটার শাকিব আল হাসান। আগামী ২৯ অক্টোবর শেষ হতে চলেছে এই অলরাউন্ডারের নির্বাসন। ...

 কয়লার গুণগত মান বজায় রাখতে আন্তর্জাতিক স্তরের উপদেষ্টা সংস্থা নিয়োগ করতে চলেছে কোল ইন্ডিয়া লিমিটেড। ...

 কেরলের ইদুক্কিতে ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে হল ২৪। শুক্রবার সকালে প্রবল বর্ষণের জেরে ইদুক্কি জেলায় একটি চা বাগানে ধস নামে, যার ধ্বংসস্তূপে চাপা পড়ে যায় ২০টি বাড়ি। ...




আজকের দিনটি কিংবদন্তি গৌতম ( মিত্র )
৯১৬৩৪৯২৬২৫ / ৯৮৩০৭৬৩৮৭৩

ভাগ্য+চেষ্টা= ফল
  • aries
  • taurus
  • gemini
  • cancer
  • leo
  • virgo
  • libra
  • scorpio
  • sagittorius
  • capricorn
  • aquarius
  • pisces
aries

ছোটখাট আঘাত লাগার সম্ভাবনা। নিকট আত্মীয় থেকে মানসিক কষ্ট পাওয়ার সম্ভাবনা। বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রছাত্রীরা বেশি ... বিশদ


ইতিহাসে আজকের দিন

নাগাসাকি দিবস
বিশ্ব আদিবাসী দিবস

১৭৭৬: ইতালির রসায়নবিদ আমাদিও অ্যাভোগাদ্রোর জন্ম
১৯৩১: ব্রাজিলের ফুটবলার তথা কোচ মারিও জাগালোর জন্ম
১৯৪৫: দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে জাপানের নাগাসাকি শহরে আমেরিকার ফেলা পরমাণু ৩৯ হাজার মানুষের মৃত্যু
১৯৭০ – বিপ্লবী ত্রৈলোক্যনাথ চক্রবর্তীর মৃত্যু
১৯৭৪: ওয়াটার গেট কেলেঙ্কারির কারণে মার্কিন প্রেসিডেন্ট রিচার্ড নিকসনের পদত্যাগ
২০০৮: গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিকে পুরুষদের ৪০০ মিটার ফ্রিস্টাইল সাঁতার প্রতিযোগিতা শুরু হয়।



ক্রয়মূল্য বিক্রয়মূল্য
ডলার ৭৩.১৬ টাকা ৭৬.৮৮ টাকা
পাউন্ড ৯৫.৮৩ টাকা ১০০.৯৯ টাকা
ইউরো ৮৬.৪৮ টাকা ৯১.১৫ টাকা
[ স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া থেকে পাওয়া দর ]
08th  August, 2020
পাকা সোনা (১০ গ্রাম) ৫৬,৯৬০ টাকা
গহনা সোনা (১০ (গ্রাম) ৫৪,০৪০ টাকা
হলমার্ক গহনা (২২ ক্যারেট ১০ গ্রাম) ৫৪,৮৫০ টাকা
রূপার বাট (প্রতি কেজি) ৭৫,০৩০ টাকা
রূপা খুচরো (প্রতি কেজি) ৭৫,১৩০ টাকা
[ মূল্যযুক্ত ৩% জি. এস. টি আলাদা ]
08th  August, 2020

দিন পঞ্জিকা

২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, রবিবার, ৯ আগস্ট ২০২০, যষ্ঠী অহোরাত্র। রেবতীনক্ষত্র ৩৪/৩৮ রাত্রি ৭/৬। সূর্যোদয় ৫/১৪/৫৮, সূর্যাস্ত ৬/৯/১২। অমৃতযোগ প্রাতঃ ৬/৬ গতে ৯/৩২ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৮ গতে ৯/৬ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ ৬/৬ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৮ গতে ১/৫০ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫৪ গতে ৭/৩৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪ গতে ৩/২ মধ্যে। অমৃতযোগ প্রাতঃ ৬/৬ গতে ৯/৩২ মধ্যে। রাত্রি ৭/৩৮ গতে ৯/৬ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ প্রাতঃ ৬/৬ মধ্যে পুনঃ ১২/৫৮ গতে ১/৫০ মধ্যে। রাত্রি ৬/৫৪ গতে ৭/৩৮ মধ্যে পুনঃ ১২/৪ গতে ৩/২ মধ্যে। বারবেলা ১০/৫ গতে ১/১৯ মধ্যে। কালরাত্রি ১/৫ গতে ২/২৮ মধ্যে।
২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, রবিবার, ৯ আগস্ট ২০২০, যষ্ঠী শেষরাত্রি ৪/৩৩। রেবতীনক্ষত্র সন্ধ্যা ৬/২৪। সূর্যোদয় ৫/১৪, সূর্যাস্ত ৬/১২। অমৃতযোগ দিবা ৬/১০ গতে ৯/৩২ মধ্যে এবং রাত্রি ৭/২৮ গতে ৮/৫৯ মধ্যে। মাহেন্দ্রযোগ দিবা ৬/১০ মধ্যে ও ১২/৫৪ গতে ১/৪৪ মধ্যে এবং রাত্রি ৬/৪২ গতে ৭/২৮ মধ্যে ও ১১/১ গতে ৩/৩ মধ্যে। বারবেলা ১০/৬ গতে ১/২০ মধ্যে। কালরাত্রি ১/৬ গতে ২/২৯ মধ্যে।
 ১৮ জেলহজ্জ

ছবি সংবাদ

এই মুহূর্তে
করোনায় আক্রান্ত কর্ণাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 করোনায় আক্রান্ত হলেন কর্ণাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বি শ্রীরামালু। আজ ট্যুইট করে ...বিশদ

05:43:40 PM

পাকিস্তানে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৬৩৪ 
করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ক্রমশ কমতে শুরু করেছে পাকিস্তানে। গত ২৪ ...বিশদ

05:27:11 PM

ইরানে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২,০২০, মৃত ১৬৩ 
ইরানে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২,০২০ জন। এই ...বিশদ

05:25:38 PM

মেক্সিকোয় একদিনে করোনা আক্রান্ত ৬,৪৯৫, মৃত ৬৯৫ 

05:15:44 PM

বাংলাদেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ২,৪৮৭ 
বাংলাদেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২,৪৮৭ জন। মৃত্যু ...বিশদ

05:10:04 PM

রাশিয়ায় একদিনে করোনা আক্রান্ত ৫,১৮৯, মৃত ৭৭ 

05:03:12 PM